নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সম্পদহীনদের জন্য শিক্ষাই সম্পদ

চাঁদগাজী

শিক্ষা, টেকনোলোজী, সামাজিক অর্থনীতি ও রাজনীতি জাতিকে এগিয়ে নেবে।

চাঁদগাজী › বিস্তারিত পোস্টঃ

বেগম জিয়ার জামিন না হওয়ার পেছনে বিএনপি ও উনার আইনজীবিরাও দায়ী

১৪ ই জুন, ২০১৮ ভোর ৪:১৬



বেগম জিয়ার জামিন না হওয়ার পেছনে বিএনপি ও উনার আইনজীবিরাও দায়ী বলে মনে হচ্ছে; বিএনপি আন্দোলন করে উনাকে বের করবে বলাতে সরকার উহাকে চ্যালেন্জ হিসেবে নিয়েছে; আবার, ওদিকে বিচারের শেষ পর্যায়ে ও জামিন শুনানীর প্রথম দিকে, বেগম জিয়ার আইনজীবিরা বিচারকদের বিভিন্নভাবে নাজেহাল করেছে: তারা বিচারকদের এজলাসে তর্ক করেছে, চিৎকার দিয়েছে, বিচারকদের দালাল ইত্যাদি ডেকেছে। বিচারের শেষ পর্যায়ে অকারণে বিপুল পরিমাণ বিএনপি-পন্হী আইনজীবি এজলাসে প্রবেশ করে রাখাল ছেলেদের মত শোরগোল করেছিলো।

বিএনপি বেগম জিয়ার বিচারকে "প্রহসনমুলক বিচার" বিচার বলাতে, বিচারকেরা অখুশী হওয়ার কথা; এবং কোন অবস্হায় বেগম জিয়ার প্রতি সহজে সহাভুতিশীল হবে বলে মনে হয় না।

বিএনপি'র রাজনৈতিক জ্ঞানহীন লিলিপুটিয়ান নেতারা ষড়যন্ত্র করেছে বলেও মনে হয়: তারা ভেবেছে যে, বেগম জিয়াকে কয়েক সপ্তাহ আটকায়ে রাখলে জনতা ফেটে পড়বে, বিএনপি'র সাপোর্ট বাড়বে, সরকার জনতার রোষানলে পড়বে। এমন কি তারা হয়তো বেগম জিয়াকেও তা বুঝাতে পারে। এই বাংলার বুকে জনতার রোষানলে পড়ে আইয়ুব খান শুধুমাত্র শেখ সাহেবকে ছাড়তে বাধ্য হয়েছিলো, তাও মওলানা থাকাতে; না'হয় শেখ সাহেবের কি হতো বলা মুশকিল, ম্যাঁওপ্যাঁও আওয়ামী লীগ নিজে হয়তো সাহস করতো না।

বেগম জিয়া এখন অসুস্হ, হতে পারে তা বয়স, মানসিক ও বৈরি পরিবেশের কারণে; বেগম জিয়ার জামিনের ব্যাপারে নিশ্চয় বিভিন্ন মহল থেকে কথাবার্তা হচ্ছে, কিন্তু সরকার আজ অবধি পাত্তা দিচ্ছে না; এখন হয়তো বিএনপি নেতাদের টনক নড়েছে। বেগম জিয়ার প্রধান আইনবিদ খোন্দকার মাহবুব সাহেব এতদিন বাঘ-ভালুক মেরে বেড়াচ্ছিলেন; আজকে, সরকারের অনুগ্রহের কথা বলেছেন; তিনি অবস্হার পরিপ্রেক্ষিতে বলেছেন যে, এখন সরকারের অনুগ্রহে "প্যারোল"ই একামত্র ভরসা।

এ কথা বলার পরও তিনি ছোট একখানা লেজ লাগিয়ে দিয়েছেন; তিনি শেখ হাসিনাকে ক্ষেপানোর জন্য বলেছেন যে, গতবার সামরিক সরকারের সময়, শেখ হাসিনা অসুখের কথা বলে "প্যারোলে" আমেরিকা গিয়েছিল; কথা সত্য, কিন্তু কিছু অপ্রিয় সত্য কথা মানুষ শুনতে চাহে না, এবং বলাও উচিত নয়। খোন্দকার মাহবুব বিএনপি'র সেন্ট্রালে জুনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট; তিনি যে, শুধু বেগম জিয়ার স্বার্থ দেখছেন, তাই নয়, তিনি নিজের স্বার্থও দেখছেন, মনে হয়; না'হয়, ঐ লেজটুকু লাগানোর কোন কারণ থাকতে পারে না। বেগম জিয়ার উচিত ছিলো, দলের বাইর থেকে আইনবিদ নিযুক্তি দেয়া।

মন্তব্য ৬৯ টি রেটিং +৩/-০

মন্তব্য (৬৯) মন্তব্য লিখুন

১| ১৪ ই জুন, ২০১৮ ভোর ৪:২৯

সৈয়দ ইসলাম বলেছেন: স্থান কাল।পাত্র বেধে কথা বলাটা আমার কাজের ছেলেটাও বুঝে!
আমাদের বঙিয় রাজনীতিবিদদের জন্য আফসোস হয়!

১৪ ই জুন, ২০১৮ ভোর ৪:৩৪

চাঁদগাজী বলেছেন:


আপনার কাজের ছেলে থাকলে, ছেলেটাকে পড়ালেখা করানোর কথা ভেবে দেখেন।

বেগম জিয়া নিজেও বংগীয় রাজনীতি করেছেন, সেটার কারণেই উনি অতদুর গেছেন।

২| ১৪ ই জুন, ২০১৮ ভোর ৪:৩৭

সৈয়দ ইসলাম বলেছেন: উনি রাজনীতি করেছেন?

আপনি উনার অতীতের সাক্ষী দিচ্ছেন নাকি?


দ্রষ্টব্যে বলে রাখি, আমার কাজের লোক পড়ুয়া...

আপনাকে ধন্যবাদ সুপরামর্শে।

১৪ ই জুন, ২০১৮ ভোর ৪:৪৪

চাঁদগাজী বলেছেন:


উনি বিএনপি'র সভাপতি ৩৫ বছর, ৩ বার প্রিমিয়ার, ২ বার বিরোধীদলের নেত্রী; উনার জীবনটাই রাজনীতির ইতিহাস

৩| ১৪ ই জুন, ২০১৮ ভোর ৪:৫৪

সৈয়দ ইসলাম বলেছেন: চাঁদগাজী ভাই, ব্যাপক মজা দিলেন! আপনি নিজেই আপনার অন্যান্য পোস্টে বললেন, উনি রাজনীতি না করে ক্ষমতায় এসেছেন। রাজনীতি সম্পর্কে উনি অজ্ঞ!

এখন এসব কী সাধুবাদ দিচ্ছেন!

১৪ ই জুন, ২০১৮ ভোর ৫:১৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


উনি রাজনীতিতে অজ্ঞ; কিন্তু জাতির বৃহত্তম রাজনৈতিক পোষ্টগুলো উনি দখল করে রেখেছিলেন ৩৫ বছর।

৪| ১৪ ই জুন, ২০১৮ ভোর ৬:০৮

অক্পটে বলেছেন: মালয়শিয়ার মহাথিরও হাসিনার কাছে অজ্ঞ রাজিনীতিবিদ। খালেদাএবং হাসিনার মধ্যে যোজন যোজন পার্থ্ক্যের একটি হলো হাসিনা প্রচন্ড লোভী এবং সীমাহীন চতুর মহিলা। শুধুমাত্র হাসিনার জন্যই বাংলাদেশে গণতন্ত্রের আজ এই অবস্থা! ছলে বলে সব কিছু নিজের দখলে নিয়েও উনি প্রতি মূহুর্তেই খালেদা ফোবিয়ায় ভোগেন। এখন উনি নির্বাচন করবেন তাও ঠুনকো মামলায় খালেদাকে বন্দী করে তবেই তিনি নির্বাচনে যাবেন।

"বেগম জিয়ার উচিত ছিলো, দলের বাইর থেকে আইনবিদ নিযুক্তি দেয়া।" আপনার এই ধারণাটি সত্যই। খালেদার আইনজিবী গুলিকে আমার কাছে অকালকুষ্মান্ড বলেই মনে হয়।

১৪ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৭:০০

চাঁদগাজী বলেছেন:


বেগম জিয়ার আইনবিদ খোন্দকার মাহবুব সব বিচারককে বিশালভাবে নাজেহাল করেছে বারবার।

রাজনীতি শেখ হাসিনার আসল উদ্দেশ্য নয়, তিনি এসেছিলেন বাবা ও পরিবার হত্যার বিচার করতে; তিনি কাউকে ছাড়েননি; সামনে আরো অনেকে শাস্তি পাবে।

৫| ১৪ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৭:০১

সিগন্যাস বলেছেন: যদি কোন দৈব ঘটনায় এই দুই নেত্রি নিহত হয় তবে কি দেশের সঠিক অবস্থায় আসার সম্ভাবনা আছে?

১৪ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৭:০৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


বেগম জিয়া এখন "আউট অব কমিশন"(মোটামুটি মৃত), শেখ হাসিনা বেশ শক্ত; শেখ হাসিনার অনুপস্হিতিতে আওয়ামী লীগ মাথাকাটা মুরগীর মতো দৌড়াবে কিছু সময়, তবে ঠিক হয়ে যাবে। বেগম জিয়ার কারণে বাংলাদেশের সাধারণ মানুষ ক্রীতদাসের জীবন যাপন করেছেন; শেখ হাসিনার সময় অবস্হা কিছুটা ভালো; তবে, উনার আইডিয়া কলোনিয়েল যুগের মতো; আমেরিকার ১২শ শ্রেণীর একটি ছেলের দক্ষতা উনার থেকে বেশী।

৬| ১৪ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৭:১৯

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: সবাই জা‌নে কেন জা‌মিন হ‌চ্ছে না। এখা‌নে খা‌লেদার আইনজী‌বি‌দের কোন গা‌ফিল‌তি নেই। আপ‌নিও জা‌নেন সব। তবুও কেন যে পোস্ট দি‌লেন...

১৪ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৯:১১

চাঁদগাজী বলেছেন:



আমার চোখে, বেগম জিয়ার আইনজীবিদের গাফেলতি ধরা পড়েছে; আইজীবিরা কোর্টের ভেতর আইনের মানুষ, বিচারকের সাহায্য কারী, আইন ব্যাখ্যাকারী; তারা যদি বিচাকের এজলাসে চীৎকার দেয়, উহা আসামীর বিপক্ষে যায়; তারা দেশের এটর্ণি জেনারেলকেও হেস্তনেস্ত করেছে; আইনবিদ ও রাজনীতিবিদ একত্রে হওয়া কঠিন।

সরকার জামিন হতে দিচ্ছে না, এটা বুঝা যাচ্ছে;কিন্তু সরকার কেন এদিকে যাচ্ছে?

৭| ১৪ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৭:২৩

সিগন্যাস বলেছেন: আপনি প্রচুর সময় ব্লগে দেন।এতো সময় কি করেন?

১৪ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৮:৫০

চাঁদগাজী বলেছেন:



চোখের সমস্যার জন্য আমাকে বাসায় থাকতে হচ্ছে দির্ঘদিন থেকে; ফলে, ব্লগেই সময় কাটাই

৮| ১৪ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৭:৫৮

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: শুভ সকাল শ্রদ্ধেয়। একটা দেশের বিচার পক্রিয়াকে সম্মান জানানো প্রতিটি বিবেচক মানুষের কাজ। সেখান থেকে বলছি, বিনপি আইনজীবিরা যেটা করেছে আদালত অবমাননার সামিল। যেটা শাস্তি যোগ্য অপরাধ।

পাশাপাশি বিচার পক্রিয়ায় এভিডেন্স শেষ কথা। সেখানে যদি নির্দিষ্ট এভিডেন্স থাকে তাহলে যে কেউ আদালতের বিচারে মুক্তিপেতে বাধ্য। বেগম জিয়ার আইনজীবিরা আন্দোলন করায় বা বিনপি সমর্থকরা আন্দোলন করায় সরকার এটাকে চ্যালেঞ্জ হিসাবে নিল, তাহলে সঠিক ভাবে বিচার পরিচালিত একথা কী বলা যাবে? এটা কোনও বিচার পক্রিয়া হতে পারে? কারোও দেখতে খারাপ হলে সে বিচার পাবেনা, আর ভালো হলে বিচার পাবে - আসলে চূড়ান্ত অব্যবস্থা নয়কি? আমার মনে হয় বিষয়টি তা নয়, আজ আপনার উপস্থাপনটি একটু স্ববিরোধী লাগলো। বিচার ব্যবস্থা সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ মুক্ত হয়ে কাজ করছে এবং করবে, আমরা অযথা তাকে পক্ষপাতদুষ্ট করে ফেলছি।

অনেক অনেক শুভেচ্ছা আপনাকে।

১৪ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৯:০১

চাঁদগাজী বলেছেন:


বিএনপি-জামাতের আমলে, জামাত প্রশাসনকে দলীয়করণ করে প্রথমবারের মতো, এবং সেটা করে আওয়ামী লীগকে বিপদে ফেলেছিল; আওয়ামী লীগ ওদের ফর্মুলাকে এটমিক পর্যায়ে নিয়ে গেছে।

শেখ হাসিনা বাবা ও পরিবারকে হারায়েছে মিলিটারীর হাতে; উনি মিলিটারীর মুখপাত্র বেগম জিয়াকে সম্ভব মতো অবজ্ঞা করবেন; তবে, শারীরিক ক্ষতি করবেন না; বেগম জিয়া কিন্তু শেখ হাসিনাকে হত্যার পক্ষে ছিলেন।

৯| ১৪ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৮:২৭

অক্পটে বলেছেন: আমি চাই শেখ হাসিনার পতন বিচার হওয়া অবধি আপনি সুস্থ্য এবং গ্রেট থাকুন। আমার খুব দেখতে ইচ্ছে করবে যে আপনার কলম দিয়ে তখন কি বেরোয়।

১৪ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৮:৫৫

চাঁদগাজী বলেছেন:



আমার ধারণা, শেখ হাসিনা প্রতাপের সাথে বিদায় নেবেন; উনি সাধারণ মানুষের জন্য কিছু করতে জানেন না; তবে, সাধারণ মানুষকে ২য় শ্রেণীর নাগরিক হিসেবে দেখেন না; ফলে, মানুষ নিজের ক্ষতি করেও উনাকে সাপোর্ট করবেন। বিএনপি সাপোর্টারেরা কিছু না পেলে দলের জন্য কিছু করে না।

১০| ১৪ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৯:০৪

অনন্য দায়িত্বশীল আমি বলেছেন: সরকার তথা শেখ হাসিনা যেখানে নিজেই খেলোয়াড় সেখানে অন্যদের দোষ দিয়ে লাভ কী?

১৪ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৯:১২

চাঁদগাজী বলেছেন:


শেখ হাসিনাকে যে, ৬ বছর দেশে আসতে দেয়নি, উনার মিটিং'এ গ্রেনেড মারার পর বিচার হয়নি; এগুলো উনি ভুলার কথা নয়।

১১| ১৪ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৯:০৬

রাজীব নুর বলেছেন: সব দুষ্ট রাজনীতিবিদদের অবস্থা যেন খালেদা জিয়ার মতো হয়।

১৪ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৯:১৪

চাঁদগাজী বলেছেন:



মনে হয়, সেটা হবে না; তবে, ডা: বদরুদ্দোজা, ক্যাপ্টেন অলি'র জন্য বিপদ সংকেত আছে।

১২| ১৪ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১০:৪৩

কানিজ রিনা বলেছেন: এটা হিংসাত্বক প্রহশন বিচারপতিরা আইনের
স্বাধীনতায় চলেন না। শিশুর জন্য যেমন সৎ
মায়ের বুকে দুধ থাকেনা তেমন। বিচারপতি
ছিনহার কথা কি ভুলে গেলেন। আওয়ামী
নীতির বাইড়ে আইন খাটালে ছিনহার দশা
হবে এটা বিচার পতিরা ভাল করে জানেন।
এখন খালেদা যাতে নির্বাচনে আসতে না
পারে অপনীতির কৌশল যত প্রয়োগ হচ্ছে,
এখানে খালেদার আইনজীবিদের দোশ খুজা
বোকার মত কথা।
হলমার্ক চুরি ভোট চরি ব্যাংক চুরি শিয়ার
বাজার চুরির অন্ধকারে ঢেকে দেওয়ার প্রয়াস
খালেদার এতিমখানার টাকা দুর্নীতির কলংক
দিয়ে জেল খাটানো। এটা রাস্তার পাগলও
বুঝে আপনি বুঝেও না বুঝার ভানে লিখে
যাচ্ছেন। গনতন্ত্রের ভোটের অধিকার কেড়ে
নেওয়ার দল আইনের স্বাধীনতা হরন করেছে
এটাতো নতুন কিছুনা। আইনের স্বাধীন কোথায়
ছিনহার পরিনতি তা আপনার ভুল হওয়ার
কথা না।

১৪ ই জুন, ২০১৮ বিকাল ৪:৩৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


সিনহার সব সমস্যা হয়েছিলো শেখ সাহেবকে নিয়ে কথা বলাতে; শেখ হাসিনার প্রশাসনে চাকুরী করে, উনার মৃত পিতার বদনাম কেহ যদি করে, উনি কেন তা সহ্য করবেন?

শেখ হসিনা দেশ চালাচ্ছেন জেনারেল জিয়ার তত্ব অনুসরণ করে, "গলাকাটা ক্যাপিটেলিজম"; এরপর বেগম জিয়া দিয়ে কি হবে? বেগম জিয়ার আশেপাশে যারা ছিলো কেহ বাংলাদেশ চাহেনি; মিলিটারী দেশ চালাচ্ছিলো বেগম জিয়ার সময়।

বেগম জিয়া একলাফে বিএনপি'র সভাপতি হওয়া কি ঠিক ছিলো?

১৩| ১৪ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১১:২৫

জুন বলেছেন: আপনার যা মনে হয়, যা নিজে ব্যক্তিগতভাবে চিন্তা করেন তাই মনে হয় লিখেন। এনালিসিস যাকে বলে তা আপনি করেন না। আপনার মনে হলো এখন সময় হিংসার রাজনীতি পরিত্যাগ করার তো আবার এই মনে হয় সব্বাইরে মারো, ধরো। আপনার লেখনী আমার কাছে আগাচৌ এর লেখার মত লাগে। মানে কনট্রাডিক্টরী।

অটঃ আমি কোন রাজনৈতিক দলকে উদ্দেশ্য করে কিছু লিখিনি কিন্ত /:)

১৪ ই জুন, ২০১৮ বিকাল ৪:৪৩

চাঁদগাজী বলেছেন:


আপনি ভ্রমণ নিয়ে লিখছেন, আমারা বিভিন্ন সংস্কৃতি, মানুষের জীবনের সাথে পরিচিত হচ্ছি। দেশের বর্তমান অবস্হাকে তুলে ধরে ২/১টা পোষ্ট দেন!

বেগম জিয়া ৩৫ বছর রাজনীতি করেছেন, উনি ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ হবে না বিশ্বাস করতেন; নিজের নামটা সঠিকভাবে লিখতে পারেন কিনা সন্দেহ; সেই মহিলা ৩৫ বছর থাকাতে জাতি অনেকটা পাকীদের মতো হয়ে গেছে।

১৪| ১৪ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১১:৪৯

শূন্য-পথিক বলেছেন: @চাঁদগাজী: চোখের সমস্যার জন্য ঘরে বসে কিছু করার না পেয়ে ব্লগে সময় কাটানোর চেয়ে অন্য কিছু করেন। আপনার প্রত্যেকটা যুক্তি আপনার মতো করেই দেন। যদিওবা আপনি কি বলতে চান তা যারা আপনার ব্লগ পড়ে তারা ঠিকই বুঝে। ভাগ্য ভালো আপনাদের মতো হেভিওয়েট লোকজন বঙ্গ রাজনীতিতে আসে নাই, আসলে মানুষের পিঠের ছাল চামড়া কিছুই হয়ত থাকতো না। যেই গবেটগুলো এখন রাজনীতি করে জনগন হয়তো সব বুঝলেও তাদের দুর্বৃত্তপনা থেকে নিজেদের সুরক্ষার জন্য
কিছু বলে না। কিন্তু আপনাদের মত লোকজন রাজনীতি করলেও আমজনতা হয়তবা এই সুযোগ টুকুও পেত না

"এটা আমার ব্যাক্তিগত উপলব্ধি। তর্ক করার জন্য না"

১৪ ই জুন, ২০১৮ বিকাল ৪:৪৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


২০১৮ সালে, বাংলাদেশের মানুষের কি কি পাওয়া সম্ভব ছিলো, কি কি পাচ্ছেন, এবং কেন আমাদের এই অবস্হা হলো, তা নিয়ে লিখুন প্লীজ।

১৫| ১৪ ই জুন, ২০১৮ বিকাল ৩:৩৮

সনেট কবি বলেছেন: ননদী হাসিনা ভাবিজীর জন্য যা বরাদ্ধ করবেন তাঁকে সেটাই অম্লান বদনে মেনে নিতে হবে। জনগণ তাঁর জন্য ঝাঁপাবে বলে মনে হয়না। তিনি অবলিলায় শ্রমিকদের চাকরী খেয়েছেন, এখন জেলের ভাত খাচ্ছেন। তাঁর দল খাচ্ছে ঘোলা পানি।এগুলো তাদের কর্মফল।

১৪ ই জুন, ২০১৮ বিকাল ৪:৫৩

চাঁদগাজী বলেছেন:


বেগম জিয়ার টিপ সহি নিয়ে উনার দল আদমজী বন্ধ করেছে, খুলনা শিল্পান্চল ও চট্টগ্রামের শিল্পান্চল বন্ধ করে মানুষকে আরব ও মালয়েশিয়া যেতে বাধ্য করেছেন; সেটার শাস্তি হচ্ছে।

শেখ হাসিনাও চাকুরী সৃষ্টি করছে না, উনার নাম ইতিহাসের খারাপ পাতায় যাবে।

১৬| ১৪ ই জুন, ২০১৮ বিকাল ৩:৪৪

নতুন বলেছেন: দেশে খুনের আসামীও ফাসীর সাজা থেকে মাফ পেয়ে যায়। ( কিছুদিন আগে জোসেফ আর আমার এলাকার আসলাম চেয়ারম্যান গত বছর)

খালেদা জিয়া সেই চ্যানেল খুজে পায় নাই। তাই তার জামিন হচ্ছে না।

তবে হাসিনার উচিত হবে খালেদা জিয়াকে তার বাড়ীতেই রাখা.... জেলে রাখা ঠিক হচ্ছে না।

সাজার ৫ বছর তার নিজের বাড়ীতেই রাখতে পারে সরকার।

১৪ ই জুন, ২০১৮ বিকাল ৪:৫৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


শেখ হাসিনা যদি বেগম জিয়াকে নিজের বাসায় থাকতে দেন, রিজভী ও ফখরুলও বেকার হয়ে যেতো; শেখ হাসিনার মগজ লিলিপুটিয়ানদের সমান।

১৭| ১৪ ই জুন, ২০১৮ বিকাল ৩:৫৯

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: শেখ হাসিনা মানুষের ভয়ে ভিডিও কনফারেন্স করে। তার ভবিষ্যৎ কি সেটা সহজেই অনুমেয়। বিচারকের কাঠগড়ায় হৈ হুল্লোর করলে রায়ে প্রভাব পড়ে নাকি? এই বিচারক ক্ষমতার পূজারী। মাথায় ঘিলু থাকলে খালেদা জিয়া কে মুক্তি দিয়ে রক্ষা পাবেন। না হলে শেখ হাসিনা তাকে রক্ষা করতে পারবেনা।শেখ হাসিনার দুধের মাছি যা একজন ও তার সঙ্গে থাকবে না।দুধ শেষ আর সঙ্গে সঙ্গে লাপাত্তা। দূর্ণীতির টাকায় তারা আঙ্গুল পুরে কলাগাছ।গতরে চর্বি জমেছে। ক্ষমতা যে কয়দিন আছে সে কয়দিন খুব থাকবে। তার পর ভাগবে।

১৪ ই জুন, ২০১৮ বিকাল ৪:৪৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


আপনারা ভুলে যাচ্ছেন যে, উনার বাবাকে হত্যা করে এইদেশের মিলিটারী ক্ষমতা কেড়ে নিয়ে এই দেশ চালায়েছে; উনি সেটা থামানোর জন্য রাজনীতি দখল করেছেন।

১৮| ১৪ ই জুন, ২০১৮ বিকাল ৪:৪২

মোঃ জিদান খান (অয়ন) বলেছেন: এদেশের রাজনীতির মারপ্যাঁচ বুঝা বড়ই কঠিন। ভালো লাগলো পড়ে, ভাই।

১৪ ই জুন, ২০১৮ বিকাল ৪:৪৭

চাঁদগাজী বলেছেন:


এগুলো রাজনীতি নয়; দেশ কলোনিয়ালিজমে আছে। শেখ হাসিনা রাজনীতিকে দখল করে, শেখ সাহেবের হত্যাকারীদের ক্ষমতাচ্যুত করেছে মাত্র; উনার লোকজন দেশ চালানোর জন্য ক্ষমতায় যায়নি, ওরা বিএনপি'কে তাড়াতে যায়গা করেছে মাত্র।

১৯| ১৪ ই জুন, ২০১৮ বিকাল ৫:৩২

সিগন্যাস বলেছেন: রাশিয়া কি উন্নত দেশ?

১৪ ই জুন, ২০১৮ বিকাল ৫:৫৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


উন্নত দেশ! এক সময় বিশ্বের ২য় শক্তিশালী দেশ ছিলো।

২০| ১৪ ই জুন, ২০১৮ বিকাল ৫:৩৬

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: উনার বাবা ছাড়া আর কারো বাবা নাই। ষোল কোটি মানুষের দেশ বাংলাদেশ। উনার এক বাবার জন্য সবাইকে মারতে হবে । জীবনটা সিনেমা নয় । এই মস্তিষ্ক বিকৃতরে নির্বাসনে দেয়া লাগবে । আর তার অনুসারীদের না তাড়ালে দেশে শান্তি আসবে না ।

১৪ ই জুন, ২০১৮ বিকাল ৫:৫৭

চাঁদগাজী বলেছেন:


সবারই বাবা আছে, দরিদ্র ও ক্ষমতাহীন শতশত বাবাকে হত্যা করা হয়েছে এই দেশে; একা সিরাজ শিকদার ৩০০ বাবাকে হত্যা করেছে, এসব বাবাদের বিধবা স্ত্রী ও ছেলেমেয়েরা ভিক্ষা করেছে।

শেখ সাহেব ঐ ৩০০ শতের একজন নন, উনার মেয়ে সেটা প্রমাণ করেছে।

২১| ১৪ ই জুন, ২০১৮ রাত ৮:১২

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: সেলিম আনোয়ার ভাই তো দেখি নেতার মতো ( বিএনপির) মতো কথা বলেছেন!

১৪ ই জুন, ২০১৮ রাত ৮:১৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


এই ধরণের কোটি মানুষের ভুলের জন্য বাংলার সাধরণ মানুষের ভোগান্তির শেষ নেই; উনারা বুঝতে পারেন না যে, বর্তমান যুগে একজন অশিক্ষিত মানুষ নিজেই চলতে পারেন না, সেখানে ১৭ কোটী মানুষের জন্য কি করবেন।

২২| ১৫ ই জুন, ২০১৮ ভোর ৪:১১

অনল চৌধুরী বলেছেন: পৃথিবীর সব উকিল চাইলেও খালেদা জামিন পাবে না।বাংলাদেশে এটাই আইন যে ক্ষমতা যার ...[/sb

১৫ ই জুন, ২০১৮ ভোর ৪:২৯

চাঁদগাজী বলেছেন:



১৯৭৫ সালের হত্যাকান্ড দেশকে সেইদিকে যেতে বাধ্য করছে।

২৩| ১৫ ই জুন, ২০১৮ ভোর ৪:১৩

অনল চৌধুরী বলেছেন: একা সিরাজ শিকদার ৩০০ বাবাকে হত্যা করেছে, এসব বাবাদের বিধবা স্ত্রী ও ছেলেমেয়েরা ভিক্ষা করেছে-প্রমাণ দেন।

১৫ ই জুন, ২০১৮ ভোর ৪:৩১

চাঁদগাজী বলেছেন:


খুলনা, বরিশাল, যশোর, রাজশাহী, পাবনা গিয়ে বয়স্ক লোকগুলোকে জিজ্ঞাসা করেন, জানতে পারবেন।

২৪| ১৫ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৭:১০

বিলুনী বলেছেন: পোষ্টের মতামতের সাথে সম্পুর্ণ সহমত । "বেগম জিয়ার উচিত ছিলো, দলের বাইর থেকে আইনবিদ নিযুক্তি দেয়া।" এটা গুড়া হতেই বুঝা যাচ্ছিল তার আইন বিদগন খালেদাকে মামলায় জেতানোর চাইতে মামলায় হারা ও মামলাটিকে টেনে টেনে লম্বা করে খালেদাকে বিব্রত , হয়রানি ও শেষমেষ জেলের ঘানি টানানোর বিষয়েগড বিবিধ প্রকারে বেশী কোষেশ করেছেন , যা পোষ্টের লেখাতেও প্রতিভাত হয়েছে ।

এ পোষ্টের মন্তব্যের ঘরে থাকা বিভিন্ন শ্রদ্ধেয় ব্লগারের কথামালার প্রেক্ষিতে দুচারটি কথা না বললেই নয় । দেখা যাচ্চে কিছু কিছু শ্রদ্ধেয় ব্রগারগান পোষ্টের লেখার উপরে টু দি পয়েন্টে প্রতি মন্তব্য বা যুক্তি না দিয়ে প্রসঙ্গের বাইরে গিয়ে নীজের মত করে মনের কথাগুলি বলে গেছেন । এরকম তাঁরা বলতেই পারেন । তবে যেহেতো এগুলি এখানে দেখা যায় তাই এগুলি যে কেও পাঠও করতে পারে । তাই চোখে পড়া কিছু কিছু মন্তব্যের বিষয়ে দু একটি কথা না বললেই নয় ।

একজন বলেছেন মালয়শিয়ার মহাথিরও হাসিনার কাছে অজ্ঞ রাজিনীতিবিদ। পৃথিবিতে আরো বড় বড় রাজনীতি বিদ থাকার পরেও মাহথীরকেই টানা কেন ? মাহাথীর বাংলাদেশের থেকেও অনেক বড় এবং পাকৃতিক সম্পদে সমৃদ্ধ মালএশিয়াকে টেনে তুলেছেন , অপরদিকে অপর্যাপ্ত পাকৃতিক সম্পদ ও পৃথিবীর মধ্যে সবচেয়ে জনবহুল এবং সর্বদিক হতে পিছিয়ে পড়া একটি জনগুষ্টীকে অতি দরিদ্র দেশের কাতার হতে মাত্র এক দশকের কিছু বেশী কাল শাসনামলের মধ্যে মধ্যম আয়ের উন্নয়নশীল দেশের কাতারে উন্নীত করে হাছিনা মাহাথীরের কৃতিত্বকেও সম্ভবত ছাড়িয়ে গেছেন । এটা এদেশের কিছু কিছু মানুষ সমর্থন না করলেও সারা পৃথিবীর লোক এখন বিবিধভাবে শেষ হাছিনার সাফল্যকে স্বিকৃতি দিচ্ছেন । তাইতো দেখা যাচ্ছে হাছিনা এখন প্রথিতযশা বিভিন্ন আন্তর্জাতিক এওয়ার্ডে ভোষিত হচ্ছেন ।

অনেকেই খালেদাএবং হাসিনার মধ্যে যোজন যোজন পার্থ্ক্যের কথা বলতে গিয়ে হাসিনাকে প্রচন্ড লোভী এবং সীমাহীন চতুর মহিলা বলছেন । কিন্তু অনেকেই ভুলে যাচ্ছেন খালেদা দেশের প্রধানমন্ত্রী থাকা কালে এতিমের টাকা আম্মসাত করার লোভ সামলাতে পারেন নাই । প্রধানমন্ত্রীর নামে আসা বিদেশী অনুদানের চেক প্রধানমন্ত্রীর ত্রান তহবীলে জমা না দিয়ে তিনি অন্য কোন একাউন্টে জমা দিতে পারেন না । এটা যে কোন দৃষ্টিতেই অপরাধ । তার এই লোভের বিষয়টি দেশের বিদ্যমান আইনি প্রক্রিয়ায় প্রমানিত ।
অযৌক্তিক ভাবে দেশের একটি বড় রাজনৈতিক দলের ২০১৪ সালের নির্বাচনে না যাওয়ায় বাংলাদেশে গণতন্ত্রের আজ এই অবস্থা, এটা অআজ সকলেই এক বাক্যে স্বীকার করেন ! খালেদা নির্বাচনে গেলে সেটা কারচুপির নির্বাচ হলেও ৯৬ এর ফেব্রয়ারীর নির্বচনের ভাগ্যের মত হাছিনাকেও মেনে নিতে হত । জনরোষে ১৫ দিন হলেও অল্প দিনের মধ্যেই খালেদার মত তার পতন হতে পারত। কিন্তু রাজনৈতিক দুরদর্শীতার অভাবে গুয়ার্তুমী করে হাছিনাকে খালি মাঠে গৌল দেয়ার সুযোগ করে দিয়ে দেশে গনতন্ত্রের এই দশা ঘটিয়েছেন । এতে দেশবাসির কিছু হয়নি, যে ভাবেই হোক নির্বাচন হয়েছে, সরকার গঠিত হয়েছে , কিছু কিছু বিদিশী রাস্ট্র নামকাওয়াস্তো প্রথমে কিছু সমালোচনা করলেও পরে তারা হাছিনার সাথে মধুর সম্পর্ক বজায় রেখেছে । ক্ষতি হয়েছে শুধু খালেদা ও তার নেতা কর্মীদের ।

শেখ হাছিনা কখনো খালেদা ফোবিয়ায় ভোগেন না তিনি ভোগেন খালেদা সমর্থকদের ফোবিয়ায় , খালেদার থেকে খালেদার সমর্থকগন অনেক বেশী চৌকষ , তারা বিভিন্নভাবে বিভিন্ প্লাটফরম হতে হাছিনাকে বিবিধ প্রকারের যৌক্তিক অয়োক্তিক কথামালায় বিব্রত করতে পারেন । খালেদা তার ভুলের জন্যই মাসুল দিচ্ছেন । হাছিনা তার সুযোগতো নিবেনই , নীজের পতন ও ভরাডুবির জন্য একটি ভুলই যথেষ্ট । হাছিনা সমর্থকগন সুযোগ পেলেই বলছেন হাছিনার ভুলগুলি কোথায় আর কোথায় তার ভুল হচ্চে এবং কোন কোন জায়গায় তার সংশোধন ও সচেতনতা প্রয়োজন । কিন্তু তন্ন তন্ন করে দেখেও কোথাও চোখে পরেনি খালেদার সমর্থকগন খালেদার কোন ভুলের কথা গনমাধ্যমে বলেছেন । বরং তার ভুলগুলি সমর্থন করে করে তাকে আরো ভুলের মহাসাগরে নিক্ষেপ করেছেন । যার থেকে তার বেরিয়ে আসার আর কোন রাস্তাই দেখা যাচ্চেনা । অবশ্য একটি রাসতার কথা শুনা যাচ্চে, সেটা হলো অদৃশ্য কোন সুতার টানে হাছিনার করুন পরিনতি হলেও হতে পারে , কিন্তু এটা কোন রাজনৈতিক যুক্তিপুর্ণ কথা নয় ।

অনেকেই বিচারকদের অসহায়ত্বের কথা বলতে গিয়ে সিনহার প্রসঙ্গ টেনে আনেন । কিন্তু সিনহার ৬ কোটি টাকার বাড়ী বেচাকেনার প্রসঙ্গটির দিকে দৃষ্টি দিলে বুঝতে পারা যায় কেন তিনি তরি ঘরি করে দেশান্তরী হয়েছেন । তার থলের বিড়াল আর যেন না বের না হয়, যে জন্য তিনি সরকারের ঘারে দায় চাপিয়ে দেশান্তরী হয়েছেন , তিনি ভাল করেই জানেন তার জন্য দেশের বিরোধী পক্ষ বিবিধভাবে প্রোপাগান্ডা চালাবেন । এটা চলতেই থাকবে । হলমার্ক চুরি ভোট চরি ব্যাংক চুরি, শেয়ার চুরী যারা করছে তারা নিষ্চয়ই অবরাধ করেছে , তাদের কর্মকান্ড দেশজুরে নিন্দাও পাচ্ছে , তাদের বিষয়ে তদন্ত কমিটি হয়েছে, দায়ীদেরকে চিহ্নিত করার প্রয়াস নেয়া হয়েছে । যে কোন ধরনের অপরাধ বা চুরী অপরাধই বটে । সেজন্য হলমার্ক চুরি, ভোট চুরি, ব্যাংক চুরি, শেয়ার চুরদের সাথে তিনবারের প্রধানমন্ত্রীর চুরীর ( কোর্ট প্রমানিত) অপরাধকে এক পাল্রায় মাপা যায়না । প্রধানমন্ত্রীর দায় অনেক বেশী, তিনি সংভাবে দেশ পরিচালনার জন্য সাংবিধানিকভাবে সপথ নিয়েছেন যা হলমার্কের লোকেরা নেয় নাই , তাই এসমস্ত লোকদের সাথে প্রধানমন্ত্রীর অপরাধকে কাতার ভুক্ত করলে সাধারণ কয়েদিদের মতই কারাগারে তার সাজা ভোগ করার কথা । তাই একটি অপরাধের সাথে আর একটি তুলনা করে কৃত অপরাধের বৈধতা দেয়া ঠিক নয় । এর সুফল পরবর্তীতে যে কোন শাসকই নিতে পারে। তাই এধরনের বিষয়গুলি নিয়ে সকলের সচেতনতা প্রয়োজন ।


১৫ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১১:৪৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


আমি অনেকটা শেখ হাসিনার পক্ষে কথা বলি; কিন্তু উনার মাথায় মগজ আছে বলে আমার মনে হয় না; ১ কোটী মানুষ বাহিরে চাকুরী করে সরকারের জন্য ১৮ বিলিয়ন ডলারের হার্ড কারেন্সী যোগাড় করছে; তারা যদি এই হার্ড কারেন্সী যোগান না দেয়, আগামী কাল থেকে তেল কেনা বন্ধ হয়ে যাবে। ব্যুরোক্রেটরা এটা জানে, শেখ হাসিনা এটা জানেন কিনা বুঝার দরকার।

২৫| ১৫ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৯:৪৬

টারজান০০০০৭ বলেছেন: ধুর ! আপনি রাজনীতি বাদ দিয়া অন্যকিছু নিয়ে লেখেন তো ! আপনার খালেদা প্রেম আর ভালো লাগিতেছে না !
কোন রাজনৈতিক নেতা নেত্রীর বিচার, আইনের নিজস্ব গতিতে হইতে দেখিয়াছেন কি ? বাংলাদেশের রাজনীতি এখন মর্গে চলিয়া গেছে , ইহা আর জীবিত হইবে না !

১৫ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১১:৪৭

চাঁদগাজী বলেছেন:


রাজনীতি হলো সেরা জ্ঞান, যা সভ্যতাকে চালু রেখেছে; উহা বাদ দিলে কি থাকবে?

২৬| ১৫ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:০৫

জোকস বলেছেন: ঈদ মোবারক।

১৫ ই জুন, ২০১৮ রাত ১০:১২

চাঁদগাজী বলেছেন:



আপনার জন্য ঈদের শুভেচ্ছা রলো

২৭| ১৬ ই জুন, ২০১৮ রাত ২:২৭

অনল চৌধুরী বলেছেন: অকপটে,মালয়শিয়ার মহাথিরও হাসিনার কাছে অজ্ঞ রাজিনীতিবিদ। খালেদাএবং হাসিনার মধ্যে যোজন যোজন পার্থ্ক্যের একটি হলো হাসিনা প্রচন্ড লোভী এবং সীমাহীন চতুর মহিলা[/sb-হাসিনা খারাপ আর চুন্নি,মদখোর,ধর্মব্যবসায়ী জামাতীদের দেবী মিথ্যাবাদী খালেদা খুব ভালো তাইনা?
ভালোতো হবেই কারণ তার কাছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের শিখা চিরন্তন মানে অগ্নি পূজা অার তার বাড়ির পাশের শিখা অনির্বাণ “গণতন্ত্রের মশাল’’ যে!
সব ভাষ্কর্য তার কাছে হিন্দুদের মূর্তি আর বিএনপি অফিসের ভিতরে জিয়ার মাটির মূর্তি ষ্ট্যাচু অফ লিবার্টি!!
এমনই নিকৃষ্ট অার ধিকৃত এই চুন্নি যে ২ টা লম্পট অার চোর পয়দা করেছে,সুসন্তান না।

১৬ ই জুন, ২০১৮ দুপুর ২:২১

চাঁদগাজী বলেছেন:


বেগম জিয়ার সময়টা জাতির জন্য কষ্ট ও লজ্জাজনক সময়।

২৮| ১৬ ই জুন, ২০১৮ ভোর ৫:২২

সৈয়দ তাজুল বলেছেন:

চাঁদগাজী ভাই
পবিত্র ঈদুল ফিতরের অফুরন্ত শুভেচ্ছা জানবেন।

১৭ ই জুন, ২০১৮ রাত ৮:০০

চাঁদগাজী বলেছেন:


ধন্যবাদ, আপনাকেও ঈদের শুচেচ্ছা জানাচ্ছি

২৯| ১৭ ই জুন, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৫১

সিগন্যাস বলেছেন: ঈদ মোবারক গাজীসাব।কেমন আছেন?

১৭ ই জুন, ২০১৮ রাত ৮:০২

চাঁদগাজী বলেছেন:


ঈদের শুচেচ্ছা নেবেন, আমি ভালো আছি; আপনি ভালো থাকুন।

৩০| ১৮ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১০:৫৩

মেঘনা পাড়ের ছেলে বলেছেন: কথা ভুল বলেননি, দলের বাইরে কোয়ালিটি আইনজীবি কি ছিলো না ? অযোগ্য দলীয় অাইনজীবিরা এই অবস্থার জন্য দায়ী। আর আ.লীগের কি ঠেকা পড়ছে, পুতুপুতু করে খালেদা জিয়াকে বাইরে আনা ? তবে এটা সত্যি এই দেশে আন্দোলন দুর অস্ত। কোন কারনে আ.লীগও যদি বিরোধী দলে যায়, আগের মত আন্দোলন তারাও করে সক্ষম হবে না। মানুষ পুঁজিবাদি সিস্টেমে অলরেডী ঢুকে পড়েছে..............

১৮ ই জুন, ২০১৮ বিকাল ৪:১৩

চাঁদগাজী বলেছেন:


মানুষ দেখেছে যে, রাজনীতি হলো "বিনা পুঁজিতে সম্পদ ও সুযোগ দখলের" যন্ত্র, মানুষ আর বেগম জিয়া, বা শেখ হাসিনার জন্য কোন সহনুভুতি দেখাবে না।

৩১| ১৮ ই জুন, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৩৮

অনল চৌধুরী বলেছেন: বেগম জিয়ার সময়টা জাতির জন্য কষ্ট ও লজ্জাজনক সময়- কার সময়টা গৌরবের?সবই এক।প্রতিযোগিতা চলে কে কার চেয়ে বেশী খারাপ হতে পারে।

১৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ৮:৪১

চাঁদগাজী বলেছেন:



বাংলাদেশের গৌরবের সময় ছিল ১৯৭১ সাল।

৩২| ১৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ৮:২৯

মশিউর বেষ্ট বলেছেন: লজ্জা !

১৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ৮:৪১

চাঁদগাজী বলেছেন:


বেগম জিয়া জাতির জন্য এক ধরণের শাস্তি

৩৩| ১৯ শে জুন, ২০১৮ রাত ৩:২৭

অনল চৌধুরী বলেছেন: বাংলাদেশের গৌরবের সময় ছিল ১৯৭১ সাল -শুধূ বিজয়টা ছিলো গৌরবের,কিন্ত এজন্য লক্ষ লক্ষ প্রাণ অার নারীর সন্মান গেছে।কিন্ত এই বিজয়ও হাতছাড়া হয়েছে কিছুদিনের মধ্যেই ।অার রাজাকার -পাকিস্তানপন্থীদের যতোই দোষ দেয়া হোক না কেননো,মুক্তিযোদ্ধা নামধারীরাই স্বাধীন দেশের রাজনীতি,ব্যবসা-বাণিজ্য,শিল্প-সাহিত্য অার চলচ্চিত্র ধ্বংসে নেতৃত্ব দিয়েছে।
মুক্তিযোদ্ধা নামধারী সোহেল রানা-জসিম চক্র স্বাধীন দেশের চলচ্চিত্র ধ্বংস করেছে হিন্দি ছবির হুবহু নকল অার অশ্লীলতার মাধ্যমে।অন্যান্য ক্ষেত্রগুলিও ধ্বস করেছে মুক্তিযোদ্ধা নামধারীরা।

১৯ শে জুন, ২০১৮ রাত ৩:৫১

চাঁদগাজী বলেছেন:


ইপিআর মুক্তিযোদ্ধাদের বর্ডারে পাঠানো হয়েছিলো, যারা সেনাবাহিনীতে যাওয়ার তারা কেন্টনমেন্টে গেছে; চাষীর ছেলেরা ঘরে ফিরে গেছে; উনারা কিভাবে কি ধ্বংস করলো?

৩৪| ১৯ শে জুন, ২০১৮ সকাল ১০:০১

সিগন্যাস বলেছেন: আপনি নতুন কিছু লিখছেন না কেন?ঈদ নিয়ে তো অনেকেই অনেক কিছু লিখছে।

১৯ শে জুন, ২০১৮ বিকাল ৩:৪৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


আমাখে একটু এদিক সেদিক যেতে হচ্ছে; লিখবো শীঘ্রই।

৩৫| ১৯ শে জুন, ২০১৮ বিকাল ৫:৩২

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: দেশের অবস্থা ভালোনা টাকা পয়সা সব লুট হয়ে যাচ্ছে। হাজার হাজার কোটি টাকা লুট হয়ে যাচ্ছে।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.