নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

বেঁচে আছি তাই তো নিঃশ্বাস নিতে হচ্ছে,কথা বলতে হচ্ছে,কাজ করতে হচ্ছে,উঠতে বসতে মানুষ জনের কথা শুনতে হচ্ছে। ব্লগের স্বত্বাধিকারী লেখিকা নিজেই।।

সামিয়া

আমি কথা বার্তায় ফ্রেন্ডলি । আড্ডা ঘোরাঘুরি পছন্দ করি, বন্ধুবান্ধবদের পছন্দ করি শত্রু কেও পছন্দ করি। সৎ, সাদাসিধা মানুষ। একটু স্বাধীন টাইপ। মানুষ এর মন বুঝি। সচেতন থাকি আশেপাশের কোন মানুষ কে কষ্ট না দিয়ে কথা বলার। পড়তে ভাললাগে, লিখতে ভাললাগে, ছবি তুলতে ভাললাগে, মানুষের মুখে হাসি দেখতে ভাললাগে।

সামিয়া › বিস্তারিত পোস্টঃ

বুক রিভিউ: জাপানি ভূতের গল্প

১২ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৩২




আজ বিকেলে এক মেয়েরে দেখলাম মুখ ভার করে খানিকটা বিরক্ত হয়ে মন তিতা করে বসে আছে, আমাকে দেখে সে ইচ্ছার বিরুদ্ধে জিজ্ঞেশ করলো আমি কেমন আছি শরীর আগের থেকে ঠিক হইছে কিনা! সিটি স্ক্যান করা হইছে কিনা। কথাগুলা বলে আবার তাকে মুখ ভার করে থাকতে দেখে আমি প্রসঙ্গ সম্পূর্ণ উলটাইয়া দিয়া বললাম, ডিয়ার কি হইছে তোমার? আজকাল তোমারে দেখতে এমন সুন্দর দেখায় কেন? কি করছো তুমি? চুল কাটছো? চুলে কালার করছো? ড্রেসের স্টাইল পরিবর্তন করছো? ফেইস পাউডারের সেইট চেঞ্জ করছো? লিপ? শুকাইছো? কথা বলার স্টাইল পরিবর্তন করেছো? হাসির স্টাইল কি আগেরটাই? কি করছো বলতো ডার্লিং? মেয়েটি ফিক করে হেসে দিলো। তারপর বেশ কিছু সময় ধরে হাসতে থাকলো।

মানুষের মন খারাপ দেখলে আমি নিজ দায়িত্তে তাদের সাথে কমেডি করে হাসাইয়া ফেলাই, এই গুন আমার আছে আবার হয়তো এই গুন আমার নাই, এইটাকে কনফিডেন্স বলা যায় না নিজের প্রতি কিছুটা ফ্যাসিনেশন বলা যেতে পারে। দুনিয়ার ৯০ ভাগ মানুষই এই রকম হয় নিজের প্রতি মোহ মায়া ভালো ভালো গুন আছে এই রকম ধারনা পোষণ করে বসে থাকে, সেই ধারনা সত্যি হতে পারে আবার ভুল ও হতে পারে, তারপর ও পুরা জিন্দেগী সেই ভুল ভ্রান্তিতে কাটাইয়া দিতে পারে। জাপানি ভুতের গল্পের লেখিকা এই সকল ফ্যাসিনেশন কিংবা নিজের প্রতি আত্মঅহংকার কে কাটিয়ে উঠে অত্যন্ত সাবলীল ভাবে প্রতিটা গল্প সে লিখে গিয়েছেন।আসলে কি বলা যেতে পারে!এইটা যেমন ছোটদের গল্পের বই তেমনি কিশোর কিশোরীদের গল্পের বই তেমনি বড়দের গল্পের বই ও হতে পারে।

সব শ্রেণীর পাঠক এই বই পড়ে তৃপ্তি যেমন পাবেন, তেমনি জানতে পারবেন জাপানকে। বলা যেতে পারে সল্প পরিসরে বিশদ ধারনা। জানা যাবে জাপানের ঐতিহ্য জাপানের বিভিন্ন নিয়ম রীতি নীতি, সেখানকার মানুষ এক ঘরে নাকি মিশুক জাপানি যত অদ্ভুত অদ্ভুত নাম, আরেকটি ব্যাপার আমাকে চমৎকৃত করেছে, জাপানের বিভিন্ন অঞ্চলের প্রকৃতির বর্ণনা, ভৌতিক আবহের পাশাপাশি রহস্যময় প্রকৃতি এত সুন্দর ভাবে লেখিকা উপস্থাপন করেছেন যে,বইটি পড়ার সময় অনেক অজানাকে জানার পাশাপাশি এডভেঞ্চার ও অনুভুত হচ্ছিলো।


বেশ কিছু গল্পের শেষে একটি সুন্দর শিক্ষামুলক উক্তি, যেমন হিনামাতসুরি গল্পের শেষে তিনি বলেছেন ''জীবনের জন্য অনেক ভালবাসার রহস্যের সাথে দৃষ্টির বিচক্ষনতা জরুরী।'' অদ্ভুত সুগন্ধি গল্পের শেষে লিখেছেন, ''রহস্যময় পৃথিবীর সব রহস্য নিয়ে ভাবতে নেই। কিছু রহস্য কেবল রহস্য হয়েই থাকে।'' সাপ্পরো স্টেশনে লিখেছেন, ''সময় কোন এক অদ্ভুত রহস্যে মিটিয়ে নেয় তার সব দাবি ঠিক সময় মত।'' এই কথাটি আমার বেশ ভালো লেগেছে।

এবারে বই সম্পর্কে প্রয়োজনীয় ইনফরমেশনঃ-
বইঃ জাপানি ভূতের গল্প
বইয়ের ধরনঃ গল্পগ্রন্থ
লিখেছেনঃ নুরুন নাহার লিলিয়ান
পাবলিশারঃ একরঙ্গা এক ঘুড়ি
পাবলিকেশনঃ অমর একুশে বইমেলা ২০১৮
ফরম্যাটঃ পেপার ব্যাক সিরিজের বই
পাতাঃ ৪৮
পাওয়া যাবে রকমারি ডট কম এ।

বিঃদ্র এটা আমার জীবনের প্রথম বুক রিভিউ। রিভিউ করেছি অবশ্যই লেখিকা আমার আপন মানুষ এই রকম ফিলিং থেকে। আপন মানুষ বলতে লেখিকা আমার ব্যক্তিগত পরিচিত তা নয়, এখানে আপন মানুষ ব্যাপারটা হচ্ছে সামহোয়্যারইন ব্লগের সহব্লগার মানেই কেমন যেন আপন আপন।
মনেহয় উই পিপল আর টুগেদার ফরএভার। মেলায় ভীরের কারনে অনেকের বই খুঁজে সংগ্রহ করতে পারিনি, কেউ কেউ হয়তো বললে বিলিভ করবেন না, ঘুড়ির স্টলে ঢুকে প্রথমেই আমি আমার নিজের বই না ধরে আগেই সহ ব্লগারদের বই হাতে নিচ্ছিলাম। আরেহ এটা তো ফাহমিদা আপুর বই! আর এটা লিলিয়ান আপুর! ঋদ্ধঃ ২ বইটাতে দেখি সবাই আছে ওয়াও শায়মা আপু সম্পাদনা করেছে! লিটন ভাইয়ার লেখা আছে! চাঁদগাজি ভাইয়ার লেখা আছে! সুমন কর, এম আলী ভাই, শুভ্র, জেসন ভাই, জাহিদ অনিক সহ অনেকেই লিখেছেন! দারুন তো! আরে ঋদ্ধ এক এর প্রচ্ছদ জাদিদ ভাই করেছেন! তিনি ছবি আঁকতে ও পারেন! এইরকম নানা কমেন্ট করতে করতে খেয়াল করলাম আমার সঙ্গে যাওয়া বন্ধু বিরস চোখে তাকিয়ে আছেন, কারন আমার কাছে যারা অতি আপন তাদের কে তো ও আর চেনে না।

যাই হোক ঋদ্ধঃ ২ বইটায় আমিও থাকতে পারতাম এই কথা শায়মা আপুকে বলতেই তিনি বললেন, বেবি তুমি বুদ্ধিতে যেমন বাচ্চা লেখালিখিতে আরো বাচ্চা, তাছাড়া একটি বই করা কোটি কোটি টাকার ব্যাপার!! তুমি ঐসব বুঝবে না, তাছাড়া তোমার লাইন হয়ে যায় আঁকাবাকা ভালোনা হাতের লেখা, তুমি পনেরো বছর পড়ে এসো তখন ভেবে দেখবো। আপুর কথা শুনে মনে মনে আল্লাহ্‌র কাছে সেই থেকে প্রার্থনা করছি আল্লাহ্‌ তুমি আমারে ঋদ্ধে লিখবার জন্য পনেরোটা বছর বাঁচায়ে রাখো গো আল্লাহ্‌।। :) :)

সবশেষে,
ভালবাসি সবাইকে।

মন্তব্য ৩২ টি রেটিং +৬/-০

মন্তব্য (৩২) মন্তব্য লিখুন

১| ১২ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৩৯

সালাহ উদ্দিন শুভ বলেছেন: আপনার রিভিউ পড়ে মনে হচ্ছে আমার সম্পাদিত বইটা আপনাকে গিফট করতে। এমন সুন্দর রিভিউ দেখে লোভ সামলানো মুশকিল B:-/

১২ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৪৭

সামিয়া বলেছেন: Thank you..বইটি কোথায় পাওয়া যাবে বললে, আমি সংগ্রহ করেই রিভিউ দিতে পারবো ভাই।

২| ১২ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৪৭

মোস্তফা সোহেল বলেছেন: রিভিউ ভাল হয়েছে।

১২ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৪৮

সামিয়া বলেছেন: ধন্যবাদ
শুভকামনা।

৩| ১২ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৫৩

সালাহ উদ্দিন শুভ বলেছেন: বাংলাবাজার, নীলক্ষেত আর অন্যান্য কিছু জেলায়।
আর অনলাইনে রকমারি, আমারবই, বইউৎসব এসবে পাবেন।
রকমারিতে 'এবং গল্প'

১২ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১:১১

সামিয়া বলেছেন: ধন্যবাদ আবারো,
শুভকামনা।

৪| ১২ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১:০১

শাহরিয়ার কবীর বলেছেন: যদিও ভূতের গল্প পড়তে ভয় লাগে!! ;)

কিন্তু রিভিউ পড়ে মনে হল গল্পটি লেখিকা অনেক ভাল লিখেছেন।

১২ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১:১১

সামিয়া বলেছেন: ধন্যবাদ
শুভকামনা।

৫| ১২ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১:৩৯

আখেনাটেন বলেছেন: সংক্ষিপ্ত হলেও যা লিখেছেন ভালো বলতেই হয়;

আর সহব্লগারদের নিয়ে আপনার ভাবনাটুকুও হৃদয় ছুঁয়ে গেল।

বইটি কেনার ইচ্ছে রইল।

ভালো থাকুন।

১২ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১:৪৬

সামিয়া বলেছেন: অনেক অনেক ধন্যবাদ ভাইয়া।
ভালো থাকুন।
শুভকামনা।

৬| ১২ ই মার্চ, ২০১৮ বিকাল ৩:০৮

মাহমুদুর রহমান সুজন বলেছেন: বুক রিভিউ ভালো লাগলো। বইটি সংগ্রহের ইচ্ছাও বেড়ে গেলো।

১২ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:০১

সামিয়া বলেছেন: অনেক অনেক ধন্যবাদ।
ভালো থাকুন। 

৭| ১২ ই মার্চ, ২০১৮ বিকাল ৩:২৭

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন: সুন্দর।

১২ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:০১

সামিয়া বলেছেন: ধন্যবাদ,
শুভকামনা।

৮| ১২ ই মার্চ, ২০১৮ বিকাল ৪:১৫

রাজীব নুর বলেছেন: বোন এর পর আমি যখন কোনো বই লিখব, আপনি রিভিউ লিখবেন। প্লীজ প্লীজ।

১২ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:০৩

সামিয়া বলেছেন: সেটা আমার জন্য হবে অনেক আনন্দের এবং সন্মানের।।
অনেক অনেক ধন্যবাদ ভাইয়া।
ভালো থাকুন। 
শুভকামনা।

৯| ১৩ ই মার্চ, ২০১৮ সকাল ৯:২৫

অনন্য দায়িত্বশীল আমি বলেছেন: চমৎকার হয়েছে।

১৩ ই মার্চ, ২০১৮ সকাল ১১:৪২

সামিয়া বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ।
ভালো থাকুন। 
শুভকামনা।

১০| ১৩ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:০২

তারেক ফাহিম বলেছেন: আপনার ভাবনাগুলো ব্লগারদের প্রেরণা।


১৩ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:০৫

সামিয়া বলেছেন: রিয়েলি!! অনেক অনেক ধন্যবাদ ভাই।।
ভালো থাকুন সব সময়।।

১১| ১৩ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১:৪৬

বারিধারা ২ বলেছেন: শেষের দুইটা লাইন পড়ে সাহতে সাহতে হেস! ভালই কমেডি। শায়মা আপুর কমেডি সেন্স মারাত্মক! কোটি কোটি টাকা। হা হা ! হি হি! হু হু!

১৩ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ২:২৫

সামিয়া বলেছেন: শেষের দুইটা লাইন শায়মা আপু আমায় বলছে এটা আপনার বিলিভ হইল কীভাবে? B-) :D

যাই হোক আপনাকে হাসাইতে পেরে আমি আনন্দিত ।।

ধন্যবাদ ।

১২| ১৩ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১:৫২

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: নিশ্বাস নিতে হচ্ছে কথা বলতে হচ্ছে কেমন কথা??? কেমন ভাবনায় ফেলে দিলেন মনে হচ্ছে নিশ্বাস নিতে চাচ্ছেন না ।স্ট্রেঞ্জ!!!
রিভি উ ভালো হয়েছে ।

১৩ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ২:২৭

সামিয়া বলেছেন: প্রোফাইলের লেখা পোষ্টে টেনে আনলে তো মুশকিল।
এই কয়টি লাইনের অর্থ স্ট্রেঞ্জ চোখে দেখলে স্ট্রেঞ্জ । জীবনমুখী চোখে দেখলে ঠিক ঠাক।।

ধন্যবাদ ভাইয়া। ভালো থাকুন।

১৩| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৫২

নুরুন নাহার লিলিয়ান বলেছেন: !:#P :P
প্রিয় সামিয়া ,

আপনি এমন আচমকা এতো করে ভালোবাসা উপহার দিবেন তা কল্পনায় ও ছিলো না । এই পৃথিবীতে এই সময়ে অনেক অনেক বেশি ভালোবাসা দরকার । অজস্র হাহাকারে বুভুক্ষা হৃদয় খুঁজে বেঁচে থাকার আশ্রয়স্থল । আমি কিংবা আপনি কতো দিন এই পৃথিবীর তাবৎ সৌন্দর্য আর মানুষের প্রতি মানুষের ভালোবাসা গুলো দেখতে পাব জানি না । তবে আপনার এই উষ্ণ ভালোবাসার প্রকাশ সময়ের কাছে রয়ে যাবে অনন্তকাল । মহান আল্লাহ্‌ আপনার মঙ্গল করুন । ভালোবাসা নিরন্তর ।
লিলিয়ান


১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১:০৭

সামিয়া বলেছেন: কমেন্ট পড়ে তো ইমোশনাল হয়ে গেলাম। নিঃসন্দেহে আপনি একজন গুণী লেখিকা। লেখার গুন জোর করে হয় না, এই প্রতিভা বিধাতা কর্তৃক পাওয়া যায় তবে চর্চায় লেখা আরও ধারালো কিংবা শক্তিশালী হয়। আপনি তথাকথিত বাংলাদেশের ফেমাস রাইটারদের থেকে অনেক অনেক ভালো লিখেন। এবং একজন সহ ব্লগার হিসেবে আপনাকে পেয়ে গর্ববোধ করি। ভালোবাসা ছিল আছে থাকবে প্রিয় রাইটার। সবসময় শুভকামনা।

১৪| ১৫ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ১১:৪৬

জাহিদ অনিক বলেছেন: বাহ!!! বুকরিভিউ খুব ভালো হয়েছে আপু। বইটা পড়ার ইচ্ছে আছে।

১৬ ই মার্চ, ২০১৮ সকাল ১১:০০

সামিয়া বলেছেন: ধন্যবাদ ভাই, শুভকামনা।

১৫| ২৭ শে মার্চ, ২০১৮ ভোর ৪:০৯

ফাহমিদা বারী বলেছেন: ফাহ্‌মিদা আপুর নাম আসাতে উল্লসিত হয়ে উঠেছিলাম। যাক, মনে হচ্ছে মনের সুপ্ত ইচ্ছা পূর্ণ হতে যাচ্ছে। কেউ হয়ত একখানা রিভিউ লিখতে যাচ্ছে।
কিন্তু পরে কার রিভিউ কীসের রিভিউ কিছুই বুঝলাম না।
উপরের মন্তব্যগুলোও পড়ে এসে গালে হাত দিয়ে বসে থাকলাম।
দিনে দিনে কেমন টিউবলাইট হয়ে যাচ্ছি!!!!! :( :( :(

২৭ শে মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৪৫

সামিয়া বলেছেন: আপু এটা লিলিয়ান আপুর জাপানি ভুতের গল্পের বই এর রিভিউ।
আমি কিন্তু আপু তোমার বইটি ও সংগ্রহ করেছি, অপেক্ষা করো তোমার বইয়ের রিভিউ ও আসবে।।

ভালো থেকো শুভকামনা।।

১৬| ২৭ শে মার্চ, ২০১৮ ভোর ৪:১৭

চাঁদগাজী বলেছেন:


বলছেন, এটা আপনার প্রথম রিভিউ? রিভিউ লেখার ষ্টাইলটা ভালো লেগেছে; আপনার রিভিউতে বই ও লেখকের লেখার ধরণ ইত্যাদি কম, তবে মমত্ব আছে, ভালো; পড়তে ভালো লেগেছে।

২৭ শে মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৪৭

সামিয়া বলেছেন: ভাইয়া আপনি বইটি পড়লে বুঝবেন লেখার ধরন থেকে শুরু করে কিছুই কম বর্ণনা করিনি।
বলতে চাইছি গল্পগুলো অনু গল্প এবং কম সংখ্যক পৃষ্ঠার, এর থেকে বেশি বললে পুরা বই লেখা হয়ে যাবে।

এই তো-----------

ভালো থাকুন। ধন্যবাদ।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.