নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আম জনতার একজন।

ইছামতির তী্রে

I have a dream.

ইছামতির তী্রে › বিস্তারিত পোস্টঃ

‘ভালোবাসা ব্যাংক’: ভালোবাসা জমানো হয় যেখানে।

১৪ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ দুপুর ১:০৫

ভালোবাসার আরেক রূপ বিরহ। আর বিরহের কথা বললে চলে আসে উইলিয়াম শেক্সপিয়ারের অমর সৃষ্টি রোমিও অ্যান্ড জুলিয়েটের কথা। রোমিও আর জুলিয়েট ছিল কাল্পনিক চরিত্র, কিন্তু স্লোভাকিয়ার কবি আন্দ্রেজ স্লাদকোভিচ আর তার প্রেমিকা মারিনা পিসচলোভা ছিলেন বাস্তবের চরিত্র। আর সেই দুজনের অমর প্রেমকে স্মরণ করতে এক স্লোভাক শহরে ভ্যালেন্টাইন ডেতে প্রেমিক-প্রেমিকারা ভিড় করছেন ‘লাভ ব্যাংক’-এ নিজেদের ভালোবাসা জমা রাখতে। খবর এএফপি।



মারিনার ধনী বাবা-মা হতদরিদ্র স্লাদকোভিচের বদলে তাকে এক ধনী জিঞ্জারব্রেড নির্মাতার সঙ্গে বিয়ে দেন। সেই বিরহে ১৮৪৪ সালে স্লাদকোভিচ ‘মারিনা’ নামে যে ২ হাজার ৯০০ ছত্রের কবিতা লিখেছিলেন সেটি আজো বিশ্বের সবচেয়ে বৃহৎ প্রেমের কবিতা।

বানসাকা স্টিয়াভনিকা শহরের যে বাড়িতে মারিনা থাকতেন, সেটিকে এখন ডাকা হয় ‘ভালোবাসার কেন্দ্র’ বলে। এখানে নানা প্রদর্শনীর মধ্যে আছে ‘লাভ-ও-মিটার’ যা দিয়ে যুগলদের ভালোবাসা পরিমাপ করা হয়।

তবে বেশিরভাগ যুগলের কাছে সবচেয়ে আকর্ষণীয় ব্যাপার হচ্ছে ‘লাভ ব্যাংক’। বাড়িটির বেসমেন্টের লম্বা টানেলটিকে একটি ভল্টে পরিণত করা হয়েছে। সেই ভল্টে ১৭৪ বছরের পুরনো ‘মারিনা’-এর পাণ্ডুলিপিটির প্রতিটি বর্ণ, শূন্যস্থান এবং বিরামচিহ্নের জন্য ঠিক ১ লাখ ছোট ড্রয়ার রাখা আছে।



বছরে বিশেষ কয়েক দিন, যেমন ভ্যালেন্টাইন ডের, দিনে প্রেমিক-প্রেমিকারা এখানে তাদের ভালোবাসা ‘জমা’ রাখতে পারেন। যেমন ২৪ বছর বয়স্ক ডোমিনিকা হ্রাবুসোভা বলেন, আমি ও আমার বাগদত্তা দুয়েকদিনের মাঝে এখানে আসব এবং আমাদের প্রথম ডেটের দিন দেখা সিনেমার টিকেট এখানে লুকিয়ে রাখব।

৩৮ বছরের ইয়ান মনে করেন শহরটি একটি রত্নবাক্স আর প্রদর্শনীটি অন্য। সম্ভবত ইয়ানের মতোই মুগ্ধতা থেকেই ১৯৯৩ সালে শহরটিকে ইউনেস্কোর ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইট হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

দেখুন ভিডিওতে:
view this link

বোনাস হিসেবে থাকল একটা ভালবাসার কবিতাঃ

ধূসর মরুর ঊষর বুকে
বিশাল যদি শহর গড়,
একটি জীবন সফল করা
তার চাইতে কঠিন বড়-
একটি উদাস হৃদয় যদি
বাঁধতে পারো প্রেমের ডোরে
বন্দি শতেক মুক্তি দানের
চাইতে জেনো শ্রেষ্ঠ!


Happy Valentine’s Day!

সবাইকে অনেক ধন্যবাদ।

কৃতজ্ঞতা স্বীকারঃ 'বণিক বার্তা'য় প্রকাশিত এক নিবন্ধের আলোকে।
লেখার লিঙ্কঃ Click This Link

মন্তব্য ১০ টি রেটিং +২/-০

মন্তব্য (১০) মন্তব্য লিখুন

১| ১৪ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ বিকাল ৫:২০

রাজীব নুর বলেছেন: চমতকার।

১৪ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ বিকাল ৫:৪২

ইছামতির তী্রে বলেছেন: সত্যি চমতকার।

ধন্যবাদ ভাই।

২| ১৪ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ বিকাল ৫:৫৭

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: ‘লাভ-ও-মিটার’ যা দিয়ে যুগলদের ভালোবাসা পরিমাপ করা হয়। বলেন কি ?
আমাদের দেশি পোলামাইয়ারা নির্ঘাত ফেল !!!

১৪ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:০২

ইছামতির তী্রে বলেছেন: হাহাহা। না, আমাদের দেশের ছেলে-মেয়েদের অনেকেই একে অপরকে গভীরভাবে ভালবাসে।

ধন্যবাদ ভাই।

৩| ১৪ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ রাত ১১:৩২

মনিরা সুলতানা বলেছেন: বাহ !! তথ্য সমৃদ্ধ লেখা ;আগে জানতাম না ।
বসন্তের শুভেচ্ছা ।

১৫ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ সকাল ১০:০৮

ইছামতির তী্রে বলেছেন: লেখাটা আমার না। রেফারেন্স দেয়া আছে।

আপনাকেও ফাল্গুনের শুভেচ্ছা।

৪| ১৫ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ সকাল ১০:৩৬

আহমেদ জী এস বলেছেন: ইছামতির তী্রে ,




আগে জানতুম না । জানা হলো আপনার শেয়ার করাতে । ধন্যবাদ ।

গিয়াস উদ্দিন লিটন এর মন্তব্য জোস হয়েছে । তবে ভালোবাসার প্রশ্নপত্র ফাঁস আমাদের পোলামাইয়াদের কাছে কোনও ব্যাপার না ! :-P B-)

১৫ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ সকাল ১০:৪৩

ইছামতির তী্রে বলেছেন: ধন্যবাদ ভাই।

আমি অবশ্য বেশ অবাক হয়েছি। আমি ব্লগে মোটামুটি নিয়মিত। গিয়াস ভাইয়ের এই লেখাটার সিংহভাগ আমার লেখা থেকে নেয়া। তিনি এটা একবার স্বীকারও করলেন না। এটা অনুচিত কাজ। যাইহোক, আমি সরাসরি তাকে দুঃখ দিতে চাইনি।

হাহাহা। 'ভালোবাসার প্রশ্নপত্র ফাঁস' দারুণ বলেছেন। হাহা

ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য।

৫| ১৫ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ সকাল ১০:৫৬

আহমেদ জী এস বলেছেন: ইছামতির তী্রে ,




প্রতিমন্তব্যে ধন্যবাদ । তবে একটু খটকা লাগলো "গিয়াস উদ্দিন লিটন" প্রসঙ্গে ।

লিখেছেন --- " গিয়াস ভাইয়ের এই লেখাটার সিংহভাগ আমার লেখা থেকে নেয়া। তিনি এটা একবার স্বীকারও করলেন না। এটা অনুচিত কাজ।"
এই লেখাটার মানে কি ? অন্য কোনও লেখা না কি তার এখানের মন্তব্যটি ? যদি এখানের মন্তব্যটি বুঝিয়ে থাকেন তবে আপনার বুঝতে ভুল হয়েছে । "গিয়াস উদ্দিন লিটন" আপনার পোস্ট থেকে যে লাইনটি নিয়েছেন তা তিনি বোল্ড করে দিয়ে বুঝিয়েছেন যে এটা আপনারই লেখা । উনি সেটা তুলে ধরে তার পরিপ্রেক্ষিতে বাকীটুকু লিখেছেন । এটাই তো নিয়ম মন্তব্য
করার । আলাদা ভাবে স্বীকার করার আর প্রয়োজন থাকে কি ?

১৫ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ সকাল ১১:১৬

ইছামতির তী্রে বলেছেন: ওহ হো! আমি ধরেই নিয়েছিলাম আপনি বোধহয় জানেন। স্যরি। খোলাসা করছি।

গিয়াস উদ্দিন লিটন ভাই সম্প্রতি "ভালোবাসার ক্ষেত্রে ব্যর্থতাই অমরত্ত্ব লাভের উপায় ও দুধু খাওয়া মজনু সমাচার" শিরোনামে একটি লেখা দিয়েছেন। আমি মূলত এই লেখা প্রসঙ্গে বলেছি। লিটন ভাইয়ের সেই লেখায় আমার একটা মন্তব্য আছে। সেটি দেখলে বাকীটুকু বুঝতে পারবেন আশা করি।

আপনাকে ধন্যবাদ।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.