নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

একজন সুখী মানুষ, স্রষ্টার অপার ক্ষমা ও করুণাধন্য, তাই স্রষ্টার প্রতি শ্রদ্ধাবনত।

খায়রুল আহসান

অবসরে আছি। কিছু কিছু লেখালেখির মাধ্যমে অবসর জীবনটাকে উপভোগ করার চেষ্টা করছি। কিছু সমাজকল্যানমূলক কর্মকান্ডেও জড়িত আছি। মাঝে মাঝে এদিক সেদিকে ভ্রমণেও বের হই। জীবনে কারো বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ করিনি, এখন তো করার প্রশ্নই আসে না। জীবন যা দিয়েছে, তার জন্য স্রষ্টার কাছে ভক্তিভরে কৃতজ্ঞতা জানাই। যা কিছু চেয়েও পাইনি, এখন বুঝি, তা পাবার কথা ছিলনা। তাই না পাওয়ার কোন বেদনা নেই।

খায়রুল আহসান › বিস্তারিত পোস্টঃ

ক্ষণিকের দেখা-২

১১ ই জানুয়ারি, ২০২১ রাত ৮:৪৭

আজকে ক্ষণিকের দেখা তিনটি চরিত্র নিয়ে আলোচনা করবো, ঘটনার দিন-তারিখ উল্লেখসহঃ

০১ জনুয়ারী ২০২১, সকাল দশটা। গত চারদিন ধরে আম্মা রংপুর কমিউনিটি মেডিকেল হাসপাতালের সন্নিকটস্থ ‘ডক্টর্স ক্লিনিক’ এ চিকিৎসাধীন আছেন। অবস্থার কিছুটা উন্নতি হচ্ছে বিধায় চিকিৎসক জানিয়েছেন যে আজ কালের মধ্যে ওনাকে ছেড়ে দিবেন। আমরা চাচ্ছি যে হাসপাতাল থেকে বাড়ী নিয়ে আসার আগে তাঁকে আমাদের প্রস্তাবিত (কল করা) আরেকজন নিউরো মেডিসিন বিশেষজ্ঞ পরীক্ষা করে দেখুক। তাই আরো দুই একদিন দেরি হলে আমাদের তরফ থেকে কোন অসুবিধা নেই। গতকাল রাতে আম্মার পাশে রাত প্রায় একটা পর্যন্ত ছিলাম। আজ সকালে গোসল-নাস্তা সেরে আবার বের হচ্ছি হাসপাতালের উদ্দেশ্যে। এ কয়েকদিনে রিক্সায় যাতায়াত করে মোটামুটি এলাকার অলিগলি ও রাস্তা চিনে ফেলেছি এবং রিক্সাভাড়াও জানি। তবুও আমি অভ্যাসবশতঃ রওনা হবার আগে ভাড়া ঠিক করে নেই। অদূরে এক রিক্সাওয়ালাকে দেখতে পেয়ে তাকে ইশারায় ডাকলাম। কাছে এলে দেখি সে মধ্যবয়স্ক, মুখে হাল্কা চাপ দাড়ি, প্যান্ট শার্ট পরিহিত, স্মার্ট। তাকে গন্তব্যের কথা জানিয়ে ভাড়া জিজ্ঞেস করলাম। সে এক গাল হেসে বললো, ‘স্যার আমি কখনো ভাড়া চেয়ে নেই না। আপনি যা দিবেন, সেটাই আমার জন্য সঠিক ভাড়া’। তার এই দার্শনিক মন্তব্যে আমি একটু অবাকই হ’লাম। আমিও তাকে হেসেই বললাম, ‘তুমি যেমন যাত্রীর কাছে কোন ভাড়া চেয়ে নাও না, আমিও তেমন কোন চালকের বাহনে ভাড়া ঠিক না করে উঠি না’। সে আবার হেসে বললো, ‘আমার কাছে কোন ক্যাচাল পাবেন না স্যার, যা দিবেন তাতেই আমি খুশি’। অগত্যা আমি উঠে পড়লাম।

রিক্সাওয়ালাকে স্বভাবে তার বয়সের তুলনায় একটু বেশিই চঞ্চল বলে মনে হলো। সারাটা পথ হয় সে গুণগুণ করে গান গেয়েছে, নয়তো বিপরীতমুখি চলমান অন্যান্য রিক্সাওয়ালাদের সাথে সালাম আদাব বিনিময় করেছে, নয়তো রাস্তার দুরবস্থার জন্য মেয়র কমিশনারদের অভিশপ্ত করেছে। গন্তব্যে পৌঁছে রিক্সা থেকে নেমে তার ন্যায্য ভাড়ার চেয়ে কিছুটা অতিরিক্ত একটা নোট দিলাম। সে মুখের দিকে তাকিয়ে জিজ্ঞাসা করলো, ‘স্যার কত রাখবো’? আমি বললাম, ‘পুরোটাই রাখো’। সে বললো, ‘স্যার বেশী দিলেন’। আমি বললাম, ‘তুমি যেহেতু কারো কাছে ভাড়া চাও না, কেউ না কেউ হয়তো তোমাকে কমও দিতে পারে’। সে আরেক প্রস্থ হেসে নোটটাকে কপালে ঠেকিয়ে সালাম দিয়ে বিদায় নিল। ওর দিকে তাকিয়ে আমি ভাবলাম, জীবনে কোন প্রত্যাশা না রাখাই বোধ হয় সুখের পূর্বশর্ত!

০৩ জনুয়ারী ২০২১, সকাল এগারটা। গতকাল রাতে আম্মাকে নিওরো মেডিসিন বিশেষজ্ঞকে দেখিয়ে হাসপাতাল থেকে ছোট ভাই এর বাসায় নিয়ে এসেছি। উনি ওদের সাথেই থাকেন। উনি যখন চলাচল করার মত উপযুক্ত ছিলেন, তখন বছরে দুই একবার ঢাকায় এসে আমার এবং আমার বোনের বাসায়ও থাকতেন। ২০১৮ এর সেপ্টেম্বরে আমার বাসায় শেষ এসেছিলেন। আগামীকাল আমার কানাডা প্রবাসী বড় ছেলে কানাডা ফিরে যাবে। ডিমেনশিয়ায় আম্মার বোধশক্তি লোপ পেলেও আমি আম্মার কানের কাছে মুখ নিয়ে বললাম, ‘আম্মা, আপনি এখন অনেকটা সুস্থ, খুব শীঘ্রই আরো ভাল হয়ে যাবেন ইন শা আল্লাহ। আমি আজ ঢাকা চলে যেতে চাই’। আমাকে অবাক করে দিয়ে উনি আমার দিকে তাকিয়ে বললেন, ‘আচ্ছা, যাও’। আমি বললাম, ‘আমাদের জন্য দোয়া করবেন’। উনি আবারো স্পষ্ট বললেন, ‘হ্যাঁ, দোয়া করতেছি’। অবাক কান্ড! গতকালও উনি এসব কথার কোন উত্তর দিতেন না, এবং কথাগুলো তিনি বুঝেছেন কিনা, তাও বোঝা যেত না।

বাসার অদূরে ছিল ‘নভো এয়ার’ এর বুকিং অফিস। আমি প্লেনের টিকেট কাটার জন্য সেখানে যাবার সময় লক্ষ্য করলাম, ওদের অফিসের খানিকটা আগেই, রাস্তার অপর পার্শ্বে ‘আনিসা ট্রাভেলস এন্ড ট্যুরস’ নামে একটি ছোট্ট অফিস। অফিসটা কেবল খুলেছে, একজন ব্যক্তি অফিস ঝাড়া মোছা করছে। আমি এগিয়ে গিয়ে সেই ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসা করলাম, ‘আপনারা কি বিজনেস শুরু করেছেন? আজকের বিকেলের বা সান্ধ্য কোন ফ্লাইটে কি ঢাকা যাবার টিকেট পাওয়া যাবে’? উনি বললেন, ‘একটু বসেন, কেবলমাত্র অফিস খুললাম, আমি ল্যাপটপ অন করেই আপনাকে জানাচ্ছি’। অফিসে কেবল উনিই একমাত্র ব্যক্তি ছিলেন। নিজেই ঘর ঝাড়া মোছা করে টিকেট বিক্রয় করতে বসেন। আমি বললাম, ‘আচ্ছা আপনি দেখতে থাকুন, আমি নভো’র অফিসে যাচ্ছি। যদি নভোতে টিকেট পাই, আপনাকে আমি দশ-পনের মিনিটের মধ্যেই ফোনে জানাবো। আর যদি নভোতে না যাই, তবে ফিরে এসে আপনার কাছ থেকেই টিকেট কিনবো’। আমি নভোকে একটু প্রিফার করছিলাম, কারণ পাঁচদিন আগে ঢাকা থেকে রংপুরে আসার সময় নভোতেই এসেছিলাম এবং ওদের সার্ভিস মোটামুটি ভালই লেগেছিল। ওনার নাম ‘লিংকন’, এ কথা জনিয়ে উনি আমাকে ওনার একটা কার্ড এগিয়ে দিলেন। একজন ঐতিহাসিক, বিশ্ববিখ্যাত ব্যক্তির নামে রাখা তার নাম। কার্ডটা দেখে আমি আরেকবার তার মুখের দিকে তাকালাম। তার মুখেও কালো চাপদাড়ি ছিল।

নভোতে গিয়ে দেখি, সেটাও ‘এক-ব্যক্তি’র অফিস, কিন্তু সেখানে সামনে ল্যাপটপে নিমগ্ন ব্যক্তিটি আমার দিকে চোখ তুলেই তাকাচ্ছেন না। আমি টিকেটের ব্যাপারে জিজ্ঞেস করলে তিনি ল্যাপটপ থেকে চোখ না তুলেই মূল্য জানালেন। কাস্টমারকে গ্রীট করার ন্যূনতম সৌজন্যবোধ তার মাঝে অনুপস্থিত। আমি তাকে ধন্যবাদ জানিয়ে মিস্টার লিংকন এর কক্ষে ফিরে এলাম। উনি জানালেন, বিকেল চারটার ফ্লাইটে ‘নভো এয়ার’ এবং ‘ইউএস বাংলা’, উভয়টাতেই একই মূল্যে টিকেট পাওয়া যাবে। নভোতে করলে উনি টিকেট ‘ভিআইপি’ করে দিতে পারবেন, ইউ এস বাংলায় আপাততঃ পারবেন না। তবে আমি চাইলে তিনি চেষ্টা করবেন, তার ফলাফল কয়েক ঘন্টার আগে জানা যাবে না। আমি ওনাকে জানালাম, আমি কোন ‘ভিআইপি’ নই, একটি সাধারণ টিকেটই আমার জন্য যথেষ্ট। উনি হাসিমুখে আমার টিকেট প্রিন্ট করে দিলেন, এবং আমার ই মেইল ঠিকানা চেয়ে নিয়ে আমাকে একটা মেইলও করে দিলেন।

বাসায় ফিরে লাঞ্চ করে আম্মার কাছে বিদায় নিতে গেলাম। ‘আম্মা আসি’ বলে কিছুক্ষণ ওনার গলা জড়িয়ে বসে থাকলাম। তারপর ওনার ডান হাতটা আমার দু’হাতের মুঠোর মধ্যে নিয়ে আয়াতুল কুরসি ও কিছু দোয়া দরুদ পাঠ করলাম। দেখলাম, উনি আস্তে আস্তে ওনার বাম হাতটিকেও টেনে এনে আমার দু’হাতের সাথে মেলালেন। বুকটা ভারী হয়ে আসছিল। আমি ওনার দু’পায়ে সালাম করে বাসার অন্যান্যদের কাছ থেকে বিদায় নিয়ে রওনা হলাম। বাংলাদেশ ব্যাঙ্ক, রংপুর শাখা’র কাছ থেকে ইউএস বাংলার একটি কোস্টার অতিরিক্ত মূল্য পরিশোধ সাপেক্ষে ৪০ কিমি দূরে অবস্থিত সৈয়দপুর বিমান বন্দরে যাত্রীদেরকে নিয়ে যায়। আমি সেখানে উপস্থিত হয়ে দেখি, চালকের পাশের আসনে একজন পুরুষ যাত্রী বসা, চালকের ঠিক পেছনের তিন জনের আসনে আরেকজন পুরুষ যাত্রী বসা এবং তার পেছনের তিন জনের আসনে একজন মহিলা যাত্রী বসা। একেবারে শেষের চারজনের আসনগুলো ফাঁকা। চালক আমাকে বসানোর জন্য দরজা খুলে ভেতরে প্রবেশের ইঙ্গিত করলো। কিন্তু দরজার সন্নিকটস্থ ত্রিশোর্ধ্ব ব্যক্তিটি দু’পা সামনে মেলে আরামে বসে সেলফোনে কার সাথে যেন কথা বলছেন, তিনি ‘নট নড়ন, নট চরন’। অগত্যা চালক দরজা লাগিয়ে দিয়ে আমাকে ওপাশের দরজার কাছে নিয়ে এসে দরজা খুলে ধরলো, আমি ভেতরে আসন গ্রহণ করলাম।

তরুণ বয়সে রংপুর-সৈয়দপুর আমার কর্মক্ষেত্র ছিল। সে উপলক্ষে তখন আমি বহুবার, প্রতিমাসে কয়েকবার, রংপুর-সৈয়দপুর যাতায়াত করতাম। এ কারণে সড়কের এবং তার আশে পাশের চিত্র আমার প্রায় মুখস্তের মত হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু এত বছর পর সেদিন আমার পরিচিত সড়কটাকে অনেকটাই অপরিচিত মনে হচ্ছিল। আমি বসেছিলাম চালকের ঠিক পেছনে। সামনে কিছু দেখা যাচ্ছিল না বলে আমি মাঝে মাঝে সামান্য একটু বাঁয়ে চেপে সামনের রাস্তা ও তার আশে পাশে তাকাচ্ছিলাম, আমার সেই চির-পরিচিত সড়কটাকে খুঁজে পাবার জন্য। কিন্তু এতে মনে হলো পাশে বসা সেই সেলফোনে ব্যস্ত (অ)ভদ্রলোকটির কিছুটা অস্বস্তি হচ্ছে। মাঝের আসনে ছড়িয়ে রাখা জ্যাকেটটাকে তিনি কিছুটা সরিয়ে নিলেন, হয়তো করোনা ভীতির কারণে। আমিও তার অস্বস্তি টের পেয়ে খানিকটা সরে এলাম।

হঠাৎ গতকাল মিস্টার লিংকন এর কাছ থেকে ফোন পাই। তিনি জিজ্ঞেস করেন, সেদিন ঠিকমত পৌঁছেছিলাম কিনা, এবং পথে কোন অসুবিধে হয়েছিল কিনা। পরবর্তীতে কখনো ওনার সেবা গ্রহণ করলে উনি ওনার সর্বোত্তম সেবা দেয়ার প্রতিশ্রুতির কথা পুনর্ব্যক্ত করলেন।

চলার পথের ক্ষণিক দেখা মুখগুলোকে মানুষ স্মরণে রাখে, কোনটা ভাল স্মৃতি হিসেবে, কোনটা মন্দ।


ঢাকা
১১ জানুয়ারী ২০২১
শব্দসংখ্যাঃ ১১১৬

মন্তব্য ৩৯ টি রেটিং +১২/-০

মন্তব্য (৩৯) মন্তব্য লিখুন

১| ১১ ই জানুয়ারি, ২০২১ রাত ৯:০০

আমি সাজিদ বলেছেন: আপনার মায়ের জন্য অনেক দোয়া থাকলো স্যার।

চলার পথে ক্ষণিক দেখা মুখগুলোকে মানুষ স্মরণে রাখে, কোনটা ভালো স্মৃতি হিসেবে, কোনটা মন্দ হিসেবে। খুব খাঁটি একটি কথা।

১২ ই জানুয়ারি, ২০২১ সকাল ৯:০২

খায়রুল আহসান বলেছেন: আমার মায়ের জন্য দোয়া করেছেন, এজন্য অনেক ধন্যবাদ। মন্তব্যে প্রীত।

২| ১১ ই জানুয়ারি, ২০২১ রাত ৯:১৪

চাঁদগাজী বলেছেন:



আপনার আম্মার সাথে (রংপুরে ) কারা আছেন?

১২ ই জানুয়ারি, ২০২১ সকাল ৯:৫২

খায়রুল আহসান বলেছেন: আমার আম্মা রংপুরে আমার ছোট ভাই এর সাথে থাকেন। ওর দুটো ছেলে মেয়ে হবার সময় আম্মা ওদের সাথে ছিলেন এবং তিনি বাচ্চা দুটোকে কোলে পিঠে করে মানুষ করেছেন। ওরা উভয়ে চাকুরীজীবি হওয়ায় আম্মার কাছেই ছোটবেলা থেকে বাচ্চা দুটোকে রেখে ওরা অফিস করতো। নিবিড়ভাবে আম্মা ওদেরকে পরিচর্যা করেছেন। এজন্য আম্মা ওদের ছাড়া আর কোথাও থাকতে চান না। ওরাও ওদের দাদীর জন্য অন্তপ্রাণ।

৩| ১১ ই জানুয়ারি, ২০২১ রাত ৯:৩৬

সোহানী বলেছেন: আপনার আম্মার সুস্থতা কামনা করছি।

খায়রুল ভাই, কাস্টমার সার্ভিস এর কম্পেয়ার করতে চাইলে সবচেয়ে বড় উদাহরন কানাডার বাংলাদেশী কমিউনিটির দোকানগুলো আর নন-বাংলাদেশী কমিউনিটির দোকানগুলো। আকাশ আর পাতাল ফারাক।

আর ওরকম পা ছড়ানো আত্মকেন্দ্রিক লোক কমবেশী চারপাশে দেখেই যাই। এদেরকে বরাবরেই ইগনোর করি আমি ব্যাক্তিগতভাবে।

১২ ই জানুয়ারি, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:২৫

খায়রুল আহসান বলেছেন: আমার মায়ের জন্য সুস্থতা কামনা করার জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি।
আকাশ আর পাতাল ফারাক - আমি এ ফারাক সম্বন্ধে অবগত আছি। শুধু কানাডাতেই নয়, বিশ্বের যে যে জায়গায় বাংলাদেশী প্রবাসীরা একটু ঘন সংখ্যায় আছে, সবখানে একই অবস্থা!
এদেরকে বরাবরেই ইগনোর করি আমি ব্যাক্তিগতভাবে। - আমিও।
পোস্টে আপনার নিকট হতে প্রথম প্লাসটি পেয়ে অনেক খুশি হ'লাম। মন্তব্য এবং প্লাসের জন্য অশেষ ধন্যবাদ।

৪| ১১ ই জানুয়ারি, ২০২১ রাত ১০:২৭

শায়মা বলেছেন: অনেক অনেক দোয়া ভাইয়া...


আর চলার পথে কত স্মৃতি থেকে যায় কখনও মধুর কখনও তিক্ত ..... জীবনের মত ....

১২ ই জানুয়ারি, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:৩০

খায়রুল আহসান বলেছেন: পনাকেও অনেক, অনেক ধন্যবাদ, দোয়ার জন্য। আর পোস্টে সুন্দর একটি মন্তব্য পেয়ে প্রীত হলাম। খুব সুন্দর বলেছেন কথাটা।

৫| ১১ ই জানুয়ারি, ২০২১ রাত ১০:৫৭

নুরুলইসলা০৬০৪ বলেছেন: আপনার আম্মার সুস্থতা কামনা করি।

‘জীবনে কোন প্রত্যাশা না রাখাই বোধ হয় সুখের পূর্বশর্ত ‘তার অর্থ কি তুমি কর্ম করে যাও ফলের আশা করো না।যে কথা গীতায় বার বার বলা হয়েছে।

১২ ই জানুয়ারি, ২০২১ রাত ৮:১১

খায়রুল আহসান বলেছেন: আমার মায়ের জন্য সুস্থতা কামনা করার জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি।
আর পরের মন্তব্যটার ব্যাপারে- গীতা পাঠ করি নাই, তাই বলতে পারছি না। লেখার সময় তাৎক্ষণিক উপলব্ধির উপর ভিত্তি করে কথাটা লিখেছি। সেটা সত্য হতে পারে, আবার নাও পারে।
পোস্ট পাঠ এবং মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।

৬| ১১ ই জানুয়ারি, ২০২১ রাত ১১:১৬

ঢুকিচেপা বলেছেন: আপনার আম্মার সুস্থতা কামনা করে দোয়া রইল।
লেখনীগুনে ফুটে উঠেছে চলার পথে কিছু ভালো/খারাপ অভিজ্ঞতা।
ভালোটাই সুখস্মৃতি হয়ে থাক আজীবন।

১২ ই জানুয়ারি, ২০২১ রাত ১০:২৫

খায়রুল আহসান বলেছেন: আম্মার সুস্থতা কামনা করার জন্য এবং সুন্দর মন্তব্যের জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ।
"ভালোটাই সুখস্মৃতি হয়ে থাক আজীবন" - জ্বী, আমিও তাই চাই। খারাপটার থেকে শিক্ষা নিয়ে ভুলে গেলেই চলে।
প্লাসে প্রাণিত। শুভকামনা....

৭| ১১ ই জানুয়ারি, ২০২১ রাত ১১:২৩

রাজীব নুর বলেছেন: মা সুস্থ হয়ে উঠুক এটাই প্রার্থনা করি।
মা অসুস্থ থাকলে ছেলে মেয়ের মন ভালো থাকে না। খুব কষ্ট হয়।

১২ ই জানুয়ারি, ২০২১ রাত ১১:৩৫

খায়রুল আহসান বলেছেন: "মা অসুস্থ থাকলে ছেলে মেয়ের মন ভালো থাকে না। খুব কষ্ট হয়" - জ্বী, ঠিক বলেছেন। একেবারে ধ্রুব সত্য কথা।
আমার মায়ের সুস্থতার জন্য দোয়া করেছেন, এজন্য অনেক ধন্যবাদ। মন্তব্যে প্রীত হয়েছি।

৮| ১১ ই জানুয়ারি, ২০২১ রাত ১১:৪৮

ইসিয়াক বলেছেন: মোবাইলে চার্জ ফুরিয়ে আসছে। সকালে মন্তব্য করবো।
প্রিয় ব্লগার আপনার আম্মার জন্য দোয়া রইলো।

১২ ই জানুয়ারি, ২০২১ রাত ১১:৪৩

খায়রুল আহসান বলেছেন: প্রিয় ব্লগার আপনার আম্মার জন্য দোয়া রইলো - দোয়ার জন্য অনেক ধন্যবাদ।
মন্তব্য যেটুকু করেছেন, এটুকুতেই প্রীত হয়েছি, প্লাসে অনুপ্রাণিত।
সকালে মন্তব্য করবো - কোন তাড়াহুড়ো নেই; যখন সময় পাবেন, তখন মন্তব্য করলেই চলবে। না করলেও কোন অসুবিধে নেই।

৯| ১২ ই জানুয়ারি, ২০২১ রাত ৩:০৩

নেওয়াজ আলি বলেছেন: আপনার মায়ের জন্য আন্তরিক দোয়া রলিলো। মা ছাড়া সংসার নিরামিষের মত কিছু লোকে বুঝতে চায় না

১৩ ই জানুয়ারি, ২০২১ সকাল ৯:৩৩

খায়রুল আহসান বলেছেন: ঠিক বলেছেন।
আমার মায়ের সুস্থতার জন্য দোয়া করেছেন, এজন্য অনেক ধন্যবাদ। মন্তব্যে প্রীত হয়েছি।

১০| ১২ ই জানুয়ারি, ২০২১ সকাল ৯:২১

জুন বলেছেন: আপনার আম্মার জন্য অনেক দোয়া রইলো খায়রুল আহসান । আমার মা আমার অনেক ছোট বেলায় মারা গিয়েছেন তাই কারো মা আছে শুনলে খুব ভালোলাগে । আর রিকশাওয়ালার কথায় মনে পরলো। একদিন ইউনিভার্সিটি থেকে বাসায় আসবো রোকেয়া হলের সামনে দাঁড়ানো রিকশার অপেক্ষায়। দুটো মেয়ে এক খালি রিকশাওয়ালাকে ডেকে বল্লো "এই অমুক যায়গায় যাবি" ? রিকশাওয়ালা দৃঢ় স্বরে না বলে আমার কাছে এগিয়ে এলে আমি তাকে আমার স্বভাব অনুযায়ী জিজ্ঞেস করলাম আপনি কি অমুক যায়গায় যাবেন ? সে সাথে সাথে আমাকে উঠতে বল্লো । তারপর বল্লো আপা শুধু আপনার কথা শুনেই আমি এত দূর যেতে রাজী হয়েছি, নইলে উনাদের নিলে আমার সুবিধাই হতো কারন কাছেই গ্যারেজ, রিকশা জমা দেয়ার সময়ও হয়েছে, কিন্ত উনাদের কথা শুনলেন ?
আর নভোর এজেন্ট বাংলাদেশের অনেক কিছুরই চিত্র প্রকাশ করে বিশেষ করে হাজার টাকা ভিজিট দেয়া ডাক্তার থেকে সবাই ।
+

১৩ ই জানুয়ারি, ২০২১ সকাল ১০:০১

খায়রুল আহসান বলেছেন: আপনার আম্মার জন্য অনেক দোয়া রইলো খায়রুল আহসান - অনেক ধন্যবাদ, এ আন্তরিক দোয়ার জন্য। মায়ের অভাব অন্য কোন কিছু বা কাউকে দিয়ে পূরণীয় নয়, তাই আপনার এ বঞ্চনার কথা জেনে ব্যথিত।
সম্মান ও মর্যাদা আর্থিক মানদন্ডে কিংবা সামাজিক পরিচিতিতে বিবেচ্য নয়, এ কথাটা আমরা প্রায়ই ভুলে যাই। সম্মান দিলে সম্মান পাওয়া যায়। আপনার অভিজ্ঞতাটা সেটাই প্রমাণ করে।
মন্তব্যে এবং প্লাসে অনুপ্রাণিত হয়েছি। আবারো অনেক ধন্যবাদ এবং শুভকামনা....

১১| ১২ ই জানুয়ারি, ২০২১ সকাল ১০:৩২

রোকসানা লেইস বলেছেন: আপনার মা সুস্থ হয়ে উঠুন।
সুন্দর স্মৃতি পথ চলায় জড়ো হয় জীবনে।
আমারও কিছু গল্প মনে পরে গেলো।
ভালো থাকুন

১৩ ই জানুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১২:০৭

খায়রুল আহসান বলেছেন: "আপনার মা সুস্থ হয়ে উঠুন" - অনেক ধন্যবাদ এ শুভকামনার জন্য।
আমারও কিছু গল্প মনে পরে গেলো - আশাকরি, আপনিও সেগুলো শেয়ার করবেন আমাদের সাথে, আপনার চমৎকার লেখনিতে।
মন্তব্যে প্রীত হয়েছি। আপনিও ভাল থাকবেন, শুভকামনা....

১২| ১২ ই জানুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১২:০৮

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: চলার পথে ক্ষণিক দেখা মুখগুলোকে মানুষ স্মরণে রাখে, কোনটা ভালো স্মৃতি হিসেবে, কোনটা মন্দ। এই কথাটি অত্যন্ত মূল্যবান বলেই আমার মনে হয়।

১৩ ই জানুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১২:৫২

খায়রুল আহসান বলেছেন: পোস্ট পড়ে মন্তব্য প্রকাশের জন্য অনেক ধন্যবাদ। মন্তব্যে প্রীত হয়েছি।

১৩| ১২ ই জানুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১২:১৩

মনিরা সুলতানা বলেছেন: আপনার আম্মার সুস্থতার জন্য দোয়া ও শুভ কামনা রইলো।

জীবনে কোন প্রত্যাশা না রাখাই বোধ হয় সুখের পূর্বশর্ত!
আমার ও এমন টাই মনে হয়।

১৩ ই জানুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১:১৫

খায়রুল আহসান বলেছেন: আম্মার সুস্থতা কামনা করে দোয়া এবং শুভকামনা করার জন্য অশেষ ধন্যবাদ।
প্রত্যাশা না রাখলেই প্রত্যাশা পূরণের ব্যর্থতার গ্লানি ও বেদনা থাকে না।
মন্তব্যে এবং প্লাসে প্রীত ও অনুপ্রাণিত হয়েছি।
শুভকামনা....

১৪| ১২ ই জানুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১২:৩৭

মেহেদি_হাসান. বলেছেন: স্যার আপনার আম্মার সুস্থতা কামনা করি।

১৩ ই জানুয়ারি, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:৫০

খায়রুল আহসান বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ আপনাকে, জাযাক আল্লাহ!

১৫| ১২ ই জানুয়ারি, ২০২১ বিকাল ৫:০৫

রাজীব নুর বলেছেন: পোষ্টে আবার এলাম। কে কি মন্তব্য করেছেন সেটা জানতে।

১৩ ই জানুয়ারি, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:৪৩

খায়রুল আহসান বলেছেন: পোস্টে পুনরায় আসার জন্য ধন্যবাদ। আশাকরি, মন্তব্য/প্রতিমন্তব্যগুলো আপনার ভাল লাগছে।

১৬| ১২ ই জানুয়ারি, ২০২১ বিকাল ৫:৩৭

মিরোরডডল বলেছেন:



মাকে নিয়ে লেখাটা পড়ে কেমন মন খারাপ হয়ে যায় । আই উইশ হার কুইক রিকভারি । হোপ শী উইল গেট ওয়েল সুন ।
আমার মাকে দেখিনা এক বছরের বেশী । কবে যে যাবো অস্থির হয়ে আছি । সচরাচর এরকম গ্যাপ হয়না ।
করোনার কারনে যেতে পারছি না ।

রিকশাচালক ভদ্রলোককে আমার খুবই পছন্দ হয়েছে :) এরকম কারো জন্য আরও বেশী করতে ইচ্ছে করে ।
আর মিস্টার লিংকন, নিপাট ভালো মানুষ ।
হি রিয়েলি নোজ কাস্টমার সার্ভিস এন্ড হাও টু বিল্ড আপ রিলেশনশিপ ।

আর নভো অফিসের সেই লোকটা, উফ ব্যাটা বদ !!! শুনেই ইচ্ছা করছিলো....... থাক আর না বলি X((
আবারও মায়ের জন্য শুভকামনা ।



১৩ ই জানুয়ারি, ২০২১ রাত ৯:২১

খায়রুল আহসান বলেছেন: মন্তব্যের শুরুতেও, এবং শেষেও আপনি আমার মায়ের জন্য শুভকামনা জানিয়েছেন, আমি আপ্লুত।
আশাকরি, শীঘ্রই করোনার কারণে দেয়া ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা উঠে যাবে এবং আপনি আপনার মাকে দেখার জন্য দেশে আসতে পারবেন।
সশ্লিষ্ট ব্যক্তিগণ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য ও পর্যবেক্ষণ যথার্থ।
মন্তব্যে এবং প্লাসে প্রীত ও অনুপ্রাণিত হ'লাম। ধন্যবাদ এবং শুভেচ্ছা!!!

১৭| ১২ ই জানুয়ারি, ২০২১ রাত ১০:৪০

এম. হাবীব বলেছেন: দির্ঘ্যদিন পরে মায়ের মুখে কথার প্রতিউত্তর পেয়ে নিশ্চয় আপ্লুত হয়েছেন, আসলে মায়ের কোন তোলনা নেই তা আর বলার অপেক্ষা রাখেনা। আপনার আম্মার দ্রুত সুস্থতার জন্য আন্তরিক দোয়া রইলো। চলার পথে কতশত অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হই আমরা; তার কোনটা ভালো কোনটা মন্দ হিসেবে স্মৃতিতে থেকে যায়। লিংকন কিংবা সেই রিক্সাওয়ালা লোকটার মত মানুষদেরকেই মানুষ স্মরণ করে। এই স্মরণটাও তার জন্য একরকম দোয়া। পক্ষান্তরে নভো অফিসের বদের হাড্ডিদের মত লোকদের কেউ দ্বিতীয়বার স্মরণ করতে চায় না। আসলে যার যার কর্মই ঠিক করে দেয় সে কত মানুষের হৃদয়ে থাকবে। আপনার পোস্টে প্লাস...

১৩ ই জানুয়ারি, ২০২১ রাত ১০:৫৯

খায়রুল আহসান বলেছেন: আমার কোন পোস্টে আপনি এই বুঝি প্রথম এলেন। আপনাকে এখানে পেয়ে প্রীত হ'লাম। সুস্বাগতম!
আমার আম্মার দ্রুত সুস্থতা কামনার জন্য আপনাকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি।
"এই স্মরণটাও তার জন্য একরকম দোয়া" - জ্বী, আপনি ঠিকই বলেছেন। কোন ভাল কাজের জন্য তাকে স্মরণ করলে সেটা তার জন্য দোয়ায় পরিণত হয়।
মন্তব্যে এবং পোস্টে প্লাস দেয়ায় প্রীত ও প্রাণিত বোধ করছি। অশেষ ধন্যবাদ।

১৮| ১৩ ই জানুয়ারি, ২০২১ রাত ২:৩৬

রামিসা রোজা বলেছেন:

পুরো লেখাটায় এক ধরনের আবেগ ও মায়ামাখা ভালোবাসা
মিশে আছে । রিক্সাওয়ালার হৃদয়টা অনেক বড় , তাঁর
একদিন উন্নতি হবেই আশা রাখি ।

আপনার আম্মাকে আল্লাহ নেক হায়াত দিন ।
ক্ষণিকের দেখা আপনি আরো লিখবেন প্রত্যেক ভীষণ ভালো লেগেছে ।

১৩ ই জানুয়ারি, ২০২১ রাত ১১:৫৫

খায়রুল আহসান বলেছেন: চলার পথে যাদের যাদের সাথে দেখা হয়, তাদের মধ্যে একেকজন একেক রকমের স্মৃতি হয়ে মনের মাঝে আটকে থাকে। কেউ কিছুদিনের জন্য, কেউ বহুদিনের, কেউ হয়তো আজীবনের। আমি ৫/৬ বৎসর বয়সেরও এমন কিছু স্মৃতির মুখকে এখনো পরিষ্কারভাবে স্মরণ করতে পারি।
আমার আম্মার জন্য দোয়া করেছেন, এজন্য ধন্যবাদ।
"ক্ষণিকের দেখা আপনি আরো লিখবেন প্রত্যেক ভীষণ ভালো লেগেছে " - কথাটাতে প্রাণিত হ'লাম। প্লাসেও।

১৯| ১৩ ই জানুয়ারি, ২০২১ সকাল ১০:১৬

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: সুপ্রভাত স্যার। সকালবেলায় আপনার পোস্টটি দেখে চোখ দাঁড়িয়ে গেল। লগ ইন করার লোভ সামলাতে পারলাম না। প্রথমতঃ উপরওয়ালার কাছে আপনার আম্মার সম্পূর্ণ সুস্থতা কামনা করি। উনি যেন শীঘ্রই সম্পূর্ণ আরোগ্য লাভ করেন।

পয়লা জানুয়ারি 2001:- রিক্সাওয়ালার সরল স্বীকারোক্তি, স্যার বেশি দিলেন। চারিদিকে কুপমন্ডুকতা অবক্ষয়তার মাঝেও সততা যে এখনও হারিয়ে যায়নি সমাজবন্ধু রিক্সাওয়ালা তারই একজন প্রকৃষ্ট প্রমাণ। আপনার কথার সঙ্গে সহমত, "জীবনে কোনো প্রত্যাশা না রাখাই বোধহয় সুখের পূর্ব শর্ত। চমৎকার কথা বলেছেন স্যার।
পাশাপাশি লিংকন সাহেবের পেশাদারীত্ব ও নভো এয়ারের কর্মীর সৌজন্যের অভাব শাশ্বত জীবন গতিপথেরই এক চেনা রূপ। নভো পেশাদারিত্বের ক্ষেত্রে একজন গ্রাহককে হারালো।


আপনি নিরাপদে ফিরেছেন ও আম্মা ভালো আছেন আশাকরি। আম্মা ও আপনাকে আমার সালাম রইলো।


১৪ ই জানুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১২:৪৬

খায়রুল আহসান বলেছেন: আপনার আন্তরিক মন্তব্যে অভিভূত হ'লাম। দোয়া এবং শুভকামনার জন্য অশেষ ধন্যবাদ।
পোস্টের চরিত্রসমূহ নিয়ে আপনার তীক্ষ্ণ পর্যবেক্ষণ প্রসূত সুচারু মন্তব্যগুলো যথার্থ হয়েছে।
"নভো পেশাদারিত্বের ক্ষেত্রে একজন গ্রাহককে হারালো" - এমনিভাবে বদ কর্মচারীদের জন্য কত প্রতিষ্ঠান যে ব্যবসা হারায়, তা তাদের মালিকদের জানা থাকে না।

২০| ১৯ শে জানুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১:১৬

মোস্তফা সোহেল বলেছেন: মহান আল্লাহর কাছে আপনার আম্মার সুস্থতা কামনা করছি।
আশা করি আপনি ভাল আছেন ভাইয়া?

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.