নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

অপ্‌সরা

যেখানে ঘর বাঁধবো আমি, আসে আসুক বান, তুমি যদি ভাসাও মোরে, চাইনে পরিত্রাণ!!

অপ্‌সরা › বিস্তারিত পোস্টঃ

গিয়াসভাইয়ার ক্ষুদে জিনিয়াসেরা (পাঠ প্রতিক্রিয়া :))

১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১০:১৭


বেশ কয়েক বছর ধরেই আমি আমার স্কুল এবং আশেপাশের কিছু পরিচিত স্কুল এবং ঢাকার বাইরেও কিছু স্কুলে বাচ্চাদের ছড়া, কবিতা বিজ্ঞান বা নানাধরনের বই উপহার দিয়ে থাকি। তো এ বছরে আমি পেয়ে গেলাম এমনই এক বই যা আমার অনেক অনেক প্রিয় ব্লগার ভাইয়া গিয়াস লিটনভাইয়ার লেখা। বইটার নাম ক্ষুদে জিনিয়াসদের কথা। এ বইটা ছিলো স্কুলের ছোট বাচ্চাদের জন্য একেবারেই এপ্রোপ্রিয়েট! অবশ্য বই বের হবার অনেক আগে থেকেই এই বইএর ভেতরের কথা বা কন্টেন্টের সাথে আমি পরিচিত ছিলাম। তখনও ভাবতাম ভাইয়ার ব্লগে লেখাগুলি আমি প্রিন্ট করে নিয়ে গিয়ে বেবিদেরকে শোনাবো কিন্তু সেই লেখাগুলোই যখন বই এর আকারে পেয়ে গেলাম আমাকে আর তখন ঠেকায় কে!

মনে আছে ছোটবেলাতে আমিও এমন আমার বয়সী বা কোনো ক্ষুদে জিনিয়াসের কৃতিত্বে বিমোহিত হতাম। এখন আমি অনেক বড় হয়েছি কিন্তু নিশ্চয় আমারই মত আমার ছেলেবেলার মত বাচ্চারাও এসব ক্ষুদে জিনিয়াসদের কথা জেনে অবাক হবে, উৎসাহিত হবে। ভাইয়া এমনিতে রম্যকার হিসাবে একজন সফল লেখক হলেও ভাইয়ার এই দেশ বিদেশের জ্ঞানী গুণী ও জিনিয়াসদের সাথে আমাদের পরিচয় করিয়ে দেবার ব্যাপারটাও বেশ মহতী উদ্যোগ! তাছড়াপ আজকাল আর বাচ্চাদের কথা ক,জনাই ভাবে? সবাই তো কবিতা গল্প সবই শুধু বড়দের জন্যই লেখে। ভাইয়ার বইটি এই ক্ষেত্রে ব্যাতিক্রম ছিলো।

যাইহোক ভাইয়ার এ বইটিতে প্রথমেই আছে চার বছরের আইনস্টাইন সুবর্ণের কথা। সে নাকি বিদ্যার জাহাজ! এ বয়সেই নাকি সে হাভার্ডে ভর্তিও হবে। সবচেয়ে মজার কথা এই পিচ্চিটা বাংলাদেশেরই সন্তান। এই পিচ্চিটার মা বাবা ভাইটাও কম জিনিয়াস নয় তবে এই ক্ষুদে জিনিয়াস বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দিয়েছে, সাথে আমাকেও। বাকী কথা বই এর পাঠকদের জন্যই তোলা থাক।


এই যে পিচ্চি জিনিয়াস সূবর্ণ :)

ভাইয়ার বই থেকে এর কথা জেনেই আমি তার একটা বিস্ময়কর ভিডিও খুঁজে পেয়েছি।

এরপরেই আছে শুভমের কথা। মাত্র ১৩ বছরেই আস্ত একটা রোবট কোম্পানির মালিক হয়েছে শুভম। মানুষ সারাজীবনে সাধনা করেও অনেক সময়ই যা পায়না এই শুভম তা পেয়েছে ১৩ বছরেই। তার প্রযুক্তি বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দিয়েছে। রোবট চালিত ব্রেইল প্রিন্টার তৈরী করেছে সে। তার এই আবিষ্কার ও বয়স শুধু চমকে দেবার নয় এই আবিষ্কার দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের উচ্চ শিক্ষায় কাজেও লাগবে। অনেক অনেক শুভকামনা শুভমের জন্য প্রাণ থেকেই।


ক্ষুদে জিনিয়াস শুভম

এই যে শুভমকে ইউটিউবেও চিনে নিন

রুবেন পাল মাত্র ৮ বছর বয়সেই সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ ও গেমস নির্মাতা প্রতিষ্ঠান প্রুডেন্ট গেমস-এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) রুবেন পাল। পড়ছে মাত্র ক্লাস থ্রীতে। এই বয়সেই এত বড় অর্জন। মেধা মনন ও বুদ্ধিমত্তার সঠিক প্রয়োগ হলেও কি সম্ভব! হয়তো হ্যাঁ হয়তো না তবুও জিনিয়াস জন্ম নিয়েছে জন্ম নেয় যুগে যুগেই।



ইউটিউবে রুবেন

বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষুদে প্রোগ্রামার বাংলাদেশের রূপকথা। মাত্র ৭ বছর বয়স তার । কিন্তু এ বয়সেই সে কারো সহযোগীতা ছাড়াই শিখে ফেলেছে কম্পিউটারের খুঁটিনাটি নানা কিছু। ওয়ার্ল্ড নিউজ এজেন্সী রুপকথাকে বিশ্বের সবচেয়ে কম বয়সী প্রোগামার হিসাবে স্বীকৃতি দিয়েছে। এই সব বিস্ময় শিশুদেরকে নিয়ে ভাইয়ার বই ক্ষুদে জিনিয়াসদের কথা।



এছাড়াও আছে দাবা জিনিয়াস ফাহিমের কথা। পুরো ফ্রান্সকেই তার দাবার মেধা দেখিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছে সে। এই বইটিতে আমরা জানতে পাই ক্ষুদে বীর প্রতীক শহীদুল ইসলাম লালুর কথা। মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহনকারী সর্বকনিষ্ঠ যোদ্ধাই ছিলো সে। তখন তার বয়স ছিলো মাত্র ১৩। এ ছাড়াও বাংলাদেশের ১৪ বছর বয়সী তাউস, ক্ষুদে দাবাড়ু ফাহাদসহ রয়েছে নানা ক্ষুদে জিনিয়াসদের কথা।

ভাইয়ার ভাষায় "এরকম আরও অনেক ক্ষুদে জিনিয়াস আছে যারা খুব অল্প বয়সেই ক্রীড়া, জ্ঞান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির নানা শাখায় নিজেদের দক্ষ করে গড়ে তুলেছে এবং হয়েছে নন্দিত, পেয়েছে বিশ্বজোড়া খ্যাতি। ক্ষুদে পাঠক তথা শিশু কিশোরদের উৎসাহিত করার লক্ষ্যে এই গ্রন্থে কয়েকজন অল্প বয়সী ‘জিনিয়াস’ এর সাথে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হয়েছে যারা বয়সে ছোট হলেও তাদের কাজকে ছোট করে দেখার কোন সুযোগই নেই।"

ঠিক তাই এমন সব আরও আরও দেশ বিদেশের খ্যাত ক্ষুদে মেধাবীদেরকে দেখতে চাই তোমার বই এর পাতায় ভাইয়া। নেক্সট বই মেলাতেও চাই এমন এমন আরও আরও বই! বইটির প্রচ্ছদটিও দারুন হয়েছে। সবকিছু মিলিয়ে তোমার জন্য রইলো এক রাশ শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা ভাইয়ামনি।

অনেক ভালো থেকো এবং আরও আরও লিখে যেও।


সবশেষে তোমার জন্য আরেক জিনিয়াস উপহার দিলাম। :)

মন্তব্য ১৪০ টি রেটিং +২২/-০

মন্তব্য (১৪০) মন্তব্য লিখুন

১| ১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১০:৪০

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: রিভিউ ভাল হয়েছে। অভিনন্দন গিয়াস লিটন ভাইকে এবং অপসরাকেও ব্যাপারটি নিয়ে সুন্দর একটি দেয়ার জন্য । ১ম +

১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১০:৪২

অপ্‌সরা বলেছেন: তোমাকেও অনেক অনেক থ্যাংকস সেলিমভাইয়া!

আর এই বইটি আসলেও ভীষন উৎসাহব্যাঞ্জক! :)

২| ১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১০:৪১

ফরিদ আহমদ চৌধুরী বলেছেন: লেখক নিজেও একজন উঁচু মানের জিনিয়াস!

১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১০:৪৪

অপ্‌সরা বলেছেন: তুমিও কম জিনিয়াস নহে হে ভাইয়া!


থ্যাংকস ফর দ্যা কমেন্ট ! :)

৩| ১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১০:৪৯

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: অসাধারন বইয়ের অনন্য রিভিউ

দুজনকেই পুন: অভিনন্দন :)

বিস্ময়কর এক সৃষ্টির মাধ্যমে লিটন ভাই এক অনন্য উচ্চতায় আসীন হয়ে গেলেন। আমাদেরও দারুন জ্ঞানের এবং সৃজনশীল ভাবনার খোরাক দিয়ে গেলেন। হ্যাটস অফ ফর লিটন ভায়া :)

পুচকির জব খোঁজাটা সেইরকম লাগল =p~ =p~ =p~ =p~

১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১০:৫৩

অপ্‌সরা বলেছেন: হা হা পুচ্চিটাও কম ট্যালেন্ট না ভৃগুভাইয়া!

তবে গিয়াসভাইয়ার নিজের মাঝেই জ্ঞান পিপাসা যেমন তেমন তার বইএর মাঝেও ছড়িয়ে দেবার প্রচেষ্টা!

অনেক অনেক শুভকামান ভাইয়া!

অনেক ভালো থেকো।

৪| ১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১০:৫৯

মেঘনা পাড়ের ছেলে বলেছেন: গিয়াস লিটন ভাইকে ধন্যবাদ এমন দারুন একটা বই এর জন্য। সাথে আপুনি তোমাকে ধন্যবাদ দারুন রিভিউর জন্য.......

১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:০১

অপ্‌সরা বলেছেন: তোমাকেও অনেক অনেক ধন্যবাদ ভাইয়া!

বেবিদেরকে উপহার দেবার জন্য বা পড়ে শোনাবার জন্য এ এক দারুণ বই আর তাছাড়া বড়দেরও ভালো লাগবে।

৫| ১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:০৫

সুমন কর বলেছেন: রিভিউ চমৎকার হয়েছে। এ ক্ষুদে জিনিয়াস'রা বড় হয়ে বিশ্বকে আরো সুন্দর করে তুলক।
+।

১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:০৬

অপ্‌সরা বলেছেন: ঠিক তাই। সাথে তাদেরকে দেখে তাদের অনুপ্রেরনায় অন্য শিশুরাও জিনিয়াস হয়ে উঠুক !

৬| ১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:০৮

মনিরা সুলতানা বলেছেন: বই টা সংগ্রহ করতে পারি নাই ; তবে তথ্যগুলো জানলাম জিনিয়াসদের কথা ও ;
তোমার পাঠ প্রতিক্রিয়াতে ভালোলাগা !

১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:১১

অপ্‌সরা বলেছেন: থ্যাংক ইউ আপুনি!
বইটা সংগ্রহ না করতে পারলে আমাকে ঠিকানা দিয়ে দিও আমি পাঠিয়ে দেবো!

আমার কাছে অনেকগুলো আছে!
আসলেও বাবুদের জন্য দরকারী মানে উৎসাহব্যঞ্জক! তোমার বেবিদেরও ভালো লাগবে, এই পিচ্চি জিনিয়াসদের কথা জেনে! :)

৭| ১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:১৫

মনিরা সুলতানা বলেছেন: আচ্ছা আমারা বই বিনিময় করব ; আমার কাছে কিছু বই এর অনেকগুলো কপি আছে সেগুলো তোমাকে পাঠাবো তুমি আমাকে এই বই । ছুটিতে দেশে এসে নেই ।

১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:১৭

অপ্‌সরা বলেছেন: হা হা শুধু বই!

ক্যাকটাসের কথা কিন্তু ভুলিনি!

আমি কিন্তু কিছুই ভুলিনা! :(

দাওয়াতের কথা না হয় ভুলেই গেলাম! :P

৮| ১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:১৬

শাহরিয়ার কবীর বলেছেন:
বিস্তারিত পড়তে হবে ,,,,,,, ;)

১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:১৮

অপ্‌সরা বলেছেন: পাঠ প্রতিক্রিয়ায় বিস্তারিত কিছু নেই!

বইটা পড়লে আসলেই মুগ্ধ হতে হয় পিচ্চিগুলার সাফল্য দেখে !

৯| ১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:২০

নাগরিক কবি বলেছেন: বাহ! লিটন ভাইয়ের বইটা জোগাড় করে আমার বাচ্চাকাচ্চা রে দিতে হবে B-)

১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:২৪

অপ্‌সরা বলেছেন: হা হা বাচ্চা কাচ্চা নাতিপুতি সবার জন্যই সংগ্রহে রাখতে পারো! :)

১০| ১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:২১

শাহরিয়ার কবীর বলেছেন: রকমারি ডট কম এ বইটা আছে ? আর আগের মত নীলক্ষেত যাওয়া হয় না।।

১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:২৬

অপ্‌সরা বলেছেন: রকমারীতে আছে!
নীলখেতে পাওয়া যাবেনা! X((

১১| ১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:২৫

নাগরিক কবি বলেছেন: হাহাহাহ, আগে তো বউ, দেন বাচ্চা, তারপর হইবো কাচ্চা, পরে নাতিপুতি =p~

১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:২৮

অপ্‌সরা বলেছেন: কি বলো !

কয়টা বিয়ে করতে চাও!!!!!!!!

৪ টা!!!!!!!!!! B:-)

১২| ১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:২৭

জাহিদ অনিক বলেছেন: বাহ! জিনিয়াসদের নিয়ে ভরপুর পোষ্ট !

তোমাকে আরেকজন জিনিয়াসের কথা বলি, ইনি গণিতবিদ । কার্লস ফ্রিদরিখ গাউস। গাউসকে বলা হয় গনিতের রাজপুত্র ।
উনি যখন খুব ছোট, একেবারে পিচ্চি তখন ওনার আব্বা বসে বসে ব্যাবসায়ের লেজার খাতা যোগ করছিলেন, গাউস তার পাশে বসে, হঠাত সে চিৎকার দিয়ে উঠে বলল,
"ওহ, আব্বা তোমার তো ভুল হয়েছে, তোমার যোগ ভুল হইছে" ।
সেদিন তার বাবা চমকে গিয়েছিলেন ।

তো এর পরে গাউস স্কুলে ভর্তি হলেন, স্কুলে ম্যাথ টিচারকে বেশ জ্বালাতেন গাউস। তো টিচার একবার ক্লাসে ঢুকে ভাবলেন এই পিচ্চিকে আজ এমন একটা অংক দিতে হবে যা করতে করতে ক্লাস পার হয়ে যায়, আর যেন প্রশ্ন করতে না পারে।
তিনি বললেন, " এই তোরা সবাই ১ থেকে ১০০ পর্যন্ত যোগ করে নিয়ে আয়।"

সবাই স্লেট চক বের করে যোগ করা শুরু করে দিয়েছে এমন সময় গাউস তার স্লেট নিয়ে গিয়ে বলল, "স্যার হয়ে গেছে'' ।
টিচার তো অবাক !
তিনি জিজ্ঞেস করলেন, "হয়ে গেছে? বল উত্তর কত ? "
পিচ্চি গাউস উত্তর দিল, ৫০৫০ ।
গুরু তো অবাক !! বলল, কই কি করে করেছিস দেখা তো ?

তখন গাউস বলল, গুরু আপনি যে অংকটা দিয়েছেন সেটা তো এইটা তাই না ?
1 + 2 + 3 + 4 + … + 98 + 99 + 100 ।

গুরু বলল, হ্যা অংক এটাই । তুই করেছিস কোথায় স্লেট তো ফাকা !

গাউস বলল, গুরু দেখেন, এই অংকের লাইনের এই মাথায় আছে ১ আর ঐ মাথায় আছে ১০০, এই দুইটা যোগ করলে হয় ১০১, আবার পরেরটা দেখেন এই মাথায় আছে ২ আর ঐ মাথায় আছে ৯৯, এই দুইটাও যোগ করলে হয় ১০১ ।
এরকম জোড় পাওয়া যাবে ৫০ টি, যতগুলোই জোড় আছে সবগুলোরই যোগফল ১০১,
তাহলে গুরু এই যে, ৫০ গুণ ১০১, তাহলে হচ্ছে পঞ্চাশ এক্কে পঞ্চাশ এক্কে পঞ্চাশ , যোগ করে ৫০৫০ ।

গুরু তো এবার মহা অবাক !! পিচ্চি কাজটা করেছে কি !!

আসলে পিচ্চি যেটা করেছে সেটাকে আমরা এখন বলি সমান্তর ধারা । যা আমাদের দেশে ক্লাস নাইন টেন ও ইন্টারেও পড়ানো হয়।
ভাবা যায় এই জিনিয়াস পিচ্চি কত অল্প বয়সে এদেশে নাইন টেনের বাচ্চাদের জন্য পাঠ্য তৈরী করেছিলেন !

১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:৩২

অপ্‌সরা বলেছেন: গুড ! ভাইয়া এমন আরও পিচ্চিদের কথা জানা থাকলে জানাও!

গিয়াস ভাইয়াকে বলবো নেক্সট টাইম তাদেরকে নিয়েও লিখতে।

তুমি বলেছো গাউসের কথা ভাইয়ার বই এ আছে তাউসের কথা। :) :) :)

১৩| ১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:২৮

শাহরিয়ার কবীর বলেছেন: নীলখেতে পাওয়া যাবেনা! X(( ভয় পেয়েছি , এই ইমো কেরে ? B-)

১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:৩৩

অপ্‌সরা বলেছেন: হা হা একটু ভয় দেখালাম নীলখেতের কথা শুনে !!!!!!!!! :)

১৪| ১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:৩৭

জেন রসি বলেছেন: ফাহিমের সাথে এক ম্যাচ দাবা খেলতে পারলে ভালো হত। ফাহিমকে না পাওয়া গেলে লেখক লিটন ভাইয়ের সাথেও খেলা যায়। অথবা আপনার সাথে।

১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:৪১

অপ্‌সরা বলেছেন: আমার সাথে দাবা খেলবা!!!

কম্পিউটারও শেষমেষ হেরে গেছিলো !!!!!!

মানে আমাকে যখন হারায় দিচ্ছিলো আমি রাগে এমন সব চাল দিতে লাগলাম কম্পিউটারের মাথায় তালগোল পেঁকে গেলো!


তোমাকেও অবশ্য আমার মাঝে মাঝে রোবোট রোবোট লাগে।

কাজেই বুঝো খেলার আগে বুঝে সুঝে ! :)

১৫| ১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:৪৪

জাহিদ অনিক বলেছেন: তুমি বলেছো গাউসের কথা ভাইয়ার বই এ আছে তাউসের কথা। :) :) :) হাহাহা
তাউসের কাহিনীটা কিরকম ?

১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:৪৯

অপ্‌সরা বলেছেন: দাঁড়াও বলছি!!!

বইটা খুলে নেই আগে।:)

১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:৫৬

অপ্‌সরা বলেছেন: ভাইয়া লিখেছেন, ১৪ বছরেই Zend Ceritied Engineer হয়ে বিশ্বের সর্বকিনিষ্ঠ Zend Ceritied Engineer হবার গৌরব অর্জন করেছে বাংলদেশী তাউস। মাত্র ১৪তেই আন্তর্জাতিক স্বীকৃত পি এইচ ডি যেন্ড সনদ অর্জন করেছে সে।বিশ্বে তাক লাগিয়ে দিয়েছে এই প্রতিভাধর শেহজাদ নুর তাউস!

১৬| ১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:৪৫

জেন রসি বলেছেন: বুঝেছি। আপনি দাবা খেলা পারেন না! উল্টাপাল্টা চাল দিয়ে সিউর কম্পিউটার হাং করে ফেলেছেন! ;)

১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:৫০

অপ্‌সরা বলেছেন: হাং না!! কম্পিউটারের হা হয়ে যাওয়া মুখটাও আমি দেখতে পাচ্ছিলাম! মানে সে এমন বিস্মিত আমার অপরুপ জ্বালাতনে যে শেষমেষ হার মানতেই হলো ! :)

১৭| ১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:৫৪

দ্যা ফয়েজ ভাই বলেছেন: একটি অনন্য বইয়ের অনন্য রিভিউ।ভালো পোষ্ট,সূবর্ণের ব্যাপারটা সত্যিই চমৎপ্রদ।বাকীরাও অবশ্যই কম নাহ।
আসলে আমার মতে বাংলার প্রতিটি কোণে,লুকিয়ে আছে এমন হাজারো ক্ষুদে জিনিয়াস,হয়ত পৃষ্ঠপোষকতার অভাবে তারা বেরিয়ে আসতে পারছে না।
যদি,কখনো সঠিক মেধার সঠিক মূল্যায়ন করা হয়,তাহলে হয়ত লিটন ভাইয়ের বইটি বিশ্বের অন্যতম অতিকায় বইতে রুপান্তরিত হবে।
যারা আজ ক্ষুদে জিনিয়াস তাদের জন্য অবশ্যই শুভকামনা।
লিটন ভাইয়ের বইটি সংগ্রহে নেই,তাই একটা সৌজন্য সংখ্যা দাবী করতেই পারি B-))

১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:৫৯

অপ্‌সরা বলেছেন: আমারও বইটি পড়ার সময় মনে হয়েছিলো। শুধু মাত্র দেশের বাইরে থাকা আমাদের শিশুরাই বিশ্বে সুনাম অর্জন করতে পেরেছে। অথচ দেশের ভেতরে হাজারো শিশুরা হয়তো মেধা আছে শুধু উপযুক্ত সুবিধার অভাবে পেছনেই পড়ে রয়েছে।

লিটনভাইয়াকে বলবো তোমাকে বইটা পাঠিয়ে দিতে। হাজার হোক তুমিও শিশুই আছো। :)

১৮| ১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:৫৭

জাহিদ অনিক বলেছেন: ওকে, বই খুলে আসো । আমি খাতা পত্র নিয়ে রেডি হইগে

১৭ ই জুন, ২০১৭ রাত ১১:৫৯

অপ্‌সরা বলেছেন: বলেছি তো!!!!!!! উপরে দেখো! :)

১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ১২:০১

অপ্‌সরা বলেছেন: লেখক বলেছেন: ভাইয়া লিখেছেন, ১৪ বছরেই Zend Ceritied Engineer হয়ে বিশ্বের সর্বকিনিষ্ঠ Zend Ceritied Engineer হবার গৌরব অর্জন করেছে বাংলদেশী তাউস। মাত্র ১৪তেই আন্তর্জাতিক স্বীকৃত পি এইচ ডি যেন্ড সনদ অর্জন করেছে সে।বিশ্বে তাক লাগিয়ে দিয়েছে এই প্রতিভাধর শেহজাদ নুর তাউস!

বিশাল কাহিনী !
সব লেখা যাবেনা!!!!!!!

১৯| ১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ১২:০৪

জাহিদ অনিক বলেছেন: আচ্ছা আচ্ছা , বুঝেছি ।এই পিচ্চি ইঞ্জিনিয়ার হয়ে গেছে কোন প্রকার ল্যাব রিপোর্ট, এসাইনমেন্ট, মেকাপ ক্লাস ,প্রেজেন্টেশন না করেই !! ব্যাটা ফাকিবাজ । B-) ;)

১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ১২:০৫

অপ্‌সরা বলেছেন: হাহাহাহা না অনেক কিছু করেছে!!! তোমার মত আলসে নাকি!!!!!!! আমি এতকিছু লিখিনি!!!!!

বইটা পড়লে জেনে যাবে! :)

২০| ১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ১২:০৭

জাহিদ অনিক বলেছেন: আচ্ছা , তাহলে আর কি ! বই পড়ার ইচ্ছে প্রকাশ করিলাম

১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ১২:০৯

অপ্‌সরা বলেছেন: লিটনভাইয়াকে পাঠাতে বলো!!! :) তোমারও ক্ষুদে জিনিয়াসকাল আমাদের সাথে শেয়ার করতে পারো ! :)

২১| ১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ১২:০৮

দ্যা ফয়েজ ভাই বলেছেন: বাংলাদেশ সরকারের নামে মামলা করমু।কেনো তারা "১৮বছরের নিচে সবাই শিশু এই আইন করছে"
এর ফলে আমি"শিশু,বাচ্চা,পুচকে"এসব শুনতে হইতেছে। X((
যাই হোক,সরকারের বর্তমান শিক্ষাব্যাবস্থার পরিবর্তনই হয়ত দেশের অভ্যন্তরে থাকা মেধাবীদের বের করে আনতে পারবে,তা নাহলে হাজারো মেধাবী ঝরে যাবে পাঠ্য বইয়ের পাতার আড়ালে।

১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ১২:১৫

অপ্‌সরা বলেছেন: ওহ তাইলে পাঠ্যবই উঠায়ে প্রাকটিক্যাল এক্সপেরিমেন্টই শুধু রাখা হোক!

১২ বছরের নীচে শিশু আইন বানানো হোক!

২২| ১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ১২:১৩

জাহিদ অনিক বলেছেন: আচ্ছা লিটন ভাইয়াকে অনুরোধ করব ।

আমার কি শুধু ক্ষুদে কালটাই জিনিয়াস নাকি ! আমার তো সব কালই জিনিয়াসে ভরপুর ।

১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ১২:১৮

অপ্‌সরা বলেছেন: হা হা হা তোমার জিনিয়াস কালদের গল্প লেখো এবং ওপেন ফিল্ড রাখো!

সবাই সবার গল্প রেখে যাবে তাতে।

২৩| ১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ১২:২২

চাঁদগাজী বলেছেন:


গিয়াস লিটন ভালো কিছু তুলে ধরেছেন।

১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ১২:২৫

অপ্‌সরা বলেছেন: ঠিক তাই ভাইয়া!


অনেক অনেক ভালোবাসা ভাইয়ামনি! :)

২৪| ১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ১২:২৬

জাহিদ অনিক বলেছেন: তোমার জিনিয়াস কালদের গল্প লেখো এবং ওপেন ফিল্ড রাখো!

সবাই সবার গল্প রেখে যাবে তাতে।


ইইইইইই আইচ্চা B-) :D

১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ১২:২৯

অপ্‌সরা বলেছেন: হা হা :)

২৫| ১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ১২:৩৩

কলিমুদ্দি দফাদার বলেছেন: বইটির জন্য শুভকামনা।

১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ১২:৪১

অপ্‌সরা বলেছেন: থ্যাংক ইউ ভাইয়া!:)

২৬| ১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ১:০৫

গেম চেঞ্জার বলেছেন: আমি তো পড়তে সময়ই পেলাম না!!!!!!!!!!

১৮ ই জুন, ২০১৭ সকাল ১১:২১

অপ্‌সরা বলেছেন: ওকে ঠিক আছে আমি পড়ে পড়ে রেকর্ড করে তোমাকে পাঠিয়ে দেবোনে !

তোমার আর পড়ার দরকার নেই ! :)

২৭| ১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ১:৩৮

কাছের-মানুষ বলেছেন: গিয়াস উদ্দিন লিটন চমৎকার বিষয় বস্তুর নিয়ে বই লিখেছেন। এই ধরনের বই পড়ে শিশু কিশোররা বিজ্ঞান ,প্রযুক্তি এবং উদ্ভাবনী বিষয় বস্তুর উপর আকৃষ্ট হবে নিঃসংদেহে।

মারহাবা, আপনার বই বিতরণীর এই উদ্বেগ প্রশংসার দাবি রাখে। এর পর স্কুলের বাচ্চাদের ক্ষুদ্র প্রজেক্ট করার সন্মদ্ধে যদি বই পান তাহলে দিতে পারেন! এতে বাচ্চা শুধু পড়ে মোটিভেটেডই হবে না বরং বাসায় বা স্কুলে বিভিন্ন ক্ষুদ্র প্রজেক্ট ও করতে পারবে।

আপনার সুন্দর এই ভাবনা প্রমান করে আপনি শুধু একজন হেভিওয়েট ব্লগারই নন বরং একজন ভাল মানুষও বটে ।

পোষ্টে প্লাস , মাল্টিপিকেশোন সব



১৮ ই জুন, ২০১৭ সকাল ১১:২৬

অপ্‌সরা বলেছেন: মন্তব্যটা মন দিয়ে পড়লাম!

থ্যাংক ইউ ভাইয়া। ক্ষুদ্র প্রজেকে্টের আইডিয়া দারুন আর এসব বই ইংলিশ ছাড়াও বাংলাতেও আছে যদিও তবুও আমার স্কুল ইংলিশ মিডিয়াম হওয়ায় ইংলিশগুলোই বাচ্চারা বেশি পছন্দ করে। তবুও আমি চাই বাংলাতেই তারা পড়ুক। অনেক অনেক থ্যাংকস ভাইয়া এই সাজেশনটা মনে করিয়ে দেবার জন্য!

আর প্লাসগুলোর জন্য অনেক অনেক ভালোবাসা ও কৃতজ্ঞতা!

২৮| ১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ২:১৩

নাঈম জাহাঙ্গীর নয়ন বলেছেন: বইটি শিশুদের ইচ্ছে চেষ্টা বৃদ্ধি করতে উপযোগী নয় শুধু, মৃত্যুর আগ পর্যন্ত চেষ্টাশীল মানুষের প্রেরণা স্বরূপ।

সুন্দর উপস্থাপন করেছেন আপু।
বইটি ও আপনার জন্য শুভকামনা সবসময়।

১৮ ই জুন, ২০১৭ সকাল ১১:৪২

অপ্‌সরা বলেছেন: অনেক অনেক থ্যাংকস ভাইয়ামনি!

বইটি শিশুদের ইচ্ছে চেষ্টা বৃদ্ধি করতে উপযোগী নয় শুধু, মৃত্যুর আগ পর্যন্ত চেষ্টাশীল মানুষের প্রেরণা স্বরূপ।

আসলেই তাই!

২৯| ১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ২:১৬

সচেতনহ্যাপী বলেছেন: গিয়াস লিটন আমারও একজন প্রিয় লেখক।। তার অনেক লেখাই আমার ভাল লাাগর তালিকায় আছে।।।
বইটির পররিিচিতি তুলে ধরাতে, আপনাকেও ধন্যবাদ।।

১৮ ই জুন, ২০১৭ সকাল ১১:৪৭

অপ্‌সরা বলেছেন: ভাইয়া আমারও প্রিয়!

অনেক অনেক থ্যাংকস ভাইয়া তোমাকেও।

৩০| ১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ৩:৩৩

ধ্রুবক আলো বলেছেন: রিভিউ খুব সুন্দর হয়েছে। গিয়াস উদ্দিন লিটন ভাই কে ধন্যবাদ বইটার জন্যে, আপনাকেও অনেক ধন্যবাদ।

১৮ ই জুন, ২০১৭ সকাল ১১:৪৯

অপ্‌সরা বলেছেন: অনেক অনেক থ্যাংকস ভাইয়া!

আসলেই বইটা সবারই ভালো লাগবে!

৩১| ১৮ ই জুন, ২০১৭ ভোর ৪:০৩

রাবেয়া রাহীম বলেছেন: লিটন ভাই খুব উপযোগী একটি বিষয়ের উপর লিখেছেন । এই ধরনের বই শিশু কিশোরদেরকে উদ্ভাবনী বিষয়ে উপর আকৃষ্ট আকৃষ্ট করবে।

রিভিঊ অনেক প্রাঞ্জল হয়েছে।
শায়মা আপু তোমার এই উদারতা প্রশংসার যোগ্য নিঃসন্দেহে ।

শুভেচ্ছা দুজনকেই ।

১৮ ই জুন, ২০১৭ সকাল ১১:৪৯

অপ্‌সরা বলেছেন: লিটন ভাই খুব উপযোগী একটি বিষয়ের উপর লিখেছেন । এই ধরনের বই শিশু কিশোরদেরকে উদ্ভাবনী বিষয়ে উপর আকৃষ্ট আকৃষ্ট করবে।

একদম তাই ! :)

রিভিঊ অনেক প্রাঞ্জল হয়েছে।
শায়মা আপু তোমার এই উদারতা প্রশংসার যোগ্য নিঃসন্দেহে ।

অনেক অনেক ভালোবাসা আপুনি!

৩২| ১৮ ই জুন, ২০১৭ ভোর ৪:০৯

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন: লিটন ভাই ও আপনাকে ধন্যবাদ । বইটি পড়ার ইচ্ছে আছে।

১৮ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ১২:০০

অপ্‌সরা বলেছেন: থ্যাংক ইউ ভাইয়া !

৩৩| ১৮ ই জুন, ২০১৭ সকাল ৯:৫৩

মোস্তফা সোহেল বলেছেন: বইটি পড়ার ইচ্ছে রইল। ধন্যবাদ।

১৮ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ১২:০১

অপ্‌সরা বলেছেন: অবশ্যই পড়ে দেখো ভাইয়া!
ছোট বড় সকলেরই ভালো লাগবে!

৩৪| ১৮ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ১:০১

জে আর সিকদার বলেছেন: এই পোস্টের কল্যানে অনেক কিছুই জানতে পারলাম। ব্যাস্ত জীবনে কতো কিছুই অজানা রয়ে যায়! ধন্যবাদ

১৯ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৪:৪১

অপ্‌সরা বলেছেন: তোমাকেও ধন্যবাদ ভাইয়া!

৩৫| ১৮ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ১:০৫

আরিফ শাহরিয়ার জয় বলেছেন: সত্যিই অসাধারণ।

সুন্দর উপস্থাপন।

১৯ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৪:৪৩

অপ্‌সরা বলেছেন: থ্যাংকস আ লট ভাইয়ামনি! :)

৩৬| ১৮ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ১:১৯

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: গিয়াস ভাই নিরলস ভাবে বাংলাদেশি জিনিয়াসদের (ক্ষুদে ও বয়স্ক) সাথে আমাদের পরিচয় করিয়ে দিচ্ছেন। এসব পড়লে গর্বে বুক স্ফীত হয়।

আপনার রিভিউ খুব ভালো হয়েছে।

শুভেচ্ছা গিয়াস ভাই ও আপনাকে।

১৯ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৪:৪৪

অপ্‌সরা বলেছেন: অনেক অনেক থ্যাংকস ভাইয়া!

ছোটদের এবং বড়দের সবারই ভালো লাগবে এই বই!

৩৭| ১৮ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ১:৩৫

শূন্যনীড় বলেছেন: অসাধারণ উপস্থাপন, সুন্দর পোষ্ট। প্রিয় তে থাকুন।

১৯ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৪:৫০

অপ্‌সরা বলেছেন: অনেক অনেক থ্যাংকস ভাইয়া!

৩৮| ১৮ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ২:৪৭

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আমার সহব্লগারগণ আমার প্রতি সব সময় আন্তরিক। সেই সুবাদে তাঁরা সকলেই অবগত যে, আমার প্রথম প্রকাশিত গ্রন্থ ‘’প্রবাসে বাংলাদেশী গুণীজন’’। প্রকাশক শ্রদ্ধেয় মইনুল আহসান সাবের, দিব্য প্রকাশ। যা প্রকাশ হয়েছিল মে ২০১৬ তে।
পরবর্তিতে প্রকাশক মহোদয় আমাকে জানান যে, বইটিতে তাঁরা পাঠকের যথেষ্ট সাড়া পেয়েছেন এবং বইমেলা উপলক্ষে এরকম আরেকটি বইএর পান্ডুলিপি চান।
আমি তখন সামহোয়ার ব্লগে ‘বাংলাদেশী ক্ষুদে জিনিয়াসদের কথা’ নামে একটি সিরিয়াল লিখার প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। এর বিষয়বস্তু সম্পর্কে প্রকাশককে অবহিত করলে তিনি বিষয়টি লুফে নেন।
অবশেষে ‘বাংলাদেশী ক্ষুদে জিনিয়াসদের কথা’ ব্লগে প্রকাশিত না হয়ে সরাসরি এর পাণ্ডুলিপি চলে যায় প্রকাশকের কাছে। প্রকাশক থেকে পাঠকের হাতে।
২৫ তারিখ মেলায় গেলে প্রকাশক স্যার জানান – ‘ক্ষুদে জিনিয়াসদের কথা’র আর বেশি কপি বাকি নাই, মার্চেই বইটির দ্বিতীয় মুদ্রন প্রকাশিত হবে। এবং মার্চেই এর দ্বিতীয় মুদ্রন প্রকাশিত হয়।
মাস দুয়েক আগে দিব্য প্রকাশের ম্যানেজার সালাম সাহেব আমাকে ফোন করে জানান- একটা রিডিং প্রজেক্ট থেকে আমরা ‘ক্ষুদে জিনিয়াসদের কথা’ বইটির এক হাজার কপির একটা অর্ডার পেয়েছি। এর জন্য তারা শর্ত দিয়েছেন বইটিকে ৭৬ পৃষ্ঠা থেকে ১০০ পৃষ্ঠায় উন্নিত করতে হবে।
আমি বর্ধিত অংশের পাণ্ডুলিপি লিখে পাঠিয়ে দিয়েছি। আমি চেয়েছিলাম বইটিতে শুধু বাংলাদেশী জিনিয়াসদের কথাই থাকবে, বর্ধিত অংশ লিখতে গিয়ে সে কথা রাখতে পারিনি। কয়েকজন বিদেশীও ঢুকে পড়েছে।

এই ক্ষণে অপ্সরা ‘’ ‘ক্ষুদে জিনিয়াসদের কথা’ বইটি নিয়ে রিভিউ দিয়ে আমাকে অনেক কথা বলার সুযোগ করে দিল। তাঁর জন্য শুভ কামনা।
রিভিউ এত চমৎকার হয়েছে যে, আমার নিজেরই বইটি আবার পড়তে ইচ্ছে হচ্ছিল, এই কমেন্ট লিখার আগে বইটি আবার পড়লামও।
অনেকেই ক্লেশ স্বীকার করে লিখাটি পড়েছেন, অনেকে ততোধিক ক্লেশ স্বীকার করে মন্তব্য করেছেন, সকলের জন্য শুভ কামনা।
পরিশেষে, মনিরা সুলতানা আপু যেই সুত্র থেকে বইটি পাবেন, অন্যদের বেলায় সেটা সম্ভব নাও হতে পারে। :P :P তাঁদের জন্য রকমারী ডট কমই নির্ভরযোগ্য বলে আমার ধারণা।

১৯ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৪:৫১

অপ্‌সরা বলেছেন: বাহ ভাইয়া ! এত কিছু জানতাম না।

আসলেই এই বইটার দরকার আছে ! বাচ্চাদের জন্যও বড়দের জন্যও!

৩৯| ১৮ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ২:৫৭

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: পিতা হওয়ায় সেলিম আনোয়ার ভাইকেও অভিনন্দন! (যদিও মিষ্টি পাইনি)

৪০| ১৮ ই জুন, ২০১৭ বিকাল ৩:০২

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: কবি ফরিদ আহমদ চৌধুরী ভাই আমাকে শুধু শুধু লজ্জা দেন। অবশ্য জিনিয়াসরা লজ্জা দিলে, লজ্জা পেতে ভালোই লাগে।
অনেক ধন্যবাদ জানবেন কবি।

৪১| ১৮ ই জুন, ২০১৭ বিকাল ৩:০৫

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আমার সম্পর্কে বাড়িয়ে বলা আরেকজন মানুষ বিদ্রোহী ভৃগু ভাই। আপনিও ধন্যবাদ জানবেন কবি।

৪২| ১৮ ই জুন, ২০১৭ বিকাল ৩:২৬

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: জেন রসি ভাই, দাবা খেলায় আমার ধৈর্য আছে। এক জন ভাল মানের দাবাডুর কাছে আমি টানা তিন মাস গেম খেয়েছি। শেষে গেম দেয়া । টানা ৪ দিন আমি দেওয়ার পর উনি আর আমার সাথে খেলেন নি। =p~
এখন মাথা ব্যাথা করে।

৪৩| ১৮ ই জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৩৯

উম্মে সায়মা বলেছেন: আপনার স্কুলে বাচ্চাদের বই উপহার দেয়ার উদ্যোগটা ভালো লেগেছে আপু। লিটন ভাইয়ের ছোটদের জন্য লেখা সত্যিই প্রশংসনীয়। শুভ কামনা দুজনের জন্যই।

১৯ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৪:৫৩

অপ্‌সরা বলেছেন: হ্যাঁ আমি প্রতি বছরই দেই! লাইব্রেরীগুলোতে।

লিটনভাইয়ার বইটা অসাধারন! অনেক অনেক ভালোবাসা আপুনি!!!!!

৪৪| ১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ৮:১৫

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: জাহিদ অনিক ভাই, আপনি ক্ষুদেকালে যেমন জিনিয়াস ছিলেন, এখনো তেমনটি আছেন।
আমি বা কেউ যদি বূড়ো জিনিয়াসদের কথা লিখে সেখানে আপনিও থাকবেন B-)

১৯ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৪:৫৪

অপ্‌সরা বলেছেন: জাহিদভাইয়া গনিত জিনিয়াস!

৪৫| ১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ৮:৩৭

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: দ্যা ফয়েজ ভাই, আপনাকে সৌজন্য কপি দিতে পারলে আমার ভাল লাগতো। বইটি প্রকাশক নিজের খরচে ছাপিয়েছেন বলে আমি নিজেকেই কয়েক কপি কিনে নিতে হয়েছে। আপনি ঠিকানা দিয়েন, রকমারী ডট কমে অর্ডার করে আমি আপনার ঠিকানা দিয়ে দেব।
মনিরা আপুর মত আপনিও যদি অস্পরার প্রিয় হন তাহলে অস্পরাও আপনাকে এক কপি পাঠাতে পারে B-)

১৯ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৪:৫৫

অপ্‌সরা বলেছেন: আমিও পাঠাতে পারি!

নো প্রবলেম! :)

৪৬| ১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ৮:৫১

নাগরিক কবি বলেছেন: গিয়াস ভাই, আমি আপনার সাথে কথা বলতে চাই একটা ব্যাপারে। কিভাবে সম্ভব?

১৯ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৪:৫৭

অপ্‌সরা বলেছেন: ভাইয়া নীচে মেসেজ দিয়েছে । ম্যেসেজ দেখো!

৪৭| ১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ৯:৫৫

পোটলা ভরা জল বলেছেন: পোষ্ট পড়ে ভালো লাগলো

১৯ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৪:৫৮

অপ্‌সরা বলেছেন: থ্যাংক ইউ ভাইয়া!

৪৮| ১৮ ই জুন, ২০১৭ রাত ৯:৫৯

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: নাগরিক কবি , এখানে আসুন।

১৯ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৫:০৮

অপ্‌সরা বলেছেন: ভাইয়াকে বলেছি তোমার সাথে ফেসবুকে যোগাযোগ করতে।

৪৯| ১৯ শে জুন, ২০১৭ সকাল ৯:২৯

সোহানী বলেছেন: দেশে নেই বলে অনেক কিছুই মিস করতে হচ্ছে.... লিটন ভাই তাড়াতাড়ি বিদেশে কপি পাঠানোর ব্যবস্থা করেন।

শায়মাকে ধন্যবাদ খবরটি দেয়ার জন্য।

১৯ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৫:১০

অপ্‌সরা বলেছেন: ভাইয়া না পাঠালে আমিই পাঠিয়ে দেবো! :)

৫০| ১৯ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৩:৩২

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: অসাধারন পোষ্ট এর বিষয়বস্তু , একসাথে লাইক ও প্রিয়তে ।
এই জিনিয়াসদের বিষয়গুলি যথাসময়ে বিভিন্ন নিউজ মিডিয়াতে
দেখেছিলাম । তবে তাদেরকে সে সময় অভিনন্দন জনানোর মত
সুযোগ পাইনি । এখন এই পোষ্টের মাধ্যমে সকল ক্ষুদে জিনিয়াসদের
জন্য আন্তরিক অভিনন্দন ও তাদের উজ্জল ভবিষ্যতের জন্য শুভেচ্ছা
জনানো হল । সহব্লগার গিয়াসভাইয়ার জন্যও রইল শুভেচ্ছা ।

ধন্যবাদ এই ক্ষুদে জিনিয়াসদের কৃতিসমুহ ভিডিও লিংকসহ সংক্ষেপে
আমাদের সামনে তুলে ধরার জন্য ।

১৯ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৫:১১

অপ্‌সরা বলেছেন: ভাইয়া এই পোস্টেই শুভেচ্ছা জানিয়ে দাও !

গিয়াসভাইয়ার এই বই অসাধারণ!!!

তোমাকে অনেক অনেক থ্যাংকস ভাইয়া ! :)

৫১| ১৯ শে জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:০০

দ্যা ফয়েজ ভাই বলেছেন: আচ্ছা,চমৎকার ভাবে সাড়া দেয়ায় ধন্যবাদ।
আপনাকে যথাসময়ে ঠিকানা পাঠিয়ে দেয়া হবে।

এখন কোটি টাকার প্রশ্ন:অপ্সরা কি আমাকে এক কপি দিবে??? =p~

১৯ শে জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:১৬

অপ্‌সরা বলেছেন: দেবে! :)

৫২| ১৯ শে জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:০৫

বিজন রয় বলেছেন: আমি এখনো লেখক হতে পারলাম না, অথচ গিয়াস লিটন!!

অভিনন্দন।

১৯ শে জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:১৭

অপ্‌সরা বলেছেন: তুমিও হয়ে যাও! :) :) :)

৫৩| ১৯ শে জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:১৯

বিজন রয় বলেছেন: আমি তো লিখতেই পারি না!

১৯ শে জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:২২

অপ্‌সরা বলেছেন: আহা বললেই হলো!!!!!
কেউ মানবে না ! :)

৫৪| ১৯ শে জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:২৫

শাহরিয়ার কবীর বলেছেন:
এই বইটা আমাকে একটা কিনে দিবে ? ;)

২০ শে জুন, ২০১৭ রাত ৮:০৭

অপ্‌সরা বলেছেন: দেবো!!! কয়টা চাই বলো!!!!!!!

৫৫| ১৯ শে জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:১৭

জাহিদ অনিক বলেছেন: আমি বা কেউ যদি বূড়ো জিনিয়াসদের কথা লিখে সেখানে আপনিও থাকবেন B-)

গিয়াস ভাই, আমি মনে প্রাণে বিশ্বাস করি আপনি বড় জিনিয়াসদের নিয়েও বই লিখবেন ।

সেখানে আমার কথাও থাকবে ;)

শায়মা আপু, আমি মোটেই গণিত জিনিয়াস না। গণিত আমার ভাল লাগে না, তবে ভয় পাই না।
পরীক্ষার খাতায় ম্যাথ সলভ করি নিজের মত করে, পরীক্ষার পড়ে সবার সাথে উত্তর মিলিয়ে দেখি আমার উত্তর এসেছে -০.৫৮৬৫৮ আর বাকীদের সবার উত্তর আসে (2x+3Y)/z । তারপরেও স্যাররা যেন কিভাবে কিভাবে আমাকে মার্কস দিত।
মনে হয় স্যাররাও বুঝত না আমি কিভাবে করেছি, তার বাধ্য হয়ে মনে মনে বলতে, হতচ্ছাড়া এগুলো কি করেছে, দেই কিছু মার্কস দেই, পাশ করে যাক !

২০ শে জুন, ২০১৭ রাত ৮:০৯

অপ্‌সরা বলেছেন: আহালে বুঝাই গেলো তুমি টিচারদের প্রিয়!!!!!!

৫৬| ১৯ শে জুন, ২০১৭ রাত ৮:০০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: বিজন রয়র মত কবিতা লিখতে পারলে আমি মাটিতে পা ফেলতাম না।

২০ শে জুন, ২০১৭ রাত ৮:১১

অপ্‌সরা বলেছেন: হায় হায় কি করে হাঁটতে তাইলে ! B:-)

৫৭| ১৯ শে জুন, ২০১৭ রাত ৮:৪৩

বিজন রয় বলেছেন: ১৯ শে জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:২২ ০
লেখক বলেছেন: আহা বললেই হলো!!!!!
কেউ মানবে না ! :)


আমাকে তো কেউ কোনদিন বলেনি যে আমার লেখা ভাল হয়।
তাই কেউ মানবে না এটা বিশ্বাস করতে পারছি না।

২০ শে জুন, ২০১৭ রাত ৮:৪৩

অপ্‌সরা বলেছেন: B:-)

কি মিথ্যা!!!!!!!

কত মানুষ তোমার লেখায় বলে আমি নিজেই দেখেছি!

৫৮| ১৯ শে জুন, ২০১৭ রাত ৮:৪৯

নায়না নাসরিন বলেছেন: অপ্সরা আপু আপনার জন্য শুভেচ্ছা ও গিয়াসভাইয়ার জন্যও রইল অভিনন্দন :)
আমি ঢাকার বাহিরে থাকি বিধায় রকমারি ডট কম এ অর্ডার দিলে বইটা পাওয়া যাবে কি আপু ?

২০ শে জুন, ২০১৭ রাত ৮:৪৬

অপ্‌সরা বলেছেন: যাবে আপুনি!!!
অবশ্যই যাবে! :)

৫৯| ১৯ শে জুন, ২০১৭ রাত ৯:০৭

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: নায়না নাসরিন আপু, এখানে ক্লিক করুন

২০ শে জুন, ২০১৭ রাত ৮:৪৭

অপ্‌সরা বলেছেন: :)

৬০| ১৯ শে জুন, ২০১৭ রাত ৯:১৩

বিজন রয় বলেছেন: ৫৬. ১৯ শে জুন, ২০১৭ রাত ৮:০০ ০
গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: বিজন রয়র মত কবিতা লিখতে পারলে আমি মাটিতে পা ফেলতাম না।


হা হা .....
গিয়াস ভাই তবে কি আমি আকাশে থাকি??

২০ শে জুন, ২০১৭ রাত ৮:৫০

অপ্‌সরা বলেছেন: পাতালেও থাকতে পারো কে জানে !!!!!!!

মাঝে মাঝে ভেসে ওঠো ! :)

৬১| ১৯ শে জুন, ২০১৭ রাত ৯:৩৯

ভ্রমরের ডানা বলেছেন:
গিউলি ভাই ও এই রিভিউ লেখকের জন্য শুভকামনা!

২০ শে জুন, ২০১৭ রাত ৮:৫৪

অপ্‌সরা বলেছেন: তোমার জন্যও অনেক অনেক শুভকামনা!

৬২| ১৯ শে জুন, ২০১৭ রাত ১০:৪১

ফেরদৌসা রুহী বলেছেন: বইটি সংগ্রহ করার ইচ্ছে আছে যখন দেশে আসবো।

২০ শে জুন, ২০১৭ রাত ৮:৫৫

অপ্‌সরা বলেছেন: অবশ্যই আপু। :)

অনেক ভালো লাগবে।

৬৩| ২০ শে জুন, ২০১৭ রাত ৮:৫৬

আবুহেনা মোঃ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন: গিয়াস উদ্দিন লিটন সাহেবের এই বইটি পড়ার ইচ্ছা ছিল। কিন্তু বইটি কী রাজশাহী শহরের কোন বুক সেলারের কাছে পাওয়া যাবে?

২০ শে জুন, ২০১৭ রাত ৯:০১

অপ্‌সরা বলেছেন: ভাইয়া রকমারীতে পাওয়া যাবে! অনেক অনেক শুভকামনা! :)

৬৪| ২৪ শে জুন, ২০১৭ দুপুর ১:৫৯

সত্যপথিক শাইয়্যান বলেছেন: বইটি পড়ার ইচ্ছে থাকলো।

বিশ্বের ক্ষুদে জিনিয়াসদের নিয়ে ব্লগে লেখার ইচ্ছে ছিলো।

বাংলাদেশী ক্ষুদে জিনিয়াসদের কথা জেনে সত্যিই ভালো লাগলো।

শেয়ারের জন্যে ধন্যবাদ।

২৮ শে জুন, ২০১৭ দুপুর ১২:১৫

অপ্‌সরা বলেছেন: তোমাকেও ধন্যবাদ ভাইয়া!

আসলেও গিয়াসভাইয়ার এই বইটা যেমনই শিক্ষামূলক তেমনি মজার!

৬৫| ২৫ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৩:২৮

দীপান্বিতা বলেছেন: ক্ষুদে জিনিয়াসদের অনেক অনেক শুভেচ্ছা :)

২৮ শে জুন, ২০১৭ দুপুর ১২:২০

অপ্‌সরা বলেছেন: তোমার জন্যও অনেক অনেক শুভেচ্ছা দীপান্বিতামনি!!!!!!:)

৬৬| ২৫ শে জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:২৯

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: সুখী , সমৃদ্ধ ও আনন্দময় জীবন কামনায়
রইল ঈদ মোবারক

২৮ শে জুন, ২০১৭ দুপুর ১২:২১

অপ্‌সরা বলেছেন: ঈদ মুবারাক ভাইয়ামনি!!!!!!

তোমার ঈদের দিনটা জানতে চাই!!!!!

জানাও আমাদেকে পোস্ট দিয়ে !!! :)

৬৭| ২৭ শে জুন, ২০১৭ রাত ১:৪১

স্যাম উইনচেষ্টার বলেছেন: ইদ মুবারাক শায়মাপ্পি।
ববসরত্নের জন্য মেজাজ খারাপ করবেন না; এই আবর্জনা মাঝে মাঝে ঘেউ ঘেউ করে যাবে।

২৮ শে জুন, ২০১৭ দুপুর ১২:৪১

অপ্‌সরা বলেছেন: ঈদ মুবারাক ভাইয়া!

নাহ! মেজাজ খারাপ করবো কেনো! মন খারাপ! :(

ববসরত্ন কে???? এত রত্ন যত্ন নিয়ে ভাবিবার সময় নাহি! তবে আমার খুব মন খারাপ ! :( আমি মন খারাপ করে মরে যাচ্ছি । :( :( কুকুরের ঘেউ ঘেউ শুনলেই আমার ভীষন মন খারাপ হয়। ভীষন ভয় হয়!!!!! :( যদি কামড় দেয়!!!!!!!!! :( যদি জলাতংক হয়! যদি আমিও ওদের মত পাগল হয়ে যাই। :( তাই ভয় হয়!!!!!!! ! জানো! :( তুমি আমাকে মেজাজ মন খারাপ করতে নিষেধ করোনা! আমি আরও আরও মন খারাপ করবো! মেজাজ খারাপ করবো! কাঁদতে কাঁদতে মরে যাবো! :(


তবুও তাহাদের ঘেউ ঘেউ না থামুক। তারা আরও ঘেউ ঘেউ করুক। আমার মন খারাপ জেনে অনেক খুশি হয়ে নাচুক! আরও ঘেউ ঘেউ করে গলা নষ্ট করুক সময় নষ্ট করুক, নিজেদের পরিচয় দিক মানে মানুষের চেহারায় নপুংশক মর্কট :) । আমি এই ফাকে আমার কাজগুলো সারি! :)



আমার ঈদ পোস্ট লিখি ওকে ভাইয়ামনি!!!!!!! :)

অনেক অনেক ভালো থেকো! :)

৬৮| ২৭ শে জুন, ২০১৭ রাত ১১:৩৭

অগ্নিময়না বলেছেন: আপুমণিতা !!!!!!!!!

বাহ!!!!!!!!

মুগ্ধ মুগ্ধ মুগ্ধ!!!!!!!!

কেন মুগ্ধ জানিনা!!!!!!!!

২৮ শে জুন, ২০১৭ দুপুর ১:০৩

অপ্‌সরা বলেছেন: দানোনা!

আমি দানি!!!!!


আমাকে নকল কলে আমি সাজতে চাও!

আমি হতে এত শখ তোমাদের আমি জানি তো!!!!!!

আমার মত করে কথা, আমার মত করে চলা ....


না না কথা মানে এই আমার মত কলে কথা বলা ছাড়া আর কিছুই তো পারবেনা !


কারণ কাক কি আর ময়ুরের পেখম পরলে ময়ুর হতে পারে বলো!!!!!!!!:(

আহারে! চুক চুক! :(

আমার ভীষন কষ্ট হচ্ছে তোমার + তোমাদের গুটিকয়ের জন্য! :(

বেচারারা!!!!!!!! দেখো আমার মত কলে কলে কথা বলতে বলতে মানে নাচতে নাচতে ময়ুরের পেখম প্রায় খুলু খুলু..... সবখানে ধোলাই খেয়ে খেয়ে ধোলাইকালের ধুলু ধুলু হচ্ছো..... তবুও নর্তন থামছেই না ! :(

বুঝেছি আছাড় খেয়ে কোমর না ভাঙ্গা পর্যন্ত এই নর্তন আর থামিবেক না!!! :(

তবুও আবার ভাঙ্গা কোমরেই নাচিও!

কি আর করা যতক্ষন শ্বাস ততক্ষন আঁশ!!!!!!

আহারে এত কষ্ট! তবুও তোমাদের সাধ না মিটিলো আশা না পুরিলো ......:(

৬৯| ২৮ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৩:৩৪

মক্ষীরাজা বলেছেন: আপুমণিতা!!!!!!!!!

বাহ!!!!!!!!

মুগ্ধ মুগ্ধ মুগ্ধ!!!!!!!!

ঠিক পরীর দেশের রাজণ্যদের লেখা !!!!!!!!

উলে জাদুরে। উম্মা :>

২৮ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৩:৫০

অপ্‌সরা বলেছেন: হা হা হা হা এসে গেছো
মক্ষীর রাজাভাই
গুড পারফর্মেন্স
সার্টিফিকেট চাই!

এনে দেবো শিঘ্রিরি
ডোন্ট ওয়ারী এট অল
তার আগে একটিং
আরো ভালো শিখে ফেল। ( ছড়িতা মিলানোর জন্য ফেল বললাম কিছু মনে করোনা ওকে!!!!!!! )

ভাষাটাও খাসা নহে
রাজন্য কিয়া হে
উলে মুলে উম্মা চুম্মা
ওয়াক থু ব্রাশ পেস্ট দিয়ারে !!!!!

বমি বমি থু থু

৭০| ২৮ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৩:৫২

মক্ষীরাজা বলেছেন: আপুমণিতা!!!!!!!!!

বাহ!!!!!!!!

মুগ্ধ মুগ্ধ মুগ্ধ!!!!!!!!

ঠিক পরীর দেশের রাজণ্যদের লেখা !!!!!!!!

উলে জাদুরে। উম্মা :>

২৮ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৩:৫৪

অপ্‌সরা বলেছেন: এই পোস্ট পুরান যে আলোচিত যাবেনা
তোমার এ কষ্ট যে মূল্যটা পাবে না!

তার থেকে তোমাদের যদু মদু কদু ভাই
লিখেচেন যেইখানে সেই খানে দেওয়া চাই!:)

উলে মুলে উম্মা চুম্মা তাহাদের পায়েতে
দিয়ে আসো ভালোবাসো নিজেদের জাতেতে ! :) :) :)

৭১| ২৮ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৩:৫৭

মক্ষীরাজা বলেছেন: আপুনি!!!!!!!!!

বাহ!!!!!!!!

মুগ্ধ মুগ্ধ মুগ্ধ!!!!!!!!

ঠিক পরীর দেশের রাজণ্যদের লেখা !!!!!!!!

উলে জাদুরে। উম্মা :>

২৮ শে জুন, ২০১৭ বিকাল ৫:১০

অপ্‌সরা বলেছেন: ও পক্ষীরাজের ভায়া মক্ষীরাজ ঘোড়া খট খটকে দৌড়া!!!!!!


:)

আসলো ধরতে !!!!!!!!

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.