নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সম্পদহীনদের জন্য শিক্ষাই সম্পদ

চাঁদগাজী

শিক্ষা, টেকনোলোজী, সামাজিক অর্থনীতি ও রাজনীতি জাতিকে এগিয়ে নেবে।

চাঁদগাজী › বিস্তারিত পোস্টঃ

বর্তমান বিশ্বের সেরা বিজ্ঞানী ষ্টিফেন হকিং মৃত্যুবরণ করেছেন আজ

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সকাল ১১:৪০



আজকে, বর্তমান বিশ্বের সেরা বিজ্ঞানী ষ্টিফেন হকিং মৃত্যুবরণ করেছেন (জানু-১৯৪২-মার্চ-২০১৮); তিনি ৭৬ বছর বেঁচেছিলেন। তিনি ২২ বছর বয়সে মটর নিউরণ রোগে অসুস্হ হন; এই রোগ ক্রমেই উনার পুরো শরীর অবশ করে ফেলে; তিনি কম্প্যুটার সিনথেসাইজারের সাহায্যে কথা বলতেন। উনার রোগ ধরা পড়ার পর, ডাক্তারেরা ভেবেছিলেন যে, তিনি সামান্য সময় বেঁচে থাকবেন।

তাঁর বেঁচে থাকার প্রচেষ্টা ও বিশ্বকে জানার স্পৃহা তাঁকে মোটামুটি দীর্ঘ জীবন দিয়েছে; তিনি সময়টুকু খুবই পরিকল্পিতভাবে কাজে লাগায়েছেন।

তিনি থিওরিটিক্যাল ফিজিক্স ও কসমোলোজীতে গবেষণা করেছেন, এবং আমৃত্যু এই ২ বিষয়ের উপর মানুষের ধারণাকে প্রসারিত করেছেন। এছাড়াও তিনি থিওরী অব রিলটিবিলিটি ও ব্ল্যাক-হোলের রেডিয়েশন নিয়ে লিখেছেন।

১৯৬৬ সালে ষ্টিফেন এপ্লাইড মেথামেটিকস ও থিওরিটিক্যাল ফিজিক্সে গবেষণা করে পিএইচডি লাভ করেন। তিনি মৃত্যুর সময় অবধি কেমব্রীজ ইউনিভার্সিটির এপ্লাইড মেথামেটিকস ও থিওরিটিক্যাল ফিজিক্স গবেষণাগারের ডিরেক্টর ছিলেন।

১৯৭০ সালে তিনি কোয়ানটাম থিওরী ও রিলেটিবিলিটিকে ব্যবহার করে ব্ল্যাক-হোলের রেডিয়েশন সম্পরকে ধারণা দেন বিশ্বকে। ১৯৭৩ সালে তিনি থিওরিটিক্যাল ফিজিক্স ও এপ্লাইড মেথামেটিকস'এর শিক্ষক হিসেবে কেমব্রীজে যোগদান করেন।

১৯৮৮ সালে "এ ব্রীফ হিসটোরি অব টাইম" নামে কসমোলোজী ও ব্ল্যাক-হোল গবেষণার উপর বই প্রকাশ করেন। ২০০১ সালে তিনি ইউনিভার্স ইন এ নাটশেল নামে আরেকটি পুস্তিকা লিখেন; উনার বইয়ের সংখ্যা ১০টি যথাসম্ভব।

২০১০ সালে, উনার সবচেয়ে জনপ্রিয় বই "দি গ্রান্ড ডিজাইন" প্রকাশিত হয়েছিল। তিনি বিশ্বাস করতেন, যে মহাবিশ্বে আমাদের মত বা তার চেয়ে উন্নত সভ্যতা থাকার সম্ভাবনা আছে।

মন্তব্য ১১২ টি রেটিং +১০/-০

মন্তব্য (১১২) মন্তব্য লিখুন

১| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সকাল ১১:৪৯

১৯৭১ মুক্তি বলেছেন: স্যালুট শতকোটি.................

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সকাল ১১:৫২

চাঁদগাজী বলেছেন:


তিনি মানব সমাজকে অনেক নতুন জ্ঞানের কথা বলে গেছেন, বিশ্ব সম্পর্কে সঠিক ধরণা দিয়ে গেছেন।

২| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সকাল ১১:৪৯

মলাসইলমুইনা বলেছেন: ব্রিফ হিস্ট্রি অফ স্টিফেন হকিন্স ভালো হয়েছে | ধন্যবাদ | খারাপ লাগার খুব বেশি কারণ নেই কিন্তু তারপরও কিছুক্ষন আগে টুইটারে ডক্টর হকিন্সের মৃত্যুর নিউসটা দেখে কেন যেন খুব খারাপ লাগছে |

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সকাল ১১:৫৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


উনার শারীরিক অবস্হা ও গবেষণার প্রতি নিবেদিত-প্রাণ দেখে, বিশ্বের সবার মনে উনার জন্য সীমপ্যাথি ছিল।

৩| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সকাল ১১:৫৪

ওমেরা বলেছেন: সবাইকে মৃত্যুর স্বাদ গ্রহন করতে হবে। তবে আল্লাহর নির্ধারিত সময়ের এক মিনিট আগে বা পরে নয়।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সকাল ১১:৫৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


ওয়াও, প্রথমবার শুনলাম; ইহাও একটি আবিস্কার?

৪| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সকাল ১১:৫৭

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: শ্রদ্ধা থাকলো।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সকাল ১১:৫৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


আশাকরি, অনেক বাংগালী এক সময়ে উনার লেখাগুলো পড়ে বুঝতে পারবেন।

৫| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সকাল ১১:৫৭

মনিরা সুলতানা বলেছেন: অল্প কথায় চমৎকার লিখেছেন ।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:০১

চাঁদগাজী বলেছেন:


এখানে সামান্য তথ্য।

আশাকরি ব্লগার ড: আলী ও ব্লগার মলাসইলমুইনা উনাকে নিয়ে আলোচনা করবেন, লিখবেন।

৬| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:১০

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: পৃথিবী তার সেরা বিজ্ঞানীকে হারালো।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:১২

চাঁদগাজী বলেছেন:


তিনি চেষ্টা করেছেন প্রাণপণে

৭| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:১১

শাহাদাত* বলেছেন: One of our inspirational guy of all time is no more...Rest in peace Legend....

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:১৩

চাঁদগাজী বলেছেন:


সঠিক, মানুষকে উৎসাহিত করেছেন উনি

৮| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:১৪

হাসান কালবৈশাখী বলেছেন:
সবাইকে মৃত্যুর স্বাদ গ্রহন করতে হবে। এসব ওয়াজ করা অনর্থক।
আজ পর্যন্ত কোন বিজ্ঞানী মানুষ বা প্রানীর মৃত্যুকে অস্বীকার করেনি

তিনি 'ব্রিফ হিস্ট্রি অফ টাইম' ভাল লিখেছেন। মানুষকে বিজ্ঞান মনষ্ক করে মানব সভ্যতাকে অনেকটাই এগিয়ে দিয়ে গেছেন।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:১৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


মানুষ এক সময় বুঝতে পারেন যে, সব জীবের মৃত্যু হয়।

৯| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:১৪

মো: নিজাম উদ্দিন মন্ডল বলেছেন: :(:(:(
হকিং ভাল থাকুক। নতুন হকিংদের জন্ম হোক।

ডাক্তারেরা ভেবেছিলেন যে, তিন সামান্য সময় বেঁচে থাকবেন।
ডাক্তার বলেছিল তিনি আর দুই মাস বাঁচবেন। কিন্তু তিনি মারা গেল আরো ৫৪ বছর পরে।। বিজ্ঞান তো সৃষ্টিকর্তার কাছে ধরা খেল???

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:২১

চাঁদগাজী বলেছেন:


ডাক্তারেরা যে অবস্হায় উনাকে দেখেছিলেন, সেটার পরিবর্তন ঘটেছিল নিশ্চয়।

১০| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:১৫

মো: নিজাম উদ্দিন মন্ডল বলেছেন: আপনি কম্পিউটার কে কম্প্যুটার লিখেন কেন??

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:২৪

চাঁদগাজী বলেছেন:


কম্পিউটার ও কম্প্যুটার, ২টা কি একই ডিভাইস?

১১| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:১৭

রানা আমান বলেছেন: We have lost an amazing human being.

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:২৩

চাঁদগাজী বলেছেন:


তিনি বিশ্বের সবার সীমপ্যাথি পেয়েছিলেন, এটা সভ্যতার ভালো দিক।

১২| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:২২

নতুন নকিব বলেছেন:



আহ, স্টিফেন হকিন্স চলে গেলেন! জীবন জগতের জন্য তার কিছু কল্যানকর প্রচেষ্টা ছিল। তার প্রতি শ্রদ্ধা। তবে তিনি নিজের জন্য কিছু করে যেতে পেরেছেন বলে শুনিনি। যেতে তো সকলকেই হবে! যাওয়ার ধরনটা ফ্যাক্টর।

কেউ 'বিশ্বাস'কে ধারন করেন- সাথে নিয়ে যান পূর্নতা।
আবার কেউ 'বিশ্বাস'কে হারিয়ে যান, থাকে শুধু শুন্যতা।

এই যাওয়া যাওয়া নয়, দৃশ্যের অন্তরালে অন্তহীন পথচলার এটা সূচনা মাত্র।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:২৭

চাঁদগাজী বলেছেন:


তিনি নিশ্চয়ই বর্তমান বিশ্বের সবার থেকে বেশী বুঝতেন; ফলে, উনি প্রয়োজনীয় সবকিছু করেছেন বলে আমার ধরণা

১৩| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৩১

মো: নিজাম উদ্দিন মন্ডল বলেছেন: দুটি একই ডিভাইস। কিন্তু কম্প্যুটার বানান টা তো ভুল। ইচ্ছে করে ভুল লিখলে, কেমন দেখায় না?:):)

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৩৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


আপনার সাথে হিউমার করার ছেস্টা করলাম, ঠিক করে নেবো।

১৪| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৩২

সামিয়া বলেছেন: ভাইয়া আপনি তো বাংলাদেশ প্রতিদিনের লেখা তুলে দিয়েছেন ।

Rest in peace Professor Stephen Hawking

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৩৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


ওরা হয়তো আমার লেখা থেকে কপি করেছে; আমি আমার জীবনে কারো কোন বাক্য, কোন উক্তি, কোন আয়াত, কোন উপদেশ, অনুসরণ করি না, কপি করি না।

১৫| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৩২

শাহ আজিজ বলেছেন: তার ঘূর্ণায়মান ব্লাকহোল আর তাতে মৃত বা জীবিত গ্রহ শোষণ থিওরি ভুল প্রমানিত হয়েছে । মাত্র বছর খানেক আগে প্রথম কোন সাইট একটি ভিডিও প্রকাশ করে যাতে মহাকাশের একটি অংশকে মৃদু দোলায়মান দেখা যায় । নাসার থ্রি ডি এনিমেটররা এইসব চিত্রকে ঘূর্ণায়মান করে সাইক্লোনিক অর্ডারে বানিয়ে গোটা বিশ্ববাসীকে ধোঁকা দিয়েছে। মুলত ব্লাক হোলের কোন প্রমান নেই । পৃথিবী ও তার আশে পাশে প্রচুর অনাবিষ্কৃত বিষয় ছিল কিন্তু হকিং সেসবের ধারেকাছে না গিয়ে এমন বিষয়ে মানুষকে জ্ঞান দিচ্ছিলেন যাকে নাসা রীতিমত রুপকথার মত রঙ চড়িয়ে আমাদের প্লেটে তুলে দিত। নাসা স্বীকার করেছে প্রতিটি ছবি ৩ ডি আপ্লিকেশনের সাহায্যে করা কারন আকাশ গঙ্গা এতই অপরিচ্ছন্ন যে ঝকঝকে ছবি আশা করা দুর্ভাবনা মাত্র । তার অন্যান্য বিষয় নিয়ে গবেষণা মানুষের কাজে এসেছে । হকিং এর আত্মার সদ্গতি হোক ।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৪৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


সায়েন্স (মেথ, ফিজিক্স, কেমেস্ট্রী, বায়ো, এসট্রোনোমি) কঠিন বিষয়; সায়েন্সের লোকদের বুঝতে হলে, কিছুটা হলেও সায়েন্স জানতে হয়।

১৬| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৩৫

রাফা বলেছেন: কেউ কেউ চির বিদায় নিয়েও পৃথিবিতে থেকে যান অনন্তকাল।তিনি তাদেরই একজন।মৃত্যুকে অস্বিকার করার কোন উপায় নেই।মানব সভ্যতার জন্য যতটুকু রেখে গেলেন তার জন্য স্বরণ করবে সবাই।সৃষ্টিকর্তা তাকে ক্ষমাকরুন।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৪২

চাঁদগাজী বলেছেন:


তিনি প্রকৃতিকে বুঝার চেষ্টা করে গেছেন সারা জীবন

১৭| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৩৮

অগ্নিবেশ বলেছেন: নকিব ভাই, আপনে অন্যের বিশ্বাসকে শুন্য দিয়ে দিয়ে বিচার করলে। অন্যেরাও আপনার বিশ্বাসকে শুন্য ভাববে।
মৃত্যুকে বিলম্বিত করা গেছে, একদিন আটকানোও যাবে।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৪০

চাঁদগাজী বলেছেন:


মানুষ জন্মেন, বাঁচেন, এক সময় মৃত্যুবরণ করেন, ইহা হাজার হাজার বছর আগেও মানুষের কাছে পরিস্কার ছিলো।

১৮| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৪৬

১৯৭১ মুক্তি বলেছেন: নতুন নকিব বলেছেন: "কেউ 'বিশ্বাস'কে ধারন করেন- সাথে নিয়ে যান পূর্নতা।
আবার কেউ 'বিশ্বাস'কে হারিয়ে যান, থাকে শুধু শুন্যতা।"

তাহলে তো আমাদের তেঁতুল হুজুর সাথে নিয়ে যাবেন বিরাট পূর্ণতা। দৃশ্যের অন্তরালে অন্তহীন ৭২ হুর পরীর স্বাদ থেকে হকিন্স বাদ পরে গেল, নাকি??

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৪৭

চাঁদগাজী বলেছেন:


হকিং যা নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন, বিশ্ব সেটার জন্যই উনাকে সন্মান করেন।

১৯| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৪৮

নতুন নকিব বলেছেন:



অগ্নিবেশ, ধন্যবাদ ভাই। বিশ্বাস থেকে থাকলে তো, বিশ্বাসের ঘর যদি একেবারেই শুন্য থাকে তাকে পূর্ন বলবেন কি করে, বলুন। স্টিফেন হকিন্স জগতের স্বনামধন্য একজন সন্দেহ নেই, তার প্রতি আমাদের শ্রদ্ধারও কমতি নেই। তবে, তার বিশ্বাস-অবিশ্বাস সম্মন্ধে একটু জেনে দেখুন, আশা করি, উত্তর পেয়ে যাবেন।

মৃত্যুকে বিলম্বিত করা যায়নি। সম্ভবত: 'লাইফ সাপোর্ট' কথাটির অর্থ বুঝতে ভুল করেছেন। 'লাইফ সাপোর্ট' মানে, হসপিটালের বিল ইনক্রিজ করা। এটা বুঝতে পারলে মৃত্যু আটকানোর চিন্তায় বেহুদা মাথা খাটানোর দরকার পরবে না, আশা করি।

অনেক ভাল থাকুন।

২০| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৫২

নতুন নকিব বলেছেন:



@১৯৭১ মুক্তি, ধন্যবাদ ভাই, আমি কিন্তু হুরপরির কথা এখানে বলিনি। আপনার কাছে পূর্নতা মানেই ৭২ কি হুরপরি? প্রত্যেকেই তার কর্ম অনুসারে ফলাফল লাভ করবেন। তেঁতুল হুজুর নিয়ে চিন্তা করে লাভ কী? নিজে বাঁচলে বাবার নাম।

অনেক ভাল থাকুন।

২১| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১:০৪

আকিব হাসান জাভেদ বলেছেন: একটা জ্ঞানের ভান্ডারের মৃত্য হলো। ছোট কাল থেকে চেয়ারে বসা এ হকিংকে দেখে আসছি । হকিংস সৃষ্টির প্রসার ঘটুক নতুন প্রযুক্তির সাথে। দোয়া রহিল হকিংস ভালো থেকো ওপারে।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:১৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


মনে হচ্ছে, সবাই কিন্তু উনাকে অনুসরণ করছিলেন।

২২| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১:১০

রোকসানা লেইস বলেছেন: শরীরের চেয়ে মস্তিষ্কের শক্তি অনেক বেশী তা তিনি প্রমাণ করে গেলেন ।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:১৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


সঠিক, উনি বিশাল রোগ নিয়েও, বিশাল ভাবনার জগৎ গড়ে গেছেন।

২৩| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১:১৩

শাহ আজিজ বলেছেন: চাদ্গাজী , কেন মনে এলো আমাদের ন্যূনতম বিজ্ঞান বিষয়ক জ্ঞান নেই? আমি যা লিখেছি তার জবাব দিলেই জমত বটে । সর্বশেষ বিষয় ছিল এলিয়েনদের পৃথিবী আক্রমন। যা কিছু সাধারন মানদণ্ডে প্রমানিত নয় তা প্রমান করার চেষ্টা হাস্যকর।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:২২

চাঁদগাজী বলেছেন:


স্যরি, আমি আপনার কথাগুলোর (আগের মন্তব্যের) সঠিক উত্তর দিতে পারবো না, মনে হয়। আমি সাধরণ নিয়মের কথা বলেছি, যেটা সবার জন্য প্রয়োজ্য; আমার ধারণা, বেশীর বাংগালী উনার কাজকর্ম নিদ্দিষ্ট লেভেল অবধি বুঝতে পারার ক্ষমতা রাখেন।

২৪| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১:২৪

অগ্নিবেশ বলেছেন: নকিব ভাই, মানুষের গড় আয়ু গড় গড় করে বেড়ে যাচ্ছে, অথচ আপনি বলছেন মৃত্যুকে বিলম্বিত করা যায়নি। একসময় সামান্য কলেরা হলে গ্রামকে গ্রাম উজাড় হয়ে যেত, সে সব আটকানো গেছে। অবশ্য আল্লার মাল আল্লায় নিলে আপনার কিইবা আসে যায়?
মৃত্যু হলে শরীরের অর্গানগুলো একে অপরের সাথে সমন্বয় করে পুরো সিস্টেম চালাতে পারে না। কিন্ত মৃত্যুর পরও সুস্থ অর্গানগুলো অন্যের দেহে প্রতিস্থাপন সম্ভব হয়। তাহলে কি মৃতদেহের মৃত অর্গানগুলো পাল্টে ফেললেই পুনরুজ্জীবন সম্ভব? হয়ত একদিন সম্ভব হবে। যেহেতু আমার জীবিত কোষ আমার দেহ ব্যাতিত টেস্টটিউবেই বাঁচিয়ে রাখা সম্ভব কোনরূপ আত্মার সাহায্য ছাড়া।
আপনার সাথে আলোচনা করে লাভ নেই, আপনি তো সব উত্তর পেয়েই গেছেন। আপনার মত শান্তিতে আর কেউ নেই ভাই, সব উত্তর আপনার কাছে আছে। যাদের কাছে উত্তর নেই তারাই খুজে বেড়ায়, একটা একটা রহস্যের সমাধান পেতে অনেক সময় লেগে যায়। যারা বেহস্তে যেতেই চায় না, তাদের জন্য দোজোখ বরাদ্দ করে ধর্মের কি ই বা লাভ হতে পারে?

২৫| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১:৩১

আবু তালেব শেখ বলেছেন: স্বাভাবিক মৃত্যু। তেমন দুঃখ অনুভব করছি না। নেপালে নিহতদের জন্য খুবই কষ্ট লাগছে । করুন মৃত্যু হ্রদয় ভেংগে দিয়েছে। যেমনটা পেয়েছিলাম রানা প্লাজার ট্রাজেডি তে। তাজরিন অগ্নিকান্ডে।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:২৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


নেপালের ঘটনায়, ফায়ার ব্রিগেড আসতে আধাঘন্টা লেগেছে, এসব দেশে যাওয়া সঠিক নয়।

২৬| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১:৩৬

আবু তালেব শেখ বলেছেন: মৃত কে বাচানো বা অমর হওয়া এটা কি ধরনের বিজ্ঞান? অগ্নিভাই?

২৭| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১:৪০

অগ্নিবেশ বলেছেন: শেখ ভাই, ধরা খেয়ে গেছি, খুব কঠিন প্রশ্ন করেছেন।

২৮| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১:৫০

মাআইপা বলেছেন: মানবজাতি হারালো একজন বিজ্ঞানী কিন্তু পৃথিবী হারালো একটি নক্ষত্র
ভাল হয়েছে লেখাটা।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৩৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


উনাকে নিয়ে লেখা আসবে; ব্লগার ড: আলী, ব্লগার মলাসইলমুইনা সাধারণত এসব বিষয়ে ডিটেইলস লিখেন; আমি ব্লগারদের শুধু উনার প্রয়াণের কথা জানিয়েছি মাত্র।

২৯| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ২:২৪

১৯৭১ মুক্তি বলেছেন: নতুন নকিব বলেছেন: "প্রত্যেকেই তার কর্ম অনুসারে ফলাফল লাভ করবেন।" তিনি আরও বলেছেন : "আপনার কাছে পূর্নতা মানেই ৭২ কি হুরপরি?"

তাছাড়া কি? আসমানের হুরপরী বাদে পূর্ণতা কিসে? এই প্রলভোন তো কিতাবেই আছে, যা আপনি সকাল বিকাল সুর করে পাঠ করেন, লজ্জা পান কেন?। আর কর্মফল তো ভোগ করতেই হবে। কর্মের কারণে কেউ আসমানে বসে খেজুর খাবে, মধু খাবে, সুডল বক্ষের রমনীদের সাথে ফষ্টিনষ্টি করবে। আবার কেউ সহস্র কোটি বছর শাপ, বিচ্ছুর কামড় খেয়ে আগুনে জ্বলে পুড়ে উলট/পালট চমড়ায় দগ্ধ হয়ে বার্ন ইউনিটের যন্ত্রনা ভোগ করবে। এই না হলে বিশ্বাসের পূর্ণতা কিসে? হকং কোন ছিড়ু ত্যানা যে তার কথা বিশ্বাস করতে হবে?? মারহাবা।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৪১

চাঁদগাজী বলেছেন:


এগুলো নতুন নকীবের নিজস্ব ভাবনা নয়, তিনি শিখেছেন এই ভাবনাগুলো

৩০| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ২:৩৩

নূর মোহাম্মদ নূরু বলেছেন:
পণ্ডিত মৃত্যুমানুষের খবর তোমার মুখে ?

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৪৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


আপনার সাথে আমার এমন কোন সম্পর্ক নেই যে, আপি আমার সাথে "তুমি', "তোমার" ইত্যাদি ব্যবহার করতে পারেন।

আপনার লেখার কারণে, অনেক গুণী মানুষ অগুণী হিসেবে বর্ণিত হয়, স্যরি!

৩১| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ বিকাল ৩:০৭

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:

জন্মিলে মরিতে হবে এটাই চিরন্তন সত্য।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৪২

চাঁদগাজী বলেছেন:



এটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে লাখ বছর আগে।

৩২| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ বিকাল ৪:০৯

নীলপরি বলেছেন: উনি শুধু প্রখ্যাত বিজ্ঞানী ছিলেন না তিনি দুনিয়াকে শিখি্য়েছেন প্রতিকূলতা নিয়েও নিজের কাজ করা যায় ।
এই পোষ্টের জন্য ধন্যবাদ ।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৪৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


হ্যাঁ, সেটাও এক বিরাট উডাহরণ

৩৩| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ বিকাল ৪:৩১

রাজীব নুর বলেছেন: লেখক বলেছেন:
ওরা হয়তো আমার লেখা থেকে কপি করেছে; আমি আমার জীবনে কারো কোন বাক্য, কোন উক্তি, কোন আয়াত, কোন উপদেশ, অনুসরণ করি না, কপি করি না।


আপনার এই মন্তব্যের জন্য আপনাকে সালাম।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৪৮

চাঁদগাজী বলেছেন:



আমি সক্রেটিস থেকে রবীঠাকুর অবধি, কারো উক্তি, কারো বাক্য আমার পোষ্টে ব্যবহার করি না; আমি ব্লগারদের ব্যতিত অন্যদের লেখা থেকে কিছু গ্রহন করি না।

৩৪| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ বিকাল ৪:৩৩

সালু সরকার বলেছেন: ফিজিক্স, কেমিস্ট্রি, মাথে যেসব বিজ্ঞানির সাথে পরিচয় উনারা সবাই মৃত । জীবিত ছিলেন হকিং, তিনি ও চলে গেলেন।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৫০

চাঁদগাজী বলেছেন:


উনাদের ধারণাগুলো মানব জাতির জন্য রেখে গেছেন; নতুন মানুষ সেগুলোর আলোকে নতুন ভাবনা নিয়ে আসবেন।

৩৫| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ বিকাল ৪:৩৬

রাজীব নুর বলেছেন: You will remain as an example forever to prove the power of human ability.

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৪৯

চাঁদগাজী বলেছেন:



সঠিক, এটা উনার আরেক বড় দিক, মানুষের জন্য বড় উদাহরণ

৩৬| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ বিকাল ৪:৩৭

রাজীব নুর বলেছেন:

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:১৭

চাঁদগাজী বলেছেন:



তিনি মৃত্যুকে নিয়েও নিশ্চয় ভেবেছেন

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৩৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


বিশ্ব নিয়ে চিন্তা করে এত বেশী সময় কেহ ব্যয় করেনি, যথাসম্ভব।

৩৭| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ বিকাল ৪:৫৩

মোঃ মঈনুদ্দিন বলেছেন: বিজ্ঞানের সবচেয়ে বড় জীবন্ত কিংবদন্তিকে হারালো এ বিশ্ব। তিনি ছিলেন জীবিত অর্ধ্বমৃত মানুষদের জন্য অনুপ্রেরণা। জীবিত মানুষেরা যদি বেঁচে থাকার শক্তি খোঁজ করে তবে যেন ডক্টর স্টিফেন হকিন্সকে অধ্যয়ন করে। ধন্যবাদ আপনার এ ব্রিফ হিস্ট্রি অব ডক্টর হকিন্স।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:১৪

চাঁদগাজী বলেছেন:


উনাকে নিয়ে অনেক বই বের হবে; আমি ব্লগারদের জানানোর জন্য ১৫ লাইন লিখেছি; দেখা যাচ্ছে, ব্লগারেরা উনার সম্পর্কে অনেক জানেন

৩৮| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:১৭

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: না ফেরার দেশে চলে যাওয়া বিশ্বখ্যাত পদার্থবিজ্ঞানী স্টিফেন উইলিয়াম হকিং এর প্রতি রইল গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলী । বিশ্ব মিডিয়াতে তাঁর মহাপ্রয়ানের সংবাদ শুনে সমগ্র বিশ্ববাসীর সাথে আমরাও মর্মাহত হয়েছি । সারা দিন ধরেই এই মহান বিজ্ঞানীর উপর বিভিন্ন জনের মুল্যবান আলোচনাগুলির উপর চোখ বুলিয়ে যাচ্ছিলাম । স্মৃতির দোয়ারে এই বিজ্ঞানীর কৃর্তিগাথা একের পর এক ভেসে আসতেছিল । এই সামুর ব্লগ বাড়িতেও অনেকে তাঁর জীবনের বিভিন্ন দিকের উপর মুল্যবান আলোচনা করেছেন ।

এই পোষ্টেও তাঁর উপরে সংক্ষেপে মুল্যবান তথ্যমালা তুলে ধরা হয়েছে । মন্তব্যের ঘরে তাঁর প্রতি সকলের ভালবাসা ও শ্রদ্ধা দেখে অভিভুত । এই বিশ্ব বিখ্যাত বিজ্ঞানীর বিশাল কৃতির কথা অল্প দুএক কথায় আলোচনা করা যে কারো পক্ষে বিশেষ করে আমার পক্ষেতো একেবারেই অসম্ভব । তবে এ কথা অকুণ্ঠ চিত্তে বলা যায় যে অধ্যাপনা ও গবেষনার সাথে তিনি তাঁর চিন্তা , চেতনা ও গবেষনার বিষয়গুলি দিয়ে বিশ্বের বিজ্ঞান সাহিত্য জগতকে করেছেন সমৃদ্ধ । তার লেখা গ্রন্থ ও প্রবন্ধ সমুহের মধ্যে
A Brief History of Time পুস্তকটির কথা বিশেষভাবে মনে পড়ে । বিধাতা সৃস্ট সৃস্টির নিয়মের পরিনতি হিসাবে নির্ধারিত সময় শেষে এই মহান বিজ্ঞানীকেও চলে যেতে হলো এটাই চিরন্তন সত্য ।
A Brief History of Time পুস্তকটিতে বিগ ব্যাঙগ হতে শুরু করে ব্ল্যাক হোল পর্যন্ত সময়ে সৃস্টি ও লয় সম্পর্কে বিশদ বিবরন ও তাত্বিক ব্যখ্যা স্টিফেন হকিং তুলে ধরেছেন সুন্দরভাবে । জগত সৃস্টির প্রক্রিয়া সম্পর্কে অনেক তথ্যই বইটিতে রয়েছে । গত বিশ বছর ধরে বইটি বেষ্ট সেলার বই হিসাবে স্বিকৃতি পেয়ে আসছে ,ঐ সময়ে বিশ্বের ৩৫ টি ভাষায় বইটির প্রায় ১০ মিলিয়ন কপি বিক্রয় হয়েছে । হকিং এর মতে universe is getting bigger over time।

তিনি খুব সুন্দর করে তার বইয়ে Cosmic history তুলে ধরেছেন ।

বড় কথা হলো তিনি বলেছেন Black Holes Ain't So Black । ব্ল্যাকহোলের আশেপাশে আলো কিভাবে রং বদলায় তাও বইটিতে থাকা বিবরন ও চিত্র হতে দেখা যায় ।
যাহোক, আশা করি এ ব্লগে বিচরণকারী আমাদের পদার্থ বিজ্ঞানীরা তাঁর জীবনের গুরুত্বপুর্ণ বিষয়ের উপরে মুল্যবান লেখা দিয়ে বিশ্ববিখ্যাত এই বিজ্ঞানী সম্পর্কে আমাদের জানার পরিধিকে সমৃদ্ধ করবেন ।

অনেক অনেক শুভেচ্ছা রইল ।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৩২

চাঁদগাজী বলেছেন:


আমার ধরণা, আপনি বিস্তারিত লিখবেন। দেখা যাচ্ছে যে, ব্লগারেরা উনার বেলায় অনেক উৎসাহী ছিলেন সব সময়।

৩৯| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৫০

শাহাদাৎ হোসাইন (সত্যের ছায়া) বলেছেন: উনি মৃত্যুবরণ করেছেন, তা নিয়ে বাংলাদেশে এতো হইচই এর কিছু নেই। তার তাকে বুঝার মত মস্তক বাংলাদেশে খুব কম আছে। এদেশে দুই দিন পর সে ভাটা পড়ে যাবে নতুন ইস্যুতে।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৫৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


দেখা যাচ্ছে যে, ব্লগারেরা উনার বেলায় উৎসাহী ছিলেন।

৪০| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:১৪

তারেক ফাহিম বলেছেন: স্টিফিন উইলিয়াম হকিং এর প্রতি শ্রদ্ধা।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:২৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


দেখা যাচ্ছে যে, বেশীর ভাগ ব্লগার উনার অবদানকে সঠিকভাবে বুঝেন।

৪১| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ৮:৩৫

সোহানী বলেছেন: আহ্ একজন নক্ষত্রের পতন।

উনি দেখিয়ে দিলেন চিকিৎসকদের ধারনা এবং ক্যালকুলেশানে কতটা ভুল থাকতে পারে.... । আসলে সত্যটা হলো সেটা ভুল নয়, সবারই ঐকান্তিক চেষ্টায় তাঁকে বাচিঁয়ে রেখেছিল।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ৯:০১

চাঁদগাজী বলেছেন:


তিনি ভাবুক মনে অধিকারী ছিলেন, তিনি বেঁচে থাকার জন্য চেষ্টা করে সফল হয়েছিলেন।

৪২| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ৯:১৩

আহমেদ জী এস বলেছেন: চাঁদগাজী ,




"স্টিফেন উইলিয়াম হকিং"কে নিয়ে লেখার জন্যে ধন্যবাদ । অল্পের ভেতরে বেশ কিছু তথ্য দিয়েছেন । বৈকল্যকে তিনি সম্পূর্ণ জয় করেছেন ইচ্ছাশক্তির জোরে ।

আপনি ঠিকই বলেছেন ---- তিনি মানব সমাজকে অনেক নতুন জ্ঞানের কথা বলে গেছেন, বিশ্ব সম্পর্কে সঠিক ধরণা দিয়ে গেছেন।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ৯:৪৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


শিক্ষিতরা বিশ্বকে নিয়ে ভাবার সময় পান না, তিনি বেশ সময় নিয়ে ভেবে, অনেক ধারণা দেয়ার চেষ্টা করেছেন।

৪৩| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ৯:৩৬

মাহমুদুর রহমান সুজন বলেছেন: ওনার প্রতি সবসময় শ্রদ্ধা ছিল। এখন যখন জগতের নিয়মে চলে গেছেন তারপরেও তাকে স্বরণে থাকবে।

১৪ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ৯:৪৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


দেখা যাচ্ছে, ব্লগারেরা উনার বিষয়ে বেশ উৎসাহী ছিলেন।

৪৪| ১৪ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ১১:৫৮

এলিয়ানা সিম্পসন বলেছেন: Hmm.

১৫ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ১:৪২

চাঁদগাজী বলেছেন:


উনি মানব সমাজের জন্য অনেক কিছু নিয়ে ভেবেছেন।

৪৫| ১৫ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ১:১৩

শাহিন বিন রফিক বলেছেন: তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা, আশাকরি প্রজন্ম থেকে প্রজন্ম তাকে মনে রাখবে।

১৫ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ১:৩৭

চাঁদগাজী বলেছেন:



আমি মনে করেছিলাম বাংগালীরা উনার ব্যাপারে উৎসাহী নন; আসলে, ব্লগারেরা উনার ব্যাপারে খুবই উৎসাহী

৪৬| ১৫ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ১:৩৩

প্রামানিক বলেছেন: এরকম রুগী বাংলাদেশে হলে শেষ পর্যন্ত তাকে ভিক্ষা করে খেতে হতো গবেষণার ধারে কাছেই যেতে পারতো না।

১৫ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ১:৪০

চাঁদগাজী বলেছেন:


আমাদের একাংশকে অধিকার থেকে বন্চিত করে ভিক্ষুক বানায়েছেন শেখ সাহেব, জিয়া, এরশাদ, বেগম জিয়া ও শেখ হাসিনা; আমার ভালো লাগে যখন শুনি বেগম জিয়াকে জামিন দিচ্ছে না।

৪৭| ১৫ ই মার্চ, ২০১৮ ভোর ৫:২৮

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: আমার মাঝে মাঝে আক্ষেপ হতোঃ আমি যদি উনার মতো মেধাবী হতে পারতাম। আমার মেধা নেই। তারপর আবার সুযোগ পাইনি ঠিক মতো পড়াশোনা করার।

স্টিফেন হকিং, দ্বিতীয় জগতে আপনি অনেক অনেক ভালো থাকুন।

১৫ ই মার্চ, ২০১৮ ভোর ৬:৪৬

চাঁদগাজী বলেছেন:



উনার শারীরিক সমস্যা থাকার পরও বৃটেনে তিনি সুযোগ পেয়েছেন; আমাদের লাখ লাখ লাখ বাচ্চাকে টোকাই বানায়েছে বেগম জিয়া ও শেখ হাসিনা

৪৮| ১৫ ই মার্চ, ২০১৮ ভোর ৫:৪৪

অক্পটে বলেছেন: মাত্র ১২ তারিখে নেট ঘেটে ঘেটে তার অনেকগুলো ফটো আমি ডাউনলোড করে একটা ফোল্ডার বানিয়েছি। তার এক একটা ছবির দিকে আমি তাকিয়ে থেকেছি অনেক্ষণ ধরে। নিজেকে গর্বিত মনে হয়েছে আমার জীবদ্দশায় কালের এই শ্রেষ্ঠ সন্তান জীবিত আছেন বলে। ১৪ই মার্চ চলে গেলেন দূরারোগ্য ব্যধির কাছে হার না মানা মহাকালের এই নায়ক। খুব আশ্চর্য হয়েছি, বেদনা অনুভব করছি। বিনম্র শ্রদ্ধা তার প্রতি।

১৫ ই মার্চ, ২০১৮ সকাল ৭:২১

চাঁদগাজী বলেছেন:


বিরল ঘটনা, কোন কারণে মিলে গেছে

৪৯| ১৫ ই মার্চ, ২০১৮ সকাল ৯:১১

নতুন বলেছেন: “Remember to look up at the stars and not down at your feet.” Hawking

মনটা খারাপ লেগেছে খবর শুনে... শারীরিক সমস্যাকে জয় করে মহাবিশ্বে সৃস্টিরহস্যের ভাবনায় মেতে ছিলেন...

https://www.youtube.com/watch?v=xjBIsp8mS-c

১৫ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৩০

চাঁদগাজী বলেছেন:



তিনি বাংগালী জাতির জন্য উৎসাহ হয়ে থাকবেন।

৫০| ১৫ ই মার্চ, ২০১৮ সকাল ১০:২১

:):):)(:(:(:হাসু মামা বলেছেন: ভালো লিখেছেন আল্লাহু উনাকে বেহেস্ত দান করুক ।

১৫ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৩১

চাঁদগাজী বলেছেন:


আল্লাহ উনাকে মরার পর বেহেশত না দিয়ে, রোগটা ঠিক করে দিলেই পারতেন! কে জানে, হয়তো আল্লাহ চেষ্টা করেছেন।

৫১| ১৫ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:৩৭

ঠ্যঠা মফিজ বলেছেন: জন্ম নিলে একদিন না একদিন মরতে হবেই।

১৫ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:২৯

চাঁদগাজী বলেছেন:




সেটা আপনি হয়তো সবার পরে জেনেছেন, আপনাকে আরেকটু জানার চেষ্টা করতে হবে।

৫২| ১৫ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৩৪

নাঈমুর রহমান আকাশ বলেছেন: ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রা'জিউন।

১৫ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৩৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


মনে হচ্ছে, ব্লগারেরা উনার বেলায় উৎসাহিত ছিলেন বরাবরই

৫৩| ১৫ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৪৬

নাঈমুর রহমান আকাশ বলেছেন: উনার মৃত্যুর কয়েকদিন আগেও জনৈক ধর্মান্ধ উনাকে স্যাটায়ার করে একটা লম্বা পোস্ট লিখেছিল। আপনারও মন্তব্য আছে বোধহয় সেখানে।
আমি উনার মতো একজন বিজ্ঞানীকে সম্মান না দেখিয়ে থাকতে পারিনা। উনি যেখানেই থাকুন, আল্লাহ উনাকে শান্তিতে রাখুন।

১৫ ই মার্চ, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৫১

চাঁদগাজী বলেছেন:


সবার জন্য সৃষ্টিকর্তার নিজস্ব নিয়ম আছে। সাধারণ বাংগালীদের তুলনায় ব্লগারের ভালো করছেন; নিজকে প্রকাশ করার জন্য ব্লগিং আমাদের সবাইকে সাহায্য করছে

৫৪| ১৫ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ১০:১০

এলিয়ানা সিম্পসন বলেছেন: I see some chagol's comments above.

১৬ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ১:৫৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


অবস্হা আগের থেকে ভালো, ব্লগিং অনেক ছাগলকে মানুষে পরিণত করছে; খারাপ না

৫৫| ১৬ ই মার্চ, ২০১৮ সকাল ৮:৫২

MirroredDoll বলেছেন: he was very inspirational.
his contributions to the world is unequalled.

১৬ ই মার্চ, ২০১৮ বিকাল ৫:১২

চাঁদগাজী বলেছেন:



ভালো খবর যে, বাংগালী ব্লগারেরা উনাকে পজিটিভলী নিয়েছেন।

৫৬| ১৭ ই মার্চ, ২০১৮ রাত ২:৪৮

ওসেল মাহমুদ বলেছেন: উনার A Brief History of Time বইটি আমি ২ বার পড়েছি ! ১ম বার মূল লেখাটি ২য় বার বাংলা ভাষায় ছাপানো কপি ! এর সার বক্তব্য ড: আলী বিশ্লেষণ করেছেন ! কিন্তু হকিং এটা বলতে ব্যর্থ হয়েছেন এত শক্তি,আলো,পদার্থ এসবের আগমন কোথা থেকে !? এটা সত্যি এবং আপনার সাথে একমত যে তিনি মানব সমাজকে অনেক নতুন জ্ঞানের কথা বলে গেছেন, বিশ্ব সম্পর্কে বিজ্ঞান ভিত্তিক ধারণা দিয়ে গেছেন।

১৭ ই মার্চ, ২০১৮ ভোর ৪:৩২

চাঁদগাজী বলেছেন:


এনার্জি থেকে বস্তু তৈরী হয়েছে একটা সময়ে, হয়তো; সেটা বুঝার চেষ্টা চলছে

৫৭| ১৭ ই মার্চ, ২০১৮ ভোর ৬:২৭

স্বামী বিশুদ্ধানন্দ বলেছেন: প্রামানিক বলেছেন: "এরকম রুগী বাংলাদেশে হলে শেষ পর্যন্ত তাকে ভিক্ষা করে খেতে হতো গবেষণার ধারে কাছেই যেতে পারতো না"। সহমত |

১৭ ই মার্চ, ২০১৮ সকাল ১০:৩১

চাঁদগাজী বলেছেন:



এই মহুর্তে বাংলাদেশ শুধুমাত্র ধনীদের জন্য, তাই সবাই চুরি করে হোক, ডাকাতি করে হোক ধনী হতে চাচ্ছে।

৫৮| ১৭ ই মার্চ, ২০১৮ ভোর ৬:৩৭

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: আর দশটা মানুষের মতো তার মৃত্যু হলো । এটাই স্বাভাবিক। লিভিং লিজেন্ড মরে গেলেন ।

১৭ ই মার্চ, ২০১৮ সকাল ১০:৩০

চাঁদগাজী বলেছেন:


প্রকৃতির নিয়ম সবার জন্য সমান। উনার মৃত্যুর পর, দেখা যাচ্ছে যে, ব্লগারেরা উনাকে সন্মান করতেন।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.