নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমার নাম- রাজীব নূর খান। ভাবছি ব্যবসা করবো। ভালো লাগে পড়তে- লিখতে আর বুদ্ধিমান লোকদের সাথে আড্ডা দিতে। কোনো কুসংস্কারে আমার বিশ্বাস নেই। নিজের দেশটাকে অত্যাধিক ভালোবাসি। সৎ ও পরিশ্রমী মানুষদের শ্রদ্ধা করি।

রাজীব নুর

আমি একজন ভাল মানুষ বলেই নিজেকে দাবী করি। কারো দ্বিমত থাকলে সেটা তার সমস্যা।

রাজীব নুর › বিস্তারিত পোস্টঃ

সেই লোকটি

০৭ ই মে, ২০১৮ রাত ৯:৪১



ভাই শুনুন।
আমি লোকটির দিকে তাকালাম। চিনি না। সম্পূর্ণ অপরিচিত। আমি কিছুটা অবাক হয়ে বললাম, আমাকে বলছেন?
জ্বী আপনাকে।
বলুন।
লোকটি চুপ করে আমার দিকে তাকিয়ে আছে। কিছু বলছে না।

ঘটনা শুরু এভাবে- আমি অফিস থেকে বাসায় ফিরছিলাম। সময় তখন সন্ধ্যা ছয়টা। বাস থেকে নেমে কিছু দূর যেতেই লোকটি আমাকে ডাক দিল। তার বয়স হবে পঁচিশ থেকে ত্রিশ এর মধ্যে। পোশাকে দরিদ্রতার ছাপ স্পষ্ট। মাথা ভরতি চুল, মুখ ভরতি দাঁড়ি। তবে চোখ দু'টাতে খুব মায়া-মায়া ভাব প্রবল।

লোকটি অনেকক্ষন পর বলল আচ্ছা, প্রান্থপথ মোড়টা কোন দিকে?
আমি বললাম, আপনি যেখানটায় দাঁড়িয়ে আছেন এটাকেই প্রান্থপথ মোড় বলে।
লোকটি বলল, আসলে আমি কাতার যাবো।

আমি বুঝতে পারছি না, লোকটি কি মদ-তদ খেয়েছে কিনা। নাকি পাগল। না, মদ খায়নি। মদ খেলে বুঝা যেত।
আমি আমার গন্তব্যে হাঁটা শুরু করলাম। কিছু দূর গিয়ে আমি পেছন ফিরে তাকালাম, দেখি লোকটা আমার পেছন পেছন আসছে। আমি লোকটিকে বললাম, আমি তো কাতার যাচ্ছি না। বাসায় যাচ্ছি। আপনি আমার পেছন পেছন আসছেন কেন?
লোকটি বলল, আমি আপনাকে এক কাপ চা খাওয়াবো।
আমি বললাম, এখন আমার মোটেও চা খাওয়ার ইচ্ছা নাই।

আমি কিছুই বুঝতে পারছি না ঘটনা কি? লোকটি কি ছিনতাইকারী দলের লোক? নাকি মানসিক ভারসাম্যহীণ একজন মানুষ?
এবার আমি লোকটিকে জিজ্ঞেস করলাম, আপনার ঘটনা কি খুলে বলুন তো?
লোকটি বলল, আপনাকে আমি কিছু দিতে চাই। তার আগে আসুন চা খাই এক কাপ।

আমরা রাস্তার পাশের একটি চায়ের দোকানে বসলাম।
লোকটি চায়ের কাপে চুমুক দিয়ে বলল, আপনি কি 'পদ্মা নদীর মাঝি' বইটা পড়েছেন?
আমি বললাম, বেশ কয়েকবার পড়েছি।
কোন চরিত্রটি আপনার মনে দাগ কেটেছে?
আমি বললাম, উপন্যাসের নায়িকা কপিলা।
লোকটি বলল, আমার কাছে ভালো লেগেছে হোসেন মিয়া চরিত্রটি। রহস্যময় একটি চরিত্র।

আমার চা খাওয়া শেষ। চায়ের কাপটি দোকানদারের কাছে ফেরত দিয়ে, একটি সিগারেট ধরিয়ে দেখি লোকটি নেই। আশে পাশে কোথাও নেই।

মন্তব্য ৫৮ টি রেটিং +৩/-০

মন্তব্য (৫৮) মন্তব্য লিখুন

১| ০৭ ই মে, ২০১৮ রাত ১০:০১

চাঁদগাজী বলেছেন:


নিজের ছায়ার সাথে কথা বলার শুরু করেছেন? চা খাবার পর, ওখানে সুয্যের আলোক ছিলো না।

০৭ ই মে, ২০১৮ রাত ১০:৩৪

রাজীব নুর বলেছেন: না নিজের ছায়া না।
আর ঘটনা সন্ধ্যার সময়। সূর্যের আলো থাকার কথা না।

২| ০৭ ই মে, ২০১৮ রাত ১০:০৪

সনেট কবি বলেছেন: জনাব গাজীর মন্তব্যে না হেসে পারলাম না।

০৭ ই মে, ২০১৮ রাত ১০:৩৫

রাজীব নুর বলেছেন: আপনার মন্তব্য পড়ে আমিও না হেসে পারলাম না।

৩| ০৭ ই মে, ২০১৮ রাত ১০:০৮

মো: নিজাম উদ্দিন মন্ডল বলেছেন: পাগলটা দেখতে খুব সুন্দর!!


তিন পাগলে হল মেলা নদে এসে
তোরা কেউ যাসনে ও পাগলের কাছে!!!

০৭ ই মে, ২০১৮ রাত ১০:৩৫

রাজীব নুর বলেছেন: এই ছবিটা প্রতীকি।
ছবিটা নিরব নামের একটা অভিনেতার।

৪| ০৭ ই মে, ২০১৮ রাত ১০:১৭

শামচুল হক বলেছেন: উপরের ছবিতে পাগলটা রাজীব নুরের মতই মনে হচ্ছে।

কাহিনী পড়ে মনে হচ্ছে শিক্ষিত পাগল।

০৭ ই মে, ২০১৮ রাত ১০:৩৬

রাজীব নুর বলেছেন: না ছবিটা আমার না।
অবশ্যই শিক্ষিত মানুষ। তবে মনে হয় পাগল ছিলনা।

৫| ০৭ ই মে, ২০১৮ রাত ১০:৫৬

সাাজ্জাাদ বলেছেন: কোনও ব্লগার আপনাকে চিনতে পেরে মনে হয় মজা নিসে।

০৭ ই মে, ২০১৮ রাত ১১:৩১

রাজীব নুর বলেছেন: আমার মনের কথাটা বলেছেন।
আমিও এই রকমই ভেবেছি।

৬| ০৭ ই মে, ২০১৮ রাত ১০:৫৯

কাওসার চৌধুরী বলেছেন: লেখার সাথে ছবিটা চমৎকার ভাবে মিলে গেছে। খুব আধুনিক একটা পাগলা। তবে লেখকের কি না জানি না। কারণ নীচে ছবিটির বিষয়ে কিছু বলা হয়নি!!!

০৭ ই মে, ২০১৮ রাত ১১:৩১

রাজীব নুর বলেছেন: না না এই ছবি আমার না। এমনকি আমার তোলাও না।
নেট থেকে নিয়েছি।

৭| ০৭ ই মে, ২০১৮ রাত ১১:২৩

যুক্তি না নিলে যুক্তি দাও বলেছেন: @সাজ্জাদ ভায়ের সাথে সহমত।

০৮ ই মে, ২০১৮ রাত ১২:০৩

রাজীব নুর বলেছেন: একমত হওয়াই ভালো।

৮| ০৭ ই মে, ২০১৮ রাত ১১:২৪

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: আমারও শ্রদ্ধেয় গাজী সাহেবের কথাটি মনে ধরলো। হোসেন মিঞা চরিত্রটি বেশ ভালো রহস্যময়ী, তাইবলে তার দাম সামান্য এককাপচা! বড্ড কম বলে মনে হল। সেক্ষেত্রে বরং ছায়ামূর্তির সঙ্গে কথোপকথোন কিছুটা সম্ভব। যাইহোক, আরো একটু বেশি ভালো লাগলো যদি অতিথি চা না খেয়ে বিরিয়ানি বা এরকম কিছু খেয়ে পালাতো।

অনেক অনেক ভাল লাগা প্রিয় ছোট ভাইকে।

০৮ ই মে, ২০১৮ রাত ১২:০৪

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ।
মন বলছে লোকটার সাথে আবার দেখা হবে।

৯| ০৭ ই মে, ২০১৮ রাত ১১:৩৩

মাইনুল ইসলাম আলিফ বলেছেন: লোকটির সাথে চা খেয়েছেন জেনে ভাল লাগছে।সবাই সাহস করতোনা,কারণ এসবক্ষেত্রে সবাই সাধারনত পালিয়ে বাঁচতে চায়।

শুভ কামনা রাজীব ভাই।

০৮ ই মে, ২০১৮ রাত ১২:০৪

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ।

১০| ০৮ ই মে, ২০১৮ রাত ১২:৩০

এখওয়ানআখী বলেছেন: রাজীব ভাই, আমার মনে হয় আপনি ধিরে ধিরে কপিলা থেকে হোসেন মিয়ার দিকে ঝুকে যাচ্ছেন।

০৮ ই মে, ২০১৮ রাত ১:২২

রাজীব নুর বলেছেন: হা হা হা---

না ভাই।

১১| ০৮ ই মে, ২০১৮ রাত ১২:৪৮

মিথী_মারজান বলেছেন: সংবিধিবদ্ধ সতর্কীকরণ : এমন অপরিচিত কারোর অনুরোধে তার সাথে চা খেতে যাওয়াটা উচিত নয়।

চাঁদগাজি সাহেবের মন্তব্য পড়ে হাসি থামাতে পারছি না।

০৮ ই মে, ২০১৮ রাত ১:২২

রাজীব নুর বলেছেন: হাসুন। হাসা ভালো।

চাঁদগাজীকে ধন্যবাদ।

১২| ০৮ ই মে, ২০১৮ রাত ১২:৫০

মিথী_মারজান বলেছেন: ওহ্, ভালো কথা!
চায়ের বিল কে পরিশোধ করেছিলো?
এবং কয় কাপ চা ছিলো? :p

০৮ ই মে, ২০১৮ রাত ১:২৪

রাজীব নুর বলেছেন: চার কাপ চা।
বিল ঐ লোক পরিশোধ করেছে।

১৩| ০৮ ই মে, ২০১৮ রাত ২:২৫

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: ছবিটা অভিনেতা নিলয়ের। যাই হোক, আমি সাধারণত যে কোন রকমের লোক থেকেই দূরে থাকি। সবাইকে ভয় লাগে, প্রতারক মনে হয়...

০৮ ই মে, ২০১৮ সকাল ১০:১১

রাজীব নুর বলেছেন: আমিও দূরেই থাকি।
তবে ভাবলাম আমার লেখার কোনবো চরিত্র হতে পারে। এই মনে করেই তার সাথে কথা বললাম।

১৪| ০৮ ই মে, ২০১৮ সকাল ৮:৫১

জাহিদ অনিক বলেছেন:


হতে পারে সে একজন ব্লগার ছিল; একজন ব্লগারের সাথে চা খাওয়ার স্বাদ আপনার সুপ্ত

০৮ ই মে, ২০১৮ সকাল ১০:১২

রাজীব নুর বলেছেন: আমারও তাই মনে হচ্ছে।

১৫| ০৮ ই মে, ২০১৮ সকাল ১১:০২

কথার ফুলঝুরি! বলেছেন: আসলে কাতার নয়, লোকটি আপনাকে হোসেন মিয়ার ময়নাদ্বীপ এ নিয়ে যেতে চেয়েছিল :P উপন্যাস টি আমার অনেক পছন্দের। অনেকদিন আগে পড়েছিলাম, আপনার লেখাটি পড়ে এখন আবার পড়ার সাধ জাগল মনে।
উপন্যাস টি তে আমার খুব পছন্দের যে সংলাপ টি, বলতে ইচ্ছে হল - "আমারে নিবা মাঝি লগে"

০৮ ই মে, ২০১৮ বিকাল ৪:৪৯

রাজীব নুর বলেছেন: এক কথায় অসাধারন একটা উপন্যাস। এই বইটি প্রতি বছর একবার করে পড়া উচিত।

১৬| ০৮ ই মে, ২০১৮ সকাল ১১:৫০

তাজেরুল ইসলাম স্বাধীন বলেছেন: "পদ্মা নদীর মাঝি " দারুণ! লোকটি হঠ্যাৎ এসে মনে করিয়ে দিল।

০৮ ই মে, ২০১৮ বিকাল ৪:৫৪

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ।

১৭| ০৮ ই মে, ২০১৮ বিকাল ৩:৫৬

প্রান্তর পাতা বলেছেন: ভাই, অনেক সুন্দর লিখেছেন। পড়ে মজা পেয়েছি। সাজ্জাদ ভাই জানেনা ওটা আমি ছিলাম।
আচ্ছা, আপনার প্রোপিকটা কমলাপুরে তোলা?

০৮ ই মে, ২০১৮ বিকাল ৪:৫৬

রাজীব নুর বলেছেন: না। সিলেট।
সারারাত ট্রেনে ছিলাম। সকালে সিলেট রেল স্টেশনে নেমেছি তখন এক বন্ধু এই ছবিটি তোলে। বর্তমানের এই বন্ধু টি প্রথম আলোতে কাজ করে।

১৮| ০৮ ই মে, ২০১৮ বিকাল ৫:৩৬

মনিরা সুলতানা বলেছেন: আমার এমন অভিজ্ঞতা পেতে ইচ্ছে করে জানেন !!!
একেবারেই অজানা অচেনা যে কারো সাথে কিছুক্ষন গল্প আড্ডা এরপর শেষ।
আপনার অভিজ্ঞতার ঝুলি বেশ সমৃদ্ধ ।

০৮ ই মে, ২০১৮ রাত ৯:৫৭

রাজীব নুর বলেছেন: এই অভিজ্ঞতার জন্য এখানে ওখানে নানান জায়গায় ঘুরে বেড়াই।
কেউ যদি জিজ্ঞেস করে এক জীবনে আপনার সঞ্চয় কি?
আমি বলল, অভিজ্ঞতা। সস্তা অভিজ্ঞতা।

১৯| ০৮ ই মে, ২০১৮ বিকাল ৫:৪৪

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: পৃথিবীতে আমরা সবাই পাগল। কেউ পাগলের উর্ধে না।

০৮ ই মে, ২০১৮ রাত ৯:৫৭

রাজীব নুর বলেছেন: এক অর্থে আপনি ঠিকই বলেছেন।

২০| ০৮ ই মে, ২০১৮ রাত ৮:২০

প্রান্তর পাতা বলেছেন: বিল্ডিংটার শেপ দেখে বুঝেছি ওটা রেল স্টেশন।

০৮ ই মে, ২০১৮ রাত ৯:৫৮

রাজীব নুর বলেছেন: আপনি বুদ্ধিমান।

২১| ০৮ ই মে, ২০১৮ রাত ৮:৩০

মৌরি হক দোলা বলেছেন: চমৎকার এক অভিজ্ঞতা তো! :)

০৮ ই মে, ২০১৮ রাত ৯:৫৮

রাজীব নুর বলেছেন: এই সব হলো সস্তা অভিজ্ঞতা।
এই অভিজ্ঞতার কোনো দাম নেই।

২২| ০৮ ই মে, ২০১৮ রাত ৮:৫৮

মাহমুদুর রহমান সুজন বলেছেন: ঘটনাটা যে একে বারে মিথ্যা হতে পারে না তা আমার বিশ্বাস হয়। কেননা আমিও এমন এক পাগলের দেখা পেয়েছিলাম। গ্রামের বাজারে এক আগুন্তুক দেখতে পাগলের মতো। পরিচয় জিজ্ঞাসা করলে বলে পরিচয় বলতে নিসন্দেহে একজন মানুষ। তবে চলুন আপনাকে একটা চা খাওয়াবো। অামি চা খাচ্ছি আর গল্প করছি হঠাৎ ব্যাক্তিটি তাড়া করে চলে গেল। আমার সন্দেহ হলে তার পিছু পিছু একটু গেলে দেখতে পাই একটি পিকআপ ব্যানে উঠে চলে যাচ্ছে।

০৮ ই মে, ২০১৮ রাত ১০:০০

রাজীব নুর বলেছেন: এইরকম মানুষের মধ্যে অনেক রহস্য থাকে। আলাপ করলে বুঝা যায়।

২৩| ০৮ ই মে, ২০১৮ রাত ৯:৩৫

তারেক ফাহিম বলেছেন: পোশাকে আসাকে পাগল হলে আপনি পাশেও ভিড়তেন না।

সন্ধার পর রাজিব ভাই কী বুতের সাথে চা খেলেন :D


০৮ ই মে, ২০১৮ রাত ১০:০১

রাজীব নুর বলেছেন: পাগল নিয়ে আমার বেশ কিছু অভিজ্ঞতা আছে। আমি লিখব।
আসলেই, কার সাথে চা খেলাম??

২৪| ০৮ ই মে, ২০১৮ রাত ১০:৩১

নূর-ই-হাফসা বলেছেন: ব‍্যাপার টা কি ভূতুড়ে কিছু ? অদ্ভুত কিন্তু ।
তাও ভালো খারাপ লোক ছিলেন না।

০৯ ই মে, ২০১৮ সকাল ১০:৫০

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ।

২৫| ০৮ ই মে, ২০১৮ রাত ১১:৪৫

সাহাবুব আলম বলেছেন: ছায়ার সাথে চা খেলেন

০৯ ই মে, ২০১৮ সকাল ১০:৫০

রাজীব নুর বলেছেন: ছায়া না।

২৬| ০৯ ই মে, ২০১৮ রাত ১২:৪৭

কানিজ রিনা বলেছেন: পাগলটা কোনও মায়ের ধন,পাগলের মা
বেঁচে আছে নাকি। হয়ত মায়ের অভাব
হয়ত রাজনীতির ফাঁদে জড়িয়ে নিজেকে
আঁড়াল করতে চুল দাঁড়ি বড় করেছে
সহজে চিনা না জায়। হয়ত প্রেমিকা
হাড়িয়েছে নয়ত কোনও গোয়েন্দা
আসলেও কি পাগল?
মায়ের মনতো তাই অনেক কিছু মনে
হোল। আমাদের বেকার ছেলেরা কত
অসহায় বাবা মায়ের দুঃখ সইতে না
পেরে কত সন্তান আমাদের বিপথে যায়
কর্মের জন্য বিদেশে পাড়ি দিতে নৌকায়
উঠে ভেঁসে মারা যায়। চোখে পানি নামল
এইত বছরের বেশী হোল বোনের ছেলেটা
সকলের প্রিয় ধন হাড়িয়েছি নাফেরার দেশে
পাড়ি জমিয়েছে পাগল মায়ের শান্তনা নাই।
খুব ভাল লাগল চলতে পথে পাগলের
সাথে আলাপ। আপনাকে আন্তরিক ধন্যবাদ।

০৯ ই মে, ২০১৮ সকাল ১০:৫১

রাজীব নুর বলেছেন: অত্যন্ত মনোরম।

২৭| ০৯ ই মে, ২০১৮ সকাল ৯:৩১

নতুন নকিব বলেছেন:



রহস্য বটে! ঘটনাটা বাস্তব, না কি কাল্পনিক?

০৯ ই মে, ২০১৮ সকাল ১০:৫১

রাজীব নুর বলেছেন: বাস্তব।

২৮| ১০ ই মে, ২০১৮ দুপুর ১:৫৫

নীল মনি বলেছেন: আমি কিন্তু দারুণ মজা পেয়েছি। তবে সাবধান থাকা ভালো।বিপদ হতে কতক্ষণ!

১০ ই মে, ২০১৮ দুপুর ২:৪৪

রাজীব নুর বলেছেন: সাবধান থাকা যায় না এই শহরে।

২৯| ১১ ই মে, ২০১৮ রাত ২:১২

সোহানী বলেছেন: চাঁদগাজী বলেছেন: নিজের ছায়ার সাথে কথা বলার শুরু করেছেন? চা খাবার পর, ওখানে সুয্যের আলোক ছিলো না।

হাহাহাহাহাহা.............. আমারো তাই মত ;)

১১ ই মে, ২০১৮ রাত ৮:২১

রাজীব নুর বলেছেন: ভালো থাকুন।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.