নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

নাম শুভ হলেও যথেষ্ট বেয়াদব মানুষ আমি। লেখালেখির অভ্যাস নাই, নিয়ম কানুনও জানিনা। এরপরেও লিখি ইচ্ছে হইছে তাই। ২০১৪তে উপন্যাস \'আকুতি\' প্রকাশের পর একটু বিরতি। বিরতি কাটিয়ে ২০১৮তে গল্প গ্রন্থ \'এবং গল্প\' এর মাধ্যমে ফিরে আসা। ইমেইলঃ endshuvo@gmail.com

সালাহ উদ্দিন শুভ

সুশীল সমাজের রুচিহীন একজন প্রাণী

সালাহ উদ্দিন শুভ › বিস্তারিত পোস্টঃ

এ কেমন পৃথিবী?

১৩ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৩৫

প্রশ্নটা মাথায় ঘুরতে শুরু করল বিমান ক্রাশের পর সোসিয়াল মিডিয়ার অবস্থা দেখে। আমরা কতটা অমানুষ হয়ে গেছি তা জানলে আপনি নিজেও শিহরিত হবেন যদি ক্ষানিকটা অনুধাবন করেন।

মনে করুন আপনি একজন পিতা বা মাতা। আপনার সন্তান মাত্র ২০টা মিনিট আগে আপনার সাথে ফোনে কথা বলেছে। একটুখানি কল্পনা করুন হুট করে সে আর এই পৃথিবীতে নেই। কেমন ফিল হবে আপনার?

এত এত পরিমাণ ফেসবুকে স্ট্যাটাস, ফটো দিতে দিতে উড়িয়ে দিচ্ছি। আসলেই কি আমরা সমবেদনা পাচ্ছি? সমবেদনার মানে বুঝেন আপনারা? যে হারায় তার সমান পরিমাণ বেদনা পাওয়াকে সমবেদনা বলে। ইউ হ্যাভ টু বি জেনুয়েনলি সরি ফর দিস ইন্সিডেন্স। ফেসবুকে একটা স্ট্যাটাস দিয়ে মানুষজনকে জানিয়ে সমবেদনা প্রকাশ করাটা অবশ্যই একটা শয়তানের কাজ।

কতটা খারাপ আপনি ভাবুন, স্ট্যাটাস দেয়ার পাচ মিনিট পর আবার আপনি গুনছেন কয়টা লাইক পড়ল, কয়টা স্যাড রিঅ্যাক্ট পড়ল। আপনি প্রোফাইল পিকচার কালো করে খুব সুন্দর করে লেখে দিলে আপনি খুবই সরি এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনার জন্যে। ওহ বিলিভ মি, ইউ আর নট। ইউ আর অ্যা ফেইক। আপনি যখন দুঃখ অনুভব করবেন তখন যার হারায় তার অবস্থানে নিজেকে বসিয়েই দুঃখ অনুভব করবেন। অন্যথায় এটাকে দুঃখ ফিল করা হয়না।

আমার প্রিয় একজন শিক্ষক বলেছেন, মনে করো হুট করে তোমার চাকরীটা শেষ হয়ে গেল বা তুমি ফকির হয়ে গেলে। ৫০% মানুষ যারা তোমার একান্ত কাছের, তারা এ সম্পর্কে সামান্য কেয়ারও করবেনা। শুধু ফরমালিটি মেনশন করতে গিয়ে মুখ ফুটে বের করবে, 'এখন কি অবস্থা ভাইসাহেব?' 'আহারে, কি হয়ে গেল'। এ ধরনের কথাগুলো ছাড়া মন থেকে তারা সামান্যতম দুঃখও অনুভব করেনা। আপনার সামনে থেকে তারা চলে যাবে, ওখানেই এই দুঃখ পাওয়া কাহিনীর খতম। এই হল ৫০% এর অবস্থা, তাহলে বাকী ৫০%? বিশ্বাস করুন বা নাই করুন, বাকী ৫০% খুশি হবে যে আপনি জবটা হারিয়েছেন বা ফকির হয়ে গেছেন।

হ্যা ভাই। এটাই আমাদের এখনকার পৃথিবী। এটাই আমাদের পৃথিবীতে চলছে। ৫০টা প্রাণ ঝরে গেছে আর আপনি প্রোফাইল পিক কালো করে ঝুলিয়ে রাখছেন, ট্রাষ্ট মি এটা শো অফ ছাড়া আর কিছুই নয়। আপনি এই মানুষগুলোর প্রাণকে ব্যবহার করে ফায়দা লুটাচ্ছেন, মানুষ দেখাচ্ছেন বৈ আর কিছুই নয়। কিছু কিছু প্রতিষ্ঠানকে দেখেছি তারা প্রোফাইলে ফ্রেম বানিয়েছে বিমান দুর্ঘটনায় আমরা শোকাহত, অমুক গ্রুপ। কতটা নির্বোধ এবং একই সাথে অমানুষ হলে এমন শোকাহতের মাধ্যমে নিজের প্রতিষ্ঠানের প্রচারণা চালাতে পারে আমার জানা নেই।

ঘটনা একটু অন্যদিকে ঘুরাই কিছুক্ষণের জন্যে। বর্তমান সমাজে আমাদের সবচেয়ে প্রধান সমস্যা হল কমিউনিকেশন। ভাইয়ের সাথে ভাইয়ের কমিউনিকেশন। পিতার সাথে পুত্রের কিংবা হাজবেন্ডের সাথে ওয়াইফ। সবার সাথেই যে কমিউনিকেশন গ্যাপটা এটাই আমাদের মানুষ থেকে অমানুষ বানিয়ে দিচ্ছে। আসল জরিপ দিতে পারছিনা কিন্তু একটু ঘাটাঘাটি করলেই বুঝতে পারবেন বাংলাদেশে ৭০-৮৫% ফৌজদারী মামলাই হল জমিজমা সংক্রান্ত। মজার ব্যাপার হল এই মামলার মধ্যে অধিকাংশ বাদি-বিবাদীই হল আপন রক্তের। আপনি কি এটা বিশ্বাস করেন? না করলে করার কিছু নেই, কারন এটাই সত্য। ভাই-ভাইয়ের সাথে জমি নিয়ে মামলা করছে। আপনি কি ভাবতে পারেন ভাই? ৫০টা মানুষ হুট করে চলে গেল, যে পৃথিবীতে এক মুহুর্ত বেচে থাকার নিশ্চয়তা নেই সেই পৃথিবীতে আপন রক্তের ভাই-বোনরা জমি নিয়ে মামলা করছে। এটা হল আমাদের পৃথিবী। আর বাকি ১৫% মামলা হাজবেন্ড-ওয়াইফ ছাড়াছাড়ি সংক্রান্ত। এই হল আমাদের যোগাযোগ এবং সম্পর্কের ধরন।

এটা এমন একটা নকল পৃথিবী যেখানে রিয়েলিষ্টিক বলে কিছুই নেই। যেখানে মানবতার নামে মানুষ টিভিতে মুখ দেখায়, ফেসবুকে বুলি শুনায়। এটা এই পৃথিবী। সত্যিই মাঝেমধ্যে চরম অবাক হই, এ কেমন পৃথিবী?

মন্তব্য ২৪ টি রেটিং +৩/-০

মন্তব্য (২৪) মন্তব্য লিখুন

১| ১৩ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৪৪

সোহানী বলেছেন: সহমত লিখার প্রতিটি পয়েন্টে.... লাইক নামক বস্তুর জন্য অমানুষ হয়ে যাচ্ছি।

১৩ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৪৭

সালাহ উদ্দিন শুভ বলেছেন: দিনের পর দিন সোসিয়াল হতে হতে কখন যে অমানুষ হয়ে যাচ্ছে সবাই তা কি আদৌ খেয়াল করছে কেউ? একসময় সিম্পেথি বলে কিছু থাকবেনা, থাকবে শুধু শো অফ।

২| ১৩ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৪৫

আবু আফিয়া বলেছেন: বাস্তব বিষয় তুলে ধরার জন্য ধন্যবাদ

১৩ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৪৭

সালাহ উদ্দিন শুভ বলেছেন: আপনাকেও ধন্যবাদ কষ্ট করে পড়ার জন্যে :)

৩| ১৩ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ৮:০০

আহমেদ জী এস বলেছেন: সালাহ উদ্দিন শুভ ,




হয়তো ঠিকই বলেছেন ---- এটাই আমাদের এখনকার পৃথিবী !

১৩ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ৮:০১

সালাহ উদ্দিন শুভ বলেছেন: হ্যা ভাই, আর্টিফিশিয়াল বা শো অফটাই এখন আমাদের পৃথিবী।

৪| ১৩ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ৮:৪২

গোলাম রাব্বি রকি বলেছেন: আপনি মানেন আর না মানেন এইটাই চিরন্তন নিয়ম ! এখন হয়তো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কল্যাণে বিষয়টা খুব ভালোভাবে বুঝতে পারতেছেন তাই ! কারো দুঃখ কাউকেই স্পর্শ করে না খুব একটা । যদি স্পর্শ করে তবে সেটা আপনজনদেরই করে। যার বেদনা সেই বুঝে । স্পর্শ না করুক তাতেও হয়তো আপত্তি নেই আপনার-আমার কিন্তু শো অফ করার সুযোগ সবাই হাতছাড়া করতে চায় না । সমাজ তো আছেই এখন শো অফের উপর !

১৩ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ৮:৫২

সালাহ উদ্দিন শুভ বলেছেন: অস্বীকার করার উপায় নেই। তবে খুব খারাপ লাগে বিষয়গুলো।

৫| ১৩ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ১০:০৮

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: ঠিক। সব আনুষ্ঠানিকতা।

১৩ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ১০:১৩

সালাহ উদ্দিন শুভ বলেছেন: হ্যা,তাই।

৬| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সকাল ৮:৫৮

মোস্তফা সোহেল বলেছেন: আপনার সাথে সহমত।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সকাল ৯:২৭

সালাহ উদ্দিন শুভ বলেছেন: ধন্যবাদ

৭| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ২:২৪

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
ফেসবুকই মানষকে এমন করে দিয়েছে।

সুন্দর বিষয় তুলে ধরার জন্য ধন্যবাদ।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ বিকাল ৩:৫৮

সালাহ উদ্দিন শুভ বলেছেন: আপনাকেও ধন্যবাদ ধৈর্য নিয়ে পড়ার জন্যে।

৮| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ বিকাল ৪:৪৩

মো: নিজাম উদ্দিন মন্ডল বলেছেন: ঘটনা সত্য।
আপনার কথার ওজন আছে।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:০০

সালাহ উদ্দিন শুভ বলেছেন: ধন্যবাদ নিজাম ভাই, কথায় ওজন দেয়ার জন্যে :)

৯| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ বিকাল ৫:২৫

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: রীতিমত যুক্তি সঙ্গত।কিন্তু আমরা বড্ড প্রচার প্রিয়। সুযোগ হাতছাড়া হওয়ার ভয়ে, মানবিকতাকে বিসর্জন দিয়ে প্রায়ই এমন পোস্ট দিয়ে থাকি।আর মেকী শোক জ্ঞাপনের নামে লাইক,কমেন্টও দিয়ে থাকি।এক দিকে বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি অন্য দিকে লাইকও দিচ্ছি। কিন্তু বার হওয়ার রাস্তা যে নেই।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:১৬

সালাহ উদ্দিন শুভ বলেছেন: হ্যা ঠিক তাই। এটা আমাদের দিনে দিনে মনুষত্য শেষ করে ফেলছে।

১০| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ বিকাল ৫:৩২

নীলপরি বলেছেন: আপনার সাথে একমত ।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:০৪

সালাহ উদ্দিন শুভ বলেছেন: ধন্যবাদ

১১| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ৮:৪৭

মাহমুদুর রহমান সুজন বলেছেন: আপনার সাথে সহমত হতে পারলাম না বলে দু:খীত। কেননা কোন ইমুশনের কাছে কোন যুক্তি টেকে না। আমার মনে হয় পৃথিবীর সবাই ভাল মানুষ আমি ছাড়া। আর যারা আমার ব্যাথায় ওহ্ করেছে মানে সে আমার জন্য মর্মিত হয়েছে সে আমার কাছে আমার সারা জীবনের ব্যাথায় কাতরানুর চেয়েও বেশী মনে করি। কারণ সে এই ওহ্টাওতো করার কথা না কেন করল? আমাকে সে চিনে না , জানে না তারপরেও একজন আমার ব্যাথায় ব্যাথাতুর হয়ে আফসুস করছে! কেনো? মানবতার কারণে। এরপরে কি হয়েছে তা আমার চোখ আর দেখে না। না দেখায় ভালো।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ৮:৫৪

সালাহ উদ্দিন শুভ বলেছেন: আপনার কথার উপর সম্মান রেখেই বলছি, একজন মানুষ হিসেবে ওহ নয় বা ফেসবুকে স্ট্যাটাস নয় বরং তার জন্যে আসলেই সমবেদনা এবং দুয়া করা উচিৎ। অন্যথায় সে মানুষের সারিতে না এসে কোন পশুর সারিতে দাঁড়িয়ে পরাই শ্রেয়। আপনি বলছেন ওহ কেন করবে! জনাব আপনি আমার কথার বাইরে চলে গেছেন। দয়াকরে মনযোগ দিয়ে পড়ুন। একজন প্রাণীও যদি আপনার জন্যে মন থেকে শুধু ওহ শব্দটাও বলতো তাতে করেও মানবধর্ম পূর্ণ হত। সমস্যা হল জনাব দে ডন্ট গিভ ইউ ড্যাম এবাউট ইট। তাদের কিছু যায় আসে না। শোকপ্রকাশ, ফেসবুকে স্ট্যাটাস, ফটো আপলোড, এগুলো শো অফ এর বেশি আর কিছুই নয়।

১২| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ৯:০৪

মাহমুদুর রহমান সুজন বলেছেন: জনাব তারা কি করে তা দেখার বিষয় আমার নয় আমি কি করি তা দেখতে পাই। কারণ মানুষের মন পড়ার রিডার মিশিন আমার অন্তরে নেই। আমি শুধু আমাকে চিনি। আমার মনে হয় আমিই যানি আমার হৃদয়ের করণ। আপনার পোস্ট পড়েছি, পড়েই মন্তব্য করেছি।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ৯:১১

সালাহ উদ্দিন শুভ বলেছেন: জনাব, তবে এই লেখাগুলো আপনার জন্যে নয়। এই লেখাগুলো যাদের জন্যে তারা অনুধাবন করতে পারলেই আমি সার্থক। আপনার চিন্তা এবং ধ্যানকে আমি স্বাগত জানাই।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.