নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

খালিদ মোশারফ ,আইআর , ১৪ তম ব্যাচ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

খালিদ১২২

আমার সব কাজ সারা কোন একটা যেন বাকি রয়ে গেছে ......

খালিদ১২২ › বিস্তারিত পোস্টঃ

চাঁদগাজীর চাঁদ গবেষণা ইনস্টিটিউট

১৯ শে মে, ২০১৭ রাত ৯:৩৬



কদম আলী চাঁদগাজীর ভালো নাম। ডাক নাম চাঁদগাজী। পরিবার কর্তৃক দেওয়া নাম। উনার নানা বলত আমার নাতী খোদা চাইলে চাঁদে পা রাখবে।কদম আলীর চল্লিশ বছর চলছে।চাঁদে পা রাখতে পারেনি। কিন্তু তার চাঁদের প্রতি ভালবাসা ও দরদের অভাব নেই।

কদম আলী মানে চাঁদগাজী চাঁদকে খুব ভালোবাসেন। চাঁদ নিয়ে চিন্তা ভাবনা করেন। প্রথমত তিনি ভাবছেন –যে চাঁদের প্রতি মানুষর ধ্যান ধারণার পরিবর্তন হওয়া দরকার। দ্বিতীয়ত বাংলাদেশে একটি চাঁদ গবেষণা ইনস্টিটিউট দরকার।

এই জন্যে কদম আলী ভাবছেন যে-কিভাবে এই চিন্তা চেতনা সরকার ও বুদ্ধিজীবি পরযন্ত পৌছানো যায়। কদম আলী চাঁদ সচেতন লোক। প্রতিদিন তিনি ছাদে উঠে চাঁদ দেখেন। আর তিনি সৌর মাস না গুণে চন্দ্র মাস গুনেন। তার মতে চন্দ্র মাস বেশী বৈজ্ঞানিক। কারণ তাতে লিপ ইয়ারের ঝামেলা নেই।

অচীনপুর গ্রামে এই নিয়ে কদম আলীর (চাঁদগাজীর) প্রশ্ন- চাঁদ সকলের মামা হয় কিভাবে?আর সূর্য যদি হয় পুরুষ বাচক শব্দ তাহলে চাঁদকে কেন মামী বলা যাবে না?আর চাঁদ যদি মামায় হয় তাহলে গণহারে কেন-সকলের মামা? কারোর ভাই হবে,কারো চাচা হবে-এরকম হলে কেমন হয়?

কদম আলী বিষয়টি নিয়ে আলাপ করতে গেল চেয়ারম্যান শাহীন আলীর সাথে।শাহীন আলী স্থানীয় মাতুব্বর ও চেয়ারম্যান। কদম আলী শিক্ষিত লোক ।তবে সবসময় বেশী বোঝে।চেয়ারম্যান বললেন-দেখ মামা সম্পর্কটা খুব মিষ্টি।মামা নাকি মায়ের চেয়েও মিষ্টি তাই চাঁদকে সকলের মামা বলে বিবেচনা করা হয়। আর চাঁদ দেখতেও কিন্তু মনোরম,নিরিবিলি ও সুন্দর।তাই বিষয়টি মেনে নাওগে।

কদম আলী খুশি না। শিয়াল পণ্ডিত গোছের ভাবনা তার। যদি দেশে ক্ষমতার পালা বদল হলে বিমান বন্দর, দর্শনীয় জায়গার নামের পরিবর্তন হয় তাহলে চাঁদের সাথে মানুষের সম্পর্কটার পরিবর্তন হতে দোষ কিসের?

কদম আলী বাড়ী ফিরে গেল। বউকে বলল-দেখ বিষয়টা চেয়ারম্যান সাহেবকে বললাম। উনি কান দিচ্ছেন না। এক কাজ করি –আমরা পরিবারের আগে লোকেরা চাঁদের সাথে সম্পর্কটা পাকা নিই।আমাদের দেখা দেখি অন্যরাও ঠিক করে নেবে।
আজ থেকে চাঁদ আমার মামী। সূর্য আমার মামা। তোমার সূর্য তোমার মামা শ্বশুর ও চাঁদ তোমার মামী শাশুড়ি।
কদম আলীর পরিবারে আরো আছে দুইটি ছেলে,দুটো বেটার বউ,দুটি নাতী।
কদম তাদেরকে ডেকে চাঁদের সাথে সম্পর্ক নির্ধারণ করে দিল। ছেলে দুটোকে বলল-তোরা চাঁদকে নানী বলে ডাকবি আর সূর্যকে নানা বলে ডাকবি।
কদম খুঁতখুঁতে লোক। তার এর প্রথা প্রচলন গ্রামের মানুষ মেনে নিতে পারছে না। কখনো প্রসারিত হবে কিনা তাও জানিনা। তবে কদম আলীর পরিবার চাঁদ সূরযের সাথে সম্পর্কটা ঠিক-ই চালিয়ে যাচ্ছে।

মন্তব্য ৮ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (৮) মন্তব্য লিখুন

১| ১৯ শে মে, ২০১৭ রাত ৯:৪০

মোহাম্মাদ আব্দুলহাক বলেছেন: কদম আলী চাঁদগাজীর ভালো নাম।

হাহাহাহাহাহাহাসলাম। এখন পড়ব।

২| ১৯ শে মে, ২০১৭ রাত ৯:৪৪

মোহাম্মাদ আব্দুলহাক বলেছেন: অচীনপুর গ্রামে এই নিয়ে কদম আলীর (চাঁদগাজীর) প্রশ্ন- চাঁদ সকলের মামা হয় কিভাবে?আর সূর্য যদি হয় পুরুষ বাচক শব্দ তাহলে চাঁদকে কেন মামী বলা যাবে না?আর চাঁদ যদি মামায় হয় তাহলে গণহারে কেন-সকলের মামা? কারোর ভাই হবে,কারো চাচা হবে-এরকম হলে কেমন হয়?

মারাত্মক তথ্য।

আপনি সত্যি উত্তম গাল্পিক। অনেকে হেসেছি গল্প পড়ে।

৩| ১৯ শে মে, ২০১৭ রাত ১০:০১

নাঈম জাহাঙ্গীর নয়ন বলেছেন: গল্প তো মজা করেই পড়লাম ভাই !!! খুব মজা করে লিখেছেন ভাই। চাঁদের নতুন সম্পর্ক নতুন নাম আবিষ্কার করলাম!! ভালো লাগলো চাঁদগাজী'র আসল না বের হয়েছে দেখে। এগিয়ে যান ভাই আসল নাম নিয়ে। সামনের পর্বের অপেক্ষা রইল।

শুভকামনা জানবেন সবসময়।

৪| ১৯ শে মে, ২০১৭ রাত ১০:১৮

রাজীব নুর বলেছেন: আপনি তো উজ্জ্বল প্রতিভা!

৫| ১৯ শে মে, ২০১৭ রাত ১০:১৯

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: অখাদ্য...

৬| ১৯ শে মে, ২০১৭ রাত ১০:৫৯

মাহিরাহি বলেছেন: বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: অখাদ্য...

কেন!

সারাদিন শেষে হাসতে পারলাম।

লেখকের ছবির সাথে লেখার মধ্যেও এক ধরনের সারল্য আছে।

৭| ২০ শে মে, ২০১৭ রাত ১২:৩১

রুমি৯৯ বলেছেন: চাঁদগাজী ভাই জানে!

৮| ২০ শে মে, ২০১৭ রাত ১:৩০

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: @মাহিরাহি -
উনি গত কয়েকদিন ধরে চাঁদগাজী নামের এই একটা সিরিজ চালাচ্ছে যার আগা মাথা কিছু নেই। এটা কেন করছেন সেটা উনিই ভালো বলতে পারেন...

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.