নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

কে ত ন

কে ত ন › বিস্তারিত পোস্টঃ

তারেক বাবাজীকে ফাঁসি না দেবার কারণ তাহলে এই...........

১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১১:০৭


২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় তারেক রহমানের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের খবর শুনে প্রথমে আশ্চর্য হয়েছিলাম। পরে ভেবে দেখলাম এতেই লাভ হয়েছে। এখন তাকে দেশে ফিরিয়ে এনে সাজা খাটানোর পথটি অন্তত খুলে গেছে। গতকাল বাংলাদেশ প্রতিদিনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এমন মন্তব্য করেন সংবিধান প্রণেতাদের অন্যতম বিশিষ্ট আইনজীবী ব্যারিস্টার এম আমীর-উল ইসলাম।

তারেক বাবাজী হল আওয়ামী লীগের চোখের কাঁটা, তার প্রতিটি হাসি হুল হয়ে নেতাদের প্রতিটি স্নায়ু কোষে বেদনার উদ্রেক করে। এহেন ব্যক্তিকে আইনের আওতায় আনার পরও এবং আদালত, বিচারক পরিস্থিতি সব কিছুই হাতের মুঠোর মধ্যে থাকার পরেও কেন বেচারাকে ফাঁসি দেয়া হলনা - জাতির বিবেক তা জানতে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছিল। ব্যারিস্টার আমীর তাঁদের কৌতূহল মিটিয়েছেন বলা চলে।

ফাঁসি দিয়ে দিলে হয়তোবা তারেক বাবাজী ব্রিটেন ছেড়ে কানাডায় আস্তানা গাড়তেন, তাতে কানাডার মানবতা আইনের ফাঁদে পড়ে আওয়ামী লীগকে চোখের পানি নাকের পানি এক করে কাঁদতে হত। যেমন ফাঁদে পড়েছে বঙ্গবন্ধুর খুনী নূর চৌধুরীকে দেশে ফেরানো নিয়ে। এবার যাবজ্জীবন দিয়ে রাখল। কেউ যাতে আর মানবতার সাফাই গাইবার সুযোগ না পায়। ফেরারি হিসেবে ওকে আগে দেশে আনো, তারপর অন্য মামলায় ফাঁসি কেন, রাগের জ্বালা না মিটলে প্রয়োজনে কুত্তা দিয়ে কামড়ে কামড়ে শরীরের মাংস খুলে নেয়া যাবে মনের শান্তির জন্য।

তবে দুঃখের কথা এই যে, আদালতের রায় এখন আর অন্যায়ের গুরুত্ব বুঝে হয়না, হয় পরিবেশ পরিস্থিতি আর সরকারের সুবিধা অসুবিধার গুরুত্ব বুঝে।

মন্তব্য ৩৫ টি রেটিং +৩/-০

মন্তব্য (৩৫) মন্তব্য লিখুন

১| ১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১১:১৮

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: এসব বলতে নাই আদালতের উপর আস্থা রাখুন।

২| ১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১১:২৪

স্রাঞ্জি সে বলেছেন:
সবখানে মগেরমুল্লুকের জীবাণু ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে...... :-<

৩| ১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১১:৩৪

কাওসার চৌধুরী বলেছেন:



আদালতের ভাষ্যমতে 'তারেক রহমান' ন্যক্কারজনক ২১শে আগস্টের মূল হোতা। তাহলে অবধারিতভাবে প্রশ্ন আসে প্রধান আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়ে অপেক্ষাকৃত কম দোষী বাকি ১৯ জনকে মৃত্যুদন্ড দেওয়ার বিধানটি কতটুকু যুক্তিসঙ্গত? রায়টি কি নিরপেক্ষ হলো? নাকি এখানেও তারেককে ঝুলিয়ে রেখে রাজনৈতিক কোন ফায়দা নেওয়ার চেষ্টা !?!

তাহলে তারেক রহমানকে ফাঁসির কাষ্ঠে না ঝোলানোর এটাই মূল রহস্য!! 'সিনহা সাহেব' বিচারকদের আত্মমর্যাদাবোধ নিয়ে এজন্যই এত কথা বলেছেন। তিনারা এখন স্যাটেলাইটের ইশারায় রায় লিখেন।

৪| ১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১১:৫১

মেহেদী হাসান হাসিব বলেছেন: তাদের মগজে মগজে কূটবুদ্ধি

৫| ১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ দুপুর ১২:২৫

আবু হাসান লাবলু বলেছেন: কিছু বলেন না ভাই উনারা গুনিজন। আমরাতো শুধু মুখ বন্ধ করে দেখা স্বাধীনতা পাইছি।

৬| ১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ দুপুর ১২:৪৮

সাইন বোর্ড বলেছেন: সব সত্য বলতে নেই ।

৭| ১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ দুপুর ২:৪৮

কে ত ন বলেছেন: সবাই আমার সাথে তাল দিচ্ছেন কেন? দু'একজন আমাকে পেরেক মারুন - তবে না আলোচনা জমবে!

৮| ১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৩:২২

রাজীব নুর বলেছেন: মন্তব্য করে বিপদে পড়তে চাই না।

১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৩:২৭

কে ত ন বলেছেন: আপনি এই ব্লগে ঢুকেই তো নিজের বিপদ ডেকে এনেছেন। এখন আদালত আমার বিরুদ্ধে চার্জ আনলে আমি তো প্রথমে আপনাকেই ফাঁসাবো।

৯| ১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:১৪

রাকু হাসান বলেছেন:


ভেতরের খবর জানালেন । শেষ লাইনগুলো মনে হয় খুব ইন্টারেস্টি ং ।
একটি কথা বলি মনে কিছু নিবেন না ,আশা করি ।
উপরে এতগুলো মন্তব্য রেখে নিচে মন্তব্য করাটা সহব্লগারা স্বাভাবিকভাবে নিবে না । আপনার প্রতি নেতিবাচক ধারণা সৃষ্টি হবে । উপরে খুব গঠনমূলক মন্তব্যও ছিল । ক্রমানুসারে দেওয়াটা ব্যক্তিগতভাবে ইতিবাচক হিসাবে নিই । এর পর আপনি নতুন ব্লগার ।
আন্তরিকতা থেকে বললাম ভাই । কি করবেন বা করবেন না সেটা একান্ত ব্যক্তিগত ব্যাপার আপনার ।
শুভকামনা ।

১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৩০

কে ত ন বলেছেন: নতুন ব্লগার হিসেবে পুরনোদের কাছে অনেক কিছু শেখার আছে, ভাই। আপনার এই উপদেশ আমি ভবিষ্যতে কাজে লাগাব। তবে ৭ নং মন্তব্যে আমি সবার মন্তব্যের জবাব একসাথে দিয়েছি, কেউ বোধ হয় সেটি আমার মন্তব্য বলে আলাদা করতে পারেনি। যাই হোক, যাদের মনে সামান্য কষ্ট দিয়েছি, তারা যেন নতুন ব্লগার হিসেবে আমার এই অপরাধ ক্ষমাসুন্দর চোখে দেখে - তাহলে আমি শান্তি পাব।

তবে আপনাকে একটা প্রশ্নঃ এই ব্লগে আমি এমন কি লিখেছি, যে কারণে এটি আজকের সর্বাধিক পঠিত ব্লগের তালিকায় এল? মানুষের কি খেয়ে দেয়ে কাজ নেই এত ফাটাফাটি ব্লগার থাকতে একজন ফালতু ব্লগারের ব্লগে ঠোকা মারে?

১০| ১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ৮:২০

রাকু হাসান বলেছেন:

আপনার আন্তরিক উত্তর ভালো লাগছে ।
নিজেরে এভাবে ভাবছেন কেন ! আপনার পোস্টের বিষয়টা সাম্প্রতিক । ট্রেন্ডিংয়ে আছে েএই টপিকটা । যাতে মানুষজনের আগ্রহ অনেক । থাকার কথাই । তাই ক্লিক করা আমার ধারণা।

১১| ১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ৮:৪৫

এস এম ইসমাঈল বলেছেন: আচ্ছা বুঝলাম,তারেকের না হয় ফাঁসি না হয়ে যাবজ্জীবন হল, তাতে আমার মত আম জনতার কী লাভ হলো? কথা ছিল, ১০ টাকা কেজি দরে চাল পাওয়া যাবে। এ ওয়াদা সত্য হবে ভেবেই আমার মত কম আয় আর স্বল্প বুদ্ধির লোকজন ভোট দিয়েছিলাম। থাক ভাই, বেশি কথা বলে আর বিপদ বাড়াতে চাই না। একটা প্রাণবন্ত অালোচনার জন্য সবাইকে অনেক ধন্যবাদ।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ৯:৪৩

কে ত ন বলেছেন: সমস্যা রাজার সাথে রাজার। এখানে আম জনতার প্রসঙ্গ কেন আসছে ভাই? আম জনতা কেবল রাজাদের খেদমতের (ভোটের) জন্য। তবে ১০টাকা চালের কথা যারা বিশ্বাস করেছিল, এরকম স্বল্পবুদ্ধির মানুষের আধিক্যের জন্যই আওয়ামী লীগ সরকার এখনও টিকে আছে।

১২| ১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ৮:৫৩

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: তারেকের ফাঁসি হলে খালেদারও ফাঁসি হতে হবে। কারণ, তারেকের এত বড় প্ল্যান খালেদা জিয়া, মওদুদ, সাকা চৌধুরী, খন্দকার দেলোয়ারদের অজানা থাকার কথা নয়। সবচেয়ে বড় কথা, তারেক তার মায়ের প্রতি অবিচল ছিল...

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ৯:৪৫

কে ত ন বলেছেন: অবশ্যই না। খালেদা তো কয়েকদিন পর এমনিতেই মরবে - বেচারাকে ফাঁসি দিয়ে বরং মানুষের দুর্নাম কামানো হবে। দেইল্লা রাজাকার আর গোলাম আজমকে কেন ফাঁসি না দিয়ে মীর কাশেম আর কামারুজ্জামানকে দিল - তার পেছনের মনস্তত্ত্ব জানতে হবে ব্রাদার!

তারেক বেঁচে থাকলে আওয়ামী লীগারদের রাতে ঘুম হবেনা। আসল ঝামেলা ঐটাই।

১৩| ১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ৯:৩৭

স্বপ্নের শঙ্খচিল বলেছেন: আপনার পোস্টের বিষয়টা সাম্প্রতিক
...............................................................................
আমি কোন ফাঁসির পক্ষে নই,
তবে সুষ্ঠ বিচারের ক্ষেত্রে,
দৃষ্টান্তমূলক সাজা হওয়া উচিৎ ।

১৪| ১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ১০:০৪

শাহারিয়ার ইমন বলেছেন: একেই বলে রাজনীতি !

১৫| ১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ১০:৪২

কলাবাগান১ বলেছেন: কাওসার চৌধুরীর মত ব্লগাররা যারা ৩০ লাখ শহীদের সংখ্যা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করে, তারা তো স্যাটেলাইট নিয়ে টিটকারী দেবেই ....উনারা আশায় আছেন কবে আবার রাজাকারদের গাড়ীতে রক্তস্নাত পতাকা তোলা যায়...গ্রেনেড মেরে ২৯ জন কে মেরে ফেলল সেটা তো কোন সহানুভুতি নাই ..মন্তব্য দেখলে বুঝি যে এতে উনারা খুশী ই একটু মন খারাপ শেখ হাসিনা বেচে যাওয়াতে....
পারলে উনারা ১৯৭১ এর রাজাকার দের মত হাসিনা কে খুন করতে ও দ্বিধা করবেন না.... উনার উচিত পাকি বন্দনা করে একটা পোস্ট দেওয়া

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ৯:৫৭

কে ত ন বলেছেন: আপনার মন্তব্যে একমত হতে পারছিনা ভাইডি! গ্রেনেড হামলা হওয়াতে আমার মনে হয়না ১% বিএনপি সাপোর্টারও খুশী হয়েছে। আমার আশেপাশে বিএনপি সাপোর্টার খুব কম। আমি আওয়ামী লীগ এলাকার মানুষ। জন্মের পর থেকেই পরিবারের সকলকে সহ আত্নীয় স্বজনের মধ্যে আওয়ামী লীগের আনুগত্য দেখে দেখেই বড় হয়েছি। তবে যে কয়েকজন বিএনপি সাপোর্টাণারের সাথে আমার পরিচয় হয়েছে, তারা সবাই ২০০৪ সালে এই গ্রেনেড হামলার সময় যার পর নাই বিরক্ত ও আতঙ্কিত হয়েছে। প্রথমে তাদের ধারণা হয়েছে এটা ভারতের একটা চাল। ডুবে যাওয়া নৌকাকে তীরে ভেড়াতে এরকম একটা শক দেয়া জরুরী ছিল।

এই ধারণা আরও শক্ত হয়, যখন বিএনপি সরকার ঘটনার নিরপেক্ষ তদন্তে বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটিকে আওয়ামী লীগের নেতারা সম্পূর্ণ উপেক্ষা করে। তাদের ভাবভঙ্গি ছিল এরকম যে, কয়েকদিন পরে তো আমরাই ক্ষমতায় আসছি, তখন আমাদের মত করেই তদন্ত করে বের করব এর পেছনে কারা কারা আছে!

এই ব্লগের একজন পুরনো ব্লগার হিসেবে আমি আপনাকে শ্রদ্ধা করি। সেই দাবী থেকে অনুরোধ করছি, প্লীজ অন্য ব্লগারকে আক্রমণ করে কোন মন্তব্য করবেন না। মানুষের মনে কষ্ট দেয়ার মত পাপ আর নেই। ধন্যবাদ আপনার মূল্যবান মতামতের জন্য।

১৬| ১২ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ৩:১৫

কলাবাগান১ বলেছেন: বিএনপির হাত

১৭| ১২ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ৭:৩৬

রাশেদ রায়হান বলেছেন: সমস্যা হল আমরা কেউই নিরপেক্ষ নই। ছাতা ধরা পার্টি।

১৮| ১২ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ৮:০৪

ঢাবিয়ান বলেছেন: তারেক রহমান তার শাষনামলে পাহাড়সম দুর্নীতি, খুন খারাপি ইত্যাদি হাজার অপরাধ করেছে।তারপরেও সে লন্ডনে পলিটিকাল এসাইলাম পেয়েছে।কেন পেয়েছে? গত দশ বছরে সরকার তারকে রহমানকে আনার বহু চেষ্টাই করেছে। তারপরেও তাকে ফিরিয়ে আনতে সমর্থ হয়নি। কেন হয়নি ? এইসব কেনর একটাই উত্তর। বাংলাদেশের বিচার বিভাগ প্রশ্নবিদ্ধ। আদালতের সব রায় ফরমায়েশি রায়। সরকার একদিকে ফাশির আসামীকে ক্ষমা করে দিচ্ছে আবার যাকে ইচ্ছা ঝুলিয়ে দিচ্ছে। তারেক রহমান সফলভাবে ব্রিটিশ সরকারকে বোঝাতে সক্ষম হয়েছে যে বাংলাদেশে ফেরত গেলে তিনি সুবিচার পাবে না ।এই কারনেই তাকে যুক্তরাজ্যে আশ্রয় এবং স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুমতি দেয়া হয়েছে।

সরকারের তথ্য উপদেষ্টা রেড এলার্ট জারী করে তারেক রহমানকে ফিরিয়ে আনার উপদেশ দিয়েছে। তবে ইংল্যন্ডের এক আইনজীবি বলেছেন বাংলাদেশ কোনোভাবেই তাকে ফেরত পাবে না।

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১০:০৫

কে ত ন বলেছেন: কিন্তু তারেক যেসব অপরাধ করেছে, সেগুলোর কোন বিচার হবেনা? এ ব্যাপারে ব্রিটেনের বক্তব্য কি? বিএনপি ক্ষমতায় গেলে যে বিচার হবেনা - সে কথা তো একটা বলীর পাঁঠাও জানে। বিচারের ব্যাপারে আপত্তি থাকলে সাজেশন দিতে পারে যে বিচার ব্যবস্থায় এরকম এরকম ত্রুটি আছে। এগুলো সংশোধন কর, তারপর ব্যবস্থা হবে। আমাদের বিচার ব্যবস্থা নিয়ে ব্রিটেন কোন সংশয়ের ব্যাপার কি জানিয়েছে?

তবে তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলে তার উপরে যে টর্চার হয়েছে, তাতে তার পাপ কিছুটা মোচন হয়েছে বলে আমি মনে করি। ভবিষ্যতে ক্ষমতায় এলে মামার হাতে সেই মারের কথা নিশ্চয়ই মনে পড়বে।

১৯| ১২ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১১:০১

পাঠকের প্রতিক্রিয়া ! বলেছেন: আমাদের প্রশাসন ও বিচার বিভাগ এখনও সরকারী দলের লেজুরবৃত্তি ছাড়তে পারল না। আগেও, এখনও। :(

২০| ১২ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১১:২৩

অরুপম বলেছেন: রাজনীতির মারপ্যাচ দিয়ে আরও কতকিছু যে হতে বাকি আছে। বিচার বিভাগ নয় শুধু, দেশের ঠিক কোন জায়গাটি নিরপেক্ষ তা কেউ জানে বলে মনে হয় না ।

২১| ১২ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১১:৩৬

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: বিচার বিভাগ স্বাধীন না হলে, সরকার পরিবর্তিত হওয়ার সাথে সাথে নতুন করে বিচারকার্যও শুরু হবে। সিনহা সাহেব সফল হলে এই সমস্যার টেকসই একটা সমাধান আসতো।

২২| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ২:২০

অনল চৌধুরী বলেছেন: তারেক কি সাধু নাকি?
হাওয়া ভবনের স্রষ্টা,চোর,দুর্নীবিাজ,বিদেশে টাকা পাচারকারী,লম্পট সর্বোপরি ২১ অাগষ্ট গ্রেনেড হামলা অার ২০১৩-১৪ তে পেট্রল বোমা মেরে হাজার হাজার মানুষ পুড়িয়ে হতাহতকারী।
এগুলি কি মিথ্যা?

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১০:০৮

কে ত ন বলেছেন: সত্য মিথ্যা আল্লাহ জানেন। আমরা জানি, অপরাধীর শাস্তি হওয়া জরুরি। ফাঁসির মত অপরাধ আদালতে প্রমাণ হবার পরেও তারেকের যাবজ্জীবন দেওয়া অথচ হুকুমের আসামীদেরকে গণহারে ফাঁসি দেয়া এই রায় নিয়ে সংশয়ের সৃষ্টি করেছে।

২৩| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৮ ভোর ৪:২২

বাকপ্রবাস বলেছেন: সার্বভৌমত্ব টিকে থাকলেই অকে, কারে কে মারল ধরল সেটা নিয়ে আর চিন্তা করিনা

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১০:১২

কে ত ন বলেছেন: জ্বী না। সার্বভৌমত্বও এখন পানির দামে বিক্রি হয়। আপনি বিশ্বাস করবেন কিনা জানিনা, ভারত সরকার যদি দেখে বাংলাদেশের ক্ষমতায় বিএনপিকে বসালে তাদের লাভ, তবে আওয়ামী লীগকে লাথি মেরে ফেলে দিতে তাদের দুই দিনও সময় লাগবেনা। তবে আওয়ামী লীগ প্রাণপণ চেষ্টা করছে সেরকম কিছু যাতে না হয়।

২৪| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৮ ভোর ৫:৫২

স্বামী বিশুদ্ধানন্দ বলেছেন: ক্ষমতাসীনরা এতো বেকুব না | এরা খুব ভালোভাবেই জানে কোনোদিন ক্ষমতা হারালে তারাও নানান বিচারের প্যাচে ফেঁসে যাবে | বাবর, রাজ্জাকুলের মতো চুনোপুটিগুলোকে ফাঁসিতে ঝুলালেও ভবিষ্যতে জনগণ এদের কথা বেমালুম ভুলে যাবে, এমনকি ডাই-হার্ড বিএনপি সমর্থকরাও | কিন্তু তারেক জিয়াকে ফাঁসির দণ্ডাদেশ দিয়ে নিজেরা ভবিষ্যতে একই ধরণের শাস্তির রিস্ক নেয় নাই | তাছাড়া মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত তারেকের ইমেজ যাবজ্জীবনপ্রাপ্ত আসামির চেয়ে অনেক বেশি হতো যা ক্ষমতাসীনরা চায় নাই | একেই বলে 'জাতে মাতাল তালে ঠিক ' |

১৩ ই অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ১০:১৫

কে ত ন বলেছেন: বিএনপির মত বেকুবেরা চিরকালই বেকুব। ক্ষমতায় থাকলেও বেকুব, না থাকলেও বেকুব। তবে আওয়ামী লীগের কথা আলাদা। যখনি কোন সমস্যায় পড়ে, তখনই হয় মতিয়া চৌধুরী দাদাদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে ওপারে চলে যায় অথবা সুষমা স্বরাজ গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক সফরে এদেশে চলে আসে। এই সফর বিনিময় করার পর সব ঠাণ্ডা।

২৫| ১৩ ই অক্টোবর, ২০১৮ দুপুর ১২:০২

এস এম ইসমাঈল বলেছেন: আমাকে বোকা ভেবোনা, তোমরা চালাক সেজো না, আ-লীগ ক্ষমতা হারাবে না, আর বিএনপি কিছুই করতে পারবে না?
সরি ডিয়ার, ইটস এ ফুলস প্রপোজিশন। হা হা হা, ইটস নট দেট মাচ ইজি। থ্যাঙ্কস এ লট।

২৬| ১৪ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ২:২৯

অনল চৌধুরী বলেছেন: সার্বভৌমত্ব টিকে থাকলেই অকে, কারে কে মারল ধরল সেটা নিয়ে আর চিন্তা করিনা -পৃথিবীর কয়টা দেশ প্রকৃত সার্বভৌম?

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.