নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

ভুয়া মফিজ

ভুয়া মফিজের সাথে ভুয়ামি না করাই ভালো...

ভুয়া মফিজ › বিস্তারিত পোস্টঃ

একটি সহজ সরল জীবনের গল্প

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ১০:৪০




- কি নাম?
- জ্বী….তারেক সীফাত।
- তোমরা কি দুই ভাই?
- জ্বী।
- দু’জনের নাম তো একসাথে জিজ্ঞেস করি নাই। তোমার নাম কি? তারেক না সীফাত?
- এই……পুরোটাই আমার নাম।
- এই নাম কে রেখেছে? নামের শেষে পদবী থাকতে হয়। তোমাদের পদবী কি সীফাত? আমার বয়স ৫৭ ছুই ছুই; এমন পদবী কস্মিনকালেও শুনি নাই।

কি বলবো? বলার মতো কিছু খুজে পাচ্ছি না। বসে বসে কুল কুল করে ঘামছি। এই রুমের এসি মনে হয় ঠিকমতো কাজ করে না। লাবনী আমাকে এই রকমের একটা ঝামেলায় ফেলবে চিন্তাও করি নাই। লাবনী নামটা এখন আমার কাছে মোটেও লাবন্যময় মনে হচ্ছে না। আমাকে এখানে, ওর বাবার সামনে বসিয়ে দিয়ে সে ভেগেছে। উদ্ধারের আশায় বারে বারে দরজার দিকে তাকাচ্ছি, কিন্তু লাবনীর টিকিটাও নজরে পরছে না। হঠাৎ মাথায় চিন্তা এলো, আচ্ছা, লাবনীর কি টিকি আছে? না, তা কি করে হয়, ওতো উচু করে পনিটেইল বাধে। অবশ্য আশেপাশে চুল না থাকলে ওটাকেই একটা টিকি হিসাবে ধরে নেয়া যায়। এসব সাতপাচ ভাবনার মধ্যেই আরেকটা প্রশ্ন ধেয়ে এলো আমার দিকে।

তুমি কি কোন রকমের নেশা-টেশা করো?

এর মধ্যেই ঝড়ের বেগে লাবনী ঘরে ঢুকলো। বাবা, বড় ফুপ্পি ফোন করেছে। তোমাকে ডাকছে। কি নাকি জরুরী কথা আছে তোমার সাথে।

সামাদ সাহেব হাতের দৈনিকটা রেখে উঠে দাড়ালেন। চশমার উপর দিয়ে আমার দিকে তাকিয়ে বললেন, তুমি বসে থাকো, নড়াচড়া করবে না একদম। আমি আসছি।

লাবনী তার গালে টোলপরা বিখ্যাত হাসি দিয়ে আমার দিকে তাকিয়ে বললো, তুমি তো দেখি একেবারে গোসল হয়ে গিয়েছো। এতো ভয় পেলে আমাকে বিয়ে করবে কিভাবে? চলো, বের হই।

ওর এই টোল পরা হাসিটা দেখলে আমার সব টেনশান মূহুর্তে দূর হয়ে যায়। বললাম, তোমার বাবাতো আমাকে বসতে বলে গিয়েছেন। এখন যাবো কিভাবে?

আরে দূর! লাবনী হাত দিয়ে মশা তাড়ানোর ভঙ্গি করলো। বড় ফুপ্পিকে আমিই ফোন করেছিলাম। উনি সব জানেন। উনিই বাকীটা ম্যানেজ করবেন। তোমার সাথে শুধু বাবার মোলাকাত করানোর দরকার ছিল। ব্যস, আর কিছু না। বসে বসে ঘামাটা তোমার বোনাস। চলো এখন।

এই হচ্ছে লাবনী। আমার প্রেমিকা। আমি এখনকার ছেলেপুলেদের মতো গার্লফ্রেন্ড টার্লফ্রেন্ড বলি না। না, ভুল বুঝবেন না। আমিও এ’যুগেরই ছেলে, শুধু চিন্তা-চেতনায় একটু আলাদা, এই আর কি। গার্লফ্রেন্ড মানে হলো মেয়েবন্ধু। সে আমার আরো আছে। তাই বলে ওদের সবার সাথে তো আর আমি প্রেম করি না। যার সাথে প্রেম করি, সে আমার প্রেমিকা। সোজা হিসাব।

লাবনীর সাথে আমার প্রথম পরিচয়টাকে নাটকীয় বলা যায় কিনা, আমার সন্দেহ আছে। আপনাদেরকে বলি, আপনারাই বিচার করেন।

আজ থেকে তিন বছর আগের কথা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স শেষ করেছি মাত্র। কিছুদিনের মধ্যেই মাস্টার্সের ক্লাশ শুরু হবে। এক বন্ধুর সাথে দেখা করতে এনেক্স ভবন যাচ্ছিলাম। টিএসসির সামনে হালিমওয়ালাকে দেখে দাড়ালাম। টিএসসির সামনে হালিমওয়ালার উপস্থিতি সচরাচর চোখে পরে না। বললাম, মামা, এক বাটি। টক ঝাল বেশী কইরা দিবা। চোখের পানি নাকের পানি য্যান এক্কেরে এক হয়া যায়। বুঝছো নি, কি কইলাম! মামা সবজান্তার মতো বড় করে মাথা দোলালো। বুঝেছে। এমন সময় শুনি কে যেন ফ্যাচ ফ্যাচ করে হাসছে। শব্দের উৎস অনুসরন করে দেখলাম, হালিমের বিশাল হাড়িটার ওপাশে একটা পনিটেইল দেখা যায়। গলা একটু লম্বা করে দেখি, এক মেয়ে হালিম খাচ্ছে। আমাকে দেখে মুখে হাত দিল।

বললাম, আপনিই কি এমন বিশ্রীভাবে হাসছিলেন? মেয়েটা হাল্কা করে মাথা ঝাকালো। চরম বিরক্তি নিয়ে বললাম, হাসির কারনটা জানতে পারি?

মেয়েটা আমাকে পাত্তা না দিয়ে হালিমওয়ালাকে বললো, মামা, আমারেও আরেক বাটি। টক ঝাল বেশী কইরা দিবেন। চোখের পানি নাকের পানি য্যান এক্কেরে এক হয়া যায়। বুঝছেন নি, কি কইলাম!

মেয়েটার কাজ-কারবার দেখে রাগে হতবাক হয়ে গেলাম। এ দেখি আমাকে নকল করে! রাগ চেপে বললাম, কি হলো, বললেন না হাসির কারন?

মেয়েটা এবার মুখ থেকে হাত সরিয়ে বললো, ভাইয়া, রাগ করবেন না। আমার দাদী বলতেন, ছেলেরা বেশী টক খেলে বুদ্ধি কমে যায়। সেজন্যে হাসছিলাম….হি হি হি।

মেয়েটার চলনসই ফর্সা মুখটার দিকে তাকিয়ে একেবারে চিৎপটাং হয়ে গেলাম। কি সুন্দর টোল পরেছে দুই গালে। আমার সারাজীবনের লালিত স্বপ্ন একটাই। টোলপরা গালওয়ালা কোন একটা মেয়ের সাথে প্রেম করবো। দেখতে দেখতে ভার্সিটির জীবন শেষ হয়ে যাচ্ছে, কিন্তু এখনও তেমন কাউকে পেলাম না। বললাম, শুধু ছেলেদেরই বুদ্ধি কমে? মেয়েদের কমে না?

না, মেয়েরা টক-প্রুফ। তাদের কিছুই হয় না।


সপ্তাহ দুই পরের কথা। মধুর ক্যান্টিনের সামনে খুব গন্ডগোল হচ্ছে। বিকট শব্দে দু’টো ককটেলও ফুটলো। আমি কেন্দ্রিয় লাইব্রেরী থেকে মাত্র বের হয়েছি, যাবো আমার ফ্যাকাল্টিতে, কমার্স ফ্যাকাল্টি। মধুর ক্যান্টিনের সামনে দিয়েই যাওয়া দরকার, তবে নিরাপদ না। তাই একটু ঘুরে ডাকসু ভবনের সামনে দিয়ে ক্যাম্পাস শ্যাডোর দিকে চলে এলাম। দেখি সেদিনের সেই মেয়েটা বেকুবের মতো বিকারহীনভাবে মধুর ক্যান্টিনের দিকেই যাচ্ছে। কাছে গিয়ে বললাম, ওদিকে কই যান। শব্দ শোনেন নাই, গন্ডগোল হচ্ছে!

মেয়েটা বললো, কিন্তু আমাকে নিতে বাবা গাড়ী পাঠাচ্ছে। আমি বলেছি, মসজিদের সামনের গেটে আসতে!

আমি বললাম, এখুনি ফোন করে নিষেধ করে দ্যান। গাড়ী এখন না আসাই ভালো। আপনি মনে হচ্ছে নতুন? কোন ফ্যাকাল্টি?

এরমধ্যেই পর পর আরো কয়েকটা ককটেল ফুটলো আর দেখি মধুর ক্যান্টিনের দিক থেকে ছাত্র-ছাত্রীরা পড়িমড়ি করে এদিকেই ছুটে আসছে। ক্যাম্পাসের অতি-পরিচিত দৃশ্য! মেয়েটা নতুনই হবে, দেখলাম প্রচন্ড ভয় পেয়েছে। ওকে নিয়ে ভিসির বাংলোর সামনে চলে এলাম। এর মধ্যেই ওর বাবাকে বিষয়টা জানালো। পর পরই ওর মায়ের ফোন। লাবনীর কাছে সব শুনে ওর মা আমাকে বললো, বাবা, তুমি একটু কষ্ট করে ওকে বাসায় নিয়ে আসো। মেয়েটা নতুন ভর্তি হয়েছে। এসব কোনদিন দেখেনি!

এরপর আর কি! নাম জানলাম, বাসা চিনলাম। আমাদের ফ্যাকাল্টি একই, শুধু ডিপার্টমেন্ট আলাদা। ধীরে ধীরে আমার কাংখিত প্রেমও হয়ে গেল। অত্যন্ত মসৃণ গতিতে আমাদের প্রেম এগিয়ে চললো। একেবারে যাকে বলে ''স্মুথ এজ সিল্ক''! এর মধ্যে আমি পাশ করে বের হলাম, একটা চাকুরীও জুটিয়ে ফেললাম। সমস্যা শুরু হলো গতমাসে। যখন লাবনীর বাবা লাবনীকে জানালো যে, উনার এক বন্ধুর ছেলেকে উনার খুবই পছন্দ। ছেলে জার্মানীতে পড়ালেখা শেষ করে ওখানেই ভালো চাকুরী করছে। আগামী মাসে দেশে আসবে বিয়ে করতে। কথাবার্তা মোটামুটি ফাইন্যাল।

লাবনীর জরুরী কল পেয়ে অফিস থেকে মিথ্যা কথা বলে বের হয়ে এসেছি। এখন বসে আছি রেজিস্ট্রার বিল্ডিংয়ের সামনের মাঠে। বাবার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দিয়ে ও এখন বসে বসে একমনে ঝালমুড়ি চিবুচ্ছে। চেহারায় কোন হেলদোল নেই। আর ধৈর্য রাখতে পারলাম না। বললাম, নির্বিকারভাবে ঝালমুড়ি খাচ্ছো যে বড়? এখন কি করবা?

কি আর করবো। ইউরোপের কোন একটা দেশে সেটল হওয়ার আমার খুব শখ। জার্মানী দেশটাও খারাপ না, কি বলো? ইউরোপের মধ্যেই তো। সমস্যা শুধু একটাই। নতুন একটা ভাষা শিখতে হবে। তুমি তো ইউরোপে সেটল হতে পারলা না। আফসোস!!

রাগে চিড়বিড় করে উঠলাম আমি। এতোদিন তাহলে আমার সাথে অভিনয় করেছো? আমি তো কোনদিন স্বপ্নেও ভাবি নাই, তোমার সাথে প্রতারণা করার কথা! আর এখন এক জার্মানী দেখেই তোমার মাথা ঘুরে গেলো!

তোমাদের, ছেলেদের নিয়ে এই এক সমস্যা। প্র্যাকটিক্যাল চিন্তা একেবারেই করতে পারো না। তোমার সাথে যখন প্রেম করেছি, তখন তো এই অফার ছিল না, তাই না! তোমার চেয়ে ওই ছেলে যে ভালো এটা কি তুমি অস্বীকার করতে পারো? তাহলে বোঝাও, কোন যুক্তিতে আমি তোমাকে বিয়ে করবো? মুচকি হেসে বললো লাবনী।

ওই ছেলে তোমাকে আমার মতো ভালোবাসতে পারবে? আর তোমার মনে যদি এই ছিল তাহলে তোমার বাবার সাথে দেখা করার জন্য জোরাজুরিই বা করেছিলে কেন? আর দিশামিশা না পেয়ে বললাম। ইচ্ছে করছে বেইমানটার টোলপরা গালে কষে একটা চড় মেরে এখান থেকে চলে যাই।

আমার কথা শুনে রীতিমতো বিরক্ত হলো যেন লাবনী। বললো, বাংলা সিনেমার ডায়লগ দিও না তো! ভালো লাগে না শুনতে। দুনিয়াতে এমন কোন ছেলে পয়দা হয় নাই যে আমাকে ভালোবাসবে না।

এই নির্লজ্জ মেয়েমানুষটার সামনে আর এক মুহুর্তও বসে থাকতে ইচ্ছা করছে না আমার। লাবনী বসে বসে মোবাইলটা নাড়াচাড়া করছিল, হঠাৎ বেজে উঠলো ওটা। একমিনিট দাড়াও, বলে একটু দুরে সরে গিয়ে ফোনটা রিসিভ করলো ও। উঠে দাড়ালাম। সম্ভবতঃ ওই জার্মান বদমাশটা। সকাল-বিকাল, যখন-তখন নাকি ফোন করে! এখানে বসে থাকার আর কোন মানে নেই। ঘুরে হাটা দিলাম। নিজেকে ক্লান্ত, বিধ্বস্ত লাগছে। মুহুর্তের মধ্যে দুনিয়াটা কেমন বদলে গেল আমার!

-------------------------------------------------------------------------------------------------------------

পেছন থেকে কে যেনো হাতটা টেনে ধরলো। তাকিয়ে দেখি, লাবনী। মিটিমিটি হাসছে বেহায়া মেয়েটা। বললো, কই যাও? বাবা কিন্তু তোমাকেই তার মেয়ের জামাই হিসাবে মেনে নিয়েছে। গতকালই আম্মুকে গ্রীণ সিগন্যালও দিয়ে দিয়েছে। পুরাপুরি বিভ্রান্ত হয়ে বললাম, তাহলে এখন ফোন করলো কে?

কেউ না। তোমাকে ক্ষেপানোর জন্য এলার্ম সেট করে রেখেছিলাম, ওটা সেই এলার্মেরই টোন ছিল। তোমাকে কি খুব বেশী রাগিয়ে দিয়েছি?

একটা স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলে একদৃষ্টিতে তাকিয়ে রইলাম বজ্জাত মেয়েটার দিকে। একে বিয়ে করলে এই মেয়ে যে আমার জীবনটাকে ফানা ফানা দিবে, এতে কোন সন্দেহই নাই। কিন্তু ভালোবেসে ফেলেছি যে! উপায়ও তো নাই কোন আর; বিয়ে করলে এখন একেই করতে হবে। সমস্যা একটাই, এই মেয়ে চাইলেই আমার রঙ্গীন দুনিয়াকে সাদাকালো, কিংবা সাদাকালো দুনিয়াকে রঙ্গিন করে তোলার ক্ষমতা রাখে। এমন ক্ষমতাশালী একজনের সাথে ঘর-সংসার করা কি ঠিক হবে?

বললাম, আর কখনও….কোনদিনও আমার সাথে কোনধরনের ফাজলামো করবা না।

ভুবনভোলানো একটা হাসি দিয়ে লাবনী আমার বাকী হাতটাও ধরলো। বললো, তুমি কি আমার বস? মাঝে মধ্যে তো অবশ্যই করবো। তুমি কিন্তু রাগ করতে পারবা না। ইন ফ্যাক্ট, কখনও….কোনদিনও আমার সাথে কোনধরনের রাগ করতে পারবা না তুমি!!!



কিছুকথাঃ অনেকদিন থেকেই মনে একটা সুপ্ত বাসনা নিয়ে আছি। একটা সহজ সরল প্রেমের গল্প লিখবো। কিন্তু মাথায় শুধু যাবতীয় জটিল চিন্তা ভাবনা আসে। হঠাৎ করেই এটা লিখে ফেললাম। আসলে কি সহজ সরল হলো? বিচারের ভার আপনাদের উপরেই দিলাম।


ছবিটা নেট থেকে ধার করা।।

মন্তব্য ৬৯ টি রেটিং +১৯/-০

মন্তব্য (৬৯) মন্তব্য লিখুন

১| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ১১:০৩

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: প্রথম স্থান দখল করে গেলাম......
প্রথম স্থান দখল করে গেলাম......

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ১১:১৪

ভুয়া মফিজ বলেছেন: প্রথম স্থান দখল করে গেলাম...... দুইবার বলার দরকার নাই, একবার বলাই যথেষ্ট! =p~

অভিনন্দন। এইবারের খাবারটা ভালো, আমার প্রিয় খাবার। আরাম করে খাই। আপনে ধীরে-সুস্থে পড়েন। :)

২| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ১১:১৮

আরোগ্য বলেছেন: ভুয়া ভাইয়ের সহজ সরল প্রেম আখ্যান ভালো লাগলো।

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ১১:৩৩

ভুয়া মফিজ বলেছেন: যাক, শান্তি পেলাম আপনাকে কিছুটা ভালো লাগা দিতে পেরে।
চারিদিকে এতো অশান্তির মধ্যে এই বা কম কি!! :)

৩| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ১১:৫৯

জুন বলেছেন: এই লাবনী নিয্যেস (নির্ঘাৎ) আমার ছুডু ভাইয়ের বৌ B-)
এত ঝাড়িঝুরি মার্তেছে, শর্ত দিতেছে যখন তখন সে ভুয়া ভাবী না হয়েই পারে না :P
গল্প মারাত্নক হয়েছে । পুরোটা গোগ্রাসে পড়লাম ।
+

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১২:০৩

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আমি কিন্তু আপনের ছুডু ভাইয়ের বৌরে চিনি না কইলাম। :P

আপনের মারাত্নক লাগাতে বুকে বল পাইলাম। তাইলে দেখা যায়, সহজ সরল গল্প লেখতে পারি..... =p~

৪| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১২:২৯

আখেনাটেন বলেছেন: জুনাপুর মতোই বলি, 'এত শর্ত মার্তেছে ক্যারে'। :(

কবি ম্যাকবেল পাটোয়ারী বলেছেন, 'টোল পড়া হাসি দেখে পা ফসকাইও না যুবক। নইলে সারাজীবন ব্রিজের মতো টোলের জমা দিতে দিতে ফতুর হয়ে যাবে কয়ে দিলুম।' :P

ভাল্লাগছে জটিল কুট্টুস। :P

*তয় একটি প্রশ্ন: ভুয়া মফিজেরও কি ওরকম ঘাম ঝরছিল নাকি মাইয়ার বাপের...মনে ক্যান জানি সন্দেহ খোট মারে। =p~

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১:১৬

ভুয়া মফিজ বলেছেন: এই কবি ম্যাকবেল পাটোয়ারী কিডা, এরে তো চিনা চিনা লাগে না! তয় কথা কইলাম মন্দ কয় নাই। ;)

ভুয়া মফিজ হইলো প্রকৃত বীরপুঙ্গব। মাইয়ার বাপেই ঘামছিল......এই 'ভিনি, ভিডি, ভিসি'রে কেমনে ঠেকাইবো এই চিন্তা কইরা! :P

৫| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১২:৫৯

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: সহজ সরল সুন্দর গল্প আসলেই

আপনার কাহিনী নি কিতা, কইন না ক্যারে....। ভাবীর গালে ঠোল থুক্কুত টোল পড়েনি ... হাহাহহা

খুব সুন্দর গল্প

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১:২৪

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আমি পরছি মহা জ্বালায়, ''আমি'' দিয়া গল্প লেখলে মাইনসে কয় এইটা আমার নিজের ঘটনা; এইবার ''তারেক সীফাত'' নাম দিছি....তাও কয় এইটা বলে আমারই ঘটনা। কই যাই, কন দেহি?? :((

আইজকাই আপনের ভাবীর গাল চেক কইরা দেখুমনে, টোল পরে নি কোনো!! :P

৬| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১:০৪

মাহমুদুর রহমান সুজন বলেছেন: বাহ বাহ বেশ সুন্দর একটি মিষ্টি গল্প হয়েই গেল। এখন শুধু হালুয়া বাটুয়ারা দরকার।

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১:২৬

ভুয়া মফিজ বলেছেন: এখন শুধু হালুয়া বাটুয়ারা দরকার। ওকে.....যথাসময়ে আপনাকে খবর দেয়া হবে। :)

৭| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১:০৭

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: আসলেই সহজ সরল মিষ্টি প্রেমের গল্প। + +

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১:২৯

ভুয়া মফিজ বলেছেন: অনেক অনেক ধন্যবাদ আপনাকে।

আসলেই সহজ সরল মিষ্টি প্রেমের গল্প। আমিও এমনটাই লিখতে চেয়েছি। শান্তি পেলাম। :)

৮| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১:১২

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রিয় মফিজ ভাই,


প্রথমে ভেবেছিলাম নিপাট ক্যাম্পাস জীবনের গল্প। কিন্তু ফুটনোট এসে বুঝলাম অতীব সত্য একটি ঘটনা তুলে ধরেছেন। ঘটনা যার জীবনেই হোক, পড়ে চরম বিনোদন পেয়েছি।++
গল্পে যদি জীবনের রং মিশে থাকে তাহলে সেটা অন্য মাত্রা পায়। পাঠককে আহ্লাদী করে তোলে গল্প পাঠের সঙ্গে সঙ্গে। জুনাপুর মতো আমি সত্যি কথা সামনাসামনি বলতে পারি না। কাজেই পিছন থেকে আপনার কানে ফিসফিস করে বললাম। আশা করি আপনি আমি ছাড়া আর কেউ দেখতে পাবে না। ভাবির জন্য অনেক অনেক শুভকামনা রইল।। তবে গল্পকারকে যে রীতিমতো রসময় করে তুলেছে সে কথা বলা বাহুল্য। হাহা হা.....

পোষ্টে ষষ্ঠ লাইক।

শুভকামনা জানবেন।

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১:৩৬

ভুয়া মফিজ বলেছেন: কিন্তু ফুটনোট এসে বুঝলাম অতীব সত্য একটি ঘটনা তুলে ধরেছেন। আরে মর জ্বালা, ফুটনোটে এই কথা কখন বললাম? :(

জুনাপুর মতো আমি সত্যি কথা সামনাসামনি বলতে পারি না। আরে বলেন বলেন, আপনি আর বাদ থাকবেন কেন। B-))

ভাবছি, এইবার একটা বিরহের গল্প লিখবো। দেখি, আপনারা কি বলেন। এট লিস্ট, আপনাদেরকে তো কনফিউজড করে দেয়া যাবে! আইডিয়াটা খারাপ না একেবারে.....কি বলেন? :P

আপনার মন্তব্যে মজা পেলাম। :)

৯| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১:৩১

আখেনাটেন বলেছেন: লেখক বলেছেন: এই কবি ম্যাকবেল পাটোয়ারী কিডা, এরে তো চিনা চিনা লাগে না! -- হুম; শীঘ্রই উনাকে চিনবেন।

উনি বিখ্যাত গরুর দালাল ছাতন ব্যাপারীর একমাত্র আন্ডারমেট্টিক পোলা। বাতাসুর চাচাতো ভাই। উঠতি মডেল পরীবেগম চিকনিকোমর'র ইয়ে। ম্যালা অকাম কুকামের জন্য ছাতন ব্যাপারী বাড়ির চারপাশে ১৪৪ ধারা জারি করে রেখেছে। তাই মহাকবি হওয়ার লালিত স্বপ্নে এখন আত্রাই নদীর তীরে টং ঘরে বসবাস করে এলাকার পোলাপানকে ফেসবুকে কীভাবে মারদাঙ্গা কাব্য কণিকা ও স্টেটাস পোস্ট করা যায় সে ব্যাপারে তালিম দিচ্ছেন কবি ম্যাকবেল পাটোয়ারী। তারই একটি স্টেটাস আমি গুপুনে মেরে দিলুম। এবার চিনচুন। :P

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১:৪২

ভুয়া মফিজ বলেছেন: সব শুইনা আমার তো মাথা ঘুরাইতেছে। একবার মনে হয় চিনি...........আবার মনে হয় চিনিনা। থাক, এতো কষ্ট কইরা চিননের কাম নাই। টংঘর থিকা বাইর হউক আগে, তারপরে দেখুম নে! B-)

১০| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১:৩৮

নীল আকাশ বলেছেন: দূর ভাই, শেষমেষ এত ভুয়া কাম করলেন। একটা দুইগালে টোল পড়া মেয়ের ছবি দেবেন, না দিয়েছেন কি? পুরাই ভুয়া কাম? সাধে আপনার নাম ভুয়া।
মেয়েদের টোল পড়া গাল দেখলে সেখানে প্রেমের সাঁতার কাটতে ইচ্ছে করে।
লাবনী নামটা দেখে হাসি পাচ্ছে। কেন পাচ্ছে সেটা আমার নেক্সট গল্পেই টের পাবেন।
সহজ সরল গল্প পছন্দ হয়েছে।

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১:৫২

ভুয়া মফিজ বলেছেন: গালে টোল পড়া মেয়ের ছবি নেটে কতো আছে.....আমার কষ্ট করে দেয়ার দরকার কি? আমি না হয় একটা দিলামই, কিন্তু আপনি চাইলে শত শত নিজেই দেখতে পারেন। :D
লাবনী নামটা দেখে হাসি পাচ্ছে। কেন? আপনার নেক্সট গল্পে এই নামে কমেডিয়ানের কোন চরিত্র আছে নাকি? :P

আচ্ছা, অপেক্ষাই করি বরন্চ। অপেক্ষার ফল মিষ্টি হওয়ারই কথা।

সহজ সরল গল্প পছন্দ হয়েছে। ধন্যবাদ। :)

১১| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১:৪২

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: টোল বিষয়ে জানায়েন কিন্তু

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১:৫৩

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আরে.....এইটা কি কন, অবশ্যই জানামু। =p~

১২| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৩:৫৪

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন: মফিজ ভাই, গল্প ভালো লেগেছে, ভালো গল্পের প্রয়োজন, সেই ভালো গল্প ব্লগে প্রতিদিন আসেনা, মাঝে মাঝে পাই এই যেমন আজ - ধন্যবাদ।

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৫:৩৭

ভুয়া মফিজ বলেছেন: গল্প ভালো লেগেছে, সেজন্যে আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

১৩| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৪:২৭

মা.হাসান বলেছেন: গল্প মনোহর হয়েছে। লাবনীকে তো ভালোমানুষ বলতে হয়, বিয়ের আগেই স্মল প্রিন্ট দিয়ে দিল, বেশিরভাগইতো বিয়ের পরে এই সব দেখায়। আল্লায় সুন্দরী মেয়ে কইরা বানাইলে আমিও কিন্তু দেশে না থাইকা জার্মানীতে চইলে যাইবার একখানা সুযোগ খুঁজতাম। কাজী সাহেবরে দেখলে ডর লাগে, কখন না জানি কবিতা বাইর করে, উনি মন্তব্যে কবিতা না দেয়ায় ওনাকে অনেক ধন্যবাদ।

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৫:৪৬

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আপনার মন্তব্যও অতি মনোহর। লাবনী ভালো মেয়েতো বটেই। খালি একটু মজা করতে পছন্দ করে! ;)

আমিও মাঝে-মধ্যে ভাবি, আমি যদি একজন সুন্দরী মেয়ে হইতাম তাইলে এতো কষ্ট করা লাগতো না। বিয়া কইরা বিনাবাধায় ইউরোপ-আম্রিকা চইলা যাইতে পারতাম। আল্লাহ বানায় নাই.....কি আর করা! দেখি পরেরবার যদি সুযোগ থাকে!!

কাজী সাহেব জানে আমরা কবিতা ডরাই। মন্তব্যে কবিতা দেয় না দেইখাই তো আমি সবসময় 'কৃতজ্ঞ' মোডে থাকি! :P

১৪| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৫:০২

চাঁদগাজী বলেছেন:


প্লটহীন, সাধারণ লেখা; গল্প বলে মনে হয়নি

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৫:৫১

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আপনি 'মানহীন' শব্দটা বলতে ভুলে গিয়েছেন।

মন্তব্যটা আসলে এরকম হবে, প্লটহীন, মানহীন সাধারণ একটা লেখা; একেবারেই গল্প বলে মনে হয়নি। :P

১৫| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৫:৩৪

রাজীব নুর বলেছেন: আসলেই সহজ সরল গল্প।

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৫:৫২

ভুয়া মফিজ বলেছেন: ঠিক, একদম আপনার মতো! :)

১৬| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৭

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: খারাপ না।

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৯

ভুয়া মফিজ বলেছেন: চলে আর কি, কোনরকম।

১৭| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:০৩

দিকশূন্যপুরের অভিযাত্রী বলেছেন: নায়কের নাম তারেক সিফাত, নায়কের ভাইয়ের নামটা তো উল্লেখ করলেন না!

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:০৯

ভুয়া মফিজ বলেছেন: সেটা এখানে গুরুত্বপূর্ণ না। কেউ জানতেও চায় নি। :)

১৮| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৪২

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: এই ব্লগে এলে যেসব ব্লগারের লেখা অনেক খুঁজে খুঁজে বের করে পড়ি আপনি তাদের অন্যতম। আপনার মন ভালো।

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০৫

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আপনি নিজেই একজন ভালো মনের মানুষ, সেজন্যেই আমাকে আপনার এমনটা মনে হচ্ছে। বাস্তবে আমি কিন্তু ততোটা সুবিধার না! :P

১৯| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৪৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


সিনেমা দেখে, গল্প পড়ে, এ ধরণের কাহিনী মনের মাঝে দানা বাঁধে; অন্যদের গল্পের থেকে আলাদা করে, সেই দানাকে গল্প পরিণত করতে হয়।

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০৬

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আপনার মন্তব্য মাথার উপর দিয়ে গিয়েছে। বলতে গেলে কিছুই বুঝি নাই। আরো ভেঙ্গে বিস্তারিতভাবে বললে বুঝতে সুবিধা হতো। সবচেয়ে ভালো হয়, যদি উদাহরন সহকারে বোঝান। :)

২০| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:১৫

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: হায় সহজ সরল জীবনের গপ্প খালি মাইনষের জীবনে ঘটে!!!
আম্রার জীবনে ঘটপার পারে না ;) :P

আম্রারার কপালে কি খালি দেবদাস উপাখ্যান!!!!
বালিকারা দূরে দূরে সূখে থাকপে! আমাদের যাতনায় ডুবিয়ে :((

হ। আপনার আগামী দুষ্কের গপ্পের অকিপায় (অপেক্ষায়) রইলুম ;)
যদি নিজেরে খুঁজিয়া পাই
হা হা হা

গল্পে ভাল লাগা
+++

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ রাত ৯:১১

ভুয়া মফিজ বলেছেন: এইটা গল্প ভৃগুদা। অন্যদের কথায় কান দিয়া এতো দুঃখু পাওনের কিছু নাই। আর বালিকারা দূরে থাইকা যদি সুখে থাকে, আপনের তাতেই সুখী হওয়া উচিত! =p~

দেখি, দেবদাস মার্কা গল্পে আপনেরে নায়ক বানায়া দিতে পারি কিনা। কিছুটা সান্তনা তো পাইবেন! ;)

২১| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:১৮

জুন বলেছেন: আম্রারার কপালে কি খালি দেবদাস উপাখ্যান!!!!
বালিকারা দূরে দূরে সূখে থাকপে! আমাদের যাতনায় ডুবিয়ে
:-/
হা হা হা বিদ্রোহী ভৃগুর মন্তব্যে প্লাস =p~

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ রাত ৯:১৫

ভুয়া মফিজ বলেছেন: ভৃগুদার হাহাকার আমার সহ্য হইতাছে না। উনারে আমার দেবদাসমার্কা গল্পের নায়ক বানায়া দিমু। ডিসিসান ফাইনাল। =p~

২২| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:২৬

আনমোনা বলেছেন: দাঁড়ান দাঁড়ান, আপনি তো ইউরোপেই, না। লন্ডনের আশে পাশে কোথায় যেন? তাহলে লাবনীর জার্মানী না হলেও ইউরোপে যাওয়ার স্বপ্ন পুরন হয়েছে।
ভুয়া লাবনীকে নিয়ে ভুয়া তারেক সীফাত সুখে থাকুক।

০২ রা আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১২:১০

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আপনি তো দেখি সবার থেকে এককাঠি সরেস!!

ভুয়া লাবনী, ভুয়া তারেক সীফাত এরা গল্পের চরিত্র, আর চরিত্রদু'টা গল্পের হিসাবে জেনুইন। ভুয়া মফিজের সাথে এদের দূরতম কোন সম্পর্ক নাই। নাহ, ভাবছি একটা ডিসক্লেইমারই দিয়ে দিব কিনা! আপনাদের জ্বালায় তো দেখি গল্প লিখেও শান্তি নাই। =p~

২৩| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:৩৭

ইসিয়াক বলেছেন: ভালো লেগেছে

০২ রা আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১২:১০

ভুয়া মফিজ বলেছেন: ধন্যবাদ।

২৪| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৯:৪৩

বলেছেন: কবি ম্যাকবেল পাটোয়ারী বলেছেন, 'টোল পড়া হাসি দেখে পা ফসকাইও না যুবক। নইলে সারাজীবন ব্রিজের মতো টোলের জমা দিতে দিতে ফতুর হয়ে যাবে কয়ে দিলুম।' [/sb-----------------অসাধারণ .......


গল্পে শিল্পের ছাপ রয়েছে। চমৎকার

০২ রা আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ২:১৭

ভুয়া মফিজ বলেছেন: কবি ম্যাকবেল পাটোয়ারী খুবই কামিলদার একজন কবি। আমিও ভাবছি উনার কবিতা পরা শুরু করবো। কিন্তু খুজে পাচ্ছি না। আপনার কাছে কি কোন খোজ আছে? :P

গল্পে শিল্পের ছাপ রয়েছে। প্রশংসায় গদ গদ হয়ে গেলুম। দেখি এমন শিল্প আর সৃষ্টি করতে পারি কিনা!! =p~

২৫| ০১ লা আগস্ট, ২০১৯ সকাল ১১:৪৮

মনিরা সুলতানা বলেছেন: আমি কিনা ভাবলাম নিজের কথা লিখলেন ;)
সহজ সরল সুন্দর।

০২ রা আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ২:২১

ভুয়া মফিজ বলেছেন: ব্লগে আজকাল গল্প লিখেও শান্তি নাই......সবাই ভাবে নিজের কথা। B-)

সহজ সরল সুন্দর। এমনটাই লিখতে চেয়েছিলুম। আপনার সার্টিফিকেট অনুপ্রেরণা যোগাবে নিঃসন্দেহে। :)

২৬| ০১ লা আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ২:৩৯

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: একদম সহজ, সরল প্রেমের গল্প হয়েছে। প্রথমে দেখা, তারপর পরিচয়; তারপর আস্তে আস্তে, ধীরেধীরে প্রেম। বিয়ে।
কোন সমস্যা নেই, ঝামেলা জঞ্জাল নেই। এর চাইতে সহজ সরল গল্প হয় নাকি?! =p~

০২ রা আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ২:৪১

ভুয়া মফিজ বলেছেন: প্রথমে দেখা, তারপর পরিচয়; তারপর আস্তে আস্তে, ধীরেধীরে প্রেম। বিয়ে। কোন সমস্যা নেই, ঝামেলা জঞ্জাল নেই। এর চাইতে সহজ সরল গল্প হয় নাকি?! =p~ ঠিকই বলেছেন। আপনার সিনোপসিসটা একদম যথার্থ। :)

২৭| ০১ লা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:৩৩

অন্তরা রহমান বলেছেন: প্রেম করেই বিয়ে করেছি, সেই অভিজ্ঞতা থেকেই বলি; জিনিসটা যতটা ভাবা হয় ততটা সহজ সরল না। তবে, ভালোই লিখেছেন।

০২ রা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৩:২৬

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আপনার কথায় যুক্তি আছে। আমিও প্রেম করেই বিয়ে করেছি, কাজেই ব্যাপারটা বুঝি! =p~

তারপরেও জীবনের অন্যান্য জটিলতার ভিড়ে আমার এই বর্ণিত প্রেমকাহিনী কিছুটা সহজ সরলই, কি বলেন?

২৮| ০২ রা আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৫:২৭

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: ধন্যবাদ। ভাইজান, এবার কঠিন, দুঃখের, ছ্যাকা খাওয়া, বিরহী একটা গল্প লিখেন। এইসব সহজ সরল গল্পের ধারেকাছেও আমরা নেই।

০৩ রা আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১:৪৪

ভুয়া মফিজ বলেছেন: এবার কঠিন, দুঃখের, ছ্যাকা খাওয়া, বিরহী একটা গল্প লিখেন। লিখবো.....ভাবছি কি লেখা যায়।

এইসব সহজ সরল গল্পের ধারেকাছেও আমরা নেই। না, এটা ঠিক না। কঠিন, তরল, বায়বীয় সুখ এবং দুঃখ; সবই আমাদের জীবনের অংশ। কারো না কারো জীবনে এসব ঘটে।

আমাদের জীবনে দুঃখ আছে বলে কি অপরের জীবনে সুখ থাকতে পারে না! ;)

২৯| ০৩ রা আগস্ট, ২০১৯ রাত ১২:১৩

মুক্তা নীল বলেছেন:
মফিজ ভাই ,
বাহ !!! একেবারে এক্সপিরিয়েন্স সহ এক্সপার্ট প্রেমের গল্প। এই প্রেম সাধারণত স্লিপ খায় না । খুব খুব ভালো লেগেছে রোমান্টিকতা এমন টুল পড়া প্রেমের গল্প পড়তে ।

০৩ রা আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ২:১২

ভুয়া মফিজ বলেছেন: প্রেমের এক্সপেরিয়েন্স আমার আছে বটে......তবে এমনটা না।
সে যাই হোক, গল্প আপনার ভালো লেগেছে; এতেই আমি খুশি। :)

৩০| ০৩ রা আগস্ট, ২০১৯ রাত ৩:২৫

সোহানী বলেছেন: সহজ সরল গল্পে সহজ সরল ভালো লাগা

০৩ রা আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ২:১৫

ভুয়া মফিজ বলেছেন: অনেক অনেক দিন পর আমার পোষ্টে আপনার মুল্যবান উপস্থিতি দেখলাম। খুবই ভালো লাগছে। আশাকরি, সবাইকে নিয়ে ভালোই আছেন। :)

গল্প ভালো লেগেছে জেনে কৃতার্থ হলুম।

৩১| ০৪ ঠা আগস্ট, ২০১৯ রাত ১২:১৬

আহমেদ জী এস বলেছেন: ভুয়া মফিজ,



স্কুল জীবনে অনেকবারই হয়তো বাংলা পরীক্ষায় " জীবনের লক্ষ্য" রচনা লিখতে হয়েছে! এখন এই কালে এসেও "জীবনের লক্ষ্য" নামে " সারা জীবনের স্বপ্ন" রচনায় হাত দিলেন! তাও আবার ডাক্তার,ইঞ্জিনীয়র হতে চাওয়ার স্বপ্ন নয়- গালে টোল পড়া বজ্জাত একটা মেয়ের প্রেমে পড়াকে জীবনের একমাত্র স্বপ্পোন ভেবে বসলেন । আপনার হবে! ;) সেই স্বপনচারিনীর সাথে বিয়েটা একবার হোক তখন বুঝবেন, কতো শব্দে কতো গল্প ............... :||

ঝরঝরে লেখা নিয়ে টোল খেয়ে যাওয়া লাবন্যময় গল্প।

০৪ ঠা আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১২:২১

ভুয়া মফিজ বলেছেন: স্কুল জীবনের লেখা " জীবনের লক্ষ্য" রচনা একাডেমিক বিষয়, তবে মনের সঙ্গোপনে সবারই লক্ষ্য থাকে একটা সুন্দরী মেয়ের প্রেমে পরা। এটা অনেকের জীবনের একমাত্র লক্ষ্যও বটে! :P

তবে এটা আমার তথা ভুয়া মফিজের কোন বিষয় না। আমি এসব প্রেম-ট্রেমের মধ্যে নাই। ;)

তারেক-লাবনীর লাবন্যময় গল্প আপনার ভালো লেগেছে জেনে আমিও সুখী/খুশী। আপনাকে ধন্যবাদ। :)

৩২| ০৪ ঠা আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১:৫৯

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: পনিটেইল উইথ ডিম্পল.. ভালো কনফিগারেশন ;)

এই হাসি জিনিসটা ভয়াবহ :`> হাসি দিয়েই ফাঁসির প্রস্তুতি চলে :D

গল্প ভালো লেগেছে। নিরাপুর মতো আমিও ভাবলাম মফিজেরই গপ্পো :P

০৪ ঠা আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ২:১০

ভুয়া মফিজ বলেছেন: কনফিগারেশন বলেন আর স্পেসিফিকেশান বলেন......এটা অনেকটা তামাক আর ফিল্টারের মতোই, তাই না! =p~

নিরাপুর মতো আমিও ভাবলাম মফিজেরই গপ্পো সবাই তাই ভাবার চেষ্টা করছে বটে, তবে এর কোন ভিত্তি নাই।

আপনাকে বহুদিন পরে দেখলাম.....'পনিটেইল উইথ ডিম্পল' টাইপ কোন কম্বি-র পিছনে ব্যস্ত ছিলেন নাকি!!! :P

৩৩| ০৫ ই আগস্ট, ২০১৯ রাত ১০:০৬

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: নোপ। তবে কম্বির পিছে ব্যস্ত থাকার প্ল্যানটা মন্দ নয় ;)

০৬ ই আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ২:০২

ভুয়া মফিজ বলেছেন: কম্বির পিছে ব্যস্ত থাকার প্ল্যানটা মন্দ নয় তবে আর দেরী কেন? শুরু করে দেন। :)

৩৪| ১৬ ই আগস্ট, ২০১৯ বিকাল ৩:২৪

নাসির ইয়ামান বলেছেন: ভুয়া প্রেমের ভুয়া গল্প।

১৭ ই আগস্ট, ২০১৯ দুপুর ১:২৬

ভুয়া মফিজ বলেছেন: ভুয়া মফিজের কাছ থেকে কি আশা করেন? ;)

৩৫| ১৩ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:০৩

আমি তুমি আমরা বলেছেন: আহারে জীবন। সত্যিকারের গল্পগুলোও যদি এমন সহজ, সরল, নির্ভেজাল হত।

১৯ তম ভাললাগা রইল। :)

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.