নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

কি বলা যায়! কিছু কথায় নিজেকে ব্যক্ত করা সম্ভব না আমার পক্ষে। তাই একটা সিরিজে কিছু কিছু করে সবই বলছি।

সামু পাগলা০০৭

আমি অতিআবেগী, আগে ব্যাপারটা লুকানোর চেষ্টা করতাম। এখন আর করিনা।

সামু পাগলা০০৭ › বিস্তারিত পোস্টঃ

এই এই ব্লগ ভিজিটর/পাঠক আপনাকেই বলছি! জেনে নিন কেন সামুতে একাউন্ট খুলে ব্লগার হবেন? কি পাবেন? কি হারাবেন?

০৩ রা জুন, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৩২



সামু ব্লগে ব্লগ ও ব্লগার রিলেটেড বহু পোষ্টই লেখা হয়েছে। আমিও এমন অনেক পোষ্ট লিখেছি। তবে নন ব্লগারদের নিয়েও একটা পোষ্ট লেখা উচিৎ বলে মনে হলো। যারা ব্লগে শুধুই পাঠক, মনে মনে চান ব্লগার হতে কিন্তু সাহস পাচ্ছেন না, অথবা যারা ফেসবুকে বা অন্যকোন মাধ্যমে বিখ্যাত লেখক কিন্তু ব্লগে লেখেন না কঠিন মডারেশনের জন্যে, এই পোষ্ট তাদেরই জন্যে।

-----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------

আপনি বহুদিন ধরে সামুর পাঠক। কিছু কিছু প্রিয় ব্লগারের লেখা না পড়লে দিনটা পারই হয়না। প্রতিদিনই সময়ে অসময়ে ঢুঁ মেরে যান ব্লগে। সামুর ব্লগারদের উন্নতমানের লেখা এবং পারস্পরিক বন্ধুতা দেখে মাঝেমাঝে ভাবেন যে নিজেও যদি ব্লগিং করতে পারতেন! তারপরে ভাবেন, নাহ! কি দরকার ঝামেলার! পাঠক আছি, বেশ আছি। লেখালেখি কিভাবে করতে হয় তা তো জানিই না।

১) লেখালেখির জগতে হাতেখড়ির উপযুক্ত পরিবেশ: আনকোড়া লেখকদের জন্যে সামু ব্লগ ভীষনই সাহায্যকারী একটি প্ল্যাটফর্ম। একটা সময়ে বাংলা ভার্চুয়াল লেখালেখির জগতটা সামুকেন্দ্রিক ছিল, সামু তখন প্রচুর লেখক তৈরি করেছে। সামু লেখক লেখিকা তৈরির প্রমাণিত কারখানা।
যেহেতু সামু ব্লগে সব ধরণের লেখাই পাওয়া যায় তাই আপনাকে একেবারে দক্ষ কবি বা ঔপন্যাসিক হতে হবে তা কিন্তু নয়। আপনি যদি ভালো ছবি আঁকেন বা তোলেন, তবে ছবি ব্লগ দিতে পারেন। যদি ভালো রান্না পারেন তবে সেসব রান্না কিভাবে করলেন সেটা লিখতে পারেন। যদি বাগান করার শখ থাকে তবে নিজস্ব জ্ঞান অনুযায়ী কৃষি নিয়ে বলতে পারেন। বন্ধুদের সাথে হয়ত সমাজের নানা বিষয় নিয়ে আপনি তুখোড় আলোচনা করেন। যেসব সমসাময়িক বিষয়ে মতামত দিয়েও পোষ্ট দিতে পারেন। প্রথম প্রথম হয়ত খুব গুছিয়ে লিখতে পারবেন না। কিন্তু প্রতিটি সামনের পোষ্ট আপনার লাস্ট পোষ্টের চেয়ে ভালো হবে। যতো লিখবেন, বা যে শখের চর্চা ব্লগে করবেন সেটাতে আরো উন্নত হবেন। কেননা সেটা আপনার নিজের মধ্যে না থেকে ছড়িয়ে পড়বে নানা মানুষের মাঝে। আপনিও তাই সচেতন ভাবে নিজেকে উন্নত করার চেষ্টা করবেন।
মোটকথা ব্লগিং করতে ব্লগিং শিখে আসার প্রয়োজন নেই, ব্লগিং করতে করতে শেখার প্রসেস চলতে থাকে। শুধু নিজে লিখে নয়, গুণী ব্লগারদের লেখা পড়েও কিন্তু শেখার অন্ত নেই। অন্যান্য ব্লগারদের লেখা পড়ে সুন্দর সব মন্তব্য থেকেই শুরু হয় অনেক ব্লগারের পথচলা। একপর্যায়ে দেখা যায়, তারা এক দুটি গল্প কবিতা লিখতে লিখতে বইমেলায় বইও প্রকাশ করে ফেলেন! সবকিছুর প্রথম ধাপ ছিল সৎসাহস নিয়ে সামুতে একাউন্ট খোলা!



২) ব্যক্তিগত এবং পেশাগত জীবনে কমিনিউকেশনে আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠবেন: সামু এমন এক গৃহ যাতে নানা মতামতের মানুষ বসবাস করেন। আপনি একটি পোষ্ট দিলেন, সেই পোষ্ট নিয়ে দশটা মানুষ দশভাবে ভাববে। আপনাকে নিজেদের পয়েন্ট অফ ভিউ যুক্তিসহকারে বোঝাবে। মাঝেমাঝে আপনার ভাবনাটির ত্রুটি ধরে আরো ব্যাখ্যা করতে বলবে। তখন আপনি সে বিষয়টি নিয়ে আরো গভীরভাবে যুক্তি দিয়ে ভাববেন এবং সবার সাথে আলোচনা করবেন। কোন রাগ, ঘৃণা নয়, সম্মান নিয়ে বিপরীত বিশ্বাসী মানুষের সাথে তর্ক করা ভীষন বড় একটি গুণ। এর প্রয়োজনীয়তা ব্যক্তিগত এবং পেশাগত জীবনেও অনেক জরুরি। ব্লগে মন্তব্য প্রতিমন্তব্যের চর্চায় আপনি এ গুণে মাহির হয়ে উঠবেন। যেকোন টপিক নিয়ে লিখে বা অন্য ব্লগারদের লেখা পড়ে আলোচনা করে করে আপনার জ্ঞান বাড়বে। শুধু ভার্চুয়াল নয়, বাস্তবজীবনেও এর প্রতিফলনে কথাবার্তায় পটু এবং আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠবেন।



৩) সৃষ্টিশীলতায় কেটে যাক অবসর: ব্লগিং করা ভীষন আনন্দদায়ক এবং রিল্যাক্সিং একটি কাজ। প্রথম প্রথম একটু কঠিন মনে হলেও কিছুদিনের মধ্যেই মজাটা অনুভব করতে শুরু করবেন। আপনি একটি করে পোষ্ট লিখছেন এবং বাংলা লেখালেখির জগতে একেকটি কন্টেন্ট ক্রিয়েট করছেন। আপনি যে বিষয় নিয়ে লিখছেন গুগল বাংলায় কেউ সে বিষয়টি নিয়ে সার্চ করলে আপনার লেখাটি খুঁজে পাবে। অমর হয়ে থাকবে আপনার সৃষ্টি! আপনার সৃষ্টি সময়ে অসময়ে কাউকে আনন্দ দেবে, কারো উপকার করবে। তাই অবসর সময়ে টিভি বা ঘুমের মাঝে না কাটিয়ে ব্লগিংকে হবি হিসেবে বেছে নিব। সৃষ্টিশীলতায় মাতুন অবসরেও!



-----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------

আপনি সামুতে কেবলই পাঠক হিসেবে আসেন। পড়ে চলে যান। কিন্তু লেখালেখির অভ্যাসটি আপনার আছে। হয়ত বেশ দক্ষ লেখক। সামুতে লেখার উৎসাহ পাননা কঠিন মডারেশনের জন্যে। অন্যকোথাও পরিচিতি তৈরি হয়ে আছে, তাই সামুতে শুরু থেকে শুরু করতে ইচ্ছেও করেনা।

৪) অন্যের সুচিন্তিত, নিরপেক্ষ গাইডেন্স পাবেন: ধরে নিলাম আপনি ফেসবুকে ফেমাস লেখক, সামু ব্লগে শুধু পড়তে আসেন। এখানে কেউই আপনার ইয়ার, দোস্ত, আত্মীয় না। যদি কেউ প্রশংসা করে জানবেন মন থেকে করেছে, কেউ যদি সমালোচনা করেন তার পেছনেও সৎ কারণ আছে। এখানে কেউ আপনাকে খুশি করার জন্যে বা স্পেসিফিক্যালি আপনাকে হার্ট করার চেষ্টা সাধারণত করবেনা।
সামু পরিবারের একটি বৃহৎ অংশ শিক্ষিত এবং রুচিশীল। সেকারণে যেকোন লেখা নিয়ে তারা সুন্দর মতামত দিয়ে একজন লেখককে ভালো মন্দ বোঝাতে পারেন। লেখালেখির নানা ধরণের টিপস, ট্রিকস পাঠকের মন্তব্যেই খুঁজে নেওয়া যায়। বানান ভুল, বাক্য গঠনে অদক্ষতা সহ নানা সূক্ষ্ম বিষয়বস্তুও সামুর ব্লগারদের চোখ এড়ায় না। বেশিরভাগ ব্লগারই খুব মার্জিত ভাষায় সমালোচনা করেন, সেকারণে সমালোচনাকে অনুপ্রেরণা হিসেবে নিতে সমস্যা হবার কথা না। অপরিচিত মানুষদের নিরপেক্ষ, এবং বুদ্ধিদীপ্ত মতামত আপনাকে সাহায্য করবে নিজের ভুল ত্রুটিগুলো জানতে এবং শোধরাতে।



৫) নতুন এবং ব্যতিক্রমী মানুষের সাথে পরিচয় ও বন্ধুত্ব: ব্লগের সবচেয়ে মজার বিষয় হলো এখানে নানা বয়স, স্থান, পেশার মানুষ শুধু ব্লগার পরিচয়ে একত্রিত হয়েছেন। সবারই নিজস্ব মূল্যবোধ ও বিচার বিবেচনা আছে। বাস্তব জীবনে আপনি স্কুল/ভার্সিটিতে সমবয়সীদের সাথে মিশছেন, অফিসেও একই পেশার মানুষেরা একত্রিত হচ্ছেন। অন্য নানা বিষয়কেন্দ্রিক ব্লগ অথবা ফেসবুক পেইজে একই বিষয়ের লেখক লেখিকার সমাবেশ ঘটছে। কিন্তু সামু ব্লগ একটি পাঁচমিশালি ব্লগ, বিধায় এখানে আপনি ভিন্ন স্বাদের লেখা ও লেখকের সাথে পরিচিত হতে পারবেন। অন্যদের দেখাদেখি নিজ জনরা থেকে বেড়িয়েও কিছু লেখার চেষ্টায় আরো উন্নত হবেন।
প্রথম প্রথম ব্লগে কারো সাথেই আপনার পরিচয় থাকবেনা। সবার সাথে আপনাকে আস্তে আস্তে বন্ডিং তৈরি করতে হবে। নানা ধরণের গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে মতামত ও চিন্তার আদান প্রদান করতে করতে সুন্দর আন্তরিক বন্ধুত্ব যে কখন গড়ে উঠবে টেরও পাবেন না। আর নানা মতের মানুষের সাথে মিশতে গিয়ে আপনার ভাবনার গন্ডি বিশাল আকার ধারণ করবে। যেসব ব্লগারের ফ্যান আপনি, একসময়ে দেখবেন তাদের সাথেও ভালো বন্ধুত্ব গড়ে উঠেছে!



৬) চ্যালেঞ্জিং পরিবেশে হয়ে উঠবেন দক্ষ, শানিত: ব্লগে পরিচিতি লাভ করা অন্য অনেক প্ল্যাটফর্মের চেয়ে ভিন্ন। এখানে অনেক দক্ষ এবং অভিজ্ঞ লেখক লেখিকা আছেন, উন্নতমানের পাঠক আছেন। এক লাইন লিখে এখানে আপনি একশ দূরের একটা লাইকও পাবেন না। সামুতে সেইফ হওয়া বা প্রথম পাতায় জায়গা পাওয়াও বেশ কঠিন। প্রথম পাতায় জায়গা পেতে আপনাকে অপেক্ষা করতে হবে। আলোচিত এবং নির্বাচিত পাতায় জায়গা পেতে আপনাকে উন্নতমানের পোষ্ট লিখতে হবে। ব্লগে যাই পাবেন মেধা ও শ্রম দিয়ে পাবেন। এসব পড়ে ভয় পাচ্ছেন?
ভাবুনতো যদি আপনি একটি কঠিন জায়গায় সফল হতে পারেন তবে কি ভীষন আত্মবিশ্বাস জন্মাবে আপনার মধ্যে? ব্লগিং এর শুরুতে স্ট্র্যাগলের মধ্যে দিয়ে যেতে যেতে আপনার লেখার হাতও খুলতে শুরু করবে। সবার আলোচনা সমালোচনায় আপনার মনে হবে আরো ভালো কিছু লিখি! ব্লগে প্রথম মন্তব্য, প্রথম লাইক, প্রথম আলোচিত ব্লগ অথবা নির্বাচিত পাতায় ঠাঁই পাওয়ার অনুভূতিই আলাদা। অন্যরকম একটা আনন্দ এবং গর্ববোধ করবেন। সামু ব্লগের একেকটি সিড়ি ভাঙ্গতে ভাঙ্গতে কঠিন কিছু জয়ের অনুভবে আপনি ভার্চুয়াল ও রিয়েল লাইফে লেখনী, কথাবার্তায়, আলোচনায় হয়ে উঠবেন আরো দক্ষ!



-----------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------

ওহ! সামুতে ব্লগার হয়ে কি কি পাবেন তা তো বললামই। কি হারাবেন সেটাও বলি। হুমম, আসলে হারানোর কিছুই নেই আপনার। তাই মনের সংশয় কাটানো কঠিন কিছু নয়! জাস্ট ট্রাই ইট, ইউ মে এনজয় ইট মোর দ্যান এনিথিং! :)

আমি কিন্তু কোনভাবেই এটা বোঝাতে চাচ্ছি না যে পৃথিবীর সবাইকে ব্লগার হতেই হবে বা সামুতে আসলে শুধু পাঠক হয়ে থাকা যাবেনা। কিন্তু যাদের মধ্যে লেখালেখির প্রতিভা আছে এবং সেটা অন্যকোন মাধ্যমে প্রকাশ করছেন, তারা সামুর ব্লগার হলে সামুকে এবং নিজেকে আরো উন্নত করতে পারবেন। আর যাদের মনে সামুর ব্লগার হবার ইচ্ছে মাঝেমাঝেই উঁকি দিয়ে যায় কিন্তু সাহস পান না, দোমনায় আছেন তাদের ভাবনার পথকে আরো সহজ করার জন্যেও এ পোষ্টটির জন্ম।

যদি লেখাটি পড়ার পরে আপনার মনে ব্লগিং এর ইচ্ছে জাগে, তবে এই পোষ্টটিও দেখতে পারেন। এটি লেখা হয়েছে একেবারে নতুন ব্লগারদের জন্যে: সহায়তামূলক পোষ্ট; সামুতে স্ট্র্যাগলিং নতুন ব্লগারদের কমন পাঁচটি প্রশ্নের উত্তর। নতুন ব্লগারদের দৃষ্টি আকর্ষন করছি।

নতুন নতুন ব্লগার সামুতে এসে নিজ মেধা ও শ্রম দিয়ে সামুকে আরো উন্নত করবে সে আশায় শেষ করছি।

ছবিসূত্র: অন্তর্জাল!
তথ্যসূত্র: নিজ ব্লগীয় জীবন!

মন্তব্য ৫৬ টি রেটিং +১২/-০

মন্তব্য (৫৬) মন্তব্য লিখুন

১| ০৩ রা জুন, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৪৭

নূর মোহাম্মদ নূরু বলেছেন:
বাহ দারুণ পরামর্শ !!
নতুন পুরাতন সবারই
কাজে আসবে বলে আমার
বিশ্বাস। তবে কথা আছে!!!
ব্লগার কিন্তু নিজেদেরকে খুবই মারাত্মক
জ্ঞানী ভাবেন, এত বড় লেখা পড়ে দেখবেন কিনা
সন্ধেহ্ আছে। আর পড়লেও মন্তব্য করতে দ্বিধা করবেন!

০৩ রা জুন, ২০১৮ রাত ৮:১৪

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: প্রথমেই আন্তরিক ধন্যবাদ সময় নিয়ে পাঠ এবং মন্তব্য করেছেন বলে।

হুমম, নতুন পুরোনদের কাজ লাগুক, তবে যারা এখনো সামুর সদস্য হনইনি তাদেরও কাজে লাগবে আশা করি।

আমি সহমত পোষন করছি না। আমি জানি অনেক ব্লগার আছেন যারা ব্যস্ত জীবনের দায়ে বড় লেখা পড়তে পছন্দ করেন না, কিন্তু অনেকেই ভীষন আন্তরিকতার সাথে বড় লেখা পড়েন, একবারে না হলে কয়েকবারে এসে পড়ে যান। সব পাঠকেরই নিজস্ব চয়েস আছে। আর যে লেখা কাছে টানবে তাতে তো মন্তব্য করবেনই। আপনিই যেমন করলেন! :)

ভীষন ভালো থাকুন।

২| ০৩ রা জুন, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৫৩

মো: নিজাম উদ্দিন মন্ডল বলেছেন: ওহে পাগলু,
দারুন পোস্ট!
তবে এখনো পড়ি নি!
একটু পরে পড়ি??;)


@নূর মোহাম্মদ নূরু
(ব্লগার কিন্তু নিজেদেরকে খুবই মারাত্মকজ্ঞানী ভাবেন, এত বড় লেখা পড়ে দেখবেন কিনা)
X(

০৩ রা জুন, ২০১৮ রাত ৮:১৬

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: এহ! না পড়েই দারুন বলে!

পরে না এখনি জলদি করে পড়েন! :D

৩| ০৩ রা জুন, ২০১৮ রাত ৮:০১

শিখা রহমান বলেছেন: চমৎকার একটা লেখা!! সব পয়েন্টগুলোর সাথেই একমত। ব্লগিং শুরু করেছিলাম মূলত ৪ নম্বর কারণে, যদিও আমি ফেবুতে ফেমাস লেখক নই। ব্লগের নিরপেক্ষ পাঠক ও গুনী লেখকের কাছে নিজের লেখাগুলো যাচাই করে নিতে ইচ্ছে হয়েছিলো। সামু ব্লগ আমাকে হতাশ করেনি। কেউ পছন্দ করে বা চেনে বলে প্রশংসা করে না। আসলেই লেখাটা ভালো লেগেছে বলেই সেটা আমার জন্য বিরাট পাওয়া।

ব্লগিং শুরু করলে তারপরে বাকী পয়েন্টগুলো আজানিতেই ঘটে যায়। :)

শুভকামনা ও ভালোবাসা। বরাবরের মতো সুন্দর আর চিন্তাশীল পোষ্টের জন্য ধন্যবাদ। ভালো থাকবেন ব্লগের পাগলী মেয়ে।

০৩ রা জুন, ২০১৮ রাত ৮:২১

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: হেই শিখা আপু! পোষ্টে পেয়ে অনেক ভালো লাগল।

আচ্ছা আচ্ছা! হুমম সেটাই। কেউ হনেস্টলি সমালোচনা আলোচনা করলে ভালো লাগে। কিছু না বুঝেই পরিচয়ের খাতিরে ভালো ভালো বললে নিজেকে আর উন্নত করা যায়না। গ্রোথ থেমে যায়!

ঠিক। জাস্ট একাউন্ট খোলার দেরী, তারপরে সব পসিটিভ জিনিস একের পর এক অজান্তেই ঘটতে থাকে।

হাহা, আপু আপনি এত সুইট! কত আদর করে ডাকলেন, "ব্লগের পাগলী মেয়ে!" আমি পড়েই হেসে ফেলেছি। এই যে, এমন সব বন্ডিং এর জন্যে, আপু ভাইয়া বন্ধু পাওয়ার জন্যে হলেও সবার সামুতে জয়েন করা উচিৎ। :)

আন্তরিক মন্তব্যে ভীষন উৎসাহ দিয়ে গেলেন।
আপনার জন্যেও প্রচুর ভালোবাসা রইল।

৪| ০৩ রা জুন, ২০১৮ রাত ৮:৩৪

মো: নিজাম উদ্দিন মন্ডল বলেছেন: @"এখনি জলদি করে পড়েন!"
ওরে পাগলা!
আমি তো ব্লগে আসি আড্ডা দিতে, পড়তে আর খাটাশ লেখকদের কচুকাটা করতে!!:D

লেখা পছন্দ হয়েছে!!
কথা সত্য! অনেক পুরাতন লেখক ব্লগে লগ ইন করে না কিন্তু নিয়মিত পড়ে। তারাও ব্লগে আসতে পারে!!!:(

@"আসলে হারানোর কিছুই নেই আপনার।":(:(:(
ওহে লেখক! তোমার বয়স কম!
বন্ধু হারানোর ব্যাথা তুমি বুঝবে না!!:(

"কোথায় হারিয়ে গেল
সোনালি বিকেলগুলো সেই
আজ আর নেই।"

বি. দ্রঃ পছন্দমত প্রতিউত্তর না করলে আমি কমেন্ট করি না! :P

০৩ রা জুন, ২০১৮ রাত ৮:৪৩

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: না না না, তা চলবে না। আড্ডার পাশাপাশি পাঠ, লেখা, মন্তব্য, প্রতিমন্তব্য করতে হবে। :)

হুমম এক্স্যাক্টলি। ছেড়ে যাওয়া পুরোনরাও আবার নতুন করে শুরু করতেই পারেন। মিস ম্যানি অফ দেম!

বয়স নয় অভিজ্ঞতা মানুষকে জীবন বুঝতে শেখায়। বন্ধু, আপনজন হারানোর বেদনা আমি ভীষন ভালোভাবে বুঝি। ভীষন ভালোভাবে!

আছে আছে, সোনালি বিকেল কখনো ফুরায় না, নানা ধরণের ঘটন অঘটনে আমাদের দেখার ধরণ পাল্টে যায় ব্যাস। যেকোন পরিস্থিতিতে মনটাকে রংগিন রাখতে পারলে সোনালি সময়গুলো ফুরোবে না। :)

বি. দ্রঃ পছন্দমত মন্তব্য না করলেও আমি প্রতিউত্তর করি। আমি কত্ত ভালো! ;)

৫| ০৩ রা জুন, ২০১৮ রাত ৮:৪০

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: আমার আপুম‌ণির লেখা অ‌নেক বেশী ভা‌লো।

০৩ রা জুন, ২০১৮ রাত ৮:৪৪

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আমার ভাইয়ার লেখা, কথা সবই অনেক বেশী বেশী ভালো; সুইট আন্তরিকতা মিশে ভাইয়ার সবকিছুতেই! :)
ভালো থাকবেন ভাইয়া।

৬| ০৩ রা জুন, ২০১৮ রাত ৮:৪৯

উদাস মাঝি বলেছেন: আরে আপু সুপারব বলেছ !
সামু আসলেই শক্ত জায়গা, এতদিন পরেও একে ঠিক ঠাক বুঝে উঠতে পারলাম না :(
আমার মত অনেকেই আছে যারা ব্লগের চেয়ে ফেসবুকেই বেশি কমফোর্ট ফিল করে ।
এর কারন হয়ত ফেসবুক বেশি ফ্রেন্ডলি।

জান আপু ? একটা জিনিশ খুব খারাপ লাগে,
সামুর হাত ধরে যাদের লেখা-লেখিতে হাত পেকেছে তারা বেশির ভাগই চলে গেছে সামু থেকে । :(
তারা এটা কেন করল বুঝিনা, হয়ত পার্সোনাল কারন থাকতে পারে ।

এত পরিশ্রম করে অনুপ্রেরণামূলক সুন্দর এই পোস্ট লেখার জন্য তোমাকে ধন্যবাদ দিয়ে আর ছোট করলাম না ;)
ভাল থেকো পাগলা ব্লগার :)

০৩ রা জুন, ২০১৮ রাত ৯:০৪

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: হুমম সেটাই আমার পয়েন্ট। সহজ কিছুতে নিজের জায়গা করাতো কঠিন কিছু না, শেখার সুযোগ কম। পরিচিত মানুষের পক্ষপাতমূলক প্রশংসার চেয়ে অপরিচিত মানুষের সৎ মন্তব্যে অনেক কার্যকরী। সামুতে জায়গা করলে আপনি ফেসবুকেও জায়গা করতে পারবেন, কিন্তু ফেসবুকে ফেমাস মানে এই নয় যে সামুতেও ফেমাস হবেন! লাস্ট ছবির ম্যাসেজটি আসলেই শিক্ষনীয়! আমার কথাগুলোর সারমর্ম সেই ছবিটি।

অনেকে নানা ব্যস্ততায় সামু ছেড়েছে, অনেকে ব্লগ অথবা ব্লগারের প্রতি অভিমানে ব্লগিং ছেড়েছে। ছেড়েছে কি বলছি? হয়ত নিশ্চুপে ঘুরে যান সামু থেকে, কিন্তু আর লেখেন না! বিষয়টি কষ্টের, কিন্তু পুরোনদের কথাই সবসময় না ভেবে নতুনদেরও ওয়েলকাম জানাতে হবে। তাদেরকে সাহায্য করতে হবে যেন তারা উন্নত লেখা লিখতে পারে এবং ব্লগে পুরোনদের জায়গা একসময়ে নিতে পারে।

মন্তব্যটি ধন্যবাদহীন হলেও ভীষনই অনুপ্রাণিত হলাম। হাহা।
আপনিও ভীষন ভালো থাকবেন অ-পাগল ব্লগার।

৭| ০৩ রা জুন, ২০১৮ রাত ৯:৩৩

প্রান্তর পাতা বলেছেন: অনেক ভালো লাগলো। পাঠকরা উপকৃত হোক!

০৩ রা জুন, ২০১৮ রাত ৯:৩৭

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: থ্যাংকস এ লট ভাই! একদম তাই, পাঠকেরা উপকৃত হোক পোষ্টটির সাহায্যে।
ভালো থেকো।

৮| ০৩ রা জুন, ২০১৮ রাত ৯:৩৭

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: সামু চমৎকার একটি প্লাটফরম, তবে এখানে সেফ হওয়া একটা যুদ্ধ জয়ের সমান। সুন্দর পোষ্ট, লাইক।

০৩ রা জুন, ২০১৮ রাত ৯:৪০

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: যুদ্ধ জয়ের সমান বলেই ব্লগার একজন লেখনী যোদ্ধার মতো আত্মবিশ্বাসী হবে! সহজে পাওয়া কোনকিছু সেই আনন্দ বা সাফল্য দিতে পারেনা, যা সামু দিতে পারে। আর একটু লেগে থাকলে সামুও কঠিন নয়, ভীষনই ওয়েলকামিং একটি প্ল্যাটফর্ম।

পাঠ, মন্তব্য এবং লাইক দানে আন্তরিক ধন্যবাদ।
অজস্র শুভেচ্ছা।

৯| ০৩ রা জুন, ২০১৮ রাত ১০:১০

আখেনাটেন বলেছেন: সামুর পাঠকদের জন্য উৎকৃষ্ট পোস্ট, বিশেষ করে যারা সামুতে সাইন আপ করার ব্যাপারে দ্বিধাবিভক্ত।

চমৎকার করে বিষয়টি তুলে ধরেছেন। এখন যাদের জন্য লেখা উনারা বিষয়টি বুঝলেই হয়। শুভকামনা ব্লগার সামু পাগলা ০০৮।

০৩ রা জুন, ২০১৮ রাত ১০:১৬

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: সামুর পাঠকদের টার্গেট করেই পোষ্টটি লেখা।

এখন যাদের জন্য লেখা উনারা বিষয়টি বুঝলেই হয়।
এক্স্যাক্টলি মনের কথাটি বলেছেন।

আপনার জন্যেও আন্তরিক শুভকামনা।

আর হ্যাঁ! আমি সামু পাগলা০০৭, আপনি একটু বাড়িয়ে দিয়েছেন। হাহা।

১০| ০৩ রা জুন, ২০১৮ রাত ১০:২৭

জাহিদ অনিক বলেছেন: এই ব্লগ আমাকে বানিয়েছে আজ কবি।

০৩ রা জুন, ২০১৮ রাত ১০:৪৬

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: সেই খুশিতে তুমি ক্ষনে ক্ষনে বদলাও নিজের প্রোফাইল ছবি! ;)

তোমার কথায় ব্লগ পাঠকেরা অনুপ্রেরণা পাবে আশা করি।
ভালো থেকো।

১১| ০৩ রা জুন, ২০১৮ রাত ১১:১৫

মো: নিজাম উদ্দিন মন্ডল বলেছেন: @"পছন্দমত মন্তব্য না করলেও আমি প্রতিউত্তর করি। আমি কত্ত ভালো!"

রেডিমেট ছড়াঃ
এত ভালো বলেই তো তোমরা
সামু ব্লগের আলো!!(লিজেন্ট);)
খাটাশ মোরা তাইতো মোদের
মুখ হয়ে রয় কালো!!:(

তোমার সাথে কোন একদিন
লড়াই হবে লড়াই, ;)
দেখবো সেদিন কোথায় থাকে
ভালো হবার বড়াই!:P


(এটা মানতেই হবে, সুন্দর প্রতিউত্তরে সামুর ভাগ্নীরা এগিয়ে!!;), আর ভাগ্নেদের প্রতিউত্তর রস-কষ হীন, খটমটে!:P )

০৩ রা জুন, ২০১৮ রাত ১১:৩৯

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: করিনি কোন বড়াই আমি
ওটা তো ছিল দুষ্টুমির জবাবে দুষ্টুমি
এটুকু যে বোঝে না সে অবুঝই বটে ;)
অবুঝের সাথে লড়াইয়ে মজা নেই মোটে! :D

তাই রব দূরে লড়াই হতে
কেউ আশাহত হলে কি যায় আসে তাতে? ;)
আমার রাস্তায় আমি চলি
কারো প্ররোচনায় নিজেকে না ভুলি! :)

আপনার ছড়াটি আসলেই ফানি। হেসে ফেললাম। অনেক ধন্যবাদ।
ভালো থাকবেন।

১২| ০৪ ঠা জুন, ২০১৮ রাত ১২:০৮

কাওসার চৌধুরী বলেছেন: আপনাকে ধন্যবাদ, সময়োপযোগী একটি লেখা পোস্ট করার জন্য। যারা নিয়মিত অন্য মাধ্যমগুলোতে লেখালেখি করেন কিন্তু সামুতে শুধু পাঠক হিসাবে পড়েন, উনাদের জন্য চমৎকার একটি দিক নির্দেশনামূলক পোস্ট। আমিও ব্লগে নতুন, তাই লেখাটি আমার জন্যও অনুপ্রেরণা।

ধন্যবাদ।

০৪ ঠা জুন, ২০১৮ রাত ১২:২৮

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: মোস্ট ওয়েলকাম!

প্রায় পোষ্টেই আপনার সুন্দর, সুচিন্তিত মতামত পাই। আন্তরিক কৃতজ্ঞতা সেজন্যে।

হ্যাঁ অন্য মাধ্যমের লেখকদের জন্যে এবং একেবারে আনকোড়া লেখকের জন্যেও সামু একটি অসাধারণ প্ল্যাটফর্ম। এই পোষ্টটি সেটা বোঝাতে পেরেছে সেটাই আশা করি।

ধন্যবাদ আপনাকে।
অনেক ভালো থাকুন।

১৩| ০৪ ঠা জুন, ২০১৮ সকাল ১০:০১

রাজীব নুর বলেছেন: হুম।

০৪ ঠা জুন, ২০১৮ সকাল ১০:১৫

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: হুম!? এই মন্তব্যের তো মানে করতে পারলাম না ভাই!

যাই হোক, উপস্থিতি জানানোর জন্যে ধন্যবাদ।
শুভেচ্ছা।

১৪| ০৪ ঠা জুন, ২০১৮ সকাল ১০:২৬

আবুহেনা মোঃ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন: হায়, হায়, এই লেখাটা ব্লগিং শুরু করার প্রথম দিকে (২০১১) কেন পেলাম না? তাহলে এতদিনে ব্লগিং-এর এ টু জেড ফকফকা কইরালাইতাম। যাক, বেটার লেট দ্যান নেভার।

থ্যাংক ইউ সামু পাগলা০০৭।

০৪ ঠা জুন, ২০১৮ সকাল ১০:৩১

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: হাহা! হেনাভাইইই! কি যে বলেন না! আপনার কোনকিছু লাগে নাকি? আপনি তো এমনিতেই ফকফকা! :)

পাঠ ও মন্তব্যে আপনাকেও থ্যাংক ইউ।
ভীষন ভালো থাকবেন ভাই।

১৫| ০৪ ঠা জুন, ২০১৮ দুপুর ১২:২১

মোস্তফা সোহেল বলেছেন: লেখা পড়িনি তবে হেনা ভাইয়ের মন্তব্য পড়েছি,হাহাহা।মনে হচ্ছে ১০ বছরে আগে এই লেখাটি পেলে আমারও অনেক উপকার হত!এখন আর পড়ে লাভ কি ;)

০৪ ঠা জুন, ২০১৮ দুপুর ১২:২৭

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: হাহাহা! সবগুলো হচ্ছে এক নাম্বারের ফাজিল! আড্ডাঘরের এফেক্ট এগুলো! :D

হুমম, আশা করি এখন যেসব অ-ব্লগার অথবা নতুন ব্লগাররা পোষ্টটি পড়ছেন, তাদের কিছু লাভ হবে। :)

ধন্যবাদ উপস্থিতি জানান দেবার জন্যে।
শুভেচ্ছা অজস্র!

১৬| ০৪ ঠা জুন, ২০১৮ দুপুর ১:০৫

প্রান্তর পাতা বলেছেন: ভালো থাকবেন।

০৪ ঠা জুন, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:০১

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আচ্ছা থাকব, তুমিও অনেক ভালো থেকো ভাই!

১৭| ০৪ ঠা জুন, ২০১৮ বিকাল ৪:৩৭

অনুতপ্ত হৃদয় বলেছেন: দারুন পোস্ট, আমার মতো নতুন ব্লগাদের কাজে আসবে।

ধন্যবাদ @সামু পাগলা ভাই

০৪ ঠা জুন, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:০৩

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আমি ভাই না, আপু।

এই পোষ্টের চেয়ে অন্য একটি পোষ্ট বেশি কাজে আসবে নতুনদের। এই পোষ্টেই সেটার লিংক দেওয়া আছে। দেখে নিতে পারেন।

পাঠ ও মন্তব্যে উৎসাহিত করলেন। ধন্যবাদ।
হ্যাপি ব্লগিং!

১৮| ০৪ ঠা জুন, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:১৯

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: মনে মনে যা বলব বলে ভাবছিলাম , অমা! হেনা ভাই আগেই বলে ফেলল!!!!

দারুন দারুন ভিন্ন ভিন্ন ভাবনায়
সাবলীল গতিময় লেখায়
মেতে থাকো, মাতিয়ে রাখো
নতুন পুরাতনে অনুপ্রেরণায়!

অন্তহীন শুভকামনা - - - - -

০৪ ঠা জুন, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:০৬

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: সখা দ্যা ব্যাক বেঞ্চার অবশেষে হাজির! :)

হাহা, হেনাভাই এক ঢিলে কতজনের পাখি যে মেরে দিল! ;)

বাহ দারুন কাব্যকণা লিখেছেন। হ্যাঁ এটাই আমাদের আশা সামুর জন্যে।

সকল শুভেচ্ছা আপনার জন্যে।

১৯| ০৪ ঠা জুন, ২০১৮ রাত ৮:০১

নাঈম জাহাঙ্গীর নয়ন বলেছেন: অনেক অনেক সুন্দর একটা পোষ্ট, ভালো লাগার মতো পরামর্শ ও কৌশল লেখনিতে যাদু ছড়িয়েছে, পাঠক একবার পোষ্টটি পড়লে পাঠকের পাশাপাশি লেখক হওয়ার সাধ জাগবে আমি নিশ্চিত।

আমার কথাই ধরুন, অনেকদিন আমি সামু ব্লগে ঘুরেছি কেবল সুন্দর সুন্দর কবিতা ছড়া আর সমসাময়িক লেখার খুঁজে। তখন এন্ড্রোয়েড সেট ছিল না আমার, তাই কেবল কথা সার্চ দিয়ে পড়তাম, মাঝেমধ্যে ভালো লাগার লেখা খাতায় লিখেও রাখতাম। তারপর একদিন এন্ড্রোয়েট এল হাতে, সহজ হয়ে গেল সামু দেখা। সাধ জাগলো ভালো লাগার পোষ্টে নিজের আনন্দটুকু জানিয়ে যেতে, সেজন্য একটা একাউন্ট দরকার, সেটাও করে ফেললাম একদিন (সে নিক বর্তমানে বিপদজনক অবস্থায়) তারপর এই নিক, সবার মাঝে থেকে নিজের কিছু চেষ্টা আর সকল উদার ব্লগার ভাইদের আন্তরিক উৎসাহে অনেক পোষ্ট লিখেছি, আমি একটি পোষ্ট লেখার সাহস করতাম না, এখন ব্লগে আমার তিনশোর কাছাকাছি পোষ্ট। সবচেয়ে বড় কথা সামু আমাকে আন্তরিকতা শিখিয়েছে, কিভাবে অপরিচিত সমালোচকের সাথে গুছিয়ে কথা বলা যায় সেটাও শিখেছি সামু থেকেই। মোটামুটি যেকোনো বিষয়ে চেষ্টা করলে এখন লিখতে পারি, তা ভালো হোক বা আবিজাবি। যাই হোক, মোটকথা সামু আমাকে লেখার চেতনাদান করেছে, লেখাটা আমার নেশায় পরিণত করেছে (এখন ব্যস্ততার দরুন একটু কমেছে)।

আপনার পোষ্ট পড়ে সুপ্রিয় পাঠক ভাইদের মনে উৎসাহ জাগুক নিজের ভেতর ঘুমিয়ে থাকা লেখককে জাগিয়ে তুলতে।

অনেকদিন পর আপু পোষ্ট পেলাম, আমি অবশ্য নিয়মিত হতে পারছিনা অনেকদিন যাবত।
ভালো আছেন নিশ্চয় ?
শুভকামনা সবসময় আপনার জন্য।

০৪ ঠা জুন, ২০১৮ রাত ৮:১৯

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: হেই নয়ন সাহেব! কেমন আছেন? কতদিন পরে পেলাম আপনাকে! অনেক ভালো লাগল আপনাকে দেখে।

অনেক অনেক সুন্দর একটা পোষ্ট, ভালো লাগার মতো পরামর্শ ও কৌশল লেখনিতে যাদু ছড়িয়েছে, পাঠক একবার পোষ্টটি পড়লে পাঠকের পাশাপাশি লেখক হওয়ার সাধ জাগবে আমি নিশ্চিত।
অনেক ধন্যবাদ, ভীষনভাবে অনুপ্রাণিত হলাম।

বাহ! কত গুছিয়ে নিজের সামু অভিজ্ঞতা বর্ণনা করলেন। একেকটি ব্লগীয় জীবন শত শত ঘটন অঘটনের সাক্ষী হয়ে থাকে।

সবচেয়ে বড় কথা সামু আমাকে আন্তরিকতা শিখিয়েছে, কিভাবে অপরিচিত সমালোচকের সাথে গুছিয়ে কথা বলা যায় সেটাও শিখেছি সামু থেকেই।
একদম আমার ক্ষেত্রেও তাই। সামুও আমাকে প্রচুর কিছু শিখিয়েছে। অনেক নতুন ব্লগার হিট হিট করে পাগল হয়। হ্যাঁ লেখক মন চাইতেই পারে যে তার লেখা বেশি মানুষ পড়ুক। তবে হিটের চেয়েও মূল্যবান পাওনা হচ্ছে উন্নত লেখনী, আন্তরিকতা ও দক্ষভাবে আলোচনার শিক্ষা যা ব্লগের মানুষদের কাছ থেকে পাওয়া যায়!

সামুই আমাদেরকে গড়েছে, গড়ে যাচ্ছে এবং সামু নতুন অনেক লেখককে গড়ার ক্ষমতা রাখে! নতুনদের ব্যাস একটু সৎসাহস ও আগ্রহ নিয়ে এগিয়ে আসতে হবে সামুর দিকে।

আপনার পোষ্ট পড়ে সুপ্রিয় পাঠক ভাইদের মনে উৎসাহ জাগুক নিজের ভেতর ঘুমিয়ে থাকা লেখককে জাগিয়ে তুলতে।
আমারো এই একই আশা।

আমি ভালো আছি ভাই। বেশ কিছুদিন হলো ব্লগে রেগুলার হয়েছি।
জলদিই ব্যস্ততা সব কাটিয়ে ব্লগে ফিরুন তো। আপনার গান, কবিতা মিস করি সবাই।

আপনার এবং আপনার পরিবারের জন্যেও সকল শুভেচ্ছা রইল।

২০| ০৪ ঠা জুন, ২০১৮ রাত ৮:১১

নূর-ই-হাফসা বলেছেন: আসলেই ভালো লিখেছেন । ব্লগ একটা ভালোবাসার নাম। খারাপ ভালো সব সময়ে ব্লগ ভালো বন্ধু ও বটে ।

০৪ ঠা জুন, ২০১৮ রাত ৮:২১

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: হেই নূর আপু!

হুমম ঠিক। লেখালেখির অনেক প্ল্যাটফর্মই আছে, তবে সামু একটা মায়ার নাম! ভালোবাসার নাম!

ভীষন সুন্দর কথা বলে গেলেন আপু। মন্তব্যে উৎসাহিত হলাম।
সবসময় হাসিখুশি থাকবেন।

২১| ০৪ ঠা জুন, ২০১৮ রাত ৮:৪০

নাঈম জাহাঙ্গীর নয়ন বলেছেন: আলহামদুলিল্লাহ্, ভালো আছি আপু। তবে কর্মব্যস্ততার দরুন একসাথে বেশিক্ষণ থাকা হয়ে উঠে না। তবে এখন থেকে সকল কাজের ফাকে অল্প অল্প সময় হলেও রেগুলার হবো ভাবছি।
সামহোয়্যারইনব্লগ আমার অনলাইন বসতবাড়ি মনে করি আপু, আমার আত্মার আত্মীয় এই ব্লগ।
ব্লগ আমাকে দিয়েছে অনেক, আমি চেষ্টা করেও ব্লগকে ভালো কিছু দিতে পারছিনা, তবে চেষ্টা অব্যাহত আছে, থাকবে ইনশাআল্লাহ্।

আপু গুছিয়ে লেখতে আর পারলাম কই, সামুর প্রতি কৃতজ্ঞতার কোন শেষ নেই আমার।
ভালো মন্দ যেমনই লেখি, সামু সেগুলো আমার মৃত্যুর পরও ধরে রাখবে ভাবতেই এক অন্যরকম অনুভূতি হয়, এ এক নিখুঁত আনন্দ।

দোআ রাখবেন আপু

০৪ ঠা জুন, ২০১৮ রাত ৯:৪১

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: এক্সিলেন্ট! শুধু ভাবলেই চলবেনা, কিছু সময় ব্লগে দিতেই হবে! নয়ত ব্যস্ততার চাপে শখের, ভালোবাসার জায়গাটি চাপা পড়ে যাবে!

হ্যাঁ, আমারো ব্লগে আসলে মনে হয় এখানে নিজের এক টুকরো জমি কিনেছি! ব্লগ আমাকে অনেককিছু দিয়েছে। বিদেশে থেকেও দেশের একটা পরিবেশ পাওয়া বিশাল ভাগ্যের ব্যাপার। সামুর কাছে আমার কৃতজ্ঞতার শেষ নেই।

হাহা, আমি আপনার মন্তব্যের একেকটি লাইন পড়ছি আর জবাব লিখছি। ওপরের কথাটি লিখে নিচে এসে থেকে দেখি আপনিও একই কথা লিখেছেন! সামুর প্রতি কৃতজ্ঞতার কোন শেষ নেই আমার। সব ব্লগারেরই একই অনুভূতি আসলে।

হ্যাঁ এটা আমারো মনে হয়। আমি থাকি না থাকি, নানা বিষয় সার্চ করলে মানুষ আমার লেখাগুলো পাবে! দারুন একটা বিষয় সেটা।

ভীষন সুন্দর দুটি মন্তব্যের জন্যে আন্তরিক ধন্যবাদ।
অবশ্যই দোয়া করি, আপনিও আমার জন্যে দোয়া করবেন।

২২| ০৪ ঠা জুন, ২০১৮ রাত ৮:৫৭

আহমেদ জী এস বলেছেন: সামু পাগলা০০৭ ,



চমৎকার একটি লেখা । ধাপে ধাপে সুন্দর করে ছড়িয়ে গেছেন, একজন নন-ব্লগারই শুধু নন ; একজন নবীস ও নবীন ব্লগারও কি করে একজন শক্তিশালী লিখিয়ে হয়ে উঠতে পারেন তারই মন্ত্রবীজ ।

আসলে লেখা তো যে কেউই লিখতে পারেন , দিতেও পারেন । লিখতে পারাটা সামাজিক যে কোনও অঙ্গনের জন্যে কঠিন কিছু নয়, কঠিন হলো আপনি কি বোঝাতে চাচ্ছেন তা, আর আপনাকে তুলে ধরছেন কি ভাবে । একটি ব্লগকে আপনি যে ভাবেই সঙ্গায়িত করুন না কেন, মূলটা তো এখানেই যে, এটা আপনার দিনমানের খেড়োখাতা । খেড়োখাতায় যতো আঁকাবুকি ,কাটাকুটিই করুন না কেন শেষমেশ তার নির্যাসটুকু তো আপনার নিজের কথাই বলে, আয়নায় আপনার মুখটিই দেখায় ! আপনি কে...কেমন লোকটি আপনি ! আপনার ব্লগ যদি আপনাকেই দেখায়, তবে সেখানে আপনার ছবিটি কেমন ? আপনার রূচি -আপনার শিক্ষা , আপনার স্বকীয়তা , আপনার নিজস্ব ধ্যানধারনার সুন্দর এবং সত্যিকারের একটি ছবি সেখানে দেখা যায় কি ?

আর সামুতে এসে প্রাপ্তি ছাড়া হারানোর কিছুই নেই ।
আপনি যেমন বলেছেন , সামু লেখক তৈরীর প্রমানিত কারখানা তেমনি আমিও বলতে চাই - কে বলতে পারে, এই কারখানা থেকেই একদিন সৃষ্টি হবেনা সমৃদ্ধ এক ইতিহাসের মসলিন অধ্যায় ? আমাদের মধ্যে থেকেই বেরিয়ে আসবেনা ইতিহাসের পাত্রপাত্রী ? সামু হয়ে উঠবেনা একটি বিশ্বকোষ ?

শুভেচ্ছান্তে ।

০৪ ঠা জুন, ২০১৮ রাত ৯:৫৭

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আরেহ আহমেদ জী এস! আমার ব্লগবাড়িতে পেয়ে অনেক খুশি হলাম।

আপনার মন্তব্যটি পড়ার পরে আমার মনে হলো, এত সুন্দর করে কেউ কিভাবে লেখে!? আপনার এবং ব্লগের অনেকেরই মন্তব্য দেখে এটা মনে হয়। তখন ভাবি যারা ভার্চুয়ালে এত মুগ্ধতা জাগিয়ে নিজের মতামত তুলে ধরে, বাস্তবেও কি এতটাই সাবলীল? সেই ভাবনায় এমন মানুষদের সাথে সাক্ষাতের ইচ্ছে জাগে। আসলেই আপনি অনেক সুন্দরভাবে, গুছিয়ে নিজেকে প্রকাশ করতে পারেন।

যাই হোক, পোষ্ট বিষয়ক কথায় আসি।

চমৎকার একটি লেখা । ধাপে ধাপে সুন্দর করে ছড়িয়ে গেছেন, একজন নন-ব্লগারই শুধু নন ; একজন নবীস ও নবীন ব্লগারও কি করে একজন শক্তিশালী লিখিয়ে হয়ে উঠতে পারেন তারই মন্ত্রবীজ ।
অসংখ্য ধন্যবাদ। আমিও আশা করি যে নন ব্লগার, নতুনদেরকে কোন না কোন ভাবে পোষ্টটি হেল্প করুক।

একদম! লেখা তো যায়ই। কিন্তু সাবলীলভাবে লেখার জন্যে চর্চা প্রয়োজন। সবার নিরপেক্ষ মতামত পেয়ে লেখার সময়ে নানা মতের মানুষের কথা মাথায় রেখে লেখাও একটি বড় গুণ। একবার ব্লগিং শুরু করে দিলে সামুই ট্রেইনের মতো একটি সুন্দর গন্তব্যের দিকে নিয়ে যেতে থাকে। টিকিট কাটার সৎসাহটা জরুরি।

খেড়োখাতায় যতো আঁকাবুকি ,কাটাকুটিই করুন না কেন শেষমেশ তার নির্যাসটুকু তো আপনার নিজের কথাই বলে, আয়নায় আপনার মুখটিই দেখায় !
আপনার এই কথাটি অসম্ভব ভালো লাগল। অনেকদিন আমার মনে থাকবে। আসলেই! এলোমেলো, অগোছালো আমিও তো দিনশেষে আমারই রূপ! এই কথাটি জন্যে মন্তব্যে লাইক দিলাম।

সামুর মডারেশন যদি আরেকটু দ্রুতগতিতে কাজ করে সামুকে নতুনদের জন্যে ফ্রেন্ডলি একটি জায়গা বানাতে পারে, আর পুরোন ব্লগারদের অভিমান ভাঙ্গিয়ে ফেরাতে পারে তবে আপনার শেষের আশাগুলো বাস্তবে পরিণত হবেই হবে।

অনেক ভালো থাকবেন, সবাইকে ভালো রাখবেন।

২৩| ০৪ ঠা জুন, ২০১৮ রাত ১০:১৪

নাঈম জাহাঙ্গীর নয়ন বলেছেন:

সামুর মডারেশন যদি আরেকটু দ্রুতগতিতে কাজ করে সামুকে নতুনদের জন্যে ফ্রেন্ডলি একটি জায়গা বানাতে পারে, আর পুরোন ব্লগারদের অভিমান ভাঙ্গিয়ে ফেরাতে পারে তবে আপনার শেষের আশাগুলো বাস্তবে পরিণত হবেই হবে।

বিরক্তি নিবেন না আপু, ভালো লাগা মতামতে নিজের মত না জানিয়ে যেতে পারলাম না,
জি এস ভাইয়ের প্রতিমন্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো সামু মোডারেট গ্রুপ যদি একটু আমলে আনতে পারেন তবে সত্যিই সামু ব্লগ সকলের কাছে ফ্রেন্ডলি হয়ে উঠবে খুব দ্রুত। যেহেতু উল্টাপাল্টা দেখে ব্যবস্থা নেয়ার সিস্টেম চালু, সেহেতু অহেতুক প্রবল উৎসাহে ব্লগে আসা অনেক গুণী লেখকও আটকা পড়ে যায়। তখন মনটা খারাপই হয়। তিনদিন যদি তিনদিনেই থাকে তবে বিশ্বজয় করবে সামু ব্লগ আমার বিশ্বাস।
গ্রেট আইডিয়ার জন্য ধন্যবাদ আপু। সামু মোডারেট'রা মন্তব্যটুকু আমলে আনুক প্রত্যাশা আমারও।

০৪ ঠা জুন, ২০১৮ রাত ১০:২৪

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আরেহ বিরক্ত হবো কেন? ব্লগ তো মতামত আদান প্রদানেরই জায়গা। আমার তো ভালো লাগল যে আপনি প্রতিমন্তব্যও মন দিয়ে পড়েছেন। আমিও তাই করি, কোন লেখা পড়লে মন্তব্য প্রতিমন্তব্যগুলোও অনেক মজা করে পড়ি।

হ্যাঁ, এটা আমরা অনেকদিন ধরেই বলে যাচ্ছি। দরকার পরলে মডারেশনে আরো মানুষ নিয়োগ করুন। কিন্তু তিনদিনের কথা বলে তিন বছরও ওয়েট করানো হয় অনেককে। এতে করে নতুন একটি ব্লগার শুরুতেই ভীষন ধাক্কা খেয়ে সকল উৎসাহ হারিয়ে ফেলেন।

আর পুরোন অনেক গুণী ব্লগারদেরকেও আমরা হারিয়েছি। অনেকে ব্যস্ততার কারণে আসতে পারেন না। কিন্তু অনেকে লিখছেন ঠিকই শুধু সামুতে আসেন না। কারণ হচ্ছে সামুর প্রতি অভিমান! সৃষ্টিশীল মন অভিমানী হয়, আর কোন কিছুর বিনিময় তো আমরা ব্লগিং করিনা। এমন না যে টাকা পয়সা আয় হচ্ছে এতে। একদমই ভালোবাসার জায়গা থেকে করি। তাই গুণী ব্লগারদের অভিমান ভাঙ্গিয়ে তাদের ফেরানো সামুরই দায়িত্ব!

আপনাকেও অনেক ধন্যবাদ। আপনার কথায় নতুনদের মনের আকুতি আরো জোর পেল। মডারেশনের চোখে পড়বে, সামু আরো উন্নত হবে সে প্রত্যাশা আমারো।

শুভেচ্ছা রইল।

২৪| ০৫ ই জুন, ২০১৮ বিকাল ৪:৫২

নুরুন নাহার লিলিয়ান বলেছেন: খুব গোছান চিন্তা ভাবনা ভাই । ভাল লিখেছেন । শুভ কামনা রইল ।

০৫ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:৩৭

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: আমি ভাই না নাহার আপু, আমি মেয়ে! নিকের কারণে কনফিউশন হয়েছে, ইটস ওকে।

ভালোলাগায় উৎসাহ দিলেন অনেক।
সকল শুভকামনা আপনার জন্যেও!

২৫| ০৬ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৯:৩৩

MirroredDoll বলেছেন: খুব ভাল লিখেছেন
helpful

০৬ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৯:৪০

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: থ্যাংকস আপু! কাউকে হেল্প করতে পারলেই পোষ্টটি সার্থকতা পাবে!

২৬| ০৬ ই জুন, ২০১৮ বিকাল ৩:২৯

লাইলী আরজুমান খানম লায়লা বলেছেন: আশা করি এই পোস্টের মাধ্যমে অনেকের মনে আশার আলো জ্বলবে। সেই ২০০৯ সালে ব্লগিং করা শুরু করেছিলাম, এক সময় একটা দিন ব্লগে না আসলে আমার মনটাই আনচান করতো, এখন ব্যস্ততার জন্য ব্লগে ঢু দিতে পারি না, তবে মনটা এখনো পড়ে থাকে সামুতে ---

০৬ ই জুন, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:০৫

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: হেই লায়লা আপু!

আই হোপ সো টু!

আমারো বেশ অনেকদিন হলো ব্লগে। এখনো মন আনচান করে ব্লগে না আসলে। তবে ব্যস্ততায় মাঝেমাঝে ঢুঁ মারার সময়টা পাইনা।

মন্তব্যের জন্যে অনেক ধন্যবাদ।
শুভকামনা।

২৭| ১৬ ই জুন, ২০১৮ ভোর ৪:২৩

Kishor Mainu বলেছেন: পোস্টে কমেন্ট করার পর প্রায় ২/৩ সপ্তাহ পরো চেক করে দেখলাম,অথচ তখনো কোন রিপ্লাই নেই।বা কখনো অনেক চিন্তা করে একটা কমেন্ট করলাম,প্রশ্ন ছুড়ে দিলাম।প্রতিউত্তরে স্রেফ ধন্যবাদ।-মন খারাপ।

অনেক ঘাটাঘাটি করে একটা পোস্ট দিলাম।সেখানে কেউ একজন আমার লেখার সমালোচনা না করে ধর্ম/রাজনীতি টেনে আনল অথবা ব্যাক্তিগত আক্রমণে চলে গেল।-মেজাজ খারাপ

পরামর্শপ্রার্থি।

১৬ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৮:০৩

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: এই সব কিছু আমিও ফেস করেছি, এবং এখনো করছি। সব ব্লগারদেরই মন মেজাজ খারাপ করার মতো কিছু ব্লগার সামুতে আছেন।

প্রথম গ্রুপ: কমেন্টের জবাব না দেওয়া অথবা লম্বা মন্তব্যের ছোট জবাব দেওয়া।
এই ব্লগে আমার খুব প্রিয় এক লেখক আছেন বা ছিলেন, অসাধারণ গল্প লিখতেন, তার পুরো গল্প এনালাইসিস করে মন্তব্য করতাম, তিনি বলতেন "ধন্যবাদ!" আমি বিরক্ত হয়ে তার ব্লগে যাওয়া বন্ধ করে দেই। কেননা একটি মানুষ যদি পাঠককে গুরুত্ব না দেয়, তবে পাঠক অতি সহজেই তাকে এবং তার লেখাকে ভুলে যাবে।
সামু ব্লগের সেসব ব্লগার মন্তব্যের জবাব দেন না, বা সবাইকে একই প্রতিমন্তব্য কপিপেস্ট করে দেন আমি তাদের পোষ্টে কোন কমেন্ট করিনা। এরা ব্লগে ব্লগিং করতে আসেনই না, ফেসবুক বা অন্য কোনখানের লেখা ব্লগে শেয়ার করে লগড আউট হয়ে চলে যান। ব্লগের ৫০% যে মন্তব্য প্রতিমন্তব্য সেদিকে খেয়াল নেই।
আপনি আমার মতো তাদেরকে ইগনোর করতে পারেন যারা প্রতিমন্তব্যের ব্যাপারটিকে সিরিয়াসলি নেন না। কিছুদিন আপনার লাগবে বুঝতে যে এই স্পেসিফিক ব্লগারগুলো এমন করেন, একবার বুঝে গেলে তাদেরকে ইগনোর করুন।

দ্বিতীয় গ্রুপ: ক্যাচালবিদ!
কোন একজন যেকোন পোষ্টে রাজনীতি টানতে পারেন তা হয়ত জানি। যাই হোক, ট্রিক হচ্ছে কথা না বাড়ানো।

যে মানুষগুলো ঝগড়া করে বিনা কারণে তাদের মূল উদ্দেশ্য: ১) বিনোদন, ২) ব্লগে পরিচিতি লাভ। কুখ্যাত হলেও খ্যাতি তো!
আপনি যদি কথায় কথা না বাড়ান, তবে এই মানুষগুলো একদমই উৎসাহ হারিয়ে ফেলবেন। অন্যকাউকে ধরবেন।
গঠনমূলক সমালোচনা এবং ইউজলেস আক্রমণের পার্থক্য হচ্ছে একটি লেখা নিয়ে সমালোচনা করে, অন্যটি লেখককে সমালোচনা করে। আপনাকে দুটোর ভিন্নতা বুঝে ব্যবস্থা নিতে হবে। লেখার ভুল ধরালে, আরো জেনে তাকে জানাবেন, জানায় ভুল থাকলে স্বীকার করে নেবেন।
আর আক্রমণের জবাবে পাল্টা আক্রমণ না করে, "হুমম, পড়ে মন্তব্য করে যাবার জন্যে ধন্যবাদ!" বা, "আপনার মতের ভিন্নতা প্রকাশে ধন্যবাদ!" এমনকিছু লিখতে পারেন। মানে গায়ে মাখবেন না। বেশি ক্যাচালবাজ না হলে আর আপনার ব্লগে এসে ঝামেলা করবেনা।
তবে যদি বেশি বেশি করে, আপনি ইগনোর করলেও পিছু না ছাড়ে তবে ব্লক করে দেবেন। তখন সেইসব ব্লগার আপনার ব্লগে মন্তব্য করতে পারবেন না।

ভালো ব্যাপার হচ্ছে ব্লগে বিরক্তিকর ও ক্যাচালবিদ ব্লগার হাতেগোণা। একবার সেই দলের মানুষদের নামচেনা হয়ে গেলে আপনি ইগনোর করতে পারবেন, আর ব্লগের আন্তরিক ব্লগারদের দলেই থাকবেন শুধু। ব্লগে শান্তিপ্রিয় ব্লগার হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করুন। তখন ব্লগের চেয়ে শান্তি আর কোথাও হবেনা। মন মেজাজ ঠিক থাকবে।

ওপরে যা যা বললাম পুরোপুরি নিজের অভিজ্ঞতা থেকে। আমিও আপনার মতো সিচুয়েশনে পড়েছি এবং হ্যান্ডেল করেছি। আপনার ওপরেও টিপসগুলো কাজে লাগবে আশা করি।

২৮| ২০ শে জুন, ২০১৮ ভোর ৫:৪১

Kishor Mainu বলেছেন: অসংখ্য ধন্যবাদ আপু।
আশা করি আপনার পরামর্শ অনুসরণ করতে পারব।

২০ শে জুন, ২০১৮ সকাল ১০:৩৯

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: মোস্ট ওয়েলকাম ভাই!

আশা করি, পরামর্শগুলো কিছু সহায়তা করবে আপনার ব্লগিং ক্যারিয়ারে।
শুভেচ্ছা!

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.