নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

মিরোরডডল

মিরোরডডল › বিস্তারিত পোস্টঃ

নীলাকাশ নীল জলরাশি

০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:১১




অস্ট্রেলিয়াতে অফিসিয়ালি লকডাউন না হলেও অনেক রেস্ট্রিকশন এপ্লাই হয়েছে । প্রয়োজন ছাড়া কেউ বাইরে বের হবেনা । বিভিন্ন রকমের ফাইন করছে । লাস্ট থ্রি উইক্স গৃহবন্দী । বাসা থেকে অফিস করছি । মানুষ বলতে সপ্তাহে দুবার ওয়েবক্যামে কর্পোরেট মিটিং এটেন্ড করা । দুধের স্বাদ ঘোলে মেটানো । এতো দীর্ঘদিন লাইভ কোন মানুষ না দেখে একা থাকার এরকম অভিজ্ঞতা আগে কখনোই হয়নি । তাও আবার আমার মতন মানুষ যে সবসময় আউটডোর একটিভিটিস পছন্দ করি । ফ্রেন্ডসদের সাথে দেখা নেই প্রায় সিক্স উইক্স । কতদিন লং ড্রাইভে গিয়ে সানসেট দেখিনা, কান্ট্রি সাইডে পাহাড় ঘেরা পথে পূর্ণিমা রাতে জোৎসনা দেখিনা , কিছুটা শ্বাসরুদ্ধকর অনুভূতি !!!

ফাইনালি আজ সকালে আমাকে বের হতে হয়েছে । গাড়ীর রেজিস্ট্রেশন করতে হবে । অনলাইনে করা গেলেও পিঙ্ক স্লিপ/ ফিটনেস টেস্টের জন্য যেতে হয়েছে । ভোরবেলায় রাস্তা খুবই শুনশান । সার্ভিসিং সেন্টারেও এতো নীরব নট মোর দেন টু পারসন । ওখানে কাজ শেষ করে সুপারমার্কেটে গেলাম । ফার্স্ট আওয়ার তাই মানুষ তুলনামুলকভাবে কমই ছিল । চারপাশে সবাইকে দেখে মনে হোল এটাই যেন এখন একমাত্র এন্টারটেইনমেন্ট ।

আমার বাসাটা সাগরের কাছে । যদিও ওয়াটার ফেসিং না , জাস্ট ফাইভ মিনিটস হাঁটাপথে সি বিচ । ওখানে খুবই সুন্দর সানরাইজ ভিউ হয় যেটা কতদিন দেখিনা ! সাগরের পাশ দিয়ে প্রায় ৭ কিঃমিঃ কোস্টাল ওয়াক, কতদিন ওখানে হাটতে যাইনা ! আজ বাসায় ফেরার পথে একটু আশেপাশে সাগর পাড়ের রাস্তায় ড্রাইভ করলাম । ওখানে কিছুক্ষণ ছিলাম । মাথার ওপর কি সুন্দর নীলাকাশ আর সামনে নীল জলরাশি ! মনে হোল কতদিন পর জীবনকে দেখছি । একটা নির্মল অনুভূতি । সেরকম কোন মানুষজন নেই। একটা মা আর ছেলে পানির পাশে হেঁটে যাচ্ছে, একজন ভদ্রলোক গাড়ী পার্ক করে ওখানেই বসে আছে , দু একজন মানুষ একা জগিং করছে ।

অথচ এখানে কত মানুষ আসতো । এরকম ওয়েদারে সার্ফাররা কাইট সার্ফিং করে , ওয়াটার গ্লাইডিং , জেট স্কি, কালারফুল হয়ে থাকে । যাদের ফ্যামিলি আছে তাঁরা পাশেই পার্কে পিকনিক করে, বাচ্চারা বড়রা সবাই পানিতে নামে সুইমিং করে । কিন্তু এখন কেউ নেই কিচ্ছু নেই । শুধু আছে নিস্তবদ্ধতা ! বেশীক্ষণ থাকা ঠিক হবেনা, কখন আবার পুলিশ এসে ফাইন করে । অল্প কিছুটা সময় কিন্তু অনেকি রিফ্রেশিং

বাসায় ফিরে মনে হোল ব্যাক টু সেন্ট্রাল জেইল । কি আর করা । কিছু পেতে হলে কিছু দিতে হবে । এতকিছুর মাঝে একটাই গুড নিউজ , ভ্যাক্সিন হতে যদিও আরও অনেক সময় লাগবে কিন্তু মনাশ ইউনিভার্সিটির সাইন্টিস্টরা বলছে রিকভারি ড্রাগ হয়তোবা কয়েক মাসের মধ্যেই চলে আসবে । ‘সম্ভবত’ বললেও ভালো লাগলো জেনে । পজিটিভ স্বপ্নগুলোই এখন একমাত্র অনুপ্রেরণা ।

যাবার আগে প্রিয় একটা গান শেয়ার করি । Bertie Higgins, Casablanca released in 1981 . গানের ভিডিওটা আমার প্রিয় একটা ক্ল্যাসিক মুভি কাসাব্লাঙ্কা, রিলিজড ইন ১৯৪২ ।

I love you more and more each day as time goes by

মন্তব্য ৩৮ টি রেটিং +৮/-০

মন্তব্য (৩৮) মন্তব্য লিখুন

১| ০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৪১

রাজীব নুর বলেছেন: "শুধু বিঘে দুই ছিল মোর ভুঁই আর সবই গেছে ঋণে।
বাবু বলিলেন, “বুঝেছ উপেন? এ জমি লইব কিনে।”

০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৩৮

মিরোরডডল বলেছেন: থ্যাংক ইউ

২| ০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:১৮

মনিরা সুলতানা বলেছেন: বিষণ্ণতার রঙ কেনো যে নীল !!
আবার নির্মল স্নিগ্ধতা নীলে' ই রয় !
তোমার নীলে মেশা আকাশ আর জলের লেখায় ভালোলাগা।
পজিটিভ স্বপ্নগুলোই এখন একমাত্র অনুপ্রেরণা । কথাটা র খুব ই সত্যি বর্তমান অবস্থায়।

ভালোবাসা তোমার জন্য।

০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৩৭

মিরোরডডল বলেছেন: থ্যাংক ইউ আপু ।
তোমার জন্যও নীলাকাশের ভালোবাসা ।

৩| ০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ৮:১৫

খায়রুল আহসান বলেছেন: খুব ভাল লাগলো আপনার এ পোস্ট টা। পোস্টের কথাগুলো যেমন হৃদয়ের আকুতি প্রকাশ করেছে খুব সহজ সরল ভাবে, নীলাকাশ এবং নীল জলরাশির ছবিটাও তেমনি চোখ জুড়িয়ে দেয় নিমেষে। দু' সপ্তাহও হয় নাই, মেলবোর্ন ছেড়ে এসেছি। এরকম ছবি মুহূর্তের মধ্যে মনে অনেক স্মৃতি ছড়িয়ে দিয়ে গেল। নিবিড়ভাবে নিজেকে রিলেট করতে পারলাম এ পোস্টের সাথে।
আমার সংগ্রহেও এরকম সুন্দর বীচের, গাছ গাছালির ছায়া ঘেরা সুন্দর সড়কের, সুন্দর পুষ্পকাননের অনেক ছবি আছে। গ্রেট ওশেন বীচ ধরে চলার সময়ের কিছু অভূতপূর্ব ছবি আছে। সময়াভাবে সেগুলো সাজিয়ে গুছিয়ে কোন পোস্ট লিখতে পারছি না। হ্যাঁ, কারণটা সময়াভাব, এ ফোর্সড হোম কোয়ারেন্টাইনের সময়েও। কত আর লিখা যায়!
পোস্টের শিরোনামটাও খুব সুন্দর দিয়েছেন। সব মিলিয়ে- আ ভেরী গুড পোস্ট। + +

০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ৯:২১

মিরোরডডল বলেছেন: থ্যাংক ইউ সো মাচ । আই নো হাউ ইউ ফীল । এখন বেশ অনেকদিন পর্যন্ত এখানে ট্র্যাভেল মেমরিজ মনে পরবে । ভাবতে ভালোও লাগবে আবার কষ্টও লাগবে । নো রাশ, টেইক ইউর টাইম । হোয়েন ইউ আর রেডি, তখন লিখুন আর ফটোগুলো শেয়ার করুন । আমাদেরও ভালো লাগবে দেখতে ।

৪| ০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ৮:১৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


অষ্ট্রেলিয়ান ইউনিভার্সিটি যে ঔষধট নিয়ে কাজ করছে, উহার ব্যাপারে কি জানেন?

০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ৯:১৪

মিরোরডডল বলেছেন: সেরকম কিছু জানিনা । লাস্ট ফিউ ওয়ীক্স ধরেই বলছে রিসার্চের কথা । আজ সকালের নিউজ বলল এক্সিসটিং anti-parasitic ড্রাগ এর ওপর এক্সপেরিমেন্টাল কাজ করেছে কয়েকটা ড্রাগকে একসাথে করে যেটা অলরেডি ইউজড ফর আদার ভাইরাস ইনফ্লুয়েঞ্জা, ম্যালেরিয়া , HIV আরও যেন কি একটা । যদি সাকসেসফুল হয় তাহলে এটা ৪৮ আওয়ারস ভাইরাসটা কিল করবে । ওয়ান ডোজ ক্যান স্টপ গ্রোয়িং । তাঁদের নেক্সট স্টেপ হিউম্যান বডিতে ডোজের পরিমাণ নির্ধারণ করা । এটা তাঁরা আগামী এক মাসের মধ্যে করবে ।

৫| ০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ৮:৫৯

ক্ষুদ্র খাদেম বলেছেন: তাও তো আপনার আশে-পাশে এরকম জায়গা আছে :#)

সাবধানে থাকবেন :)

০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ৯:২৯

মিরোরডডল বলেছেন: ইউ আর রাইট । কিন্তু এখন পারমিটেড না । তাইতো যাওয়া হয়না ।
থ্যাংক ইউ সো মাচ ফর ভিসিট হিয়ার । আপনিও সেইফ থাকুন ।

৬| ০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ৯:০৭

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




আমার মাঝে মাঝে মনে হয় এই সময়টা প্রয়োজন ছিলো। মানুষ ভাবতে শিখছে। মানুষের ভাবনাশক্তি প্রায় অচল অথর্ব হয়ে পরেছিলো বলা চলে।

০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ৯:৩৩

মিরোরডডল বলেছেন: ঠিক বলেছেন । শুধু ভাবনা না , আরও অনেক কিছু শেখা হচ্ছে এখন প্রতিনিয়ত ।
যেগুলোর কোন প্র্যাকটিস ছিলোনা । সিভিক সেন্স গ্রো হচ্ছে হুইচ ইজ গুড ।
ভালো থাকবেন ।

৭| ০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ৯:৩২

মুক্তা নীল বলেছেন:
একরকম বন্দী ও অসহায়ের মতো অনেকটা জীবন-যাপন আমরা সবাই করছি । মনের যত জমানো মেঘ গুলো আকাশের নীলের সাথে ও নীল সমুদ্রের মাঝে আল্পনায় ভাসিয়ে দিন । দেখবেন মুহূর্তেই আনমনা মনের সাথে কেবল সঙ্গী ওই নীল আকাশ ও নীল সমুদ্র নিঃস্বার্থভাবে মুগ্ধ করে দেবে ।

মন খারাপের কথায়েও ভালোলাগা।

০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ৯:৪৩

মিরোরডডল বলেছেন: তাইতো করি আপু । I’m so belonged to this nature.
এর মাঝেই আমার যত ভালোলাগা ।
অনেকি থ্যাংকস আপু । গ্ল্যাড টু সি ইউ হিয়ার ।
Stay safe.

৮| ০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ১০:৫৮

শের শায়রী বলেছেন: পরিচিত পৃথিবীটা কেমন যেন হঠাৎ করে অনেকটা অপরিচিত হয়ে গেল, তাই না? এত পুরানো মুভি আপনি দেখেন? আমার ধারনা ছিল না এই যুগের কেউ ওই সব ক্লাসিক্যাল মুভি বা গানের সাথে খুব একটা পরিচিত, ভালো লাগল আপনি ব্যাতিক্রম। ভালো থাকুন।

০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ সকাল ৮:১৪

মিরোরডডল বলেছেন: আমার সবচেয়ে প্রিয় মুভি লিস্টে আছে রোমান হলিডে । এই মুভিটা আমি যে কতবার দেখেছি ।
সেই থেকে অড্রে হেপবার্ন গ্রেগরি পেকের আরও অনেক মুভি । সোফিয়া লরেন ওয়ান অফ মাই ফেবারিটস । কথায় আছে ওল্ড ইজ গোল্ড । ইউ নো ইটস ট্রু । সেই সময়ের মুভি গুলোঅনেক জেনুইন ছিল । ক্যাসাব্লাঙ্কা মনে হয় আমার দেখা সবচেয়ে ওল্ড মুভি ।

গানের লিরিকটা খুবই সুন্দর । ইন্টেন্স ফিলিংস ।
“kiss is not a kiss without your sigh
please come back to me in Casablanca
I love you more and more each day as time goes by” জটিল !!!

থ্যাংকস ফর ইউর কমেন্ট । ভালো থাকবেন ।

৯| ০৪ ঠা এপ্রিল, ২০২০ রাত ১১:০২

নেওয়াজ আলি বলেছেন: ঢাকা হতে মিছিলের মত দলবেঁধে মানুষ গ্রামে গিয়েছে । এখন আবার আসার শুরু হচ্ছে।

০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ সকাল ৮:১৭

মিরোরডডল বলেছেন: আই নো । নিশ্চয়ই পরিস্থিতির স্বীকার । সবাই যেন সেইফ থাকে ভালো থাকে ।

১০| ০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ সকাল ৮:৩৩

মলাসইলমুইনা বলেছেন: মিরোরডডল,
কোন সাগর পাড়ের নীলাকাশ আর নীল জলরাশি দেখলেন ইন্ডিয়ান ওসেন না প্যাসিফিক ? আপনিতো মহাভাগ্যবান দেখি । জেল বন্দি জীবনেও সাগর পারে হাওয়া খেতে পারেন ।আমাদের এখানে সাগরের মতো একটা লেক আছে । কিন্তু তার ধারে বা পাড়ে যাবার চেষ্টা করলে মনে হয় বাসা জেইল না সত্যিকারের সেন্ট্রাল জেলেই পাঠাবে ।কঠিন 'স্টে এট হোম' অর্ডারে দিন যাপন করছি আমরা । সাগর দেখার কোনো বিলাসিতা করার ব্যাপার নেই এই করোনাময় করুণাহীন জীবনে । যাক অনেক দিন পর বার্টি হিগিন্সের ক্যাসাব্লাঙ্কা গানটা আপনার লিংক থেকেই পরপর তিনবার শুনলাম । আমার একটা খুব প্রিয় গান এটা । আমি তিনটে প্রিয় হলিউড মুভি দেখলে প্রথমটা হবে "রোমান হলিডে" । সেকেন্ড হবে রিউইন্ড করে আবার রোমান হলিডে ।থার্ডটা মনে হয় ক্যাসাব্লাঙ্কা বা 'দ্যা ট্রাপ' (অলিভার রিড আর রিটা টুইসিংহাম)-এর মধ্যে টস করতে হবে । তবে প্রথম চারটে মুভির মধ্যে কাসাব্লাঙ্কাও থাকবে । আপনার চমৎকার লেখা পড়তে পড়তে প্রিয় একটা গান অনেক দিন পরে শোনা হয়ে গেলো । একের ভেতর দুই ভালোলাগা তৈরির ধন্যবাদ নিন ।

০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ দুপুর ১:০৬

মিরোরডডল বলেছেন: সাউথ প্যাসিফিক । আমাদের এখানেও স্টেইজ টু চলছে । পারমিশান নেই কিন্তু কাজে বের হয়েছিলাম তাই একটু ঘুরে আসা । রুল ব্রেইক করে ধরা খেলে ১০০০ ডলার ফাইন ।

বাহ আমিতো আমার দলের মানুষ পেয়ে গেলাম মনে হচ্ছে :- )
সেইম হিয়ার । এ গানটা আমারও কখনও একবার শোনা হয়না । মাস্ট রিপিট ।
'দ্যা ট্রাপ' দেখা হয়নি ।

অনেকি থ্যাংকস । ভালো থাকবেন ।

১১| ০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ দুপুর ১২:০০

ওমেরা বলেছেন: শখ করে আমরা পাখিকে খাঁচায় বন্ধি রাখি, এবার না বুঝতেছি বন্ধি থাকা কতটা কষ্টকর। যদিও আমাদের সরকার এখনো আমাদের উপর আটকাদেশ জারি করেননি। তবে মনে হচ্ছে আর বেশীদিন মুক্ত থাকতে পারব না।

আল্লাহ সবাইকে করোনা মুক্ত রাখুন।

০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ দুপুর ১:১৫

মিরোরডডল বলেছেন: আপু আমাদের এখানেও লকডাউন হয়নি বাট রেস্ট্রিকশন দিয়েছে । স্টেইজ টু চলছে । মাস্ট বার হবেনা প্রয়োজন ছাড়া । ম্যাক্সিমাম অপারেশন ক্লোজড । বিভিন্ন রকম অনেক রুলস । অর্ডার অমান্য করে ধরা খেলে ১০০০ ডলার ফাইন ।

সেটাই আপু । সবাই যেন ভালো থাকে ।

১২| ০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ দুপুর ১২:০৯

অন্তরন্তর বলেছেন: এই ক্রিটিকেল সময়ে আপনি সাগরপাড়ে একটু সময় নিঃশ্বাস নিতে পেরেছেন তা আসলেই আনন্দকর। আমরা ঘর থেকে বের হচ্ছিনা ৩ সপ্তাহ হয় এবং আরও কতদিন বন্দী অবস্থায় থাকতে হবে তা মহান আল্লাহ্‌ পাক জানেন। আপনার পোস্টের জন্য অনেক সুন্দর একটি গান শুনা হল। যে যেখানে থাকুন ভাল থাকুন এবং অন্যজনকে ভাল রাখুন। শুভ কামনা।

০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ দুপুর ১:৪১

মিরোরডডল বলেছেন: সবাই একটা চ্যালেঞ্জ ফেইস করছি । ঠিক হয়ে যাবে শুধু সময়ের অপেক্ষা আর অনেক গুলো জীবনের মূল্য দিয়ে ।
যে যেখানে আছে ভালো থাকুক , সবাইকে নিয়ে ।
গানটা ভালো লেগেছে জেনে ভালো লাগলো ।
অনেকি থ্যাংকস অন্তর । আপনিও ভালো থাকবেন ।

১৩| ০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ দুপুর ১:৪২

রাজীব নুর বলেছেন: আর লকডাউন করে কি হবে, ক্ষতি যা হবার হয়েছে, সবকিছু খুলে দিন অন্তত অর্থনীতির চাকা তো সচল থাকবে!!! মন্দের ভালো এই যা ।

০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ দুপুর ২:০১

মিরোরডডল বলেছেন: নো ওয়ে । লাইফ ফার্স্ট ।
To save more lives temporary lock-down is important.

১৪| ০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ দুপুর ২:৪০

স্বপ্নের শঙ্খচিল বলেছেন: খাচাঁর পাখি নিয়ে আমরা কত গান গাই,
আজ আমাদের এই লকডাউনে কে
গান রচনা করবে ???

.............................................................................
মেয়েটা অস্ট্রেলিয়ায় তাই চিন্তিত

০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:০৯

মিরোরডডল বলেছেন: চিন্তা করবেন না
মেয়ে ভালো আছে
ভালো থাকবে
আপনারাও সেইফ থাকুন

১৫| ০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ দুপুর ২:৫২

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: এক্সট্রভার্টদের জন্য এই কোয়ারেন্টাইন পিরিয়ডটা জেলখানার চাইতেও বেশি দুর্বিষহ। খায়রুল আহসান স্যারের কমেন্টে আমার এক্সপ্রেশন প্রকাশ পেয়েছে। ক্রান্তিকাল যাতে দীর্ঘস্থায়ী না সেজন্যই আমাদের এই বন্দিদশা এখন সহ্য করতে হবে। ব্যস্ত সময়ে শখের ঘরোয়া যে কাজগুলো আমরা করতে পারি নি, এখন সেগুলো করা যেতে পারে। এর মধ্যে, আমার মতে ব্লগিং হলো উত্তম একটা মাধ্যম। এর বাইরে বইপড়া, ইউটিউব, টিভি, ফেইসবুকিংও চলতে পারে সমান তালে। হিউমেনিটেরিয়ান ওয়ার্ক করার সুযোগ থাকলে সেটাও করা যেতে পারে।

মানুষ সমাজবদ্ধ জীব। মানুষের সাহচর্য ছাড়া মানুষ দমবন্ধ হয়ে মারা যায়, করোনার কোয়ারেন্টাইন আমাদের হাড়ে হাড়ে তা বুঝিয়ে দিচ্ছে। এখান থেকেও আমাদের পজিটিভিটি শেখার অনেক এলিমেন্ট আছে। যে-কোনো দুর্যোগ, মহামারি মানুষের মধ্যে অনেক পরিবর্তন ঘটায়। এই পরিবর্তনটা প্রধানত মানসিক। যারা ধর্মভীরু, তাদের মধ্যে এই পরিবর্তন আরো প্রকট। তারা তখন পারলৌকিক জীবনের চিন্তায় বিভোর হয়ে ওঠেন। হয়ত এখানেই জীবনের শেষ। জীবনে কী পেলাম, কী পেলাম না, তার চাইতে বরং পরকালের জন্য কতটুকু সঞ্চয় আছে, সেই হিসাবটাই বড়ো হয়ে দেখা দেয়। অবহেলায় ফেলে আসা পেছনের সময়ের জন্য তখন খুব আফসোস হতে থাকে- হায়, আবার যদি শৈশবে ফিরে যাওয়া যেত! কিন্তু শৈশবে ফিরে যাওয়া সম্ভব না, তখন আরাধনা হয় একটাই- হে প্রভু, যদি এ যাত্রা বেঁচে উঠি, এভাবে হেলায় আর সময় হারাবো না; জীবনে অনেক খারাপ কাজ করেছি, অনেক গোয়ার্তুমি করেছি, মানুষের সাথে অনেক ইডিয়টিক আচরণ করেছি, মানুষকে খুব তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করেছি, অপমান করেছি, নিজেকে বড়ো ভেবেছি- অনেক ফাঁকি দেয়া হয়েছে, অনেক দুর্নীতি, অপকর্ম করা হয়েছে। মানুষকে অনেক কষ্ট দেয়া হয়েছে। যদি এ মহামারি কাটিয়ে উঠতে পারি- বাকি জীবনটা আবার নতুন করে সাজিয়ে নিব। মানুষের জন্য, পরের জন্য মঙ্গলময় কিছু করবো। মানুষের মনের মধ্যে তখন এ রকম পজিটিভ পরিবর্তন আসতে থাকে। আপনার পোস্টে পজিটিভ স্বপ্ন দেখার কথা বলেছেন, শেষের দিকে এক প্যারায়। মহৎ মানুষরা সবসময় পজিটিভ স্বপ্ন দেখবেন, যেমন এখন দেখছেন।

কোভিডের ভ্যাক্সিন আবিষ্কারের জন্য এখন মানুষকেই গিনিপিগ হতে হচ্ছে। জাপানও নাকি এভিগান ইউজ করছে। ৪/৫ সপ্তাহ আগেই আমেরিকার কথা শুনেছিলাম ভ্যাক্সিন আবিষ্কার করেছে। আপাতত এক্সিস্টিং মেডিসিন দিয়েই বিভিন্ন দেশ ট্রাই করে যাচ্ছে। একসময় হয়ত একই সাথে কয়েকটা দেশই ভ্যাক্সিন আবিষ্কার করে ফেলবে, ততদিনে কত মানবের প্রাণ যায় আল্লাহই জানে।


গানটা অসাধারণ। অড্রে হেপবার্ন আমার প্রিয় অভিনেত্রী। রোমান হলিডে পছন্দ হয় নি, এমন মানুষ খুব কম পাওয়া যাবে

আপনার কোয়ারেন্টাইন পিরিয়ড আনন্দে কাটুক, এই কামনা।

০৫ ই এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:৩৪

মিরোরডডল বলেছেন: ধুলো এতো সুন্দর করে কথাগুলো বলেছে!
এটা একটা পোষ্ট হতে পারে ।

"হিউমেনিটেরিয়ান ওয়ার্ক"
হুম ধুলো, আমি আমার ফুলটাইম প্রফেশনাল জবের পাশাপাশি উইকেন্ডে ফেডারেল গভর্নমেন্টের একটা প্রোজেক্টের হয়ে লোকাল কমিউনিটির ওয়েলফেয়ারের জন্য কাজ করি । নিঃসঙ্গ মানসিক অবসাদগ্রস্ত মানুষদের ভিসিট করা, ওদেরকে সময় দেয়া । কিন্তু ওগুলো সব এখন সাময়িকভাবে বন্ধ আছে বাইরে বের হওয়ার রেস্ট্রিকশন তাই ।

গানটা পছন্দ হয়েছে জেনে ভালো লাগলো । আমার অনেকি প্রিয় ।

১৬| ১৬ ই এপ্রিল, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৫৩

ভ্রমরের ডানা বলেছেন: নেচার সাময়িকীতে পড়েছিলাম এই ভাইরাস হিট সেন্সেটিভ। তবে দ্রুত রিকোভারী ড্রাগ ও ভ্যাকসিন চায় মানবজাতি!

১৭ ই এপ্রিল, ২০২০ দুপুর ১২:৪২

মিরোরডডল বলেছেন: ভ্রমর, ভ্যাকসিন হতে একটু সময় লাগবে কিন্তু রিকোভারি ড্রাগ এর ওপর কাজ চলছে যেটা শীঘ্রই মার্কেটে আসবে ।
হোপ ফর দা বেস্ট । Take care & stay safe.

১৭| ২৫ শে মে, ২০২০ রাত ৯:৩৮

আখেনাটেন বলেছেন: তাবৎ দুনিয়াতেই মনে হয় শহুরে মানুষেরা এই সমস্যায় পড়েছে। অ্যান্টি-ভাইরাল ড্রাগের ব্যাপারেও এখনও পর্যন্ত কোনো আশাপ্রদ খবর পাওয়া যাচ্ছে না। এটা চরম হতাশার। অনেকেই ধারণা করেছিল মে মাসের মধ্যে এ ধরনের কিছু আসবে। কিন্তু...

এখন ভ্যাকসিনটা সময়মত ম্যাস প্রডাকশনে যেতে পারলেও হয়।

লেখাটি ছোট হলেও বেশ গুছিয়ে লিখেছেন ব্লগার মিরোরডল।

২৫ শে মে, ২০২০ রাত ১০:২২

মিরোরডডল বলেছেন: আনা (শর্ট ফর্ম অভ আখেনাটেন )
অস্ট্রেলিয়াতে এপ্রিলে বলেছিল মে মাসে ট্রায়াল হবে ।
ফাইভ ডেইজ আগের নিউজ আপডেট প্রিভেনশন ভ্যাক্সিন ইজ রেডি ফর হিউম্যান ট্রায়াল ।
৮ জনকে দেয়া হবে বাই নেক্সট উইকেন্ডে । দেখা যাক কি হয় । হোপফুলি ভালো কিছু হবে ।

ডোন্ট গিভ আপ ইউর হোপ ।
Only dreams can give us inspiration to lead our life and take us to bright future.
থ্যাংকস ফর ভিজিটিং হিয়ার ।

১৮| ২৯ শে জুলাই, ২০২০ রাত ৯:০৭

শুভ_ঢাকা বলেছেন: মিরোরডল,

একটা কৌতূহল। আপনি বন্ধুবান্ধব নিয়ে ঘুরতে ভালবাসেন। সিডনি একটা কসমোপলিটান শহর। আপনার ভ্রমণ বন্ধুরা অরিজিনালি কোন কোন দেশের। আর এত কঠিন গজলের ভাষাইবা কি করে বুঝেন।

প্রশ্নের উওর দিতেই হবে এমন কোন বাধ্যবাধকতা নেই। আপনার সার্বিক কল্যাণ কামনা করি।

view this link

২৯ শে জুলাই, ২০২০ রাত ৯:৪৪

মিরোরডডল বলেছেন:



ইউ আর রাইট শুভ । সিডনি অনেকি মাল্টিকালচারাল ।
ইফ আই’ম নট রং ১৯০ দেশের লোকের বাস অস্ট্রেলিয়াতে ।
আমার খুবই ক্লোজ ফ্রেন্ডস ৫/৬ জন বাংলাদেশী । আর বাকিরা লোকাল আছে অজি, নিউজিলেন্ডের, এশিয়ান, মেডিটেররানিয়ান । এটাই অস্ত্রেলিয়ার বিউটি যে ইউ ক্যান মিঙ্গেল উইথ সো মেনি ডিফারেন্ট ন্যাশনালিটিজ ।

হিন্দি কিন্তু আমিও ভালো বুঝিনা শুভ । গজলের সব বোঝা যায়না অনেক কঠিন । কিছু বুঝি আর যেটা শুনতে ভালো লাগে সেগুলো লিরিক কালেক্ট করে নেই । মাঝে মাঝে হয়তো একটা গজলের কিছু কথা এতই হৃদয়স্পর্শী যে পুরো গজলটাই মনে ধরে যায় ।

ভিক্টোরিয়াকে অনেক দিন পর দেখলাম ।

I want to feel you in my arms again
And you come to me on a summer breeze
Keep me warm in your love, then you softly leave
And it's me you need to show
How deep is your love


১৯| ২৯ শে জুলাই, ২০২০ রাত ১০:২১

শুভ_ঢাকা বলেছেন: Thumbs up for your answer which quenched my curiosity. Bee Gees আমার খুউব প্রিয় মিউজিক্যাল ব্যান্ড। আমি খুউব ছোটবেলা থেকে এদের গান শুনি। আমাদের বাড়ীতে সারাক্ষণ নানান ধরনের গান বাজতো। Bee Gees ছিল তাদের অন্যতম।

view this link

২৯ শে জুলাই, ২০২০ রাত ১১:১৬

মিরোরডডল বলেছেন:



আমার প্রিয় মডার্ন টকিং , এদের অলমোস্ট সব গানই ভালো লাগে ।

The time when you touched me
I love you till eternity




আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.