নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

www.facebook.com/abdur.sharif

আবদুর রব শরীফ

বাধা বিঘ্ন না পেরিয়ে বড় হয়েছে কে কবে?

আবদুর রব শরীফ › বিস্তারিত পোস্টঃ

আমাকে স্যার ডাকিতে বাধ্য থাকিবেন

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১২:১৯

বায়জিদ জামান হোটেলের ছেলেটি বললো, 'স্যার কি খাবেন? সাদা ভাত, মাছ, সবজি, বিরিয়ানী, বিফ, মাটন, চিকেন.....!'
.
ছেলেটি গুণে গুণে নয় বার স্যার ডাকলো
.
মাঝে মাঝে স্যার ডাক শুনতে ইচ্ছে করলে আমি হয়তো জুতোর শো রুমে নয়তো ভালো রেস্টুরেন্টে ঘুরে আসি!
.
খাওয়া শেষে দশ টাকা বকশিশ দিয়ে বললাম এক টাকা ফেরত দিতে! সে তো হা করে তাকিয়ে আছে!
.
হোটেল বয় হয়তো এমন ঘটনার সাথে পূর্বে পরিচিত হয়নি!
.
আমার অভিজ্ঞতা আছে! চট্টগ্রাম এক্সপোর্ট প্রসেসিং জোনের সামনে এক ভিক্ষুককে একবার দুই টাকা দিয়েছি সে এক টাকা ফেরত দিয়েছে!
.
পরে জানলাম ভিক্ষুকটি এক টাকার বেশী ভিক্ষা নেয় না!
.
চট্টগ্রাম অভয়মিত্র ঘাট যেটা নেভাল টু নামে পরিচিত সেখানে এমন আরেকটি উল্টো অভিজ্ঞতা হয়েছিলো!
.
এক ভিখারিনীকে পাঁচ টাকা দিলাম সে ফেরত দিয়ে বললো দশ টাকা ছাড়া সে ভিক্ষা নেয় না!
.
ভাব এমন পাঁচ টাকা আমাকে ভিক্ষা দিয়ে সে রাণীর হালে চলে গেলো!
.
ঐ যে হোটেলের কথা বললাম,
.
নয় টাকা বকশিশ দিয়ে এক টাকা ফেরত দিতে বলাতে সে বললো, স্যার এক টাকা ভাংতি নাই!
.
যাক দশবার হয়েছে! বললাম দশ টাকায় রেখে দাও! আমার হিসেব আমি বুঝিয়া পেয়েছি!
.
মূল কথা আমার দশ বার স্যার ডাক শুনতে হবে!
.
আমাদের সমাজে আমার মতো অনেকে আছে যারা স্যার ডাক শুনতে বদ্ধপরিকর!
.
দরকার হলে মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে বলবে, স্যার ডাকবি কি না বল?
.
কিছুদিন আগে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ২য় শ্রেনীর কর্মচারী ব্রাদার ইলিয়াসকে আহত রোগীর স্বজনরা স্যার না ডাকায় রোগীর স্বজনদের লাঞ্চিত করা হয়েছিলো!
.
কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কিছুদিন আগে চলচিত্র নির্মাতা এবং নাট্যকার মাহমুদ দিদারকে স্যার না ডাকায় দশ হাজার টাকা জরিমানা করেছিলো!
.
স্যার না ডাকার কারণে কত জন কত কিছু করে তার ইয়ত্তা নেই!
.
কিন্তু যাদের হৃদয় থেকে স্যার ডাকা হয় তাদের অনুভূতিগুলো কেমন আসেন দুটি উদাহরণ টেনে আনি
.
বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা আব্দুল্লাহ আবু সায়ীদ স্যার একবার ইয়ার্কি করে বলেছিলেন, ভাগ্যিস বাবা মারা গেছে বেঁচে থাকলে তিনিও আমাকে স্যার ডাকা শুরু করতেন! সুতরাং আমাকে স্যার না ডাকলেও চলবে
.
একদিন জনপ্রিয় লেখক সমরেশ মজুমদারকে এক মেয়ে ফোন করে বললো, 'স্যার আমি আলিপুরদুয়ারের মেয়ে, কলকাতা কলেজে পড়ি! আপনার সব বই পড়েছি.......!'
.
সমরেশ মজুমদার উত্তর দিলেন, 'প্রথমত আমাকে স্যার ডাকবেন না দরকার হলে কাকা জ্যাঠা যা ইচ্ছে ডাকতে পারেন!'

মন্তব্য ১০ টি রেটিং +০/-০

মন্তব্য (১০) মন্তব্য লিখুন

১| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১২:৫৪

ইসমাঈল আনিস বলেছেন: বিনে পয়সায় একবার ডেকে দিচ্ছি “স্যার”৷

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ১১:৫০

আবদুর রব শরীফ বলেছেন: এই নেন এক টাকা বকশিশ

২| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১:৩৪

কানিজ রিনা বলেছেন: জীবনে স্কুল কলেজের টিচার ছারা কাউকে
স্যার ডাকি নাই। ডিসি সাহেব, এসপি সাহেব
ওসি সাহেব হাসপাতালের বড় ডাক্তাকে
ডাক্তার সাহেব বলতে কোনও সংকোচ বোধ
করি নাই। একজন স্পেশাল জজকে জজ
বলে সম্মধোন করায় মুখের দিকে তাকিয়ে
হেসে হেসে বললেন সাহসী মেয়ে বটে।
ধন্যবাদ।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ১১:৫১

আবদুর রব শরীফ বলেছেন: স্যার কি আর সেই স্যার আছে! স্যার এখন জাস্ট এ ওয়ার্ড!

৩| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১:৪৪

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: কলেজে থাকতে ২য় শ্রেণীর কর্মচারীকেও স্যার ডাকতে হয়েছে কাজ আদায় করার জন্য...

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ১১:৫২

আবদুর রব শরীফ বলেছেন: কত পিয়ন কে ও স্যার ডাকতে হয় মাইনকার চিপায় পড়লে

৪| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৭ রাত ১:৫৪

মলাসইলমুইনা বলেছেন: আমি মনে হয় আপনাদের অনেকের তুলনায় হতভাগ্য | বাংলাদেশের একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে কিছুদিন পড়ানোর অভিজ্ঞতা আমার আছে | আমার ছাত্ররা আঞ্চলিকতার কারণেই মনে হয় আমাকে চ্যার বলতো -স্যার খুব একটা বলেনি | চিরে চ্যাপ্টা হবার আগেই তাই সে অধ্যায় শেষ !! এখন ভালোই আছি | আমাকে কেও স্যার ডাকেনা, আমিও না |

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৭ সকাল ১১:৫৩

আবদুর রব শরীফ বলেছেন: স্যার ডাক শুনতে তো ভালো লাগার কথা তাই না!

৫| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১২:৪১

লর্ড অফ দ্য ফ্লাইস বলেছেন: সরকারি প্রতিষ্ঠানে নয়া ট্রেন্ড হচ্ছে নারীদের স্যার সম্বোধন করা। ম্যাডাম বললে তারা মাইন্ড করে বসেন। আমার আফসোস হয় ইনাদের সন্তানদের জন্য, মাকেও আব্বা ডাকা লাগে।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৭ দুপুর ১:২৩

আবদুর রব শরীফ বলেছেন: কি বলেন! কখন থেকে!

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.