নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

প্রিয় মানুষেরা

জীবনের এই গতিপথ...পূর্ব-পশ্চিমে যেন এক নিছক অন্বেষণ

আরাফাত৫২৯

দূর থেকে দূরে, আরো বহুদূর......... চলে যেতে হয়, কত স্মৃতির ছায়ায়, এই রোদ্দুরের নীচে, নীল সবুজের খেলাঘরে জীবন মেতে থাকে কত নিয়মের প্রতীক্ষায়...

আরাফাত৫২৯ › বিস্তারিত পোস্টঃ

মালয়শিয়ার কুয়ালালামপুরের টুইন টাওয়ার - এর একেবারে টুরিস্ট ছাড়া ভিডিও (বৃষ্টির কারণে)

১৬ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১০:০৭



টুইন টাওয়ার মালয়শিয়ার কুয়ালালামপুরের একটি অনবদ্য স্থাপনা এবং পৃথিবীর অন্যতম উচ্চতম বিল্ডিংগুলোর একটি। এই এলাকায় আরো কয়েকটি স্থাপনা রয়েছে যাদের একসাথে KLCC (কুয়ালালামপুর সিটি সেন্টার) বলে। স্বভাবতই এলাকাটা থাকে লোকে লোকারণ্য যাদের বেশিরভাগই টুরিস্ট।

গতকাল বৃষ্টি হচ্ছিল আর আমিও এই এলাকাতে ছিলাম। বৃষ্টির কারণে পুরা এলাকা একেবারেই ফাঁকা ছিল যেটা খুবই বিরল একটা ঘটনা। তাই এই ঘটনাটি ক্যামেরাবন্দি করে রাখার লোভ সামলাতে পারলাম না।

আপনাদের সাথে ভিডিওটি শেয়ার করলাম। অসম্ভব সুন্দর এই স্থাপনাগুলো আশাকরি আপনাদের ভালো লাগবে। দেখে কেমন লাগল জানাবেন।

Empty But Very Beautiful KLCC during Rain in September 2020, Kuala Lumpur, Malaysia

মন্তব্য ৫ টি রেটিং +০/-০

মন্তব্য (৫) মন্তব্য লিখুন

১| ১৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১২:০৮

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ।

১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ বিকাল ৫:২২

আরাফাত৫২৯ বলেছেন: ধন্যবাদ ভাই, আপনি সবসময় আমার পোস্টে মন্তব্য করেন। কিন্তু আমি সেই তুলনায় করি না। এখন যাচ্ছি আপনার ব্লগে।

২| ১৭ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ সকাল ১০:২৩

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: ওখানে ছাতির ব্যবহার মনে হয় খুব কম। বাঙ্গালিরা ঝড় বাদলেও সমুদ্রের তীর ছাড়তে চায় না। ভিডিওটা ভালো হয়েছে। ধন্যবাদ।

১৮ ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ বিকাল ৫:২১

আরাফাত৫২৯ বলেছেন: না ভাই, মালয় ও মালয়-চাইনিজরা সব সময় ছাতি নিয়ে ঘুরে। তবে মালয় যারা বাইক চালায় তারা রেইনকোট রাখে। আর চাইনিজ মেয়েরা তো রোদের সময় ছাতি, বৃষ্টির সময়ও ছাতি ইউজ করে। মালয়শিয়াতে এই রোদ এই বৃষ্টি।

৩| ১৯ শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ সকাল ৮:১৩

এমএলজি বলেছেন: ভালো লেগেছে। ধন্যবাদ।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.