নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

মনটা যদি তুষারের মতো...

আখেনাটেন

আমি আমাকে চিনব বলে বিনিদ্র রজনী কাটিয়েছি একা একা, পাই নি একটুও কূল-কিনারা কিংবা তার কেশমাত্র দেখা। এভাবেই না চিনতে চিনতেই কি মহাকালের পথে আঁচড় কাটবে শেষ রেখা?

আখেনাটেন › বিস্তারিত পোস্টঃ

চিরতার রসঃ ‘জামাই ডিম’ ও তেঁতুল সমাচার!!!

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:২০




জামাইয়ের ডিম ভেবে আবার চমকে উঠবেন না দয়া করে। এখনও বউয়ের প্যাঁদানিতে জামাইদের অবস্থা এতটা খারাপ হয় নি যে ডিম পাড়া শুরু করবে।

এটা আসলে জামাইয়ের সাথে তেঁতুল ও ডিমের সমাহার। জিনিসটা খোলাসা করছি। কখনও কখনও তেঁতুল ও জামাই মিলে যে জাতীয় মর্যাদার কারণ হয়ে দাঁড়ায় তারই মোহনীয় গল্প এটা।

Son-in-Law Eggs বা জামাই ডিম (এরচেয়ে জুতসই ভাষান্তর আমার পক্ষে সম্ভব হল না) হল থাইল্যান্ডের একটি ঐতিহ্যবাহী খাবার। কখনও ব্যাংককে গেলে ভিক্টরি মনুমেন্টের কাছে ফুড স্ট্রিটে টেস্ট করে দেখতে পারেন। আমাদের ডিমের কারির মতো। কিন্তু ঐ যে তেঁতুল---যার গুণে এটা এখন থাইবাসীদের ট্রেডিশনাল ডিশ। রেসিপি সিম্পল। বাঙালী স্টাইলে সিদ্ধ ডিমকে হালকা গরম তেলে কড়াইয়ে ভেজে দু ফালি করে কেটে নিন। হাল্কা কিছু মশলাপাতি ও সুগার দিন। এরপরে সেখানে কাঙ্খিত তেঁতুলের রস ঢেলে দিন। ব্যাস, হয়ে গেল জামাই ডিম। সহজ ও বিখ্যাত রেসিপি।

পেছনের গল্পটাও শুনুন তাহলে। কেন এটা বিখ্যাত? কিংবদন্তি বলে, থাই শ্বাশুড়ীর মনে হচ্ছে তার মেয়েকে জামাই বাবাজী সুখে রাখছে না। এতে শ্বাশুড়ী আম্মা কিছুটা মনক্ষুণ্ণ। তাই জামাইকে একটু টাইট দেওয়ার জন্য কিংবা ধরেন বুঝিয়ে দেওয়ার জন্য যে জামাইয়ের তার মেয়ের প্রতি এই অবহেলা করা ঠিক হচ্ছে না। তাই সাধারণ ডিম কারিতে তেঁতুলের ঘোল দিয়ে টক-মিষ্টি-ঝালের এক অদ্ভূত রেসিপি উপহার দেয় শায়েস্তা করার জন্য। জামাই কেন জানি সেটা খেয়ে নাখোস হওয়ার বদলে জমে দই হয়ে যায়। পরে সেটাই কালক্রমে ‘জামাই ডিম’ রেসিপি হিসেবে পৃথিবী বিখ্যাত হয়ে পড়ে।

মানে হচ্ছে শত্রুকে বন্ধুতে রূপান্তরে পাতে একটু তেঁতুলের রস ছড়িয়ে দিলে---মাশাল্লা সবকিছু জমে দই হতে সময় লাগার কথা না।

আমাদের সমাজেও তাই এখন দেখছি তেঁতুলের রসের ছড়াছড়ি। সবাই ধান্ধা করছে সবকিছু যদি জমে ক্ষীর হয় তাতে মন্দ কি!! যে আমচুল আমচুল (টক টক) তেঁতুলের রসে সুশীলরা মুখ বেঁকিয়ে থাকত। তারাও সেটা এখন খেয়ে বলছে। আহ, কী অমৃত একখান মাইরি!! অম্বলের নিদানের জন্য ফার্স্টক্লাস।

অর্থাৎ সময়ের মারিং কাটিং এ তেঁতুলও জাতির কাছে মিষ্টি লাগতে শুরু করে। অম্বল উপশমে সমাদৃত হয়। ভাবছি এবার একটা তেঁতুল বাগান করব। ব্যবসা মন্দ হওয়ার কথা না। কারণ ভবিষ্যতে এর কদর বাড়বে বৈ কমবে না!!!

এবার একটা কৌতুক শুনে নেইঃ

শিক্ষকঃ এই গুড্ডু খাড়া হ ! বল দেখিনি, দুধ থেকে দই তৈরির একটি সহজ ও সুন্দর উপায়।

ছাত্রঃ এ আর এমন কঠিন কি স্যার। এতো ভীষণ সহজ প্রশ্ন। গাভীকে এক বাটি তেঁতুল সুপ খাওয়ালেই হবে।


তাই তো বলি, চারিদিকে এত তেঁতুলের গুণগান ক্যান!! গাভীকে তেঁতুল খাওয়ালেই যদি দুধ জমে দই হয়ে যায়, তাহলে এত সহজ ও সুন্দর পদ্ধতির সদ্ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকা কি উচিত আমাদের?

*****************************************************************************************************
@অাখেনাটেন/২০১৮


মন্তব্য ১২৪ টি রেটিং +১৯/-০

মন্তব্য (১২৪) মন্তব্য লিখুন

১| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:৩৯

অপু দ্যা গ্রেট বলেছেন:
তেতুলের গুনাগুন বলে শেষ করা যাবে না । সবচেয়ে বেশি বলতে পারবে প্রেশারের রুগীরা ।

যাই হোক একটু অফ টপিকে যাই

@আখেনাটেন

ভাই ব্লগ খুলেছিলাম যেই ইমেইল দিয়ে সেটা খুজে বের করব কিভাবে ?

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:০২

আখেনাটেন বলেছেন: অপু দ্যা গ্রেট বলেছেন:
তেতুলের গুনাগুন বলে শেষ করা যাবে না । সবচেয়ে বেশি বলতে পারবে প্রেশারের রুগীরা
-- হা হা হা; দেশে তেঁতুলের গুণে অচিরেই সকল প্রেশারের রোগীর রোগ উপশম করার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। নো চিন্তা।

*উপরে অাপনার প্রোফাইল পিকচারের বামপাশে যেখানে সহযোগিতা লেখা অাছে সেখানে ক্লিক করুন। এরপর স্ক্রল করে অাপনার সমস্যা জানান এ ক্লিক করুন। অাশা করি ইমেইল পেয়ে যাবেন।

ধন্যবাদ ব্লগার অপু দ্যা গ্রেট। ভালো থাকুন।

২| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:৩৯

ফোয়ারা বলেছেন:

জুরমিস। ভাল মজাইলেন।

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:০৬

আখেনাটেন বলেছেন: জুরমিসটা কেডা?


মজেছেন। বেশ ভালো লাগল। এবার জামাই ডিমের রেসিপি নিয়ে সব্বাইকে চমকে দিন। :P

শুভকামনা।

৩| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:৫৫

হাসান জাকির ৭১৭১ বলেছেন: চমৎকার!
তেতুলের গুনের কোন শেষ নাই।
তাইতো, চারিদিকে তেতুলের কদর বাড়ছেই!

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:১০

আখেনাটেন বলেছেন: সেজন্য তো বলছি এবার তেঁতুলের বাগান করার না হিড়িক লেগে যায়। ;)


কৃষি খামার ও হর্টিকালচার সেন্টারগুলোতে তেঁতুলের চারার দামে মড়ক লাগবে এবার। হা হা হা।

ভালো থাকুন ব্লগার হাসান জাকির। শুভকামনা রইল।

৪| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:৫৭

শায়মা বলেছেন: ভাইয়া

তোমার শ্বাশুড়িও বুঝি তোমাকে জামাই এর ডিম খাইয়েছিলো!!!!

তাই তুমি এত শ্বাশুড়ি ভক্ত!!!!!!!!! :P

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:১৯

আখেনাটেন বলেছেন: হা হা হা।

সেটা অাপনারে বলমু ক্যানে? X(
ঘরের কথা পরে যতই কম জানে ততই মঙ্গল। সুখী হোক জগতের সকল জামাইয়েরা। আমিন।


তবে অামার গায়েবী শ্বাশুড়ী কিন্তু অামারে ভালো পায়। চান্দের দেশের কন্যার সাথে বাস করতে হলে তো শ্বাশুড়ীভক্ত হতেই হবে। ;)

৫| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:০৮

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রিয় আখেনাটেন ভাই,

হা হা হা হা, জামাই ডিম প্রচুর খেলাম। পেট ভরে গেছে এক্কেবারে। গামছা বেঁধে পেট ফাটা রক্ষা করার শামিল হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে কলকাতার যাদবপুর ইউনিভার্সিটির ক্যাম্পাসের নাথুদার ক্যান্টিনে ঢপের চপ পাওয়া যায়। কলকাতাতে এলে যাদবপুর ক্যাম্পাস থেকে আপনাকে ঢপের চপ খাওয়াবো। কথা দিলাম, হা হা হা।

শুভকামনা ও ভালোবাসা জানবেন ।

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:২৩

আখেনাটেন বলেছেন: পদাতিক দা, আপনি তো দারুন এক জিনিসের কথা পাড়লেন।

যাদবপুরে একবারের জন্য হলেও নাথুদার 'ঢপের চপ' খাওয়ার জন্য যাওয়ার লাগবে তাইলে। গেলে পরে যেন আবার ভুলে যান না যেন। খাওয়ানোর ব্যাপারে আপনাদের কলকাতাবাসীদের নিয়ে বাংলাদেশের মানুষের কিন্তু ভালো ধারণা নেই। :P

অনেক শুভকামনা আপনার জন্য।

৬| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:০৯

অপু দ্যা গ্রেট বলেছেন:
হাহাহাহা ।

অচিরেই যে সমাপ্ত হবে তা হাব ভাবেই বুঝা যাচ্ছে ।

আমি এই জন্যই মিশরীয়দের বেশি পছন্দ করি ;) । আপনি তো রাজা হিসেবে তেতুল চাষে সবাইকে উতসাহ দিতে পারেন । এতে করে কিন্তু অর্থনীতি অনেক এগিয়ে যাবে ।

আর সাহায্যের জন্য ধন্যবাদ ।

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:২৫

আখেনাটেন বলেছেন: তেঁতুল চাষে উৎসাহ। কথা মন্দ বলেন নাই। এর নানামুখী গুণাগুণ নিয়ে প্রচারণা চালানো যেতেই পারে। যাহোক আপনার কথায় এখন বিশাল দ্বায়িত্ব ঘাড়ে চাপল মনে হচ্ছে। :(

৭| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:২৫

প্রথমকথা বলেছেন: এখনতো সরকার তেতুলকে মিষ্টি করে দিয়েছে, তাই এখন তেতুল চাষ করে বাজারজাত করা যাবে।

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:২৭

আখেনাটেন বলেছেন: প্রথমকথা বলেছেন: এখনতো সরকার তেতুলকে মিষ্টি করে দিয়েছে, তাই এখন তেতুল চাষ করে বাজারজাত করা যাবে। -- ঘরে ঘরে তেঁতুল বাগান করার এটাই মোক্ষম সময়। দেশের সুশীলরা তেঁতুলের জুস খাওয়ার জন্য লালায়িত হয়ে আছে নাকি! ;)

অনেক শুভেচ্ছা ব্লগার প্রথমকথা মন্তব্যের জন্য।

৮| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৩৫

সমুদ্র দয়িতা বলেছেন: হা হা হা,এখন তেতুল বাগান করলে আলবত লাভবান হবেন। তেতুলের মৌসুম চলছে কি না :)

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৫২

আখেনাটেন বলেছেন: :D B-)


সবার উৎসাহে মনে হচ্ছে তেঁতুল বাগানের একটি বিজনেস প্লান দাঁড় করানো যেতেই পারে। কী বলেন? :P

তা সেটা সমুদ্রের অাশে পাশে হলে ক্যামন হয়? ;)

অনেক অনেক শুভেচ্ছা ও শুভকামনা রইল।


৯| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৩৬

অপু দ্যা গ্রেট বলেছেন:
দায়িত্ব যখন নিচ্ছেন । ব্যবসার ভাগীদার ও কইরেন ।

একা একা খাইলে পেটে অম্বল হবে ।

হাহাহাহাহাহা :D :D :D B-)

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৫৮

আখেনাটেন বলেছেন: অপু দ্যা গ্রেট বলেছেন:
দায়িত্ব যখন নিচ্ছেন । ব্যবসার ভাগীদার ও কইরেন ।

একা একা খাইলে পেটে অম্বল হবে ।
-- হা হা হা। তাইলে তো ব্যবসায় কাঁচা পয়সার ছড়াছড়ি কেউ থামাতে পারবেক লাই। পরিকল্পনার খসড়া তৈরি করুন। আলোচনা এগিয়ে যাক। প্রথম রাতেই বিড়াল মারতে হবে মানে কেউ এ ব্যবসায় আসার আগেই কাম সারতে হবে। হা হা হা।

১০| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৪৩

আব্দুল্লহ আল মামুন বলেছেন: তেতুল গাছে তেতুল ধরে
তেতুল বড় টক,
তবু কেন ওদের এত
তেতুল খাবার সখ?

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:০০

আখেনাটেন বলেছেন: হা হা হা হা হা ।


এটি বিশেষ একটি সময়ে পেকে এতটাই সুমিষ্ঠ হয় যে তা না খেলে অন্য কেউ খেয়ে যায় যদি। তাই এত সখ ও হুড়োহুড়ি। :P


শুভেচ্ছা মন্তব্যের জন্য।

১১| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৪৮

সনেট কবি বলেছেন: গুড

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:০১

আখেনাটেন বলেছেন: ধন্যবাদ সনেট কবি।

ভালো থাকুন।

১২| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৪৯

মোস্তফা সোহেল বলেছেন: তেতুলের ব্যাবসা মন্দ না।সবাই যখন নেমে পড়েছে এ ব্যবসায় আপনিও বা বসে থাবেন কেন দ্রুত শুরু করে দিন ;)

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:০২

আখেনাটেন বলেছেন: সেটাই ভাবছি। কেউ নামার আগেই বাজার দখলের চেষ্টা চালাতে হবে। ;)

অনেকে শুভকামনা থাকল।

১৩| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৫০

পাঠকের প্রতিক্রিয়া ! বলেছেন:

এই ত বর্গীয় শব্দ দিয়ে যারা পোস্ট দিয়েছে সব কটাকে ধরে ঠ্যাঙানো দরকার। ব্যাটাদের খেয়ে পরে কাজ নাই, খালি আকাম করে বেড়ায়...X(



পোস্টে মাইনাচ

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:০৫

আখেনাটেন বলেছেন: মন্ডল সাব মনে হচ্ছে আগেই তেঁতুলের ব্যবসায় নেমে পড়েছেন। তাই ব্যবসায়ীক প্রতিদ্বন্দ্বীকে দেখে হিংসাই...। হা হা হা।

সমস্যা নাই আমড়া আমড়াই তো (জালি বেতের মালকিনের ট্রেডমার্ক)। রিজিওন ভাগাভাগি করে নেব ক্ষণ। ;)

শুভকামনা পাঠককে।

১৪| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৫৪

সামিয়া বলেছেন: হাহাহা সবখানে দেখছি তেতুল সমাচার--------

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:০৭

আখেনাটেন বলেছেন: সেজন্যই তো যত দ্রুত পারা যায় এর বাজার ধরতে হবে। অন্য কেউ দখলে নিলে বাজারে ঢুকা মুশকিল হবে। :D


ভালো থাকুন ব্লগার সামিয়া।

১৫| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৫৯

নূর মোহাম্মদ নূরু বলেছেন:
গতকাল থেকেই লক্ষ্য করছি
চারিদিকে শুধু তেতুলের ছড়াছড়ি,
বিশেষ লিংগ ছেড়ে তেতুল এখন
ক্লিব লিংগে পরিনত হচ্ছে বোধ হয়!

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:১১

আখেনাটেন বলেছেন: তেঁতুলের গ্রাহকেরও যে ছড়াছড়ি নুরু ভাই। এই যে আপনি গ্রাহক আমি গ্রাহক। এত যার চাহিদা তার তো ছড়াছড়ি হবেই। ;)

ভাবীকে বলবেন জামাই ডিমের রেসিপি। শুনেছি নানা রোগের মহৌষধ এ জিনিস। হা হা হা।

মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ জানবেন।

১৬| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:২০

পাঠকের প্রতিক্রিয়া ! বলেছেন: উড়ি ব্বাবা! তলে তলে এত দুড়! ;)

ব্লগের ভিজে বেড়ালদের ধরতে শীঘ্রই একটা আপু নিক নিয়ে হাজির হব। :P দেখি ব্লগে কত তেঁতুল/আমড়া/জলপাই/কামরাঙা প্রেমী আছে। :P

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:৪১

আখেনাটেন বলেছেন: পাঠকের প্রতিক্রিয়া ! বলেছেন: উড়ি ব্বাবা! তলে তলে এত দুড়! -- প্রতিদ্বন্দী দেখে ভুই পাইছেন নি মন্ডল সাব। :P

মন্ডল সাবের এখনও আপু নিক নাই এটা ক্যামনে বিশ্বাস করি। ;) তয় বেশি নিক-টিক নিয়ে আবার ভজগট পাকিয়ে ব্লগীয় অক্কা পেলে আমার দোষ নাইক্কা। :P

তেঁতুল/আমড়া/জলপাই/কামরাঙা প্রেমীদের ধরতে যে তেঁতুল/আমড়া গাছে উঠতে হবে। মন্ডল সাবের কি সে সাহস আছে? ;)

১৭| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:৫৪

নজসু বলেছেন:



১৮+ কমেন্ট (ছোটরা পড়া যাবে না :D :-0 )

তেঁতুলে তেঁতুলে ব্লগ টকময় হয়ে গেছে। :D

তেঁতুল নাম শুনতে, পড়তে, দেখতে মুখ পানি দিয়ে ভরে যাচ্ছে। :P
মুখ ভরা পানি নিয়ে ব্লগিং করতে সমস্যা হচ্ছে ভাই। ;)

শোনা কথা, সত্যি মিথ্যা জানিনা তেঁতুল খেলে নাকি পুরুষ্বত থাকেনা।
পুরুষেরা তেতুল খেলে শুক্রানু কমে যায়।

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:১৫

আখেনাটেন বলেছেন: হা হা হা।

শোনা কথা, সত্যি মিথ্যা জানিনা তেঁতুল খেলে নাকি পুরুষ্বত থাকেনা।
পুরুষেরা তেতুল খেলে শুক্রানু কমে যায়।
--যতদূর জানি এটার বৈজ্ঞানিক কোনো ভিত্তি নেই। তেঁতুলের সে সাইড ইফেক্টের কথা বলা হয়ে থাকে ত হচ্ছে রক্তের ঘনত্ব কমায়ে দেওয়া। এতে ব্লাড প্রেশার কমে যায়। তাই রক্তক্ষরণের সময় তেঁতুল জাতীয় জিনিস না খাওয়ায় বেটার। কিংবা যাদের ব্লাড প্রেশার কম।

ছোটকালে আমরা একটা কথা বড়দের থেকে শুনতাম যে বেশি তেঁতুল খেলে রক্ত পানি হয়ে যায়। এটার কিছুটা সত্যতা অাছে উপরের ঐ ব্যাখ্যাতে।

ধন্যবাদ ব্লগার নজসু।

১৮| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:৫৬

হাবিব স্যার বলেছেন: সবাই যখন তেঁতুলের এতো এতো বন্ধনায় মগ্ন আমি ভাবছি এর বীচি নিয়ে কিছু লিখবো।

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:১৬

আখেনাটেন বলেছেন: বীচি নিয়ে কিছু লিখবো। -- হা হা হা। দারুন আইডিয়া হাবিব স্যার।

বীচিই বা বাদ থাকে কেন। তেঁতুলের বীচি ভেজে মনে হয় খাওয়া যায়। :D

ভালো থাকুন।

১৯| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:৫৮

হাবিব স্যার বলেছেন:


নজসু বলেছেন:
১৮+ কমেন্ট (ছোটরা পড়া যাবে না :D :-0 )

তেঁতুলে তেঁতুলে ব্লগ টকময় হয়ে গেছে। :D

তেঁতুল নাম শুনতে, পড়তে, দেখতে মুখ পানি দিয়ে ভরে যাচ্ছে। :P
মুখ ভরা পানি নিয়ে ব্লগিং করতে সমস্যা হচ্ছে ভাই। ;)

শোনা কথা, সত্যি মিথ্যা জানিনা তেঁতুল খেলে নাকি পুরুষ্বত থাকেনা।
পুরুষেরা তেতুল খেলে শুক্রানু কমে যায়।

হা হা হা হা হা................................

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:১৭

আখেনাটেন বলেছেন: :P

২০| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:১৯

সাইন বোর্ড বলেছেন: এত দিন পর সুশীলরা তেঁতুলের গুনাগুন বুঝতে পারার কারনে তেঁতুলের মূল্য বেড়ে গেছে । চমৎকার লিখেছেন !

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৮:৫৮

আখেনাটেন বলেছেন: তেঁতুল সুশীলদের কাছে সবসময়ের জন্যই উপাদেয় খাদ্য। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে উনারা তা স্বীকার করতে চান না বা মিথ্যে বলতেন। এখন অবশ্য লাইনে এসেছেন। :D

২১| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৩০

চাঁদগাজী বলেছেন:


এই দেশের লোকেরা নিজেদের শিশুদের পড়ায়েছেন, গরীব ও এতিম শিশুদের পড়ালেখার দায়িত্ব নেয়নি; বেশীর ভাগ ব্লগার এই মুল বিষয়টি বুঝতে সক্ষম হয়নি

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:১৬

আখেনাটেন বলেছেন: আমাদের গ্রামের বাড়ি সংলগ্ন উঠানের একটু দূরে লম্বা লাইনে বেশ কয়টা ঘর আছে, সামনে উঠোন, পাশে পুকুর। যেগুলোকে আমরা বলতাম খাঙ্গা ঘরা বা জাগির ঘরা। অর্থাৎ এই খাঙ্গা বা জাগির বা জায়গির ঘরগুলোতে তিনজন-চারজন করে বিভিন্ন জায়গা থেকে গরীব ছেলে এসে পাশের হাইস্কুলে পড়াশুনা করত। এদের থাকা ও খাওয়ার সব অায়োজন আমাদের কয়েক বাড়ি মিলেই করত। এখানে থাকা অনেকেই এখন সমাজে প্রতিষ্ঠিত।

যদিও এখনও সেই ঘরগুলো আছে, কিন্তু মানুষ আর থাকে না। কারণ মানুষ আর সেই আগের মতো না খেয়ে থাকার মতো দরিদ্র নেই। কিংবা সামাজিক পট পরিবর্তনে এখন আর সেই জায়গীর থাকার চল নেই।

তবে এই কওমি মাদ্রাসাগুলোতে যারা পড়ে তারা মোটামুটি তিনভাগে বিভক্ত। এক, অতি দরিদ্র পরিবারের সন্তান, যার বাবা জেনারেল লাইনে পড়াশুনা চালানোর মতো সামর্থ নেই; দুই, অবস্থাপন্ন ঘরের বখাটে সন্তান, যাদের বখাটেপনা থেকে মুক্ত করতে হুজুর বানিয়ে ভালো করার ইচ্ছা---বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই তা বুমেরাং; তিন, অবস্থাপন্ন কঠোর ধার্মিক পরিবারের সন্তান, যারা জেনারেল লাইনের পড়াশুনাকে অনৈসলামিক মনে করে।

এখন আপনি যদি মেইন কারণগুলো সনাক্ত করে সেভাবে ট্রিটমেন্ট নেওয়ার ব্যবস্থা করেন। তাহলে এরা আবার মূল ধারায় ফিরে অাসবে। কিন্তু কোনো সরকার এই শিক্ষাকে রাজনীতিকরণ বাদে এদের কি সত্যিকারের ভালো চেয়েছে?

২২| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৫৭

রাজীব নুর বলেছেন: দুঃখ নিরোধের উপায় হল মন থেকে কামনা-বাসনা বিদূরিত করা। একমাত্র কামনামুক্ত হৃদয়েই নির্বাণের প্রদ্বীপ জ্বলে এবং এ প্রকার দুঃখের অবসান ঘটে।

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:২২

আখেনাটেন বলেছেন: বুদ্ধের বাণী কোট করেছেন।

তবে রাজীব নুর ভাই আপনি যখন অন্যের লেখাকে হুবহু কোট করে কোথাও প্রকাশ করবেন তখন সেখানে মূল লেখার মালিক বা কোথা থেকে সংগৃহিত তা উল্লেখ করবেন অাশা করি। তাছাড়া এভাবে অন্যের লেখা জিনিস নিজের বলে চালিয়ে দেওয়া বেশ গর্হিত কাজ। অাশা করি জিনিসটি ভেবে দেখবেন।

শুভকামনা আপনার জন্য।

২৩| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৩১

আরোগ্য বলেছেন: আজকে ব্লগে এতো তেঁতুলের বাইরা বাইরি।রহস্য কি?
জামাই ডিম খানা খেয়ে দেখতে হবে।
কৌতুকটা কিন্তু সেই মজার ছিল, একেবারে মিষ্টি তেঁতুল। হা হা হা।

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:২৪

আখেনাটেন বলেছেন: হা হা হা।

জামাই ডিম খেলে গেঁটে বাতের রোগীও অারোগ্য লাভ করবে এটা নিশ্চিত করা যায়। :D


শুভকামনা রইল।

২৪| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৩৬

সমুদ্র দয়িতা বলেছেন:
সবার উৎসাহে মনে হচ্ছে তেঁতুল বাগানের একটি বিজনেস প্লান দাঁড় করানো যেতেই পারে। কী বলেন? :P
তা সেটা সমুদ্রের অাশে পাশে হলে ক্যামন হয়?
;)
সমুদ্রের পাশে বাগান করলে সে বাগানের অংশীদার বানাতে হবে কিন্তু ;)

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:২৭

আখেনাটেন বলেছেন: নিশ্চয়! নিশ্চয়! এ যে অাখেনাটেনের পরম সৌভাগ্য!! ;)



২৫| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৮:১৪

পাঠকের প্রতিক্রিয়া ! বলেছেন: এই পোস্টে আর মন্তব্য পাইবেন না।

@ তেঁতুল/আমড়া/জলপাই/কামরাঙা প্রেমীদের ধরতে যে তেঁতুল/আমড়া গাছে উঠতে হবে। মন্ডল সাবের কি সে সাহস আছে?;)
নিজু কো পাকাড়না মুশকিল হি নেহি, না মুমকিন হ্যায়। ;) :P

আমার সহিত লড়াই করবে এমন সাহস কার?? সবাইরে মেরে হাড় গুড়ো গুড়ো করে দেব না!!!!?X(

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:২৯

আখেনাটেন বলেছেন: নিজু কো পাকাড়না মুশকিল হি নেহি, না মুমকিন হ্যায়। -- নিজু আপনারে ডন বলে ডন সে নয়, ছুডুকালে ধারাপাত পড়েন নি। :P

২৬| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৮:১৮

জুন বলেছেন: লেখা পড়ে যেন জমে ক্ষীর হয়ে গেলাম আখেনাটেন :P চারিদিকে তেতুলের জ্বয়ধ্বনি শুনে আমিও দুই পোটলা তেতুল কিনে আনলাম স্বপ্ন থেকে। তবে দাম শুনে আক্কেল গুড়ুম । তাৎক্ষনিক মনে পরলো এই দাম বৃদ্ধির মাজেজা ;)

আর শোনেন থাইল্যান্ডের ঐ জামাই ডিমের থাই নামটা বলেন তো ? ব্যাংককে
"আমিওতো থাকি বটে ,
মধু তুলি কত ঠোটে ,
দেখেছি গোফে চেটে ,
যায়নি কখোনো কিছুই পেটে "

এবার গেলে এই অসাধারন খাবারটি চেখে দেখবো। অবশ্য আমি জামাই নই তাই হয়তো পাতে পরেনি :(
=p~

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৩০

আখেনাটেন বলেছেন: হা হা হা।

অাপনি তো সেরা কাজটিই করেছেন তেঁতুল কিনে ফেলে। :D

এখন 'জামাই ডিম' তৈরি করে আমাদের দাওয়াত দিয়ে খাওয়ান। :P

২৭| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৮:৩৯

জুন বলেছেন: আখেনাটেন থাই এই খাবারের নাম khak look khai তবে উচ্চারন খৈ লুক খৈ ;) তথ্যসুত্র আমার থাই বান্ধবী।
এই জিনিস একবার চেখে দেখার সৌভাগ্য হয়েছিল। তেতুল দেয় কিনা বুঝিনাই তবে লবন দিয়ে বিষ । জামাই জানি ইহজীবনে নিমকহারামী না করতে পারে :-P

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৩৬

আখেনাটেন বলেছেন: জুনাপা, এটার থাই নাম খৈ লুক খৈ ঠিকই আছে। স্পেলিংটা মনে হয় Kai look keuy হবে। অার আপনি যে লবণের কথা বলেছেন সেটা ঠিক আছে। তবে পর্যটকের জন্য যেটা বানায় সেটাতে অতটা লবণ থাকে না।

একজনের লেখা এখানে দিচ্ছি: নেট থেকে নেওয়া---

This is one of the most popular dishes for kids in Thailand, and it was definitely my favourite! I’m not really sure why it’s called “son-in-law eggs” even though there are lots of theories, but whatever the reason, it’s a delicious and unique dish that you must try at least once in your life!

Medium-boiled eggs (preferably duck eggs) is deep fried in hot oil so they develop a browned chewy skin that gives the eggs a distinct texture. Then a sweet-and-sour tamarind sauce is drizzled over it, topped with crispy fried shallots and garlic chips. For the adults in the family, break up the crispy dried chilies and add a little spice to your eggs! The combination of these ingredients is magical, and it’ll be like nothing you’ve ever had. This is one of those classic Thai dishes that most Thai people grow up on, and I really hope you try son-in-law eggs out!


অাপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ সুন্দর মন্তব্যের জন্য জুনাপা।

২৮| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৮:৫০

পদ্ম পুকুর বলেছেন: ব্লগে মনে হচ্ছে তেতুলিদ চলছে...

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৪৬

আখেনাটেন বলেছেন: ডিমান্ড বেড়ে গেছে এ ফলের হঠাৎ করে। তাই এত পোস্টের যোগান। :P

মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ ব্লগার পদ্মপুকুর।

২৯| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৮:৫৩

পুলক ঢালী বলেছেন: ভাই আফনে হাস্যরসের মইদ্যে দিয়া মারাতমক কতা একটা কইছেন । গাভীরে কেউ তেঁতুল খাওয়াইতাছে নাকি গাভী উল্টা মিষ্টি তেঁতুল খাওয়াইতাছে বুইজগা সারতাছিনা বুজলে আঁতেল অইয়া যাইতাম।

হুম ! ব্যঙ্কক গিয়া জীবনে প্রথম মিষ্টি তেঁতুল খেয়ে একদম বোকা বনে গিয়েছিলাম বিশ্বাসই হচ্ছিলোনা যে তেতুঁল খাচ্ছি। তারপর থেকে তেতুলের নাম শুনলে আর জীভে জল আসেনা বরঞ্চ মিষ্টি ফলের কথা মনে হয় :D (এখন দেশেও পাওয়া যায়)
মজাদার লেখায় মজা পাইলাম । ভাল থাকুন। :)

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৫০

আখেনাটেন বলেছেন: গাভীরে কেউ তেঁতুল খাওয়াইতাছে নাকি গাভী উল্টা মিষ্টি তেঁতুল খাওয়াইতাছে বুইজগা সারতাছিনা বুজলে আঁতেল অইয়া যাইতাম। ---- এখন আপনিই তো দেখছি আমাকে ধাঁধায় ফেলে দিলেন। হা হা হা। সত্যিই তো, কে কারে খাওয়াইতাছে? :P

ব্যঙ্কক গিয়া জীবনে প্রথম মিষ্টি তেঁতুল খেয়ে একদম বোকা বনে গিয়েছিলাম বিশ্বাসই হচ্ছিলোনা যে তেতুঁল খাচ্ছি। তারপর থেকে তেতুলের নাম শুনলে আর জীভে জল আসেনা বরঞ্চ মিষ্টি ফলের কথা মনে হয় :D (এখন দেশেও পাওয়া যায়) -- হুম; এখন মিষ্টি তেঁতুল সহজলভ্য। প্রথম মনে হয় খেয়েছিলাম ছুটুকালে। কেউ হজ করতে গিয়ে এনেছিল।


অনেক অনেক ধন্যবাদ ব্লগার পুলক ঢালী চমৎকার মন্তব্যের জন্য।

৩০| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:২২

শাহারিয়ার ইমন বলেছেন: কয়দিন পর বাজারে তেঁতুলতত্ত্ব নামে সরকারি অনুদানে বই বেড়োতে পারে ,নাহলে আপনি লিখ ফেলতে পারেন তেঁতুল তত্ত্ব ,সেই চলবে :-P

০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৫১

আখেনাটেন বলেছেন: হা হা হা;

তেঁতুলকে জাতীয় ফল ঘোষণা করা হোক। :P

ভালো থাকুন।

৩১| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৫১

মনিরা সুলতানা বলেছেন: ধন্যবাদ চমৎকার রেসেপির জন্য :|


০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৫৪

আখেনাটেন বলেছেন: মনিরাপার গম্ভীর ভাব দেখে মনে হচ্ছে দুলাভাই ব্লগে দেখে এই 'জামাই ডিম' রেসিপি এখনই বানাতে কইছে আপনারে? :-P


মন্তব্যে প্রীত হলুম।

৩২| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৩২

সুমন কর বলেছেন: আপনি খেয়েছেন কি? চারিদিকে ২ দিন ধরে খালি তেঁতুল তেঁতুল .....

যাক, মজা পেলাম। +।

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:৩৯

আখেনাটেন বলেছেন: সুমন দা এ জিনিস খাওয়ার জন্য বিশেষ ধরণের স্টমাক দরকার। সেটা এখনও ডেভালপ করতে পারি নি। হা হা হা।


অাপনিও চলুন না তেঁতুল বন থেকে ঘুরে আসি। এ-টিম, বি-টিম সবাই যখন তেঁতুল বনেই সুরক্ষা খুঁজছে আমরাই বা বাদ থাকি কেন? :D

মন্তব্যের জন্য শুভেচ্ছা কবি।

৩৩| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৩৩

নীলপরি বলেছেন: দারুণ রেসিপি তো । এতো সুন্দর একটা বিষয় উপস্থাপণ করার জন্য ধন্যবাদ ।

কৌতুকটাও বেশ । :)

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:৪০

আখেনাটেন বলেছেন: নীলপরি বলেছেন: দারুণ রেসিপি তো --এই রে সারছে! এক্সপিরিমিন্তি হবে নাকি জামাইবাবুর উপর!!!!! আমি পালাই!!! হা হা হা।


ভালো থাকুন নীলপরি।

৩৪| ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ৭:২৪

স্বামী বিশুদ্ধানন্দ বলেছেন: ইনু ভাইর আবার তেঁতুল হুজুরকে খুব পছন্দ (অন্যভাবে নিবেন না কিন্তু) ;)
ইনু ভাইকে একটু জামাই আদর করে তেঁতুলের রসে ডুবু ডুবু জামাই ডিম্ খাইয়ে দিলে কেমন হয় (ডিম্ থেরাপির কথা বলছি না কিন্তু) ?

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:৪২

আখেনাটেন বলেছেন: উনারা এখন তেঁতুলের রস অাস্বাদনে ব্যস্ত। কী সুমিষ্ঠ! :P

ধন্যবাদ স্বামী বিশু...।

৩৫| ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ৮:১৮

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: বাংলাদেশে তেতুলের কদর বাড়ছে, বাগানটা করেই ফেলুন....কৌতুকটায় ভাইটামিন আছে ভালো।

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:৪৪

আখেনাটেন বলেছেন: হুম; সাদা মানুষ ভাই, অল্প পুঁজিতে বেশি লাভ। এটা হাতছাড়া করা ঠিক হবে না। অাপনিও অাসুন না পার্টনার হিসেবে। ;)


শুভকামনা রইল।

৩৬| ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ৯:০৯

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রতিমন্তব্যে আবার আসা । হা হা হা।

তাহলে আপনি কলকাতায় এলে বলতে পারেন আমার খরচটা অনেকটা বেঁচে গেল । কি আর করব , আমাদের সেই জন ......

শুভকামনা ভালোবাসা জানবেন।

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:৪৭

আখেনাটেন বলেছেন: তাহলে আপনি কলকাতায় এলে বলতে পারেন আমার খরচটা অনেকটা বেঁচে গেল ---জানি পদাতিক দা একটা অছিলা ঢুড়ে বের করবে। সেখানে গেলে কিন্তু ছাড়ছি না। কিপ্টামির বারোটা বাজিয়ে ছাড়মু কয়ে দিলুম কিন্তু। হা হা হা।

ঢপের চপ'র কথা মনে রাখলুম।

ভালোবাসা নিরন্তর।

৩৭| ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১২:০৪

কাওসার চৌধুরী বলেছেন:



বাহ! চমৎকার জামাই ডিমের রেসিপি। কখনো থাইল্যান্ড গেলে পরখ করে দেখবো। তবে এবার মনে হয় 'কওমীর আম্মার' রন্ধনশৈলীর গুণে বাংলাদেশে তা জনপ্রিয় হয়ে উঠবে! রেসিপির বাঙালি নাম হবে "আম্মার কওমী শফি ডিম"!!

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:৪৯

আখেনাটেন বলেছেন: হা হা হা।

বি-টিমের অালিয়া ডিম; আর এ-টিমের কওমী ডিম। মন্দ না। এভাবেই দেশ এগিয়ে যাবে ডিম রপ্তানীর মাধ্যমে। :D

ধন্যবাদ ব্লগার কাওসার চৌধুরী মন্তব্যের জন্য।

৩৮| ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:২৬

ওমেরা বলেছেন: থাইল্যান্ডের একটা তেতুল আমাদের এখানে পাওয়া যায় কিন্ত সেটা তো টক না মিষ্টি। সেটা দিয়ে ডিম রান্না করলে টেষ্টিই লাগবে মনে হয়।

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:৫১

আখেনাটেন বলেছেন: হুম; থাইল্যান্ডের মিষ্টি তেঁতুল এখন বাংলাদেশেও পাওয়া যায়। :D

জামাই ডিমে টক তেঁতুলটাই দেওয়া হয়। :)

ধন্যবাদ ওমেরা মন্তব্যের জন্য।

৩৯| ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:৪১

নীল আকাশ বলেছেন: কিছু লিখতে এসেছিলাম, এসে দেখি প্রিয় কাওসার চৌধুরী বলেই ফেলেছেন: বাহ! চমৎকার জামাই ডিমের রেসিপি। কখনো থাইল্যান্ড গেলে পরখ করে দেখবো। তবে এবার মনে হয় 'কওমীর আম্মার' রন্ধনশৈলীর গুণে বাংলাদেশে তা জনপ্রিয় হয়ে উঠবে! রেসিপির বাঙালি নাম হবে "আম্মার কওমী শফি ডিম"!! , :P এটা পড়ে প্রায় ভূলেই গিয়েছিলাম কি যেন লিখতে এসেছিলাম.............।

যাই হোক, আপনার এত গভীর ভাবের লেখাটা আমি গত কালকেই পড়ে চিন্তা করতে করতে ঘুমিয়ে গিয়েছিলাম! হাজার হলেও জামাই তো ;) , না পড়ে যাই কই! মধ্য রাতে ছোট বাথরুম করে আসার সময় মনে হলো আসলেও তো, আপনি ঠিকই বলেছেন! দেশে সব কিছুর যেভাবে দাম বেড়ে গেছে, ২ টা ছেলে আর বউ নিয়ে চাকরি করে অনেক কষ্টে দিনানিপাত করছি। সেই কবে থেকে ভাবছি কিছু একটা সাইড বিজনেস শুরু করব। যাকে বলে, লাইটিনিং স্ট্রাইকস এর মতো মাথায় আপনার তেতুল চাষ করার বুদ্ধিটা ধুপ করে ঢুকে গেল!

সকাল বেলা ঘুম থেকে উঠেই বাসায় হুংকার, বারান্দায় গুনে দেখেছি ১৮ টা টবে ফুল গাছ লাগানো আছে, সব গুলির কল্লা কেটে খতম করে টব ফাঁকা করে ফেলতে হবে। বাসায় ফেরার সময় মিনিমাম ১৫ কেজি পাঁকা তেতুল নিয়ে ফিরব। আমি লিনিয়ার আর প্রোগ্রেসিভ দুই ভাবেই ক্যালকুলেশন করে দেখেছি, বাক প্রবাস, লিনা জিম্বাল সহ ব্লগের অন্যান্য ব্লগাররা যত উপকারের কথা বলেছেন, তাতে কোন ভাবে সবাই মিলে যদি এক মাসে এই ১৫ কেজি খেয়ে সাবাড় করতে পারি, তাতে আগামী ১৫ বছরে বাসার কাউকে অসুখে পড়তে হবে না। ;) দেশের হর্তাকর্তারাই যখন ২০৪০ সাল পর্যন্ত পাকাপোক্ত ভাবে থাকার জন্য তেতুলের উপর আস্থা রেখেছেন আমি আর বাদ যাই কেন? :`> দেশে যে চিকিৎসা খরচ আর ডাক্তারের ফিস, তাতে যে টাকা বেঁচে যাবে তাতে চাঁদে একটা প্লটের বুকিং দেয়া যাবে। :D যাই হোক, পাঁকা তেতুল খাবার পর বিচি গুলি যথারীতি টবে লাগান হবে আর টবের এই তেতুল গাছ দিয়েই আমার সাইড বিজনেস শুরু করব, পারলে সাথে গোলাপশাহ মাজারের সামনে জামাই তেতুল ডিম না কি যেন বললেন, সেটা বিক্রি শুরু করব। এটাতেও তো তেতুল লাগবে......  

টবের তেতুল গাছে পাঁকা তেতুল ধরার আগ পর্যন্ত অপেক্ষায় থাকলাম......
 

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:৫৪

আখেনাটেন বলেছেন: আপনি দারুন একটি কাজ করেছেন। বুদ্ধিমান মানুষ আপনি। সুযোগের উত্তম সদ্ব্যবহার করেছেন। খোদা খেদমতগার আপনার তেঁতুল ধনের বাড়বাড়ন্ত করুক। আমিন। ;)


শুভেচ্ছা ব্লগার নীল আকাশ মন্তব্যের জন্য।

৪০| ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:৪৬

তারেক ফাহিম বলেছেন: আপনার প্রতিটি পোষ্টই আমার কাছে রম্য লাগে।

চিরতার রস, চিরতাতো তিতা।
টকের ভিতর তিতা B-)

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:৫৬

আখেনাটেন বলেছেন: তারেক ফাহিম বলেছেন: আপনার প্রতিটি পোষ্টই আমার কাছে রম্য লাগে। -- যাক, তারেক ভাইকে এটা রম্য লেগেছে। খুশি হলুম শুনে।

চিরতার রস, চিরতাতো তিতা। টকের ভিতর তিতা -- এটা বিশেষ শ্রেণির লোকের কাছে তিতাই লাগবে, টক না। সেভাবেই প্যাকেজটা বানানো। :P

মন্তব্যের জন্য অশেষ ধন্যবাদ ব্লগার তারেক ফাহিম।

৪১| ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:২৪

দি ফ্লাইং ডাচম্যান বলেছেন: এভাবে ল্যাড়ে লিছেন তা ব্যুলে? :-B

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:৫৮

আখেনাটেন বলেছেন: দি ফ্লাইং ডাচম্যান বলেছেন: এভাবে ল্যাড়ে লিছেন তা ব্যুলে? --- কি আর করা!!!!!!!!!! :((


শুভেচ্ছা ডাচম্যান। অনেকদিন পর আপনাকে ব্লগে দেখলাম মনে হচ্ছে।

৪২| ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:৪৫

মনিরা সুলতানা বলেছেন: নাগো ভাইডি ...
দুলাভাই তেতুল খায় না :P

সিরিকাস না হয়ে উপায় আছে ???
আমরা দেশের ৫২ থুক্কু ৫৭ ধারা মেনে চলি ;)

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:০০

আখেনাটেন বলেছেন: মনিরা সুলতানা বলেছেন: নাগো ভাইডি ...
দুলাভাই তেতুল খায় না
-- হা হা হা। এই পেহেলীকা বার শুনলুম দুলাভাইয়েরা তেঁতুল পছন্দ করে না। ;) :P

৪৩| ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:৫০

শায়মা বলেছেন: এখনও গায়েবী!!!!!!!!!!!!

ইয়া খোদা আমি তো তোমাকে বুড়া জামাই বনে এতদিনে নিজেই শ্বশুর হচ্ছো ভেবেছিলাম!!!!!

হায় হায় হায় হায় হায় !!!!!!!

:||

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:০৪

আখেনাটেন বলেছেন: শায়মা বলেছেন: এখনও গায়েবী!!!!!!!!!!!!

ইয়া খোদা আমি তো তোমাকে বুড়া জামাই বনে এতদিনে নিজেই শ্বশুর হচ্ছো ভেবেছিলাম!!!!
-- তেঁতুলের বড় অাকাল দেশে। দেখছেন না সবাই ক্যামন কাড়াকাড়ি-টানাটানি শুরু করেছে তেঁতুল নিয়ে। সেজন্যই তো তেঁতুল বাগান করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। তারপর যত পারো পেড়ে খাও। :P

৪৪| ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:০৩

করুণাধারা বলেছেন: বাংলাদেশের ইতিহাসে মনে হয় এর আগে কোন ফল নিয়ে ব্লগে এত আলোচনা এত প্রবন্ধ, নিবন্ধ রচনা হয়নি! মনে হচ্ছে কাঁঠালকে হটিয়ে তেঁতুল জাতীয় ফলের মর্যাদা লাভ করবে অচিরেই। সেক্ষেত্রে তেঁতুল বাগানের আইডিয়া ভালো, পাঁচ লাখ টাকা ইনভেস্ট করে কোটি টাকা লাভ করতে পারবেন নিশ্চয়ই :)

দ‍্যাখেন, এই পোস্ট পড়ে ইতিমধ্যেই কতজনের মাথায় আরেক নতুন বিজনেস আইডিয়া এসে গেছে- "অরিজিনাল থাই রেসিপি, ... ... শফি এগের" কত দোকান স্থাপিত হয়ে যাবে! আমারও ফ্রিজেও কিছুটা তেঁতুল ভেজানো আছে, ভাবছি একবার করেই দেখি কেমন হয় জামাই ডিম!

আইডিয়ার জন্য ধন্যবাদ আখেনাটেন।

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:০৮

আখেনাটেন বলেছেন: করুণাধারা বলেছেন: বাংলাদেশের ইতিহাসে মনে হয় এর আগে কোন ফল নিয়ে ব্লগে এত আলোচনা এত প্রবন্ধ, নিবন্ধ রচনা হয়নি! মনে হচ্ছে কাঁঠালকে হটিয়ে তেঁতুল জাতীয় ফলের মর্যাদা লাভ করবে অচিরেই। --- হা হা হা। কথা মন্দ বলেন নাই। তেঁতুলকে জাতীয় ফল ঘোষণা করার জন্যে ব্লগে একট হ্যাশট্যাগ খোলা হোক। ;)


আমারও ফ্রিজেও কিছুটা তেঁতুল ভেজানো আছে, ভাবছি একবার করেই দেখি কেমন হয় জামাই ডিম! --আপা, দ্যাখেন দুলাভাইয়ে এ জিনিস খাওয়াইয়ে শেষে ঘরে বিপদ ডেকে আনবেন না। জানি শেষে দোষটা আমার ঘাড়ে চাপানোর চেষ্টা করবেন। আমি কিন্তু ততক্ষণে পগার পার। =p~ :P

অনেক অনেক শুভেচ্ছা।

৪৫| ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:১৩

শায়মা বলেছেন: ভাইয়া ভেরী গুড!! :)


করুনাধারা আপুনির কমেন্ট দেখো!!!

তুমি অতীব ভালো কাজ করিয়াছো!!!


বেশি বেশি তেঁতুল বাগান বানাও !!!!!!!

শুধু দেখো শেষে মাথায় কাঁঠাল ভাঙ্গার মত বা গাছে কাঁঠাল গোঁফে তেলের মত তেঁতুলের কোনো প্রবাদ সৃষ্টি করো না .....


তবুও আমি একটা বানায় দেই.....

গাছে তেঁতুল গোফে তেল!!!!!!


অবশ্য গোপাল ভাঁড়ের একটা গল্প পড়েছিলাম।

এক লোক তার পাওনা টাকা চাইতেই গোপাম উঠানে এক মুঠো তেঁতুল বিঁচি ছিটিয়ে দিলো! লোক তো অবাক! টাকার বদলে এটা কি! গোপাল বলে এই বিঁচি থেকে গাছ হবে। তাতে তেঁতুল ধরবে। সেই তেঁতুল বিক্রি করে তুমি টাকা পাবে.......

লোকটা গোপালের কান্ড দেখে হেসে ফেললো!

গোপাল বলে...... এমন লাভের কথা শুনলে কার মুখে না হাঁসি ফোটে বলো!!!!! :P

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:২২

আখেনাটেন বলেছেন: গাছে তেঁতুল গোফে তেল!!! -- নিজের বাগান, নিজের তেঁতুল, নিজে পেড়ে খামু। তাতে মানষের কি এ্যা???? X(

হিংসে হচ্ছে বুঝি!!! ভাবছেন ইস, কত তেঁতুল পেড়ে খাবে রে ছেলেটা?? ;)


সমস্যা নাই। জামাইবাবুরেও পাঠাই দ্যান। মজেলা চিজ উইথ 'জামাই ডিম' উইথ দেশি তেঁতুলের উত্তম ডিশ সার্ভ করা হবে ক্ষণ। এরপর জামাই বাবু তেঁতুল বাগানে চিরতরে ঘাঁটি গাড়লে আমার দোষ নেই কয়ে দিলুম কিন্তু। :-P

৪৬| ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:৪৭

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: B-))

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৫৫

আখেনাটেন বলেছেন: :-B

৪৭| ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:১৬

করুণাধারা বলেছেন: ব্লগের দশভূজা, মহাজ্ঞানী, শায়মা!!! তুমি কিনা এখনো জানো না, তেঁতুল নিয়ে অলরেডি প্রবাদ সৃষ্টি হয়ে গেছে!!!

তেঁতুল দেখলেই জিবে জল আসে।

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৫৭

আখেনাটেন বলেছেন: করুণাধারাপা উনি জেনেও তেঁতলামি করছে... :P

৪৮| ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:৫৮

ব্লগার_প্রান্ত বলেছেন: সালাম বড়ভাই, আপনার রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নির্মাণকাজে ভারতঃ বিপর্যয় ঘটলে দায় কার? পোষ্টটি আমার অনেক কাজে এসেছে। B-)
এই পোষ্ট বিনোদন ভূবনকে আলোকিত করেছে, আপনাকে সব মিলিয়ে একটা তেতুল দিলাম

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৫৯

আখেনাটেন বলেছেন: অাসসালাম ছোটভাই, জেনে খুশি হলুম।

সাথে তেঁতুলের বীচিটাও দিও। :D

৪৯| ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:০০

মোঃ মঈনুদ্দিন বলেছেন: ধন্যবাদ প্রিয় আখেনাটেন ভাই। এত সুন্দর রূপক ব্যবহারে মেইনস্ট্রিম পলিসি আর পলিটিকসের ব্যাখ্যা দিলেন এককথায় অসাধারণ। ধন্যবাদ চলমান দেশীয় রাজনীতির সুন্দর একটা তেতুলিয় ব্যাখ্যা দেয়ার জন্য। তবে, যারা তেতুলকে ঘেন্না করে দূরে ঠেলে দিয়েছিল আপনার লেখা পড়ার আগেই তেতুলকে ভালোবেসে ক্ষীর জমাতে ব্যস্ত হয়ে গেছে। আর, এখনতো তেতুলের অবস্থা পোয়া বারো। চলুক তেতুলের সদ্ব্যবহার যথাতথা। ধন্যবাদ তেতুলএর ‘জামাই ডিম’। দেশে আবহমান কাল ধরে চলুক তেতুলের অমোঘ আকর্ষণ।

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:০১

আখেনাটেন বলেছেন: চলুক তেতুলের সদ্ব্যবহার যথাতথা। -- হা হা হা। সেজন্যই তেঁতুল নিয়ে এই মহা জলসা। মাহফিলে সামিল হওয়ায় মোঃ মঈনুদ্দিন ভাইকে একশ বাঁশের তোরণ শুভেচ্ছা। :D

শুভকামনা মন্তব্যের জন্য। ভালো থাকুন।

৫০| ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:১৮

শিখা রহমান বলেছেন: আখেনাটেন বরাবরের মতোই পুরো রম্যে ছক্কা হাঁকালেন। পুরো ব্লগ এখন তেঁতুলের রসে টাল মাটাল। :)

জামাই ডিমের মতো কিন্তু বাংলাদেশে ডিম আর তেঁতুলের একটা প্রিপারেশন আছে, ডিমের শেষরাঙা। রেসিপি লিখতে পারবো না, তবে রান্না করে খাওয়াতে পারবো। :)

আর খুব খুব টক ভালোবাসি। প্লিজ তেঁতুল বাগান দিলে খবর দেবেন। :P

০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:০৬

আখেনাটেন বলেছেন: ডিমের শেষরাঙা ---বলেন কি? আজই এর রেসিপি সরবরাহ করুন শিখাপা। ব্লগার শায়মা দেশী তেঁতুলের 'জামাই ডিম' জাতীয় রেসিপি খুঁজতেছিল যতদূর মনে পড়ে। :P


প্লিজ তেঁতুল বাগান দিলে খবর দেবেন। -- তা আর বলতে? দুলাভাই সহ তেঁতুল বাগানে আগাম নিমন্তন্ন রইল। :D

অনেক অনেক শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা রইল শিখাপার জন্য।

৫১| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ ভোর ৬:৫৭

সোহানী বলেছেন: হাহাহাহাহাহা........... সুপার ডুপার লাইক।

তেতুঁল এর কদর এখন আকাশ চুম্বী। তাই এর ব্যবসা করার মোক্ষম সুযোগ। তাই শুধু নতুন রেসিপি নয় দেখবেন তেতুঁল রেস্টুরেন্ট চালু হচ্ছে খুব শীঘ্রই। তারপর সেখানে সারা দেশের যাবতীয় আনাচে কানাচের মাদ্রাসা থেকে থেকে তেতুঁল খাদকরা চত্বর ছেড়ে সেখানে ঢুকবে.....................

০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:২৭

আখেনাটেন বলেছেন: শুধু নতুন রেসিপি নয় দেখবেন তেতুঁল রেস্টুরেন্ট চালু হচ্ছে খুব শীঘ্রই --- হা হা হা। কত অাইডিয়া অাসছে রে!!! :P


তেঁতুলে তেঁতুলময় হয়ে উঠুক আমাদের জীবন। :-P

অনেক অনেক শুভেচ্ছা থাকল সোহানীপার জন্য।

৫২| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:৩৪

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: ছবি দেখেতো মনে হচ্ছে খেতে সুস্বাদু হবে, খেয়ে দেখতে হবে কি বলেন? ;)
আপনার লেখা পড়ে আনন্দ পেয়েছি। ধন্যবাদ আপনাকে। শুভ কামনা রইলো।

০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:৩০

আখেনাটেন বলেছেন: ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: ছবি দেখেতো মনে হচ্ছে খেতে সুস্বাদু হবে, খেয়ে দেখতে হবে কি বলেন? --হা হা হা। মিস ফারিয়া, এ জিনিস শুধুই জামাইদের জন্য। ;)

রেসিপি শিখে রাখতে পারেন। ভবিষ্যতে কাজ দিতে পারে। :P

প্রীতি ও শুভেচ্ছা নিরন্তর।

৫৩| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:২২

জাহিদ অনিক বলেছেন:

দুনিয়ার যত অখাদ্য রেসিপি আছে সব তাহলে জামাইদের উপরেই এপ্লাই করা হয়!
বেচারা গিনিপিগ জামাই

০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৮:১৯

আখেনাটেন বলেছেন: জাহিদ অনিক বলেছেন:

দুনিয়ার যত অখাদ্য রেসিপি আছে সব তাহলে জামাইদের উপরেই এপ্লাই করা হয়!
বেচারা গিনিপিগ জামাই
-- হা হা হা। আপনার মন্তব্য পড়ে বেশ হাসলাম।

এ ব্যাপারে আরো বিস্তারিত জানা যেত যদি আমাদের সামু ব্লগের বউ ব্লগাররা খোলাসা করতেন। সত্যিই কি এরকম এক্সপিরিমিন্তি চলে নাকি। :P

শুভেচ্ছা কবি।

৫৪| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৮:৩৬

কথাকথিকেথিকথন বলেছেন:






হা হা! জামাই বশীকরনের জন্য তাহলে আর ফকিরের কাছে যাওয়া লাগছেনা! তাদের ব্যবসাটা খেয়ে দিলেন!!

রম্যে মজা পেলাম!

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১২:০১

আখেনাটেন বলেছেন: হা হা হা। জামাই বশীকরণ। বেড়ে বলেছেন। দেশী শ্বাশুড়ীদের এই রেসিপিটা শিখে নেওয়া দরকার।

শুভকামনা রইল মন্তব্যের জন্য।

৫৫| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৮:৫৭

আহমেদ জী এস বলেছেন: আখেনাটেন ,



তেতুল চাটার মতোই টাকরায় টাক...টাক... শব্দ উঠলো তেঁতুল সমাচারে !
আর ‘জামাই ডিম’ এর কথা পড়তে গিয়ে মনে হলো এক ঠ্যাং ব্যাংককে রাখা সহব্লগার জুন অবশ্যই এই জামাইয়ের পাড়া ডিম নিয়ে দু'চারটা লেকচার দেবেন । ;) ওম...মা ; মন্তব্যের ঘরে এসে দেখি তিনিও প্রথমে হকচকিয়ে গেলেন । পরে অবশ্য তিনি তেতুলের মতোই টক-ঝাল-মিষ্টি একটি কবতে লিখে যুৎসই জবাবটাই দিয়েছেন এই বলে --- অবশ্য আমি জামাই নই তাই হয়তো পাতে পরেনি:(

সব মন্তব্য পড়ে এটা বোঝা গেছে , সব্বাই-ই তেতুলের ভক্ত । আহহা ... খোদাতায়ালা কি একখান মাল বানিয়েছিলেন, মাইরী !!!!!!! :||

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১২:০৮

আখেনাটেন বলেছেন: তেতুল চাটার মতোই টাকরায় টাক...টাক... শব্দ উঠলো তেঁতুল সমাচারে ! -- আপনার এই বাক্যে সেই থেকে হেসে যাচ্ছি। আপনি মাঝে মাঝে এমন সব শব্দ, শব্দগুচ্ছ, বাক্য চালিয়ে দ্যান হেসে খুন হওয়ার দশা। হা হা হা। =p~

সব্বাই-ই তেতুলের ভক্ত --- এ পোস্ট না দিলে আমিও তো বুঝতুম না তেঁতুলের তেঁতলামি। :P

অনেক অনেক শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা।

৫৬| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১২:২২

শায়মা বলেছেন: ৪৭. ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:১৬ ১

করুণাধারা বলেছেন: ব্লগের দশভূজা, মহাজ্ঞানী, শায়মা!!! তুমি কিনা এখনো জানো না, তেঁতুল নিয়ে অলরেডি প্রবাদ সৃষ্টি হয়ে গেছে!!!

তেঁতুল দেখলেই জিবে জল আসে।
০৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৫৭ ০

লেখক বলেছেন: করুণাধারাপা উনি জেনেও তেঁতলামি করছে... :P



দেখো আমাকে নিস্বার্থ ভালোবাসার আপুনি করুনাধারা আপুকে আমার সম্পর্কে ভুলভাল বুঝাই দিওনা বললাম!!!
তাহলে কিন্তু তেঁতুল কাঁঠে ঢেকিতে ফেলে তোমাকে একদম ...... :)

১০ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:২৯

আখেনাটেন বলেছেন: হা হা হা।

তেঁতুল কাঠের অাগুন নাকি জ্বলে বেশি। সেচা নাকি। ভুই পাই |-)

৫৭| ১০ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:১১

শায়মা বলেছেন: সেচা ঘেচা তখনি প্রমান পেয়ে যাবে যখন তুমি সেই অনলে জ্বলিবেক!!

১০ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:১৫

আখেনাটেন বলেছেন:

৫৮| ১১ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১২:১৪

স্বরচিতা স্বপ্নচারিণী বলেছেন: হা হা। ভালো লাগলো লেখাটি পড়ে। আপনার লেখা খুব মজার হয়। আর জামাই ডিম নামটিও মজার। শুভ কামনা রইলো। :)

১২ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:১৮

আখেনাটেন বলেছেন: জামাই ডিম নাম পছন্দ হয়েছে। সেরেছেন। এ তো ভয়ঙ্কর কথা। অাল্লাহ মালুম কার উপর দিয়ে এখন ঝড়টা যায়। বেচারার জন্য অামার পক্ষ থেকে সমবেদনা পৌছে দিবেন। :P


মন্তব্যের জন্য অন্নেক অন্নেক শুভেচ্ছা ব্লগার স্বরচিতা স্বপ্নচারিণী।

৫৯| ১১ ই নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ৯:৩৫

মলাসইলমুইনা বলেছেন: নির্বাচনী হুলুস্থুল
তেঁতুলে তুলতুল
ছিড়তে বাকি চুল ....

মহামান্য ফ্যারাও, তেতুলোজি ভালো লাগলো ।

১২ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:২৭

আখেনাটেন বলেছেন: হা হা হা। :P


তেঁতুলোজিতে পদধূলি দেওয়াতে শুভেচ্ছা ও শুভকামনা। ভালো থাকুন।

৬০| ১৩ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:১০

স্বরচিতা স্বপ্নচারিণী বলেছেন: কার উপর দিয়ে আবার ঝড় যাবে? নামটা মজার তাই বললাম। :) এমন নাম তো আর সাধারণত দেখা যায় না। আপনার পোস্ট পড়ার পর রেসিপিটা পরে ভিডিও তে দেখলাম।

১৪ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:১০

আখেনাটেন বলেছেন: স্বরচিতা স্বপ্নচারিণী বলেছেন: কার উপর দিয়ে আবার ঝড় যাবে? --- হা হা হা। যাক, কারো উপর ঝড় যাচ্ছে না তাহলে। আর জামাই ডিম রেসিপি যেহেতু ভিডিওতে দেখে নিয়েছেন সন্দেহটা তাই উবে গেল না। ;)

৬১| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১২:১৫

ভুয়া মফিজ বলেছেন: আমিও একজন জামাই মানুষ ('মানুষ' কথাটা বললাম এই জন্যে যে অনেকের মতে জামাই রা শুধুই জামাই, মানুষ না :P )। থাইল্যান্ড আবার কবে যাওয়া হয় ঠিক নাই, ভাবছি রান্না করে নিজেও খাবো আর কিছু ভুখা-নাঙ্গা জামাইকেও দাওয়াত দিয়ে খাওয়াবো। =p~

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১:৪৫

আখেনাটেন বলেছেন: হা হা হা।

জামাই বশীকরণ বিদ্যা এখন বাংলাদেশে বেশ কার্যকর। জামাই ডিম মনে হচ্ছে বেশ উপকারী।

অনেক অনেক শুভেচ্ছা ও শুভকামনা। ভালো থাকুন।

৬২| ০৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:০৯

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: পোস্ট, মন্তব্য, প্রতিত্তর পড়ে বুঝা গেল বড়ই মিষ্টি ছিল চিরতার রসখানি...

০৮ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ২:৪১

আখেনাটেন বলেছেন: =p~


চিরতার রসে মিষ্টতায় অনেকের মুখে পিঁপড়া ধরার কথা। :P


অনেক অনেক শুভেচ্ছা।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.