নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমি কপি- পেস্ট করি ,আপত্তি থাকলে আমার পোস্ট পড়বেন না।।

শাহ আজিজ

আমি ফিচার , কপি পেস্ট , ও অনুবাদ লিখি

শাহ আজিজ › বিস্তারিত পোস্টঃ

একটি বিপ্লব কি আসন্ন ??

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ সকাল ৭:৫৪


গেল রাত ২ টার ছবি , ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা । আলতাফ হোসাইন রাজুর পোস্ট থেকে

কোটা সংস্কার বা বিলুপ্ত যাই হোক এর পরিপূর্ণ নিস্পত্তি হোক। দেশের অধিকাংশ মুক্তিযোদ্ধা বেচে নেই বা জীবন্মৃত । একজন ডাক্তার আমার ২ ডি ইকো করতে করতে বললেন আপনার ৬১, মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন? না। করে ফেলুন মুক্তিযোদ্ধার সার্টিফিকেট হার্ট অপারেশনে পুরো সুবিধা পাবেন । বেরুতে বেরুতে তাকে বললাম জীবনে কোন বিশেষ সুবিধার ভাত মুখে তুলিনি , তুলব না । রনাঙ্গনে যাইনি সুবিধা কেন নেব? ডাক্তার জবাবহীন।
কোটা সংস্কার দাবি উপলক্ষ মাত্র । একটি রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে ছাত্র ছাত্রীরা দাঁড়িয়েছে মুখোমুখি । ৬৯ এ ৬ এ পড়ি , টেনে বের করে নিল আমাদের মিছিলে , সেকি উত্তাল দেশ । ৯০ এর এরশাদ বিতাড়নের সময় দেশে , রাস্তায় নেমে এলাম ভিডিও ক্যামেরা হাতে, কি উত্তাল সময়। আজ ছাত্র ছাত্রীদের অনড় অবস্থান আমায় টোকা দিয়ে বলল সময় আসন্ন , ওরা তোর সন্তানের বয়েসি , নেমে পড় !! না , তা আর হচ্ছেনা এই অর্ধ পঙ্গু শরীর নিয়ে , ক্ষমা করে দিও সময় , আমার গর্জন যেন পৌঁছে যায় রাত দুটোয় অবস্থান নেয়া সন্তানদের কাছে ।
রাষ্ট্র তোমার আমার , শাসকের নয় ।

মন্তব্য ৬৩ টি রেটিং +১৫/-০

মন্তব্য (৬৩) মন্তব্য লিখুন

১| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ সকাল ৮:৪০

মোজাহিদ আলী বলেছেন:

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ বিকাল ৪:১২

শাহ আজিজ বলেছেন: হুম, যা বলছিলেন ----------------------------

২| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ সকাল ৮:৫৬

শামছুল ইসলাম বলেছেন: "আমার গর্জন যেন পৌঁছে যায় রাত দুটোয় অবস্থান নেওয়া সন্তানদের কাছে ।" -- চমৎকার বলেছেন । ঠিক কথা, "রাষ্ট্র তোমার আমার, শাসকের নয় ।" আপনার সাথে একাত্মতা ঘোষণা করছি ।

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১২:১৬

শাহ আজিজ বলেছেন: দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে । ৪৭ টি বসন্ত দুমড়ে মুচড়ে দিয়েছে সেনা - আর বাংলাদেশ তত্বে অবিশ্বাসী রাজনৈতিক দলগুলো , আর কত ??

৩| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ সকাল ৯:৩৭

ক্স বলেছেন: কোন বিপ্লবই আসন্ন নয়। এই সরকার বিরোধী দলের আন্দোলনের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক চাপ মোকাবেলায়ও সফলতার পরিচয় দিয়েছে। আর এই আন্দোলনকারীরা তো স্রেফ চাটুকার ছাড়া আর কিছু নয় (বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার ছবি সম্বলিত প্ল্যাকার্ড বহন করায় আমার সেরকমই মনে হয়েছে) । পুলিশ দরকার নেই - এরা সিমপ্লি ছাত্রলীগের ক্যাডারদের সামনেই টিকতে পারবেনা।

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১২:২০

শাহ আজিজ বলেছেন: দেখা যাক আইউব খান পর্যন্ত গন অভ্যুত্থানের সামনে টেকেনি আর এরাতো ছাত্রলীগ । পুলিশ কখন ক্ষেপে যায় জানেন ? যখন সরকারের পতন ত্বরান্বিত হয় ।

৪| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ সকাল ৯:৩৮

বিপরীত বাক বলেছেন: এরা বেশিরভাগই ফান করতে এখানে এসেছে। কেউ হয়ত বন্ধু/রুমমেট যাচ্ছে তাই চল দোস্ত আমিও যাই, এক কাপ চা তো খাওয়া যাবে, কিংবা রাতের ঘুরে বেড়ানোর মজা নিতে কেউ এসেছে কেননা সাধারণত রাত্রিতে এসব জায়গায় ছিনতাই এর ভয়ে কেউ যেতে পারে না কিংবা অনেকেই এসেছে উৎসুক মনোভাব নিয়ে দেখি তো রাতবিরেতে কি করে পোলাপাইনগুলো কিংবা কিছু এসেছে মাল দেখতে বা নষ্টামি করতে কারণ অন্য কোন দোস্ত বলেছে চল চল অনেক খাসা মাল আইছে রে আয়েশ করে দেখমু চল চল, এত সস্তায় স্বেচ্ছায় মালের সাথে ঘষাগষি টেপাটেপি আর পাওয়া যাবে কিনা তাছাড়া মালগুলো মাগীগুলো এত রাইতে আইছেও তো ওই ধান্ধায় কিংবা অনেকেই চলতি পথে থমকে দাড়িয়েছে কি ব্যাপার রাস্তা বন্ধ কেন কি হইছে বলে ওখানে দাড়িয়েছে।
শুধু একটা দাবী নিয়ে এত বাঙাল (সুবিধাবাদী, সুযোগসন্ধানী. ভন্ড, প্রতারক, জালিয়াত, চোর, অকৃতজ্ঞ, বিশ্বাসঘাতক,নীতিহীন, আদর্শবিবর্জিত,…………………………) একত্র হইছে এটা বিশ্বাসযোগ্য না।
আরও দেখা যাবে সিংহভাগই বিরোধী রাজনৈতিক দলের, শুধু সরকার কে বেকায়দায় ফেলতে একটা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অপপ্রয়াস মাত্র।
নিকৃষ্ট বাঙাল জাতির আবার আদর্শ, ঐক্য, নীতিমালা?

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১২:২৫

শাহ আজিজ বলেছেন: মানছি আপনার কথা কিন্তু আমাদের পিঠ কি দেয়ালে ঠেকেনি ? ছাত্ররাই বরাবর সব পতন আন্দোলনে লিড দিয়েছে । শেষ লাইনটিতে আঘাত পেলাম , ব্যাঙ্কের সিন্ধুক খালি করা পার্টিরাই ওই বিশেষণে ভূষিত হোক ।

৫| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ সকাল ৯:৩৮

অনন্য দায়িত্বশীল আমি বলেছেন: কোটা বিলুপ্ত করা উচিৎ শুধু কিছু সুবিধা বঞ্চিতদের ব্যতীত।

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১২:২৬

শাহ আজিজ বলেছেন: মেধা ছাড়া আর কোন কোটা থাকবে না।

৬| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ সকাল ৯:৫১

মায়াবী ঘাতক বলেছেন: এরা বেশিরভাগই সুবিধাবাদী। বঙ্গবন্ধু আর শেখ হাসিনার ছবি নিয়ে সরকার বিরোধি আন্দোলন :P =p~ =p~ চাকরির বাজারে এখন খুব মন্দা যাচ্ছে তো যদি কোটা কমায়ে কিছু সরকারি পদ বাগানো যায়। তারপর যেই কদু সেই লাউ। নিজেরা হালুয়া রুটি আরামসে ভোগ করবে এখন যেমন সরকারি আমলারা করছে। তা না হলে আবার প্রাইভেট কোম্পানিতে কামলা খাটতে হবে। ;)

কিছু খারাপ কথা বলে ফেলার জন্য দুঃখিত। আসলে বাস্তবতা এটাই। এদের এই আন্দোলনে আম-পাব্লিকের কোন লাভ নাই।

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১২:২৯

শাহ আজিজ বলেছেন: আমরা নিজেরাই তিনটি বিপ্লব দেখেছি বা অংশ নিয়েছি । এর আন্তঃ কদর্য কথন আমাদের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ ।

৭| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ সকাল ৯:৫৯

রাজীব নুর বলেছেন: দরিদ্র দেশে এইসব ঘটেই।

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১২:৩০

শাহ আজিজ বলেছেন: তাই বলে তাবৎ রাজকোষ খালি করে -------?

৮| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ সকাল ১০:১৫

খায়রুল আহসান বলেছেন: "রাষ্ট্র তোমার আমার, শাসকের নয়।" কথাটা ঠিকই বলেছেন, তবে শাসকেরাও তো 'আমাদেরই লোক' হবার কথা, কারণ আমদেরই ভোটে তাদের শাসক হবার কথা।
একটি বিপ্লব কি আসন্ন?? - সন্দেরহটা হয়তো সুদূর পরাহত নয়, তবে প্রিম্যাচিউর তো বটেই।
সকল কোটা প্রথার বিলুপ্তি চাই। মেধার স্বাভাবিক বিকাশ ঘটুক!

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১২:৩২

শাহ আজিজ বলেছেন: আমার চারটি ভোট সকাল ৮ টা ১৭ মিনিটে ডিজিটালি প্রদান হয়েছে , আমরা গেছি ১১ টায় ।

৯| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ সকাল ১০:২৯

মনিরা সুলতানা বলেছেন: "রাষ্ট্র তোমার আমার, শাসকের নয়।
সাধারন ছাত্র ছাত্রী দের যৌক্তিক দাবি র সাথে আছি।

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১২:৩৩

শাহ আজিজ বলেছেন: ধন্যবাদ মনিরা ।

১০| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ সকাল ১০:৩৭

শামচুল হক বলেছেন: মুক্তিযোদ্ধারাও আমার দেশের লোক এদেশের বেকাররাও আমার দেশের লোক, এখন কারে কি কই?

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১২:৩৪

শাহ আজিজ বলেছেন: কর্মক্ষম একজন মুক্তিযোদ্ধার নাম বলুন ।

১১| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ সকাল ১০:৪৭

আল-শাহ্‌রিয়ার বলেছেন: ৯৮% মেধাবীদের জন্য ৪৫% পোষ্ট কখনোই কাম্য নয়। ঘরে ঘরে চাকুরির বদলে ৪ কোটি বেকার ! অন্তত প্রথমিক পর্যায়ে মাস্টার্স পাস করাদের জন্য চাকুরির ব্যাবস্থা করা হউক। নতুবা দেশে শিক্ষা বন্ধ করে দেওয়া হউক। শিক্ষিত বেকার নামক কলঙ্ক থেকে আমরা মুক্তি চাই।

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১২:৩৬

শাহ আজিজ বলেছেন: চীন আর এই দেশ ৮০র দশকে একই রকম ছিল । এখন হাজার গুন পিছে পড়ে আমরা । কেন ? গনতন্ত্র একটি উপযুক্ত ব্যাবস্থা হতেই পারে না এদেশের জন্য ।

১২| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ সকাল ১১:৫১

বিপরীত বাক বলেছেন: সরকারি চাকরি না থাকলেই বেকার? কোটা তুলে দিলেই বেকারত্ব ঘুচে যাবে ?থাপ্পড় মেলে দাঁত ফেলে দেয়া দরকার এগুলোর।

বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু আন্দোলন সামনে থেকে দেখেছি। দেখেছি বলতে আবার ভাবিয়েন না যে বিরাট বিরাট মিছিল মিটিং দেখেছি। দেখেছি বলতে বোঝাচ্ছি যে কিভাবে আন্দোলন শুরু হল, কিভাবে কারা কারা অর্গানাইজ করল, কার কোন কথার প্রেক্ষিতে আন্দোলন ফুঁসে উঠল…… এই সব।
তা অভিজ্ঞতা বলে যে প্রত্যেকটা বড় মুভমেন্টের পিছনের শুধুমাত্র কয়েকজনের স্বার্থ উদ্ধারের ব্যাপার থাকে। আর বাকি সব ছাগল-গরু-ভেড়া। যেদিকে টান পড়ে সেদিকে যায়।
আমারই এক ব্যাচমেট, ভার্সিটির এক সাধারন ছাত্র-ছাত্রী আন্দোলনে রাত্রি তে হলের সামনে টেবিলের উপর দাড়িয়ে উত্তেজক বক্তব্য দিচ্ছিল। এইটা হইছে, ওইটা হইছে, চল সবাই………. ইত্যাদি। ছাত্ররা উত্তেজিত হয়ে ক্যাম্পাস জুড়ে মিছিল করল, পুরো ক্যাম্পাস ভেঙে চুরে একাকার…. আরও অনেক ঘটনা সারারাত জুড়ে।
মজার বিষয় হল মিছিলের আগে ওই যে টেবিলের উপর যে বক্তব্য দিচ্ছিল ও কিন্তু বক্তব্য দিয়ে সোজা নিজের রুমে এসে কম্বলমুড়ি দিয়ে ঘুমিয়ে পড়েছে। ওদিকে ভাঙচুরে তার নাম আসেনি। যে ভাঙচুরে জিজ্ঞাসাবাদে তদন্তে প্রায় ১৬৯ জনের নাম ছিল সেখানে কোথাও ওর নাম ছিল না।

এই হল ঘটনা। যদি এতই বেকারত্ব ঘোচানোর জন্য কোটা কমানোর কথা বলে তাহলে এইসব আবালের আন্দোলন কোথায় ছিল যখন অবসরের বয়স ৫৭ থেকে ৫৯ করা হয়েছিল।?? তখন তো এরা বলেনি যে ডিসচার্জ কমে গেলে আনুপাতিক হারে ইনপুট ও কমে যাবে না হলে মলদ্বার ফেটে যাবে ?
যায়া দেখেন এর পিছনে মুষ্টিমেয় কয়েকজনের খায়েশ মিটানোর ধান্দা আছে। বাকি সব আবাল।
আর অবশ্যই বিরোধী দলের সশরীরের ইন্ধন আছে কেননা তারা কোনভাবেই রাস্তায় জমায়েত হতে পারে না। এদিকে সুযোগ পেয়ে তলা দিয়ে মাথা ঢুকিয়ে আছে।

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১২:৪৩

শাহ আজিজ বলেছেন: একমত । কাজের ক্ষেত্র সৃষ্টি করতে হয় আর তা নিশ্চিত করে সরকার। চীনের শিল্পায়ন পদ্ধতিতে না এগিয়ে মদিনা সনদ নিয়ে রাষ্ট্র শাসন!! কি অবিচার । ৯১ সালে চীনে উচ্চ কুটনিতিকরা আমায় ছেকে ধরল দেশের খবর , সরকার গঠন ইত্যাদি নিয়ে। আমায় তারা একটি প্রশ্ন করেছিল," তোমাদের আপামর জনগন কি গৃহবধুদের দিয়ে দেশ চালাতে পছন্দ করে?" আমি নিশ্চুপ হয়ে মাথা নত করে ছিলাম ।

১৩| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১২:৪১

ইফতি সৌরভ বলেছেন: বাঙালি জাতির মানসিকতা কেমন -তা এখানকার কয়েকটি মন্তব্য পড়েই বোঝা যায়। একবার একটা কৌতুক শুনেছিলাম, জান্নাতে বাজার বসবে আর সেই বাজারের সওদাগর হবে স্বার্থন্বেষী বাঙালিরা। বাঙালিরা নাকি সবখানেই ধান্দা খোঁজে! আপনার লেখা পড়ে যতটা আন্দোলনকারীদের জন্য ভালোবাসা উদগরিত হয়েছে, কিছু মন্তব্য পড়ে ততটাই হতাশ হলাম! তবে যে যাই বলুক, আন্দোলনটা জোরালো হয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সাম্প্রতিক এক প্রজ্ঞাপনের পর, সরকারের শেষ সময় বলে নয়!

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১২:৪৫

শাহ আজিজ বলেছেন: আমরা চাইছি ১০ হাজার কোটি টাকা লুট হওয়ার আগেই এরা বিদায় হোক ।

১৪| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১:১০

শাহিন মিশু বলেছেন: আন্দোলনের সূচনা হয়েছে তাবেদারী ও শাসককে প্রভূত্বের সম্মান দেখিয়ে! আন্দোলন সর্বদাই স্বকীয়!আন্দোলন সর্বদাই তাঁর নিজস্ব প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে এগোয়! কারো দৃষ্টি আকর্ষণ বা উপাধির কাছে নৈতিক আন্দোলন শির নত করে স্লোগান তুলেনা! আর তাই সকল কমেন্ট কারীদের সাথে আমার কমেন্টের সুরও একই যে -এই আন্দোলনের পরিণতি শুধুমাত্র তথকতিথ আশ্বাসেই সমাধান পাবে!সাথে কিছু মায়াকান্নার সালাদ!!

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১:১৪

শাহ আজিজ বলেছেন: হয়তবা , হয়ত না । একটি করুন পরিনতির মধ্য দিয়ে অবসান হতেও পারে। আভ্যন্তরীণ অবস্থা বেশি সুবিধার না । সন্তানেরাই আগাম চল্লিশা চাইছে ।

১৫| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১:১৬

তাওহিদ হিমু বলেছেন: থার্ড ক্লাশে মেট্রিক পাশ করা পুলিশেরা যখন দেশের সেরা বিদ্যাপীঠ ঢাবির মেধাবী গ্রেজুয়েটদেরকে পেটায়, তখন যত খারাপ লাগে, তার চেয়েও বেশি খারাপ লাগে, যখন দেখি, সেই ঢাবির মেধাবীরাই আমলা হওয়ার পর অশিক্ষিত/স্বল্পশিক্ষিত দস্যু মাদক-ব্যবসায়ী রাজনীতিবিদদের পা জিভ দিয়ে চেটে সাফ করে দেয়। আমার এখনো মনে আছে, আমার এক শিক্ষক অধ্যাপক ছাত্রলীগের ছেলেদের কথায় একটা নিরীহ ছাত্রের সাথে কী নোংরা ব্যবহার করেছিল, যেন অধ্যাপক নিজেও রাজনীতিবিদদের ক্রীত পদলেহী ও বস্তির ভারাটে গুণ্ডা।
আজ যারা আন্দোলন করছে, তারাই অল্প কয়েক বছর পর বিসিএস ক্যাডার হয়ে পুলিশের পোষাক পরে অন্য গণতান্ত্রিক আন্দোলনকারীদেরকে গুলি করতে আসবে।
এমন নীতিজ্ঞানহীন স্বার্থান্বেষী চাটুকার উত্তরপ্রজন্ম থেকে আপনারা কীইবা আশা করতে পারেন?

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১:৪৯

শাহ আজিজ বলেছেন: চমৎকার বিশ্লেষণ । আমরা যেন আমাদের পূর্ব জনমের কোন পাপের প্রায়শ্চিত্ত করছি।

১৬| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১:৪৬

তারেক ফাহিম বলেছেন: রাষ্ট্র তোমার আমার, শাসকের নয়

সুন্দর বলেছেন।

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১:৫০

শাহ আজিজ বলেছেন: ধন্যবাদ।

১৭| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ২:০৬

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: শুরু হোক যেমন তেমন শেষ হোক সুন্দরে

জাতির সবচে শিক্ষিত অংশ যদি চলমান অন্যায়, অনাচার, জুলুম, লুট, তথা সকল প্রকার অনাচারের প্রতিবাদ না করে- আমজনতা ভরসা করবে কোথায়?
আর শিক্ষার নৈতিক দায়ও তাই। দলান্ধতা, অন্ধ লেজুর বৃত্তিেতা তাদের জন্য নয়।

তাই আন্তরিক ভাবেই চাওয়া- তাদের চেতনায় সত্যালোকের স্ফুলিঙ্গ জ্বলে উঠুক
প্রকৃত পরিবর্তনের স্বপ্ন নিয়ে!

++++++

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ বিকাল ৪:০৭

শাহ আজিজ বলেছেন: আমি আমার দীর্ঘ সময়ে দেখেছি যে কোন মুভমেন্টে ঢাবি হচ্ছে দেশের চাবি কাঠির মত । ওটা খুল্লেই বুঝি সময় বুঝি আগত । ৭৮ সালে আমরা ঢাবির চারুকলায় জিয়ার বিরুদ্ধে গগনবিদারি শ্লোগান দিয়ে অপরাজেয় বাংলার পাদদেশ হতে ( ভাস্কর্য তখনও ফিনিশিং টাচ পায়নি) দশ হাজার ছাত্র মান্না ভাইয়ের নেতৃত্বে সচিবালয় মুখে মিছিল করেছিলাম ।

আমার ছাত্র মনস্কতা এখনও যায়নি ।

১৮| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ বিকাল ৩:২৩

পদ্ম পুকুর বলেছেন: স্যার, আপনার বক্তব্য আমারও।

শামসুন্নাহার হলে রাতে পুলিশ ঢোকার প্রতিবাদে গড়ে ওঠা আন্দোলন আর জিমনেশিয়াম মাঠে আর্মির সাথে টক্করের পর ক্যাম্পাসে গড়ে ওঠা আন্দোলনে স্বশরীরে অংশগ্রহণ করেছিলাম। ওই দুটো আন্দোলনই ছাত্র অধিকারে আঘাত লাগাতেই গড়ে উঠেছিল। আজকের এই আন্দোলনও একইরকম ছাত্র অধিকারের আন্দোলন। মন চাচ্ছে এখনই ক্যাম্পাসে চলে যাই, কিন্তু দাপ্তরিক ব্যস্ততা আমায় আটকে দিচ্ছে।

উপরে একজন রাতের বেলা মালের সাথে গা ঘষাঘষির সুযোগ দেখেছেন। বক্তব্যটা মনে হয় নিজের অভিজ্ঞতা থেকে বললেন!! :-*

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ বিকাল ৪:১১

শাহ আজিজ বলেছেন: হ্যা খুব লজ্জা পেলাম। একেক জন একেক দৃষ্টি ভঙ্গিতে জীবনকে দেখে থাকেন ।

১৯| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ বিকাল ৪:১১

অনন্য দায়িত্বশীল আমি বলেছেন: @ বিপরীত বাক আপনার কথাবার্তা খুবই আপত্তিকর। কথায় বলেনা ব্যবহার বংশের পরিচয়।

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ বিকাল ৪:১৭

শাহ আজিজ বলেছেন: হয়ত কিছুটা বিপরীতমুখী স্রোতে ভাসেন তিনি ।

২০| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ বিকাল ৪:৫৫

সৈয়দ তাজুল বলেছেন: সরকারের উচিৎ হবে, সুশিক্ষিত ছাত্রছাত্রীদের দাবী নিয়ে গভীর ভাবে চিন্তা করে দ্রুত সিদ্ধান্ত নেয়া। নতুবা এর সব ক্ষতিটুকু সরকারের উপরই পড়বে। ইতিহাস কাউকে ছাড়ে না।

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ বিকাল ৫:১৩

শাহ আজিজ বলেছেন: সহমত । আন্দোলন চলছে কিন্তু যারা নানকের সাথে মিটিং করছে তারা কারা ?

২১| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ বিকাল ৫:০৬

বিদেশে কামলা খাটি বলেছেন: কোটাপ্রথায় লাথি মার, মেধাশক্তির বিকাশ কর।

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ বিকাল ৫:১৪

শাহ আজিজ বলেছেন: সহমত

২২| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ বিকাল ৫:২৪

করুণাধারা বলেছেন: কিছুটা দেরি হয়ে গেলেও জানাই, খুব অল্প কথায় চমৎকার একটি পোস্ট দিয়েছেন।

++++++++++++++++

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ বিকাল ৫:২৯

শাহ আজিজ বলেছেন: ধন্যবাদ , করুনাধারা

২৩| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:১৯

মো: নিজাম উদ্দিন মন্ডল বলেছেন: নিরীহ ছাত্রদের উপর পুলিশের আক্রমনের তীব্র নিন্দা, ক্ষোভ, ধিক্কার, --- ও প্রতিবাদ জানাচ্ছিX(X(

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৩২

শাহ আজিজ বলেছেন: সংঘর্ষ দেশের কয়টি শিক্ষাঙ্গনে ছড়িয়ে পড়েছে । নাহ, সরকারের কেন জানি কোটায় খুব আসক্তি যা ধরা পড়ে গেছে অনেকের কাছে । সর্বশেষ সরকার কোন আপোষ করতে রাজি না। তো আন্দোলন চলুক।

২৪| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৫০

সোহানী বলেছেন: রাষ্ট্র তোমার আমার, শাসকের নয়.................. শাসক যাবে শাসক আসবে কিন্তু আমাদেরই থাকবে..........

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ রাত ৮:০৬

শাহ আজিজ বলেছেন: অত্যন্ত উচিত বার্তা ।

২৫| ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ রাত ৮:৪২

চাঁদগাজী বলেছেন:



ভুল আন্দোলনের কারণে বিপ্লব হওয়ার সময় পার হয়ে গেছে! আন্দোলনের জন্য সঠিক কারণ থাকতে হবে, বিপ্লবের জন্য তত্ব থাকতে হবে। যারা নিজের আখের ঘুচাতে চায়, তারা বিপ্লবের কেহ নন।

০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ রাত ৯:০৩

শাহ আজিজ বলেছেন: ধন্যবাদ ।

২৬| ১০ ই এপ্রিল, ২০১৮ রাত ১২:২৫

রাজীব নুর বলেছেন: লেখক বলেছেন: তাই বলে তাবৎ রাজকোষ খালি করে -------?

এই কথার উত্তর আমার জানা নেই।

১০ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১২:৩৫

শাহ আজিজ বলেছেন: হ্যা এই দুরাবস্থা তো ৭১ সালেও হয়নি , ৭২ সাল আমরা ইন্ডিয়ার রুপি আর গরু একসাথে খরচ করেছি । জার্মানি টাকা ছাপিয়ে দেবার পর রুপি উঠে গেল কিন্তু গরু রয়ে গেল। সেই গরু এখন কোটায় চলছে।

২৭| ১০ ই এপ্রিল, ২০১৮ ভোর ৬:০৯

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: গণমানুষের অংশগ্রহণ ছাড়া কোন বিপ্লব হয় না। যদি হয় সেটা হবে সিপাহী বিপ্লব।

১০ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১২:২৫

শাহ আজিজ বলেছেন: বাপরে বাপ তীর একদম সেনাবাহিনির দিকে------------------- মন্দ নয় মন্দ নয় ---- একটা কিছু হয়ে যাক।

২৮| ১০ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১২:১১

টারজান০০০০৭ বলেছেন: ন্যাড়া বেলতলায় কয়েকবার গিয়া মাথা ফাটাইয়াও বেল না পাইয়া আবার যাইবে বলিয়া মনে হয় না ! ন্যাড়ার অভিজ্ঞতা আছে, মাথা তাহার ফাটিলেও বেল অন্যে লইয়া যায় ! শিক্ষার্থীদের আন্দোলন যৌক্তিক ও ন্যায্য হইলেও ইহাতে গনমানুষের সম্পৃক্ততা নাই, এই আন্দোলন শিক্ষার্থীদেরই ! তাই বিপ্লব হওয়ার সম্ভাবনা দেখি না ! যেইটা হইতে পারে, এই আগুনে কেহ কেহ আলু পোড়াইতে চাহিতে পারে ! সরকারের নিজেদেরই আলু পোড়াইয়া খাওয়ার ইচ্ছা ! তাই অন্য কেহ খাইতে পারিবে বা সরকার সুযোগ দিবে বলিয়া মনে হয় না !

১০ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১২:৩৬

শাহ আজিজ বলেছেন: মন্তব্য নিষ্প্রয়োজন।

২৯| ১০ ই এপ্রিল, ২০১৮ বিকাল ৪:৩২

বিপরীত বাক বলেছেন: লেখক বলেছেন: একমত ......................................মদিনা সনদ নিয়ে রাষ্ট্র শাসন!! কি অবিচার । ৯১ সালে চীনে উচ্চ কুটনিতিকরা আমায় ছেকে ধরল দেশের ................. একটি প্রশ্ন করেছিল," তোমাদের আপামর জনগন কি গৃহবধুদের দিয়ে দেশ চালাতে পছন্দ করে?" আমি নিশ্চুপ হয়ে মাথা নত করে ছিলাম ।

দারুণ।

১০ ই এপ্রিল, ২০১৮ বিকাল ৪:৩৮

শাহ আজিজ বলেছেন: এসব ঘটনা আমাকে পীড়িত করে যে সত্যি সত্যি দেশের মানুষ বোকা না হলে এরা ২৭ বছর ধরে সবাইকে নিংড়ে ছোবড়া বানিয়েছে এবং এখনও আমজনতা প্রায় বিকারহীন ।

৩০| ১১ ই এপ্রিল, ২০১৮ সকাল ৯:৩৯

বিপরীত বাক বলেছেন: এপ্রিল, ২০১৮ বিকাল ৪:১১ ১
অনন্য দায়িত্বশীল আমি বলেছেন: @ বিপরীত বাক আপনার কথাবার্তা খুবই আপত্তিকর। কথায় বলেনা ব্যবহার বংশের পরিচয়।

সত্য একটু তিতাই ও আপত্তিকর হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের ফ্রেশ কয়েকটা আন্দোলন স্বচক্ষে দেখা তো তাই।
আর এখানে আমি আচার-ব্যবহার দেখাচ্ছি না। এখানে আলোচনা হচ্ছে, অার তাতে আসে মানসিকতা ও দৃষ্টিভঙ্গির ব্যাপার টি। যেটা বংশ থেকে তৈরী হয় না তৈরী হয় অভিজ্ঞতা থেকে। চারিপাশের সমাজ থেকে। চলার পথে দেখা বিভিন্ন ঘটনাবলী থেকে।
প্রতারকদের ব্যবহার কিন্তুক ভীষণ মিষ্ট ও অমায়িক হয়। তারা কি ভাল বংশের।?

কিছু মিছু লোক এখানে শামসুন্নাহার হল আর আর্মির সাথে গ্যাঞ্জামের আন্দোলনের কথা বলেছেন। দুটোই অনায্য আন্দোলন। বিশেষ করে আর্মির সাথে আন্দোলনের তো কোন যৈাক্তিকতাই ছিল না। ওটা ছিল পরিস্থিতি ঘোলাটে করা আর চরম মূর্খতার পরিচয় মার্কা একটা নোংরা চাল। এগুলোকে কি বলা যায় ?

উমমম.

ওই যে বিডিআর হত্যাকান্ড হল না ২০০৮ সালে ? সে সময় কিন্তু কিছু দরদী (পিশাচ)? বাঙালী আহা উহু বলে বিডিআর সৈনিকদের পক্ষে সাফাই গিয়েছিল। বলেছিল আহা রে ভাত-ডালের জন্যই বেচারিরা এইসব এক-আধটু দুষ্টামি করছে। এমনকি তখন তারা বিডিআরের পক্ষে মিছিল করেছিল সাধারণ জনতা হয়ে।

এগুলো হচ্ছে আবেগে কাইন্দা কাইট্টা লয় মার্কা বাঙাল (পিশাচ) এর দল। দীর্ঘমেয়াদী ফল সম্বন্ধে কোনপ্রকার ধারণা ছাড়াই হুজুগে পড়ে দৈাড়ায়। সাময়িক মোহে। ক্ষণিকের প্রাপ্তিতে।

এখানে আরও একজন বলেছে যেটা বেশ আলোড়ন তুলেছে তা হল, ‘"রাষ্ট্র তোমার আমার, শাসকের নয়।"

শাসক আসে কোথা থেকে?
তোমার আমার মাঝ থেকেই।
শাসক হচ্ছে জনতার প্রতিচ্ছবি। জনতা যেমন শাসকও তেমন। আল্লাহ কি আর এমনি এমনি জালেম শাসক দেয় এ দেশে ? কারণ এ দেশে জনতাই হচ্ছে আসল জালেম। খালি নিজের ধান্ধা আর স্বার্থের জন্য দেশ বেইচ্যা লাটে তুলবে।আর দোষ দিবে সরকারের।
এদেশের জন্য এ জাতির জন্য জালেম শাসকই প্রযোজ্য, এরা সেটারই উপযুক্ত।

এ আন্দোলনের ক্ষেত্রেও যেটা ঘটবে, “ লাভের গুড় পিঁপড়ায় খাবে।”

১১ ই এপ্রিল, ২০১৮ সকাল ৯:৫৯

শাহ আজিজ বলেছেন: চারিদিকের অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে এই আন্দোলন শেষে গিয়ে একদফায় না দাড়ায় । আসল জালেম হলে হত এত দুই নম্বরি জালেম , এদের কাছ থেকে আমরা ৪২০ নম্বরি সেবা থুক্কু জালাতন পাচ্ছি । সময় শেষ । আপনি নিশ্চয়ই দেশের মঙ্গল চান? তাহলে চোখ কান খোলা রাখুন এবং অনুধাবন করুন সারা দেশের এত ছেলে মেয়ে রাস্তায় বসেছে পিকনিকের জন্য নয় । আমরা পরিবর্তন চাই ।।

১১ ই এপ্রিল, ২০১৮ সকাল ১০:০৩

শাহ আজিজ বলেছেন: ‘"রাষ্ট্র তোমার আমার, শাসকের নয়।"

এটি আমার উক্তি । শাসক যখন প্রভুর বেশ ধারন করে তখন সে আর জনগনের অংশ নয় । বোঝা গেছে ব্যাপারটা??

৩১| ১১ ই এপ্রিল, ২০১৮ সকাল ১০:০৬

বিপরীত বাক বলেছেন: এপ্রিল, ২০১৮ বিকাল ৪:১১ ১
অনন্য দায়িত্বশীল আমি বলেছেন: @ বিপরীত বাক আপনার কথাবার্তা খুবই আপত্তিকর। কথায় বলেনা ব্যবহার বংশের পরিচয়।

সত্য একটু তিতাই ও আপত্তিকর হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের ফ্রেশ কয়েকটা আন্দোলন স্বচক্ষে দেখা তো তাই।
আর এখানে আমি আচার-ব্যবহার দেখাচ্ছি না। এখানে আলোচনা হচ্ছে, অার তাতে আসে মানসিকতা ও দৃষ্টিভঙ্গির ব্যাপার টি। যেটা বংশ থেকে তৈরী হয় না তৈরী হয় অভিজ্ঞতা থেকে। চারিপাশের সমাজ থেকে। চলার পথে দেখা বিভিন্ন ঘটনাবলী থেকে।
প্রতারকদের ব্যবহার কিন্তুক ভীষণ মিষ্ট ও অমায়িক হয়। তারা কি ভাল বংশের।?

কিছু মিছু লোক এখানে শামসুন্নাহার হল আর আর্মির সাথে গ্যাঞ্জামের আন্দোলনের কথা বলেছেন। দুটোই অনায্য আন্দোলন। বিশেষ করে আর্মির সাথে আন্দোলনের তো কোন যৈাক্তিকতাই ছিল না। ওটা ছিল পরিস্থিতি ঘোলাটে করা আর চরম মূর্খতারর পরিচয় মার্কা একটা নোংরা চাল। এগুলোকে কি বলা যায় ?
উমমম.
ওই যে বিডিআর হত্যাকান্ড হল না ২০০৮ সালে ? সে সময় কিন্তু কিছু দরদী (পিশাচ)? বাঙালী আহা উহু বলে বিডিআর সৈনিকদের পক্ষে সাফাই গিয়েছিল। বলেছিল আহা রে ভাত-ডালের জন্যই বেচারিরা এইসব এক-আধটু দুষ্টামি করছে। এমনকি তখন তারা বিডিআরের পক্ষে মিছিল করেছিল সাধারণ জনতা হয়ে।
এগুলো হচ্ছে আবেগে কাইন্দা কাইট্টা লয় মার্কা বাঙাল (পিশাচ) এর দল। দীর্ঘমেয়াদী ফল সম্বন্ধে কোনপ্রকার ধারণা ছাড়াই হুজুগে পড়ে দৈাড়ায়। সাময়িক মোহে। ক্ষণিকের প্রাপ্তিতে।
এখানে আরও একজন বলেছে যেটা বেশ আলোড়ন তুলেছে তা হল, ‘"রাষ্ট্র তোমার আমার, শাসকের নয়।"
শাসক আসে কোথা থেকে? তোমার আমার মাঝ থেকেই। শাসক হচ্ছে জনতার প্রতিচ্ছবি। জনতা যেমন শাসকও তেমন। আল্লাহ কি আর এমনি এমনি জালেম শাসক দেয় এ দেশে ? কারণ এ দেশে জনতাই হচ্ছে আসল জালেম। খালি নিজের ধান্ধা আর স্বার্থের জন্য দেশ বেইচ্যা লাটে তুলবে। আর দোষ দিবে সরকারের।
এদেশের জন্য এ জাতির জন্য জালেম শাসকই প্রযোজ্য, এরা সেটারই উপযুক্ত।

এ আন্দোলনের ক্ষেত্রেও যেটা ঘটবে, “ লাভের গুড় পিপড়ায় খাবে।”

শাহিন মিশু বলেছেন: আন্দোলনের সূচনা হয়েছে তাবেদারী ও শাসককে প্রভূত্বের সম্মান দেখিয়ে! আন্দোলন সর্বদাই স্বকীয়!আন্দোলন সর্বদাই তাঁর নিজস্ব প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে এগোয়! কারো দৃষ্টি আকর্ষণ বা উপাধির কাছে নৈতিক আন্দোলন শির নত করে স্লোগান তুলেনা! আর তাই সকল কমেন্ট কারীদের সাথে আমার কমেন্টের সুরও একই যে -এই আন্দোলনের পরিণতি শুধুমাত্র তথকতিথ আশ্বাসেই সমাধান পাবে! সাথে কিছু মায়াকান্নার সালাদ!!
০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১:১৪ ১
লেখক বলেছেন: হয়তবা , হয়ত না । একটি করুন পরিনতির মধ্য দিয়ে অবসান হতেও পারে। আভ্যন্তরীণ অবস্থা বেশি সুবিধার না । সন্তানেরাই আগাম চল্লিশা চাইছে ।

(হতেও পারে বা যদির কথা নদীতে ফেলেন।)


লেখক বলেছেন: আমি আমার দীর্ঘ সময়ে দেখেছি যে কোন মুভমেন্টে ঢাবি হচ্ছে দেশের চাবি কাঠির মত । ওটা খুল্লেই বুঝি সময় বুঝি আগত । ৭৮ সালে আমরা ঢাবির চারুকলায় জিয়ার বিরুদ্ধে গগনবিদারি শ্লোগান দিয়ে অপরাজেয় বাংলার পাদদেশ হতে ( ভাস্কর্য তখনও ফিনিশিং টাচ পায়নি) দশ হাজার ছাত্র মান্না ভাইয়ের নেতৃত্বে সচিবালয় মুখে মিছিল করেছিলাম ।

(দেশের বারোটা তথনই বাজিয়েছেন।)

পদ্ম পুকুর বলেছেন: স্যার, আপনার বক্তব্য আমারও।

শামসুন্নাহার হলে রাতে পুলিশ ঢোকার …..গড়ে ওঠা আন্দোলন আর …..মাঠে আর্মির সাথে টক্করের পর ক্যাম্পাসে ….. স্বশরীরে অংশ………..। ওই দুটো আন্দোলনই ছাত্র অধিকারে আঘাত লাগাতেই গড়ে উঠেছিল।(*?) ….. আটকে দিচ্ছে (বেশ হইছে। জাতি বেচেছে।)

উপরে একজন রাতের বেলা মালের সাথে গা ঘষাঘষির সুযোগ দেখেছেন। বক্তব্যটা মনে হয় নিজের অভিজ্ঞতা থেকে বললেন!! ( ? ? ) নিজের অভিজ্ঞতা না। নিজের চোখে দেখা।
০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ বিকাল ৪:১১ ০
লেখক বলেছেন: হ্যা খুব লজ্জা পেলাম। একেক জন একেক দৃষ্টি ভঙ্গিতে জীবনকে দেখে থাকেন ।
১৯. ০৯ ই এপ্রিল, ২০১৮ বিকাল ৪:১১ ১
লেখক বলেছেন: সহমত । আন্দোলন চলছে কিন্তু যারা নানকের সাথে মিটিং করছে তারা কারা ?
চাঁদগাজী বলেছেন:
ভুল আন্দোলনের কারণে বিপ্লব হওয়ার সময় পার হয়ে গেছে! আন্দোলনের জন্য সঠিক কারণ থাকতে হবে, বিপ্লবের জন্য তত্ব থাকতে হবে। যারা নিজের আখের ঘুচাতে চায়, তারা বিপ্লবের কেহ নন।

The most important comment.
চাঁদগাজী is always best. Exceptional. Excellent.Brilliant.

এই ট্রাক্টর আলা কে আমি চিরকাল মনে রাখব।
১০ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১২:২৫ ০
লেখক বলেছেন: বাপরে বাপ তীর একদম সেনাবাহিনির দিকে------------------- মন্দ নয় মন্দ নয় ---- একটা কিছু হয়ে যাক। -------
(সাবধান)
২৮. ১০ ই এপ্রিল, ২০১৮ দুপুর ১২:১১ ১
টারজান০০০০৭ বলেছেন: ন্যাড়া বেলতলায় কয়েকবার গিয়া মাথা ফাটাইয়াও বেল না পাইয়া আবার যাইবে বলিয়া মনে হয় না ! ন্যাড়ার অভিজ্ঞতা আছে, মাথা তাহার ফাটিলেও বেল অন্যে লইয়া যায় ! শিক্ষার্থীদের আন্দোলন যৌক্তিক ও ন্যায্য হইলেও ইহাতে গনমানুষের সম্পৃক্ততা নাই, এই আন্দোলন শিক্ষার্থীদেরই ! তাই বিপ্লব হওয়ার সম্ভাবনা দেখি না ! যেইটা হইতে পারে, এই আগুনে কেহ কেহ আলু পোড়াইতে চাহিতে পারে ! সরকারের নিজেদেরই আলু পোড়াইয়া খাওয়ার ইচ্ছা ! তাই অন্য কেহ খাইতে পারিবে বা সরকার সুযোগ দিবে বলিয়া মনে হয় না !

উচিৎ কথা।
লেখক বলেছেন: মন্তব্য নিষ্প্রয়োজন।

১১ ই এপ্রিল, ২০১৮ সকাল ১০:১৭

শাহ আজিজ বলেছেন: আপনি বাকপটু খুব, দেখা যাক কি অবস্থা দাড়ায় । আপনার কাছ থেকে আর পোস্ট আশা করছি না, এলে মুছে দেব কারন আপনার ন্যূনতম দয়া মায়া নেই এই রক্তাক্ত ছেলে মেয়েদের জন্য ।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.