নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

দীপ ছিলো, শিখা ছিলো, শুধু তুমি ছিলেনা বলে...

শায়মা

দিয়ে গেনু বসন্তেরও এই গানখানি বরষ ফুরায়ে যাবে ভুলে যাবে, ভুলে যাবে,ভুলে যাবে জানি...তবু তো ফাল্গুন রাতে, এ গানের বেদনাতে,আঁখি তব ছলো ছলো , সেই বহু মানি...

শায়মা › বিস্তারিত পোস্টঃ

এক যে ছিলো লিটিল মিস নটি.....

০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১০:০১



এক যে ছিলো লিটল মিস নটি! পুচ্চি একটা মেয়ে কিন্তু তার দুষ্টামীর জ্বালায় সবাই অস্থির!!!! এমনই এক গল্প ছিলো পুচ্চি একটা মেয়ের। দিন দুপুরে বাবা মা আর বাড়ির সকল লোকজনেদের জ্বালায় তার দুষ্টুমীগুলো বাঁধা পড়তো তাই সে তার সকল দুষ্টামীগুলো তুলে রাখতো ঠিক দুপুরে মা যখন ঘুমিয়ে, বাড়ির অন্যান্যরাও যে যার মত বিশ্রামের অবসরে সে সময়টার জন্য! তখনই চলতো তার দুষ্টামীর অভিযান আর ধরা পড়ে পিঠের উপর দুমদাম...... হা হা হা, সে যাইহোক বড় হবার পর আমিও বই এর পাতায় খুঁজে পেলাম এমনই এক লিটিল মিস নটি এর।

১. লিটিল মিস নটি- এমনই সে এক দুষ্টু মেয়ে যে ঘুমের মধ্যেও সে দুষ্টুমী করতে ভুলতো না। একদিন এক ছুটির সকালে ঘুম ভেঙ্গে উঠেই সে জানালা দিয়ে দেখলো মিঃ আপিটি হেঁটে চলেছে বাড়ির সামনের রাস্তা দিয়ে আর অমনি তার মাথায় দুষ্টু বুদ্ধি খেলে গেলো। সে আপন মনে হেসে উঠলো- হে হে হে .... সে দৌড়ে গিয়ে লুকিয়ে দাঁড়ালো বাড়ির পাঁচিলের পাশে। মিঃ আপিটি হেঁটে যাবার সময় পিছন থেকে গাছের এক লম্বা ডাল দিয়ে তার মাথা থেকে সে এক খোঁচায় ফেলে দিলো তার হ্যাটটা। এরপর সে উঁকি দিলো মিঃ গ্রিডীর বাড়ির জানালায়। মিঃ গ্রিডী ওভেনে বসিয়েছিলো চিকেন। দুষ্টু মিস নটি গিয়ে নক করলো তার দরজায়। মিঃ গ্রিডী যেই না দরজায় গেলো জানালা দিয়ে তার চিকেন নিয়ে পালিয়ে গেলো দুষ্টুটা। এইভাবে আর তো পারা যায় না তো পাড়ার সকলে মিলে ঠিক করলো কেমনে তাকে শিক্ষা দেওয়া যায়।

তারা কি যেন প্লান করলো । আর সেদিন বিকালে যখনই মিঃ নোজি ঘুমাচ্ছিলো, মিস নটি তার ঘুমন্ত নাকে রং লাগাতে পেইন্ট ব্রাশ নিয়ে গেলো সেখানে আর অমনি ঘটলো এক ভয়ংকর কান্ড......এর পর একের পর এক ........
এখানে ক্লিক করলেই দেখা যাবে যে কি শিক্ষা সে পেয়েছিলো সেদিন
ভাগ্যিস আমার নটিবেলায় এমন কোনো প্লানার ছিলো না....:(
যাইহোক বলছিলাম মিঃ মেন সিরিজের কথা। মিঃ মেন সিরিজ এমনই সব মজাদার গল্পের সমাহারে রচিত যা শিশুদের পড়ে শোনালে বা পড়তে দিলে পিচ্চিপাচ্চাগুলো যেমনই মজা পাবে তেমনি শিখতে ও বুঝতে পারবে অনেক ভুলগুলোই। যেমন-
২. মিঃ নোজি - মিঃ নোজী এমনই এক নোজী যে ট্রেইন বা পার্কে সেইম নিউজপেপার পড়া পাশের ব্যাক্তির নিউজপেপারেই চোখ দেবে নিজেরটা রেখে। আর যদি কখনও কারো এনভেলপের মুখবন্ধ লেটার টেবলে পড়ে থাকতে দেখে তো সেটা ছিড়ে ভেতরের খবর না পড়া পর্যন্ত তার শান্তি নেই। আবার রাস্তায় যেতে যেতে মানুষের বাড়ির পাঁচিলের ভেতর কি হচ্ছে বা অন্যের রুমের বন্ধ দরজার কি-হোলে চোখ রাখার ইচ্ছাটুকুও সে সামলাতে পারে না।
তারপর যা হবার তাই হলো সবাই মিলে শিক্ষা দিলো মিঃ নোজী সাহেবকে। একের পর এক অন্যের বিজনেসে নাক গলাতে গিয়ে শিক্ষা পেয়ে পেয়ে অবশেষে সে সেই বদভ্যাস থেকে ক্ষ্যান্ত হলেন। হা হা হা এই বইটা শুধু পিচ্চিপাচ্চা না অন্যের ব্যাপারে অযথা নাক গলানো বড় মানুষেরও পড়া উচিৎ এবং শিক্ষা নেওয়া উচিৎ।
নাক গলানো মিঃ নোজী

৩. লিটল মিস চ্যাটারবক্স- এই মিস চ্যাটারবক্স বইটা পড়ে শুনাতে গিয়ে আমার ক্লাসের জায়নামনির সাথে আমার কি কান্ডটাই না ঘটেছিলো তা আমি আগেও লিখছিলাম সে যাইহোক আজ বলি এই বই এর মিস চ্যাটারবক্সের কথা। লিটিল মিস চ্যাটারবক্স এমনই এক বকবকি বালিকা যে সে এত কথা বলতো যে তার কথার পাশে উপরে নীচে ডাইনে বায়ে কোথাও কেউ আর কথার ফাকে গলতে পারতো না তো সে একদিন এক ব্যাংকে গেলো জব করতে । একজন কাস্টোমার আসলো-
কাস্টোমার- গুড মরনিং.... ( যেই না বলেছে সে অমনি)
লিটল মিস চ্যাটারবক্স- (এক লম্বা নিশ্বাষ নিয়ে শুরু করলো) আজকেরসকালগুডবটেতবেকালকেরমতনাবরংতারআগেরদিনযাছিলোতারথেকেমোটেওভালোনাএরআগে
২০১৬তেযেমনছিলো২০১৩...
কাস্টোমার তো থ! চেক নেবার জন্য সে ঘন্টার পর ঘন্টা দাঁড়িয়েই রইলো কিন্তু মিস চ্যাটারবক্স থামলো যখন ব্যাংক বন্ধ হবার সময় হলো তখন। পরের দিন তার চাকরী গেলো......এরপর সে গেলো রেস্টুরেন্টে-
একজন আসলো আজকের স্যুপ কি? সেইম ঘটনা আজও ঘটলো।
মিস চ্যাটারবক্স - আজকেরসকালএমনকালতেমনছিলোপরশুমন । এরপর সে থামলো মিডনাইটে গিয়ে আর যখন থামলো তখন রেস্টুরেন্ট বন্ধ হয়ে যাবার সময় হয়েছে। এখানেও যথারীতি সে জব হারালো এবং জব নিলো হ্যাট শপে। সেখানেও একই অবস্থা!
অবশেষে সে তার স্যুইটেবল জব পেলো! কোথায় জানো! জবটা ছিলো টেলিফোন অফিসে।প্রতি সেকেন্ডে টাইম বলার জব যা তাকে কখনও থামতে দিত না! হা হা হা কোন কোন আপুর অবস্থা এই মিস চ্যাটারবক্সের মত! সেসব আপুরা অতিসত্বর ফোন অফিসের ভ্যাকান্সির খোঁজ নাও। কোনো কোনো ব্যাংকে বা অফিসে ফ্রন্ট ডেস্কে আমি এমনই কাজের প্রতি উদাসীন কিন্তু বকবকা চ্যাটারবক্স আপুর সন্ধান পেয়েছি তাদেরকে এই বই এক এক কপি উপহার দেবো ভাবছি।

৪. মিঃ স্লো- মিঃ স্লো কাজে কামে এমনই স্লো সকালের নাস্তা খেতে বসে দুপুরের লাঞ্চ টাইম পার করে আর দুপুরের লাঞ্চ করে রাত দুইটায়। একবার এক বন্ধুর ক্রিসমাস গিফট এর থ্যাংকইউ লেটার লিখতে তার ইসটার টাইম হয়ে গেছিলো। তো একদিন সানডের পত্রিকার এক পাতাতেই জবের নিউজ খুঁজতে সানডে থেকে ওয়েডনেসডে সে পার করেছিলো। তো সে জব নিলো টিভিতে। তার কাজটা ছিলো নিউজ রিডিং। তো সন্ধ্যার নিউজ ঢুলে ঢুলে টেনে টেনে পড়তে পড়তে সে সন্ধ্যা থেকে মিড নাইটে চলে গেলো এবং পরদিনই তার চাকুরী গেলো। এরপর সে ট্যাক্সি চালাতে গেলো। ট্যাক্সি ড্রাইভার। যথারীতি যাত্রীকে ৩ টার ট্রেইন ধরাতে স্টেশনে ৪ টায় নিয়ে গেলো। সেই জব ছেড়ে সে গেলো আইসক্রিম ফ্যাক্টরীতে। আইসক্রিম বানাতে বসলো সামারে আর তার বানানো শেষ হলো শীতকালে। উলেন কাপড়ের ফ্যাক্টরীতে সে শীতকালেে কাপড় শুরু করে শেষ করলো গরমকালে। একে একে এই মিঃ স্লো রেসিং কার, ট্রেইন, স্পিড বোট সব ট্রাই করার পরে উপযুক্ত জব খুঁজে পেলো স্টিম রোলারের ড্রাইভার হয়ে। যারা যারা মিঃ অর মিস স্লো স্টিম রোলারের জব খুঁজে নিতে পারেন এই গল্প থেকে শিক্ষা পেয়ে।

৫. লিটল মিস কুইক- মিঃ স্লো এর পারফেক্ট জুটি হবার দরকার ছিলো এই মিস কুইকের কিন্তু ইনি আবার আরেকজন। তিনি এতই কুইক যে কোনো কিছুই কেয়ার না করা কেয়ারলেস। বিছানা গুছাতে তড়িঘড়ি উলটা নষ্ট করে রাখে। দৌড়ে প্লেট আনতে গিয়ে ভেঙ্গে রাখে। দাত মাজার সময় এতই জোরে আর তাড়াতাড়ি পেস্টের টিউব চাপ দেয় যে সব পেস্ট সবখানে ছড়ায় পড়ে কিন্তু ব্রাশে লাগেনা। একদিন কি হলো এক শরতের সকালে সে কেয়ারলেসলি দরজা খোলা রেখে বাইরে চলে গেলো। পথে পোস্টম্যানকে দেখে সে তাড়াতাড়ি হেল্প করতে গিয়ে তার সব চিঠি টেনে নিলো এবং এখানে সেখানে ছড়িয়ে একশেষ করলো পোস্টম্যান তাকে ধরার আগেই সে হাওয়া। এরপর মিঃ স্ট্রংকে হেল্প করতে গিয়ে তার সব ডিম ভেঙ্গে শেষ করলো। এরপর সে চিড়িয়াখানা গিয়ে তাড়াতাড়ি করে যু কিপার কিছু বলার আগেই তার হাত থেকে ভুট্টার ব্যাগ কেড়ে নিয়ে তাকে হেল্প করতে ছুটলো এবং লায়নের খাঁচায় ঢুকে লায়নকে এতই তাড়াতাড়ি ভুট্টা খাইয়ে দিলো যে লায়নও কিছু বুঝে উঠবার আগেই মাংসের বদলে ভুট্টা খেয়ে ফেললো। চোখের পলক ফেলবার আগেই মিস কুইক হাওয়া। মানে সে এতই কুইক ছিলো যে লায়ন পর্যন্ত ভুট্টা খেয়েও তাকে ধরতে পারলো না আর বোকা বনে গেলো। হা হা হা লিটিল মিস কুইক
৬. লিটিল মিস শাই- থাকতো শহর থেকে বহূ দূরের জঙ্গলের মাঝে এক নির্জন বাড়িতে। সে এতই লাজুক লতা ছিলো যে কখনও শপিং এ পর্যন্ত যেতনা। নিজের বাগানেই চাল ডাল ফল ফুলুরী সব্জী যা হত তাই খেয়ে বেঁচে থাকতো। একদিন এক পোস্টম্যান এলো। সে দরজা নক করলো কিন্তু মিস শাই এতই লজ্জাবতী যে তার পক্ষে দরজা খুলে পোস্টম্যানের হাত থেকে চিঠি নেওয়া সম্ভব না । সে টেবিলের নীচে ঢুকে কানে হাত দিয়ে বসে রইলো। অনেকক্ষণ অপেক্ষা করে তাকে না পেয়ে পোস্টম্যান দরজার নীচে দিয়ে লেটার রেখে চলে গেলো। মিস শাই অনেকখন ওয়েট করলো ফুটস্টেপ চলে যাওয়া পর্যন্ত। বলতে গেলে সারাদিন সে কিচেন টেবিলের নীচে কাটিয়েছিলো। অনেক পরে সে লেটার খুলে যা দেখলো তাতে তার প্রেশার বেড়ে গেলো দশগুন। মিঃ ফানি তাকে ইনভাইট করেছে এক পার্টিতে। আগামী শনিবার বিকাল ৩ টায়। এ খবর পড়ে শাই এর অবস্থা খারাপ হয়ে গেলো! সে মনে মনে বললো- না না সেখানে অনেক মানুষ থাকবে আমি মরে গেলেও যেতে পারবোনা। সে একবার ভাবে যাবে আরেকবার ভাবে না না না। দুশ্চিন্তায় সারারাত না ঘুমিয়ে কাটলো তার। পরের দিনগুলো তার খুব খারাপ গেলো। এরপর আসলো শনিবার-
সকাল থেকে সে সময় গুনতে লাগলো ১টা ২টা ৩টা বাজলো। সে সোফায় মন খারাপ করে বসে আছে। তার চোখ দিয়ে পানি গড়িয়ে পড়ছে। কেনো সে এত লাজুক! কেনো যেতে পারছেনা? এমন সময় দরজায় কে যেন নক করলো। সে ভয়ে, লজ্জায় সোফার পিছে লুকালো। ভুলে দরজা খোলাই ছিলো। মিঃ ফানি সোজা তাকে ধরে নিয়ে গেলো পার্টিতে। সেখানে অনেক হই হুল্লোড়! অনেক ফান !অবশেষে তার ভালো লাগতে শুরু করলো কারণ সে সেখানে মিঃ কোয়ায়েটের দেখা পেলো। দুজনে মুখোমুখি গভীর দুখে দুখী হয়ে চুপচাপ হাসি মুখে বসে রইলো! :) পারফেক্ট জুড়ুয়া হয়ে। :)

৭. মিঃ কোয়ায়েট- থাকতো বনের ধারে। হই হুল্লোড় তার একদমই পছন্দের নয়। কিন্তু তার বাড়ি যে বনের মাঝে ছিলো সেই দেশের নাম লাউডল্যান্ড সেখানে কেউ আস্তে ধীরে কিছুই করতে পারেনা । নিশব্দে চলা অভ্যাসই নেই। সবাই চিৎকার করে কথা বলে, ধড়াম করে দরজা লাগায়। সে সেসব পছন্দ করতোনা।তাই বনের মাঝে অনেক দূরে একা একা থাকতো। কিন্তু শপিং এ যেতে হতো । শপকিপার চিল্লিয়ে শুনতে চাইতো কি লাগবে আর মিঃ কোয়ায়েট ফিসফিস করে বলতো। সে শুনতে পেতনা। শেষে কি আর করা। দরকারী জিনিস না নিয়েই সে ফিরে আসতো। বুচার, সব্জিওলাা মিল্কম্যান কেউ তার কথা শুনতে পেতনা। একদিন পোস্টম্যান এলো এবং সে দেখলো মিঃ হ্যাপী তাকে হ্যাপীল্যান্ডে যাবার দাওয়াৎ দিয়েছে। সেখানে সে পরদিন গেলো এবং অনেক দুঃখ করে তার প্রবলেম বললো মিঃ হ্যাপীকে। মিঃ কোয়ায়েট অনেক দুঃখ নিয়ে বললো আমি তো কখনই জব পাবোনা, কেউ আমার কথা শুনতেই পায় না। মিঃ হ্যাপী তাকে জব খুঁজে দিলো। জবটা লাইব্রেরীতে। যেখানে কোনো কথা বলতে হয়না শুধুই ফিসফিস ছাড়া। বাহ এই না হলে ফ্রেন্ড!

৮. মিঃ টল- মিঃ টল ছিলো অনেক অনেক লম্বা। এত লম্বা কেউ কখনও এর আগে দেখেনি। সে এটা নিয়ে খুবই কষ্টে থাকতো। কখনও কেউ তার মুখে কোনো হাসি দেখেনি। রাতে শুলে তার হাঁটু দুটো গিয়ে ঠেকতো ছাঁদে। সে এক পাশও ফিরতে পারতোনা। হাঁটু বেরিয়ে যেত খাটের বাইরে। সে যখন হাঁটতো বড় বড় গাছের পাশ দিয়ে হাঁটতো না। হাঁটতো সে সেসব টপকে টপকে। একদিন পথে যেতে যেত কে যেন তাকে ডাকছিলো-
মিঃ টল মিঃ টল
মিঃ টল এদিক ওদিক দেখলো । কোথাও কেউ নেই। সে শুনতেও পাচ্ছিলো সে শব্দটা খুব ক্ষীন। অনেক কষ্টে বুঝতে পারলো শব্দটা আসছে ঘাসের কাছাকাছি থেকে। আর সেটা মিঃ স্মল। মিঃ টলের দুঃখিত মুখ দেখে মিঃ স্মল ঠিক করলো তাকে সে খুশী করবে আর তাই সে তার সাথে হাঁটতে চাইলো কিছুক্ষন। কিন্তু কোনো লাভই হলোনা কারণ একটা জিরাফ আর ইঁদুর যদি পাশাপাশি হাঁটে তো কি হবে?কেউ কারু কথাই শুনতে পাবেনা। তখন সে বললো, তাকে তার মাথার উপরে নিতে। মিঃ টলের মাথার উপরে উঠে মিঃ স্মল মহা খুশী। কারণ সে আগে কখনও এত উপর থেকে কিছু দেখতে পায়নি। তার এত ছোট্ট শরীর নিয়ে তাই সেও অনেক দুঃখে ছিলো। এরপর সে মিঃ টলকে বললো চলো আমরা স্যুইমিং করি। কিন্তু মিঃ টল খুব দুঃখ করে বললো, আমার পা হাঁটু পর্যন্ত পানিতে ডুববে তার চেয়ে আমি তীরে বসে তোমার স্যুইমিং দেখি।
এমন সময় মিঃ টিকেল এলো। বললো তোমাকে এত দুঃখিত লাগছে কেনো? মিঃ টল বললো তার দুঃখ তার লম্বা পা নিয়ে। টিকেল বললো ঠিক যেমন তার দুঃখ তার এতগুলো হাত নিয়ে, একে একে মিঃ নোজি, মিঃ গ্রিডি সবাই বললো সবার সমস্যার কথা।
তারপর মিঃ টল বসে বসে ভাবলো সবার কথা, নোজির লম্বা নোজ, টিকলের টিকলিং হ্যান্ডস এইসব নিয়ে। তারপর অনেক হাসলো সে । বুঝলো পৃথিবীতে সবারই কিছু না কিছু সমস্যা আছে যার নেতিবাচক ও ইতিবাচক ফলাফল আছে। তার উচিৎ তাই লম্বা পা নিয়ে দুঃখ না করা। তারপর সে বাড়ি ফিরে এলো চার পা ফেলে চল্লিশ মাইল চার মিনিটে। কাজেই সব কিছুর অপোজিটও আছে মানে পজিটিভ সাইডও। শুধু একটু বুঝে নিতে হয়। :)

৯.লিটল মিস টাইনি- লিটিল মিস টাইনি এতই ছোট্ট পুচকে ছিলো যে সে কোনো বাড়িতেই বাস করতে পারতো না। সে বাস করতো এক কৃষকের বাড়ির ড্রইংরুমের ছোট্ট ইঁদুরের গর্তে। কেউ জানতোনা। এমনকি কৃষকের বউটাওও না । কিন্তু সে খুবই লোনলী ছিলো আর ভীষন দুঃখ ছিলো তার।
একদিন সে ঠিক করলো সে বাইরে বেড়াতে যাবে। সে যখন বাইরে থেকে উঁকি দিলো। ঘরটা লাগছিলো তার বিশাল বড় মাঠ। সে দরজার নীচের লেটার আসবার ফুটোটা দিয়ে নিজেকে গলিয়ে বাইরে নিয়ে এলো। মাঠের পাশে ছিলো এক শুকরছানার বাসা। সেখানে ঢুকলো মিস টাইনি। শুকরছানা তো তাকে দেখেই অবাক। এই পুচকেটা এলো কোত্থেকে? শুকরটাকে দেখে সে ভীষন ভয় পেলো ও তার ছোট্ট ছোট্ট পা দিয়ে যতদূর সম্ভব দৌড়াতে শুরু করলো। ওয়ালের কাছে এসে সে নিজের চোখে দুই হাত দিয়ে ঢেকে রাখলো।
ফার্মে একটা দুষ্টু বিড়াল ছিলো। সে মিস টাইনীকে ভয় দেখালো। মিস টাইনি যতদূর সম্ভব চি চি করে হেল্প হেল্প করে চিল্লাতে লাগলো। মিঃ স্ট্রং তাকে বাঁচাতে এলো। সে বললো এমন ভয় পেলে সামান্য বিড়ালও তাকে ভয় দেখাবে। এরপর সে তার বন্ধু হলো। এভরি উইকেই মিঃ স্ট্রং তাকে নিউ নিউ ফ্রেন্ডের সাথে পরিচয় করিয়ে দিলো। মিঃ ফানি, মিঃ হ্যাপী, মিস নটি এরপর সে একজন পারফেক্ট পারসনের দেখা পেলো? এক্কেবারেই পারফেক্ট পারসন ফর হার এ্যান্ড দ্যাট ইজ মিঃ স্মল। এখন তারা দুজন দুজনার বন্ধু। :)

১০. মিঃ রং-মিঃ রং যাই করে তাই তার ভুল হয়। সে যে বাড়ি বানিয়েছে তা যদি কেউ দেখতো। উল্টা পাল্টা ভাঙ্গাচুরা ।দরজার যায়গায় জানালা, জানালার জায়গায় দরজা। একদিন সকালে সে ঘুম থেকে উঠলো। রাতে তার ভালো ঘুম হয়নি। সে লাফ দিয়ে উঠলো বেড থেকে, দুইবার পড়লো, দুই পায়ের উল্টা পাল্টা জুতা পরলো, বাথরুমে যেতে গিয়ে বাথরুমের ম্যাট উল্টিয়ে দিলো। জোরে এক চাপে এক গাঁদা টুথপেস্ট বের করে টুথব্রাশের উল্টা দিকে লাগালো। কোনোরকমে দাঁত মেজে ধুড়ুম ধাড়ুম করে কিচেনে নেমে এলো। তাড়াহুড়ায় সিরিয়ালের বাটিতে দুধ ঢালতে গিয়ে পুরো দুধই ফেলে দিলো টেবিলে। তারপর বসে বসে শুকনো কর্নফ্লেক্সস চাবাতে লাগলো। মন খারাপ করে ভাবলো ওহ আমি কেনো সবকিছু ভুলভাল কাজ করি?
তারপর সে হাঁটতে বের হলো। ভুল করে সামনের দরজা দিয়ে না বের হয়ে সে পেছনের দরজায় গেলো ও লেট করলো। যেতে যেতে তার দেখা হলো ওয়ার্মহোল থেকে বের হয়ে আসা এক ওয়ার্মের সাথে। সে তাকে বললো, গুডমরনিং ডগ। তারপর সে ভুল করে পোস্টম্যানকে ডক্টর বললো। এরপর তার দেখা হলো এমন একজনের সাথে যাকেই তার দরকার ছিলো আর সেটা মিঃ রাইট।

মিঃ রাইট মিঃ রংকে তার বাড়িতে নিয়ে গেলো। সেই বাড়িটাও ছিলো একদম মিঃ রং এর বাড়িটার মত দেখতে শুধু তার জানালা জানালার জায়গায় ছিলো, দরজা আর সব কিছুই ঠিকঠাক যা ,মিঃ রং এর বাড়ির একদম উল্টা। মিঃ রাইট বললো, তোমার উচিৎ কিছুদিন আমার সাথে থাকা ও আমাকে দেখে শেখা কি করে রাইট হতে হয়। মিঃ রং বসতে গেলো একটা চেয়ারে আর মিস করে পড়ে গেলো। এরপর এক সপ্তাহে সে মিঃ রাইটকে দেখে দেখে কিছুটা রাইট হতে শিখলো। দুই সপ্তাহে আরও কিছুটা। চার সপ্তাহে প্রায় রাইটের মতই। মিঃ রাইট তাকে বললো, বলেছিলাম মানুষ সবই বদলাতে পারে। কোনো কিছুই চিরস্থায়ী অভ্যাস না। দেখি তুমি সব ভুল গুলো ভুলে এখন রাইট হতে শিখেছো। আমার সাথে থেকেই তোমার এই পরিবর্তন হলো। মিঃ রং খুব খুশি হলো ও বাড়ি ফিরে গেলো।
কিন্তু এ গল্পের শেষ এখানেই নয়। মিঃ রাইট ঘুমাতে গেলো বেডে কিন্তু ঘুম ভেঙ্গে উঠে দেখলো সে বাথটাবে ঘুমাচ্ছিলো। মিঃ রং যেমনি রাইটের সাথে থেকে কিছু বদ অভ্যাস বদলেছে। তেমনি মিঃ রাইটও মিঃ রং এর সাথে থেকে কিছু বদ অভ্যাস পেয়েছে। হা হা হা একেই বলে সৎ সঙ্গে স্বর্গবাস আর অসৎসঙ্গে সর্বনাশ!!!!! হা হা হা

১১.লিটিল মিস টাইডি- সে ছিলো এক এক্সট্রা অর্ডিনারী টাইডি মেয়ে। তার বাড়িতে সব কিছুই সব সঠিক জায়গায় থাকতো । তার হাজার হাজার হ্যান্ডব্যাগ ছিলো যার ভেতরে সে নানা রকম জিনিস আলাদা করে রাখতো। তার ছোট বড় মাঝরি, গোল চৌকো লম্বা সোজা সব ধরনের বক্স ছিলো। কোনো কিছুই তার এখানে সেখানে পড়া থাকতো না। যদি তাকে কেউ পারফেক্ট ভেবে থাকে এসব দেখে তাহলে সে ভুল। সে ভুলে যেত কোথায় কোন জিনিসটা রেখেছে । ঐ যে মানে বেশি গোছানো হলে যা হয় মানে ঠিক আমার মত আর কি।:)
কিন্তু মিস টাইডীর সব কিছুই গুছিয়ে রাখা থাকলেও সবই ছিলো বাক্সবন্দী ও হাজার হাজার বক্সের মাঝে আর তাই সে কাজের সময় আর সেটা সে খুঁজে পেত না মানে দরকারের সময়। সে মিঃ নোজী থেকে শুরু করে মিস সাই পর্যন্ত ফোন দিত তার জিনিস কোথায় আছে মনে করাতে। শেষে খুঁজতে খুঁজতে দেখা যেত হেয়ার ব্রাশ আছে সু বক্সে, বয়েলড এগ আছে সল্ট পটে। একদিন সে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেলো। তার বন্ধুরা তাকে এমন একটা গিফট দিলো তার জন্মদিনে যে এরপর সে আর কোনোদিন কোথায় কি রেখেছে ভুলে যায়নি। আর সে গিফটটা ছিলো অনেক বড় আর অনেক পাতাওয়াাল একটা রাইটিং প্যাড আর পেন। সে কোথায় কি রাখবে এখন থেকে লিখে রাখবে। পরের দুদিন সব বক্স খুলে খুলে সে কোথায় কি আছে সব রাইটিং প্যাডে লিখলো আর টায়ার্ড হয়ে ঘুমাতে গেলো। পরদিন সকালে উঠে সে তার নোটবুকই খুঁজে পেলোনা। সেই সারাটাদিন সে আবার সব বক্স খুলে খুলে রাইটিং প্যাড খুঁজলো আর শেষে প্যাডটা পাওয়া গেলো তার সাইড টেবলের উপরে। হা হা হা একদম মিস টাইডি!!!!!!!

১২.মিঃ বিজি- মিঃ বিজি ছিলো মিঃ স্লো এর একদম উল্টা। সে সব কাজই করতো এক নিমেসে। একদিন সে সকাল বেলা গেলো মিঃ স্লো এর বাড়ি। সে স্লোকে ঘুম থেকে উঠালো , তার বেড গুছিয়ে দিলো, ব্রেকফাস্ট বানালো, বাড়িঘর পরিষ্কার করে দিলো তাড়াহুড়া করে। যা মিঃ স্লো একদমই লাইক করলো না। তারপর মিঃ বিজি বললো তারা দুজন পিকনিকে যাবে। সে তাড়াতাড়ি পিকনিকের সব সরঞ্জাম রেডি করে হাঁটা দিলো। মিঃ বিজি হাঁটছিলো তড়বড় করে আর মিঃ স্লো!!!!!!! তার তো আঠারো মাসে বছর।
উফ লিখতে লিখতে হাত ব্যাথা হয়ে গেলো বাকীটা নিজেরাই দেখে নাও।

যাইহোক যদিও আগেই বলে রাখা দরকার ছিলো ইহা একটি শিশুতোষ পোস্ট তবুও চাইলে বুড়ারাও পড়তে পারেন। কারন বলাই বাহুল্য আমরা সকলেই জানি শিক্ষার কোনো বয়স নাই। দোলনা থেকে খাঁটিয়া পর্যন্ত মানুষের শিক্ষার শেষ হয় না। আর এই মিঃ মেন সিরিজ তেমনি মজাদার ও শিক্ষামূলক যা পড়লে ছেলেবুড়ো সকলেরই বেশ শিক্ষা হবে। আর যারা পড়তে মিঃ স্লো বা মিঃ লেজী হয়ে যায় তারা ইউটিউবে সার্চ দিলেও পেয়ে যাবে মিঃ মেন সিরিজের মজাদার ভিডিওগুলি!!!!!!! :)

আমার বেবিদের আঁকা আরও কিছু মেন সিরিজের মানুষেরা-




মন্তব্য ২৮৬ টি রেটিং +২৫/-০

মন্তব্য (২৮৬) মন্তব্য লিখুন

১| ০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১০:১১

ধ্রুবক আলো বলেছেন: ফার্স্ট হইছি B-)

০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১০:১৩

শায়মা বলেছেন: মিঃ স্লো এর পক্ষ থেকে একখানা ফার্স্ট প্রাইজ!!!!!!!

২| ০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১০:১৪

জেন রসি বলেছেন: শিক্ষা সফর শেষ! এবার পিকনিক শুরু করা যাক! ;)

এসব চরিত্র আসলে সব মানুষের মধ্যেই বসত করে। এসব চরিত্রের বিপরীত চরিত্রও বসত করে। :)



০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১০:১৯

শায়মা বলেছেন: তোমার জন্য কোন চরিত্র মিলেছে কোনোটা!!!!!!!!




আপাতত দোয়া করি এমন একখানা সঙ্গিনী জুটুক!!!!! :)

৩| ০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১০:৩০

কি করি আজ ভেবে না পাই বলেছেন: থার্ড প্রাইজের কি ব্যবস্থা?

০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১০:৩৩

শায়মা বলেছেন:

৩ টার চেহারা আঁকা হয়েছে বাকীগুলার হয়নি।

৪| ০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১০:৩৩

কি করি আজ ভেবে না পাই বলেছেন: লিটল মিস ট্রাবল কি গেমুরে নিয়া লিখা?

০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১০:৩৪

শায়মা বলেছেন: না সেটা জিনিভাইয়ার গার্লফ্রেন্ড!

গেমুরটা টেবিলের নীচে আছে।

৫| ০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১০:৪২

হুমম্‌ বলেছেন: ফোর্থবয় বলিয়া কি কুনু শব্দ আছে আপা?:)

০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১০:৪৬

শায়মা বলেছেন: ঐ ভাইয়া!!!!!

ফাঁকিবাজি না করে আমার প্রিয় সিরিজের গল্পগুলা পড়ো!!!!!!!!!!

৬| ০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১০:৫৬

নাগরিক কবি বলেছেন:



কোন কথা হবে না আপুমনি। সরাসরি প্রিয়তে। Roger Hargreaves হচ্ছে আমার মতে সবচেয়ে জনপ্রিয় বৃটিশ রাইটার বাচ্চাদের জন্য। থ্যাংকু থ্যাংকু থ্যাংকু। পুরো পোস্ট টা আবার পড়তে হবে। + ভিডিও গুলো আবার দেখতে হবে। ভিডিও গুলা বেশি কিউট। অনেক আগে কিছু দেখেছিলাম। :) :) 8-| B-)

০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১০:৫৯

শায়মা বলেছেন: যাক বাবা অবশেষে কাউকে পেলাম!!!!!!!

মনের মত মন!!!!!!!!

থ্যাংক ইউ ভাইয়ু!!!!!!!!!!!!

আই এ্যাম হ্যাপী!!!!!!!!

৭| ০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১০:৫৭

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: এত্ত লম্বা!! পড়তে গিয়ে প্রথম স্থান খুইয়েছি =p~

০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:০১

শায়মা বলেছেন: ভাইয়া !

তোমার ক্ষুদে জিনিয়াসদের মত ইনারাও এক এক জন জিনিয়াস তো!!!!!!

৮| ০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:০৩

নাগরিক কবি বলেছেন: =p~

০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:০৭

শায়মা বলেছেন:


আমার নিজের ছেলেবেলার প্রিয় বই লিটল মারমেইড!!!!!!! তারপর একটু বড়বেলায় ইকথিয়েন্ডর উভচর মানুষ!

৯| ০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:০৫

নাদিম আহসান তুহিন বলেছেন: আমি কততম?

০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:০৮

শায়মা বলেছেন: এহ ছি !!!!!!!!!!!

গুনতে জানো না???


তুমি না গনিতবিদ রামানুজন !!!!!!!!

১০| ০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:১৬

জেন রসি বলেছেন: দোয়া মানে কি? উইশফুল থিঙ্কিং? ;)

০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:২৩

শায়মা বলেছেন: হুম!!!!!!!!!!!!!!!!!!! বাট শিক্ষামূলক গল্পে শিক্ষাদীক্ষা থিংকিং! :)

১১| ০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:১৭

মোহাম্মাদ আব্দুলহাক বলেছেন: আমার বাড়িতে আপনি গিয়েছিলেন। আপনার বাড়িতে আমি এসেছি।



০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:২৪

শায়মা বলেছেন: হা হা ভাইয়া!!!!!!!!
হঠাৎ আপনি আজ্ঞে শুরু করেছো কেনো কিছুদিন যাবৎ!

কি হয়েছে??? :P

১২| ০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:১৭

নাগরিক কবি বলেছেন: অঞ্জলি এগুলো পড়েছে কিংবা দেখেছে কিনা। কে জানে? অঞ্জলিকে অনেকক্ষণ খুঁজে পাচ্ছি না :(

০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:২৮

শায়মা বলেছেন: অঞ্জলীকে প্রকাশ করে দিসো সে লজ্জা পেয়ে মিস শাই হয়ে গেছে! এখন সে সোফার পিছে আছে!


১৩| ০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:২৫

রাতুল_শাহ বলেছেন: হুম শিক্ষা নিলাম।

০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:২৮

শায়মা বলেছেন: গুড বয়!!!!!!!!!!

১৪| ০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:২৫

মোহাম্মাদ আব্দুলহাক বলেছেন: কত কিছু হয়েছে। ডর লাগে।

০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:২৯

শায়মা বলেছেন: তাই আপনি আজ্ঞে!!!!!!!!!!!

হা হা হা হা হা ভাইয়ু!!!!!!!!!

তোমার মাথায় আসলেও সিট আছে!!!!!!!!

১৫| ০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:৩১

সত্যের ছায়া বলেছেন: পরে সময় করে পড়ে নিব, এখন আপাতত লাইক দিচ্ছি।

০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:৩২

শায়মা বলেছেন: ওকে ওকে সময় করে পড়ো!!!!! :)

১৬| ০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:৩৬

মোহাম্মাদ আব্দুলহাক বলেছেন: সিট শব্দের অর্থ বুঝিনি।

০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:৪০

শায়মা বলেছেন: ঐ যে বাসে থাকে মানুষ বসে না!!!!!!

সেটা নাকি কারো কারো মাথায় হয় তখন সে তুমি তুমি করে বলা ভাইবোন সবাইকে আপনি আজ্ঞে করে। অবশ্য রেগে থাকলে হয়। :)

১৭| ০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:৫১

শাহরিয়ার কবীর বলেছেন:
আপাতত লাইক ও প্লাস B-)

বড় গল্প পড়তে অনীহা ,এ পাঠক বতমানে অলস হয়ে গেলে !!!

(কথা দিলাম, এই গল্পটি ছুটির দিনে পড়ে যাব !!! শেষের পাঠক )

০৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:৫৪

শায়মা বলেছেন: এটা কি একটা গল্প মিঃ লেজি!!!!!!

এটা অনেক গল্পের সমাহার। তাও শিক্ষামূলক। :)

১৮| ০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১২:০৩

শাহরিয়ার কবীর বলেছেন:
মিঃ লেজি ও পাজী দুইটাই ......


একটু ছোট পরিসরের বুঝিয়ে দিলে ক্ষতি কি ?? আর লেখাতে জ্ঞানের কথা যখন আছে, তখন প্রতিটি লাইন মুখস্ত করা চেষ্টা করবো, যদিও ছাত্র খারাপ =p~

০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১২:০৬

শায়মা বলেছেন: তুমি করবা মুখস্থ!!!!!!!!!!

মিঃ লেজি সাহেব!!!!!!!!

১৯| ০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১২:১২

নাদিম আহসান তুহিন বলেছেন: সেই হতভাগা একজন কে? যাকে আপনি অনুসরন করছেন?

০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১২:১৮

শায়মা বলেছেন: হা হা বলা যাবেনা ভাইয়ু!!!!!!!!!!'

এটাও এক রহস্য! আর সেটা নিয়ে দূর্মূখেরা দূর্জনেরা আর হিংসুটেরা নানা গরুবেষনা করে তাই এই রহস্য এখন আর বলা নিষেধ মানে নিষিদ্ধ হয়ে গেছে ! :)


তবে তোমাকে কানে কানে বলতে পারি এখানে বলা যাবে না!!!!!!!!!

২০| ০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১২:২১

উম্মে সায়মা বলেছেন: আসলেই খুব মজার তো! বাচ্চারা খুব মজা পাবে। প্রিয়তে নিলাম। ধন্যবাদ শায়মা আপু সুন্দর রিভিউয়ের জন্য।
অনেকগুলো ক্যারেক্টার একটু একটু করে আমার সাথে মিলে যায় :-B

০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১২:২৪

শায়মা বলেছেন: হা হা সবার সাথেই মিলে যায় আপুনি!!!!!!!

তবে আজকাল ভিডিও আছে সবগুলার! :)

২১| ০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১২:২৮

নাদিম আহসান তুহিন বলেছেন: আমার কান টা আপনার কাছে কিভাবে পাঠাতে পারি বলুন তো?

০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১২:৩৭

শায়মা বলেছেন: হা হা হা


কেটে কেটে !!!!!!!!!!!! :P

ছিড়েও পাঠাতে পারো ভাইয়া!!!!!!

তবে আমি এখন ঘুমাতে যাচ্ছি। মন দিয়ে আমার মেন সিরিজের গল্পগুলো পড়ো!

কাল এসে তোমার পরীক্ষা নেওয়া হবে!

২২| ০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১২:৪৮

শাহরিয়ার কবীর বলেছেন:
চোখ বুলিয়ে গেলাম,হুম, পোলাপানের নীতিকথা শিখানোর গল্প মত লাগলো, খানিক শিক্ষানীয় B-) কিন্তু এখন কথা হচ্ছে এতো ইংলিশ মিডিয়াম বাচ্চাদের জন্য হলেও দারুন ।আমাদের মত বাংলা মিডিয়াদের কি হবে ? এখনো আমি গোপাল ভাঁড় দেখি, যদিও বাচ্ছাদের অনুষ্ঠান, তারপরে ... গোপালের বউ ছাড়া সবাই প্রমিত বাংলায় কথা বলে । ভাষা শেখার জন্য, এটাও শিক্ষানীয় নয় কি !! আমাদের দেশে সিসিমপুর ও মিনা কাটুন এ ছাড়া টিভিতে আর কি কোন অনুষ্ঠান হয় ,,,, সেদিন যেমন, হঠাৎ নাট-বল্টুর কান্ডকারখানা দেখছিলাম ,সেখানে দেখি সায়েন্সর বিষয় নিয়ে বাচ্ছাদের গল্পের মত কাটুন চলছে ।। ভালোই লাগলো এবং তা শিক্ষানীয় বটে ।আমরাও পাড়ি কিন্তু কারো এ বিষয় ইচ্ছা নেই, যাকগে সেসব কথা,,,,,,, সায়েন্সর কিছু বেসিক বিষয় দিয়ে বা পোলাপানের আদব কায়দা শিখানোর যায় কি ভাবে, এ নিয়ে বেশি বেশি অনুষ্ঠান বানানো দরকার । ;)

০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১:০০

শায়মা বলেছেন: ঠিক ঠিক বেবিদের জন্যই গল্পগুলা! আর বড়দের জন্যও বটে!

তবে সায়েন্স দিয়ে কেমনে আদব কায়দা শেখাবে বুঝলাম না !!!!! :(

২৩| ০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১২:৫০

মোহাম্মাদ আব্দুলহাক বলেছেন: বুঝেছি, আমার মাথায় বসে নাচে। কিচ্ছু করার নেই।

০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১:০৩

শায়মা বলেছেন: হা হা হা

ভাইয়া !!!!!!!!!!


গানের কি খবর??

এখনও কি গান গাচ্ছো নাকি বাদ দিয়েছো!

নাতনীদের জন্য তোমার গান না ছাড়া উচিৎ! :)

২৪| ০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১:০৭

মোহাম্মাদ আব্দুলহাক বলেছেন: যা করার এক বছরের ভিতর করতে হবে। ওদের বয়স এখন ১১ মাস। হাঁটতে শিখলে আমি আর বসতে পারব না। ওদের স্কুল শুরু হওয়ার হয়তো আবার বসতে পারব।

(আমিতো গায়ক নয়। নিজে লেখে নিজে গেয়েছি। তাতে তার লয় বোল নেই। নিজে সব করায় আমার প্রায় ১৫/২০ হাজার পাউন্ড বেচেছে আর্কি।)

০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১:১৬

শায়মা বলেছেন: জানি জানি তুমি গায়ক না হয়েও গায়ক নায়ক না হয়েও নায়ক ভাইয়া!!!!!!!! :) :) :)

২৫| ০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১:০৯

সচেতনহ্যাপী বলেছেন: আমাদের চরিত্রই কিন্তু ফুটে উঠেছে।। ভুল না হলে।।

০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১:১৮

শায়মা বলেছেন: হ্যাঁ ঠিকই বলেছো ভাইয়া!!!!

আর এসব থেকেই বিরত রাখতে এই গল্পগুলি!!!!!!

২৬| ০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১:১৩

শাহরিয়ার কবীর বলেছেন: চলন্ত গাড়ি হঠাৎ থামলে গাড়ির যাত্রী সামনের দিকে ঝুঁকে পড়ে বা হুমড়ি খেয়ে পড়ে যায়। গাড়ি যখন চলমান ছিল তখন যাত্রীর সমগ্র দেহই গতিশীল ছিল। গাড়িটি থামার সঙ্গে সঙ্গে যাত্রীর দেহের নিচের অংশ স্থির অবস্থায় আসে কিন্তু গতিজাড্যের জন্য দেহের উপরের অংশ এগিয়ে যেতে চায়। ফলে যাত্রী সামনের দিকে ঝুঁকে পড়ে বা হুমড়ি খেয়ে পড়ে যায়।
এটা গতি জড়তার উদাহরণ.....
এরকম আরো অনেক ছোট খাটো বিজ্ঞানের বিষয়, তাহলে বাচ্ছারা ছোট বেলা থেকেই সায়েন্সর শিখছে... এগুলোই যদি বাচ্ছাদের গল্প বা কাটুনের মাধ্যমে শিখানো হয়......... পৃথিবীতে সবকিছুতেই সায়েন্স লুকিয়ে .......



আর আদব কায়দা ব্যপার টা হল পরীক্ষার রাতে ফেসুবুকে....... মনোনিবেশ করা । আর গভীরে গেলাম না। ।। =p~

০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১:২১

শায়মা বলেছেন: হা হা হা ভালো বলেছো ভাইয়ু!!!!!!!


হা হা হা মরেই গেলাম হাসতে হাসতে!!!!!!!!!!!

২৭| ০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১:১৭

মোহাম্মাদ আব্দুলহাক বলেছেন: আপাকে অনেক ধন্যবাদ।

০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১:২৩

শায়মা বলেছেন: তোমাকেও ভাইয়া!!!!!!!!!! :)

২৮| ০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১:২৩

শাহরিয়ার কবীর বলেছেন:
হাসার কি হলো ????? ভুল হলে ধরিয়ে....দেওয়া উচিৎ ।।। তারাতারি ফিডব্যাক !!! X((

০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১:২৫

শায়মা বলেছেন: না না ভুল হবে কেনো!!!!!!!!!!!!

নো ভুল আমি হাসছি ফেসবুক আর পরীক্ষা নিয়ে!!!!! যাইহোক গুড নাইট বাই বাই ঘুমাতে যাই।

২৯| ০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১:২৯

শাহরিয়ার কবীর বলেছেন:
বুবু, তোমাদের কাছে কিছু শেখার জন্যই তো পিছনে পিছনে ঘুর ঘুর করি । তোমরা হলে গিয়ে বুড়ী ষ্টার আর আমার ইয়াং ষ্টার........ কোন ভুল হলে ধরিয়ে দেওয়া উচিৎ.....................

আচ্ছা !!!! টা টা......... =p~

০৭ ই মে, ২০১৭ দুপুর ২:২২

শায়মা বলেছেন: এহ রে আসছেন বাচ্চা!!!!! ফুহ ফুহ ফুহ !!!!!!!! যাইহোক ভুল হলে কি শুধু ধরাবো!!!!!! ধরে ধরে মরাবোও!!!!!!! :)

৩০| ০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১:৩২

মাহমুদুর রহমান সুজন বলেছেন: আমি এখনো শেষ করেনি আপুনি মন্তব্য করে গেলাম। আমি এক টানে কোন কিছু পড়লে মজা পাইনা। হাতে অনেক গুলো পড়া নিয়ে থাকি তাই বড় পোস্ট একটু দেরী করে পড়ি। তবে যতটুকু দেখেছি বেশতো, বাকীটুকু পড়ার পরে।

০৭ ই মে, ২০১৭ দুপুর ২:৪৪

শায়মা বলেছেন: এটা ছোট ছোট গল্প দিয়ে বড় পোস্ট ভাইয়া!!!!!! :) :) :)


একটানে না পড়লেও চলবে!!!!! :)

৩১| ০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ৩:০০

গুলশান কিবরীয়া বলেছেন: পরে পড়বো তোমার এই মজার গল্প , নিশ্চয়ই ছোট্ট মণিদের জন্য লেখা?? পরে এসে পড়বো ।

০৭ ই মে, ২০১৭ দুপুর ২:৪৭

শায়মা বলেছেন: হুম!!!!!!!!!!

একদম তাই আপুনি!!!!!!!!!!!!!!!!

আর তাছাড়া বড়দেরও দরকাল আছে!!!!!!!!!!!! :)

৩২| ০৭ ই মে, ২০১৭ ভোর ৪:৪৮

ব্লগ মাস্টার বলেছেন: ভালা হইচে মনে হয় বাচ্ছাদের জন্য।

০৭ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৩:০১

শায়মা বলেছেন: হুম!!!!!!!!

বড়দের জন্যও ভালো!!!!!!!!

৩৩| ০৭ ই মে, ২০১৭ সকাল ৯:১৪

মোস্তফা সোহেল বলেছেন: বরাবরের মতই লম্বা পোষ্ট। ছোটদের জন্য তবে এটা দেখে ছোটরা পালাবে।
যাই হোক ছোটদের বলে বড়রা পড়তে পারবে না তা তো হবে না।
পড়ে কিছু তো শিখলাম। আসলেই সকলেই কোন না কোন অপূর্নতা নিয়ে জন্মায়। আর সেই দুঃখটা মৃত্যুর আগ পর্যন্ত থেকে যায়।
সুন্দর একটি লম্বা পোষ্টের জন্য অনেক ধন্যবাদ শায়মাপু।

০৭ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৩:০৫

শায়মা বলেছেন: তোমাকেও অনেক অনেক ধন্যবাদ ভাইয়া!!!!! :)

৩৪| ০৭ ই মে, ২০১৭ সকাল ১০:০৪

নীলপরি বলেছেন: দারুন । ++++

০৭ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৩:০৬

শায়মা বলেছেন: থ্যাংক ইউ!!!!!!!!! :)

৩৫| ০৭ ই মে, ২০১৭ সকাল ১১:০২

আবুহেনা মোঃ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন: এক্সেপশনাল ক্যারেক্টার এ্যানালাইসিস। লেখা ও রেখা বোথ আর ফর কিডস। তারপরেও পড়ে মজা পেলাম।

ধন্যবাদ বোন শায়মা।

০৭ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৩:১৪

শায়মা বলেছেন: অনেক অনেক ধন্যবাদ ভাইয়া তোমাকেও! :)

৩৬| ০৭ ই মে, ২০১৭ সকাল ১১:১৮

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: মজারু!!!!

+++++++++++++++

০৭ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৩:১৫

শায়মা বলেছেন: থ্যাংক ইউ ভাইয়া! :)

৩৭| ০৭ ই মে, ২০১৭ দুপুর ১:০৬

সামিউল ইসলাম বাবু বলেছেন: একটু ব্যস্ত। পরে পড়েনিবো।

প্রিয়তে রেখেদিলাম।

০৭ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৩:১৬

শায়মা বলেছেন: ওকে ওকে পরে পড়ো নিও ভাইয়া!

৩৮| ০৭ ই মে, ২০১৭ দুপুর ২:৩৯

নাদিম আহসান তুহিন বলেছেন: আচ্ছা উপরে যে ফেসবুক লাইক কাউন্ট হচ্ছে। এটা কিভাবে হচ্ছে???

০৭ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৩:১৮

শায়মা বলেছেন: হায় হায় তাই তো !!!!!!!

এটা তো খেয়াল করিনি!!!!!

যাই যাই দেখে আসিতো অন্যগুলাও!!!!!!!!!!!!! B:-)

৩৯| ০৭ ই মে, ২০১৭ দুপুর ২:৪৩

জাহিদ অনিক বলেছেন: আমার তো প্রায়ই মনে হয় তুমি নিজেও একটা জায়ামনি । তোমার মধ্যেও একটা বেশ তীব্র বাচ্চাবাচ্চা আছে !

তোমার সেই জায়ামনির গল্প মনে পড়লে আমার এখনো হাসি পায় !

০৭ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৩:২০

শায়মা বলেছেন: আমি না!!!!!!!! আমি তো জায়ানামনির চাইতেও ভায়ানামনি ছিলাম!!!!

হা হা হা
আমারো হাসি পায় জায়নামনিকে ভাবলেই!!!!!!!!!!!!!!!

৪০| ০৭ ই মে, ২০১৭ দুপুর ২:৫৪

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: আজকেরসকালগুডবটেতবেকালকেরমতনাবরংতারআগেরদিনযাছিলোতারথেকেমোটেওভালোনাএরআগে
২০১৬তেযেমনছিলো২০১৩... এই লাইন পড়তে গিয়ে ........ভাবলাম এক নিশ্বাসে রেলগাড়ী স্টাইলে কথা বলেছে!!
বাচ্চাদের কারিকুলাম ভালই তুলে ধরেছো । আমার কমেন্ট অবস্থান ৪০ নম্বরে ।
ব্যতিক্রমী হয়েছে ।+

০৭ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৩:২২

শায়মা বলেছেন: হুমমমমমমমমমম তুমি লেটার পেয়েছো ভাইয়ু!!!!!!!!!

এখন সালমান বাদশাকে পড়ে শুনাও!

৪১| ০৭ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৩:২৬

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: তুমি রেকর্ড করে দিলে ভাল হত। ভাল পড়তে না পারলে সালমান রাগ করবে। তোমার ভয়েস আর উপস্থাপনা ঢং সে হয়তো মনোযোগ দিয়ে শুনবে । এই

০৭ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৩:৩২

শায়মা বলেছেন: হা হা ওকে ওকে নেক্সট ইয়ার গল্প বলা সিডিটা বানাই আগে !!!!!!

৪২| ০৭ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৪:০৩

জেন রসি বলেছেন: গল্পগুলোর মধ্যে একটা ভাত ঘুমের আমেজ আছে! ;)

০৭ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৪:১০

শায়মা বলেছেন: বিকজ ইউ আর


:P

৪৩| ০৭ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৪:৫৭

হাসান মাহবুব বলেছেন: মিতিন-রুহিনকে দেখাবো। মজা পাবে।

০৭ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৫:০৫

শায়মা বলেছেন: ঠিক ঠিক!

ভিডিও গুলা আরও দেবো???

বইগুলা কালেক্ট করা একটু কঠিন হবে কিন্তু ভিডিও দেখানো যায় বা ভিডিওতে বই পড়াটাও আছে।

মিতিনের জন্য
https://www.youtube.com/watch?v=w-m9_3Vh8GQ' target='_blank' >রুহিনের জন্য :):):)

৪৪| ০৭ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৪:৫৭

কথাকথিকেথিকথন বলেছেন:

বড় তো হলাম কিন্তু এখনো বড় হতে পারলাম না । মনে হলো গল্পগুলো যেন আমারই পড়া উচিত !!!

আচ্ছা কারো বৌ যদি মিস শাই এর মত হয় !! তার কিন্তু খবর আছে !!!

আপনি শিশুদের নিয়ে থাকেন, আর শিশুরা নিষ্পাপ ।

০৭ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৫:০৭

শায়মা বলেছেন: হা হা হুম তোমার বৌ হোক মিসেস শাই ওরফে কথাকথিকথকথা বলেরে! :P

৪৫| ০৭ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৫:২১

কথাকথিকেথিকথন বলেছেন: !!!!

০৭ ই মে, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:৫৩

শায়মা বলেছেন: :D

৪৬| ০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১০:০৫

আহমেদ জী এস বলেছেন: শায়মা ,




ওল্ড বাট ষ্টিল লিটল "মিস তুড়িয়ানন্দা"র পোস্ট । :P

ঝটপট যতো নটি-হটি-স্লো-বিজি-নোজি-রোজি, শাই-কুইকদের নিয়ে হৈহৈ-রৈরৈ কান্ডের স্পেশাল ডিস সাজিয়ে দিয়ে গেলেন ব্লগ প্লেটে । এখন শুধু হুটোপুটি করে চেটে নেয়ার পালা ।

তবে কাজের কথা হলো, " জানার কোনও শেষ নাই, জানার ইচ্ছা বৃথা তাই ।" ;)
ভয় পাবেন না, এটা সিনেমার ডায়লগ । আর আপনি শিক্ষার কথা বলেছেন , জানার কথা বলেন নি । সোওওওওও... ডোন্ট বি য়্যা আপকি পসন্দ কী "মারমুখি মেইড" নাও। :-P

০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১০:২০

শায়মা বলেছেন: হা হা ভাইয়া মাঝে মাঝে তোমার শিশুকাল, কিশোরকাল এবং যুবাকাল চোখের সামনে দেখতে পাই মানে তোমার কমেন্ট পড়ে পড়ে.... বুঝতে পারি ছোটবেলা মানে তোমার শিশুবেলা,কিশোরবেলা এবং যুবাবেলায় ক্রমান্বয়ে কি পরিমান লিটল/ মিডিয়াম/ বিগ মিঃ নটি ছিলে ........ :P

তবে হঠাৎ এত হিন্দ মিন্দ কেনো!!!!!!!! B:-)

নাকি ইহা ফার্সী! ওমার খৈয়াম রুবাইয়াৎ হইতে গৃহিত!!!!

৪৭| ০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১০:১০

কবি হাফেজ আহমেদ বলেছেন: আশা করি, সময় করে পড়ে নেব।

০৭ ই মে, ২০১৭ রাত ১০:২১

শায়মা বলেছেন: ওকে ওকে পড়ে নাও ভাইয়া!!! সময় করো!! :)

৪৮| ০৮ ই মে, ২০১৭ রাত ১:৩৬

ধ্রুবক আলো বলেছেন: বলতে ভুলে গিয়েছিলাম, টি-শার্ট ভালো লেগেছে + !:#P

০৮ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৩:৩৬

শায়মা বলেছেন: এইবার কি চাও বলো!!!!

কফি মাগ, ব্যাগ সবই এই মেন সিরিজ ব্রান্ডের দিতে পারি আমি।

৪৯| ০৮ ই মে, ২০১৭ দুপুর ২:৫৫

নাগরিক কবি বলেছেন: শায়মা আপু শায়মা আপু
তোমার বাড়ি ঘুরতে এসে
দেখি বড় তালা ঝুলে
তাইতো আমি চুপটি করে
যাচ্ছি ফিরে নিজের ঘরে।

যাচ্ছি বলে যাচ্ছি না'তো
আসবো আবার একটু বাদে
তোমার সাথে দুষ্টুমিতে
লিটল মিস ইন ট্রাবোল এ
B-) :)

আমিও ছড়া লিখি :-B

০৮ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৪:০০

শায়মা বলেছেন: হা হা

লিখেছো বেশ মজার ছড়া
ছড়িতা মিস্টার
অবশ্য অবশ্য মিস
ট্রাবল ইওর সিস্টার!!!!!!

৫০| ০৮ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৩:২১

জেন রসি বলেছেন: এই যে আমরা এতরকমের শিক্ষা দীক্ষার মধ্যে দিয়ে যাই, সেসব আসলে কতটুকু আত্মস্থ করতে পারি? দিনশেষে সেই সারভাইব সারভাইব খেলা, ইগো ইগো খেলা! দিনে দিনে শিক্ষা ব্যাপারটাই একটা আলগা ব্যাপার হয়ে যাচ্ছে! যা একটা সিস্টেমকে রান করানোর জন্য মানুষ তার মগজে লাগিয়ে রাখে! এমন ভাবে ভাবার একটা অপশন সব সময় থেকেই যায়!

তবে আপনার লেখার মাঝে একটা আলাদা ব্যাপার আছে। ধরনের মাঝেও আছে। যেখানে সবাই একটা কমপ্লেক্স বলয়ে ঘুরপাক খাইতে থাকে বুদ্ধিবৃত্তিক চর্চা করতে গেলে, সেখানে আপনি সমাধান খুঁজে না ফিরে আনন্দ খুঁজেন! এই আনন্দের( যার জন্ম বেদনা থেকেও হতে পারে) যে বোধগম্য ভার্সনটা আপনি প্রেজেন্ট করেন তাতে একজন পাঠকের উপভোগের জায়গা আছে যদি সে চায়!

বাচ্চাদের কিভাবে পড়াতে হয়, তার আধুনিক কায়দাকানুন নিয়ে আপনার কাছ থেকে একটা পোস্ট আশা করছি। :)

০৮ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৪:১৫

শায়মা বলেছেন: ১নং প্রশ্নঃ এই যে আমরা এতরকমের শিক্ষা দীক্ষার মধ্যে দিয়ে যাই, সেসব আসলে কতটুকু আত্মস্থ করতে পারি?

আবার ১নং প্রশ্নের প্রশ্নকারীর নিজস্ব উত্তরঃ দিনশেষে সেই সারভাইব সারভাইব খেলা, ইগো ইগো খেলা! দিনে দিনে শিক্ষা ব্যাপারটাই একটা আলগা ব্যাপার হয়ে যাচ্ছে! যা একটা সিস্টেমকে রান করানোর জন্য মানুষ তার মগজে লাগিয়ে রাখে! এমন ভাবে ভাবার একটা অপশন সব সময় থেকেই যায়!


১ নং প্রশ্নের আমার উত্তরঃ এত রকম শিক্ষা দীক্ষার মাঝে থেকে এবং শিক্ষিত হয়েও আমরা কেউ কেউ অনেকটুকুই শিখতে পারি আবার কেউ কেউ অল্প আবার কেউ কেউ কিছুই না মানে হাজার শিক্ষাতেও তাদের কোনোই কাজ হয় না ঐ যে লেজ সোজা না হবার মত ব্যাপারটা!
:P


কিন্তু উত্তরে কি বললে জিনিভাইয়া!!!!!!!!!! শিক্ষা পাক আর না পাক বা অশিক্ষাই পাক মানুষ কি সারভাইব করার ট্রাই করবেনা !!!!!!!! নাকি আদি যুগ থেকে করেনি!!!!!!!! সারভাইব করে করেই তো এত দূর এলো!!!!!!! B:-)

আর মানুষের কি দোষ! মানুষকে তো আবেগ ইমোশন বা ইগো ইগো স্বভাব এসবই দিয়ে বানানো হয়েছে!!!!!! সে সৃষ্টিকর্তাই বলো আর কোনো মানব সৃষ্টির কোনো অজানা উৎস হইতে সৃষ্ট জীবই বলো!!!!!! সকল জীবনের মধ্যে এই মনুষ্যজাতিকেই তো দেওয়া হয়েছে আবেগ ইগো এসব ব্যাপারগুলো!!!! কাজেই শিক্ষা অশিক্ষা কম বেশি যাই পাক ইগো ইমোশন ছেড়ে সন্যাসী হয়ে যাবে এটাও তো আশা করা কোনো বুদ্ধিমানের কাজ না!!!!!!!! :-/

এই যে এত বড় কথাটা যে বললে তুমি নিজেই কি আবেগ ইমোশন বা ইগোর বাইরে!!!!!!!!!! কাভি নেহি!!!!!!!!!!!!! আমি জানি আমি জানি!!!!!!!!!!! কাজেই .........
:P

শিক্ষা দীক্ষা নিয়ে মানুষ আবেগ ইমোশন, ইগো ভুলে যাবে গিয়ে মহাপুরুষ মহা মানবী হবে এই আশা করে লাভ নেই ভাইয়ু!!!!!!!!

মানুষ যা তাই থাকবে শুধু নানা রকম মানুষ, নানা রকম তার স্বভাব নানা রকমেই শিক্ষা পাবে। কেউ শোধরাবে কেই শোধরাবে না দ্যাট ইজ দেয়ার চয়েজ!!!!!!!!!!
তবুও শিক্ষা দীক্ষা এবং উচিৎ শিক্ষাও চলিবেই অনন্তকাল!!!!!!!!! :)

০৮ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৪:৩০

শায়মা বলেছেন: তবে আপনার লেখার মাঝে একটা আলাদা ব্যাপার আছে। ধরনের মাঝেও আছে। যেখানে সবাই একটা কমপ্লেক্স বলয়ে ঘুরপাক খাইতে থাকে বুদ্ধিবৃত্তিক চর্চা করতে গেলে, সেখানে আপনি সমাধান খুঁজে না ফিরে আনন্দ খুঁজেন! এই আনন্দের( যার জন্ম বেদনা থেকেও হতে পারে) যে বোধগম্য ভার্সনটা আপনি প্রেজেন্ট করেন তাতে একজন পাঠকের উপভোগের জায়গা আছে যদি সে চায়!

ঠিক ঠিক একদমই ঠিক। সেই শিশুকাল হইতেই আমি সদা ও সর্বদা একটু এক্সসেপশিওনাল হবার প্রাকটিস চালাইয়াছিলাম!!!!! :P
সেই চর্চা এখনও অব্যাহত রাখিয়াছি!!!!!!:) :) :)

বুদ্ধিবৃত্তিক চর্চা করিতে গিয়া এবং না করিতে পারিয়া মানে খেপার মত খুঁজিয়া খুঁজিয়া, কোনো কূল কিনারা না পাইয়া কমপ্লেক্স বলয়ে চক্রাকারে চক্রায়মান হইয়া সময় নষ্টের মত মূর্খ আমি নহি! কাজেই যারা সমাধানের আশায় সেসব করে বসে বসে সময় নষ্ট করে ও অবশেষে দিন ফুরাইলে সর্বস্ব খোয়াইয়া বসিয়া বসিয়া হা হূতাশ করে সেই সব আনসাকসেসেও আমি নাই!!!!!!!! কাজেই আনন্দই আমার আনন্দ! সুখে বাঁচিবার জন্য আনন্দ খোঁজা অতীব জরুরী!!!!!!!!:)

তাই বলে নেগেটিভ পিপলদের মত আমার আনন্দের পিছে বেদনা খুঁজে বেড়িওনা !!!!!!!! ভুল করিবেক!!!!!!!!!
স্ফুলিঙ্গ তার পাখায় পেলো ক্ষনকালের ছন্দ
উড়ে গিয়ে ফুরিয়ে গেল সেই তারি আনন্দ॥

সামান্য একটা স্ফুলিঙ্গের কাছেও যে কেনো মনুষ্যজাতি শিক্ষা পায়না ভেবে মরি! :(

এই ক্ষনিকের জীবনে এত কমপ্লেক্স বলয়ে চক্রাকারে ঘুরে না মরে আনন্দে বাঁচার দামই কি বেশি নয়!!!!!!!!!


সেই বোধগম্য ভার্সনই আমি প্রেজেন্ট করি ভাইয়ু!!!!!!!!

০৮ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৪:৩২

শায়মা বলেছেন: বাচ্চাদের কিভাবে পড়াতে হয়, তার আধুনিক কায়দাকানুন নিয়ে আপনার কাছ থেকে একটা পোস্ট আশা করছি। :)


কুবুদ্ধি দিও না!!!!!!!!!!!!! শেষে এই নিয়ে মাথা খাটাতে গিয়ে আর লিখতে লিখতে যতটুকু চুল বাকী আছে তাও পড়ে গিয়ে যা থাকবে তা সাদা হয়ে গিয়ে মরে যেতে চাই না!!!!!!!!!!!!!!!

৫১| ০৮ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৪:২৩

গেম চেঞ্জার বলেছেন: স্কুল-শিক্ষা শিক্ষা-ব্যবস্থা, পাঠদান!


(এটাই আমার কমেন্টো) ;)

০৮ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৪:৩৩

শায়মা বলেছেন: তুমিও!!!!!!!!!!!!!!!! :((

বুঝেছি তোমরা আমাকে মরে যেতে দাও!!!!!!!!!

৫২| ০৮ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৫:৪৯

ডঃ এম এ আলী বলেছেন:
দারুন লিখেছ হে আপুমনি , একসাথে লাইক ও প্রিয়তে :)
লিখাটি পড়তে বেশী সময় লাগে নাই কিন্তু লিংকগুলি মাশাল্লা ।

মনে হয় যেন বাচ্চাটিই হয়ে গেলাম , সময়টা ভাল কাটল
শুধু একা নই মিস নটি মিসেস নটি সবাইকে নিয়ে,
লাভের লাভ সকলের কাছে মিষ্টার রং উপাধিটা
পাকাপোক্ত হল , জোড় করে আমার সাথে
মিলায়া দিল , আমিউ তবে ছাড়ি নাই
মিস নটি থুককু সিসেস নটিটাও তার
কপালে লাগিয়ে দিলাম , বুজ
এখন কান্ডটা কি করেছ
পোষ্টটি দিয়া :) :)

০৮ ই মে, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:২২

শায়মা বলেছেন: হা হা সিসেস নটি কি ভেবোনা বুঝিনি ভাইয়া!!!!!!

তবে তুমি কি আর মিঃ নটি হবে তুমি তো মিঃ ওয়াইজ!!!!:)

৫৩| ০৮ ই মে, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:১৫

জেন রসি বলেছেন: কিন্তু উত্তরে কি বললে জিনিভাইয়া!!!!!!!!!! শিক্ষা পাক আর না পাক বা অশিক্ষাই পাক মানুষ কি সারভাইব করার ট্রাই করবেনা !!!!!!!! নাকি আদি যুগ থেকে করেনি!!!!!!!! সারভাইব করে করেই তো এত দূর এলো!!!!!!! B:-)

সারভাইব করার জন্যইত শিক্ষা! সারভাইব করতে করতেই মানুষ শেখে কিভাবে আরো ভালো ভাবে সেটা করা যায়! এভাবেই একটা সিস্টেম, নিয়ম কানুনের বলয় তৈরি হয়ে যায়! মানুষ তখন একদিকে সে সিস্টেমকেই রান করানোর জন্য চেষ্টা করে আবার আরেকদিকে মুক্তি চায়! আর এইসবের প্রতিক্রিয়ার মাঝেই এমন সব শিক্ষা দীক্ষার ব্যাপার চলে আসে যা মানুষ আত্মস্থ করতে পারেনা! যা তার মাঝে ভণ্ডামি হয়ে ঝুলে থাকে! আর শেষ লাইনে বলেছি এমন ভাবে ভাবার একটা অপশন সব সময়েই থাকে। তার মানে হচ্ছে এই ভাবনা একটা ঘটনার অনেকগুলো প্যারালাল ব্যাখ্যার একটা মাত্র!

আর মানুষের কি দোষ! মানুষকে তো আবেগ ইমোশন বা ইগো ইগো স্বভাব এসবই দিয়ে বানানো হয়েছে!!!!!! সে সৃষ্টিকর্তাই বলো আর কোনো মানব সৃষ্টির কোনো অজানা উৎস হইতে সৃষ্ট জীবই বলো!!!!!! সকল জীবনের মধ্যে এই মনুষ্যজাতিকেই তো দেওয়া হয়েছে আবেগ ইগো এসব ব্যাপারগুলো!!!! কাজেই শিক্ষা অশিক্ষা কম বেশি যাই পাক ইগো ইমোশন ছেড়ে সন্যাসী হয়ে যাবে এটাও তো আশা করা কোনো বুদ্ধিমানের কাজ না!!!!!!!! :-/

এই কথাটাই আগের প্যারায় বলেছি। এই আবেগ ইগোকে নিয়ন্ত্রন করে পারফেক্ট মানুষ হওয়ার শিক্ষা দীক্ষাই মানুষকে দেওয়া হয় ছোটবেলা থেকে। কিন্তু আপনি নিজেই সিকার করলেন যে মানুষ আসলে দিনশেষে তা আত্মস্থ করতে পারেনা। এটাই আমি বলতে চেয়েছিলাম! আর সন্ন্যাসী মানে অনেক গুলো সম্ভাবনাময় জীবনের একটামাত্র! ম্যাটার অব চয়েস!

এই যে এত বড় কথাটা যে বললে তুমি নিজেই কি আবেগ ইমোশন বা ইগোর বাইরে!!!!!!!!!! কাভি নেহি!!!!!!!!!!!!! আমি জানি আমি জানি!!!!!!!!!!! কাজেই .........

আমি কোন বড় কথাই কোন ফর্মে পরম সত্য হিসাবে হাজির করিনাই। তাই আপনার উত্তর দেখে হাসি পেল। আরো মজা পেলাম যে আপনি আমার ইমোশন র ইগো নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন! ;) যাইহোক একজন মানুষের মধ্যে ইগো, ভালো আবেগ, ক্ষতিকর আবেগ, ভয় বা সব রকম ব্যাপার সেপারই আছে। এই যে যারা এভারেস্ট জয় করেছে তাদের কি ভয় ছিলনা? ছিল। তারা কেউ ভয়শূন্য ছিলনা। কিন্তু তারা ভয়কে জয় করেছে। এই যে বুদ্ধ সাধক হলেন? তার মধ্যে কি লোভ লালসা ছিলনা? ছিল। তিনি জাস্ট সেসবকে উপেক্ষা করার একটা উপায় বের করেছেন! আবার উল্টা দিকে এই যে হিটলার এত মানুষের মৃত্যুর কারন হল তার মধ্যে কি ভালোবাসা ছিলনা? তাও ছিল। এমনকি সে সময় তার দেশের মানুষওঅন্ধের মত তাকে ভালোবাসত। একজন মানুষের মধ্যে সবকিছুই থাকে! কিন্তু কোনটাকে দিয়ে সে কি করবে এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতাও তার আছে। আর এটাই হচ্ছে আমাদের জার্নি! আবেগ ইগো সবার আছে! আমারও আছে! তবে কে আবেগ ইগোকে বিসর্জন দিয়ে সন্ন্যাসী হবে, কে তার ভালোবাসাকে প্রাধান্য দিয়ে মানবসেবা করবে, কে তার ভয়কে জয় করার জন্য পাহাড়চুড়ায় উঠবে, কে তার রাগকে আর বিশ্বজয়ের আকাঙ্ক্ষায় মানুষ হত্যা করবে এটা যারযার নিজের চয়েস এবং সেভাবে নিজেকে গড়ে তোলার ব্যাপার!



০৮ ই মে, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৪৫

শায়মা বলেছেন: সারভাইব করার জন্যইত শিক্ষা! সারভাইব করতে করতেই মানুষ শেখে কিভাবে আরো ভালো ভাবে সেটা করা যায়! এভাবেই একটা সিস্টেম, নিয়ম কানুনের বলয় তৈরি হয়ে যায়! মানুষ তখন একদিকে সে সিস্টেমকেই রান করানোর জন্য চেষ্টা করে আবার আরেকদিকে মুক্তি চায়! আর এইসবের প্রতিক্রিয়ার মাঝেই এমন সব শিক্ষা দীক্ষার ব্যাপার চলে আসে যা মানুষ আত্মস্থ করতে পারেনা! যা তার মাঝে ভণ্ডামি হয়ে ঝুলে থাকে! আর শেষ লাইনে বলেছি এমন ভাবে ভাবার একটা অপশন সব সময়েই থাকে। তার মানে হচ্ছে এই ভাবনা একটা ঘটনার অনেকগুলো প্যারালাল ব্যাখ্যার একটা মাত্র!

একদিকে সিস্টেম আরেকদিকে মুক্তি! আর তাই থেকে কনফিউশন? আবার তাই থেকে ভন্ডামী!!!!!! ও মাই গড!!!!!!! সাধে কি বলে !!!!!!! আই মিন বলেছো কমপ্লেক্স বলয়!!!!!! সোজা ভাষায় বললেই হয় শিক্ষা দীক্ষা পড়ে শুনে নিয়েও সেটা ফলো করতে গিয়েও ইগো ইমোশনের গেড়াকলে পড়ে সেটা না মানতে পারা!!!!! এখানে ভন্ডামীর কি হলো!!!!!

এমনিতে কি আর প্রবাদ আছে জিলাপীর পেচ!!!!

যাইহোক এখানেও একেক জনের চিন্তাধারা ভিন্ন মতাদর্শ রয়েছে তোমার চোখে যা ভন্ডামী একজন মনোবিদের চোখে তাহাই ক্রিটিক্যাল হিউম্যান সাইকোলজী যার অনেক রহস্যই আজও ভেদ করা সম্ভব হয়নি! আবার একজন সায়েন্টিস্টের চোখে হয়তো পিটুইটারীর খেলা মাঝে মাঝেই সেরাটিন ডোপামাইন নানবিধ প্রক্রিয়া বিক্রিয়ায় বন্ধুর পথ অতিক্রম করেও কামরূপ কামাক্ষার সন্যাস গ্রহন করে! উফফ আমিও দেখি কমপ্লেক্স বলয়ের চক্করে পড়ে জিলাপীর পেচ কষবার ব্যার্থ চেষ্টা চালাচ্ছি !!!!! :( :( :(

০৮ ই মে, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৫১

শায়মা বলেছেন: এই কথাটাই আগের প্যারায় বলেছি। এই আবেগ ইগোকে নিয়ন্ত্রন করে পারফেক্ট মানুষ হওয়ার শিক্ষা দীক্ষাই মানুষকে দেওয়া হয় ছোটবেলা থেকে। কিন্তু আপনি নিজেই সিকার করলেন যে মানুষ আসলে দিনশেষে তা আত্মস্থ করতে পারেনা। এটাই আমি বলতে চেয়েছিলাম! আর সন্ন্যাসী মানে অনেক গুলো সম্ভাবনাময় জীবনের একটামাত্র! ম্যাটার অব চয়েস!

না আমি মোটেও স্বীকার করিনি!!!!!!!!!!!!! দিনশেষে আত্মস্ত করতে পারেনা !!!!!! পারবেনা কেনো!!!!!!!! B:-) কেু বেশি পারে কেউ কম পারে কেউ কেউ পারেই না বলেছি!!!!! আর তুমি এটাই বলতে চেয়েছিলে!!!!!!!! :( উফ এত জিলাপীর পেচে পেচে বললে কি আমার সহজ সরল কমললতা মাথায় ঢুকবে বলো!!!!!!

আচ্ছা ভাইয়ু!!!!!!!!!!!! তুমি কি অনেক জিলাপী খাও!!!!!!!

০৮ ই মে, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৫৩

শায়মা বলেছেন: আমি কোন বড় কথাই কোন ফর্মে পরম সত্য হিসাবে হাজির করিনাই। তাই আপনার উত্তর দেখে হাসি পেল। আরো মজা পেলাম যে আপনি আমার ইমোশন র ইগো নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন! ;) যাইহোক একজন মানুষের মধ্যে ইগো, ভালো আবেগ, ক্ষতিকর আবেগ, ভয় বা সব রকম ব্যাপার সেপারই আছে। এই যে যারা এভারেস্ট জয় করেছে তাদের কি ভয় ছিলনা? ছিল। তারা কেউ ভয়শূন্য ছিলনা। কিন্তু তারা ভয়কে জয় করেছে। এই যে বুদ্ধ সাধক হলেন? তার মধ্যে কি লোভ লালসা ছিলনা? ছিল। তিনি জাস্ট সেসবকে উপেক্ষা করার একটা উপায় বের করেছেন! আবার উল্টা দিকে এই যে হিটলার এত মানুষের মৃত্যুর কারন হল তার মধ্যে কি ভালোবাসা ছিলনা? তাও ছিল। এমনকি সে সময় তার দেশের মানুষওঅন্ধের মত তাকে ভালোবাসত। একজন মানুষের মধ্যে সবকিছুই থাকে! কিন্তু কোনটাকে দিয়ে সে কি করবে এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতাও তার আছে। আর এটাই হচ্ছে আমাদের জার্নি! আবেগ ইগো সবার আছে! আমারও আছে! তবে কে আবেগ ইগোকে বিসর্জন দিয়ে সন্ন্যাসী হবে, কে তার ভালোবাসাকে প্রাধান্য দিয়ে মানবসেবা করবে, কে তার ভয়কে জয় করার জন্য পাহাড়চুড়ায় উঠবে, কে তার রাগকে আর বিশ্বজয়ের আকাঙ্ক্ষায় মানুষ হত্যা করবে এটা যারযার নিজের চয়েস এবং সেভাবে নিজেকে গড়ে তোলার ব্যাপার!


ঠিক ঠিক জীলাপীর পেচ একটা খুলে সহজ সরল করে দেওয়ায় অনেক অনেক থ্যাংকুশ!!!!!!!!!!!! :)

৫৪| ০৮ ই মে, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৩৫

জেন রসি বলেছেন: বুদ্ধিবৃত্তিক চর্চা করিতে গিয়া এবং না করিতে পারিয়া মানে খেপার মত খুঁজিয়া খুঁজিয়া, কোনো কূল কিনারা না পাইয়া কমপ্লেক্স বলয়ে চক্রাকারে চক্রায়মান হইয়া সময় নষ্টের মত মূর্খ আমি নহি! কাজেই যারা সমাধানের আশায় সেসব করে বসে বসে সময় নষ্ট করে ও অবশেষে দিন ফুরাইলে সর্বস্ব খোয়াইয়া বসিয়া বসিয়া হা হূতাশ করে সেই সব আনসাকসেসেও আমি নাই!!!!!!!! কাজেই আনন্দই আমার আনন্দ! সুখে বাঁচিবার জন্য আনন্দ খোঁজা অতীব জরুরী!!!!!!!!:)

কমপ্লেক্স বলয় বলেছি। কিন্তু তাদেরকে মূর্খ বা তারা সময় নষ্ট করেছে এটা ভাবলে আমি নিজেই মূর্খ হয়ে যাব! এক জীবনানন্দ দাস তার সারা জীবনেই কবিতায় কবিতায় এক প্রগাঢ় দুঃখ এবং বেদনার কথা বলে গেছেন। এখন আমি আনন্দবাদি বা ভোগবাদী হলেও তার এই কবিতাগুলোর একটা গুরুত্ব আমার কাছে আছে। এই যে তিনি সারাজীবন ধরে হতাশা নামক গভীর বোধের এক সাইকোলজিক্যাল ফ্রেমওয়ার্ক বিনির্মাণ করে গেলেন এটা আমার কাছে একজন মূর্খের কর্ম না! বরং সেখানে ডুব দিয়ে একজন প্রতিভাবান মানুষের মনোজগত থেকে ঘুরে আসা যায়! লেখকদের কমপ্লেক্স ভাবনার যে স্পেস সে স্পেস ভ্রমন করে করেই মানুষদের বুদ্ধির জগত বারবার বিবর্তিত হয়েছে।

আমার সাথে না মিললেই আমি কাউকে মূর্খ মনে করিনা। বরং বুঝার চেষ্টা করি। তাই আপনার লেখাও উপভোগ করি। :)

০৮ ই মে, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৫৮

শায়মা বলেছেন: কিন্তু ........
আমার সাথে না মিললেই আমি কাউকে মূর্খ মনে করিনা। বরং বুঝার চেষ্টা করি। তাই আপনার লেখাও উপভোগ করি। :)


এইটা আবার কি বললা!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!! X((

এক্সপ্লেইন ইট!!!!

৫৫| ০৮ ই মে, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৪০

জেন রসি বলেছেন: কুবুদ্ধি দিও না!!!!!!!!!!!!! শেষে এই নিয়ে মাথা খাটাতে গিয়ে আর লিখতে লিখতে যতটুকু চুল বাকী আছে তাও পড়ে গিয়ে যা থাকবে তা সাদা হয়ে গিয়ে মরে যেতে চাই না!!!!!!!!!!!!!!!

আনন্দ নিয়ে ভাবতে থাকুন! চুলের ভাবনা আর মাথায় আসবেনা! ;) আর দরকার হলে মাথা বেল করে ফেলুন! চুলও নেই, কাজের সব চুল সাদা হয়ে যাওয়ায় ভয়ও নেই! :P

০৮ ই মে, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:০২

শায়মা বলেছেন:


ভাইয়া এটা তোমার ছবি!!!!!!!!!!! :) :) :) :P

৫৬| ০৮ ই মে, ২০১৭ রাত ৮:৩৩

ধ্রুবক আলো বলেছেন: মিঃ মেন সিরিজ এমনই সব মজাদার গল্পের সমাহারে রচিত যা শিশুদের পড়ে শোনালে বা পড়তে দিলে পিচ্চিপাচ্চাগুলো যেমনই মজা পাবে তেমনি শিখতে ও বুঝতে পারবে অনেক ভুলগুলোই। .
আমার ভাগ্নের বয়স ৪ বছর। আরেকটু বড় হলে ওকে এটা পড়ে শোনাবো।

আমার কাছে মিঃ কোয়ায়েট এর গল্প বেশি ভালো লাগছে।




( আসলে পুরো গল্পটা পড়তে একটু সময় নিয়েছি, তাই প্রথম কমেন্ট করার লোভ সামলাতে না পেরে প্রথম ৪টা পড়ে কমেন্ট করে দিয়েছি, প্লিজ আপু আমার এই কর্মের জন্য রাগ করবেন না :) ).

০৮ ই মে, ২০১৭ রাত ৮:৫৫

শায়মা বলেছেন: ৪ এবং ৫ এই এইজ লেভেলের শিশুদেরই বিশেষজ্ঞ আমি। রোজ রোজ ওদেরকেই তো পড়ে শোনাই ভাইয়া। তুমি চাইলে তোমার পিচ্চু ভাগ্নেটার জন্যও একটা গল্প বলা রেকর্ড দিয়ে দেবো! :)

মিঃ কোয়ায়েট ভালো লেগেছে কেনো!!!!!!

বুঝেছি তুমিই মিঃ কোয়ায়েট!!!!!! :)

৫৭| ০৮ ই মে, ২০১৭ রাত ৮:৩৮

নাগরিক কবি বলেছেন: জেন রসি vs. শায়মা :-B


রিংগে রিগা রিংগে রিগা এহেহেহেহে এ

অর্থ জানি না আমি। :D বাসার পাশে এই গান চলতেছে B-)

০৮ ই মে, ২০১৭ রাত ৯:০৩

শায়মা বলেছেন: কি বলো ভাইয়া!!!!!!!

বলো জিলাপী vs. গরম তেলে ফোড়ন ঢালা :P X((

রিংগে রিংগে কি গানা জানিনা!!!!!!!! তবে ভাইয়ার প্রিয় গানা সেনোরিটা মার্গারিটা ........

বিশ্বাস না হলে ভাইয়াকেই জিগাসা করে দেখো............

৫৮| ০৮ ই মে, ২০১৭ রাত ৯:১১

নাগরিক কবি বলেছেন: হাহহাহাহাহা। লেখক বলেছেন : জিলাপী vs. গরম তেলে ফোড়ন ঢালা :P X((


:-B

০৮ ই মে, ২০১৭ রাত ৯:২৭

শায়মা বলেছেন: :P

৫৯| ০৮ ই মে, ২০১৭ রাত ১০:২৯

ধ্রুবক আলো বলেছেন: মিঃ কোয়ায়েট ভালো লাগার কারণ, বেশ কয়েক বছর যাবৎ আমার কোলাহল খুব একটা পছন্দ না, যদি অপরিচিত মানুষের ভিড় হয় তাহলে ঠিক আছে, এছাড়া আমি বাদ বাকি সময় নির্জনেই কাটাই, আমার বর্তমানে ঘনিষ্ট বন্ধু নেই!!

০৮ ই মে, ২০১৭ রাত ১০:৫৫

শায়মা বলেছেন: হায় হায় কি বলো ভাইয়া!
এমন হবার কারণ কি???

বেশি কোয়ায়েট কিন্তু ভালো না সে মিঃ কোয়ায়েট পড়লে বা ভিডিওটা দেখলেই বুঝবে।

৬০| ০৮ ই মে, ২০১৭ রাত ১০:৩১

ধ্রুবক আলো বলেছেন: পিচ্চু ভাগ্নের জন্যে যদি রেকর্ড লাগে তাহলে আমি জানাবো আপনাকে, আসলে অনেক দুস্টু একদন্ড স্থির থাকে না!
তবুও চেষ্টা করবো আপনার এই লেখা ওকে পড়ে শোনানোর।

০৮ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:০৪

শায়মা বলেছেন: ওকে তাহাই হোক। গল্প শুনে ভুলভুলাইয়া ভুলে যাক দুষ্টুমী!

৬১| ১১ ই মে, ২০১৭ সকাল ১০:২৬

সায়ান তানভি বলেছেন: দারুন দারুন গল্প। চমৎকার এককথায়। আপু বাচ্চাদের জন্য বই বের করে ফেলেন। ভাল মানের বইয়ের অভাব দেশে।

১২ ই মে, ২০১৭ রাত ১২:২৪

শায়মা বলেছেন: এই সব গল্প তো অনেক আগেই তারা বের করে ফেলেছে!!!!

আমাকে আবার নতুন করে গল্প বানাতে হবে তো!!!!!!!!! :(

অবশ্য গল্প বানাতে আমার জুড়ি নেই!!!!!!! :P

৬২| ১১ ই মে, ২০১৭ রাত ৮:০০

ইখতামিন বলেছেন: কেমন আছেন?

১২ ই মে, ২০১৭ রাত ১২:২৬

শায়মা বলেছেন: হা হা হা হা হা হা হা হা

এত কষ্ট করে এইখানে এসে এই কথা জিগাসা করতে হলো!!!!!!! :P

৬৩| ১২ ই মে, ২০১৭ দুপুর ১:৪১

নাগরিক কবি বলেছেন: ইখতামিন বলেছেন: কেমন আছেন?



আমি ও B-)

১২ ই মে, ২০১৭ দুপুর ২:১০

শায়মা বলেছেন: হায় হায় তুমিও কি সাত সমুন্দর পাড়ি দিয়ে এই কথা জানতে এলে!!!!!!!!!!! B:-)

৬৪| ১২ ই মে, ২০১৭ দুপুর ২:১৪

নাগরিক কবি বলেছেন: হাহাহাহাহা আমি সাত সমুদ্র নয় ৪জি নেটের কাঁধেচাপা হয়ে জানতে আসছি। আমার আপু কেমন আছে :-B




আজকাল গাজী ভাই কবিতা লিখতেছে। এবং সেই কবিতার চরণ আমাকে মন্তব্য দিচ্ছে =p~

১২ ই মে, ২০১৭ দুপুর ২:২৭

শায়মা বলেছেন: রিয়েলি!!!!!!!!!!!

তার মানে চাঁদগাঁজী ভাইয়ার মতে কবিতা লিখে বেকারেরা!!!!!!!! তাইলে সে এতদিন যে বেকার ছিলো তার ডাবল বেকার!!!!!

কই কই দেখে আসি তো!!!!!!!!!

৬৫| ১২ ই মে, ২০১৭ দুপুর ২:৩৩

নাগরিক কবি বলেছেন: |-) গাজী ভাই কবতে লেখা শুরু করছে। :( আমি কই যাই :((

১২ ই মে, ২০১৭ দুপুর ২:৩৯

শায়মা বলেছেন: টেবিলের নীচে যাওয়া যায় ......

তবে আমার সন্দেহ গাঁজী ভাইয়ু প্রেমে পড়েছে তাই এইসব কবিতা বের হচ্ছে!!!!!!!

কিন্তু বেচারী প্রেমিকার কথা ভেবে চিন্তায় আছি ! :(

৬৬| ১২ ই মে, ২০১৭ দুপুর ২:৪৪

নাগরিক কবি বলেছেন: B-) হাহহাহাহাহা :-B

১২ ই মে, ২০১৭ দুপুর ২:৪৫

শায়মা বলেছেন: :P

৬৭| ১২ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৫:৩০

হাতুড়ে লেখক বলেছেন: লাভ রিয়্যাক্ট দেওয়ার সিস্টেম নাই। থাকলে দু তিনটে একসাথে দিতাম। B-)

১২ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৫:৫১

শায়মা বলেছেন: নাই তো!!!!!!!

থাকলে সবাই এত এত লাভ দিত এক এক জনকে !!!!!!!!!

তবে লেখাটাকে দিচ্ছে নাকি লেখককে সেটা বুঝা কঠিন হত!!!!!!!!!

তবে তুমি কোনটাকে দিলে !!!! ভাইয়ু!!!!!! :)

৬৮| ১২ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৫:৫১

হাতুড়ে লেখক বলেছেন: তিনটারেই দিতাম আপু। ;)

১২ ই মে, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:১৩

শায়মা বলেছেন: তিনটা কই পেলে!!!!!!!

লেখক এবং লেখা !

ওহ বুঝেছি আরেকটা মিস শাইকে !!!!!!! :)

৬৯| ১২ ই মে, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:০২

হাতুড়ে লেখক বলেছেন: না আমাকে :P
এত সুন্দর ভালবাসাময় মন্তব্য দিলাম একটা রিয়্যাক্ট পাইনা বলো? ;)

১২ ই মে, ২০১৭ রাত ৮:৩০

শায়মা বলেছেন: ওওওওওওওওও!!!!!!!!!!! নিজেকেই!!!!!!!!!

হা হা হা :P

৭০| ১২ ই মে, ২০১৭ রাত ১১:১৪

শাহরিয়ার কবীর বলেছেন:
মিঃ লেজি সাহেব হাজির !! B-)

১৩ ই মে, ২০১৭ রাত ১২:২৫

শায়মা বলেছেন: হায় হায় মিঃ লেজি আজ কি কি লেজিমী করেছো?

৭১| ১৩ ই মে, ২০১৭ রাত ১২:৪৮

শাহরিয়ার কবীর বলেছেন:
আজকে সত্যিকারের ব্যস্ততার কারণে, দেওয়া কথা এখনো রক্ষা করতে পারিনি !! B-) পড়ে নিব কোন সমস্যা নেই ।


কেমন চলছে আম ,কাঁঠাল, জাম , লিচু খাওয়ার ছুটি !! B-)

১৩ ই মে, ২০১৭ রাত ১২:৫১

শায়মা বলেছেন: আরে ছুটি কিসের!!!!!!

ফাইনাল পরীক্ষা চলে!!!!!!!!

৭২| ১৩ ই মে, ২০১৭ রাত ১:০৩

শাহরিয়ার কবীর বলেছেন:
ফাইনাল পরি +ইক্ষা কার চলে ?? তোমার........ স্কুলের, না তোমার ? =p~

১৩ ই মে, ২০১৭ সকাল ১০:০২

শায়মা বলেছেন: আমারই ! মানে স্কুলেরই মানে শুধু স্টুডেন্টদেরই পরীক্ষা হয় এটা তো আর না!!!!! :(

৭৩| ১৩ ই মে, ২০১৭ দুপুর ১২:৩৬

বর্ষন হোমস বলেছেন: আপনি কোন ক্যাটাগরি তে আছেন?

১৩ ই মে, ২০১৭ দুপুর ১২:৫৫

শায়মা বলেছেন: আমি!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!

হি হি হি হি

তুমিই বলো কোনটা!!!!!!!!!!

৭৪| ১৩ ই মে, ২০১৭ দুপুর ২:৫৫

নাগরিক কবি বলেছেন: এই তগ্ধ দুপুরবেলা এক জনের বাড়িতে গেলাম। কইলাম খুধা লাগছে ভাত খামু। ভাগায় দিল :( :((

১৩ ই মে, ২০১৭ দুপুর ২:৫৭

শায়মা বলেছেন: সেখানে তো ভাত মাছ সবই দিয়ে এলাম!!!!!!

আবার এখানে কি!!!!!!!!!!!!!! 8-|

৭৫| ১৩ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৩:০২

নাগরিক কবি বলেছেন: =p~ দেখি নাই B-)

১৩ ই মে, ২০১৭ বিকাল ৩:১১

শায়মা বলেছেন: এখন তো পেলে!!!!!!!! :)

৭৬| ১৪ ই মে, ২০১৭ দুপুর ১২:৪৩

বিলিয়ার রহমান বলেছেন: সজারু!!!! ধুর মজারু পুস্ট!!:)


পিলাচ! :)

১৪ ই মে, ২০১৭ দুপুর ২:৪১

শায়মা বলেছেন: :)

সজারু, মজারু এবং আমার খুবই প্রিয়রু!!!!!!!! :) :) :)

৭৭| ১৬ ই মে, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:০৭

প্রতিফলন বলেছেন: ঘটনা কী?!

২১ শে মে, ২০১৭ বিকাল ৫:২১

শায়মা বলেছেন: :(

বলা দাবে না!!!!!!!!!

:P

৭৮| ১৬ ই মে, ২০১৭ রাত ১০:৩৮

উর্বি বলেছেন: বাহ। আসলেই ব্লগিং আপনার কাছ থেকে শিখা উচিত

২১ শে মে, ২০১৭ বিকাল ৫:২৩

শায়মা বলেছেন: ঠিক ঠিক!!!!!!

আমারও তাই মনে হয় উর্বিমনি!!!!!!!!!!

অবশ্য নিজেকে আমার সবজান্তা শমসেরিকাও মনে হয় !!!!!!!!!


কে যেন বলতো এই নাম !!!!!!!!

ধ্যাৎ ভুলেই গেলাম .......:(

৭৯| ১৯ শে মে, ২০১৭ রাত ২:০৬

আমি ভাল আছি বলেছেন: উফফফ

২১ শে মে, ২০১৭ বিকাল ৫:৩০

শায়মা বলেছেন: কি হয়েছে ভাত ভাইয়ু!!!!!!!!!!!!!!!

৮০| ১৯ শে মে, ২০১৭ রাত ২:০৮

কল্লোল পথিক বলেছেন:


কেমন আছেন?
মজার পোস্ট।

২১ শে মে, ২০১৭ বিকাল ৫:৩৪

শায়মা বলেছেন: ভালো আছি ভাইয়া!

কতদিন পরে দেখলাম তোমাকে!!!!!!

৮১| ১৯ শে মে, ২০১৭ বিকাল ৪:২৩

ফরিদ আহমদ চৌধুরী বলেছেন: একটা নতুন সনেট লিখলাম, একটু দয়া করে দেখে দিবেন। কবিতাতে কবির মূল্যায়নই বড়। তাই জানালাম। যদি কিছু মনে না করেন। আমার পোষ্ট প্রথম পাতায় যায়না বলে এভাবে জানাতে হলো!

২১ শে মে, ২০১৭ বিকাল ৫:৩৬

শায়মা বলেছেন: পারবোনা ভাইয়া। সনেট মনেট আমি দেখতে পারবোনা। নিজেই লেখো, নিজেই এডিট করো নয়তো বড় বড় কবিদের কাছে যাও। আমি এখন ইজি কাজে বিজি আছি!!! স্যরি!!!!!!!!!!!!!!

৮২| ২১ শে মে, ২০১৭ রাত ১০:১৮

নাগরিক কবি বলেছেন: হাহাহাহা, এগুলো কে এঁকেছে =p~

২১ শে মে, ২০১৭ রাত ১০:৩৮

শায়মা বলেছেন: আমার বেবিদের আঁকা ! :) :) :)

৮৩| ২১ শে মে, ২০১৭ রাত ১০:৫২

জেন রসি বলেছেন: বেবিদের আঁকা ছবিগুলো তাদের মতই অসাধারন :)

নিচে আমার আঁকা একটা বিখ্যাত চিত্রকর্ম দিলাম! ;) বেবিদের আঁকা ছবিগুলো তাদের মতই অসাধারন :)

নিচে আমার আঁকা একটা বিখ্যাত চিত্রকর্ম দিলাম! ;)







২১ শে মে, ২০১৭ রাত ১১:০০

শায়মা বলেছেন: হা হা এতো সত্যিই বিখ্যাত চিত্রকর্ম!

রাজাকারের ফাঁসি।

তাও আবার আনারস ফাঁসি।

৮৪| ২৩ শে মে, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৫০

গেম চেঞ্জার বলেছেন: রসি ভাই দারুণ টাকার মালিক হতে পারবেন! এই ধরণের চিত্রকর্মের মুল্য অনেক বেশি দরে বিক্রি হয়!! B-))

২৩ শে মে, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:১০

শায়মা বলেছেন: বাট সাবধান মহান ষোল বছরের অভিজ্ঞ চিত্রশিল্পী কিন্তু রসিভাইয়ার চিত্রকেও নকল ভাবতে পারেন সিজোফ্রেনিা রোগের বশে! :(

৮৫| ২৩ শে মে, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:১৫

গেম চেঞ্জার বলেছেন: বিদ্বেষ প্রতিহিংসার চর্চা না করাই বেটার পারসোনালিটি! এর বেশি কিছু এ ব্যাপারে বলতে চাচ্ছি না! তোমার অনেক আগের পোস্টে যেটা হয়েছিল সেটা যেভাবে সুন্দরভাবে ট্র্যাকল দিয়েছ, এবারও সেটাই আশা করছি!!

২৩ শে মে, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:২০

শায়মা বলেছেন: হা হা হা ঠিক ঠিক কত হাতী গেলো তল আর আবারও মনোযোগে আসার চেষ্টার ফল!!!!!!

অনেক দেখা আছে।

৮৬| ২৩ শে মে, ২০১৭ রাত ৯:৩৮

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: দেখে আসলাম দেবীর পদমুলে বসে পুজার নৈবদ্য নেয়ার একটি প্রয়াস , সেখানে ফুল কেন, কাটা দেয়ার মত পবৃত্তি হয়নি, তাতে যে তার চাওয়াটাই পাওয়া হবে । উপরের মন্তব্যের কথার সাথে সহমত ।
অনেক শুভেচ্ছা ও শ্রদ্ধা রইল

২৩ শে মে, ২০১৭ রাত ১০:১০

শায়মা বলেছেন: এই প্রয়াশ আজীবনই দেখেছি ভাইয়া। তবে এই মেয়েটা এমন গাঁজাখুরী কষ্টসাধ্য পোস্ট ফেদে বসলো কেনো এটাই বুঝলাম না।

বরং একটা সময় সে অনেক আপসেট থাকতো কিছুটা মানষিক বিপর্যস্ত আমরা ক,জন তখন ভয় পেতাম সে নিজের জীবনে কোনো পাগলামি করে বসে কিনা ভেবে। সব সময় উৎসাহ দিয়েছি যা এঁকেছে তাতেই। খুব অবাক হলাম আজ! এমন অবাক আগেও হইনি তা নয় তবে আজ বুঝলাম সিরিয়াস সমস্যা আছে জীবনবোধের ব্যাপারে।

যাইহোক কিছু যায় আসেনা । যে নিজে বুঝবেনা তাকে স্বয়ং বিধাতাও বুঝাতে পারবেনা। কি সব হাস্যকর কথা বলে যাচ্ছে একের পর এক নিজের পাগলামীি যুক্তি! যাইহোক .......

৮৭| ২৮ শে মে, ২০১৭ সকাল ১১:৫২

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: আঁকাআঁকিতেও ঝামেলা আছে ।
কপি কপি।
কপি কপি কপি।

প্রথমবারের কপিওয়ালা ২য় বারের কপিওয়ালার উপর চড়াও হওয়ার রাইটস কি আছে?
;)


২৮ শে মে, ২০১৭ বিকাল ৩:০০

শায়মা বলেছেন: কোন কপিওয়ালা ভাইয়া???

ফুলকপি???
বাঁধা কপি???

পাতা কপি???

ফটোকপি????

জেরক্স কপি????

নাকি কার্বন কপি!!!!!!

৮৮| ২৮ শে মে, ২০১৭ বিকাল ৩:১৯

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: ভালবাসার অনুলিপি । :)


২৮ শে মে, ২০১৭ বিকাল ৩:৫১

শায়মা বলেছেন: ওহ আরেকটা কপি বাদ পড়ছে।


ওলকপি!!!!:)

৮৯| ২৮ শে মে, ২০১৭ বিকাল ৪:৪৪

বে-খেয়াল বলেছেন: এক কথায় দারুন

২৮ শে মে, ২০১৭ বিকাল ৪:৪৫

শায়মা বলেছেন: আসলেই দারুণ!

এই গল্পগুলো যতবার পড়ি ততবারই হাসি!

৯০| ২৮ শে মে, ২০১৭ রাত ১১:৩৯

বিজ্ঞানবাক্স বলেছেন: অনেক সুন্দর পোস্ট :) শিশুদের জন্যে আরো লিখবেন।

৩০ শে মে, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৩৩

শায়মা বলেছেন: আচ্ছা লিখবো!
শিশুদের নিয়েই তো কাজ করি কিন্তু এই গল্পগুলা পড়তে আমার নিজেরই ভালো লাগে!:)

৯১| ৩০ শে মে, ২০১৭ রাত ১০:১৯

জেন রসি বলেছেন: মাঝেমাঝে বেশ কিছু ইন্টারেস্টিং ব্লগারের ইন্টারেস্টিং কাজকারবার উপভোগ করি ব্লগে! ;) বিশেষ করে যখন আপনার উপর অর্গানাইজড অ্যাটাক করা হয়। এসব নিয়ে একটা গল্প লিখে ফেলতে পারেন। ;)

৩১ শে মে, ২০১৭ রাত ২:১৯

শায়মা বলেছেন: গল্প লিখবো!!!!!!

ঠিক ঠিক ---

গল্পের থিম কি হবে?

অল মাই ইন্টারেস্টিং ব্লগারস............... ইন মাই লাইফ!!!!!! :)

অর

হাউ টু ফেস ওরগানাইজড এটাক!!!!!!!!! :) :) :)

কোনটা ???????


নাকি বিপদে বন্ধুর পরিচয় এবং আমার অবাক হবার পালা পার্বন ??? :) :) :)




৯২| ৩১ শে মে, ২০১৭ সকাল ১০:১৫

রাজীব নুর বলেছেন: একটা সাহায্য চাই বোন।

ব্লগে আমাকে ''জেনারেল'' করা হয়েছে। আমার লেখা কোথাও দেখা যাচ্ছে না। কেউ পড়তে পারছে না।
আমি জানি না, কেন আমাকে ''জেনারেল'' করা হলো। আমার অপরাধটা কি?
ব্লগে আমি শুধু মন্তব্য করতে পারছি।
''সত্যের ছায়া'' একটা মেইল এড্রেস দিয়েছিলেন- মকিন্তু সেটা কোনো কাজ করছে না। সামুতে ''সহযোগিতা'ইয় গিয়েও কোনো সহযোগিতা পাচ্ছি না।

এখন আপনি কি আমাকে 'জেনারেল' থেকে করার ব্যবপারে কোনো সাহায্য সহযোগিতা করতে পারবেন?

৩১ শে মে, ২০১৭ দুপুর ২:১৭

শায়মা বলেছেন: ভাইয়া

জেনারেল করলে তোমার একটা মেইল পাবার কথা। মেইলে জানারও কথা কেনো করানো হয়েছে। ফিডব্যাকে মেইল করো ভাইয়া।
এটাই একমাত্র পথ। দুইমাত্র পথ পরে দেখা যাবে খুঁজে। এখন প্রথম কাজটা করো feedback@somewherein.net এখানে মেইল করো। :)

৯৩| ৩১ শে মে, ২০১৭ দুপুর ২:৩৮

নাঈম জাহাঙ্গীর নয়ন বলেছেন: দারুণ বিষয় আঁকিঝুকি।
আপুর ছোট সময়ের আর্ট নাকি?

৩১ শে মে, ২০১৭ দুপুর ২:৪৪

শায়মা বলেছেন: না আমার বেবিদের আর্ট!

কিন্তু লেখাটা আসলে কিছু মজাদার বই নিয়ে আর সেসব বই এর ক্যারেকটারগুলো এঁকেছে আমার বেবিরা!!!!!! :)

৯৪| ৩১ শে মে, ২০১৭ দুপুর ২:৫০

নাঈম জাহাঙ্গীর নয়ন বলেছেন: বেবিদের শুভকামনা রইল, আপনার জন্যও।

৩১ শে মে, ২০১৭ বিকাল ৩:০০

শায়মা বলেছেন: থ্যাংক ইউ ভাইয়ামনি!!!!!!

অনেক অনেক ভালো থেকো।

৯৫| ০১ লা জুন, ২০১৭ রাত ৮:৪৯

প্রামানিক বলেছেন: দারুণ পোষ্ট। ধন্যবাদ

০১ লা জুন, ২০১৭ রাত ৮:৫৭

শায়মা বলেছেন: হা হা ভাইয়া!!!!!!!

এই পোস্ট বেবিদের জন্য বেশি দরকারী!!!!!!!

৯৬| ০২ রা জুন, ২০১৭ দুপুর ১:৪৩

অপু দ্যা গ্রেট বলেছেন: আপু কেমন আছেন?

দারুন লাগলো । পাঠদান আর শিক্ষা ব্যবস্ত্থা

০২ রা জুন, ২০১৭ বিকাল ৪:১৭

শায়মা বলেছেন: ভালো আছি ভাইয়া!!!!

আমারও অনেক অনেক পছন্দের এই শিক্ষামূলক গল্পগুলা! :)

৯৭| ০২ রা জুন, ২০১৭ দুপুর ২:২১

নাগরিক কবি বলেছেন: ভাল আছোনি বুবু, বহু দিন পরে আইলাম। ঝড় বৃষ্টি মাথায় লইয়্যা :-B

০২ রা জুন, ২০১৭ বিকাল ৪:১৯

শায়মা বলেছেন: ঝড় বৃষ্টি তোমার মাথায় কে ফেললো আবার!!!!!!! 8-|

৯৮| ০২ রা জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৪২

জুনিয়ার ব্লগার বলেছেন:
খুব সুন্দর পোষ্ট আপু !

০২ রা জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:২২

শায়মা বলেছেন: জুনিয়র ব্লগার তোমার নিক দেখে হাসছি!


এটা কেমন নিক তোমার ???

হা হা

যাইহোক অনেক অনেক থ্যাংকস!!!!!!!

অনেক ভালো থেকো! :)

৯৯| ০২ রা জুন, ২০১৭ রাত ১১:০৩

জুনিয়ার ব্লগার বলেছেন:
আপু , লজ্জা দিলেন মনে হয় ! :-P

আপনিও ভাল থাকবেন ।

০২ রা জুন, ২০১৭ রাত ১১:১৬

শায়মা বলেছেন: না না লজ্জা হবে কেনো!!!!!!!!

এমন নিক নিয়েছো কেনো ভাইয়া???

১০০| ০২ রা জুন, ২০১৭ রাত ১১:৪৯

জুনিয়ার ব্লগার বলেছেন:
এমনিতে নিয়েছি আপু । কেন খুব কি খারাপ দেখাচ্ছে ?

০৩ রা জুন, ২০১৭ রাত ১২:৩১

শায়মা বলেছেন: না পিচ্চু পিচ্চু লাগছে। :)

১০১| ০৩ রা জুন, ২০১৭ রাত ১২:৩০

সাঈদ আসাদ বলেছেন: ভাল লাগলো

০৩ রা জুন, ২০১৭ দুপুর ১২:৫০

শায়মা বলেছেন: থ্যাংক ইউ ভাইয়া!!!!!

১০২| ০৩ রা জুন, ২০১৭ দুপুর ১:১৪

বিজন রয় বলেছেন: বিচিত্র!! রকমারি।

০৩ রা জুন, ২০১৭ দুপুর ১:২২

শায়মা বলেছেন: বিজনভাইয়া!

কি খবর !

আজকাল আর দেখা নাই কেনো???


সবার আক্ষেপে আক্ষেপিত হয়ে হারায় গেলে নাকি!!!!!!

১০৩| ০৩ রা জুন, ২০১৭ দুপুর ১:২৬

বিজন রয় বলেছেন: দেখা হবে, দেখা হতেই থাকবে। কিন্তু সময় যে বড় নির্দয়।

সে ডুর্বি না বুর্বি তাকে আর দেখছি না।

০৩ রা জুন, ২০১৭ দুপুর ২:২৯

শায়মা বলেছেন: সে কে !!!!!

কার কথা বলছো!!!!!!!!!!!

আই হ্যাভ লটস অব বার্বি ডল!!!!!!!


আই লাইক বার্বি!!!!!!!!!! :)

১০৪| ০৩ রা জুন, ২০১৭ দুপুর ১:৩৩

বিজন রয় বলেছেন:

৫০০০০ এর বেশি মন্তব্য করেছেন। কিছুদিন পর ৫০০০০ এর বেশি মন্তব্য পাবেন।
হাসান মাহবুবের পরেই আপনি আছে।

আর একজন ছিলেন, এতদিন নিয়মিত থাকলে তারও ৫০০০০ এর বেশি হতো।

ব্লগিং চলুক অবিরত।
শুভকামনা রইল।

০৩ রা জুন, ২০১৭ দুপুর ২:৩২

শায়মা বলেছেন: কিসে আছি!!!!!!!

হামা বেবি ভাইয়ুর পরে কিসে আমি !!!!!!!!

আমি ফার্স্ট হবো!!!!!!!!!!! :)

১০৫| ০৩ রা জুন, ২০১৭ বিকাল ৪:০২

রাজীব নুর বলেছেন: আমার সমস্যা মিটে নাই।

Please Help---

০৩ রা জুন, ২০১৭ বিকাল ৪:১৩

শায়মা বলেছেন: ফিডব্যাকে মেইল দিয়েছিলে ভাইয়া?

১০৬| ০৪ ঠা জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৩৯

নূরএমডিচৌধূরী বলেছেন: দারুন গল্প। চমৎকার কথা মালা।
গুনে গুনে
ফাইফ সটার
*****

০৫ ই জুন, ২০১৭ রাত ৯:০৪

শায়মা বলেছেন: থ্যাংক ইউ ভাইয়া! :)

১০৭| ০৯ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ১২:১৫

কুঁড়ের_বাদশা বলেছেন:
ম্যাডাম এ পোষ্টে ২৩ নাম্বার লাইক কিন্তু আমার । !:#P

০৯ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ১২:২৪

শায়মা বলেছেন: এই বুঝি সুন্দর মন্তব্য হলো?

লাইক কমেন্ট ভাল্লাগসে বাদ দিয়ে তুমি আমার এই বেবিদের জন্য গল্পগুলো নিয়ে লেখা বিষয়ক কোনো সুচিন্তিত মতামত দেবে ভেবেছিলাম। তা না লাইকের গল্প! তুমি তো সত্যিই কুঁড়ের বাদশাই মনে হচ্ছে । তবে যাইহোক তুমি আমার মিঃ লেজির গল্পটা পড়ে দেখতে পারো। কুড়ে বলে আরও সহজ করে দিচ্ছি। এত বড় পোস্টের মাঝে কষ্ট করে যেন খুঁজতে না হয় তাই এখানেই দিলাম-
https://www.youtube.com/watch?v=Cvy9zyVSoAA

কষ্ট করে পড়তেও হবে না পড়েও শুনালাম :) :) :)

১০৮| ০৯ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ১২:৪২

কুঁড়ের_বাদশা বলেছেন:
এখনো অনেক ইন্ডাস্ট্রিজে গেলে, বেশি না এক ঘন্টায় কাজ করে দিলেও তারা টাকা না, ডলারে বেতন দেয় ,আপনি কি দিবেন বলুন ?



আচ্ছা আজ রাতে পড়ে ....... তিন লাইনের মন্তব্য করবো ।

০৯ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ১২:৫১

শায়মা বলেছেন:
বাপরে!!!!!!!!!

তি ----------------ই---------------------ন --------------- লা-------------ই------------ন.......


যাইহোক,

আমি কোনো ইন্ডাস্ট্রিজ মিজ বুঝিনা ডলার কলারও না তবে কি দেবো শুনে আমার মনে যা আসল তা শুনলে তুমি আমার বাড়িতে আগুন ধরায় দিতে পারো!!!!! অবশ্য তাতে তোমার কুড়েমী কেটেও যেতে পারে ! :P

১০৯| ০৯ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ১২:৫৪

কুঁড়ের_বাদশা বলেছেন:
ইদুর থেকে মুক্তি চাই B-) আপনার বাসায় ইদুর আছে ? ইদুর দেখে ভয় লাগে .............

https://www.youtube.com/watch?v=Pakak-KaQ4M

০৯ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ১:০৩

শায়মা বলেছেন: ইঁদূর!!!!!!!

না না না আমার বাসায় ইঁদুর বাঁদর, টিকটিকি তেলাপোকা কিচ্ছু নাই!!!!


পুরাই পেস্ট কন্ট্রোলড এরিয়া ! :)

কাজেই ভয়ের কারনই নাই!!!!!!

বাট আই লাইক বাঁশিওয়ালা! হ্যামিলনের বাঁশিওলায়ালে পেলে কতগুলারে ধরায় দিতাম ! X((


এই কথা ভেবেই আর ঐ কতগুলার ধরা খাওয়ার সময় ভেউ ভেউ কান্নাকাটি ভেবেই আমি হাসতে হাসতে মারা যাচ্ছি!!!!!


থ্যাংক ইউ আমার মনে এত হাসির উদ্রেক করানোর জন্য!
:P

১১০| ০৯ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ১২:৫৬

পার্থিব লালসা বলেছেন: বাহ। দারুন গল্প। চমৎকার কথা মালা।
++++++++++++
আসলেই ব্লগিং আপনার কাছ থেকে শিখা উচিত

০৯ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ১:০৬

শায়মা বলেছেন: মরছি!!!!!!!


এই থ্রেট তো আমাকে কদিন আগে একজন দিয়েছিলো!!!!!!!

তারপর না সে আমাকে ব্লগিং শিখাতে আসছিলো জানো???

মানে কেমনে লিংক দিতে হয় , কেমনে অন্যের ছবি দেখে না আঁকলেও দেখে দেখে তারটাই একেছি বলে হুজুর হুজুর পোস্ট দিতে হয় আবার শুধু তাইনা ছবি আকলেও সেটা কার্বন কিনে এনে তার উপরে রেখে রেখে আঁকতে হয় !!!!! :)

তুমি আবার একই থ্রেট দিচ্ছো নাতো!

আমি কিন্তু ভুই পাচ্ছি!!!!!!!!:(

আর তোমার নিক আর ছবি এমন কেনো!!!!!!


লা হাওলা কুয়াতা ইল্লাবিল্লাহেল আলীউল আজীম পড়ছি কিন্তু !:(

১১১| ০৯ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ১২:৫৭

কুঁড়ের_বাদশা বলেছেন:
কথা না রাখলে কিন্তু হ্যমিলিয়নের বাশি ওয়ালা মত আপনার স্কুলের বাচ্চাদের অবস্খা হয়ে যাবে । ;) =p~

০৯ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ১:১১

শায়মা বলেছেন: ছি ছি বালাই ষাট! আমার বাচ্চাদের দিকে এমন বদদোয়া দিওনা প্লিজ!!!!! :(

তার থেকে আমাকে যা খুশি তাই হোক বলো!

কারণ আই ক্যান ফাইট উইথ এনি বাঁশিওয়ালা!!!! :)

ওগো বাঁশিওয়ালা
বাঁজাও তোমার বাঁশি
সেই বাঁশিতে পড়ুক সবার গলায় হাজার ফাঁসি ....

আমি শুধু হাসবো রাশি রাশি :)

সন্মোহনের যাদুর বীনে
তার গলায় উঠবে কাশি!!!!!

আর বাঁজাবে বাঁশি!!!!!

হাহ তার আগেই তাহার লইবো জীবন
আমি সর্বনাশী! :) :) :)

১১২| ০৯ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ১:১৭

কুঁড়ের_বাদশা বলেছেন:
আরে না মজা করে বলেছি ......

হিপনোটিজম শেখার খুব শখ ছিল !



কেউ নাইরে ভাই এই ভুবনে গলায় ফাঁসি দেওয়া মত.............. ;)

০৯ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ১:২১

শায়মা বলেছেন: হিপনোটিজম!!!!!!!!!

এটা একটা ব্যাপার হলো!!!!

আমার থেকেই শিখে নাও কুইক কুইক :)

১১৩| ০৯ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ১:৩০

কুঁড়ের_বাদশা বলেছেন:

এটা নাকি ওস্তাদ ধরে করতে হয়, এখন এই নিয়ম ফলো করে যদি আমি আকাশে উড়া শুরু করলে বিপদ । =p~

মেডিটিশন পারো ? সেখানেও নাকি এক প্রকার নিজেকে নিজে বশ করা, কিছু শিখেয়ে দেওয়া হয় । মানে মন কন্টোল করা যায় খুব সহজে ।

০৯ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ১:৩৮

শায়মা বলেছেন: কি পারিনা তাই বলো!!!

লোকে বলে আমি সর্ববিদ্যা বিশারদ!!!!!!! :)

সকল কাজের কাজী! ( মনে মনে পাঁজী)

আরও বলে আমি সবজান্তা শমসেরিকা !!!!

আর মেডিটেশনের মত তুচ্ছ জিনিস পারবোনা !!!!!!!!! তাই কি হয়!!!!!!

ওকে ওকে ডান!!!!! কালকের মধ্যেই নিজেকে নিজে বশ করা বিদ্যা তোমাকে শিখায় দেওয়া হইবেক!!!!!

মেডিটেশন+ নিজেকে বশ+ মন কন্ট্রোল+ আশপাশ কন্ট্রোল+ আশপাশের চোদ্দ দুগুনে আঠাশ গুষ্ঠি কন্ট্রোল শিখায় দেেবো !

আর এটা মোটেও ফান না কহিলাম!!!!!

অতি সিরিয়াস শিক্ষন !!!!!!!


তবে হ্যাঁ বেশি বিদ্যা জানলে মাঝে মাঝে আকাশে উড়ে আসতেই হয়!!!!!!

মানে তুমি না উড়তে চাইলেও মানুষ উড়ায় দেয়!

আবার কিছু পরশ্রীকাতর মানুষ না এত্ত শয়তান । দূর থেকে গুলতি দিয়ে পিন ছুড়ে আকাশ থেকে ফেলেও দিতে চায়!!!!!

কি যে সব বিপদ !!!!!! একটু আকাশে শান্তিতে উড়বো তাও না!!!!! ধ্যাৎ!!!!!!!!!

১১৪| ০৯ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ১:৪৪

কুঁড়ের_বাদশা বলেছেন:
সাব আমি নাম দস্তখত শিখতে চাই. মাস্টার সাব আমি নাম দস্তখত শিখতে চাই. কোনদিন কেউ যেন বলতে না পারে তোমার ছাত্রের বুদ্ধি নাই......

হুমম, আমি শিখতে চাই বিদ্যা বড় অমূল্য ধন ..............

সেদিন মাল্টি নিকে তোমার বিরুদ্ধেও অনেকে কথা বলে কিন্তু তারাই তোমার সামনে স্যার স্যার করে তা কি জানো ?

০৯ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ১:৫৩

শায়মা বলেছেন: কি!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!

না তো !!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!

জানিনা !!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!

বাট তুমি জানলেই চলিবেক ভাইয়া!!!!!!!!!!!!!

আর একটা কথা কানে কানে তাদের নামগুলা বলে দাও না প্লিজ!!!!!!!!!! হ্যামিলনের বাঁশিওয়ালা পাঠিয়ে তাদেরকে কমোডে চুবাই দেই ! :)

যাইহোক যেহেতু তুমি তাদেরকে চেনো এবং আমাকেও তাদের থেকেই চিনেছো কাজেই আজকেই তারা তোমাকে বলবে কি জানো!!!!!!!!!!

হা হা হা হা শেষ পর্যন্ত তুই ও.........তুমিও........ আপনিও ..........

হা হা হা ফিল ইন দ্যা ব্লাংক!!!!!!!!!! :P

১১৫| ০৯ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ২:০৪

কুঁড়ের_বাদশা বলেছেন:
হা, হা, হা... যদি আমার নামে এই ধরণের কেউ অভিযোগ দিতে পারে তাহলে নাকে খদ দিব । সত্যের পক্ষে সবসময় ... কাউকে তেল মারার সময় আমার নেই বা কারো ক্ষতি করার। এখন যদি আপনি আমাকে ঐ দলের মনে করেন তাহলে কিছু করার নেই । এমন প্রমাণ কেউ কখনো বলতেও পারাবে না বরং যার জন্য করলাম চুরি সেই বলে চোর । কখনো বুদ্ধিমানরা একটু বেশি ভুল করে .... অশেষ ধন্যবাদ ।

০৯ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ২:১১

শায়মা বলেছেন: হা হা না না না তা মনে করিনি!

তবে নামগুলো জেনে রাখলে ভালোই হত! :)

বাঁশিওলাকে পাঠাতে সহজ হত ওদের ডেরাতে!!!!!! :P

যাইহোক আমি বরং তোমার জন্য পোস্ট লিখি!

আত্ম নিয়ন্ত্রন কৌশল .....:)

এটা আমারও কাজে লাগবে !!!!

মাঝে মাঝে নইলে নিয়ন্ত্রন হারাতে ইচ্ছা করে !!!!!! X((

১১৬| ০৯ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ২:২১

কুঁড়ের_বাদশা বলেছেন:
কাউকে চিনতে চাইলে তার ভাষা কপি কর । একজন মানুষ নিজেকে কখনো লুকিয়ে রাখতে পারেনা ।। আমার অভিজ্ঞাও এরকমের ,,,,,, এ ব্লগে ছেলে সেজে কিন্তু সে মেয়ে, ব্লগিং করে । অনেকে আছে ......

আর আমার কথা বলি, আমি যদি খারাপ হই জীবনে ধরতে পারবে না আমাকে। চ্যালেঞ্জ করলাম ।
ভাল থাকো ।মানুষকে একটু বিশ্বাস করো, সবাই খারাপ না।

০৯ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ২:৪৪

শায়মা বলেছেন: হা হা ভাইয়া !

ইউ আর ইমোশন্যাল !!!!!!! :P

মি টু!!!!!!!!

আর তাই কন্ট্রোলিং ইমোশন লার্নিং ইজ টু ইম্পোট্যান্ট টু মি নাও!!!!!

১১৭| ০৯ ই জুন, ২০১৭ বিকাল ৪:২৫

কুঁড়ের_বাদশা বলেছেন:
হা, হা, হা

নো ফুবলেমু , ও ব্লগ ছেড়েছি সবার সাথে একটু বেশি পিরিত হয়ে গেছিল তাই .....আর মনে হচ্ছেছিল কিছু পিছনেও লেগেছিল।

০৯ ই জুন, ২০১৭ বিকাল ৪:৩৭

শায়মা বলেছেন: উফ এই জন্য তুমি পালাইলা!!!!!!!!!


হায় হায় তোমাকে এত ভীতুর ডিম ভাবি নাই!!!!!!

নাহ আসলেও তো তুমি টু মাচ ইমোশোনাল!!!!!!


যাক আমি কিন্তু পোস্ট লেখা শুরু করেছি ভাইয়া!!!!!!!!

ততক্ষন ওয়েট করো!

পোস্ট লিখলেই পড়া লেখা করে শুরু করে দেবে নিয়ন্ত্রনবিদ্যা!

এর পর তুমি হবে সর্বংসহা ধরিত্রীর মতন কঠিন কোমল গান্ধার........ :) ইমন কল্যান রাগ ভৈরবী! :)

১১৮| ০৯ ই জুন, ২০১৭ বিকাল ৫:৩৪

চানাচুর বলেছেন: হা হা হা খুব মজা লাগলো B-)

০৯ ই জুন, ২০১৭ বিকাল ৫:৩৫

শায়মা বলেছেন: চানাচুরমনি!!!!!!!!!

তুমি কোনটা বলো!!!!!!


লিটিল মিস ?????????? B-)

১১৯| ০৯ ই জুন, ২০১৭ রাত ৯:৪৮

কুঁড়ের_বাদশা বলেছেন: শায়মা ম্যাডাম,
গল্পটা কিছুটা শিক্ষাণীয় বটে । আর আপনার স্কুলের সমন্ধে আমি তেমন কিছু জানিও না, যেমন ওখানে কি পড়ানো হয় বা তাতে কি সিলেবাস আছে। আপনার স্কুল যদি ইংলিশ মিডিয়াম হয়,তবে এক কাজ করুন । আপনি লন্ডনের বাচ্চাদের যে সিলেবাসে বই পড়ানো হয় । একটু কষ্ট করে সংগ্রহ করে তা ফলো করে দেখতে পারেন । আমার এক কাজিন লন্ডনে থাকে তার মেয়ে সহ দেশে এসেছিল তখন, আমি দেখেছি সে বই গুলোতে খুব সুন্দর ও সহজ ভাবে ... ,এমন কি বিজ্ঞানের কিছু অংশ দেওয়া আছে । এ বইগুলো যদি বাচ্চা পড়ে, আশা করি, এ যুগের ৯-১০ ক্লাসের পোলাপানও ওদের সাথে পাড়বে না । ;)

০৯ ই জুন, ২০১৭ রাত ১০:০৪

শায়মা বলেছেন: হ্যাঁ ভাইয়া আমার স্কুল ইংলিশ মিডিয়াম! তবে আমাদের সিলেবাস বা কারিকুলামও খুব খুব ভালো। লন্ডনের সিলেবাস কেমনে সংগ্রহ করতে হয় আমি জানিনা! :(

তবে তুমি আমার জায়নামনির গল্পটা পড়ে দেখো!
১০০% সত্য ঘটনা অবলম্বনে রচিত

১২০| ০৯ ই জুন, ২০১৭ রাত ১০:১০

কুঁড়ের_বাদশা বলেছেন:
নেট থেকে বা তোমার পরিচিত কেউ যদি থাকে বা নীলক্ষেত বইয়ের দোকান থেকে (যদি পাওয়া যায়) একটু সংগ্রহ করতে দেখতে পারো ।

আচ্ছা সময় করে পরের টা আবার পড়বো ।

০৯ ই জুন, ২০১৭ রাত ১০:২০

শায়মা বলেছেন: অনেক অনেক থ্যাংকস ভাইয়া!
তবে তোমার কাজিনের মেয়ের স্কুলের নামটা জানতে পারলে সেই স্কুলের সিলেবাস পাওয়া যেত হয়তো!

যাইহোক আমি তবুও খুঁজে দেখবো !:)

১২১| ০৯ ই জুন, ২০১৭ রাত ১০:২৬

কুঁড়ের_বাদশা বলেছেন:
এই মুহুেত বলেত পারিছ না, তবে জেনে জানাবো ।

০৯ ই জুন, ২০১৭ রাত ১০:৩০

শায়মা বলেছেন: ওকে ভাইয়া !!!

ইমোশন পোস্ট লেখা চলছে!!!!!!

:) :) :)

১২২| ০৯ ই জুন, ২০১৭ রাত ১০:৩৬

কুঁড়ের_বাদশা বলেছেন:
পোষ্ট টা কবে ডেলিভারি হচ্ছে ? B:-)


এই মাষ্টার .............. =p~

https://www.youtube.com/watch?v=WjnazRb7Dc4

০৯ ই জুন, ২০১৭ রাত ১০:৪২

শায়মা বলেছেন: হা হা গুড গুড ভেরী গুড !

বাট উই আর টিচারস লাইক দিস!!!!! :)

১২৩| ০৯ ই জুন, ২০১৭ রাত ১০:৪৪

কুঁড়ের_বাদশা বলেছেন:
মাষ্টারের বডি ল্যাংগুয়েজ ভল্লাগছে =p~

এবার যাইগা ।

০৯ ই জুন, ২০১৭ রাত ১০:৪৭

শায়মা বলেছেন: হা হা ওকে ভাইয়া ! অনেক অনেক ভালো থেকো! :)

কালকেই আমার পোস্টটা পড়ে যেও! :) :) :)

১২৪| ১০ ই জুন, ২০১৭ বিকাল ৫:৩৩

বিজন রয় বলেছেন: আপনি আমার ব্লগে যান না কেন?
আমি কি দোষ করলাম।

১০ ই জুন, ২০১৭ বিকাল ৫:৩৮

শায়মা বলেছেন: তুমি অনেক দোষ করছো!!!!!! X((

১২৫| ১০ ই জুন, ২০১৭ বিকাল ৫:৩৯

বিজন রয় বলেছেন: না আমি কোন দোষ করিনি।
আপনি কেন বলছেন এ কথা?

১০ ই জুন, ২০১৭ বিকাল ৫:৫৫

শায়মা বলেছেন: আমি বললাম কই!!!!!!!!!!

তুমি তো বললে ভাইয়া!!!!!!! B:-)

১২৬| ১০ ই জুন, ২০১৭ বিকাল ৫:৫৯

বিজন রয় বলেছেন: লেখক বলেছেন: তুমি অনেক দোষ করছো!!!!!! X((

১০ ই জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:০৬

শায়মা বলেছেন: তার আগে

১২৪. ১০ ই জুন, ২০১৭ বিকাল ৫:৩৩ ০
বিজন রয় বলেছেন: আপনি আমার ব্লগে যান না কেন?
আমি কি দোষ করলাম।


হি হি হি আমি ভেবেছিলাম চোরের মন পুলিশ পুলিশ!!!!!! :P

১২৭| ১০ ই জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:০৭

বিজন রয় বলেছেন: তার মানে আমার কোন দোষ নেই।
তাই আমার ব্লগে যাবেন।

১০ ই জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:১৯

শায়মা বলেছেন: যাবোনা! আর কারো ব্লগেই যাবোনা! :(


আমার ব্লগিং নিয়ে কিছু ব্লগার মানে নামে ব্লগার যদিও তাদেরকে লগ ইন হতে দেখাই যায় কালে ভদ্রে এবং পোস্ট দেওয়া তো দূরের কথা, শুধু অরগানাইজড প্রিপ্লানড গেইমে মাস্ক পরে ছুটে আসে তাদের কষ্ট কিছুটা যেন লাঘব হয় তাই।

১২৮| ১০ ই জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:২৩

বিজন রয় বলেছেন: অন্য কারো ব্লগে না যান, আমার ব্লগে যাবেন। আপনি যাদের কথা বলেছেন আমি তাদের মতো ব্লগার নই।

তবে আপনাকে হারতে দিতে পারি না।
ওদের কাছে হেরে যেতে দিতে পারি না।

ব্লগিং-এর অপর নাম লড়াই।

১০ ই জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৩১

শায়মা বলেছেন: তবে আপনাকে হারতে দিতে পারি না। B:-)

ওদের কাছে হেরে যেতে দিতে পারি না। B:-)

ব্লগিং-এর অপর নাম লড়াই। B:-)

গেছি!!!!!!!!!!

তো তোমার ব্লগে গেলে কি লড়াই হবে ভাইয়া!!!!!! :P

১২৯| ১০ ই জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৩৩

বিজন রয় বলেছেন: লড়াই বেঁচে থাকবে।

১০ ই জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৩৬

শায়মা বলেছেন: হা হা হা

একটা সিনেমার নাম শুনেছিালাম লড়াকু!!!!!!!! :P

১৩০| ১০ ই জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৪০

বিজন রয় বলেছেন: হ্যাঁ, আমাদের রুবেলের জীবনে অভিনীত প্রথম সিনেমা।

আপনিও লড়াকু।

অনেক লড়াই করেছেন ব্লগে, আড়াই বছর ধরে তো কম দেখলাম না।

১০ ই জুন, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৫২

শায়মা বলেছেন: মাত্র আড়াই বছর!!!!!!!


তার আগে কত লড়াই করেছি!!!!!!

লড়াই করতে করতে আজও আমি ক্লান্ত হইনি!!!!!!!!


কিন্তু আমার সময়ের অপচয় হয়েছে!!!!!!!!!

১৩১| ১০ ই জুন, ২০১৭ রাত ৮:২১

ডঃ এম এ আলী বলেছেন:
বাচ্চাদের ভিডিউটা দেখতে দারুন ছিল,
এবার হোক এক যে ছিল লুতুপুতু কুতুতুতু
আসতে না আসতেই হয়ে গেল ফুতুফুতু !!

১০ ই জুন, ২০১৭ রাত ৮:৩১

শায়মা বলেছেন: হা হা হা হা হা

ভাইয়া!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!

তুমি!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!

হাহাহহাহাহাাহহাহাহাহাহাাহহাাহহাহাহাহাহাহাহা

বাচ্চাদের ভিডিও দেখে বাচ্চা হলে!!!!!!!!!!!!!!!!


নাকি আমাকে দেখে!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!

হাহাহাহাহাহহাহাহাহাহাাহাহাহাহাহাহা ভাইয়া যাই বলো তাই বলো আমি অনেক হেসেছি!!!!!!!!!!!!!

তারা আমাকে এত্ত খেয়াল করেছে!!!!!!!!!!!!! এত্ত সুন্দর নিঁখুত অভিনয় ছিলো আমই নিজেই কনফিউসড হয়ে যাচ্ছিলাম আরে এইটা আমি নাতো!!!!!!!

এটা ভেবেই!!!!!!!!! :P

১৩২| ১০ ই জুন, ২০১৭ রাত ৮:৪৩

ডঃ এম এ আলী বলেছেন:
আপুমনি তুমি হলে জিনিয়াস দি গ্রেট
তাই তোমাকে নিয়ে হবেই একচোট :)

১০ ই জুন, ২০১৭ রাত ৮:৫৩

শায়মা বলেছেন: হা হা হা হহুমমমমমমম

আমি হবো মিস জিনিয়াস!!!!!


:P

বাট আই এ্যাম মিসিং মাই এক্টিং !!!!!!!!!!

ভাইয়া এটা দেখো

১৩৩| ১১ ই জুন, ২০১৭ রাত ১:৩৯

ডঃ এম এ আলী বলেছেন:
The Boss Baby - Boss Baby Memorable Moments
এর এখন পর্যন্ত ১০,৯২,৯৬০ জন দর্শকের মাঝে আমি একজন।
ভালই করেছ এমন একটি ইয়ংগার ভাইকে এনে ছেড়ে দিয়েছ এখানে
যে পুরা এ পরিবারটিকেই ডমিনেট করতে পারবে দারুনভাবে ।

১১ ই জুন, ২০১৭ দুপুর ২:৪৮

শায়মা বলেছেন: আই নিড দিস বসবেবী ভাইয়া!!!!!! :)

কেনো নিড কানে কানে বলবো! :P

১৩৪| ১২ ই জুন, ২০১৭ রাত ৯:৪৬

কুঁড়ের_বাদশা বলেছেন: ম্যডাম, আপনার আত্ননিয়ন্ত্রণ নিয়ে একটা পোষ্ট দেওয়ার কথা ছিল । এ পোষ্টে অপেক্ষায় বসে থাকতে থাকতে বর্তমানে বাতের ব্যথা সংক্রান্ত জটিলতায় ভুগছি । :-P

১৩ ই জুন, ২০১৭ রাত ১২:২২

শায়মা বলেছেন: হা হা স্যরি ভাইয়া!

একটু ঝামেলায় ছিলাম !!!!!!

কালকে অবশ্য অবশ্য অবশ্য পেয়েই যাবে!!!!!!!!


তবে এই পোস্ট লিখতে গিয়ে নিজেকেই নিয়ন্ত্রনের এত এত দিক দেখে আমি নিয়ন্ত্রিত হয়ে গেছিলাম!

১৩৫| ০৬ ই অক্টোবর, ২০১৭ বিকাল ৫:৪৪

একটি আটলান্টিক বলেছেন: আপু দেখেছো দেখেছো কত দেরিতে কমেন্ট করলাম!!!আমি লিজেন্ড না???

০৬ ই অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:০৯

শায়মা বলেছেন: হা হা অবশ্যই!!!!!!!

১৩৬| ০৬ ই অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৪৫

মলাসইলমুইনা বলেছেন: এটা কেমন পোস্ট ? আমিতো দেখি মিস্টার স্লো থেকে শুরু করে আরো অনেক কিছু হয়ে গেলাম এই লেখার ক্যারেক্টারগুলোর সাথে সাথে ! এতোদিনতো তাও যাই হোক কিছু একটা পরিচয় ছিল | এখনতো নিজের কাছেই পরিচয় সংকট কাটানো কঠিন হয়ে যাবে | কত ঝামেলা জীবনে -প্রতি সেকেন্ড, মিনিট, ঘন্টায়, দিনে, মাসে ও প্রতি বছরে সব সময় সব জায়গায় ! তারমধ্যে আপনার লেখা পড়লেও ঝালেমা ! কি যে করবো বুঝতেই পারছি না !

০৬ ই অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৪৭

শায়মা বলেছেন: তাইলে তো তুমি মিঃ কনফিউজ....... B:-)

১৩৭| ০৬ ই অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৫৬

মলাসইলমুইনা বলেছেন: হ্যা, শুধু এমিউজডই হতে পারলাম না এতোগুলো পরিচয়ের প্রকাশ্য অপ্রকাশ্য দাবি নিয়ে | কি যে ঝালেমায় ফেললেন ! কিছুদিন আগেই না বললেন আমার সাথে নো শত্রূতা ? আমিতো শত্রূজদের কেউ নই, ছিলামও না !!

০৬ ই অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:০৭

শায়মা বলেছেন: কে জানে তুমি কি ছিলে!

হা হা হা তবে যেই থাকো আর যাই থাকো নতুন রুপে

বন্ধু!!!!!!!! রহো রহো সাথে......

১৩৮| ০৬ ই অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:২৭

মলাসইলমুইনা বলেছেন: আমিতো অপ টাকে বাদ দিতে বললাম | তাও আবার অপবাদ দেবার চেষ্টা ! ইতিহাস টেনে আমাকে শত্রুজ প্রমান করতে হবে কেন? তার ঐতিহাসিক ভিত্তিটা কি ?

০৬ ই অক্টোবর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:৩৯

শায়মা বলেছেন: আমার কাছে কোনো ভিত্তি ফিত্তি দক্কাল নাই ভাইয়ু!!!!!!!!

নিউ নিক নিউ রিলেশন ব্যাস!!!!!!! হা হা হা

যাইহোক ডোন্ট ডিস্টার্ব এনি মোর নাও! বহুদিন বাদে একখান লেখা লিখিতে বসিয়াছি!

এই লেখনীও গপ্পোসপ্পো নিয়েই।

লেখা শেষ হলেই তোমাকে পড়াবো ওকে ভাইয়ু!!!!!!

১৩৯| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৭ দুপুর ১২:৫০

খায়রুল আহসান বলেছেন: বেশী কথা বলবোনা, এক কথায় অসাধারণ!
প্লাস ও "প্রিয়"তে।

০১ লা নভেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৪:৪৬

শায়মা বলেছেন: থ্যাংক ইউ ভাইয়ামনি!!!!!!!!! :)

১৪০| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৪:৫২

সত্যপথিক শাইয়্যান বলেছেন: মিঃ কোয়ায়েট-কে খুবই পছন্দ হলো, আপুনি।

লাইব্রেরী'র জব!!! ওয়াও!!!

০১ লা নভেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৪:৫৩

শায়মা বলেছেন: হা হা তুমি মিঃ কোয়ায়েট নাকি!!!!!! :)

১৪১| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৪:৫৭

সত্যপথিক শাইয়্যান বলেছেন: ইফ কোয়ায়েট = লাইব্রেরী'র জব............তাহলে অবশ্যই মিঃ কোয়ায়েট:)

০১ লা নভেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৫:৫৫

শায়মা বলেছেন: হা হা গুড গুড!!!! ভেরি গুড !!!!!!!!!

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.