নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

রাত বাড়ে, মাথার কাছের দেবদারু হয় অশ্বথ বৃক্ষ ..

রিম সাবরিনা জাহান সরকার

ভিনদেশী শহর ঘেরা স্ফটিকের দেয়াল// আটকে পড়া আমার হাজারো খেয়াল...।

রিম সাবরিনা জাহান সরকার › বিস্তারিত পোস্টঃ

চিঁ চিঁ...

১০ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৭:০১


বলছি ২০১৫ সালের জানুয়ারির এক সন্ধ্যার কথা। চ্যানেল আইয়ের স্টুডিওতে বসে আছি। মায়ের একটা প্রোগ্রামের রেকর্ডিং। পৌঁছালাম ঠিক সাতটায়। এরপর বাজে আটটা বিশ। অনুষ্ঠান আর শুরু হওয়ার নাম নাই। বিয়ে বাড়ির মতো। কার্ডে লেখা থাকে সন্ধ্যা সাতটা। মানুষ হেলেদুলে আসেন নয়টার দিকে। আর খেতে দেওয়া হয় দশটার পরে।

সেদিন আমার খুব খিদে পেয়েছে। ওই মুহূর্তে যেকোনো কিছু খেতে দেওয়া হলে খুব আগ্রহ নিয়ে খেতাম। একবার মনে হলো, তাদের কোনো ক্যাফেটেরিয়া আছে কিনা জিজ্ঞেস করি। আবার ভাবলাম, লাভ নেই। মা ঝামেলা করবেন। বলবেন, ‘এ্যাই চোওওপ! কোথাও যাওয়া যাবে না।’ বয়সের কোঠা তিরিশের আশপাশে হলেও মার কাছে আমি এখনো তিন! তাই দেশে ফিরে আসার পর থেকে স্বাধীনতার খুব অভাব বোধ করছি। এক সময় আমাকে ফুলার রোড থেকে নিউমার্কেটে যেতে দেওয়া হতো না। কিন্তু সেই আমাকেই ২০১০ সালের এক শীতের রাতে জার্মানির মতো একটা দূর দেশে একা একা পিএইচডি করতে ছেড়ে দেওয়া হলো। বজ্র আঁটুনি ফসকা গেরো। সেই গেরো গলে আমি বেরিয়ে গেলাম।

দেশের অবস্থা আপাতত লে হালুয়া। অবরোধ আর হরতাল। চলছে। চলবেও। সেই সঙ্গে গাড়ি পোড়ানোর মোচ্ছব। জগাখিচুড়ি আর কাকে বলে! রাস্তায় বেরোনো মানে মারাত্মক ভয়ংকর একটা ব্যাপার তখন। ভীষণ আনন্দ আর উৎসাহের সঙ্গে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকতার চাকরিতে ঢুকেছিলাম। তখন পেট্রল বোমায় পুড়ে গ্রিল চিকেন কিংবা মাটন কাবাব হওয়ার আতঙ্কে সেই আনন্দে গুড়ে বালি। দুই মাসে ক্লাস নিতে পারলাম মাত্র চারটা। মানে প্রতি পনেরো দিনে গড়ে একটা ক্লাস। এর কোনো মানেই হয় না। চরম হতাশ লাগছে। এদিকে এসএসসি পরীক্ষার মাঝে পড়ে গেল হরতাল। প্রথমে মনে হলো, আহা ওদের কত দুঃখ! পরে চিন্তা করে দেখলাম, সবাইকে তো ফলাফলের সময়ে ঢালাওভাবে গোল্ডেন ফাইভ দেওয়া হবে। কে ভালো আর কে খারাপ করল তার কোনো মূল্যায়নই হবে না। আসলেই—‘উদ্ভট উটের পিঠে চলছে স্বদেশ।’

রেকর্ডিং শুরু হয়েছে অবশেষে। বিষয় পশুপাখির মাতৃভাষা। কবি, পরিবেশবিদ, প্রাণিবিদ মিলে মিশে এক প্রাণবন্ত আলোচনা। তবে একই সঙ্গে চলছে জেনেটিক্যালি মোডিফাইড শস্যের মুণ্ডুপাত। ওরে বাবা, আমার মাস্টার্স অবধি পড়াশোনা যে জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ওপর, এটা এখানে যতক্ষণ আছি, কায়দা করে চেপে যেতে হবে।

বাইরে একটু দূরেই বিমানবন্দর রোডে বাস পুড়িয়ে দিয়েছে খানিকক্ষণ আগে। সারা দেশ পুড়ছে। এর মাঝে পশুপাখির ইতং-বিতং। চিন্তা হচ্ছে কেমন করে আস্ত আর জ্যান্ত মানুষ হিসেবে বাসায় ফিরে যাব। উত্তরাকে দিল্লি দূর মনে হচ্ছে। মাঝপথে পুড়ে ভোম হয়ে গেলে তো কারও দায় থাকবে না। কেন যে মা রাজি হলেন এতটা পথ আসতে, ধুর! পেটের ভেতর পাঁচ মাসের তাফসু মিয়াও বাইঙ মাছের মতো ঘাই মেরে তার বিরক্তি জানিয়ে যাচ্ছে। আমাদের এই বিপজ্জনক অভিযানের কথা জার্মানিতে থাকা তাফসু মিয়ার বাবার কান পর্যন্ত পৌঁছাতে দেওয়া যাবে না। জানতে দিলে সমূহ বিপদ।

রাত বাজে প্রায় বারোটা। আসার পথেও তারা গাড়ি দিয়ে দিল। চালকের চোখে মুখে স্পষ্ট আতঙ্কের ছাপ। চালক ফাস্ট অ্যান্ড ফিউরিয়াস স্টাইলে গাড়ি টান দিলেন। এর কয়েক সেকেন্ডের মাঝেই বিকট শব্দ আর লোকজনের হল্লা। চালক বললেন, ‘আপনারা পেছনে তাকাইয়েন না। বাসের গায়ে পেট্রলবোমা মারসে।’ আমি আর মা জমে গেলাম ভয়ে। অবস্থা পুরাই ইয়া নফসি ইয়া নফসি। মুখস্থ থাকা, ভুলে যাওয়া সব সুরা আওড়ালাম মনে মনে। পুরোটা পথ আমার আর মায়ের গলা দিয়ে স্বর বেরোল না, শুধু চিঁ চিঁ...পশুপাখির মাতৃভাষা...!

ড. রিম সাবরিনা জাহান সরকার: মিউনিখ, জার্মানি।

মন্তব্য ২৫ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (২৫) মন্তব্য লিখুন

১| ১০ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৭:১৬

স্োরনাভ বলেছেন: কোন বিষয়ে লিখেছেন বোঝা গেল না, হরতাল, নারী স্বাধীনতা, নাকি জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অথবা চ্যনেল আই।
হতে পারে এটা শুধুই একটা সন্ধ্যার কথা। আমি খিচুড়ি খেলাম।

১০ ই জুন, ২০১৮ দুপুর ১:৩১

রিম সাবরিনা জাহান সরকার বলেছেন: ঠিক! শুধুই একটা সন্ধ্যার কথা। খিচুড়ি সন্ধ্যা..।

২| ১০ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৮:১২

সনেট কবি বলেছেন: খুবই গুরুতর অভিজ্ঞতা।

১০ ই জুন, ২০১৮ দুপুর ১:৩১

রিম সাবরিনা জাহান সরকার বলেছেন: এক রকম গুরুতরই ছিল বটে।

৩| ১০ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৮:৫৬

রাজীব নুর বলেছেন: এই পোষ্টে আপনার ক্ষুধা পেয়েছে এটাই সবচেয়ে বড় কথা। এবং আপনি ক্ষুধা সহ্য করতে পারেন সেটা পরিস্কার বুঝা গেল। সাথে সেই সময়ে দেশের পরিস্থিতি কিছুটা আভাস পাওয়া গেল ।

১০ ই জুন, ২০১৮ দুপুর ১:৩২

রিম সাবরিনা জাহান সরকার বলেছেন: কথা সত্য বলেছেন!

৪| ১০ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৮:৫৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


জার্মানিতে কি শিক্ষকতা করছেন?

১০ ই জুন, ২০১৮ দুপুর ১:৩৪

রিম সাবরিনা জাহান সরকার বলেছেন: জী না, জার্মানিতে শিক্ষকতা করছি না।

৫| ১০ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৯:০৯

পদ্ম পুকুর বলেছেন: রোজনামচা ভালো হয়েছে। যথারীতি আগেরগুলোর মতোই গতিশীল। বুঝলাম না, হুমায়ূন সাহেব আমাদের সায়েন্স ফ্যাকাল্টিতে কথা সাহিত্যের কোন উপাদান মিশিয়ে দিয়ে গেছেন কিনা :D

তাফসু মিয়া :> নামটা ভালাইছে।

৬| ১০ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৯:১১

পদ্ম পুকুর বলেছেন: আরেক্টা ব্যাপার, আপ্নে টিচার হইছেন। এখনতো কথা কইতেই ভয় লাগ্বো।

১০ ই জুন, ২০১৮ দুপুর ১:৩৬

রিম সাবরিনা জাহান সরকার বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্যে। টিচার ছিলাম। এখন নাই। ভয় পাবারও দরকার নাই্‌, হাহা।

৭| ১০ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১০:৩১

মো: নিজাম উদ্দিন মন্ডল বলেছেন: যাক্, দেশের পরিস্থিতি এখন অনেক ভালো।।:)
আমি কখনো পেট্রোল বম্বে/বম্বারের পাল্লায় পড়ি নি! বোমাবাজদের চোখের সামনে পেলে হাড্ডিগুডি ভেঙে হাসপাতালে পাঠিয়ে দিতাম...X(

@"লেখক+পদ্ম পুকুর,
আপা টিচার হইলে আমার ভাগের মিষ্টি কই??:P

১০ ই জুন, ২০১৮ দুপুর ১:৩৮

রিম সাবরিনা জাহান সরকার বলেছেন: সময়টা তখন অনেক খারাপ ছিল। আর এখন শূন্যস্থান পূরণ করে নিয়েছে সড়ক দুর্ঘটনা।

৮| ১০ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১০:৫৩

বৃষ্টি বিন্দু বলেছেন: আপনার লিখাটি পড়ে যেটা বুঝলাম, আপনি অতি দু:সহ অবস্থাকেও সামলে নেন এবং যথেষ্ট শৌখিন শব্দ প্রয়োগে।মজার রসটুকু ঢালতে জানেন পরিপূর্ণভাবে। :)

১০ ই জুন, ২০১৮ দুপুর ১:৪২

রিম সাবরিনা জাহান সরকার বলেছেন: ওই সামলে নেয়া অবধি। বেশিরভাগ সময় পরিস্থিতির শিকার হয়ে খাবি খেতে থাকি।

৯| ১০ ই জুন, ২০১৮ দুপুর ১:০৪

ভুয়া মফিজ বলেছেন: অভিজ্ঞতাটা ভয়াবহ, তবে লিখেছেন মজা করে...........মজা পাইলাম! :)

১০ ই জুন, ২০১৮ দুপুর ১:৪৪

রিম সাবরিনা জাহান সরকার বলেছেন: মজা পেয়েছেন জেনে ভালো লাগলো। ভয়ংক্ঘর ঘটনাও সবার সাথে ভাগ করে নিলে মজার হয়ে যায় মাঝে সাঝে।

১০| ১০ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:০৫

জে আর সিকদার বলেছেন: বজ্র আটুনি ফসকা গেরো, হি হি হি মজা পেলাম। আমার ছেলেবেলা মনে পড়ে গেল !

১১ ই জুন, ২০১৮ দুপুর ১২:৫৯

রিম সাবরিনা জাহান সরকার বলেছেন: ভালো লেগেছে জেনে ভালো লাগল। ধন্যবাদ।

১১| ১১ ই জুন, ২০১৮ রাত ১:০২

আলআমিন১২৩ বলেছেন: আসলেই-অদ্ভুত উটের পিঠে চলেছে স্বদেশ।
ভালো লাগলো এ realization.
উট নয়-শয়তান,চলছে নয়-ভূপাতিত হচ্ছে।
মুক্তিযুদ্ধ করে স্বাধীন হওয়া একটি দেশের কেন এ অধপতন?

১১ ই জুন, ২০১৮ দুপুর ১:০৫

রিম সাবরিনা জাহান সরকার বলেছেন: কথা সত্য। সহমত পোষন করছি। ধন্যবাদ।

১২| ১১ ই জুন, ২০১৮ রাত ৩:২৭

পবন সরকার বলেছেন: অভিজ্ঞতাটা পড়ে খুব মজাই পেলাম। ধন্যবাদ

১১ ই জুন, ২০১৮ দুপুর ১:১১

রিম সাবরিনা জাহান সরকার বলেছেন: সামান্য বিনোদন দিতে পেরে অনেক খুশি।

১৩| ১১ ই জুন, ২০১৮ রাত ৩:৩৩

শামচুল হক বলেছেন: আপনার অভিজ্ঞতা বড়ই মজা করে পড়লাম।

১১ ই জুন, ২০১৮ দুপুর ১:১৬

রিম সাবরিনা জাহান সরকার বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.