নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমার লেখা আপনাদের কথার সাথে মিলবেনা এটাই সত্য। কারন কেউতো একজন থাকা চাই যে আলাদা ভাবে দুনিয়াকে দেখবে। আপনি পজিটিভ ভাবে আমার লেখা পড়লে আপনাকে স্বাগতম। আর নেগেটিভ ভাবনা নিয়ে পড়লে আমার কিছু করার নাই। ভালো চিন্তা করুন। দেশ, জাতি, আর ধর্মকে ভালোবাসুন।

আব্দুল্লাহ্ আল মামুন

মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন

আব্দুল্লাহ্ আল মামুন › বিস্তারিত পোস্টঃ

অচেনা মানুষ কোথায় থেকে আসলে?

০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১২:১৯



আমরা রাস্তায় হাটি, বা মাঠে মাঝে মাঝে আমাদের এমন কারো সাথে দেখা হয়। যার সাথে হয়তো আপনার কোনদিন দেখা হয়নি। বা দেখা হবে এমন ভাবেননি । ভাবার কথাও না। তো আপনার সামনে আসে। যেমন আমার সামনে এসেছে অনেক। আচ্ছা কিছু বলা যাক।
১) একদিন আমি আর আমার বন্ধু হেটে যাচ্ছি। কলেজ থেকে বাসার দিকে যাবো। আর বিকাল হয়ে গেছে। কলেজ যাইনা অনেকদিন হল। সেই কয়মাস আগে এইস এস সি পরীক্ষা শেষ হয়েছে। তাই অনার্স ভর্ত কোচিং করেছি । কলেজে যাইনা কারন কোন ভার্সিটিতে চান্স হয়নি। তো হাটছি, হঠাৎ এক মেয়ে এসে সামনে হাজির। মামুন? কেমন আছো? আমি আকাশ থেকে পড়লাম। কলেজে দিদি ছাড়া আমার সাথে কারো কোন কথা হয়নি কোনদিন। আগে একটা লেখা লিখেছি যারা পড়েছে তারা বুঝবে। এ কে? আমার কোন মেয়ে বন্ধুও নাই। কে রে? মানে ১০ সেকেন্ডে পুরা দুনিয়া ভাবা শেষ। পরে ভাবলাম বুচ্ছি কোন বন্ধুর জি এফ হবে হয়তো। আমাকে চিনে আমি চিনিনা। আমি সহজেই উত্তর দিলাম হা ভালো।
মেয়ে=কোথায় ভর্তি হইছো? আমি =না ভর্তি হইনি। এই শহরেই ঘুড়িফিরি।
মেয়ে = ভালোই আছো না? আমি হুম। আমার কথা হল তারাতারি সাইট হতে পারলেই বাচি। কে হতে পারে? এত সুন্দর করে জিজ্ঞাস করছে। কোন জন্মের আত্মীয় সে? কোন জামানার বন্ধু?
আমার বন্ধু জিজ্ঞাস করে কে রে মেয়েটা? আমি বললাম মামা আমি কি করে বলবো। কোথায় আসলো এইটাই বুঝলাম না। ।

২) একদিন অষ্টমির মেলায়। দিদি অনেক গুলো লাড্ডু এনেছে। খাচ্ছি। ত আমরা দড়িয়ে। একজন এসে আমাকে বলে মামুন? তুমি মামুন না? বিপুল বলে হুম। এইটাই মামুন। তো? আমি বললাম আপনি কে? আরে আমাকে চিনলানা? আমি তোমার ফেসবুক ফ্রেন্ড। আমি ভাবলাম কিরে ভাই কবে কোন মেয়ের সাথে চ্যাট করলাম? (মনে মনে) আমাকে এসেই চিনে গেলো? ।
মেয়ে : তোমার ছবি দেখেছি। তাই দেখেই চিনে গেলাম। ভালো? আরে এইখানে কি কর? এরা কে? পরিচয় হবার পর বুঝলাম ফেক আইডি চালায় সে। আসল নাম দেয়নি। যাক ভালো লাগল। ফেসবুকের কেউ তো বাস্তবে দেখা হল।

৩) একদিন বাসায় এসে দেখি আম্মা আমাকে জিজ্ঞাস করে? এই মেয়েটা কে রে? আমি পুরা মঙ্গল গ্রহ থেকে পড়লাম। কে মেয়ে কোন মেয়ে? আমি ভাবলাম হয়তো কলেজে কোন লোক আমাকে আমার বন্ধুর সাথে আর ;দিদির সাথে কেউ দেখেছে। হয়তো মার কাছে কান পড়া দিছে । মানে নালিশ করেছে। তবে সেটা না। মা যা বললো সেটা আরো এগিয়ে। এক ধাপ না ৫ধাপ।
একটা মেয়ে আসছিল বাসায়। বললো তোদের কলেজে পড়ে। আমাদের এলাকার । এইতো পাশেই থাকে। সাজেশন এর জন্য। আরে বাপ হয়ছে।
আম্মু কে? কোন মেয়ে? আমি কোন মেয়েকে চিনিনা। আমার এলাকার। কে পড়ে আমার সাথে? কিভাবে জানলো আমার বাসা এইটা?
আম্মু বলে হু হু __(সন্দেহের তির মেরে)

আরে আম্মু তুমি নিজের ছেলেকে বিশ্বাস করোনা? কি বল এইসব? আজব কথা।

এই হল আমাদের জীবন। আমাদের কলেজে এক স্যার ছিল সে বলতো প্রেম করা সিগেরেট খাওয়ার মতো। সে জানে এটা খেলে (ধুমপান)
হার্ট খারাপ হয়।কেন্সার হয়। তার পরেও খায়। তেমনি প্রেম করাটাও জানে কোন কারন ছাড়াই ব্রেক আপ হয়ে যাবে। তার পরেও প্রেম করে। নেশার মতো

###এই দুনিয়াতে একটা লোককেই আমি মান্য করি বিশ্বাস করি সেটা মা। আর জানি মানুষ একা এসেছে একা যাবে। তবে মা নাই যার তার কেউ নাই। সব সম্পর্ক ফিকে আর অচল। সময়ের প্রয়োজনে। তবে একটি সম্পর্ক কখনো অচল হয়না সেটা মায়ের সাথে। আমার মা আমাকে যেমন বিশ্বাস করে ঠিক ততটুকু আমিও। সব কথা শেয়ার করি। তাই কোন লোক যদি এসে বলে তোমার ছেলেকে দেখলাম সিগেরেট খাচ্ছে। সে বলবে ভালো একটা ছবি তুলে আনতে দেখতাম। আর যদি বলে একটি মেয়ের সাথে দেখেছি। তাহলে বলবে আহ যদি এমন হতো তাহলে ভালোই হতো। আর কোন লোক তার সামনে কি ছোট করবে? মা জানে তার ছেলে মানুষকে অনেক ভালোবাসে আর সবার চাইতে আলাদা। সবার চাইতে আলাদা। কে কি বললো তা তার যায়না আসেওনা।

কেউ কিছু বলতে এলে সে বলে, যাও ভাই মায়ের কাছে মাসির কাহিনী শুনাইতে আইসোনা। যাও যাও। আর এই দুনিয়াতে কি চাই? কিচ্ছুনা। আমার যা চাওয়ার তা পাওয়া হয়ে গেছে। আমি এতো লোভি নই। আব্বু যখন বলে তোমার ছেলে কি করবে? হুম? জমি বিক্রি করে করে খাবে? গ্রামে একটা ঘটনা আছে যে কিছু করেনা বাবার টাকায় বসে খায়

আমার মা বলে, আমার ছেলে সবার মতো নয়। সে লোভী নয়। আর অন্য সবার চাইতে আলাদা। দেখে রেখো অনেক কিছু করবে সে। অনেক কিছু। আর সেটা সময় হলেই দেখতে পারবে। যাও নিজের কাজ, কর অফিসে যাও।

মন্তব্য ১৫ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (১৫) মন্তব্য লিখুন

১| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১:৪১

আরোগ্য বলেছেন: ভালো ছেলে,।

০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১:৪৩

আব্দুল্লাহ্ আল মামুন বলেছেন: ধন্যবাদ।

২| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১:৪৪

মনিরা সুলতানা বলেছেন: আমার মা বলে, আমার ছেলে সবার মতো নয়। সে লোভী নয়। আর অন্য সবার চাইতে আলাদা। দেখে রেখো অনেক কিছু করবে সে। অনেক কিছু। আর সেটা সময় হলেই দেখতে পারবে। যাও নিজের কাজ, কর অফিসে যাও।


একেই বলে মা ! মায়ের বিশ্বাস !
বিশ্বাসের মর্যাদা রেখো। অনেক অনেক দোয়া ও শুভ কামনা।

০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১:৪৮

আব্দুল্লাহ্ আল মামুন বলেছেন: ধন্যবাদ।।। ঠিক, আপনার মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।।




বিশ্বাস যেনো টিকে থাকে। এই দোয়া কইরেন। ভালো আছি। আর সুখে আছি। এই ভেবে যে মার কাছে কোন দিন মিথ্যা বলিনা।

৩| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৩:২৪

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: আসল পরীক্ষা বিয়ের পর...

০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ৯:২৭

আব্দুল্লাহ্ আল মামুন বলেছেন: হা হা হা। ভাই হেব্বি ডায়লগ

৪| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ৭:৫৯

রাজীব নুর বলেছেন: যেমনটা দেখা যায়, সত্য সাহার সুরে ফেরদৌসী রহমানের কন্ঠে 'সুতরাং' চলচ্চিত্রের 'সাতটি রঙের মাঝে আমি মিল খুঁজে না পাই' গানটিতে। আমাদের অবুঝ মন ও যেন খুঁজে পায় না আসলে কোন রং মানাবে আমাদের প্রিয় মানুষকে।

৫| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ৭:৫৯

রাজীব নুর বলেছেন: যেমনটা দেখা যায়, সত্য সাহার সুরে ফেরদৌসী রহমানের কন্ঠে 'সুতরাং' চলচ্চিত্রের 'সাতটি রঙের মাঝে আমি মিল খুঁজে না পাই' গানটিতে। আমাদের অবুঝ মন ও যেন খুঁজে পায় না আসলে কোন রং মানাবে আমাদের প্রিয় মানুষকে।

০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ৯:২৭

আব্দুল্লাহ্ আল মামুন বলেছেন: ধন্যবাদ ভাই

৬| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ৮:৩৬

নজসু বলেছেন:





আপনার পোষ্টের প্রেম ও সিগারেট অংশে এসে শোনা একটা কথা মনে হলো।
প্রেম জ্বলন্ত সিগারেটের মতো।
যার শুরুতে আগুন, শেষে ছাই।

০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ৯:২৬

আব্দুল্লাহ্ আল মামুন বলেছেন: ধন্যবাদ আপনার মন্তব্যের জন্য। হুম তেমনটাই হয়। বাস্তব

৭| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ১১:৫৫

শিখা রহমান বলেছেন: পোস্টটা শুরুতে যেমন হবে ভেবেছিলাম তেমনভাবে শেষ হয়নি। মায়ের প্রতি আপনার ভালোবাসা দেখে ভালোলাগায় মন ভরে গেলো। মায়ের বিশ্বাসের মর্যাদা রাখবেন আশা করি।

শুভকামনা নিরন্তর!!

০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১২:৫২

আব্দুল্লাহ্ আল মামুন বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকে

৮| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:৩০

হাবিব স্যার বলেছেন: জীবে প্রেম করে যেই জন সেই জন সেবিসে ঈশ্বর । সঠিক মানুষেরে প্রেম দিলে তা সব সময় ফুল হয়েই ফুটে।

০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:৩৭

আব্দুল্লাহ্ আল মামুন বলেছেন: ধন্যবাদ আপনার সুন্দর মন্তব্যের জন্য।।। হতে পারে

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.