নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

টারজান০০০০৭

টারজান০০০০৭ › বিস্তারিত পোস্টঃ

ধর্ষণ বন্ধ করিতে হইলে আগে সংস্কৃতি পরিবর্তন করিতে হইবে ! একটি ১৮+ পোস্ট!

২১ শে মে, ২০১৭ দুপুর ১২:৪৬

সবাই ধর্ষণ নিয়া পোস্ট দিয়া ব্লগপাড়া ধর্ষণময় করিয়া ফেলিতেছে দেখিয়া ভাবিলাম আমি আর বাকি থাকি কেন। বনের রাজা হিসাবে আমার একটা ভূমিকা রাখা উচিত। হাজার হইলেও রাজাতো!
ইংরেজ যখন এদেশে তাহাদের সভ্য(!) সংস্কৃতি লইয়া আসিল, আমরা ম্যাংগো পিপল তাহা ছিঃ ছিঃ করিয়াছি ! তাহাদের বিরোধিতা করিয়াছি, কষিয়া চড় মারিতে চাহিয়াছি।
ইংরেজ পয়সা ঢালিয়া আলিয়া মাদ্রাসা চালু করিয়া বোঝাইলো, তোমাদের দুনিয়াও হইবে , আখিরাতও হইবে। মুসলমান ভাবিলো , তাইতো ! দুনিয়াও হইবে , আখিরাতও হইবে ! ক্ষতি কি ? ইহার পর ইংরেজ কলেজ খুলিলো , বিশ্ববিদ্যালয় খুলিলো, সহশিক্ষা চালু করিল , মুসলমান ভাবিলো, লাভইতো ? লাভ পাইতে হইলে এক আধটু ক্ষতিতো হইবেই ! এক আধটু ইয়েতে কি আর হইবে ! ততদিনে মুসলমানের নাক সিটকানো বন্ধ হইয়া গিয়াছে ! লাভের ছোয়া পাইয়া মুসলমান উত্তেজিত হইয়া গিয়াছে ! নারী পুরুষের অবাধ মেলামেশায় বিরাট লাভ হইয়াছে! নারী পুরুষ পরস্পরকে গভীরভাবে (!) জানিতে পারিতেছে। ক্ষতি কি ?
এখন অর্গাজম দরকার ! এখন চিন্তা কিভাবে সাহেবের মতন পোশাক, সাহেবের মতন এটিকেট , সাহেবের মতন শিক্ষা ,সাহেবের মতন উন্নতি করা যায় ! নইলে জাতে ওঠা যাইতেছে না ! ইংরেজীটাও ঠিক ইংরেজের মতন হইতেছে না ! অর্গাজমও হইতেছে না !
তাহলে উপায়? ইউরেকা! মিশনারি স্কুল, ইংলিশ মিডিয়ামে পড়িতে হইবে। তাহা হইলে পরিপূর্ণ সাহেব হইবে!পরিপূর্ণ সাহেব হইতে হইলে কি করিতে হইবে ? সাহেবের মতন চিন্তা করিতে হইবে , সাহেবের সংস্কৃতি ধারণ করিতে হইবে , পার্টি , বয়ফ্রেন্ড, গার্লফ্রেন্ড বানাইতে হইবে, জিং জিং খেলিতে হইবে ! তো মুসলমান টাকা খরচ করিয়া সাহেবের মতন হইলো! এখন আর পশ্চিমাদের টাকা খরচ করিতে হয় না ! উল্টো মুসলমান টাকা দিয়া সাহেব হয়! চরম লাভজনক ব্যবসা!
মুশকিল হইলো, বিক্রিয়াতো হইলো। মুসলমান সাহেবতো হইলো ! কিন্তু বাই প্রোডাক্ট হিসেবে জিং জিং খেলার সাথে সাথে পশ্চিমাদের সভ্য (!) সংস্কৃতির অপভ্ৰংশ ধর্ষণ সংষ্কৃতির আমদানিও হইলো !
ধর্ষণের আসল কারণ ইহাই ! অবৈধ যৌন সঙ্গমের সংস্কৃতির অগ্রগতিই হইলো ধর্ষণের মহামারী। আরো কারণ আছে। তবে সেগুলো মহামারীর কারণ নহে। অন্ধের মতন পাশ্চাত্য সংস্কৃতি অনুসরণ করিলে বাই প্রোডাক্ট হিসেবে ধর্ষণ হইবেই ! ফুল নিবেন , আর কাটার আঘাত সহ্য করিবেন না , তাহা হয় নাকি ? এখনকার সিস্টেমটাই তো ধর্ষণের সিস্টেম। সংষ্কৃতিটাই হইয়া গিয়াছে সাহেবের সংষ্কৃতি ! পার্টি , লিটনের ফ্লাট , হোটেল, রুম ডেটের সংস্কৃতির। পরস্পর সম্মতিতে হইলে প্রব্লেম নাই , না হইলে ধর্ষণ ! দীর্ঘদিন সহবাস করিয়া বিবাহ না করিলে ধর্ষণ। প্রতিপক্ষরে জব্দ করার লাইগা ধর্ষণ ! সংবাদপত্রের কাটতি বাড়াইতে ধর্ষণ ! প্রথম শ্রেণী পাইতে গিভ এন্ড টেক পলিসি ! না পাইলে ধর্ষণ !
ছিঃনেমা , নাটক , অপন্যাশ , বিজ্ঞাপন , গল্প , পত্রিকা, সিরিয়াল সব জায়গায় পিরিতের আলোচনা ! দেহজ ভালোবাসার আলোচনা ! সবসময় সুড়সুড়ি দিয়া পতাকা উড্ডয়ন করিতে বলিবে , আর পতাকা উড়িলে দোষ দিবে তাই হয় নাকি !
হোটেলে , লিটনের ফ্ল্যাটে, রুম ডেটে যাওয়ার সংস্কৃতিতো আমরাই চালু করিয়াছি ! এই সংস্কৃতির আমদানি হইয়াছে আমাদের দেশে পশ্চিমা শিক্ষা ব্যাবস্থার আমদানির সাথে।বিশেষ করিয়া ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল ইহার প্রসারে বিশেষ ভূমিকা রাখিয়াছে। তাহার পর যখন এই প্রজন্ম, নামকরা প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে গেলো সঙ্গে করিয়া এই সংস্কৃতি লইয়া গিয়াছিল। ২০০৯ সালে যখন আমি কোনো এক নামকরা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীকে এই বিষয়ে তাহার মত কি তাহা জানিতে চাহিয়াছিলাম, তিনি উত্তর দিয়াছিলেন "পরস্পর সম্মতিতে হইলে সমস্যা কি ?" আমি যখন তাহাকে আমাদের ধর্ম ও পারিবারিক মূল্যবোধের কথা স্মরণ করাইয়া দিয়েছিলাম, তিনি এমন ভাব করিলেন যেন আমি অন্য গ্রহ থেকে আসিয়াছি ! তাহার পর অনেক জল গড়াইয়াছে। ইহার পর এই সংষ্কৃতি পরিভ্রমণ করিয়া পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় বিশ্ববিয়ালয় , স্কুল, কলেজ সর্বত্র ছড়াইয়া পরে।
ধর্ষণ বন্ধ করিতে হইলে আগে সংস্কৃতি পরিবর্তন করিতে হইবে ! নারী পুরুষের আলাদা শিক্ষা ব্যবস্থা , আলাদা কর্মক্ষেত্র করিতে হইবে ! পার্টি , লিটনের ফ্লাট, রুম ডেটের সংস্কৃতি বন্ধ করিতে হইবে ! সাহেব হওয়া বন্ধ করিয়া মুসলমান হওয়ার শিক্ষা চালু করিতে হইবে। আগাছার গোড়া ধ্বংস না করিয়া আগা কাটিলে কোনো লাভ হইবো না। আগুন আর ঘি একসাথে রাখিবেন , আর আগুন, ঘি গলাইবে না তাহা ভাবা কি ঠিক হইবে ? কুমির আছে জানিয়াও নিরাপত্তার ব্যবস্থা না করিয়া জলে নামিলে কুমিরে খাইবেই ! কাঁদিয়া লাভ নাই ! বরং অপেক্ষা করুন , মানিকেরা সেঞ্চুরি থেকে ১০ হাজারী ক্লাবে কবে প্রবেশ করে!
(আমি স্কুল , কলেজ , বিশ্ববিদ্যালয়ের বিরোধী নই, সহশিক্ষার বিরোধী ! অবৈধ অবাধ মেলামেশার বিরোধী। ধর্ম ও নৈতিকতাহীন শিক্ষা ব্যাবস্থার বিরোধী। )

মন্তব্য ১৯ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (১৯) মন্তব্য লিখুন

১| ২৬ শে মে, ২০১৭ দুপুর ১২:২৮

ফরিদ আহমদ চৌধুরী বলেছেন: (আমি স্কুল , কলেজ , বিশ্ববিদ্যালয়ের বিরোধী নই, সহশিক্ষার বিরোধী ! অবৈধ অবাধ মেলামেশার বিরোধী। ধর্ম ও নৈতিকতাহীন শিক্ষা ব্যাবস্থার বিরোধী। ) সহমত

২৬ শে মে, ২০১৭ দুপুর ১২:৪২

টারজান০০০০৭ বলেছেন: ধন্যবাদ।

২| ২৭ শে মে, ২০১৭ রাত ২:৩১

অনল চৌধুরী বলেছেন: সহশিক্ষা থাকলে অবাধ সম্পর্ক হবেই।মাছ ধরবেন আর পানি লাগাবেন না,তা হবে ন।আপনার ইচ্ছামতো সব চলবে না।
লেখাটা খুবই কু-রুচিপূর্ণ ও নোংরা।কোন প্রমাণ ছাড়াই ধর্ষিতা মেয়েটাকে অপমাণিত করলেন।

২৭ শে মে, ২০১৭ সকাল ৯:২৩

টারজান০০০০৭ বলেছেন: "সহশিক্ষা থাকলে অবাধ সম্পর্ক হবেই।মাছ ধরবেন আর পানি লাগাবেন না,তা হবে না।"

এইতো বুঝিতে পারিয়াছেন। পানি না লাগাইয়া মাছ ধরার উপায় বাহির করিতে হইবে।

"কোন প্রমাণ ছাড়াই ধর্ষিতা মেয়েটাকে অপমাণিত করলেন।"

ধর্ষিতা মেয়েটিকে কোথায় অপমান করিলাম ? কাউকে নির্দিষ্ট করিয়া কিছু বলিয়াছি কি ? আমিতো সংস্কৃতিটাকেই আক্রমণ করিয়াছি !

২৯ শে মে, ২০১৭ দুপুর ২:৫৫

টারজান০০০০৭ বলেছেন: আপনার অনুভূতিতে আঘাত লাগায় কৌতুকখানি অপসারণ করা হইলো ! অন্যকোনো পোস্টে পুণঃস্থাপন করা হইবে কিনা তাহা নির্ভর করে বিপক্ষ দলের পাঠকগণ আন্দোলন করেন কিনা তাহার উপর !

৩| ২৩ শে জুলাই, ২০১৭ রাত ২:৩৫

ওমেরা বলেছেন: আপনার লিখাটা খুব ভাল লাগল অনেক ধন্যবাদ আপনাকে ।

২৩ শে জুলাই, ২০১৭ সকাল ১১:২৯

টারজান০০০০৭ বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকে ! আমার পোস্ট প্রথম পাতাতে যায় না ! কেউ দেখিতেও পায় না ! আমি জেনারেল না ফিল্ড মার্শাল তাও বলে না ! মডুরে তৈল মর্দন না করিলে প্রথম পাতায় এক্সেস পাইবো না বোধহয় !

৪| ২৯ শে জুলাই, ২০১৭ সকাল ১১:৫১

মো: অাজগর আলী বলেছেন: (আমি স্কুল , কলেজ , বিশ্ববিদ্যালয়ের বিরোধী নই, সহশিক্ষার বিরোধী ! অবৈধ অবাধ মেলামেশার বিরোধী। ধর্ম ও নৈতিকতাহীন শিক্ষা ব্যাবস্থার বিরোধী। ) সহমত

২৯ শে জুলাই, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:৫৩

টারজান০০০০৭ বলেছেন: সহমত প্রকাশ করার জন্য ধন্যবাদ !

৫| ১৩ ই নভেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৩:১০

নতুন নকিব বলেছেন:



কৌতুকখানি দেখিবার ইচ্ছা হইতেছে। উহা এই পোস্টে পুনস্থাপন করার আবেদন জানাইতেছি।

১৫ ই নভেম্বর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:২৮

টারজান০০০০৭ বলেছেন: কৌতুক পুনঃস্থাপন চাহিলে মূর্তি পুনঃস্থাপন করিতে পাঁঠারা যেই পরিমান চেঁচামেচি করিয়াছিল তাহার চাইতে বেশি করিতে হইবে !!!!!!!!!!!!!

ভাইডি, কৌতুকখানা প্রাসঙ্গিক হইলেও চরম অশ্লীল ছিল ! আমি বনের রাজা টারজান হইলেও আমাকে কেহ গুপ্তমহাশয়ের অনুসারী বলুক ইহা চাহিনা !

৬| ১৫ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ বিকাল ৪:৪৩

এ্যান্টনি ফিরিঙ্গী বলেছেন: লেখাটা সেই লেভেলের,,, ভেরি গুড

১৬ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ সকাল ১১:৫১

টারজান০০০০৭ বলেছেন: ধইন্যবাদ !

৭| ১১ ই জুন, ২০১৮ রাত ৩:৫৩

প্রজ্জলিত মেশকাত বলেছেন: নারীর নিরাপত্তা সূচকে ইউরোপ সবচেয়ে এগিয়ে কেন? সেখানে কি সকল ইসলামি কালচার চালু আছে!! সৌদিরাতো দাসি নিয়ে যৌন নির্যাতন করে যেটা সূরা নিসায় বৈধতা দেওয়া আছে।

১১ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৮:০৩

টারজান০০০০৭ বলেছেন: নারীর নিরাপত্তা সূচকে ইউরোপ সবচেয়ে এগিয়ে কেন? সেখানে কি সকল ইসলামি কালচার চালু আছে!!

নারীর নিরাপত্তা সূচকে ইউরোপ যদি এগিয়েই থাকিত তাহা হইলে ধর্ষণের সূচকে তাহারাই নেতৃত্বে কেন ? ইউরোপের সমাজের দিকে একটিবার তাকাইয়া দেখুন নারীর কি অবস্থা ! উহারা তো পণ্য ছাড়া আর কিছু রহে নাই ! একটু নিজেদের মা, দাদি ,নানীদের দেখুন ! অবারিত স্বাধীনতা ছাড়া তাহাদের সম্মান, সম্ভ্রম ,মর্যাদার সাথে ইউরোপের নারীদের তুলনা করিয়া দেখুন !

সৌদিরাতো দাসি নিয়ে যৌন নির্যাতন করে যেটা সূরা নিসায় বৈধতা দেওয়া আছে।

ধর্মীয় বিষয়ে যদি নিজের প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা না থাকে তাহা হইলে বিজ্ঞ ওলামায়ে কেরামের কাছে জানিয়া লওয়া উচিত ! ধর্মীয় বিষয়ে অপপ্রচারে কান দেওয়া উচিত নহে।

যৌন সঙ্গম ও যৌন নির্যাতন কি এক ? কোরান কখনোই জুলুম কে বৈধতা দেয়নি ! বৈধ দাসীদের সাথে সঙ্গম করার অনেক টার্মস এন্ড কন্ডিশন আছে ! চাহিলাম আর ঝাপাইয়া পড়িলাম এমন নহে ! আর এই আইনগুলো কার্যকর যখন দাসপ্রথা থাকে ! বর্তমানে দাসপ্রথা আমার জানামতে স্বীকৃতভাবে কোথাও নেই , আইনের ফাঁকে পশ্চিমা বিশ্বেও আছে ! মাফিয়াগুলো নারী কেনাবেচা আজও করে। জানার ইচ্ছা হইলে মিরপুরের মার্কজুদদাওয়াহতে গিয়া মাওলানা আব্দুল মালেক দা. বা. এর কাছে জানিয়া আসুন , অথবা তাহার পত্রিকা আল কাউসারে প্রশ্ন করুন !

৮| ১১ ই জুন, ২০১৮ রাত ৩:৫৪

প্রজ্জলিত মেশকাত বলেছেন: ভাই কুপায়েননা প্লিজ। আপনার লেখার যে স্টাইল তাতে আমি বিশ্বাস করতে পারছিনা আপনি কুপিয়ে মানুষ খুন করেননা। মাইরি বলছি।

১১ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৮:০৯

টারজান০০০০৭ বলেছেন: জীনা ! আমি নিতান্তই গোবেচারা একজন কামলা ! পাঁঠা, ছাগু , হনুমান বা আবাল কোন সম্প্রদায়ভুক্ত নই।অবশ্য কিবোর্ডের মাধ্যমে পাঁঠাদের বিচি অপসারণ করিয়া থাকি ! পাঁঠা সম্প্রদায়ভুক্ত না হইলে ভয় নাই ! হইলে অবশ্য বিচির গ্যারান্টি নাই ! ;)

মাফও চাই ,দোয়াও চাই !

৯| ১২ ই জুন, ২০১৮ রাত ১:৩৮

প্রজ্জলিত মেশকাত বলেছেন: কিবোর্ড বাদ দিয়া যে কবে খুর ধরবেন তার বিশ্বাস নেই।

১২ ই জুন, ২০১৮ বিকাল ৪:৪৬

টারজান০০০০৭ বলেছেন: বিশ্বাস না করিতে পারিলে তো মুশকিল !! তা আপনার বিশ্বাস অর্জনের জন্য কি নজরুলের কবিতার সাপের মতন হইতে হইবে ? ফুসফাস , ঢুসঢাস করা যাইবে না ?

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.