নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমি একজন ছাত্র। পদার্থ বিজ্ঞান নিয়ে সম্মান শ্রেণিতে পড়ছি।

তাওহিদ হিমু

.

তাওহিদ হিমু › বিস্তারিত পোস্টঃ

রোহিঙ্গা সংকট ও তাতে উদ্বিগ্নদের সরূপ

০৭ ই ডিসেম্বর, ২০১৬ রাত ১০:২৩

অনেক মানুষ খুব আবেগ দেখাচ্ছে রোহিঙ্গাদের জন্য, কারণ তারা মুসলমান। অথচ এদেশে সংখ্যালঘুদের উপর যে হামলা চলে, তা নিয়ে তাদের কোনো আওয়াজ নেই। জন্মগতভাবে অপরাধপ্রবণ রোহিঙ্গাদের প্রতিও তাদের কোনো অনুভূতি থাকত না, যদি তারা অমুসলিম হত; তখন এ প্রতিক্রিয়াশীল লোকেরা নিজেরাই লাঠিসোটা-কিরিচ নিয়ে সীমান্ত পাহারা দিত, যেন অমুসলিমেরা অনুপ্রবেশ করতে না পারে।

দেশের মানুষ যখন সংকটাপন্ন, তখন তারা নির্যাতিত ফিলিস্তিনী বা রোহিঙ্গাদের নিয়ে প্রতিক্রিয়া দেখাতে ব্যস্ত। দেশের অভ্যন্তরে সংঘটিত ব্যাপক খুন-খারাবি-জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে তারা আন্দোলন করে না, অথচ বিদেশের একটি সামরিক অভিযান নিয়ে তারা 'উদ্বিগ্ন'। মায়ানমারের নিরাপত্তার বাহিনীর ৯ জন সদস্যকে প্রথমে রোহিঙ্গারা হত্যা করে, তারপর থেকে রোহিঙ্গানিধন শুরু হয়- এ কথা তাদের কেউ বলে না।

এরা, যারা কিনা আজ বার্মার বিরুদ্ধে মিছিল করছে, তারা নিজ দেশের লাগামহীন দুর্নীতি-অপরাধ-ধর্ষণের বিরুদ্ধে কয়টি মানববন্ধন বা সচেতনতামূলক কর্মসূচী পালন করেছে? তাদের ক'জনে গুলশানে জঙ্গিহামলায় মানুষজবাইয়ের বীভৎস ছবি ফেসবুকে শেয়ার করে জঙ্গিদের প্রতি ঘৃণা ও নিন্দা জ্ঞাপন করেছে? আবার মুসলিমদের হাতেই যখন হাজার হাজার মুসলিম নিহত হয়, তখন তারা কোনো প্রতিক্রিয়া দেখায় না। তাদের অনেকে পাকিস্তানী আর্মির হাতে একাত্তরে লাখ লাখ বাঙালিহত্যাকেও উপেক্ষা/অস্বীকার করতে চায়।

আসলে তারা হলো সুবিধাবাদী বকধার্মিক, ধার্মান্ধ, যারা নিজ ধর্মের বাইরে কিছুই দেখে না। কুরানের ভাষায়, "তারা অন্ধ, তারা বধির"। পুরো মানবজাতি নিহত হলেও তাদের কিছু যায় আসে না, অথচ নিজ ধর্মের একটি পিঁপড়ে মরলেও শোকের মাতমে তারা পৃথিবীর পরিবেশ নষ্ট করে।

হ্যাঁ, মানবিক কারণে রোহিঙ্গাদের অবশ্যই আশ্রয় ও সাহায্য দেওয়া উচিত। তবে রিফিউজি ক্যাম্প করে সেখানে তাদেরকে পাহারা দিয়ে রাখতে হবে, যেন তারা চট্টগ্রামের সমাজ ও অর্থনীতিকে অস্থিতিশীল করার সুযোগ না পায়। মিয়ানমারের উপর কূটনৈতিক চাপ দিয়ে রোহিঙ্গাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করে তাদেরকে তাদের দেশে ফেরত পাঠাতে হবে। রোহিঙ্গারা শিক্ষিত ও স্বাবলম্বী হলে, তারা নিজেরাই নিজেদেরকে সাহায্য করতে সমর্থ হবে। সেটাই সমাধান।

মন্তব্য ২ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (২) মন্তব্য লিখুন

১| ০৭ ই ডিসেম্বর, ২০১৬ রাত ১১:১৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


" রোহিঙ্গারা শিক্ষিত ও স্বাবলম্বী হলে, তারা নিজেরাই নিজেদেরকে সাহায্য করতে সমর্থ হবে। সেটাই সমাধান। "

-নিজেদের মেয়েরা কমলাপুর স্টেশনে বাচ্ছা প্রসব করছেন, ওগুলোর পড়ালেখা হচ্ছে, মাদাম?

২| ০৭ ই ডিসেম্বর, ২০১৬ রাত ১১:৩৩

তাওহিদ হিমু বলেছেন: তা হচ্ছে না। আমি বলি নি যে, রোহিঙ্গাদেরকে বাংলাদেশ সরকার পড়ালেখা করাবে। তারা নিজেরা করলে তাদের ভাল হবে, সেটাই বুঝাতে চেয়েছি।@চাঁদগাজী সাহেব

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.