নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সাহসী সত্য।এই নষ্ট দেশ-জাতি-সমাজ পরিবর্তনের প্রচেষ্টাকারী একজন নিস:ঙ্গ যোদ্ধা।বাংলাদেশে পর্বত আরোহণের পথিকৃত।

অনল চৌধুরী

লেখক,সাংবাদিক,গবেষক,অনুবাদক,দার্শনিক,তাত্ত্বিক,সমাজ সংস্কারক,শিক্ষক ও সব অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী যোদ্ধা

অনল চৌধুরী › বিস্তারিত পোস্টঃ

লুন্ঠিত টাকা উদ্ধার করে করোনা সংকটে ব্যবহার করা হোক

২৭ শে মার্চ, ২০২০ রাত ৩:৫৭



Click This Link

করোনার কারণে ঘরে অবরুদ্ধ হয়ে থাকাটা দেশের দুর্নীতিবাজ-লুটপাটকারী চক্রের কাছে নতুন বিনোদন।কারণ তাদের মৌলিক চাহিদা পূরণের কোনো সমস্যা নাই। দ্রব্যমূল্য যতোই বাড়ুক না কেনো,তাতে তারা ক্ষতিগ্রস্ত হবে না।সবচেয়ে বড় আকৃতির টিভিতে অইটেম নাচ-গান দেখে তাদের সময় ভালোই কাটছে।

কিন্ত এই সংকটে সবচেয়ে সমস্যায় পড়েছে দেশের স্বল্প আয়ের সাধারণ জনগণ এবং সৎ পথে জীবিকা অর্জনকারীরা।।এদের মধ্যে যারা দিনমজুর ,তাদের অবস্থাই সবচেয়ে খারাপ কারণ একদিন পরিশ্রম করতে না পারলে তাদের অভূক্ত থাকতে হয়।


করোনা দীর্ঘমেয়াদী হলে এদের অবস্থা হবে আরো শোচনীয়।

কোনো সরকারে পক্ষেই রাষ্ট্রীয় কোষাগারে অর্থে এতো বিশাল সংখ্যক দরিদ্র জনগোষ্টীকে দীর্ঘদিন সহায়তা করা সম্ভব না।

এজন্য বিকল্প ব্যবস্থা করতেই হবে।

আর সেটা হচ্ছে দেশের প্রতিটা এলাকা ও প্রতিষ্ঠানের দুর্নীতিবাজ ও লুটপাটকারীদের অর্থ বাজেয়াপ্ত করে সেই টাকা তাদের প্রয়োজনে ব্যবহার করা।

বাংলাদেশের সব এলাকা ও প্রতিষ্ঠানের লোকজন জানে,কারা বড় দুর্নীতিবাজ ও লুটপাটকারী। সুতরাং এদের কাছ থেকে টাক উদ্ধার করা কঠিন হবে না।

বাংলাদেশের ঘুষখোর দুর্নীতিবাজ-লুটপাটকারী প্রতিবছর ১ লাখ কোটি টাকা বিদেশে পাচার করে আর দেশে রাখে আরো কয়েক লাখ কোটি টাকা।

শুধু এদের জন্যই ধনী বাংলাদেশের বেশীরভাগ লোক গরীব।

খালেদা-তারেক-কোকো-ফালু-আব্বাস-সাদেক-আমান-মোশাররফ-বাদল আর ডেষ্টিনি,হলমার্ক,সোনালী ব্যাংক লুটপাটকারী চক্র যে কি পরিমাণ টাকা আত্মসাৎ করেছে,তার কোনো হিসাব নাই।

চুরি-দুর্নীতির মাধ্যমে অর্জিত এই সম্পূর্ণ টাকা বাজেয়াপ্ত করে এই সংকটে জনগণের প্রয়োজনে ব্যবহার করতে হবে কারণ এই টাকার মালিক তারাই।

একইসাথে তাদের আটক করে সুইস ব্যাংকসহ বিদেশের ব্যাংকগুলিতে রক্ষিত তাদের করা সব টাকা দেশে ফেরত আনতে হবে।
এটাও সহজ ব্যাপার কারণ ব্যাংক একাউন্টের মালিকদের নির্দেশ দেয়া হলে তারা সেটা করতে বাধ্য।

ইতিপূর্বে ঘুষখোর দুর্নীতিবাজ কাছ থেকে উদ্ধার করা সমস্ত টাকাও শ্রমজীবিদের কল্যাণে ব্যবহার করতে হবে।


চোর-দুর্নীতিবাজ চক্রে কারণে দেশের প্রায় ১৮ কোটি লোক দুর্ভোগে পড়তে পারেনা।

তাই লুন্ঠিত টাকা উদ্ধার করে দেশের প্রতিটা মানুষের মধ্যে সমভাবে বন্টন করা নৈতিক এবং এই সময়ের অপরিহার্য দায়িত্ব।

মন্তব্য ১৭ টি রেটিং +০/-০

মন্তব্য (১৭) মন্তব্য লিখুন

১| ২৭ শে মার্চ, ২০২০ ভোর ৪:০৫

চাঁদগাজী বলেছেন:



আপনি আর ব্লগার সত্যপথিক শ্যায়ান বের হন, কিছু টাকা টুকা আসুক।

২৭ শে মার্চ, ২০২০ ভোর ৪:১০

অনল চৌধুরী বলেছেন: বের তো হয়েছি,লেখা আর কাজের মাধ্যমে।
শুনলাম আপনিও নাকি মাঝে-মধ্যে বাংলাদেশের ব্যাংক র্নিধারিত পরিমাণের বেশী টাকা এ্যামেরিকা নিয়ে যান ??????
সত্যি নাকি?

২| ২৭ শে মার্চ, ২০২০ ভোর ৪:২৩

চাঁদগাজী বলেছেন:



লেখক বলেছেন:, "শুনলাম আপনিও নাকি মাঝে-মধ্যে বাংলাদেশের ব্যাংক র্নিধারিত পরিমাণের বেশী টাকা এ্যামেরিকা নিয়ে যান ?????? সত্যি নাকি? "

-আপনি যদি শুনে থাকেন, তা অবশ্যই সত্য

৩| ২৭ শে মার্চ, ২০২০ সকাল ৯:০৯

নেওয়াজ আলি বলেছেন: সম্রাট ,খালেদ,জিকে শামীম, এনু মনু,পাপিয়া ,সাদিয়া আরো হাজারো লীগ পাপীর কোটি কোটি টাকা নিয়ে চুপ কেন। এদের অবৈধ টাকা গরীব দেওয়া হোক

২৮ শে মার্চ, ২০২০ রাত ২:০৬

অনল চৌধুরী বলেছেন: এদের টাকা বাজেয়াপ্ত করা হলে সেই টাকা দিয়ে বাংলাদেশের জনগণ আনুমানিক ১ বছর বসে খেতে পারবে।

৪| ২৭ শে মার্চ, ২০২০ দুপুর ১২:৫০

রাজীব নুর বলেছেন: শুধু মাত্র নব্য ধনীদের কাছে যে টাকা আছে সেই টাকা গুলো হলেই করোনা মোকাবেলায় খরচ করা হোক।

২৮ শে মার্চ, ২০২০ রাত ২:০৮

অনল চৌধুরী বলেছেন: নব্য ধনী= চোর ঘুষখোর,দুর্নীতিবাজ,শেয়ার বাজার,ব্যাংক লুটপাটকারী,জুয়ারী,সন্ত্রাসী,মাদক ব্যবসায়ী,ঋণখেলাপি,বিদেশে টাকা পাচারকারী ইত্যাদি।

৫| ২৭ শে মার্চ, ২০২০ দুপুর ১২:৫৩

জুন বলেছেন: টাকা বের করবে কোথা থেকে অনল চৌধুরী!! সেকি আর দেশে রেখে দেয়ার জন্য চুরি করেছে লুন্ঠনকারীরা /:)

২৮ শে মার্চ, ২০২০ রাত ২:১১

অনল চৌধুরী বলেছেন: বিদেশে যতো পাঠিয়েছে,দেশেও তার চেয়ে কম নাই।
আমাকে দায়িত্ব দেয়া হলে এদের ধরে এমন পিটানি দিতাম যে বাপ-বাপ বলে জনগণের কাছ থেকে লুটপাট করা সব টাকা বের করে দিতো।
কিন্ত বাংলাদেশে গরীব চোরদের দেয়া হয় গণপিটানি আর বড় চোরদের বলা হয় ভিভিআইপি !!!!!
জনগণের এই চরিত্রের কারণেই এরা বারবার এসব করতে সাহস পায়।

৬| ২৭ শে মার্চ, ২০২০ দুপুর ১:২২

মিরোরডডল বলেছেন: Is it that easy peasy? Of course not.
বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সমস্যাই হচ্ছে দুর্নীতি । সেটার যদি সলিউশন হতো অন্যান্য অনেক সমস্যার সমাধান হয়ে যেত । এটা দমন যেহেতু কখনোই হয়ে উঠেনি, কি কারনে মনে হোল আজ করোনার কারনে এটা সম্ভব !

এতো সহজেই যদি দুর্নীতিবাজদের টাকা বাজেয়াপ্ত করে গরীবদের দেয়া যেত , তাহলে এটা আরও আগে কেন হয়নি ! যে কারনে আগে হয়ে উঠেনি , নাও হোয়াট ইজ দা ডিফারেন্স যে এখন সম্ভব !

একই সরকার একই মাথা । যেটা কখনোই হয়নি , সেটা এখনও হবেনা ।
রক্ষকই যেখানে ভক্ষক সেখানে এরকম আশা করাটা আনরিয়্যালিস্টিক ।

২৮ শে মার্চ, ২০২০ রাত ২:৩৭

অনল চৌধুরী বলেছেন: ১১৯৭ থেকে ১৯৭১ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ পরাধীন ছিলো সেটা জানেন?
কিন্ত হাজার বছরের পরাধীন এই জাতি ১৯৭১ সালে ঠিকই স্বাধীন হয়েছে।
অতীতে কোনোকিছু হয়নি,তাই ভবিষ্যতেও হবে না,এটা ভাবার কারণ নাই।
২০২০ এ করোনায় এতো মানুষ মরছে, কিন্ত ২০২১ এ দেখবেন,প্যারাসিটামল,সিভিট-এর মতো করোনার ওষুধ বের হয়ে গেছে।
প্লেগ,কলেরা,হাম,পোলিও,গুটি বসন্তের মতোই করোনা পৃথিবীতে থেকে নির্মূল হয়ে যাবে।
এটাই বাস্তবতা
বাংলাদেশের জনগণ যা চাইবে ,তাই হবে।
এখন জনগণ বড় চোরদের পদলেহী,কিন্ত তাদের উপর ক্ষুদ্ধ হলে পরিস্থিতি পাল্টে যাবে।

৭| ২৮ শে মার্চ, ২০২০ সকাল ৯:০৩

মিরোরডডল বলেছেন: Thanks for your reply.
আমার মন্তব্য পড়ে একটু ভুল বুঝেছেন । অতীত বলতে আমি আমাদের হিস্ট্রি না সমসাময়িক অভিজ্ঞতার কথা বলতে চেয়েছি ।
I tried to say about our recent past last few years’ experiences regarding corruption. To make it clear I copied and paste one of my recent comments in blogger Dhabiyan’s post.

১১. ২৫ শে মার্চ, ২০২০ বিকাল ৫:১৮০
মিরোরডডল বলেছেন: আপনার লাস্ট প্রতিমন্তব্যে রেফারেন্সে বলছি ,
আর ইউ সিউর আমরা দায়ী না । সরাসরি না হলেও সামহাও উই অল রেস্পন্সিবল ।
আমরা সাধারণ মানুষ ভীতু । প্রতিঘাতের ভয়ে প্রতিবাদ করিনা । গনতান্ত্রিক দেশে অটোক্র্যাসী চলছে ইয়ারস আফটার ইয়ারস । একাত্তুরে আমরা ছিলাম না কিন্তু উই নো দা হিস্ট্রি কেমন করে দেশ এক হয়েছিল , নব্বইয়ের আন্দোলনের সময় আমরা খুব ছোট তাও মনে পড়ে স্বৈরাচারের পতনে মানুষের বিজয়ের আনন্দ । কিন্তু এখন কোথাও কোন একাত্মতা নেই । দল মতের শেষ নেই । সবাই একসাথে জোরালো প্রতিবাদ করলে কোন পরিবর্তন হয়তোবা হতেও পারতো that chances are very slim in near future. So ultimately we all are responsible for this more or less.”


এখন হয়তো বুঝতে পেরেছেন আমি কি বলতে চেয়েছিলাম আপনার পোস্টের মন্তব্যে । আমিও একজন আশাবাদী মানুষ । আমিও জানি একসময় করোনার ভ্যাকসিন হবে । আমি এও জানি আমাদের দেশের মানুষ একসাথে হলে অনেক প্রাপ্তি আগেও যেমন হয়েছে ভবিষ্যতেও হবে । বাট নট নাও । Now we don’t have any right leader who can call and make all of us together and this is not the right timing for this issue.

Your post was based on the current situation where you said current problem solution and I replied for that one particularly based on our recent experiences. Now we have to find realistic thoughts to face corona challenge. I hope this time I made it much clearer.
Take care & stay safe.

২৯ শে মার্চ, ২০২০ রাত ২:৪৬

অনল চৌধুরী বলেছেন: ইতিহাসের মধ্যে শুধু দেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম না,একটা জাতির জীবনের সব ঘটনাই পড়ে।
সেজন্যই আমি অতীত ইতিহাসের প্রসঙ্গ উল্লেখ করেছি।


বাংলাদেশের বর্তমান জনগণ পৃথিবীর সবচেয়ে নিকৃষ্ট শ্রেণীর,যা তাদের মতোই নিকৃষ্ট লোকদের সব ক্ষেত্রে নেতৃত্বের আসনে বসিয়েছে।

এদের পক্ষে কোনোদিনও সৎ.নীতিবান দেশপ্রেমিক নেতা নির্বাচন করা সম্ভব হবে না,যতোদিন পর্যন্ত না এদের আচরণে ও চরিত্রের কোনো পরিবর্তন হয়।
Do you live and study in Australia?

৮| ২৯ শে মার্চ, ২০২০ সকাল ৯:৪৯

মিরোরডডল বলেছেন: ইয়েস আই ডু এন্ড কমপ্লিটেড স্টাডি ।

সরি আই অবজেক্ট । আমাদের দেশের মানুষকে সবচেয়ে নিকৃষ্ট আমি কখনোই বলবোনা । একটা সারটেইন গ্রুপ বাট কখনোই সবাই না । বাংলাদেশে অনেক মানুষ এখনও শিক্ষার আলোই পায়নি । যারা পেয়েছে তাঁদের অনেকেই বিলো এভারেজ । যে মানুষরা জানেই না কোনটা ভালো কোনটা মন্দ তাঁদের কাছে আমরা কি আশা করতে পারি ! তাঁরা খুব সহজ সরল বলেই অপরাজনীতিবিদরা তাঁদেরকে খুব সহজেই মোল্ড করতে পারে ।

আর সো কল্ড শিক্ষিত সমাজ যেটা সেখানেও আছে অনেক শিক্ষিত মূর্খ । একাডেমিক শিক্ষা থাকলেই সবাই শিক্ষিত হয়না । অনেকের মাঝেই সিভিক সেন্সের অভাব আছে । এরাই হচ্ছে সেই গ্রুপ তাঁদের জন্য আমরা সবাইকে খারাপ বলতে পারিনা ।

নেতা নির্বাচনের ক্ষেত্রেও বলতে হয় আমরা কি আসলেই আমাদের নেতা নির্বাচন করার সুযোগ পাচ্ছি ?
কোথাও কোন সুষ্ঠ নির্বাচন হয়েছে । আমার ফ্যামিলি ভোট দিতে গিয়ে দেখে দেয়া হয়ে গেছে । আমার বোনের মাথা একটু গরম । সে তখন আরগু করেছে । তাকে থ্রেইট করে ওখান থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে । এখন কি আমরা বলতে পারি আমরা নিজেরা নেতা নির্বাচন করছি । শুধুই আই ওয়াশ ।
Almost everywhere is wrong in our system. I can’t blame my mass people. Partly definitely are responsible but not all.
ভালো থাকবেন ।

৩০ শে মার্চ, ২০২০ রাত ৩:২৩

অনল চৌধুরী বলেছেন: আপনার বয়স কম,তাই আবেগ বেশী।
আমি ১৮ বছর বয়স থেকে এই দেশ-জাতি সমাজ পরিবর্তনের চেষ্টা করে এখন ক্ষুদ্ধ।
শিক্ষিত বা অশিক্ষিত যাই হোক না কেনো,এদেশের বেশীরভাগ মানুষ নিজেদের স্বার্থ ছাড়া কিছু বোঝেনা।
আপনি পৃথিবীর সবচেয়ে ভালো লোক হলেও কেউ আপনার কোনো ভালো কাজের সমর্থন করবে না যদি না এর সাথে তাদের স্বার্থ থাকে।
ভোট দিয়ে কি হবে?
ভোটে যারা দাড়ায় তাদের কোন পক্ষ ভালো?
একটা ফালু আরেকটা আলু-পার্থক্য এতোটুকুই।

৯| ২৯ শে মার্চ, ২০২০ রাত ১০:৪৫

ইমরান আশফাক বলেছেন: দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা ও তার বাস্তবায়নে আরও অনেক সময় লাগবে, তত সময় করোনা কি আমাদের দেবে? হ্যা, এই প্রক্রিয়াটি চালু হোক তবে করোনার জন্য এখনই কার্যকর কোন পদক্ষেপ নিতে হবে।

৩০ শে মার্চ, ২০২০ রাত ৩:১৮

অনল চৌধুরী বলেছেন: জনগণ চাইলে সব হবে,না চাইলে কখনোই হবে না।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.