নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

ঢাবিয়ান

ঢাবিয়ান › বিস্তারিত পোস্টঃ

ঢাকা শহড়ে বদ্ধ পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা না নিলে ডেঙ্গুর হাত থেকে রেহাই মিলবে না

২৯ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ১০:৩২





সেতু মন্ত্রী বলেছেন, ডেঙ্গু্ প্রতিরোধে কার্যকর ওষুধ ছিটানোর নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। আর তাই মেয়র মহাশয় এই গরমের মধ্যে কোট টাই লাগিয়ে ফটোগ্রাফার সমেত মশার ঔষধ ছিটাতে বের হয়েছেন!!!

এর আগে স্বাস্থ মন্ত্রী বলেছে রোহিঙ্গাদের মত বংশ বিস্তার করছে এডিস মশা!!

দায়িত্বহীন বক্তব্য এবং ডেঙ্গু মহামারিকে গুজব বলে উড়িয়ে দেয়ায় ঢাকার দুই মেয়র এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রীর পদত্যাগের দাবিতে রবিবার (২৮ জুলাই) টিএসসির রাজু ভার্স্কযের সামনে মানববন্ধন করেছে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা। মানববন্ধন শেষে স্বাস্থ্য মন্ত্রী, দুই মেয়রের প্রতীকী কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়।

জনগনের জীবন নিয়ে আর কত রসিকতা করবে ক্ষমতাসীন দলের লোকেরা? ডেঙ্গু মহামারী আকার ধারন করেছে দেশে। প্রতিদিন পত্রিকার পাতা খুললেই ডেঙ্গুতে মানুষের মৃত্যূবরনের খবর প্রকাশিত হচ্ছে ।কেন বছরের এই সময়ে সব সময় ডেঙ্গু, চিকনগোনিয়া মহামারী আকার ধারন করে এই দেশে? এর মুল কারন হচ্ছে বর্ষাকাল এলেই এই দেশের শহড়গুলোতে পানি জমে যায়। পানি নিস্কাশনের কোন প্রকার ব্যবস্থাই এখন আর শহড়গুলোতে নাই। এই বদ্ধ পানিতে মশা ডিম পারবে না তো মুরগী ডিম পারবে? সিটি কর্পোরেশনে বরাদ্দকৃত কোটি কোটি টাকা কোথায় যায়? কেন পানি নিস্কাশনের কোন ব্যবস্থা নেই এই শহড়ে? এখন ঔষধ ছিটিয়েই বা কি হবে?বৃষ্টির পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা না নিলে মশার এই আলোক গতিতে বংশ বিস্তার কোন অবস্থাতেই ঠেকানো যাবে না।


ফেসবুকে সবাই হাজারে হাজারে শেয়ার দিচ্ছে ''ডেঙ্গু কিভাবে সনাক্ত করা যায়, ডেঙ্গু হলে কি করতে হবে, মশা থেকে বাচঁবার উপায়'' জাতীয় পোস্ট। কিন্ত সবচেয়ে যেটা প্রয়োজন সেটা হচ্ছে মশার এই বংশ বিস্তারের উৎসের মুল উৎপাটন। কেবল ঔষধ ছিটিয়ে, ধুপ জ্বালিয়ে, নিজ বাড়ীর ফুলের টবে জমানো পানি ফেলে দিলেই মশার হাত থেকে রেহাই পাওয়া যাবে না। আগে ঢাকা শহড়ে বৃষ্টির পানি যাতে কোনভাবেই জমার সুযোগ না পায় সেই ব্যবস্থা নিতে হবে। তাহলে বাদবাকি প্রতিরোধ্মুলক ব্যবস্থা গুলো কাজ করবে।

মন্তব্য ২০ টি রেটিং +২/-০

মন্তব্য (২০) মন্তব্য লিখুন

১| ২৯ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ১০:৪৪

নজসু বলেছেন:





ঠিক ই বলেছেন।
প্রজননের কারখানা বন্ধ না করে অন্যান্য চেষ্টা সব বৃথা।

২৯ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১২:০৫

ঢাবিয়ান বলেছেন: এই ইস্যূতে সবার সম্মিলিত আওয়াজ তোলা প্রয়োজন। ডেঙ্গু প্রতিরোধ এ ছাড়া এক প্রকার অসম্ভব ।

২| ২৯ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ১১:২০

তারেক ফাহিম বলেছেন: মশা নিধনে মানববন্ধন B-)

আমরা ক্ষুদ্র মশাকে প্রতিরোধ করতে পারিনা!!!!!!!

২৯ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১২:০৬

ঢাবিয়ান বলেছেন: ঠিক কি বলতে চাইলেন, বুঝিনি। মশা নিধনে মানববন্ধন কোথায় হয়েছে?

৩| ২৯ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১২:০৬

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: ব্যাঙ ছেড়ে দিতে পারেন।

২৯ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:০৮

ঢাবিয়ান বলেছেন: সেইটাই বা বাকি থাকবে কেন?

৪| ২৯ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১২:০৯

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: বর্তমানে বাংলাদেশের লোকসংখ্যা প্রায় ১৮ কোটি। এই বিরাট জনগণ কে পাগল বানিয়ে ফেলেছে অতি ক্ষুদ্র মশকের দল। অথচ সামান্য চেষ্টা করলেই মশক নিধন করা সম্ভব।



18 কোটি মানুষের মধ্যে যদি 10 কোটি লোক মশা মারার কাজে অংশ নেয় এবং প্রতিটি লোক দুইটা করে মশা মারে তাহলে প্রতি দিন 20 কোটি মশা মারা সম্ভব ।

আন্তরিক ইচ্ছা থাকলে প্রতি দিন একটি করে মশা মারা হলেও বেশ কিছু দিন পরে দেখা যাবে এদেশে মারার জন্য কোন মশাই খুঁজে পাওয়া যাবে না। মশকরা যত ভয়ঙ্কর প্রাণীই হোক না কেন মানুষের চেয়ে ভয়ঙ্কর নয়।

তাই আসুন সবাই মিলে আজ থেকে মশা মারা শুরু করি।

গণপিটুনি দিয়ে মানুষ না মেরে গণপিটুনি দিয়ে মশা মারুন। দেশ ও জাতির অশেষ কল্যাণ করুন।

২৯ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:০৯

ঢাবিয়ান বলেছেন: গনপিটূনি দিয়ে একটা মানুষ মারা তেমন কঠিন কাজ নয় কিন্ত এক থাপ্পরে একটা মশা মারা অতিব দুরুহ একটা কাজ।

৫| ২৯ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৩:৩০

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: ব্যাংকের সামনে রাস্তা খুঁড়েছিলো রমজানে। কাজ বন্ধ করে ফেলে রেখেছে এতদিন । দুইদিন আগে দেখলাম কাজ ধরেছে
কিন্তু গর্তে কালো পানি জমে আছে

২৯ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:১১

ঢাবিয়ান বলেছেন: প্রতি বছর এই বর্ষার সময় ডেঙ্গু , চিকঙ্গোনিয়া মহামারী আকার ধারন করছে। এর মুল কারন নগরীর জলাবদ্ধতা।

৬| ২৯ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৩:৪৫

নীল আকাশ বলেছেন: এরা দেশের মানুষজনকে নিয়ে প্রতিনিয়তই মস্করা করে! দেশের মানুষ একদিন হলেও এর শোধ নেবে!

২৯ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:১৩

ঢাবিয়ান বলেছেন: সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা একটাই , তা দেখে যাবার সৌভাগ্য যেন আমাদের হয়।

৭| ২৯ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৪:৫৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


বর্ষাকালে ঢাকার বৃষ্টির পানি কি নদীতে যাচ্ছে না?

২৯ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:১৪

ঢাবিয়ান বলেছেন: মনে হয় বাস্প হয়ে আমেরিকায় যাচ্ছে ।

৮| ২৯ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৫:২১

রাজীব নুর বলেছেন: শিরোনামে বানান ভুল।
এবং শিরোনামটা সুন্দর হয়নি।

২৯ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:১৪

ঢাবিয়ান বলেছেন: কোন বানান?

৯| ২৯ শে জুলাই, ২০১৯ বিকাল ৫:২৮

আপেক্ষিক মানুষ বলেছেন: ওয়াসা, ডেসকো, সিটি কর্পোরেশন খুড়াখুড়ি শুরু করে তারপর আংশিক কাজকাম করে বহুলার কোন খোঁজ খবর থাকেনা।

২৯ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:১৭

ঢাবিয়ান বলেছেন: এই প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের দ্বায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করলেতো আর দেশের এই হাল হত না। দুর্নীতির একেকটা ডিপো এরা। জনগনের টাকা লুটপাঠ করা ছাড়া এদের দ্বীতিয় আর কোন দ্বায়িত্ব নাই।

১০| ২৯ শে জুলাই, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:০৩

মা.হাসান বলেছেন: এই সব মেয়র নেতাদের মাথায় যত ব্যবসায়ী বুদ্ধি, এদের মূর্তী (নাকি ভাস্কর্য কমু) বানাইয়া হার্ভার্ড বিজনেস স্কুলের সামনে খাড়া করায়ে রাখা দরকার। এর আগে সোলার লাইট লাগানোর নামে কিছু ব্যবসা হলো (এখন আবার খোলা/বদলানোর নামে ব্যবসা হচ্ছে)। ডাস্টবিন ঝোলানোর নামেও কিছু ব্যবসা হলো। প্রতি বাসায় ময়লা কালেকশনের জন্য ১০০ টাকা নেয়। আমার ছয় তালা বাসায় ১২ ফ্যামিলি থেকে ১২০০ টাকা। আমার রোডে ৬০ টা বাসা, ৭২০০০ টাকা। এই আবাসিক এলাকায় ১৮ টা রোড, কিছু বাসা হয়তো খালি থাকে, কিছু রোডে বাড়ির সংখ্যা ৬০ এর কম। শুধু এই আবাসিক এলাকা থেকে মাসে ময়লা ফেলার জন্য কমপক্ষে ১০ লাখ টাকা ওঠানো হয় । মশা নিয়েও ব্যবসা হয়েছে ও হচ্ছে। গাপ্পি মাছ নর্দমায় ছেড়ে মশার লার্ভা খাওয়ানোর নামে কিছু টাকার ব্যবসা হলো। প্রতি বছর ফগার মেশিন কেনা, ওষুধ কেনা, ওষুধ ছিটানোর লোকের মজুরি বাবদ কয়েকশত কোটি টাকা লোপাটের ব্যবসা করা হয়।
যে খাল গুলোদিয়ে বর্ষার পানি নদীতে নামার কথা সেগুলোতো সব দখল (মনে হয় বিএনপি করে রাখছে, সব আকাম তো ওরাই করে)।
দক্ষিণের মেয়র, এরশাদের পালক নাতি তো পৈতৃক সূত্রে মেয়র গিরি পেয়েছেন। দুজনই আজীবন মেয়র। এনাদের বাতচিতের যা জোর মশাদের উদ্দেশ্য কিছু বাণী দিলেই তো মশারা মরে যায়।

২৯ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৮:৩১

ঢাবিয়ান বলেছেন: আপনার কমেন্টই আসলে একটা পোস্ট। এই ধরনের একটা পোস্টে অনেক লাইক, কমেন্ট দেবার দরকার হয়ে পড়ে, কমেন্ট হিসেবে প্রতিউত্তর দেয়া কঠিন হয়ে যায়। যাই হোক মেয়র সাহেব এখন কোট টাই পড়ে কামান দেগে মশা মারতে বের হয়েছে!! মশা, ডেঙ্গু আমাদের কোন সমস্যা না। আমাদের একমাত্র সমস্যা বিনোদন। সেটা নিশ্চিত করতে মন্ত্রী, মেয়রেরা আপ্রান চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে!

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.