নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

pramanik99

আমার স্কুল জীবনের স্মৃতিগুলো বার বার মনে পড়ে। ফিরে যেতে ইচ্ছে করে সেই দিনগুলোতে।

প্রামানিক

শহীদুল ইসলাম প্রামানিক

প্রামানিক › বিস্তারিত পোস্টঃ

শীত সকালে কড়কড়া ভাত

০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ বিকাল ৫:৪১


শহীদুল ইসলাম প্রমানিক

শীত সকালে আমন ধানের
কড়কড়া ভাত পাতে
দেশি পিয়াজ, রসুন পাতা
টুকরো করে তাতে

পোড়া মরিচ অল্প লবন
সাথে সরষের ফুল
এক সাথ করে দিবে ডলা
করবে নাকে ভুল।

ঠান্ডা ভাতের দলাগুলো
মাখিয়ে নিয়ে তাতে
রোদের উল্টো দওয়ায় বসে
খাবে নিজের হাতে।

দেখবে তখন কড়কড়া ভাত
হায়রে কি যে মজা!
দুত্তুরি ছাই পোলাও কোরমা
কিসের খাজা-গজা?

তার সাথে ভাই একটু যদি
থাকে গাওয়া ঘি
দামী খাবার এর সাথে আর
পাত্তা পাবে কি?

মন্তব্য ৮২ টি রেটিং +১২/-০

মন্তব্য (৮২) মন্তব্য লিখুন

১| ০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ বিকাল ৫:৪৫

রাজীব নুর বলেছেন: আপনার কবিতা পড়ে এখন আমার আমন ধানের ভাত খেতে ইচ্ছা করছে। সাথে পেঁয়াজ, মরিচ, লবন আর ঘি। আহ !!!

০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৩২

প্রামানিক বলেছেন: আমারো খেতে মন চাচ্ছে ভাই কিন্তু খাঁটি আমন ধানের ভাতই পাচ্ছি না। ধন্যবাধ

২| ০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ বিকাল ৫:৫১

নূর মোহাম্মদ নূরু বলেছেন:
আহা !!
দারুন রসনা বিলাস!!
ইট কাঠের শহরে কোথায়
পাবেন আমন ধানের ভাত?
সবই তো এখন মিনিকেট

০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৩৫

প্রামানিক বলেছেন: দারুন রসনা বিলাস!!
ইট কাঠের শহরে কোথায়
পাবেন আমন ধানের ভাত?


এখানেই তো কবি নিরব। ধন্যবাদ ভাই

৩| ০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:০২

আটলান্টিক বলেছেন: ঠান্ডা ভাতের দলাগুলো
মাখিয়ে নিয়ে তাতে
রোদের উল্টো দওয়ায় বসে
খাবে নিজের হাতে।

ভাই আপনার প্রতিটি কবিতায় ভাত থাকে ঠান্ডা কেন?

০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৩৬

প্রামানিক বলেছেন: গরম ভাতে বিলাই বেজার তাই ঠান্ডা ভাতের দরকার হয়। ধন্যবাদ আপনাকে।

৪| ০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:০৬

আরাফআহনাফ বলেছেন: কী লোভ দেখালেন !! !!
এখন কই পাই - আমনের ভাত ??! ! ! !

০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৩৯

প্রামানিক বলেছেন: আমনের ভাত এখন অপর্যাপ্ত হওয়াতেই স্বাদ বেরেছে। ধন্যবাদ আপনাকে।

৫| ০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৩৪

কঙ্কাবতী রাজকন্যা বলেছেন: আমনের ভাত ছাড়া আর কোনো চালের ভাতে কি এই মজা পাওয়া যায় না?

তবে কবিতায় মজা অনেক অনেক।

০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৪১

প্রামানিক বলেছেন: আমন ধানের নতুন চালের ভাতের মত অন্য ভাতে স্বাদ হবে না। ধন্যবাদ আপনাকে।

৬| ০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৪৯

মলাসইলমুইনা বলেছেন: প্রামানিক ভাই, আহা কি স্মৃতি উস্কে দিলেন !

০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৪৪

প্রামানিক বলেছেন: এখন আমিও কড়কড়া ভাত পাই না সেই জন্য স্মৃতি স্বরুপ আমাকেও কবিতা লিখতে হলো। ধন্যবাদ আপনাকে।

৭| ০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:০০

নাঈম জাহাঙ্গীর নয়ন বলেছেন: দামী খাবার তুচ্ছ তখন, আমি অনেক খেয়েছি কড়কড়া ভাত কষ্টার্জিত রোদ-আসনে বসে! এখনও অনুভব করি, আহ! রোদে জায়গা ধরে রাখতে সকাল সকাল পিঁড়ি পাতার সেকি প্রতিযোগিতা!!

দারুণ লিখেছেন কবিবর।

০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৪৮

প্রামানিক বলেছেন: ভাই কি আর বলবো আমরা যারা গ্রামে বড় হয়েছি আমাদের জন্য সকালের রোদ আর কড়কড়া ভাত বড় দামী ছিল। আপনার স্মৃতিচারণ খুব ভালো লাগল। ধন্যবাদ

৮| ০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:১৪

চাঁদগাজী বলেছেন:


ঠান্ডাভাতে ঘি? ঘি বোধ হয় ফরম ভাতেই ভালো!

০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৪৯

প্রামানিক বলেছেন: আপনার কথাও ঠিক আছে। ধন্যবাদ আপনাকে।

৯| ০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৪৮

কথাকথিকেথিকথন বলেছেন:



হা হা ! খেতে মন চাইছে আপনার ছড়া পড়ে !

০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৫০

প্রামানিক বলেছেন: চেষ্টা করলেই খেতে পারবেন। ধন্যবাদ আপনাকে।

১০| ০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ৮:০২

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: অসাধারণ, এখনি খেতে ইচ্ছে করছে।

০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৫১

প্রামানিক বলেছেন: চলে আসেন আমার গ্রামের বাড়ি। ধন্যবাদ আপনাকে।

১১| ০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ৮:০৭

সাদা মনের মানুষ বলেছেন:

০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৫৩

প্রামানিক বলেছেন: শীতের মধ্যে চা দিয়া ভালই করছেন। ধন্যবাদ আপনাকে।

১২| ০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ৮:১০

শাহানাজ সুলতানা অধরা বলেছেন: কেমন আছেন শহীদুল ভাই?

০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৫৪

প্রামানিক বলেছেন: ভালো আছি, আপনি কেমন আছেন?

১৩| ০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ৮:১১

সম্রাট ইজ বেস্ট বলেছেন: কিসের মধ্যে কী, ঠান্ডা ভাতে ঘি?
মজা করলাম ভাই। আপনার বর্ণনা দেখে খেতে মন চাইছে।

০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৫৬

প্রামানিক বলেছেন: কিসের মধ্যে কী, ঠান্ডা ভাতে ঘি
হা হা ভাতের মতই মজা।

১৪| ০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ৮:১১

সুমন কর বলেছেন: ভালো হয়েছে।

০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৫৭

প্রামানিক বলেছেন: মন্তব্য করার জন্য ধন্যবাদ আপনাকে।

১৫| ০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ৮:২৫

জুন বলেছেন: ট্রাইগ্লিসারাইড বেশি থাকায় ডাক্তার ভাত খেতে বলতে গেলে নিষেধই করেছে প্রামানিক ভাই। আপনার বর্ননার মত ভাত খেতে ইচ্ছে করছে ভীষন তবে ঘি বাদ দিয়ে :)
সুন্দর ছড়ায় অনেক ভালোলাগা।
+

০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১১:০০

প্রামানিক বলেছেন: জুন আপা, ঘি ছাড়াও চলবে, তবে কলুর ঘাইনে ভাঙানো খাঁটি সরিষার তেল লাগবে। মন্তব্য করার জন্য ধন্যবাদ আপনাকে।

১৬| ০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ৯:৩৬

সোহানী বলেছেন: যতই লোভ দেখান আমি নাই ওর মধ্যে কারন কাচাঁ পেয়াজ রসুনের গন্ধই সহ্য করতে পারি না। এই দুইটা ছাড়া শুধু ঘি দিয়ে খাওয়া যাবে কি? এবার বলেন আমন ধান কোথায় পামু? লোভ দেখায়ে দিলেন কিন্তু তার পথ দেখালেন না, সেটাতো হতে পারে না... ;)

০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১১:০৪

প্রামানিক বলেছেন: লবন, মরিচ, পেয়াজ আর রসুনের পাতা একত্রে ডলা দিলেই আর গন্ধ থাকে না অন্যরকম স্বাদ তৈরী হয়। মন্তব্য করার জন্য ধন্যবাদ আপনাকে।

১৭| ০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:০৬

শাহরিয়ার কবীর বলেছেন: সবসময় আমি কড়কড়া ভাতের ভীষণ ভক্ত ভাই।


ছড়া ভালো লাগলো++

০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১১:০৫

প্রামানিক বলেছেন: যাক একজন কড়কড়ার ভালো ভক্ত পাওয়া গেল। মন্তব্য করার জন্য ধন্যবাদ আপনাকে।

১৮| ০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৩৭

ধ্রুবক আলো বলেছেন: ভাই সত্যিই, কড়কড়া এই ভাতের মত স্বাদ আর হয় না...

০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১১:০৭

প্রামানিক বলেছেন: যারা ছোট থাকতে কড়কড়া ভাত খেয়েছে তাদের কাছে মজার খাবারই বটে। মন্তব্য করার জন্য ধন্যবাদ আপনাকে।

১৯| ০৭ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১১:৩৫

শাহিন-৯৯ বলেছেন: যশোহর এলাকায় এই খাবার খুব জনপ্রিয়।

০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:২৪

প্রামানিক বলেছেন: আগে বাংলাদেশের সব এলাকাতেই এই খাবার খাওয়া হতো। এখন নাই বললেই চলে। ধন্যবাদ মন্তব্য করার জন্য।

২০| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১:২৫

সচেতনহ্যাপী বলেছেন: ঠান্ডাভাতে ঘি না দিয়ে যদি পানি দেয়া হয়, তাহলে কেমন হবে? আপনার ছড়ার বর্ননায় এটারই অভাব অনুভব করছি।।

০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:২৬

প্রামানিক বলেছেন: এ খাবারটা শীতকালের, শীতকালে ঠান্ডা ভাতে পানি দিলে ঠান্ডার চোটে খাওয়াই যাবে না। ধন্যবাদ আপনার মন্তব্য জন্য।

২১| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১:৫৩

নূর-ই-হাফসা বলেছেন: যদিও ভাত ভালো লাগে না । তবে কবিতা টা দারুন লাগলো ।

০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:২৭

প্রামানিক বলেছেন: ভাত ভালো লাগে না কারণ কি বোন, আপনি কি বাঙালি নন? মন্তব্য করার জন্য ধন্যবাদ।

২২| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ সকাল ৭:৫০

ওমেরা বলেছেন: কখনো খাইনি , সব কিছু গুছিয়ে একদিন খেয়ে দেখব কেমন টেষ্ট লাগে ! ধন্যবাদ ভাইয়া ।

০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:২৮

প্রামানিক বলেছেন: খেতে গেলে শীতকালে রাতের ভাত সকালে খেতে হবে। ধন্যবাদ

২৩| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ সকাল ৮:৩৯

মোস্তফা সোহেল বলেছেন: কতদিন কড়কড়া ভাত খায়নি!
মায়ের হাতে ভাত মাখানো আহা কি যে মজা লাগত।
ছড়ায় প্লাস।
ভাল থাকুন প্রামানিক ভাই।

০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১১:০৭

প্রামানিক বলেছেন: আপনার স্মৃতিচারণমূলক মন্তব্যর জন্য ধন্যবাদ।

২৪| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ সকাল ৯:৪৪

আজিজার বলেছেন: যারা শহরে থাকে তারা তো এই মজা পাবে না। বাড়ী গেলেই সকালে মাকে বলি ভাত মেখে দাও

০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১১:০৮

প্রামানিক বলেছেন: ঠিকই বলেছেন ভাই, এটা গ্রামের পেটের ভোগের খাবার হলেও এখন মজাদার খাবার। ধন্যবাদ মন্তব্য করার জন্য।

২৫| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ সকাল ১১:৩২

আমি চির-দুরন্ত বলেছেন: আমরা পাটি বিছিয়ে রাখতাম রোদে।তারপর ভাতের থালাটা নিয়ে দৌড়ে গিয়ে সেই পাটিতে বসে কাপতে কাপতে খেতে আসলেই মজা ছিল। তাও ৭ টার দিকেই।। এখনো দেশে গেলে আমন চালের ভাত খাই কিন্তু রোদে বসার সুযোগ হয় না।।

০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১১:১১

প্রামানিক বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকে স্মৃতিচারণমূলক মন্তব্য করার জন্য। শুভেচ্ছা রইল।

২৬| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ দুপুর ১২:০৪

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আহারে সকালের মিস্টি রোদে, শুকাতে দেখা খড়ের উপর বসে কত খেয়েছি।

০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১১:১৩

প্রামানিক বলেছেন: ঠিকই বলেছেন লিটন ভাই, এখন আগের মত খড়ও নাই রোদের সকালে সেই মজাও নাই। ধন্যবাদ

২৭| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ দুপুর ১২:৩৩

তারেক ফাহিম বলেছেন: আহ্ পুরোনো স্মৃতি মনে করিয়ে দিলেন।

ছোট বেলায় খেয়েছি।
উঠোনে বসে।

০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১১:১৪

প্রামানিক বলেছেন: ধন্যবাদ ভাই, স্মৃতিচারণমূলক মন্তব্য করায় খুশি হলাম।

২৮| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ দুপুর ১:৪৭

জাহিদ অনিক বলেছেন:
আসলে ভাত তো প্রতিদিনই খাই তাই সেটার প্রতি তেমন আগ্রহ থাকে না। তবে আপনার ছড়া পড়ে পান্তা ভাতের প্রতি আবার ভালোলাগা অনুভব করছি। কতদিন পান্তা খাই না

০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১১:১৬

প্রামানিক বলেছেন: তবে এটা পান্তা ভাত নয় শুকনা বাসি ভাত। মন্তব্য করার জন্য ধন্যবাদ।

২৯| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ দুপুর ২:১২

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন: একসময় কড়কড়া ভাত গ্রাম বাংলার প্রতিটা ঘরে প্রতিদিন খাওয়া হতো। এখন বিভিন্ন রকম নাস্তা খায় মানুষ। তবে শীতে একবার কড়কড়া ভাত ও সাথে বাসি দরকারী না খেতে পারলে আফসুস থেকে যায়।

অতীত স্মৃতি মনে পড়ে গেল কবিতা পাঠে।

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১২:৩৬

প্রামানিক বলেছেন: ধন্যবাদ ভাই, স্মৃতিচারণমূলক মন্তব্য করায় শুভ্চেছা রইল।

৩০| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ দুপুর ২:৫৮

শাহাদাৎ হোসাইন (সত্যের ছায়া) বলেছেন: ভাত এমন এক জিনিষ যা আমরা প্রতিনিয়ত খাচ্ছি কিন্তু মুখে অরুচি আসছে না। আপনি কবিতায় যা ফুটে উঠেছে তাহলো গ্রামীণ জীবনের অনুসঙ্গ।।

পোষ্টে A+

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১২:৩৭

প্রামানিক বলেছেন: ঠিকই বলেছেন ভাই, গ্রামীন জীবনের কিছু হারানো দৃশ্য তুলে ধরার চেষ্টা করছি। ধন্যবাদ

৩১| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ বিকাল ৪:৩৪

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: ভাল লাগল

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১২:৩৭

প্রামানিক বলেছেন: ধন্যবাদ বোন, অনেক অনেক শুভেচ্ছা রইল।

৩২| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ বিকাল ৫:৩৩

তারেক মাহমু৩২৮ বলেছেন: আমন ধানের চালের ফেনা ভাত সাথে আলু ভর্তা পোড়া বেগুনের ভর্তার ও তুলনা হয় না।

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১২:৪০

প্রামানিক বলেছেন: আপনি ভাই মুখের রুচি আরো বাড়িয়ে দিলেন, ফেনা ভাত আর আলু বেগুন পোড়া ভর্তার তুলনাই হয় না। যার মুখের রুচি নাই সেও দুই প্লেট অনায়াসেই খাবে। ধন্যবাদ

৩৩| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:১৪

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: আমাদের এলাকায় আরেকটা ধান ছিল যার নাম পরাঙ্গী ধান। কালো রঙ্গের এই ধানটি কে আমি খুব মিস করি।

তার যে কি স্বাদ। আহা।

ছড়া অনেক ভালো লাগলো।

০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১১:১০

প্রামানিক বলেছেন: কালো ধানের পান্তা খেতে খুবই মজা। ধন্যবাদ আপনাকে মন্তব্য করার জন্য।

৩৪| ০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ৮:১৬

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: কবে নিয়া যাইবেন সেটা বলেন ভাই

০৮ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১১:০৯

প্রামানিক বলেছেন: আপনার যেদিন মন চায়। ধন্যবাদ আপনাকে যে আপনি আসতে চেয়েছেন।

৩৫| ০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১২:৪৯

মনিরা সুলতানা বলেছেন: আরেয় বাহ!!!
আমি উত্তর বংগে এমন দেখেছি .....

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১:০২

প্রামানিক বলেছেন: এক সময় সমগ্র বঙ্গেই এমন খাওয়া হতো এখন সেই পরিবেশ আর নেই। ধন্যবাদ মন্তব্য করার জন্য।

৩৬| ০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৮ সকাল ৯:৩৮

আটলান্টিক বলেছেন: প্রামাণিক সাহেব আমন ধানের ভাত তো বিলুপ্ত হয়ে গেছে।নিজে জমি কিনে সেখানে আমন ধান চাষ করলে তবেই পাওয়া যাবে।

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৫৬

প্রামানিক বলেছেন: নিজের জমিতেও এখন আর আমন ধান ফলে না, কারণ সবাই যখন ইরি ধান রোপন করে তখন বর্গাচাষীরা অল্প ফলনশীল আমন ধানের চাষ করতে চায় না। ধন্যবাদ

৩৭| ০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৪১

আমি তুমি আমরা বলেছেন: আহা, আমন ধানের ভাত।

০৯ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১০:৫৭

প্রামানিক বলেছেন: আস্তে আস্তে আমন ধান যাদুঘরে চলে যাচ্ছে।

৩৮| ১১ ই জানুয়ারি, ২০১৮ দুপুর ২:৫৩

পার্থ তালুকদার বলেছেন: রোদে বসে ভাত খাওয়ার মজাই আলাদা।

১১ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১১:১৯

প্রামানিক বলেছেন: ঠিকই বলেছেন, ধন্যবাদ আপনাকে।

৩৯| ১১ ই জানুয়ারি, ২০১৮ দুপুর ২:৫৮

মাঈনউদ্দিন মইনুল বলেছেন:

উমমম.... এমুহুর্তে আপনার রেসিপি মোতাবেক কড়কড়া ভাত খেতে ইচ্ছে করছে, প্রামানিক ভাই :)

১১ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১১:১৮

প্রামানিক বলেছেন: এইরকম ঠান্ডা দিনেই খেতে হয়, খেয়ে ফেলেন অসুবিধা নাই। ধন্যবাদ মইনুল ভাই,

৪০| ১২ ই জানুয়ারি, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:১৩

বিদেশে কামলা খাটি বলেছেন: ভাই সাহেব, আপনার ছড়া পাঠ করিয়া আমি বড়ই আনন্দিত হই।

১২ ই জানুয়ারি, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৪৬

প্রামানিক বলেছেন: ধন্যবাদ ভাই, আপনার মন্তব্য পড়ে খুশি হলাম। ধন্যবাদ

৪১| ১৩ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১২:৪২

ফারিহা নোভা বলেছেন: চমৎকার লিখেছেন।

১৩ ই জানুয়ারি, ২০১৮ রাত ১:১৭

প্রামানিক বলেছেন: ধন্যবাদ বোন, শুভেচ্ছা রইল।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.