নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সাহসী সত্য।এই নষ্ট দেশ-জাতি-সমাজ পরিবর্তনের প্রচেষ্টাকারী একজন নিস:ঙ্গ যোদ্ধা।বাংলাদেশে পর্বত অরোহণের পথিকৃত।

অনল চৌধুরী

লেখক,সাংবাদিক,গবেষক,অনুবাদক,দার্শনিক,তাত্ত্বিক,সমাজ সংস্কারক,শিক্ষক ও সব অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী যোদ্ধা

অনল চৌধুরী › বিস্তারিত পোস্টঃ

উইঘুরদের উপর নৃশংস নির্যাতনের কারণেই চীনাদের এই শাস্তি।

২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ ভোর ৪:৪৫


করোনা ভাইরাসে গত কয়েকদিনে চীনে ৫৬ জন মারা গেছে। চীন থেকে এই ভাইরাস ছড়িয়েছে সারা পৃথিবীতে।

অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে যে ,চীনে ইউঘুরদের উপর নৃশংস নির্যাতনের কারণেই চীনাদের উপর প্রকৃতির ক্রোধে এই শাস্তি নেমে এসেছে এই শাস্তি।

আমি নিজেই ধার্মিক না কিন্ত প্রকৃতির শাস্তিতে বিশ্বাসী।

কিন্ত নিরপেক্ষভাবেও যদি চিন্তা করা হয় ,তাহলে দেখা যাবে,কোনো ব্যাক্তি বা জাতি যখন সীমাহীন অপরাধ করে,তখন প্রকৃতি তাদের ধ্বংস করে দেয়।

ফেরাউন,সাদ্দাদ,আবরাহা,আলেকসান্ডার,চেঙ্গিস,হালাগু,হিটলার,মুসোলিনী,ইয়াহিয়া,মার্কোস,সুহার্তো এমকি এরশাদ-কোন বড় অত্যাচারী বা পাপী শাস্তি না পেয়ে পৃথিবী থেকে বিদায় নিয়েছে?

ব্যাক্তির মতো জাতির উপরও পাপের শাস্তি পড়ে।

যিশু খ্রীষ্টকে হত্যা করার পর পপের শাস্তি হিসেবে রোমানরা সেনাপতি টাইটাসের নেতৃত্বে জেরুজালেম আক্রমণ করে ১৫-২০ হাজার হাজার ইহুদীকে হত্যা এবং প্রায় ১ লাখ ইহুদীকে ক্রীতদাসে পরিণত করেছিলো।
তিন ধর্মের পব্ত্রি গ্রন্থে আদ ও লুত জাতির ধ্বংসের কথা বর্ণিত আছে।
হিন্দুদের ধর্মগ্রন্থগুলিতে বারবার কর্মফলের কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

উন্নত সভ্যতা থাকার পরও এ্যামেরিকার আদিবাসী অনেক গোত্রের মধ্যে নরবলি প্রথা চালু থাকার ফলেই হয়তো কলম্বাস খূজে বের করার পর ইউরোপীয়দের হাতে বিশাল দুই মহাদেরে প্রায় ১০ কোটি মানুষ নিহত ও প্রায় নির্বংশ হয়।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে জাপান,জার্মানী ধ্বংস হয়েছে।
ইংল্যান্ড প্রায় সব বড় উপনিবেশ হারিয়েছে।

কোটি কোটি আদিবাসী হত্যা করে দখল করা আর দেশে দেশে গণহত্যা,বিমান হামলা লুটপাট চালানো এ্যামেরিকায় প্রতিবছর ১৪ হাজার লোক নিজেদের দেশের লোকদেরই বন্দুকের গুলিতে মারা যাচ্ছে।কোনো মুসলিম বা উত্তর কোরিয়ার ‘‘সন্ত্রাসী’’ তাদের মারছে না।

এই ব্যাপারগুলি ব্যাখা কি হতে পারে??????

পাপের শাস্তির বিষয়টা সব দেশে জাতি ও ধর্মের লোকরাই বিশ্বাস করে কারণ বৈজ্ঞানিকভাবে প্রমাণিত না হলেও এরকম ঘটনা প্রাচীনকাল থেকেই ঘটছে।

ট্রয়ের যুদ্ধে সেনাপতি অডিসিয়াস প্রতারণার মাধ্যমে গ্রীকদের বিজয়ী হতে সাহায্য করেছিলেন।

এরফলে তাকে দীর্ঘ সময় শাস্তি পেতে হয়েছে। তার এই শাস্তির কাহিনী নিয়েই লেখা হয়েছে হোমারের অডিসি মহাকাব্য


হলিউডের গ্ল্যাডিয়েটর(২০০০ সালের অস্কার বিজয়ী),দ্য লাষ্ট সামুরাই(২০০৪)সহ আরো অনেক ছবি নায়কের পাপের শাস্তি নিয়ে বানানো।

সুতরাং পাপের শাস্তির বিষয়টাকে এড়িয়ে যাওয়ার কোনো সুযোগ নাই।

মন্তব্য ৫৯ টি রেটিং +৩/-০

মন্তব্য (৫৯) মন্তব্য লিখুন

১| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ ভোর ৫:৩৬

চাঁদগাজী বলেছেন:


উইগুরদের উপর ভয়ানক অত্যাচার করছে চীনের প্রশাসন; কিন্তু করোনা ভাইরাস ইহার শাস্তি নয়।

২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ২:১৪

অনল চৌধুরী বলেছেন: ধন্যবাদ।
আপনি মনে করছেন না কিন্ত আমি তাই মনে করছি।
এভাবে স্বাধীন মত প্রকাশই সভ্যতা এবং গণতন্ত্র।

২| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ ভোর ৫:৫৯

দূর আকাশের নীল তারা বলেছেন: আমি ধর্মে বিশ্বাসী এবং পালনও করি। বিশ্বাস আর বাস্তবতা দুটি ভিন্ন জিনিষ। আর অন্ধবিশ্বাস সেটাই যেখানে কোন বাস্তবতা বা বিশ্বাস থাকে না। এরআগেও এভিয়ান ফ্লু, সার্স এর মত বেশ কটি মারাত্মক ভাইরাসের উদ্ভব চীনে হয়েছে। বিজ্ঞানীদের ভাষ্যমতে, এসব ভাইরাস পশু-পাখিতে থাকার কথা, মানুষের দেহে ঢুকে রোগ সৃষ্টি করার কথা না। কিন্তু এসব ভাইরাসে মানুষে সংক্রমণ হয়েছে একটা মাত্র কারণে। চাইনিজরা বাদুর, ইদুর, সাপ ব্যাঙ, কুকুর সব খায়। এভিয়ান ফ্লু এসেছিল বুনো প্রজাতির পাখি থেকে, সার্স এসেছিল বাদুর থেকে। এবারও ভাইরাসটি এসেছে উহান প্রদেশের একটা মার্কেট থেকে যেখানে বিভিন্ন বন্য প্রাণী খাওয়ার জন্য কেনা-বেচা করা হয়। চাইনিজরা নিজেরাই বলে, তারা কাঠ আর লোহা ছাড়া সব খায়।

২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ২:১২

অনল চৌধুরী বলেছেন: চাইনিজরা নিজেরাই বলে, তারা কাঠ আর লোহা ছাড়া সব খায়-এছাড়া প্রায় ১৫০ কোটি লোকের মানুষের মাংস খাওয়া ছাড়া উপায় থাকবে না।
আমি ধর্মে বিশ্বাসী এবং পালনও করি। বিশ্বাস আর বাস্তবতা দুটি ভিন্ন জিনিষ। আর অন্ধবিশ্বাস সেটাই যেখানে কোন বাস্তবতা বা বিশ্বাস থাকে না- অঅপনি কি অঅমার মতের সাথে একমত না দ্বিমত,সেটা বোঝা গেলো না।
আমি আমার ধারণা প্রকাশ করেছি,তাই এব্যাপারে সবার মূল্যবান মতামত জানতে চাই।

৩| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ ভোর ৬:৩২

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




অনল চৌধুরী ভাই,
পাপ বাপকেও ছাড়ে না। যাইহোক, আমার ব্যক্তিগত ধারণা চীনারা এক্সপেরিমেন্ট করতে গিয়ে এই ধরনের মরণব্যাধি তৈরি করেছে। এই জাতি ভয়ঙ্কর জাতি, অস্ত্র ছাড়া বিশ্ব ধ্বংস করে দিবে একদিন।

২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ২:১৭

অনল চৌধুরী বলেছেন: তাতো ঠিকই বলেছেন ঠাকুর মাহমুদ ভাই।
তবে যার যেখানে মৃত্যু নির্ধারিত,সে সেখানে গিয়েই মরে।
বেনজিরও চুরির টাকায় লন্ডনে বিলাসী জীবন ছেড়ে আবার লুটপাট করতে পাকিস্তানে এসে তারই সৃষ্ট তালেবানদের হাতে মরেছিলো।
চীনারাও নিজেদের পাপের শাস্তি লাভের জন্য বিভিন্ন পদ্ধতি বের করছে।

৪| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ৭:৩৩

হাসান কালবৈশাখী বলেছেন:

এজাবৎ ৫৪ না ৮৬ জন মারা গেছে। খুবই সামান্য।

রাস্তায় হাটতে বা শিড়িতে উষ্টাখেয়ে এরচেয়ে ২০ গুন বেশী মারা যায়।
সৌদি আরবে গড়ে ১০ হাজার মারা যায় রোড এক্সিডেন্টে
বাংলাদেশে বজ্রপাতে হাজার দেড়েক মারা যায় প্রতি বছর।
আমেরিকাতে সাধারন ফ্লু তেই বছরে ৫০ হাজার মারা যায়।
২০১৮-১৯ ফ্লু সিজনে মোট 61,200 মারা গেছে। এসব প্রতি বছর নর্মাল মামুলি ব্যাপার। গজব না।

এই ভাইরাস দ্রুত ছড়ায় তাই সাবধানতা। ২ সপ্তাহ পর নিয়ন্ত্রনে এসে যাবে।
যেভাবে বার্ড ফ্লু, সার্স, মার্স, পোলিও, ইবোলা নিয়ন্ত্রন করা হয়েছে।


চীনারা কোরান পরিবর্তন করছে - সম্পুর্ন ভুয়া কথা।

চীনারা সকল প্রধান ধর্মগ্রন্থ (কোরান সহ) ম্যান্ডারিন ও চীনা ভাষায় খাটি একটা স্ট্যান্ডার্ড অনুবাদ করছে।
সরকারি তত্তাবধানে বিভিন্ন পুরোহিত আলেমদের এ কাজে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। সঠিক অনুবাদের জন্যই।
কারন চীনে বিভিন্ন ধর্মগ্রন্থের স্থানীয় ভাষায় একাধিক বিভ্রান্তিকর ভুল অনুবাদ বাজারে চলছে। যা বিতর্কের শৃষ্টি করছিল।
কারন চীনে মাওসেতুং আমলে সকল ধর্মগ্রন্থই নিষিদ্ধ ছিল।

২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ২:২০

অনল চৌধুরী বলেছেন: ধন্যবাদ।
আপনি মনে করছেন না কিন্ত আমি তাই মনে করছি।
এভাবে স্বাধীন মত প্রকাশই সভ্যতা এবং গণতন্ত্র।
সব সমাজতান্ত্রিক দেশের মতো চীনেরও রাষ্ট্রধর্ম নাস্তিক্য।
আর আমি কোনো ধর্মের অবমাননার কথা বলিনি।বলেছি মানবতার অবমাননার কথা,যাদের জন্য ধর্মের সৃষ্টি।

৫| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ৯:০০

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: কাল একজন আপননার মতোই বলছিল
আল্লাহর মাইর দুনিয়ার বাইর
চীনারা মুসলিম মেয়েদের লম্বা কাপড় পড়লেই হাটু পর্যন্ত ছেটে দিতো!
এখন আল্লাহর গজব থেকে বাঁচতে সেই লম্বা জুব্বাতেই লুকাচ্ছে সবাই! ডাক্তার নার্স, সাধারণ মানুষ!
ভাইরাস আক্রমন থেকে বাঁচতে হ্যান্ড গ্লাভস এবং পুরো শরীর ঢেকে সতর্কতার সাথে চলাফেরার কথা আসছে সতর্কবার্তায়

প্রকৃতির প্রতিশোধ বুঝি এমনই নির্মম হয়।

বিজ্ঞানওতো তাই বলে। সকল ক্রিয়ার সমান ও বিপরীত প্রতিক্রিয়া রয়েছে!
ভাবনার বিষয় বটে।


২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ২:২২

অনল চৌধুরী বলেছেন: ধন্যবাদ।
তবে আমি নির্দ্ষ্টি কোনো ধর্মের অবমাননার কথা বলিনি।বলেছি মানবতার অবমাননার কথা।
অপরাধ করলে মুসলিম দেশগুলিতেও যে সবসময় অশান্তি আর বিশৃংখলা থকে বাংলাদেশসহ বহু দেশ তার প্রমান।

৬| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ৯:১৩

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: এগুলো মানুষেরই কর্মের ফল।

২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ২:২৬

অনল চৌধুরী বলেছেন: ধন্যবাদ।
আমারো তাই ধারণা।

৭| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ৯:১৯

রাজীব নুর বলেছেন: প্রকিতি অনেক শক্তিশালী।
মানুষকে শিক্ষা দেয়।
মানুষ উজাইছে। তাদের শিক্ষা দিতে প্রকিতি রেডি আছে।

২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ২:২৩

অনল চৌধুরী বলেছেন: ধন্যবাদ।
এতো আমরা পৃথিবী সৃষ্টির পর থেকেই দেখে আসছি।

৮| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ১০:৩৫

নূর মোহাম্মদ নূরু বলেছেন:
ইসলাম ধর্মে সব ধরনের অত্যাচার কঠোরভাবে নিষিদ্ধ, হারাম। শুধু অত্যাচার নয়, অত্যাচারে সহযোগিতা করা এবং অত্যাচারীদের সঙ্গে সম্পর্ক রাখা ও ঘনিষ্ঠতা রক্ষা করাও হারাম। মানুষের ওপর অত্যাচার এমন এক ভয়াবহ গোনাহ যার শাস্তি কোনো না কোনো উপায়ে দুনিয়ায় পেতে হয়। ইসলাম ধর্মে সব ধরনের অত্যাচার কঠোরভাবে নিষিদ্ধ, হারাম। শুধু অত্যাচার নয়, অত্যাচারে সহযোগিতা করা এবং অত্যাচারীদের সঙ্গে সম্পর্ক রাখা ও ঘনিষ্ঠতা রক্ষা করাও হারাম। মানুষের ওপর অত্যাচার এমন এক ভয়াবহ গোনাহ যার শাস্তি কোনো না কোনো উপায়ে দুনিয়ায় পেতে হয়। শুধু মানুষ নয়, পশুপাখি ও প্রাণীর ওপরও অত্যাচার হারাম।

সূরা আশশুআরার শেষ আয়াতে আল্লাহ বলেন, ‘অত্যাচারীরা তাদের অত্যাচারের পরিণতি অচিরেই জানতে পারবে, তাদের গন্তব্যস্থল কেমন?’ রাসূল (সা.) বলেন, ‘আল্লাহতায়ালা অত্যাচারীকে দীর্ঘ সময় দিয়ে থাকেন। অবশেষে যখন পাকড়াও করেন তখন তাকে আর রেহাই দেন না। অতঃপর তিনি এই আয়াত পাঠ করেন- তোমার প্রভুর পাকড়াও এ রকমই হয়ে থাকে, যখন তিনি অত্যাচারে লিপ্ত জনপদগুলোকে পাকড়াও করেন। তার পাকড়াও অত্যন্ত যন্ত্রণাদায়ক, অপ্রতিরোধ্য।’ –সহিহ বোখারি ও মুসলিম

আল্লাহপবিত্র কুরআনে বলেনঃ
“হে মুমিনগণ, আল্লা-হ যেসব পবিত্র বস্তু তোমাদের জন্য হালাল করেছেন, তোমরা তা হারাম করো না এবং তোমরা সীমালঙ্ঘন করো না। নিশ্চয় আল্লাহ সীমালঙ্ঘন কারীকে পছন্দ করেন না।” [সূরা মায়িদাহঃ আয়াত ৮৭]

২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ২:২৫

অনল চৌধুরী বলেছেন: ধন্যবাদ।
পাপের শাস্তি অনিবার্য।
তবে অপরাধ করলে মুসলিম দেশগুলিতেও যে সবসময় অশান্তি আর বিশৃংখলা থকে বাংলাদেশসহ বহু দেশ তার প্রমান।

৯| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১২:১৪

পদ্ম পুকুর বলেছেন: সিরিয়াসলি বললেন নাকি? গতবছর বাংলাদেশে ডেঙ্গু তাহলে কিসের ফল ছিলো?

২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ২:৩৩

অনল চৌধুরী বলেছেন: ধন্যবাদ।
সত্যিসত্যিই বলেছি।
বাঙ্গালীরা একটা নষ্ট আর পাপী জাতি হওয়ার কারণেই এতো বিপদ-আপদ আর অশান্তি।
এখন মেয়েরা ঞঘরের বাইরেও বের হতে পারছে না।
এগুলি কি পাপের শাস্তি না?????

১০| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১২:১৫

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: অবিশ্বাসী হলেও পাপ করলে সে ছাড় পাবে না

বিশ্বাসী হোন ক্ষমা চান সৃষ্টিকর্তার কাছে

২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ২:৩৫

অনল চৌধুরী বলেছেন: ধন্যবাদ।
যে ধর্মের অনুসারী,বা নাস্তিক যাই হোক,পাপের শাস্তি অনিবার্য।
এর লক্ষ্য উদাহরণ আছে।

১১| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ২:২৬

ঢাবিয়ান বলেছেন: করোনা ভাইরাসে চীনের ক্ষমতাসীন দলের কারো মরাতো দূরে থাক আক্রান্ত হবার খবরও শোনা যায়নি। আক্রান্ত হচ্ছে কেবল নিরিহ সাধারন মানুষ।

হায়রে প্রকৃতি তোমারোও সুনজর কেবল অবৈধ টাকাওলা, প্রভাবশালীদের উপড় আর কুনজর কেবল খেটে খাওয়া সাধারন মানুষের ওপড়!!!!

২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ৩:০১

অনল চৌধুরী বলেছেন: চীনের জনগনই এসব ক্ষমতাবানদের সমর্থক।
তাই আগে তাদেরই শাস্তি হওয়া উচিত।

ধনী আর ক্ষমতাবানদের শাস্তির বিষয়গুলি বেশীরভাগ সময়ই গোপন থাকে,তাই তারা যে স্ত্রী-সন্তান পরিবার নিয়ে কতোটা অশান্তিতে থাকে,সেটা সবাই জানতে পারে না।
বাইরের সম্পদ দেখে সবাই তাদের ধনী মনে করে।সবচেয়ে ধনী যে স্যুাপ ছাড়া আর কিছু খেতে পারতেন না,তা কি জানেন?
শেয়ার ডাকাতের মেয়ে যে লন্ডনে ছাদ থেকে মরে মারা গিয়েছিলো সেই তথ্য জানা আছে?
২০১৫ তে পেট্রল বোমা মেরে অগণিত মানুষকে পুড়িয়ে মারা
বোমা সন্ত্রাসী খালেদার ছেলে কোকো যে সেই বছরই সিঙ্গাপুরে মারা গিয়েছিলো তা জানেন?
পিতা-মাতার কাধে সন্তানের লাশ কি খুব আনন্দের?
এরকম আরো লক্ষ্য দৃষ্টান্ত আছে।

১২| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৩:১৪

হাসান কালবৈশাখী বলেছেন:
ঢাবিয়ানের মন্তব্য মোক্ষম। লাইক দিলাম।

১৩| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৩:১৫

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: যে কোন বিপর্যয় হলেই আল্লাহর শাস্তি বলাটা মনে হয় ঠিক হবে না। কারণ, শাস্তি দিতে হলে তো ইসরাইলের উপরই সব প্রাকৃতিক দুর্যোগ হত। ফিলিস্তিনী মুসলমানদের উপর অত্যাচারের মাত্রায় তো তারাই সবচেয়ে বেশী! বাংলাদেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষ ধর্মভীরু হলেও আমাদের উপরও কম দুর্যোগ যায় না। অথচ আমরা ঘুষ, দুর্ণীতিতে চ্যাম্পিয়ন হলেও পাপাচারে অন্যদেশের মত নই! সব কিছুর ব্যাখ্যাও করা যায় না...

২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ২:৫৯

অনল চৌধুরী বলেছেন: বড় বিপর্যয় হলে সেটা প্রকৃতির রোষ মনে হওয়াটা অস্বাভাবিক না।

আরবরা ধর্ম প্রচারের জন্য বিশ্বের দেশে দেশে যে যুদ্ধ আর শক্তির পদ্ধতি অবলম্বন করেছিলো,এখন তারা সেটারই শাস্তি পাচ্ছে-ফিলিস্তিনসহ পুরো মধ্য প্রাচ্যের বিষয়টা এমনও হতে পারে।

আর ইহুদীরা হাজার বছর ধরে কি কম শাস্তি পেয়েছে নাকি??????

বাংলাদেশ দুর্নীতি মাদক সন্ত্রাস আর ধর্ষণে পৃথিবীর সেরা ৩ টা দেশের মধ্যে আছে।
এর চেয়ে বড় শাস্তি এই পাপী জনগণের জন্য আর কি হতে পারে?

১৪| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৩:৪৬

একাল-সেকাল বলেছেন:
আল্লাহ কাকে কেন ও কি ভাবে শাস্তি দিবেন তা মানব কুলের কাছে অনুমতি নিয়ে নয়। যারা এটা আশা করে তাদের উচিৎ একটা গ্যালাক্সি বানিয়ে আল্লাহর সাথে নির্বাচন করা (নাউজুবিল্লাহ) বিজয়ী হলে নিজের পছন্দ মত শাস্তির বিধান করা। সম্ভব না হলে কোরআনে বর্ণীত আদেশ/ নিষেধ বিনা বাক্যব্যয়ে মেনে নেয়া।

আল্লাহ সবাইকে বুঝার তৌফিক দিন।

২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ২:৫৫

অনল চৌধুরী বলেছেন: ধন্যবাদ।
সর্বশক্তিমানের তার ইচ্ছা বা পরিকল্পনা বোঝার ক্ষমতা মানুষের জ্ঞানের আওতার বাইরে।

১৫| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৪:৩২

নেওয়াজ আলি বলেছেন: পাপ,বাপকেও ছাড়ে না।

২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ৩:০০

অনল চৌধুরী বলেছেন: ধন্যবাদ।
কিন্ত ইতিহাস থেকে কেউই শিক্ষা নেয় না।

১৬| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৪:৪৯

নীল আকাশ বলেছেন: যাহা বলেছেন সেটা সত্যই মনে হচ্ছে। কারণ-
আল্লাহপবিত্র কুরআনে বলেনঃ “হে মুমিনগণ, আল্লা-হ যেসব পবিত্র বস্তু তোমাদের জন্য হালাল করেছেন, তোমরা তা হারাম করো না এবং তোমরা সীমালঙ্ঘন করো না। নিশ্চয় আল্লাহ সীমালঙ্ঘন কারীকে পছন্দ করেন না।” [সূরা মায়িদাহঃ আয়াত ৮৭]
লেখার সাথে স হ ম ত।

@ পদ্ম পুকুর বলেছেন: সিরিয়াসলি বললেন নাকি? গতবছর বাংলাদেশে ডেঙ্গু তাহলে কিসের ফল ছিলো?

হায় হায় কী বলেন? এই দেশে পাপের কী কোন কমতি আছে নাকি? যেই হারে নবজাতক শিশু রাস্তায় ফেলে দেয় সেটার জন্যও তো গজব নামা উচিৎ।

২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ২:৫১

অনল চৌধুরী বলেছেন: ধন্যবাদ।
বাংলাদেশ দুর্নীতি মাদক সন্ত্রাস আর ধর্ষণে পৃথিবীর সেরা ৩ টা দেশের মধ্যে আছে।
এর চেয়ে বড় শাস্তি এই পাপী জনগণের জন্য আর কি হতে পারে?

১৭| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ৮:৪০

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:

বিচার মানি তালগাছ আমার, পদ্ম পুকুর, কাজী ফাতেমা ছবি, একাল-সেকাল - সঠিক বলেছন।

@ঢাবিয়ান ভাই, আপনার মন্তব্যে লাইক। সমস্যা হচ্ছে তুফানে হত দরিদ্রের ঘর ভাঙ্গে।

@নীল আকাশ ভাই, বাংলাদেশ এখনো কোন কারণে ভেসে আছে তাই ভাবনার বিষয়! আমার মতে বাংলাদেশ অনেক আগে ডুবে যাওয়ার কথা। এই দেশ পাপাচারে ভরপুর হয়ে আছে দীর্ঘদিন যাবত। এই দেশে পাপ নাই যারা বলবেন, তারা নিজ নিজ জেলার নাম বলুন আমি আপনার জেলা শহরে পাপের আড্ডাখানার ঠিকানা দিয়ে দিবো। দয়াকরে কেউ বলবেন না বাংলাদেশে পাপ নাই।

২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ২:৩৯

অনল চৌধুরী বলেছেন: অপনার এই মন্তব্য আপনার আগের ৩ নং মন্তব্যের বিপরীত।
বাংলাদেশ দুর্নীতি মাদক সন্ত্রাস আর ধর্ষণে পৃথিবীর সেরা ৩ টা দেশের মধ্যে আছে।
এর চেয়ে বড় শাস্তি এই পাপী জনগণের জন্য আর কি হতে পারে?
কাউকে গুলি করে মরা মরা আর কাতুকুতু দিয়ে মারা তো একই জিনিস।

১৮| ২৮ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ৯:৫৩

নূর আলম হিরণ বলেছেন: ঢাবিয়ান সঠিক বলেছেন। ঈশ্বর বলেন আর প্রকৃতি বলেন শাস্তি সাধারণ মানুষই বেশি পায়।

২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ২:৩৩

অনল চৌধুরী বলেছেন: ধন্যবাদ।
একথা আমিও অনেকবার বলেছি।
তবে ধনী আর ক্ষমতাবানদের শাস্তির বিষয়গুলি বেশীরভাগ সময়ই গোপন থাকে,তাই তারা যে স্ত্রী-সন্তান পরিবার নিয়ে কতোটা অশান্তিতে থাকে,সেটা সবাই জানতে পারে না।
বাইরের সম্পদ দেখে সবাই তাদের ধনী মনে করে।

১৯| ২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ৩:৩২

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




বাংলাদেশী ভারতীয় সিরিয়াল দেখে, ভেজাল খেয়ে, আর রাজনৈতিক দাবানলে পুড়ে মরবে। এছাড়া গ্যাস সঙ্কট ও স্বাদু পানি সঙ্কট ধেয়ে আসছে - - - - -

- না বিপরীত নয়।

***আপনার ভারতীয় তারকাঁটার দারোয়ানদের অত্যাচারের পোষ্টে আমার মন্তব্য আছে পড়ে নিন। ধর্ম ও রাজনৈতিক লেখা থেকে অবসর নিয়েছি, এই দুই বিষয়ে মন্তব্য থেকেও অবসর নিতে চাচ্ছি।

৩০ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ২:৪৩

অনল চৌধুরী বলেছেন: লেখক সাংবাদিক ব্লগার লেখা খেকে অবসর নিয়ে শান্তিতে ঘুমাতে পারবে?????

২০| ২৯ শে জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৩:২৫

এইচ তালুকদার বলেছেন: আল্লাহ যদি শাস্তি দেনই সেই শাস্তি এত অল্প হবে বলে আমার মনে হয় না।

৩০ শে জানুয়ারি, ২০২০ রাত ২:৪০

অনল চৌধুরী বলেছেন: শাস্তি তো মাত্র শুরু।
৫৬ জন থেকে চীনে মৃতর সংখ্যা দাড়িয়েছে ১৩২ জন।

২১| ৩০ শে জানুয়ারি, ২০২০ ভোর ৫:১৯

সুপারডুপার বলেছেন:



শয়তান মানুষকে দিয়ে খারাপ কাজ করাবে। আর আল্লাহ মানুষকে শাস্তি দিবেন, মেরে ফেলবেন । এই রকম-ই ধার্মিকদের চিন্তা।

কিন্তু আল্লাহ কেন খারাপ কাজের আসল উৎস শয়তানকে মেরে ফেলেন না?

ধার্মিকরা বলবেন আল্লাহ পরীক্ষা নিচ্ছেন। তাহলে পরীক্ষার নামে আল্লাহ ও শয়তানের মানুষকে নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট করার কারণ কি?

৩০ শে জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৪:৩৩

অনল চৌধুরী বলেছেন: এই প্রশ্নের উত্তর ধার্মিকরা দেবেন।

২২| ৩০ শে জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ১১:৪৭

সুপারডুপার বলেছেন: প্রকৃতিতে শাস্তি বলে কিছু নাই। প্রকৃতি শুধুমাত্র ভারসাম্য রক্ষার সর্বোচ্চ চেষ্টা করে। যেমনঃ বাঘ বাড়লে হরিণ কমবে। হরিণ কমলে, বাঘ খাদ্যের অভাবে কমা শুরু করবে । তখন আবার হরিণ বাড়বে। বাঘ বেড়ে যাওয়াকে হরিণ শাস্তি হিসেবে মনে করতে পারে। তেমনি , হরিণ কমে যাওয়াকে বা খাদ্যের অভাবকে বাঘ শাস্তি হিসেবে মনে করতে পার।



৩০ শে জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৪:৩২

অনল চৌধুরী বলেছেন: ফেরাউন,সাদ্দাদ,আবরাহা,আলেকসান্ডার,চেঙ্গিস,হালাগু,হিটলার,মুসোলিনী,ইয়াহিয়া,মার্কোস,সুহার্তো এমকি এরশাদ এমনক বুড়ি বয়সে জেল খাটা খালেদার শাস্তির ব্যাপারে ব্যাখা কি??????

২৩| ৩১ শে জানুয়ারি, ২০২০ ভোর ৬:৪০

সুপারডুপার বলেছেন:


লেখক বলেছেন: ফেরাউন,সাদ্দাদ,আবরাহা,আলেকসান্ডার,চেঙ্গিস,হালাগু,হিটলার,মুসোলিনী,ইয়াহিয়া,মার্কোস,সুহার্তো এমকি এরশাদ এমনক বুড়ি বয়সে জেল খাটা খালেদার শাস্তির ব্যাপারে ব্যাখা কি??????
======================================================
- তাদের Survival of the fittest যতদিন শীর্ষে ছিল ততদিন তারা প্রকৃতির সাথে ছন্দ মিলিয়ে প্রকৃতিতে ভারসাম্য রক্ষা করতে পেরেছে। এর পরে তাদের প্রতিদ্বন্দ্বীর Survival of the fittest যখন তাদের Survival of the fittest এর উপরে উঠেছে, প্রকৃতি তখন তাদের প্রতিদ্বন্দ্বীকে ক্ষমতা দিয়েছে। তখন সাধারণ মানুষের দৃষ্টিতে মনে হচ্ছে তারা শাস্তি পেয়েছে। কিন্তু বাস্তবতায় যে সর্বোচ্চ Survival of the fittest, প্রকৃতি তাকেই বিজয়ী করে প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষা করে।

একটি নির্দিষ্ট সময়ে, "প্রাকৃতিক ভারসাম্য" ঐ সময়ে যে সর্বোচ্চ Survival of the fittest তার দিকে ঝুঁকে পড়ে

আমাদের জন্মও হয়েছে যে শুক্রাণু সর্বোচ্চ Survival of the fittest ছিল তার মাধ্যমে। বাকি শুক্রাণুগুলো মরে গেছে। বাকি শুক্রাণুগুলোর পক্ষে থেকে চিন্তা করলে মনে হবে , বাকি শুক্রাণুগুলোকে নির্যাতন করা হয়েছে।

০২ রা ফেব্রুয়ারি, ২০২০ রাত ২:৪১

অনল চৌধুরী বলেছেন: আপনার বিশ্বাস বা অবিশ্বাসে প্রকৃতির শাস্তির কোনো পরিবর্তন হবে না।
নিজে ছোটা/বড় যেকোন অপরাধ করে দেখেন,সাখে সাথে বা ৫ বছরের মধ্যে শাস্তি পান কিনা।

২৪| ৩১ শে জানুয়ারি, ২০২০ ভোর ৬:৫৮

রাফা বলেছেন: একমাত্র সৃষ্টিকর্তাই জানেন । তবে প্রকৃতির প্রতিশোধ বড়ই কঠিন আর নির্মম। অস্ট্রেলিয়ার ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের কথাই চিন্তা করে দেখুন ।এট আধুনিক দেশ হওয়ার পরও প্রকৃতির কাছে কত অসহায় সামান্য অগ্নিকান্ড থামাতে হিমশিম খেয়ে গেছে কত বণ্য পশুপাখির জিবন চলে গেলো ।মানুষও অন্তর্ভুক্ত ছিলো কোন প্রতিরোধই গড়ে তুলতে পারে নাই।শিক্ষা নেওয়ার অনেক কিছু থাকলেও এরপরও শিক্ষা নেবেনা মানুষ।কারন একটাই আমরা মানুষ- আল্লাহ্ যাদের চিন্তা করার শক্তি দিয়েছেন।

ধন্যবাদ,অ.চৌধুরী।

০২ রা ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ভোর ৪:৩৬

অনল চৌধুরী বলেছেন: ধন্যবাদ।
এ্যামেরিকার মতো অষ্ট্রেলিয়াও আদিবাসীদের উপর গণহত্যা চালিয়ে দখল করা দেশ।
তাই সারাবছরই কোনো না কোনো বিপদ লেগেই থাকে।
আর পাপের শাস্তির বিষয়টা সব দেশে জাতি ও ধর্মের লোকরাই বিশ্বাস করে কারণ বৈজ্ঞানিকভাবে প্রমাণিত না হলেও এরকম ঘটনা প্রাচীনকাল থেকেই ঘটছে।
অডিসি মহাকাব্য,হলিউডের গ্ল্যাডিয়েটর(২০০০ সালের অস্কার বিজয়ী),দ্য লাষ্ট সামুরাই(২০০৪)সহ আরো অনেক ছবি নায়কের পাপের শাস্তি নিয়ে বানানো।

২৫| ৩১ শে জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ১:০৯

নতুন বলেছেন: উইঘুরদের উপরে নিযা`তন হচ্ছে তার জন্য সৃস্টিকতা চীনে এমন ভাইরাসে সাধারন মানুষ মেরে ফেলতেছে এটা একটা বোকামী ভাবনা।

যেই মানুষ গুলি ভুগতেছে তাদের কোন দোষ নাই। এই ভাইরাসে শিশু,বৃদ্ধ বেশি মারা যাচ্ছে..... তাই সৃস্টিকতা যদি এমনটা করে থাকে তবে সেটা হবে চরম অন্যায়।

মানুষের জীবন ব্যাংক একাউন্টের মতন, আমার অন্যায়ের জন্য আপনার একাউন্টের থেকে টাকা কাটলে আপনি মেনে নেবেন না এবং বলবেন এটা অন্যায়।

০২ রা ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ভোর ৪:৩৩

অনল চৌধুরী বলেছেন: আপনার চালাকি ভাবনা আপনার কাছে থাক।
আপনার কথা অনুযায়ী প্রকৃতি শাস্তি নির্ধারণ করে না।
করে তার ইচ্ছা অনুযায়ী।

২৬| ০২ রা ফেব্রুয়ারি, ২০২০ রাত ৩:১৫

সুপারডুপার বলেছেন: লেখক বলেছেন: আপনার বিশ্বাস বা অবিশ্বাসে প্রকৃতির শাস্তির কোনো পরিবর্তন হবে না।
নিজে ছোটা/বড় যেকোন অপরাধ করে দেখেন,সাখে সাথে বা ৫ বছরের মধ্যে শাস্তি পান কিনা।
================================================

- অপরাধের কোনো স্ট্যান্ডার্ড নাই। এক দেশে একটি অপরাধ, অন্যদেশে তা গ্রহণযোগ্য। যেমনঃ মদ খাওয়া বাংলাদেশে অপরাধ কিন্তু পশ্চিমা বিশ্বে তা গ্রহণযোগ্য। পশ্চিমা বিশ্ব শাস্তির পরিবর্তে আশির্বাদ পেয়ে আরও উন্নতি করছে। অপরাধ বলতে আপনি কি বোঝাচ্ছেন ?

- সেপিয়েন্স নিয়ান্ডার্থালদের বিলুপ্ত করেছে। সেপিয়েন্স ও শাস্তির পরিবর্তে আশির্বাদ পেয়ে টিকে আছে বা আমরা টিকে আছি ।

- আদিবাসীরা অনেক অত্যাচার পেয়ে ধ্বংসের পথে। যারা অত্যাচার করেছে তাদেরই তো এখন জয় জয়কার।

- বিগত দুহাজার বছরে একেশ্বরবাদীরা অত্যাচার করে ভিন্নমতাবলম্বীদের নির্মূল করার চেষ্টা করেছে বহুবার। শাস্তি না পেয়ে একেশ্বরবাদী ধর্মের জয় জয়কার হয়েছে।

'Survival of the Fittest ' বিশ্বাস নয় , এটা বাস্তবতা।


০২ রা ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ভোর ৪:৩৬

অনল চৌধুরী বলেছেন: অপরাধ সেটাই যা করলে মানুষ বা মানবতার ক্ষতি হয়,যা প্রকৃতি মেনে নেয় না।
সারাদিন মদ খান,কিছু হবে না।
কিন্ত মাতলামি করে হত্যা বা ধর্ষণ করলে শাস্তি পাবেন।

২৭| ০২ রা ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ভোর ৫:৪৭

সুপারডুপার বলেছেন:




লেখক বলেছেন: অপরাধ সেটাই যা করলে মানুষ বা মানবতার ক্ষতি হয়,যা প্রকৃতি মেনে নেয় না।
সারাদিন মদ খান,কিছু হবে না। কিন্ত মাতলামি করে হত্যা বা ধর্ষণ করলে শাস্তি পাবেন।
=======================================================

জাপান কোরিয়া ও চীনে হত্যা ধর্ষণ করে টিকে আছে। ব্রিটিশরা সারা বিশ্বে হত্যা লুন্ঠন করে টিকে আছে। আমেরিকা মধ্যেপ্রাচ্যে মানুষ হত্যা করে টিকে আছে। বার্মা রোহিঙ্গা মেরে টিকে আছে। সৌদি ইয়ামেন কে মেরে টিকে আছে। সাগর - রুনিকে হত্যা করে হত্যাকারী টিকে আছে। বিডিআর বিদ্রোহর মূল আসামীরা টিকে আছে। তনুর ধর্ষণকারীরা টিকে আছে।

কারণ তারা "Survival of the Fittest" । যখন তারা "Survival of the Fittest" থেকে ছিটকে পড়বে তখন তাদের জায়গায় অন্য আরেকজন যে তাদের থেকে বেশি "Survival of the Fittest" সে আসবে। আর "Survival of the Fittest" প্রাকৃতিক ভারসাম্যর সাথে সম্পর্কযুক্ত।

উইঘুরদের উপর চীনারা নির্যাতন করার পরও চীনারা টিকে থাকবে , কারণ চীনারা উইঘুরদের চেয়ে বেশি "Survival of the Fittest" । কোনো কারণে উইঘুররা চীনাদের চেয়ে বেশি "Survival of the Fittest" হলে , তখন চীনাদের পতন হবে উইঘুরদের বিজয় হবে।

- আপনি সারাদিন মদ খান। তখন আপনি "Survival of the Fittest" থেকে ছিটকে পড়বেন। ফলে, আপনি অসুস্থ হবেন।আপনার "সারাদিন মদ খান,কিছু হবে না" এই কথা সঠিক না।

০২ রা ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ভোর ৫:৫৭

অনল চৌধুরী বলেছেন: আপনার ইচ্ছা অনুযাযী পাপাীদের শাস্তি হবে না,সময় হলেই হবে।

বারবার ডারউনের Survival of the Fittest"- তত্ত্ব ঝাড়ছেন কেনো?

ইচ্ছা হলে আমার মতের সাথে একমত হবেন,না হলে নাই।

নিজের মত অন্যের উপর চাপাতে চান কেনো?

২৮| ০২ রা ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ভোর ৬:০৬

সুপারডুপার বলেছেন:

লেখক বলেছেন: আপনার ইচ্ছা অনুযাযী পাপাীদের শাস্তি হবে না,সময় হলেই হবে। বারবার ডারউনের Survival of the Fittest"- তত্ত্ব ঝাড়ছেন কেনো? ইচ্ছা হলে আমার মতের সাথে একমত হবেন,না হলে নাই। নিজের মত অন্যের উপর চাপাতে চান কেনো?
=============================================================
- নিজের মত অন্যের উপর কোথায় চাপাতে গেলাম। আপনি একটু কথা কম বোঝেন।

- পোস্ট লেখেছেন ঠিকই , কিন্তু সমালোচনা মেনে নিতে পারছেন না। হা হা হা ---

ওকে ব্রাদার

০৩ রা ফেব্রুয়ারি, ২০২০ রাত ২:২৯

অনল চৌধুরী বলেছেন: সমালোচনা হতে হয় তথ্যনির্ভর যুক্তি দিয়ে।
পক্ষে-বিপক্ষে অন্যরা সমালোচনা করেছেন।
কিন্ত আপনি তোতাপাখির মতো এক কথাই বারবার বলছেন।

২৯| ০৩ রা ফেব্রুয়ারি, ২০২০ রাত ৩:৫১

স্বপ্নের শঙ্খচিল বলেছেন: কোনো ব্যাক্তি বা জাতি যখন সীমাহীন অপরাধ করে,তখন প্রকৃতি তাদের ধ্বংস করে দেয়।
.............................................................................................................................
কথাটার সত্যতা আছে, তাই বলে উইঘুরের অত্যাচারের শাস্তি করোনা ভাইরাস বিশ্বাস যোগ্য নয় ।
যে দেশে আপনি বাস করেন সে দেশের ভালো মন্দ আপনার কাছে সর্বোচ্চ মনে হয় ।
সৌদি আরবে যে পাপাচার হয় তার মাত্রা আমাদের থেকে অনেক বেশী ।

০৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ রাত ২:৫০

অনল চৌধুরী বলেছেন: আপনার অবিশ্বাস করা স্বাদীনতা আছে,যেমন আমার আছে বিশ্বাস করার।
সৌদিদের টাকা আছে কিন্ত ভুটানের জনগণের মতো সুখ নাই।

৩০| ০৩ রা ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ভোর ৬:৫৮

কালো যাদুকর বলেছেন: বলা মুশকিল। কেন কি হচ্ছে, এক ঈশ্বরই জানে। তবে চীনাদের বা যে কোন কমিউনিস্ট দেশেই মুসলিমরা ভালো নেই। আমি কয়েকজন ভুক্তভোগী লোকের সাথে কথা বলেই জেনেছি যে এরা মুসলিমদের বা যেকোন ধার্মিক গোষ্ঠীকে কেমন অত্যাচার করে।

০৭ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ রাত ২:৪৯

অনল চৌধুরী বলেছেন: সমাজতান্ত্রিক দেশে রাষ্ট্রধর্ম নাস্তিক্য।কিন্ত এই অজুহাতে হত্যা,ধর্ষণ আর বন্দীশিবির গ্রহণযোগ্য না।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.