নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সুদীপ কুমার

সকল পোস্টঃ

ভাল থেকো তোমরা

১৪ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ২:৩৩

রেডিওর শব্দ
আর উড়ো বাতাস,খবর
বয়ে এনেছিল-
দেশ স্বাধীনের
বেশী দেরী নেই আর।

এন্টারপ্রাইজ দিক বদলায়।
ওদিকে সোভিয়েত রণতরী সাহস দেয়
-ভয় পেয়োনা,বাংলার স্বাধীনতা এলো বলে।

দিনের বিষণ্ণ আলো নিজেকে সঁপে দেয় আঁধারে
মোমবাতির ম্লান আলো আপ্রাণ চেষ্টা করে
আঁধার...

মন্তব্য২ টি রেটিং+১

নিঃসঙ্গ পরবাসে

১৩ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:৩৫

তোমার হৃদয় যেথা খেলা করে
সেই মাটির উঠোন
পঞ্চবটী,বাঁধানো স্থান
বহতা কুমার নদী; আমিও যাই সেথায়।–তবে স্বপ্নে।
হেঁটে যাই,রেল ব্রীজের পাশ দিয়ে,তোমার হাতে হাত রেখে
আর ইচ্ছে করে-জড়িয়ে ধরি তোমার
ওই সুন্দর কোমর।
ইচ্ছে করে-তোমার তপ্ত...

মন্তব্য৭ টি রেটিং+২

আগাছা

১২ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১:২০

তারপর বহুদিন বাদে
দেশ স্বাধীনের পরে
নতুন সূর্য যখন উঠিল আকাশে
তিন রাজাকার এসে বসিল যমুনার পারে
ডুবায়ে পা তারই শীতল জলে,
ভাবে তারা-
লাহোরের কথা,
শুষ্ক ভূমি যেথা আছে
আব্বা হুজুরের দেশে।

বহুদিন বাদে
তিন রাজাকারের সনে,চায়ের কাপে
ঝড় তুলে,যে...

মন্তব্য০ টি রেটিং+০

বধ্যভূমি

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:২০

সবুজ ঘাসে ছাওয়া এই মাঠ
আজ উদাস,নির্লিপ্ত।

মার্চের মাঝামাঝি যখন চলে যাই
প্রিয় খেলার মাঠকে একা ফেলে
তখন সবুজ ঘাস বিদায় জানিয়েছিল
বলেছিল-
ফিরে এসো বন্ধু বিজয়ীর বেশে।
আর, নি:সঙ্গ নারিকেল গাছটি
হেসে,পাতা নেড়ে বলেছিল-
বন্ধু,মুক্ত কর বাংলার...

মন্তব্য২ টি রেটিং+০

ফসলের পরে

১১ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১:০৩


ন্যাড়া মাঠ-ফসলহীন,বসে আছে
রুপোলী চাঁদের জ্যোৎস্না,সেও চেয়ে আছে
মাঠের ধেঁড়ে ইঁদুর
নিশ্চল হুতুম পেঁচা
রাতের কুয়াশা
তারা আজ অপেক্ষায়-
যে মানুষটির হাতের স্পর্শে
প্রাণ ফিরে পাবে
মাঠের পর মাঠ,তারই প্রতিক্ষায়।

শিশিরের কোমল আলতো স্পর্শে
কৃষকের বুনে রাখা বীজে
জাগবে প্রাণের
উচ্ছল জোয়ার
-কচি...

মন্তব্য১০ টি রেটিং+১

গণহত্যার শিলালিপি

১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১১:৩৪


আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে
দেখে তারা
নিজেদের মুখখানা;
আর অস্বীকার করে
দানবীয় নির্লজ্জতায়
দানবীয় বেহায়াপনায়।

হ্যাঁ,আমি এক বেহায়া জাতির কথা বলছি
আমি পাকিস্থানীদের কথা বলছি
আমি পৃথিবীর বর্বরতম গণহত্যার কথা বলছি
আমি একাত্তরের কথা বলছি।
আমি বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময়ে
পাকিস্থানী সৈন্যবাহিনী...

মন্তব্য৪ টি রেটিং+০

সাতমাথা

১০ ই ডিসেম্বর, ২০১৫ সন্ধ্যা ৭:৫৬


রাত দশটার পর
জেগে ওঠে
সাতমাথা।
ঘরে ফেরা মানুষের পদধ্বনি,হকারের হাঁক
গরম ভাপা পিঠার ঘ্রাণ
গরু এবং মুরগীর চাপ
চা পাতার ঘ্রাণ
এক এক করে জমে যায়
সাত মাথায়।
বগুড়া শহরের হৃৎপিন্ডে ফিরে আসে
মানুষের ফেলে রাখা সারা দিনের জমানো
গল্প।

রাত...

মন্তব্য১৪ টি রেটিং+১

রাতের আরোহী

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:৪০

শত শতাব্দীর নীল অন্ধকার দুমড়ে-মুচড়ে
আলোর মিছিল চলে নির্জন রাস্তার মাঝে।


শত বছরের গল্পের ঝুলি কাঁধে ঝুলিয়ে
নিশ্চল দাঁড়িয়ে থাকা
কড়ইয়ের গুঁড়ি,পেঁচার নীরবতায়
চেয়ে রয় প্রকৃতির পানে
আর নির্জনতা পাশে রেখে
শোনে বাতাসের গান
অবিরাম।
মাথার উপরে ঝুলতে থাকা...

মন্তব্য৬ টি রেটিং+০

অভিশাপ দেই তাদের

০৩ রা ডিসেম্বর, ২০১৫ রাত ১১:০৯

অনেকটা সময় পেরিয়ে
ইতিহাসের আয়নায় তারা
অস্বীকার করে গণহত্যার দায়।

একাত্তর হতে দু\'হাজার পনেরো
ডিসেম্বর মাস,
অনেকটা সময় কালের গর্তে।
কতবার সূর্য কিরণ ছড়ালো
আকাশের বুকে
কতবার উঠলো চাঁদ।
আর, একাত্তরের বিরঙ্গনার গর্ভে
জন্ম নেওয়া যুদ্ধশিশু,তার চুলেও
ধরেছে পাক।
তবু ওই বর্বর...

মন্তব্য৬ টি রেটিং+০

অক্ষরের মেলা

০২ রা ডিসেম্বর, ২০১৫ বিকাল ৪:৫৩

আমি হয়তো যুদ্ধে যাবোনা
কারণ রণাঙ্গনে ঝরবে
মানুষের রক্ত।


আমি হয়তো বলবো না
ধর্মের বিপক্ষে
কোন কথা,
কারণ কিছু মানুষ তাতে
বিপদগামী হবে,হবে বিভ্রান্ত
আর আমার স্বপ্নে ভেসে উঠবে
চাপাতী- যা কিনা রক্তাক্ত।

আমি হয়তো রাজনীতি করবো না
কারণ আমার নেই...

মন্তব্য২ টি রেটিং+০

শীতের দিনলিপি

২৭ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ১০:১৩

জমে থাকা শিশির
ঝরে পড়ে
গাল বেয়ে।
বাতাসে নেচে বেড়ানো
কনকনে শীত
স্পর্শ করে শরীরের অনাবৃত অংশ।

ফসলহীন ন্যাড়া মাঠে
ভীড় জমানো
কুয়াশা
-সাদা মেঘের দল
মাটির মায়ায়
মাটির কোলে।


পড়ে থাকা ঝরা পাতা
ফ্যাকাশে,নরম আলো
জুবুথুবু বৃক্ষ
দলছুট শালিক
কুয়াশায় মিশে থাকা বক
এক এক...

মন্তব্য২ টি রেটিং+০

ফাঁসির পরে

২৭ শে নভেম্বর, ২০১৫ বিকাল ৩:৪১

আতংক নেমে আসে কুকুরদের মাঝে
আর তারা ভুলে যায় ঘেউ ঘেউ করা,
একের পর এক ফাঁসির
লম্বা মিছিল দেখে
তাদের বোধ-বুদ্ধি পর্যন্ত লোপ পায়।


যদি মৌলবাদ না বুঝতে পারো
যদি জঙ্গীবাদ না বুঝে থাকো
তবে বেশ
বুঝে নাও...

মন্তব্য২ টি রেটিং+০

তৃষ্ণা

২৬ শে নভেম্বর, ২০১৫ রাত ৮:৩৯

অনেক দিন পর
তারা একসাথে।

সূর্য উদিত হয় আকাশে
আবার ডুবেও যায়।
যমুনায় বয়ে যায়
জল-
সুখের-
দুঃখের।

অনেক দিন পর।


চৈত্রের তৃষিত মাটি সম দেহ
উত্তপ্ত
তৃষ্ণার্ত।
ওষ্ঠে ওষ্ঠ
উন্নত স্তন
কোমল নাভী
জংঘা।

বৃষ্টির কাংখিত ফোঁটা।
শ্রাবণের মেঘ।


অনেক দিন পর
তারা একত্রিত
মিলন পিয়াসী দু\'টি দেহ।


অনেক দিন...

মন্তব্য২ টি রেটিং+০

দোজখ

২০ শে নভেম্বর, ২০১৫ দুপুর ২:৩১

ওরা বলেছিল-আমাদের প্রয়োজন স্বাধীনতার
প্রয়োজন ধর্মটাকে রক্ষা করার
প্রয়োজন শান্তি আর গণতন্ত্রের।

আমরা জোট বাঁধলাম।
ওরা আমাদের দিয়েছিল প্রশিক্ষণ
আর প্রাণঘাতী অস্ত্র।

আমরা পেলাম স্বাধীনতা।
বিনিময়ে ওরা চাইলো আমাদের সম্পদ
এবং তাদের অস্ত্রের দাম।

এখন আমাদের গায়ে সন্ত্রাসীর...

মন্তব্য২ টি রেটিং+১

পথে পথে

২০ শে নভেম্বর, ২০১৫ দুপুর ১২:১২

কুয়াশা হুমড়ি খেয়ে পড়ে
সূর্য উঠার আগে
কিম্বা পরে।
কয়েক ঘন্টার জন্য
কয়েক মাসের জন্য।
বাতাসে জমে থাকা হিম
শরীরের অনাবৃত অংশে
খেলা করে।

শিশির জমে যায় চোখের পাপড়িতে
ঝরে পড়ে গালে
গায়ে
জমিতে।


ভেজা পাতা,ভেজা ঘাস,ভেজা গাছ
ভেজা পথ।


কুয়াশা নেমে আসে...

মন্তব্য১ টি রেটিং+০

৩২৩৩৩৪৩৫৩৬৩৭৩৮৩৯৪০৪১৪২>> ›

full version

©somewhere in net ltd.