নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

কেমন জানি খুব বেশি আত্মবিশ্বাসী,ভালবাসি বই পড়তে,তার চেয়েও বেশি ভাল লাগে ঘুরে বেড়াতে,আর কবিতা সে তো টানে আমায় অদৃশ্য সূতোয়।ঘুরেছি পৃথিবীর বহু দেশ, তবুও মন ভরেনি, আবার ও বের হব কোন একদিন পৃথিবীর পথে প্রান্তরে, আর হব আমার লেখা লেখির ফেরিওয়ালা।

মাহবুবুল আজাদ

আমি একদিন অনেক বড় হব আমার সীমানা ছাড়িয়ে azadenet@gmail.com

মাহবুবুল আজাদ › বিস্তারিত পোস্টঃ

ভারত ভ্রমনে যে বিষয়গুলো অবশ্যই খেয়াল রাখা উচিত

০২ রা অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১২:৩৫



ভারত ভ্রমনে কিছু বিষয় খেয়াল রাখা উচিতঃ
ইদানিং কালে ভারতে যাওয়া আসা একদম সহজ হয়ে গেছে, ভিসা জটিলতা কমে গেছে, যখন খুশি মন চাইল চল ঘুরতে যাই, শপিং করতে যাই। সব কিছু সহজ হওয়া সত্ত্বেও বেনাপোল স্থল বন্দর দিয়ে যাবার সময় কিছু কিছু খুঁটিনাটি বিষয় না জানার কারনে কিছু হেনস্থা পোহাতে হয়।
ভারতে যাবার আগে যে সব বিষয় খেয়াল রাখা উচিতঃ
১। আপনার পাসপোর্টে যদি ডলার এন্ডোরস করা থাকে তাহলে অবশ্যই ডলার সাথে রাখবেন, নইলে অযথা আপনার কাছ থেকে টাকা খাবে ভারতীয় ইমিগ্রেশন।
২। সাথে ইন্ডিয়ান রুপি থাকলে কখনোই তা স্বীকার করবেন না, দরকার হলে লাগেজে লুকিয়ে রাখবেন, মানি ব্যাগে রাখবেন না। ওরা এমনই সরকারী ডাকাত আপনার পার্স, মানিব্যাগ নিজেই হাতড়ে টাকা বের করে নিবে। যদিও আইন অনুযায়ী ১০,০০০ রুপি রাখতে পারবেন, কে করে তার কেয়ার, তবে ফ্লাইটে গেলে ভিন্ন কথা।
৩। একদম নতুন নতুন সব কাপড় নিয়ে যাবেন না। এগুলো নিয়েও ঝামেলা করে। ট্যাগ থাকলে তো আরও ঝামেলা।
৪। যারা প্রথমবার যাচ্ছেন তাদের বাংলাদেশ ইমিগ্রেশন অবশ্যই জিজ্ঞেস করে কি করেন, ছুটির কাগজ আছে কিনা, কেন যাবেন। আর যদি কেউ এসব প্রশ্নের সন্মুখিন হতে না চান তবে আমাদের জনতার বন্ধুরা তো আছেই ১০০ টাকা আর পাসপোর্ট ধরিয়ে দিলেই ব্যাস।
৫। যাদের মেডিক্যাল এটেন্ডেন্ট ভিসা তারা ভুলেও রোগী ছাড়া যাবেন না, তাহলে বাংলাদেশ ইমগ্রেশন ই আপনাকে ফিরিয়ে দিবে।
৬। ভিসার মেয়াদ ১ মাস থাকা সত্ত্বেও পুনরায় ভিসার আবেদন করতে পারবেন।
৭। যারা ফেয়ারলি প্যালেস থেকে টিকেট করতে যাবেন তারা অবশ্যই ১২ টার আগে যাবেন। আর এখন থেকে সাথে পাসপোর্টের কপি+ভিসার কপি+ এরাইভাল সিল যে পেইজে আছে তার ফটোকপি নিয়ে যাবেন, নতুবা টিকেট দিবেনা।
৮। ভ্রমণ কর ঢাকায় সোনালি ব্যাংক থেকেই দিয়ে যান, তাহলে বর্ডারে সোজা ইমিগ্রেশনে চলে যেতে পারবেন।
৯। ভারতের ইমিগ্রেশন শেষ হবার পর কারো হাতে পাসপোর্ট আর টাকা ভাঙাতে দিবেন না। যতই বলুক বাসের লোক অমুক তমুক, টাকা ভাঙিয়ে নিয়ে যান, রশিদ লাগবে টাকা ভাঙানোর সব ফালতু, ভুলেও কেউ তাদের কথায় কান দেবেন না।
১০। নিউ মার্কেট এরিয়া বাদ দিয়ে একটু আশে পাশের এলাকায় হোটেল নিন, কম টাকায় থাকতে পারবেন।
১১। কলকাতায় সোহাগ পরিবহনের কাউন্টার থেকে ডলার বা টাকা ভাঙাবেন ভাল রেট দেয় এখন পর্যন্ত আমার অভিজ্ঞতা তাই, ব্যবহার ও ভাল।
১২। বনগাঁ টুঁ শিয়ালদহ লোকালে ২০ টাকায় যেতে পারবেন মাত্র ২ ঘন্টা লাগে, যে খানে তথাকথিত দাদাদের ভলভো বাসে ৪ ঘন্টা লাগে ভাড়া ২৫০-৩০০ টাকা। বর্ডার থেকে ৩০ টাকা অটোতে বনগাঁ স্টেশন।

হ্যাপি জার্নি

মন্তব্য ২৮ টি রেটিং +৭/-০

মন্তব্য (২৮) মন্তব্য লিখুন

১| ০২ রা অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১২:৪৫

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: ভারতে না যাওয়াই ভালো।

০২ রা অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১২:৫০

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: প্রয়োজন বলে কথা, নিতান্ত বাধ্য, না যেতে পারলে তো বেঁচেই যেতাম । আহা কবে যে এমন দিন আসবে আর যাওয়া লাগবে না।

২| ০২ রা অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১:১৫

শাহরিয়ার কবীর বলেছেন: ভাবছি,ভারতে জানুয়ারিতে যাওয়ার......
আশা করি তথ্যগুলো কাজে দিবে ।। ধন্যবাদ শেয়ার করার জন্য ।।

০২ রা অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১:৩৯

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: আন্তরিক শুভ কামনা।

৩| ০২ রা অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১:৪৮

সৈয়দ মশিউর রহমান বলেছেন: ভ্রমন কাহিনী বরাবরই ভালো লাগে।

০২ রা অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ২:২১

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: কাহিনী তো লিখতে পারিনি, শুধু কিছু দরকারি বিষয় লিখলাম। আশা করি পরবর্তীতে লিখব।

ভাল থাকবেন।

৪| ০২ রা অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ২:৩১

লেখা পাগলা বলেছেন: ভালো কথা ।

০২ রা অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৩:১০

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: ভাল লাগল :)

৫| ০২ রা অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৩:১৮

অরন্যে রোদন - ২ বলেছেন: আপনি হয়তো দেখেননি, পেট্রাপোল ইমিগ্রেশনের দেয়ালে বড় করে লেখা আছে "বিদেশী নাগরিক দ্বারা ভারতীয় মুদ্রা নিয়ে আগমন - বহির্গমন নিষিদ্ধ। No foreigners are allowed to carry Indian currency during Departure or Arival. ভারতীয় কর্ত্রপক্ষ এর মতানুযায়ী, জাল ভারতীয় মুদ্রা পাচারের সবচে বড় গেটওয়ে হলো বাংলাদেশ।

০২ রা অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৩:২৫

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: নিষিদ্ধ কি শুধু পেট্রাপোলের জন্য , আমার সঠিক জানা নেই। এয়ারপোর্ট দিয়ে গেলে তো কেউ কিছু বলেনা, অনেকে বলে নেয় যে রুপি আছে, তারপরও কিছু বলেনা, আসল কথা হচ্ছে ঝামেলা করার ধান্দা।
দেখেন কাস্টম ডিক্লিয়ারেশন ফরমঃ



৬| ০২ রা অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৪:০৩

রাজীব নুর বলেছেন: সহজ সরল নিয়ম কানুন কোথাও নেই।

০২ রা অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৪:১৭

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: এক সময় সবই সহজ ছিল। এখন দিন দিন মানুষ গুলো বদলে যাচ্ছে।

৭| ০২ রা অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৪:১৫

শাহেদ খান বলেছেন: প্রয়োজনীয় এবং উপকারী পোস্টের জন্য ধন্যবাদ!

ভাল লাগা এবং শুভকামনা জানবেন!

০২ রা অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৪:১৭

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: আন্তরিক শুভেচ্ছা রইল।


ভাল থাকুন সবসময় ।

৮| ০২ রা অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৫:২৮

বিএম বরকতউল্লাহ বলেছেন: গুরুত্বপূর্ণ ও দরকারী পোস্ট।
আমার শুভেচ্ছা আর অভিনন্দন রইল।

০২ রা অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৫:৪৪

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ । ভাল লাগল ।

৯| ০২ রা অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৩৯

নীরদ অর্ণব বলেছেন: ভারতসহ বিশ্বের নানা দেশ ভ্রমণের শখ অনেকদিনের। কিন্তু টাকার অভাবে পারছি না।
আপনার পোস্ট আরো ডিটেইলসে হলে ভালো হত।

০২ রা অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৫৩

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: আপনার মন্তব্যে কিছুটা অনুপ্রেরণা পেলাম। আশা করি লিখব ।

১০| ০২ রা অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:১৫

এম ডি মুসা বলেছেন: ভাল দিক ।

০২ রা অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১০:১৭

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: ধন্যবাদ

১১| ০৩ রা অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১২:১৯

সুমন কর বলেছেন: কাজের পোস্ট। শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ।

০৩ রা অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৭:১০

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: ধন্যবাদ :)

১২| ০৪ ঠা অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:১৪

আবু আফিয়া বলেছেন: আমি বেশ কয়েকবার গিয়েছি, বিষয়গুলোর সাথে একমত, আশা করি অনেকের উপকার হবে, লেখককে ধন্যবাদ।

০৪ ঠা অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:৩২

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: আপনাকেও অনেক ধন্যবাদ।

১৩| ১৫ ই অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১:১৩

কালীদাস বলেছেন: ইন্ডিয়ায় যাওয়া নিয়ে ডলার এন্ডোর্সমেন্ট নিয়ে কেরফা ছিল কিছু যতদূর মনে পড়ে। সার্কের দেশগুলোতে ট্যুরিস্ট ভিসায় ট্রাভেলের জন্য কোনভাবেই ব্যাংকওয়ালারা ২০০ ডলারের বেশি এন্ডোর্স করতে রাজি হয়নি। কাজেই না চাইলেও আইন ভাঙতে হয় লোকজনকে, যতদূর জানি বেশ কিছু এম্বেসি অনেক দিন ঝুলিয়ে রাখে ডিসিশন দিতে।

১৫ ই অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:২৪

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: ডলার নিয়ে ঝামেলা করেই। এইটা ওদের জাত অভ্যাস।

১৪| ১৭ ই অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ৮:৫৪

খায়রুল আহসান বলেছেন: পরোপকারী পোস্ট। অনেক প্রয়োজনীয় তথ্য উপাত্ত দিয়েছেন, যা অনেক পাঠকেরই ভবিষ্যতে কাজে লাগতে পারে বলে মনে করি।
প্লাস এবং "প্রিয়"তে।

১৭ ই অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ১০:৫৮

মাহবুবুল আজাদ বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ। সবটাই ব্যক্তিগত ও অন্যদের অভিজ্ঞতার আলোকে লেখা। আসলেই অনেক সমস্যায় পড়তে হয় সামান্য কিছু না জানার কারনে। আশা করি অনেকের উপকার হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.