নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সবাই যখন নীরব, আমি একা চীৎকার করি \n--আমি অন্ধের দেশে চশমা বিক্রি করি।\n

গিয়াস উদ্দিন লিটন

গিয়াস উদ্দিন লিটন › বিস্তারিত পোস্টঃ

ব্রাশ কাহন (রম্য)

২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৮:১০




আমাদের এলাকার অনিল পালের ঘটনা। সে ইন্ডিয়া বেড়াতে গিয়ে তার এক ফুফাতো বোনের বাসায় উঠেছে। সকালে দাঁত ব্রাশ করার জন্য ব্রাশ পেস্ট হাতে নিয়ে খেয়াল করলো তার বোন জামাই লোলুপ নজরে পেস্টের দিকে তাকিয়ে আছে।
এক সময় বলল- দাদা এটা টুথপেস্ট নাকি?
অনিল বলল- জী, দেব নাকি একটু?
অমনি তার দুলাভাই হাঁক ছাড়লো- হইরা, রামা, দুজ্ঞা কইরে? তাড়া তাড়ি আঙ্গুল নিয়া এদিকে আয়, আজ সকলে টুথপেস্ট দিয়া দাঁত মাজবো।

টুথপেস্ট টুথব্রাশ দিয়ে দাঁত মাজে, কখনো এই টুথব্রাশের ভিন্ন ব্যবহারও হয়। এক ছেলেকে তার বাবা বলল-খেয়াল করলাম, আমি যখনি তোকে বকাঝকা করি তখনি তুই বাথ রুমে ঢুকে যাস; ঘটনা কি? সেখানে কি করিস?
ছেলে বলল- আমি কমোড পরিস্কার করি।
বাবা বললেন- কমোড পরিস্কার করলে বুঝি রাগ কমে?
ছেলে বলল- কিছুটা কমে বৈকি! আমি তোমার টুথব্রাশ দিয়ে কমোড পরিস্কার করি!!

এই শুনে ত্যাঁদড় পোলাপাইন আবার বাপের টুথব্রাশ দিয়ে কমোড পরিস্কার করতে যেও না। টুথব্রাশ দিয়ে কমোড নয় দাঁত ব্রাশ করতে হয়, আর ব্রাশ দিয়ে দাঁতই ব্রাশ করছিল আমাদের লাবুর এক দাদী।
লাবুদের ঘরে তার দূর সম্পর্কের এক দাদী থাকতো। একদিন ঘুম থেকে উঠে লাবু দেখে তার দাদী ব্রাশ দিয়ে পান জর্দায় খাওয়া পোকলা দাঁত গুলি মাজছে। সে দাদুকে জিজ্ঞেস করে, দাদু ব্রাশ কিনলেন কবে? দাদু জানালেন- কিনতে হবে কেন? বাথরুমে এত গুলা পড়ে রইছে, আমিতো যেদিন যেটা হাতে উঠে সেইটা দিয়া দাঁত 'বুরুজ' করি!

এটা শুনেই লাবু ভক করে বমি করে দিল। কারন বেশ কিছুদিন থেকে সে তার ব্রাশে পান,জর্দার গন্ধ পাচ্ছিলো।

মন্তব্য ৪৮ টি রেটিং +৯/-০

মন্তব্য (৪৮) মন্তব্য লিখুন

১| ২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৮:২২

স্রাঞ্জি সে বলেছেন: রম্য গল্প। না হাসতে পারলাম না। :|

২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৮:৩৭

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আমার নিজেরও হাসি আসেনি।

২| ২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৮:২৮

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: আপনার এবারের কালেকশান একটু দুর্বল। দুঃখিত...

২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৮:৪০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: শেষ ঘটনাটা এক ছোট ভাইয়ের । মনে পড়ায় ফেবুতে দিয়েছিলাম। সেখান থেকে টুকে দিয়েছি।

৩| ২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৮:৩২

শায়মা বলেছেন: ইয়াক থু থু থু!!!!!!! বমি বমি !!!!! :-P

২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৮:৪১

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: শায়মার ব্রাশ দিয়েও কি কেউ------ =p~ =p~ =p~

৪| ২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৮:৩৪

চাঁদগাজী বলেছেন:


আপনার বেলায়, লোকজনের প্রত্যাশা আরেকটু উপরে

২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৯:০৩

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আগামীতে তারা হতাশ হবেন না।

৫| ২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৮:৫১

সনেট কবি বলেছেন: না হেসে পারিনি।

২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৯:০৪

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ সনেট কবি।

৬| ২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৯:০২

শাহিন বিন রফিক বলেছেন:



কিছু মনে করবেন না, চাঁদগাজী ভাইয়ের সাথে একমত।
আপনাকে, ডাঃ আলী ভাই, হেনা ভাই, খায়রুল আহসান ভাই সহ আরও কিছু ব্লগারদের লেখা দেখলেই পড়ি কারণ আপনাদের লেখা সেটা রম্য হলেও মান অনেক উপরে থাকে।

২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৯:১০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: ডাঃ আলী ভাই, হেনা ভাই, খায়রুল আহসান ভাই, চাঁদগাজী ভাই এরা আমারও নমস্য। তাঁদের সাথে আমার নাম বড্ড বেমানান। আপনার নিকট কৃতজ্ঞতা।

এটা ফেবুর এক চটুল পোস্ট। কিছু দিন পোস্ট করিনা তাই অস্তিত্বের জানান দিতে কপি পেস্ট করে দিলাম :D

৭| ২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৯:০৮

কি করি আজ ভেবে না পাই বলেছেন: শাহিন বিন রফিক বলেছেন:
কিছু মনে করবেন না, চাঁদগাজী ভাইয়ের সাথে একমত।
আপনাকে, ডাঃ আলী ভাই, হেনা ভাই, খায়রুল আহসান ভাই সহ আরও কিছু ব্লগারদের লেখা দেখলেই পড়ি কারণ আপনাদের লেখা সেটা রম্য হলেও মান অনেক উপরে থাকে।

বোল্ড করা লাইনের কিঞ্চিত ব্যাখ্যা দাবী করছি !!!

২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৯:২০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন:
সম্ভবত উনি বুঝাতে চেয়েছেন, রম্য মানেই নিন্মমানের লিখা। যা আমার লিখার বেলায় সত্যও বটে!

৮| ২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৯:০৮

রাজীব নুর বলেছেন: বিশ্বে এখনও ৫০ কোটি লোক দাঁত ব্রাশ করে না।
আমি মাঝে মাঝে ভুলে সুরভির ব্রাশ দিয়ে ভুলে ব্রাশ করে ফেলি।

২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৯:২২

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আমি একবার বউএর ফেয়ার এন লাভলী দিয়ে দাঁত ব্রাশ করতে লইছিলাম----

৯| ২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৯:১৩

কথাকথিকেথিকথন বলেছেন:





হা হা! ব্রাশের কত ব্যবহার!

২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৯:২৩

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ কথন।

১০| ২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৯:১৭

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: যাক, আপনার পোস্টে না হাসলে রাজীব নূরের মন্তব্যে হাসলাম...

২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৯:২৫

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: রাজিব নুর ভাইকে ধন্যবাদ। আপনাকেও ।

১১| ২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৯:২৯

অচেনা হৃদি বলেছেন: হিহিহি...

ব্যপার না, কোন কোন লোকের দাঁতের অবস্থা দেখলে কমোড পরিষ্কার করার ব্রাশে হারপিক লাগিয়ে ওদের দাঁত ব্রাশ করে দিতে ইচ্ছে করে। ;)

২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৯:৩৪

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: কমোড ব্রাশে হারপিক? হাহাহাহ ভালো আইডিয়াতো !!!!

১২| ২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৯:৩০

কি করি আজ ভেবে না পাই বলেছেন: হেথা এসে শায়মাপু
ধরেছে বমির ভেক;
মেলোড্রামা কারে কয়
শায়মারে দেখে শেখ।

গেলো ট্যুরে চাঁটগায়
চিনে গেছি তারে পুরো;
দিয়েছি নামও এক
তিনি খাটাশের গুরু।

ঘটনাটা খুলে কই
গেছি ট্যুরে রাঙামাটি;
জিদ ধরে সেও যাবে
কতশত কাঁদাকাটি।

কে কবে পেরেছে কও
মে'গো সনে পারিতে?
শেষ মিনিটেই তারে
তুলেছিনু গাড়ীতে।

সেই হলো কাল মগো
উসিলা সে একটাই;
তাড়াহুড়ো করে ভায়া
ফেলে আসি ব্যাগটাই।

এর জামা,ওর ক্লিপ
কি সাবান শ্যাম্পু;
দম খিঁচে সয় লোকে
মেজাজের টেম্পু।

সারাখন মোরই পিছে
আমি প্রিয় খাসটা;
অধিকারে নেয় কেঁড়ে
তোয়ালে ও ব্রাশটা।

ব্রাশটাতো নয়া না হে
কে বুঝাবে তারেগো;
ভালো করে ধুলেই তা
'ফুল ক্লীন' ঝাড়েগো!!

ইউজড কটনবাড
কিবা ধরো টুথপিক;
অনায়াসে সে-ও নিয়ে
করে সে ইউজ ঠিক!!

আরো আছে কত কথা
কয়েই বা লাভ কি?
যে লেজ সে খাড়া রবে
তেড়ে দেবে ধাপকি।





২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৯:৪৯

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন:

ছাড়তেও পারে তোমায়
যম কিবা যক্ষে
তার হাতে পড়লে ধরা
নেই আর রক্ষে ।

শায়মারে নিয়ে তুমি,
যা রটালে কিচ্ছা!
সে জানার আগে ভাগো ভায়া
দাও দৌড় খিচ্ছা। =p~

১৩| ২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৯:৩৪

কি করি আজ ভেবে না পাই বলেছেন: লেখক বলেছেন:
সম্ভবত উনি বুঝাতে চেয়েছেন, রম্য মানেই নিন্মমানের লিখা। যা আমার লিখার বেলায় সত্যও বটে!


আপনারই এই হাল !!!
তাইলে আমি কি? B:-)

২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৯:৫০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আপনি একজন উচু মানের ছড়াকার!
সামুর সকলে আপনাকে সুকুমার ভেবে ভুল করে !

১৪| ২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ১০:৩০

কি করি আজ ভেবে না পাই বলেছেন: লেখক বলেছেন: আপনি একজন চু মানের ছড়াকার!

''ক'' হবে, ঠিক করে নিয়েন

২৭ শে জুলাই, ২০১৮ সকাল ১১:৪৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: কচু কিন্তু উচ্চ ভাইটামিন সমৃদ্ধ সবজি =p~ =p~ =p~

১৫| ২৬ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ১০:৩৭

মোস্তফা সোহেল বলেছেন: ফেয়ার এন্ড লাভলী দিয়ে দাঁত ব্রাশ করছিলেন এইটা কিন্তু দারুন মজার লাগছে ভাইয়া।

২৭ শে জুলাই, ২০১৮ দুপুর ১২:২১

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: =p~ =p~ =p~=p~ =p~ =p~

১৬| ২৭ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৮:১০

সুমন কর বলেছেন: ;) B-) মনে হয়, প্রতিটি ফেবুতে পড়েছিলাম।

০১ লা আগস্ট, ২০১৮ দুপুর ১:০২

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: জি আগে ফেবুতে দিয়েছিলাম।

১৭| ২৮ শে জুলাই, ২০১৮ সকাল ১০:১০

সোহানী বলেছেন: হাহাহাহাহা... কেউ ফেয়ার এন লাভলী দিয়ে ব্রাশ করে কেউ সুরভীরটা দিয়ে!!!!! হায় হায় সব দেখি আমার বয়ফেন্ডের অবস্থা। সেই কারনে তার ব্রাশ নীল খাপে ঢুকায়ে রাখি....... প্রবলেম সলবড্!

যাহোক, জেসন আর আমি বলছিলাম যে আপনার অতি সত্বর রম্য এর উপর বই বের করা উচিত। আম জনতাকে এভাবে মূল্যবান সম্পদ থেকে বঞ্চিত করা উচিত নয়............ B:-)

০১ লা আগস্ট, ২০১৮ দুপুর ১:১৩

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আমার রম্যগুলি অতি নিন্ম মানের। তার পরও আপনাদের আশকারা পেয়ে একটা রম্য গ্রন্থ প্রকাশের ইচ্ছা পুষছি , যদি প্রকাশক আগের গুলির মত বিনা পয়সায় ছাপাতে রাজি হয়।

১৮| ২৯ শে জুলাই, ২০১৮ বিকাল ৫:১৮

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: রম্য তো রম্যই
ছড়াও লিখছেন
পিড়েদের চিনিতে
হামলে পড়ছেন

আপনার ছড়াতো
একেবারে পাক্কা
বাকী সব ছড়াকার
এইবার পাবে অক্কা। ;)

টুথ ব্রাশ যত্রতত্র ব্যবহার করা ঠিকনা। B:-)

০১ লা আগস্ট, ২০১৮ দুপুর ১:১৫

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: চামচিকাও পাখি, আমার ছড়াও ছড়া !!!

১৯| ৩০ শে জুলাই, ২০১৮ বিকাল ৩:৪২

সামিয়া বলেছেন: শেষের কৌতুক দুইটা জানতাম, ভাললেগেছে। আমারও রম্য লিখতে ইচ্ছে করছে। :)

০১ লা আগস্ট, ২০১৮ বিকাল ৪:২১

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আপনার রসবোধ ভাল। লিখলে ভাল করবেন। লিখুন আমরা পড়ি।

২০| ০১ লা আগস্ট, ২০১৮ দুপুর ১২:৩৯

খায়রুল আহসান বলেছেন: এতদিন ধরে এত এত সিরিয়াস লেখা লিখে, এত এত গুণীজনদের সাথে পরিচয় করিয়ে দিয়েছেন, এখন না হয় রম্য হিসেবে হলোই এ লেখাটা একটু হাল্কা, তাতে কোনই অসুবিধে নেই।
বৌ এর ফেয়ার এন্ড লাভলী দিয়ে আপনার দাঁত ব্রাশ করার কথা শুনে মনে পড়লো, আমিও কতদিন টুথপেস্ট ভেবে ব্রাশে শেভিং ক্রীম লাগিয়েছিলাম! :)

০১ লা আগস্ট, ২০১৮ বিকাল ৪:২৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: কয়েকজন সন্মানিত পাঠকের মন্তব্য পড়ে বুঝলাম তাঁরা আমার সম্পর্কে উচ্চ ধারনা পোষণ করেন। যদিও আমি তা নই।
তবুও তাঁদের আশার প্রতিফলন ঘটাতে সচেস্ট হব।
বাস্তব জীবনে আমাদের কিছু ভুল হয় যা হাস্য উদ্রেককারী। একদিন আমি দুই পাটির দুই সেন্ডেল পরে বাজারে চলে গিয়েছিলাম :P

২১| ০১ লা আগস্ট, ২০১৮ দুপুর ১:২৫

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: এইবার আসল কথা বলি। আমার কবিতাও চামচিকার মত।

ব্লগে দেখি দারুন সব ছড়াকার আছে। জেসন, বিএম বরকতুল্লাহ, শায়মা, ......অনেকে।

কবিও আছেন দারুন সব। খায়রুল আহসান ভাই তাদের একজন।

০১ লা আগস্ট, ২০১৮ বিকাল ৪:৩০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: প্রথমদিককার চেয়ে আপনার এখনকার কবিতাগুলি অনেক পরিপুর্ন।
ছড়াকার দের ভিতর 'জেসন' কেডা ? :P :P

২২| ০১ লা আগস্ট, ২০১৮ বিকাল ৪:৩৩

খায়রুল আহসান বলেছেন: একদিন আমি দুই পাটির দুই সেন্ডেল পরে বাজারে চলে গিয়েছিলাম - এখন প্রায়ই এভাবে আমার মাসজিদে যাওয়া হয়, বিশেষ করে যখন তাড়াহুড়োয় থাকি। আবার, মাসজিদ থেকে ফেরার সময়েও অনেক সময় একপায়ে আমারটা, অন্য পায়ে অন্যেরটা (প্রায় একই রকম দেখতে) পড়ে চলে আসি! :)

০১ লা আগস্ট, ২০১৮ বিকাল ৫:৫৩

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আপনার মত কেউ একজন মসজিদ থেকে আমার একপাটি নিয়ে গেছিল, বেচারা মনে হয় এই মসজিদের অনিয়মিত মুসল্লি ,তাই ফেরত পাইনি।

২৩| ১০ ই আগস্ট, ২০১৮ রাত ১০:৩৫

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: আগেই পড়েছিলাম। কৌতুক আমার প্রিয় পোস্ট। আগে বিলাল, আমি তুমি আমরা এবং আরো অনেকে কৌতুক পোস্ট দিত। আমি মিস করতাম না কোনো পোস্টই। পড়তে চাইলে এই লিংকে যান, 'জোকস আমার সবচেয়ে প্রিয় বিষয়' শিরোনামের নীচে কৌতুকের লিংক দেখুন

**

হীরা আমাদের বান্ধবী। খুব সুন্দরী ছিল। আমরা সবাই লুকিয়ে ওর সাথে প্রেম করতাম এবং বন্ধুরা কিন্তু একে অপরের কাছে এ কথা ভুলেও প্রকাশ করতাম না যে হীরার সাথে আমি প্রেম করছি।

একদিন হীরার বিয়ে হয়ে গেলো আমাদের গ্রামেরই এক হাড়কিপটে ধনির ছেলের সাথে। আমরা সহ্য করতে পারলাম না। যাই হোক, ধীরে ধীরে ব্যথা প্রশমিত হয়ে গেলে আমি একদিন ওর জামাই বাড়িতে গেলাম। জামাই সাহেব খুব সাদরে আমাকে অভ্যর্থনা জানালেন।

তারপর ড্রয়িংরুমে নিয়ে বসালেন। আমি উকিঝুকি দিচ্ছি হীরা যদি একঝলক এসে দেখা দেয়।
এমন সময় জামাই সাহেব হাঁক দিলেন, তা ভাইসাহেব, কী খাবেন বলুন? ঠান্ডা? নাকি গরম?
আমি- বেশ গরম পড়েছে, ঠান্ডাই হোক
তিনি- বেশ বেশ। তা জুস নেবেন ? নাকি কোল্ড ড্রিঙ্কস ?
-- কোল্ড ড্রিঙ্কস ই হোক
-- বাহ বাহ। ষ্টীল এর গেলাসে দেব ? নাকি কাঁচের গেলাসে ?
-- কাঁচের গেলাস-এ-ই দিন
-- আহা আহা। তা প্লেন গেলাসে দেব? নাকি নকশা করা গেলাসে দেব ?
আমি মনে মনে কিছুটা বিরক্ত হয়ে বলি -- নকশা করা গেলাসেই দেন
-- সাধু সাধু। তা ভাইসাহেব কি রকম নকশার গেলাসে দেব ? ফুল আকা গেলাসে? নাকি রেখা টানা গেলাসে ?
এবার বেশ বিরক্ত হলাম। তবু মনে মনে শেষ দেখে যাব চিন্তা করে বললাম, ফুল আঁকা গেলাসেই দেন।
জামাই- আপনার রুচি আছে বলতে হবে ভাইসাহেব। তো কি ফুল আঁকা গেলাসে দেব ? গোলাপ ফুল ? নাকি রজনীগন্ধা ?
আমি -- <:( <:( <:( গোলাপ ফুল আঁকা গেলাসেই দেন।
জবাবে জামাই সাহেব গলা চড়িয়ে হীরাকে ডেকে বললেন, ওগো দেখতো ঘরে গোলাপ ফুল আঁকা কাঁচের গেলাস আছে নাকি ?
হীরাও গলা চড়িয়ে বললো, -- নাগো, নেই।
জবাবে জামাই মিয়া একটা বড় শ্বাস ফেলে বললেন, কী আর করা। তাহলে কোল্ড ড্রিঙ্কস দেবার দরকার নেই। ভাই সাহেব খেয়ে মজা পাবেন না।

:v :v :v

১১ ই আগস্ট, ২০১৮ রাত ৮:১৬

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আপনার হিরার জামাই তবু ভাল ছিল যে, মাইর লাগায় নাই।
আমাদের এক বান্ধবীর বিয়ের পরে আমরা তিন বন্ধু তাদের গ্রামে ফুটবল খেলা দেখার ছলে তার জামাইর বাড়ী গিয়ে উঠছিলাম।
অল্পের জন্য মাইর খাইনাই :D :D

২৪| ১১ ই আগস্ট, ২০১৮ রাত ১২:০৬

প্রামানিক বলেছেন: সর্বনাশ!!! টুথ ব্রাশ আর বাথ রুমে রাখা যাবে না।

১১ ই আগস্ট, ২০১৮ রাত ৮:২১

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: জি ভাইজান, ব্রাশ সাবধানে রাইখেন ! নাইলে ভাবীও ওটা দিয়ে পেডিকিঊর করতে পারে।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.