নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

মনটা যদি তুষারের মতো...

আখেনাটেন

আমি আমাকে চিনব বলে বিনিদ্র রজনী কাটিয়েছি একা একা, পাই নি একটুও কূল-কিনারা কিংবা তার কেশমাত্র দেখা। এভাবেই না চিনতে চিনতেই কি মহাকালের পথে আঁচড় কাটবে শেষ রেখা?

আখেনাটেন › বিস্তারিত পোস্টঃ

স্কুল থেকে কলেজঃ কিছু অদ্ভুত কিংবা মজারু কাহানি- ‘হাতা মে ডাবু মে পুই পুই পুই’!!!! :P

০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:২৮





শরমে কান-টান লাল হয়ে গেছে। হবেই-বা-না কেন? সবেমাত্র প্রাইমারির বেড়া ডিঙ্গিয়ে হাইস্কুলে হামাগুড়ি দিয়েছি। হাফপ্যান্ট পরা ছেড়ে ফুলপ্যান্ট শুরুই করি নি। মাঝে মধ্যে তখনও বুলন্দ দরওয়াজা ভুলবশত খোলা পাই। তাতেই কিনা প্রেম পত্র। খোলা দরজার গুণ কিনা কে জানে? অথচ ক্লাসের মধ্যে ছিলাম সবচেয়ে ছোট। সেটা বয়সে ও আকারেও। সেই হাফপ্যান্ট বাবার উপরি কড়াৎ করে বসন্তের শুকনো বজ্রপাতটা পড়ল।

লজ্জায় লাল্টু আমি শরমে শাল্টু হয়ে সেই চিঠিটি সেদিন আরেক সহপাঠির কাছ থেকে নিতে পারি নি। সেই সহপাঠির বদান্যতায় চিঠিটি আমার ভাইবোন-পাড়া প্রতিবেশীদের মাঝে চালান হয়ে সে কি হাসাহাসি-কাশাকাশি-নাচানাচি মাইরি। ঐ হাফপ্যান্ট পরা বয়সেই শরম কত প্রকার ও কি কি বুঝেছিলুম? তবে আর যাই হোক, এই ঘটনার পর থেকে বুলন্দ দরওয়াজাতে খিল লাগাতে আর ভুল করি নাই।



ক্লাস ফোরে উঠলাম। রোল নাম্বার ২। রোল ১ না হওয়াতে মারাত্মক অভিমান হল। পাড়াতে কানাঘুষা। মেধাবী পোলা না কদু। এ যে ইজ্জতের ছাওয়াল। বাড়িতে গিয়ে মাকে নিরাসক্ত গলায় বললাম ‘আমি এখন থেকে বকরী (পাঁঠার প্রেমিকা) তাড়াবো। পড়াশুনা আর করব না। লেখাপড়া ভাল্লাগে না। পানসে! টেস্ট পাই না।’ হাফপ্যান্ট বাবাজির এই ধরণের স্ট্রাটেজিতে বাড়ির মধ্যে হাস্যরসাত্মক পরিবেশের উদয় হল।

ডিসিশনে অনড়। ধানের গোলার ছাদে বসে ছাগল বিষয়ক ধ্যান করি। পিচ্চির ভীষণ অভিমান! সবার উৎসুক জিজ্ঞাসা! কেন এই রেভালিউশনারি সিদ্ধান্ত? অনেক চাপাচাপির পর শানে নুযুল উন্মোচন করলুম জাতির সামনে।

স্কুলের অদূরেই আমাদের বিশাল ধানক্ষেত। সাথে মস্তবড় পুকুর ও বাগান। সেই ধানক্ষেতে প্রায়শই বে-আক্কেল, বে-ফাজিল ছাগল-বকরীরা হামলা চালাত। তো আমার দায়িত্ব ছিল এই নির্বোধ ছাগদিগকে দেখলে তাড়িয়ে দেওয়া। যেহেতু স্কুল থেকেই এদের দেখা যায়, সেহেতু আমাকে ক্লাস চলাকালীন সময়ও গিয়ে তাড়া দিয়ে আসতে হত। আর এদের তাড়াতে গিয়ে আমি নিজেও একটু আলসেমী করে হাওয়া-বাতাস গায়ে নিতাম বাগানে বসে আম-জাম ইত্যাদি খেয়ে। পরীক্ষার সময়েও একই কাহিনি। তাই আমার অভিযোগ এই বকরী তাড়ানোর দায়িত্ব আমার উপর অর্পিত না হলে আমার রোল নম্বর কিছুতেই ২ হত না!!

এখন আমি তাই পাঁঠার প্রেমিকাদের তাড়ানো বা চরানোকে পেশা হিসেবে নিতে চাই। স্বাধীন ও চাপমুক্ত পেশা। ...নো পড়াশুনা, ডু (খেদাও) বকরী!! ভদ্ররনোকের এক কথা!!!!



ছুডুকালে একটু বেশি মনে হয় লাজুক ছিলাম। দুষ্টুও কম ছিলাম না। হালিম বিড়ি খাওয়ার গল্প তো ইতোমধ্যে শুনেছেন! যদিও বাড়ি থেকে ছিল নানারকম বিধি নিষেধ। অন্যছেলেদের সাথে মারামারি করা যাবে না, না বলে কোথাও যাওয়া যাবে না, অশ্লীল কথা বলা যাবে না, অন্যের গাছের ফল-মূল চুরি-মুরি করা যাবে না ইত্যাদি নীতিকথা।

বাড়িতে তখন অনেক কাজের লোক। এরা সবাই মনে হয় স্পাই। ভুল-টুল হলে ফেলুদা সেজে সোজা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে রিপোর্ট। ফলে নানারকম চিকিৎসার এন্তেজাম হত রোগ সারানোর জন্য। তাই সবসময় পিচ্চি আমরা এই কর্তৃপক্ষের ভয়ে তটস্থ থাকতাম। কিন্তু হলেও অক্ষরে অক্ষরে কি আর পালন করা যায় নিয়ম-নীতি? কে কবে করেছিল, শুনি? ফলে মাঝে মধ্যেই শুদ্ধি অভিযানের মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছে?

আর এ কারণেই পাড়ার ছেলেদের সাথে তেমন একটা বন্ধুত্ব হয়ে উঠে নি। তারপরও মাঝে মাঝে এক সাথে খেলাধূলা করতাম। বিশেষ করে মার্বেল।

তখন লক্ষ করতাম বালকেরা প্রায় আদিবাসি ওঁরাও যুবতী মেয়েদের চিল্লায়ে চিল্লায়ে বলত, ‘হাতা মে ডাবু মে পুই পুই পুই’। এতে মেয়েরা ক্ষেপে গিয়ে দাবড়ানী দিত। আর বখাটে ছেলেদের দল বেশি করে উৎসাহ পেয়ে নব উদ্যোমে তা রিপিট করত। আমিও ছেলেদের সাথে কোরাস করেছি। প্রাইমারি স্কুলে পড়ি। প্রায় বাঁশঝাড়ে হাগু করি। এত কিছু বোঝার বয়স আছে। যা হয় হোক পাছে।
একদিন ওঁরাও বিগাল দা’র কাছে জানতে চাইলাম এর মাজেজা। সেদিন থেকেই মার্বেল খেলায় দফারফা। কারণ যে-কোনোভাবেই হোক তা কর্তৃপক্ষ জেনে গেছে যে আমি সাঁওতাল মেয়েদের (আমাদের ওখানে ওঁরাওদের সাঁওতাল হিসেবেই সবাই জানে) ‘হাতা মে ডাবু মে পুই পুই পুই’ বলেছি।

এখানে ‘হাতা’ মানে ছেলেদের... /:) ; আর ‘ডাবু’ হচ্ছে মেয়েদের... :-0 ; আর ‘পুই পুই পুই’ মানে... :`> । বুঝেছেন তো! আপনি কী বুদ্ধিমান, মাইরি?

আমি চার ফুটি হাফপ্যান্ট বাবাও অন্নেক বুদ্ধিমান ছিলাম। রামধোলাইয়ের মাধ্যমে এই বেশি বুদ্ধির কিছুটা ঐ অর্থবছরের বাজেটে কর্তন করা হয়েছিল।

কানে কানে বলিঃ হুনছি, এখনকার ছুডু ছুডু স্মাঠ ছেলেমেয়েগুলো স্মার্টফোনে হাতা-ডাবুর হাট-বাজার বসিয়েছে। আচ্ছা, এরা কি কর্তৃপক্ষের খবরদারীতে পড়ে বাজেট কর্তনের শিকার হয় না এখন? নাকি কর্তৃপক্ষও...। ;) X(

***************************************************************************************
@অাখেনাটেন/সেপ্টেম্বর-২০১৮


মন্তব্য ১১৬ টি রেটিং +২২/-০

মন্তব্য (১১৬) মন্তব্য লিখুন

১| ০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:৪৬

কাওসার চৌধুরী বলেছেন:



আপনার রম্য বলার স্টাইল তো অনন্য৷আপনার ছোট বেলার কিছু বিষয়ের সাথে আমারও মিল আছে৷পড়তে পড়তে শৈশবে ফিরে গেলাম৷ +++ কয়েকদি থেকে আপনাকে ব্লগে কম দেখছি৷আশা করি ভাল আছেন৷

০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:০৩

আখেনাটেন বলেছেন: পড়তে পড়তে শৈশবে ফিরে গেলাম৷ -- তো লিখে ফেলুন এক কিস্তি। আমরাও শুনি মজারু ঘটনা। :D

কয়েকদি থেকে আপনাকে ব্লগে কম দেখছি৷আশা করি ভাল আছেন৷ -- ভালো আছি আপনাদের দোয়ায়। ব্লগের মজাটা ক্যান জানি ইদানিং পানসে লাগছে। ক্যান ক্যান ক্যান। জানি না। :(

ব্লগার চঞ্চলা হরিণী চমৎকার একটি পোস্ট দিয়ে রেখেছে। মনে হচ্ছে গিয়ানি একটি মন্তব্য করি। কিন্তু ইচ্ছেটাকে কাজে লাগাতে পারছি না। ক্যান ক্যান ক্যান। :(

২| ০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:৪৯

নাঈম জাহাঙ্গীর নয়ন বলেছেন: হা হা হা দারুণ রম্য পোস্ট, ভালো লাগলো ভাই

০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:০৮

আখেনাটেন বলেছেন: তা নয়ন ভাই কি কর্তৃপক্ষের আওতার বাইরে ছিলেন নাকি দুষ্টুমির ক্ষেত্রে। আম জনতাকে ছুডুকালের কথা কিছু জানান দিন। :D

৩| ০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৩:৫৩

রাজীব নুর বলেছেন: ছোটবেলার কথা আপনার খুব সুন্দর মনে আছে।

০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:১১

আখেনাটেন বলেছেন: রাজীব নুর বলেছেন: ছোটবেলার কথা আপনার খুব সুন্দর মনে আছে। --আপনি বুঝি ভুলে গেছেন নুর ভাই। :D

তারমানে দুষ্টুমিও করেন নি। কর্তৃপক্ষের ছ্যাঁচার মধ্যে দিয়েও যান নি কি বলেন? :P

৪| ০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:০৩

হাসান জাকির ৭১৭১ বলেছেন: বাহ!
ছুডু কালের এক্কেরে ভদ্দরনোক মানে ভদ্দর ছাওয়াল!!

০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:১৪

আখেনাটেন বলেছেন: ছুডু কালের এক্কেরে ভদ্দরনোক মানে ভদ্দর ছাওয়াল!! -- হুম; কর্তৃপক্ষের সেইরাম পিডানির ভয়ে থাকলে সক্কলেই ভদ্ররনোক হয়ে যায়। |-)

তা ভাইজানের কি ছুডুকাল পানসে ছিল নাকি? :D

শুভকামনা।

৫| ০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:০৩

বাকপ্রবাস বলেছেন: পুই পুই বুঝিনাই, চিত্র সহকারে বুঝাইয়া দেন:D

০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:১৭

আখেনাটেন বলেছেন: বাকপ্রবাস বলেছেন: পুই পুই বুঝিনাই, চিত্র সহকারে বুঝাইয়া দেন --- বাঙালীর এই এক দোষ। বসতে দিলে শুতে চায়। সেই শোওয়ার বিছানাও পেতে দিতে হবে। আর পারা গেল না মাইরি। :P :-P

৬| ০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:২৮

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: হা হা হা, দারুণ শৈশব। এমন উদ্দাম বাঁধনহীন শৈশবে ওরকম একটু হওয়াটা স্বাভাবিক। লিখেছেনও বেশ মজার করে।


শুভ কামনা,রইল।

০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৫২

আখেনাটেন বলেছেন: এমন উদ্দাম বাঁধনহীন শৈশবে ওরকম একটু হওয়াটা স্বাভাবিক। -- :D

শুভকামনা পদাতিক দা।

৭| ০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৫৮

রাকু হাসান বলেছেন: উপস্থাপনের কারণে বেশ হাস্যরস পেলাম । শৈশব নিয়ে লিখতে ইচ্ছা জাগে B-)

০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:১৯

আখেনাটেন বলেছেন: শৈশব নিয়ে লিখতে ইচ্ছা জাগে -- রাকু ভাই দিল খুলে লিখে ফেলুন। নিশ্চয় মজার কিছু একটা হবে। অামরাও জানি আপনার শিশুকালের হিসু কাহানি... :P

শুভকামনা।

৮| ০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:০৫

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: এইইই কি কচ্ছেন কি? এ্যঁ!
পুই পুই ছুঁই ছুঁই!! :P =p~ =p~

ছুডুকালে জামাই বউ খেলতো- আমারে খালি জামাই বানাইত :P
কেনু? কে জানে ;)
আহা! কই গেল সেই দিন!!!!

রম্যে +++++++++

০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:২১

আখেনাটেন বলেছেন: হা হা হা. হা হা হা...............

ছুডুকালে জামাই বউ খেলতো- আমারে খালি জামাই বানাইত -- দেখতে নিশ্চয় নাদুস নুদুস ছ্যাবলাকান্ত ছিলেন। দুষ্টু মেয়েগুলো এদেরকেই প্রত্থম টার্গেট করে কিনা তাই বল্লুম আর কি। ;)



৯| ০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:০২

সৈয়দ ইসলাম বলেছেন: আমি কি আপনাকে পীসসাব মানতে পারি মাইরি?

আপনার লালসুতায় ধরলোম, কী বলতে হবে বলেন। এমন খানদানি পীরের তরবিয়ত না নিলে ইহকাল ও পরকাল আলোকিত হয়ে যাবে! থুক্কু অন্ধকার হয়ে যাবে। :#)

০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:২৬

আখেনাটেন বলেছেন: সৈয়দ ইসলাম বলেছেন: আমি কি আপনাকে পীসসাব মানতে পারি মাইরি? -- মুই নিজেও খুঁজতাছি কাতল জাতীয় পীর একখান। কিন্তু আশায় গুড়ে বালি। মুরিদ হওয়ার আগেই দেখি পীর বাবা পটল তোলে। :(

তবে পীরে হাফপ্যান্ট বাবার শিষ্যত্ব নিতে চাইলে নিতে পারেন। ভালো ব্যবসা ফাঁদা যেতে পারে সব সম্ভবের দেশে। :P

১০| ০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:১৫

পুলক ঢালী বলেছেন: হা হা হা দারুন লিখেছেন পড়ে হাসতে হাসতে শেষ হয়ে গেলাম। ছুডো বেলার বান্দ্রামীর কথা মনে করিয়ে দিলেন। :D =p~ =p~

০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:২৯

আখেনাটেন বলেছেন: ছুডো বেলার বান্দ্রামীর কথা মনে করিয়ে দিলেন। -- এইরে সারছে!!!!! এইবার তো ভাইজান বমি করতে হয়। মানে বান্দ্রামীর কথা দরবারে পেশ করতে হয়। হুজুরানে মুজলিশে বহু সমাগম। এবার এন্তেজাম নিয়ে তাড়াতাড়ি আসুন। আমরাও শুনি হুজুরে আলার বাণী....। :P

১১| ০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৩৫

মনিরা সুলতানা বলেছেন:
হাহাহাহাহা
হাফপ্যান্ট বাবা 'র জন্য পারফেক্ট জব ছিল কিন্তু :P
চিঠিতে কি কি লেখা ছিলো জানতে খুব ইচ্ছা করছে ;)

আর আপনার সব শেষের কানে কানে বলা কথার উত্তরে একটা ফেসবুকে ভেসে বেড়ানো একটা ছবি দিলাম।

০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৩৫

আখেনাটেন বলেছেন: হাফপ্যান্ট বাবা 'র জন্য পারফেক্ট জব ছিল কিন্তু -- বাবা কিন্তু দায়িত্বে অবহেলা করে নি। খালি আলসেমী করে একটু গা জিরিয়ে নিত। =p~

চিঠিতে কি কি লেখা ছিলো জানতে খুব ইচ্ছা করছে ---- কি আর থাকবে। হয়ত লেখা ছিল 'ঐ ছোঁড়া, সামনের দরজা খুলে স্কুলে আসিস ক্যান'। =p~

আর আপনার সব শেষের কানে কানে বলা কথার উত্তরে একটা ফেসবুকে ভেসে বেড়ানো একটা ছবি দিলাম। -- হা হা হা হ......কলিকালরে পাগলা কলিকাল। আরো কত কি যে দেখতে হবেক!

১২| ০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ৮:১২

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: বেশ মজা করে লিখেছেন।
আমি আবার ছুডু বেলায় ভালা পুলা আছিলাম

০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৩৯

আখেনাটেন বলেছেন: আমি আবার ছুডু বেলায় ভালা পুলা আছিলাম -- হা হা হা। ২০১৮ সালে লিটন দা'র পক্ষ থেকে সেরা জোঁক। বাচ্চারা তালিয়া বাজাও। =p~

১৩| ০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৩৯

মিথী_মারজান বলেছেন: হাহাহা..।
অনেকদিনপর এমন প্রাণখুলে হাসলাম।

ছুডু কালে তো তাহলে স্মাঠের বাপ ছিলেন আপনি।
হাইস্কুলে ঢুকতে না ঢুকতেই চিঠি!!! বাপরে বাপ!
জানতে পাারলে এখনকার ছুডু ছুডু ছেলেমেয়েরা এসে তো আপনাকে লাভগুরু মানবে।
এবার সেই হাফপ্যান্ট কালের চিঠির কথাগুলোও এমন মজার পুই পুই করে থুক্কু পই পই করে লিখে ফেলুন আমাদের জন্য।
মনিরা আপুর মত আমরাও সেটা জানতে চাই।:)

০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৪৪

আখেনাটেন বলেছেন: হাইস্কুলে ঢুকতে না ঢুকতেই চিঠি!!! বাপরে বাপ! -- হুম; পারেন তো মানুষের সুখ (চিঠি) দ্যাখে হিংসা করতে। এখন যে ডায়াপার পরাকালীনও টেক্সট আদান-প্রদান শুরু হয়েছে সেটা দ্যাখেন না। মনিরা'পার দেওয়া ফটো দ্যাখেন না। =p~ :-P

হাফপ্যান্ট বাবার আরো কাহিনি আসিতেছে সাড়ম্বরে। বাবা এবার বড় একটা মুরিদ বাহিনী বানানোর ষড়যন্ত্র করছে। :P

১৪| ০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৩০

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: হাহাহাহাহাহাহাহাহাহাহাহাহাহাহাহাহাহা

আমার এক পড়শি চাচির একটা বুলি ছিল- তুই এমন কতা কছ যে মরা মানুষও কবরে গনে হাইস্যা ওডে :)

আপনার লেখা পড়ে আমার অমন গলাফাডা হাসি আইল

আপনি যে কী পরিমাণ ইঁচড়ে পাহা আছিলেন অক্ষরে অক্ষরে টের পাইলাম। আমার অভিজ্ঞতা হইছিল এইরকম বেশকিছু সেয়ানা পুলাপানের সাথে সময় কাটানোর। ওরা এত সেয়ানা ছিল যে, ওদের কথাবার্তা আর কাণ্ডখারখানা না বুঝতে পাইরা বেশিরভাগ সময়ই মিষ্টার বুল হইয়া যাইতাম :)

হাতা মে ডাবু মে পুই পুই পুই -
האטה מאי דאבו במאי פואי פו פואי

০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৫১

আখেনাটেন বলেছেন: আমার এক পড়শি চাচির একটা বুলি ছিল- তুই এমন কতা কছ যে মরা মানুষও কবরে গনে হাইস্যা ওডে -- আপনের চাচীরে লাল সালাম। রস ছিল বোঝা যাচ্চে। :D

আপনি যে কী পরিমাণ ইঁচড়ে পাহা আছিলেন অক্ষরে অক্ষরে টের পাইলাম। -- হা হা হা। নারে ভাই, হাফপ্যান্ট বাবা সাধু বাবা শ্রেণির লোক। তবে উন্মাদ গোষ্ঠীর সদস্য হওয়াতে কিছু উন্মাদীয় কাণ্ডকারখানা না করলে জীবনটা পানসে লাগে যে। কাঠ হয়ে বেঁচে থাকাতে কার ভাল্লাগে বলুন। :P

হাতা মে ডাবু মে পুই পুই পুই - -- সাবধান, আদিবাসী বোনেরা যেন আশপাশ না থাকে। বুড়ো বয়সে এই রিস্ক নিয়ে
দাবড়ানীর ধকল সামলাতে পারবেন না মনে কয়। =p~ =p~

১৫| ০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৫১

আহমেদ জী এস বলেছেন: আখেনাটেন ,




এখন স্কুল-কলেজ হেফজো করে নলেজের শেষ মাথায় এসে মনে হয় আপনার বুলন্দ দরওয়াজা এমনিতেই খোলা থাকে , বাতাস চলাচলের জন্যে । দরজার আড়ালের অন্তরীনবাসীর তো এখন কোনও কাজ নাই ! :) তাই হাওয়া খায় । :-P অভ্যেস যায় না মলে ......... =p~
মনে হয় 'হাতা মে ডাবু মে পুই পুই পুই’ করার ইচ্ছে থাকলেও সুযোগ-সুবিধা এখন নেই বলে হালের ছুডু ছুডু পোলাপানে তা করায় ঈর্ষার চোটে ওদের উপর ঝাল ঝাড়লেন ? :( :||

আসলেই একটা পোংটা আপনি ! =p~ =p~ =p~

০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১২:০২

আখেনাটেন বলেছেন: আপনার মন্তব্য পড়ে হাসতে হাসতে একশ্যাষ। =p~ :-P :P


হালের পোলাপানদের কে-না ঈর্ষা করে? X( X((
কত ছুডুকাল থেকেই তারা হাতা-ডাবু চালনা করা শিখে যাচ্ছে। কর্তৃপক্ষও কত উদার!! দেখেও দেখে না।
আপনেরা-আমরা কি সে সুযোগ পাই ছি? :P কিছু করতে গেলেই কর্তৃপক্ষের চোখ রাঙানি। অাহা, কি কষ্ট? |-)

১৬| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১২:৩৯

প্রামানিক বলেছেন: হালিম বিড়িওয়ালার বাড়ি তো গাইবান্ধায়, আপনার বাড়ি কই?

০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ১০:৪২

আখেনাটেন বলেছেন: বিড়ির গল্পে ডিটেইলসে আছে। বাহে মনে হচ্ছে হালিম বিড়ির বিরাট ভক্ত অাছিল। :D

১৭| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১:১৫

ওমেরা বলেছেন: ছোটবেলার নানা রংগের দিনগুলো পড়ে মজাই লাগল ।

০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ১০:৪৪

আখেনাটেন বলেছেন: হুম; শৈশবের এই স্মৃতিগুলো সোনায় মোড়ানো। বারবার ফিরে ফিরে এসে অানন্দে ভাসিয়ে দিয়ে যায়।

আপনার নিজেরও নিশ্চয় ঐ বয়সের সুন্দর সুন্দর স্মৃতি রয়েছে। :D


১৮| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১:৫৮

ইব্‌রাহীম আই কে বলেছেন: সম্পুর্ণ লেখাটা পড়েছি আর হেসেছি। তবে শেষের লাইনটা পড়ে একটু ভাবতে বসেছি :|

০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ১০:৪৯

আখেনাটেন বলেছেন: তবে শেষের লাইনটা পড়ে একটু ভাবতে বসেছি -- এটা ভাবনার বিষয়ই। কর্তৃপক্ষের অবহেলা ও উদাসীনতা কিংবা কর্তৃপক্ষের নিজেরও লাইনচ্যূত জীবনের সঙ্গী হচ্ছে পরের প্রজন্মেরা। এটা সুস্থ বিকাশমান সমাজের জন্য খুব একটা সুখকর বিষয় নয়।

১৯| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ৭:২১

চাঁদগাজী বলেছেন:



আমি তো ভেবেছিলাম হিন্দিতে কিছু একটা

০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ১০:৫৬

আখেনাটেন বলেছেন: আমি তো ভেবেছিলাম হিন্দিতে কিছু একটা --- হা হা হা; আপনার ভাবনাগুলো সত্যিই ইউনিক। :P

২০| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ৯:২৪

নতুন নকিব বলেছেন:



দারুন রম্য! আপনার রম্য লেখার হাত সত্যি অসাধারন!

০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ১০:৫৮

আখেনাটেন বলেছেন: কৃতজ্ঞতা নকিব ভাই।

আপনার ভালো লেগেছে জেনে খুশি হলুম।

২১| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ১০:১০

মোস্তফা সোহেল বলেছেন: আপনার ছুডু বেলার কাহিনি ভাল লাগল।

০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ১১:০২

আখেনাটেন বলেছেন: ছুডুকালের কত শত স্মৃতি! কত শত ঘটনা!

প্রতিটা মানুষের জীবনই তো তাই হওয়ার কথা।

আপনার কিছু স্মৃতিও জাতির সামনে তুলে ধরুন। আমরাও জানি। :D

২২| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১২:৫৮

সুমন কর বলেছেন: অন্য রকম উপস্থাপন। কিছুটা দাদা'দের ধরনের। তবে বেশ মজা পেলুম.......হাহাহাহাহা
আপনার রম্যগুলো দারুণ হচ্ছে। সাথে আছি.......
+।

০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:৪০

আখেনাটেন বলেছেন: কিছুটা দাদা'দের ধরনের। -- হা হা হা; আমার বাস কিন্তু দাদাদের বাড়ির পাশেই। কাজেই দাদাদের রেশ তো থাকবেই সুমন দা।

আপনারা সাথে আছেন বলেই লিখে মজা পাই। না পড়লে এই মজারু গল্প না লিখে কবেই সজারুর মতো কাঁটা গুটিয়ে গর্তবাসী হতুম!!!! :P

২৩| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:৩১

এ.এস বাশার বলেছেন: লেখকের ছোট বেলার রম্য মজারু কাহিনী খুব খুব ভালো লেগেছে।
আমার লিখতে ইচ্ছা করছে ছুডু বেলার মজারু রম্য।
শুভকামনা জানবেন.......

০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ দুপুর ১:৪৩

আখেনাটেন বলেছেন: আমার লিখতে ইচ্ছা করছে ছুডু বেলার মজারু রম্য। -- বাশার সাহেব কোনো কথা না বাড়িয়ে ধীরে ধীরে কিবোর্ড চাড়িয়ে(চাপিয়ে) লিখে ফেলুন দেহি একখান মজারু। না হলে আমরা কিন্তু বেজারু হমু কয়ে দিলুম। :)

শুভকামনা।

২৪| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৪৩

সামিয়া বলেছেন: ছেলেবেলার স্মৃতি আপনাকে খুব টানে বুঝি? ভালো লিখেছেন।।

০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:১৭

আখেনাটেন বলেছেন: অাসলে গ্রাম থেকে এখন বিচ্যুত হয়ে গেছি। কালেভদ্রে গ্রামে যাওয়া হয়। ফলে গ্রামের সেই স্মৃতিগুলো বারবার ফিরে আসে যান্ত্রিক এই নগরে...।

২৫| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৪৫

সৈয়দ ইসলাম বলেছেন: নাহ, হাফপেন্ট পড়ুক আর নাই পড়ুক পীর আমার চাই!
তাহলে এখন আমি খুবই প্রাউড ফিল করতে হারি। মাননীয় জঘন্য কাতল পীরের মনে হয় কোন নির্দিষ্ট সীমারেখা নেই!

০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:২৩

আখেনাটেন বলেছেন: =p~ =p~

খাজাবাবা মারহাবা।

২৬| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৩৬

নীলপরি বলেছেন: ব্যপক পোষ্ট । :)

০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৩০

আখেনাটেন বলেছেন: খুশি হলুম :D

২৭| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:২৭

জাহিদ অনিক বলেছেন:
হুম্মম্মম্মম্মম্মম !!
‘হাতা মে ডাবু মে পুই পুই পুই’

আপনি এত বিটলা !!!!!!!!!!! =p~ =p~

০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৪২

আখেনাটেন বলেছেন: হা হা হা। :-P

তা কবি সাহেবের ছুডুকালটা কি পানসে আছিল নাকি! :D

২৮| ০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৪৫

জাহিদ অনিক বলেছেন:

আমি এহনো ছুডই--------------

বন্ধুরা সব বিত্তে বাড়ে
চিত্তে বাড়ে
বাড়ে শনৈ গৃহস্থলি--
হায়'রে আমার বয়স বাড়ে না।


------ রুদ্র

০৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:৫২

আখেনাটেন বলেছেন: আমি এহনো ছুডই----- -- হুম; বুঝলুম। তাইলে তো বুলন্দ দরওয়াজা এখনও মাঝে মাঝে খোলা থাকারই কথা। তয় যুগ পাল্টেছে। খোলা দরজা নিয়ে সাবধানে থাকবেন ছুডু কবি। কেউ চুরি করে নিয়ে গেলে...। =p~ :P

২৯| ০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ভোর ৬:৩৩

চঞ্চল হরিণী বলেছেন: হাহাহা হেহেহে =p~ । আমিও শিরোনাম দেখে হিন্দি ভাবছিলাম :P

গ্রামের দৃশ্য, প্রাইমারী স্কুলগুলো যেমন ছিল চতুর্দিকে খোলা, ক্লাস চলতে চলতে বাইরে দূরে যাওয়া যেত সব দেখতে পেলাম :#) । আপনার বাঁশঝাড়ে হাগু করা আর বুলন্দ দরওয়াজা খোলাও দেখলাম B-)) । দারুণ রম্য বর্ণনা =p~

তবে কিছুতেই আহমেদ জী এস ভাইয়ের মন্তব্য মানতে পারতেছিনা না না না :| । আমি মনে করি আপনি সব পারেন ;)

০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ১১:৫৯

আখেনাটেন বলেছেন: =p~ :-P :P

গ্রামের দৃশ্য, প্রাইমারী স্কুলগুলো যেমন ছিল চতুর্দিকে খোলা, ক্লাস চলতে চলতে বাইরে দূরে যাওয়া যেত সব দেখতে পেলাম -- ঠিক ধরেছেন। যদিও এখন আর সেই অবস্থা নেই।

তবে কিছুতেই আহমেদ জী এস ভাইয়ের মন্তব্য মানতে পারতেছিনা না না না --- জী এস ভাইয়ের খাল-বিল-দিল রসে টইটুম্বুর আছে মাইরি। =p~ =p~

আপনার 'ভাবনার ম্যানুপুলেশন' পোস্টটা পড়েছি। যেটা 'অার্টিফিশিয়াল নিউরাল নেটওয়ার্ক' বা ডিপ লার্নিং নিয়ে যে বর্তমানে হৈচৈ চলছে বিশেষ করে সেটাকেই মিন করছে। আমি নিজেও বায়োইনফরমেটিক্স, বায়োলজিক্যাল নিউরাল নেটওয়ার্ক নিয়ে কাজ করেছি, করছি। অদূর ভবিষ্যতে ডিপ লার্নিং নিয়েও কাজ করার ইচ্ছে আছে। তাই আলোচনার জন্য আপনার ওখানে লিখতে গিয়েও ছাগলিয় গিয়ানি মন্তব্য করতে মন থেকে জোর পাচ্ছি না। আজ থেকে ছয়মাস আগে হলে কোনো কথায় ছিল না। এখন কেন যেন ব্লগে ছ্যাবলামি মন্তব্য ছাড়া আর সেই জোস আসছে না। আপসোস। :|

৩০| ০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ৭:০৪

চাঙ্কু বলেছেন: ওরে জেডা, তুমি দেখি ছুডবেলা থেকেই নাডা ;)

০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সকাল ১১:৩৩

আখেনাটেন বলেছেন: চাঙ্কু বলেছেন: ওরে জেডা, তুমি দেখি ছুডবেলা থেকেই নাডা -- :-P :-P যা করতে চাইতাম তার দশভাগও যে করতে পারতাম না জেডা কর্তৃপক্ষের ভয়ে। :(

আর যে ভয় ছুডুকালে ঢুকে গেছে মাথাডায়, সেডা এখন সেখানে বসতবাড়ি করে বসেছে...। |-)

৩১| ০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৪০

শায়মা বলেছেন: ভাইয়া ভেবেছিলাম চুপচাপ পড়ে কেটে পড়বো


কিন্তু মন্তব্যে এসে ভৃগুভাইয়ার মন্তব্যের উত্তর দেখে ----


৮. ০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:০৫ ১

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: এইইই কি কচ্ছেন কি? এ্যঁ!
পুই পুই ছুঁই ছুঁই!! :P =p~ =p~

ছুডুকালে জামাই বউ খেলতো- আমারে খালি জামাই বানাইত :P
কেনু? কে জানে ;)
আহা! কই গেল সেই দিন!!!!

রম্যে +++++++++
০৫ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:২১ ১

লেখক বলেছেন: হা হা হা. হা হা হা...............

ছুডুকালে জামাই বউ খেলতো- আমারে খালি জামাই বানাইত -- দেখতে নিশ্চয় নাদুস নুদুস ছ্যাবলাকান্ত ছিলেন। দুষ্টু মেয়েগুলো এদেরকেই প্রত্থম টার্গেট করে কিনা তাই বল্লুম আর কি। ;)



হা হা হা হা হা হা হা হা হা হা হা হা হা হা হা হা হাহা

আমি ইন্নিনিল্লাহ হয়ে গেছি !

০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৪৬

আখেনাটেন বলেছেন: আমি ইন্নিনিল্লাহ হয়ে গেছি ! -- ক্যানে ক্যানে! মরার মড়কের দিকে যাত্রা ক্যানে। ভৃগুদা কি সত্যি সত্যি... ইন্নাল্লিল্লা.... |-) :P B-))

৩২| ০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৫৩

শায়মা বলেছেন: হা হা ভৃগুদা আগে এসে বলুক সে সত্যিই ছ্যাবলাকান্ত ছিলো কিনা !!!!!!! হা হা হা হা

ভাইয়া শিবরাম চক্রবর্তী কি তোমার পূর্বপুরুষের কোনো আত্মীয় ছিলো!!!!!!! B-)

০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:১২

আখেনাটেন বলেছেন: শায়মা বলেছেন: হা হা ভৃগুদা আগে এসে বলুক সে সত্যিই ছ্যাবলাকান্ত ছিলো কিনা !!!!! --- ভৃগুদা আপনি শুনতে কি পান? নিজের হাফপ্যান্ট কালের ইতিহাস ঝাতির সামনে উন্মোচন করুন। :P

ভাইয়া শিবরাম চক্রবর্তী কি তোমার পূর্বপুরুষের কোনো আত্মীয় ছিলো!!! -- শিব বাবু কিন্তু মালদহের রাজপরিবারের সন্তান। আমিও উনার বাড়ির পাশে না হলেও আশেপাশেই জন্মেছি। কিছু জিনের ছিঁটে ফোঁটা গঙ্গার জলের বানে ভেসে গড়িয়ে শরীরে ঢুকে থাকতেও পারে। হা হা হা।

৩৩| ০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:২২

শামচুল হক বলেছেন: ছোটকালের কাহিনী খুবই ভালো লাগল। ধন্যবাদ

০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:২৪

আখেনাটেন বলেছেন: ধন্যবাদ শামচুল হক ভাই।

শুভকামনা।

৩৪| ০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:২২

শায়মা বলেছেন: ওহ তারা মালদহের রাজপরিবার আর তোমরা বুঝি চাঁপাই নবাবগঞ্জের নবাব পরিবার! :)

যাক দুদেশেরই আম্র বিখ্যাত....

০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:২৯

আখেনাটেন বলেছেন: শায়মা বলেছেন: ওহ তারা মালদহের রাজপরিবার আর তোমরা বুঝি চাঁপাই নবাবগঞ্জের নবাব পরিবার! -- ওহো ভুলে গেলে ক্যামনে হবে! আর একটু উপরের দিকে নওগাঁর ভূমিদার পরিবার। :P :P

আমরার নওগাঁও কিন্তু এখন আমে ঊর্ধ্বামুখে ছুটছে সকলকে পেছনে ফেলে....... :D

৩৫| ০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৫:৩৬

শায়মা বলেছেন: ওহ একটু দূরে, বেশি দূরে নহে। :)

০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৩৩

আখেনাটেন বলেছেন: মালদহের ট্রেন ধরে দক্ষিণ দিনাজপুর আসলেই হবে। ওয়াকিং ডিসট্যান্স। :D

৩৬| ০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৫১

ভুয়া মফিজ বলেছেন: মজাদার রম্য, রেসিপিও ভালো। =p~
চমৎকার লাগলো।

০৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৫০

আখেনাটেন বলেছেন: খুবি খুশি হলুম জেনে।

অহেতুক কৌতুক শুনুন:

-ডাক্তার সাহেব বিরাট সমস্যায় আছি।

=কী সমস্যা?

-নিজেকে সব সময় দুজন মনে হয়।

=বাইরে থেকে আরেকটা চেয়ার নিয়ে এসে দুজনই বসুন।

৩৭| ০৯ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৫৬

বলেছেন: আপনি আসলেই অনেক ভাল লেখিকা।দারুণ রম্য পোস্ট,

০৯ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১১:১৩

আখেনাটেন বলেছেন: "ল বলেছেন: আপনি আসলেই অনেক ভাল লেখিকা" --ইহা ল ভাই কী বলিলেন? জেন্ডারের অান্ডার ধরে টান মারলেন ক্যান। :P

পড়ে মজা পেয়েছেন ল ভাই। সেজন্য শুকরিয়া।

শুভকামনা। ভালো থাকুন।

৩৮| ১০ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:১৮

সোহানী বলেছেন: হাহাহাহাহাহাহা........ আমিতো হাসতে হাসতে ফিট। তুমিতো ছোডকালে এক্কেরে বোকা ছিলা দেখি!!!!!!!!!! আহারে...............

রম্য অসাধারন হয়েছে ব্রো...........

১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৩১

আখেনাটেন বলেছেন: :D :D :D

ছুডুকাল আসলেই অনেক মজার ছিল। কত কাহিনি। কত শত টুকরো টুকরো সোনায় মোড়ানো ঘটনা। :D

সোহানী'পাকে অশেষ ধন্যবাদ লেখা ভালো লাগার জন্য। শুভকামনা।

৩৯| ১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ৯:৫৬

শায়মা বলেছেন: ৩৭. ০৯ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৫৬ ১

ল বলেছেন: আপনি আসলেই অনেক ভাল লেখিকা।দারুণ রম্য পোস্ট,



হা হা হা আখেনাটেন আপুনি!!!!!!! :P

১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:০৮

আখেনাটেন বলেছেন: হা হা হা। =p~

লতিফ ভাইয়ের ঐ মন্তব্য পড়ে আমিও কেঁদে দিয়েছি অাবেগে। :P

ক্যামনে কী? আচ্ছা, ভাইজান কী বুলন্দ দরজার ব্যাপারটাও.... ;) ওরে সর্বনাশ রে...

৪০| ১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:১৩

অচেনা হৃদি বলেছেন: চিঠিপত্রের যুগ শেষ, নয়তো জনাব আখেনাতেন ভাইয়া আরও অনেক চিঠি পেতেন। অন্তত একটা হলেও পেতেন! ;)

১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:২৮

আখেনাটেন বলেছেন: অচেনা হৃদি বলেছেন: চিঠিপত্রের যুগ শেষ, নয়তো জনাব আখেনাতেন ভাইয়া আরও অনেক চিঠি পেতেন। -- কোহেকাফের শাহজাদী তোমারে কে কহিল উহাই প্রথম ও শেষ এই লেখাটা পড়। কিছু গেস করতে পার কিনা। ;)

৪১| ২১ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:০৮

আরোগ্য বলেছেন: নতুন পোস্ট দেন টাটকা কমেন্ট করি।

২১ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ রাত ১০:৪০

আখেনাটেন বলেছেন: আরোগ্য বলেছেন: নতুন পোস্ট দেন টাটকা কমেন্ট করি। -- হা হা । টাটকা কমেন্টো। বেশ মজা পেলুম।

কিছু লেখা সলিড স্টেইট ডিস্কের ম্যালফাংশনের কারণে খুইয়েছি কয়দিন আগে। মন খারাপ সেজন্য। শীঘ্রই পোস্ট করতে পারব না মনে কয়।

আপনি ততদিনে অারোগ্য লাভ করুন। শুভকামনা। :D

৪২| ০১ লা অক্টোবর, ২০১৮ দুপুর ১:৪৪

অন্তরন্তর বলেছেন: বরাবরের মতই লেইট লতিফ। অসম্ভব সুন্দর একটা রম্য পড়লাম। অনেক দিন পর এমন হাসলাম যে আয়ু না বেড়ে উপায় নেই। প্রত্যেকটাই সুন্দর হয়েছে। শুভ কামনা।

০১ লা অক্টোবর, ২০১৮ দুপুর ২:৩৬

আখেনাটেন বলেছেন: লেইট লতিফ হলেও রসালো মন্তব্যটি আমাকে বেশ অাপ্লুত করল ব্লগার অন্তরন্তর। :D

অনেক দিন পর এমন হাসলাম যে আয়ু না বেড়ে উপায় নেই। -- হা হা হা। অাসলে চারপাশে এত এত গোমড়ামুখো কাজ কারবারের মাঝে একটু অাধটু বিনুদিত হতে পারলে ভালোই লাগে। অন্যের ক্যামন লাগে জানি না, তবে আমি ভালো পাই রম্য। :P

ভালো থাকুন নিরন্তর।

৪৩| ০১ লা অক্টোবর, ২০১৮ রাত ৯:৪৮

জুন বলেছেন: আপনার লেখা সাথে ছাই ভাই, ভৃগু আর আহমেদ জী এসের মন্তব্য পড়ে হাসি সামলানো দায় আখেনাটেন =p~
আপনি শুধু বুদ্ধিমানই নন রসিকও বটে :``>>
মজার একটি লেখায় অনেক ভালোলাগা ।
+

০২ রা অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৫:৪৯

আখেনাটেন বলেছেন: =p~ =p~ =p~


অনেকদিন পরে এসে লেখাটি আপনি পড়েছেন জেনে আপ্লুত হলুম জুনাপা। বেশ কিছুদিন আপনাকে ব্লগে না দেখে মনে করেছিলুম জুনাপা থাইল্যান্ডের বনে-টনে হারিয়ে গেল নাকি আবার। :D

শুভকামনা নিরন্তর আপার জন্য।

৪৪| ০৩ রা অক্টোবর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:০৬

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: পোষ্টি ভালো লেগেছে। তবে হাতা মে ডাবু মে পুই এর মানে কি?

০৪ ঠা অক্টোবর, ২০১৮ রাত ১২:৩১

আখেনাটেন বলেছেন: অনেক অনেক শুভেচ্ছা পোস্ট ভালো লাগার জন্য ব্লগার ফারিয়া হোসেন প্রভা।

তবে যে প্রশ্নটি রেখেছেন ঝাতির সামনে মানে 'হাতা মে ডাবু মে পুই পুই'র অর্থ কী? এটার উত্তর কেবলমাত্র দিতে পারে প্রেমের কবি জাহিদ অনিক, ব্লগ সম্রাজ্ঞী শায়মা বা অপ্সরা, গুণরাজ অাহমেদ জী এস, রম্যসম্রাট গিয়াস উদ্দিন লিটন, মহিলা ইবনে বতুতা জুন, ভালোবাসাবাসীর কবি সেলিম অানোয়ার, কাব্যপিয়াসীনী মনিরা সুলতানা, জাদুবাস্তবতার কবি বিজন রয়, পরাবাস্তবতার কবি সুমন কর, অামার জেডা চাঙ্কু, অধ্যাত্মিকতার কবি বিদ্রোহী ভৃগু, হিউমারের দাদা চাঁদগাজী, চুপিচুপি কবি কথাকথি, বিশিষ্ট গল্পাকার পদাতিক চৌধুরি।

অাশা করি উপরের কেউ এসে অাপনার এই মিলিয়ন ডলার কোশ্চেনের উত্তর দিয়ে এই ফাঁদে পড়া ফারাওকে কোহেকাফের জঙ্গল থেকে উদ্ধার করবেক। এ যে বড় বিপদে পড়লুম অাচম্বিতে!! |-) |-)

খোদা আমার জানমালের হেফাজত করুক। আমিন।

৪৫| ০৫ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ১:০৯

দি ফ্লাইং ডাচম্যান বলেছেন: হাহাপগে পুরাই! এমন রসিয়ে লিখেছেন যে :D :D :D

হাটবাজারের সুবিধা পাওয়ার আগেই বড় হয়ে যাওয়াতে বাজেট কর্তনের রোষানলে পড়তে হয়নাই। ছুডুকালে আম্রার সাথে আম্রার ফোনও আনস্মার্ট ছিলো কিনা :-B

০৫ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৪:০৩

আখেনাটেন বলেছেন: হাটবাজারের সুবিধা পাওয়ার আগেই বড় হয়ে যাওয়াতে বাজেট কর্তনের রোষানলে পড়তে হয়নাই। ছুডুকালে আম্রার সাথে আম্রার ফোনও আনস্মার্ট ছিলো কিনা -- হা হা হা। ভালা পোলা অাচিলেন তাইলে। শুকরিয়া জনাব।

এখন তো হাতা-ডাবুর হাটবাজারের কথা শুনে ভয় হয়। সাথে প্রশ্নফাঁস জেনারেশন যারা এইচটুও এর সাথে ভেসে যাওয়াতেই সুখ খুঁজে নিয়েছে। অাপসোস।

চমৎকার মন্তব্যের জন্য ফ্লাইং শুভেচ্ছা রইল। :D

৪৬| ০৫ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ১১:০২

নীল আকাশ বলেছেন: রাতের বেলা আপনার এই পুই পুই পড়তে যেয়ে হাসতে হাসতে শেষে তো দাঁত কপাটি লেগে গেল। অনেকক্ষন পর যাও একটু কমে এসেছিল, ফারাও এর কাহিনী শুনে আগের অবস্থা? এখন তো মনে হচ্ছে সারা রাত পুই পুই পুই করতে করতে যাবে! ;)

যব্বর একখান লেখা যে দিছেন বাহে। কিন্তু কই আপনার প্রেমের কবি জাহিদ অনিক, ব্লগ সম্রাজ্ঞী শায়মা বা অপ্সরা, গুণরাজ অাহমেদ জী এস, রম্যসম্রাট গিয়াস উদ্দিন লিটন, মহিলা ইবনে বতুতা জুন, ভালোবাসাবাসীর কবি সেলিম অানোয়ার, কাব্যপিয়াসীনী মনিরা সুলতানা, জাদুবাস্তবতার কবি বিজন রয়, পরাবাস্তবতার কবি সুমন কর, অামার জেডা চাঙ্কু, অধ্যাত্মিকতার কবি বিদ্রোহী ভৃগু, হিউমারের দাদা চাঁদগাজী, চুপিচুপি কবি কথাকথি, বিশিষ্ট গল্পাকার পদাতিক চৌধুরি?

কেউ তো পুই পুই পুই এর শান-এ-এহছান-ই-নযুল ব্যাখ্যা করলো না। :((

শুভ রাত্রি আজকে কইতে পারলাম না, নিজের আজকে সারা রাত পুই পুই পুই করতে করতে যাবে আর ক্যামতে আপ্নেরে কই........



০৬ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৫:০৭

আখেনাটেন বলেছেন: সারারাত যেহেতু পুই পুই করেছেন সেহেতু নিশ্চয় আজকে এখনও ঘুম ভাঙেনি। =p~ :P =p~ :-P


কেউ তো পুই পুই পুই এর শান-এ-এহছান-ই-নযুল ব্যাখ্যা করলো না। -- শরম পাইছে সবাই। :P



মজার কমেন্টো করার জন্য অনেক অনেক শুভেচ্ছা ব্লগার নীলআকাশ।

৪৭| ০৬ ই অক্টোবর, ২০১৮ দুপুর ২:৫৫

নজসু বলেছেন: ভাই, আপনার লেখায় যাদু আছে।
অথবা, আপনিই যাদুতে ভরা।
আনন্দ নিয়ে পড়া যায়।

ছোটবেলা কি সবারই প্রায় একই রকম হয়ে থাকে?

০৬ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৫:২৭

আখেনাটেন বলেছেন: ছোটকালে নানারকম মজার মজার কাহিনি সকলেরই থাকে। অাপনারও নিশ্চয় আছে। জাতির সামনে উন্মোচন করুন শীঘ্রই। :D


শুভকামন ব্লগার নজসু আপনাকে মন্তব্যের জন্য।

৪৮| ০৬ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৫:১৭

আবু হাসান লাবলু বলেছেন: হামিতো ছোটো বেলায় গেছিনু বারে।

০৬ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৫:২৮

আখেনাটেন বলেছেন: কই গেছিলুন বারে...একটু ঝেড়ে কাশুন বাহে... :D

৪৯| ০৭ ই অক্টোবর, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:৪০

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন: ইদনা রস ঢালেগি
বহুত আচ্ছা লাগতিহে..............


ইয়ে চিজ বড়্ইহে মাস্ত মাস্ত...........।

০৮ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ১১:৪৬

আখেনাটেন বলেছেন: হা হা হা।


শুভেচ্ছা রইল ব্লগার মোঃ মাইদুল সরকার মন্তব্যের জন্য।

৫০| ০৯ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ১০:১৬

উদাসী স্বপ্ন বলেছেন: কুটিকাল হায় কুটিকাল!!!

১০ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৫:২০

আখেনাটেন বলেছেন: উদাসী স্বপ্ন বলেছেন: কুটিকাল হায় কুটিকাল!!! -- কুটিকালের কূটচালে কুটুকুটুদের কাটাকাটির পিচ্চি জীবন।


ভাইজানের কি কুটিকালের কুট্টুস জাতীয় কিছু নেই। ঝেড়ে কাশলে জাতি জানতে পারত কিছু কূটুকচালী। :P

৫১| ১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৩:০৭

উদাসী স্বপ্ন বলেছেন: এসব ব্লগে লিখে ফেলেছি। কুটিকালের এসব পোস্ট লিখতে গেলে এখন মাথা কট খেয়ে যায় নস্টালজিয়ায়

১১ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৩:১৩

আখেনাটেন বলেছেন: উদাসী স্বপ্ন বলেছেন: এসব ব্লগে লিখে ফেলেছি। -- তাইলে তো আপনের পুরাতন খাতা পত্তর পাত্তা লাগাতে হয়। :D


নস্টালজিয়ায় যাওয়া ভাল। অন্য কিছুতে কোমাতে যাওয়ার চেয়ে নস্টাল...ভালা না। :P

৫২| ০৮ ই নভেম্বর, ২০১৮ সকাল ৯:৩৯

কালো_পালকের_কলম বলেছেন:

১০ ই নভেম্বর, ২০১৮ বিকাল ৪:৩১

আখেনাটেন বলেছেন: !

৫৩| ৩০ শে এপ্রিল, ২০১৯ বিকাল ৫:০৬

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: :D

০৩ রা মে, ২০১৯ দুপুর ২:৪৮

আখেনাটেন বলেছেন: খালি ইমোতেই শেষ...এটি কিমোতেই মানতে পারলুম না। |-)

৫৪| ০৩ রা মে, ২০১৯ বিকাল ৩:০৯

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: ৫২ নাম্বার কমেন্টকারী তো এককাঠি সরেস B-))
কিছুই লিখেনি :D

০৩ রা মে, ২০১৯ বিকাল ৩:২৩

আখেনাটেন বলেছেন: হা হা হা। সেজন্যই তো বিস্ময় চিহ্ন দিয়েছি। বেচারা হয়ত হাতা-ডাবু নিয়ে ভাবতে গিয়ে অনেক চেষ্টাতেও ভাষা খুঁজে পায় নাই। :P

৫৫| ০৩ রা মে, ২০১৯ বিকাল ৩:১১

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: সময় পেলে আমার ব্লগে ঘুরে আসবেন ;)

০৩ রা মে, ২০১৯ বিকাল ৩:২৪

আখেনাটেন বলেছেন: হুম; ইচ্ছে পোষন করলুম। অনেক দিন পর ব্লগে এসেছি। একটু ঘুরাঘুরি করতে হবেক মনে হচ্ছে। :D

৫৬| ০৮ ই মে, ২০১৯ রাত ১:১৮

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: রম্যাকারে ছোটকালের কথা পাঠে ভাল লাগল ।
শেষের লাইনের কথা গুলি বেশ অর্থবহ । কালে কালে কি আকার ধারন করবে ভাবতেই অবাক লাগে ।
মনিরা’পুর মন্তব্যে কিছুটা ফুটে উঠেছে ।

সাওতালী ভাষাটি আমার কাছে বেশ ভাল লাগে ।
আশির দশকে বিশ্ব ব্যাংকের অর্থায়নে একটি প্রকল্পের আওতায় রংপুর জেলার একটি সাওতাল অধ্যুাসিত গ্রামে কিছুদিন অবস্থান করে একটি ভিলেজ স্টাডি রিপোর্ট তৈরী করার কাজ করছিলাম । তখন তাদের ভাষার সাথে সম্যক পরিচিত হই , জানতে পারি এই আদিবসী সাওতাল ভাষাটা কম সমৃদ্ধশালী নয় ।
প্রসঙ্গক্রমে সাঁওতালী কবি 'সারিধরম'-এর একটি কবিতা এখানে তুলে দেয়া হল ।
উল্লেখ্য সারি হল সত্য, ধরম হল ধর্ম। সারিধরম হাঁসদা—এই ছদ্মনামের আড়ালে স্বনাম-খ্যাত সাঁওতাল কবি বাসুদেব হাঁসদা।
তাঁর লেখা মূল কবিতাঃ

ইঞাঃ আঁশ ||

ধৗরতিরে তেঁগো কাতে লল ধিপৗং বালি—
ইঞ অং আকাদৗঞ—বারয়া লুটি ফাদা কাতে,
ইঞাঃ আঁশ—ধৗরতি রেয়াড়ঃ মা!
বাঞ্চাও হচ আন ক—কাটিজ্ তালাং দাঃ রেন
চিলবিলৗও ডৗঁড়কৗ হাকো।
বাঞ্চাও হচ আন ক—ধৗরতিরেন খাটুওয়ৗ
হেঁদে লোবোঃ মুউচ্।
ফারকাও ছিৎয়ৗও হচ আন উড়মালাও দুলৗড়,
অৗনৗড়ি মৗনমি মনে জিউয়ী রেনাঃ
রিলৗ মালা উপুরুম চিপিনৗহৗপ
সৗগৗই হচ আন—মিৎ খুঁদড়ি রৗপুৎ কাঁত্ দানাং
তেরদেজ্ লেকা।
ইঞদঞ খজ্ কানা ধৗরতি রেয়াড়ঃ মা।
বোরকেতঃ মা আনমানাও দুলৗড়।

ভাবানুবাদঃ || আমার আশা ||
(ভাবানুবাদক—বিশ্বেশ্বর কুণ্ডু)

গরম বালির ঢিপির ওপর দাঁড়িয়ে
আমি দুটি ঠোঁট ফাঁক করে ফুঁ দিয়ে যাই
আহা, পৃথিবী শীতল হোক,
অল্প জলেতে কিলবিল করে দাঁড়িয়ারা বেঁচে থাকুক,
আর বেঁচে থাকুক খেটে খাওয়া কালো খুদি পিঁপড়ের দল।
আনাড়ি মানুষের মনে বেঁচে থাক
সুকোমল প্রেম, তাদের কুঁড়ে ঘরের
ভাঙা পাঁচিলের পেছনে স্নিগ্ধ চাঁদের আলো উঠুক,
অন্ধকার সরিয়ে সুবাসিত হোক অমল বাতাস।
আমি এই পৃথিবীতে খুঁজে যাচ্ছি সত্যিকারের ভালবাসা

শুভেচ্ছা রইল



০৮ ই মে, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৪৩

আখেনাটেন বলেছেন: চমৎকার একটি মন্তব্য করেছেন। অবশ্য আপনার মন্তব্য অসাধারণ হবে এটাই স্বাভাবিক। :D


আমার ছোটকালটা এই প্রান্তিক লোকেদের কোলে কোলে কেটেছে। তাই এদের প্রতি ভালোবাসা আমার অফুরন্ত।

ভালো লাগল জেনে যে আপনি উনাদের নিয়ে কাজ করেছেন। উনাদের নিয়ে আপনার অভিজ্ঞতা লিখলেও পারেন। আমরাও জানতে পারি কিছু।

অনেক অনেক শুভেচ্ছা আপনার জন্য প্রিয় আলী ভাই।

৫৭| ০৮ ই মে, ২০১৯ রাত ২:১২

রিম সাবরিনা জাহান সরকার বলেছেন: হাহাহা, বুলন্দ দরওয়াজা সেই হয়েছে। কেমুন করে এই পোস্ট এত দেরিতে পড়লাম ভাবছি। হাসালেন, ধন্যবাদ!

০৮ ই মে, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৪৫

আখেনাটেন বলেছেন: :P


ছোটকালটা আসলেই অনেক মজার ছিল। :D

ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য ব্লগার রিম।

৫৮| ০৮ ই মে, ২০১৯ রাত ১০:১২

স্বামী বিশুদ্ধানন্দ বলেছেন: হা হা হা ........আপনার "বুলন্দ দরওয়াজা " কথায় মনে পড়লো আমাদের জমানায় "পোস্ট অফিস" শব্দটি সহপাঠিদের মধ্যে প্রচলিত ছিল ! তবে আমাদের জমানার কর্তৃপক্ষরা বড়োই অগণতান্ত্রিক ও স্বৈরাচারী ছিলেন | ফলে সহপাঠিনীদের নিয়ে কল্পনাগুলোর সফল বাস্তবায়ন একপ্রকার অসম্ভবই ছিল | এই যুগের পাঠশালার রোমীয়দের দেখলে এক ধরণের হিংসারই উদ্রেক হয় !

০৯ ই মে, ২০১৯ দুপুর ১২:৪৬

আখেনাটেন বলেছেন: আমাদের জমানায় "পোস্ট অফিস" শব্দটি সহপাঠিদের মধ্যে প্রচলিত ছিল --- হা হা হা; এটিই মনে সর্বজন স্বীকৃত প্রচলন ছিল ঐ অর্থে।

তবে আমাদের জমানার কর্তৃপক্ষরা বড়োই অগণতান্ত্রিক ও স্বৈরাচারী ছিলেন -- এটা খাঁটি কথা। চুন থেকে পান খসলেই কাঁচা কঞ্চির বাড়ি। স্কুলে তো ডাস্টার দিয়েও কোপাত টিচারেরা। আবার বেয়াদবী করবে ছাওয়াল-পাওয়াল। :P

ফলে সহপাঠিনীদের নিয়ে কল্পনাগুলোর সফল বাস্তবায়ন একপ্রকার অসম্ভবই ছিল -- :D ভাবনার ডালপালা গজালেও জুলিয়েটদের কাছে আসতে চাওয়া আর নরকের দরজায় কড়া নাড়া দেওয়া এক ছিল। :((

চমৎকার মন্তব্যের জন্য অশেষ ধন্যবাদ ব্লগার বিশুদ্ধানন্দ।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.