নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

বাংলা ব্লগ ভালবাসি আর সুযোগ পেলেই পড়ি। অনেক কিছু লিখতে মন চায়, কিন্তু লেখার যে হাত!...চেস্টা করে যেতে হবে তবুও।

কাতিআশা

বই এর পোকা, স্কেচ এর নেশা, পেশায় স্থপতী আর বাংলাদেশের প্রতি অসীম ভালবাসা

কাতিআশা › বিস্তারিত পোস্টঃ

নতুন পথের যাওয়া আসা...

২৭ শে অক্টোবর, ২০১৮ রাত ২:১৫

একটা নতুন কাজ আমার ব্যস্ত জীবনে যোগ হয়েছে...২ সপ্তাহ অন্তর অন্তর উইকেন্ডে নিউ ইয়র্ক থেকে বোস্টন যাতায়াত করা-- শুক্রবারে বিকালে নিউ ইয়র্ক থেকে রওনা হয়ে বোস্টন পৌছে রাত দশটায় মেয়েকে ডরম থেকে তুলে, আবার বাসায় ফিরে আসা গভীর রাতে। রোববারে ওকে বোস্টন নামিয়ে দিয়ে আবার গভীর রাতে বাসায় ফেরা, সোমবার অফিস আছে না!... লোকজন আমাদের পাগল ভাবে, এত যাতায়াত করি কিভাবে? কাউকে বোঝাতে পারিনা, এত কস্ট হলেও আমরা তিনজন যখন গভীর রাতে কানেকটিকাটের শুনশান, হাইওয়ে ১৫ ধরে বাড়ি ফিরি, পেছনের সিটে কম্বল গায়ে মেয়ে আমার পরম আরামে গুটিসুটি করে শুয়ে রাতের আকাশের তারা গুনতে থাকে আর সিডি তে বাজতে থাকে এরিক ক্ল্যাপটনের ব্লুজ, অথবা অর্ণবের রবীন্দ্র সংগীত...এর থেকে আনন্দময় মুহুর্ত আর কি হতে পারে? অত রাতে বাড়ী ফিরে প্রতিবারে মত ভাইকে জাগায় বোন..ঘুম ঘুম চোখে আমার ছেলে জেগে ওঠে আর দুজন কিছুক্ষন খুনশুটি করে। আমার চোখে ঘুম নেই,--পরদিন সকালে ওর পছন্দের কি কি নাশতা বানাবো, কি কি খাবার রান্না করে হোস্টেলে দিয়ে দেব, এই চিন্তায় আমার চোখে আবার ঘুম আসবে? তবুও আনন্দ লাগে..ছোটবোন কে ফোন দেই সকালে চলে আসতে..কত কি!

প্রতিবারের মত এবারও রওনা দিয়েছিলাম গত শুক্রবারের বিকেলে..খুব জ্যামে পরেছিলাম, অলরেডি দেরী হয়ে গিয়েছিল বেশ, দিন ছোট হওয়ায় বিকেল মরে আসছিল..ফাঁকে ফাঁকে কিছু ছবি তুলছিলাম ফোনে ক্যামেরায়।

পিচঢালা, শান্ত হাইওয়েতে ঢেউএর মত ছন্দ, আকাশে তখনো কিছু আলো আছে!



এই পথ, এই ওভারব্রীজ সব আমাকে টানে..আর কিছু পরেই আমার সোনামনি কে যেন দেখতে পাব,.. কিনতু পথ যে আরও বাকি!


বিকেল মরে আসছে, দিনের শেষে কি বিষন্নতা! .। তবু কি অপূর্ব সুন্দর!!!!!!


শেষ বিকেলের বিষন্ন আলোয় প্রকৃতির রং বদলের ছবি!


সন্ধ্যা নেমেই এল অবশেষে!


দুরের এই টানেল টি আমাকে খুব টানে


ফেরার পথে গভীর রাতে নিউ ইয়র্ক শহরের ঝলমলে স্কাইলাইন!
(ছবিগুলো সব আমার ফোনে তোলা)

মন্তব্য ১৭ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (১৭) মন্তব্য লিখুন

১| ২৭ শে অক্টোবর, ২০১৮ সকাল ৮:৩৩

রাজীব নুর বলেছেন: পোষ্ট ই ভালো লাগলো।

০১ লা নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১:৫১

কাতিআশা বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ..ব্যস্ততার জন উত্তর দিতে দেরী হয়ে গেল!

২| ২৭ শে অক্টোবর, ২০১৮ দুপুর ২:৫৫

নীল আকাশ বলেছেন: ভালো লাগলো, আপু।

০১ লা নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১:৫২

কাতিআশা বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ ভাল লাগায় ..ব্যস্ততার জন্য উত্তর দিতে দেরী হয়ে গেল!

৩| ২৭ শে অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৩:১২

টিয়া রহমান বলেছেন: আপু আপী তো ভালোই লিখেন, সুন্দর হয়েছে

০১ লা নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১:৫২

কাতিআশা বলেছেন: অনেক ধন্যবাদআপনাকে!..ব্যস্ততার জন্য উত্তর দিতে দেরী হয়ে গেল!

৪| ২৭ শে অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৩:১৪

টিয়া রহমান বলেছেন: সরি আপু লিখতে চাচ্ছিলাম যে , আপনি তো ভালোই লিখেন
আর ছবিগুলো ও সুন্দর হয়েছে

০১ লা নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১:৫২

কাতিআশা বলেছেন: :)

৫| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:০৮

আখেনাটেন বলেছেন: ছবিগুলো অনেক সুন্দর।

বর্ণনা ও ছবি আরও বেশি করে দিতে পারেন কাতিঅাশা'পা।

০২ রা নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১২:০৭

কাতিআশা বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ আপনাকে আখেনাটেন ভাইয়া!..চেস্টা করবো বেশী বর্ননা দিতে!

৬| ০২ রা নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ১১:৪৩

মলাসইলমুইনা বলেছেন: খুব ভালো লাগলো পড়ে আর ফটোগুলো দেখতে। আমি সব সময়ই নিউইয়র্ক থেকে বোস্টন গেছি I-95 দিয়ে কানেকটিকাটের ওপর দিয়ে হার্টফোর্ড হয়ে I-395 মনে হয় পরের হাইওয়েটা না, সেটা দিয়ে । শুধু গতবার I-15 দিয়ে গেলাম ।খুব ভালো লেগেছিলো কানেকটিকাটের ভেতরের ছোট বড়ো টাউনশিপগুলো দেখতে দেখতে সেই যাওয়াটা । বেশি ইনজয় করেছিলাম নিজে ড্রাইভ করতে হয় নি দেখে ।ভাইয়ার ড্রাইভার চালিয়ে গেলো। আর আমরা ভ্যানের পেছনে সারা রাস্তা খেয়ে বিশ্ব রাজনীতি আলোচনা করে পৃথিবী উদ্ধার করতে করতে গেলাম । আরেকটা সিনিক রোড আছে বোস্টন নিউইয়র্ক আসবার ।সেটা মনে হয় রুট 5 । I-95 থেকে মনে হয় নিয়েছিলাম। ইয়েল ইউনিভার্সিটির কাছ দিয়ে এসেছে সেই রাস্তাটা । অনেক বড় একটা জায়গায় ওয়ান লেইন । সে ছাড়া আর সব সুন্দর । খুব সিনিক ছিল পুরো রাস্তাটাই। লেখায় ভালোলাগা ।

০৩ রা নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১২:০৩

কাতিআশা বলেছেন: I-15 আসলেই সুন্দর!..সামনের উইকএনডে আবার যাচ্ছি, আপনার বলা রুট 5 ট্রাই করে দেখতে পারি, আসলে খুবই রাশ এর মধ্যে থাকি যাবার পথে! পড়ার জন্য অনেক ধন্যবাদ ভাইয়া!

৭| ০৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ দুপুর ২:৫২

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: ছবিগুলো সুন্দর। আমার অনেক যাওয়ার ইচ্ছে সেখানে।

০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:০৮

কাতিআশা বলেছেন: পড়ার জন্য অনেক ধন্যবাদ ফারিহা আপু!..আসার আমন্ত্রন রইল!

৮| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৫২

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: ধন্যবাদ। আমার ব্লগে ঘুরে আসবেন কিন্তু সময় করে। ভালোবাসা জানিয়ে গেলাম। B-)

৯| ১৬ ই নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ১০:৫০

আকতার আর হোসাইন বলেছেন: বাহ, ছবিগুলো চমৎকার।

১৭ ই নভেম্বর, ২০১৮ রাত ১২:৫৩

কাতিআশা বলেছেন: পড়ারআর ভাল লাগার জন্য অনেক ধন্যবাদ !

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.