নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

ঢাবিয়ান

ঢাবিয়ান › বিস্তারিত পোস্টঃ

টিকা বিতরন কর্মসুচী

১৪ ই জানুয়ারি, ২০২১ দুপুর ২:৪৯



In a vote of confidence for the experts in Singapore who have approved the Pfizer-BioNTech vaccine for pandemic use, Prime Minister Lee Hsien Loong added that he and his colleagues in Cabinet will be getting vaccinated early. PM Lee said: "This is to show you, especially seniors like me, that we believe the vaccines are safe."Those who are at greatest risk will be given first priority, including healthcare workers and front-line personnel, as well as the elderly and the vulnerable, he said in a televised address. ( DEC 14, The Straits Times)

Prime Minister Lee Hsien Loong took the Covid-19 vaccine on Friday (Jan 8) morning, at the start of a nationwide drive to vaccinate staff across various public healthcare institutions. ( Jan 7, The Straits Times)

প্রায়ই আমাদের দেশের মন্ত্রীরা বলে থাকেন যে দেশ সিঙ্গাপুর , ফ্রান্স, কানাডা হয়ে গেছে। আশা করি তারা তাঁদের কথার সত্যতা অন্তত ভ্যাকসিনের ক্ষেত্রে দেবেন। আমদানী করা টীকা প্রথমে নেবে দেশের সরকার প্রধান ও মন্ত্রী পরিষদ , এরপর সম্মুখসারীর যোদ্ধারা এবং ক্রমান্বয়ে অন্যরা।

অধিক জনসংখ্যার এই দেশে সবার জন্য ফ্রি টিকা কোন অবস্থাতেই বাস্তবিক নয়। কাজেই বেসরকারী উদ্যোগে টিকা আনা হলে, সামর্থবানেরা টীকা কিনে নেবে। দরিদ্রদের ফ্রি টিকা প্রদান নিশ্চিত করতে হবে। কিন্ত কোন মন্ত্রী এবং সরকারী কর্মকর্তাকে টিকা নিতে বিদেশ যাওয়ার মত কুৎসিত দৃষ্য দেখার দুর্ভাগ্য যেন না হয় এ দেশের জনগনের। এরকম দৃষ্যের অবতারনা হলে এদেশের অধিকাংশ মানুষই টিকা নিতে অনাগ্রহী হবে এবং করোনা পরিস্থিতি বাগে আনা কঠিন হয়ে পড়বে।

মন্তব্য ২৩ টি রেটিং +০/-০

মন্তব্য (২৩) মন্তব্য লিখুন

১| ১৪ ই জানুয়ারি, ২০২১ বিকাল ৩:২৯

আমি সাজিদ বলেছেন: সিনিয়র সিটিজেন ও রিস্ক জোনে যারা আছে তাদের ভ্যাক্সিন দিলেই আপাতত ক্রাইসিস সমাধান করা যাবে। ষোল কোটিকে ভ্যাক্সিন দেওয়ার কথা কোন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ কখনই বলে নি। এই বিষয়ে তাঁদের বক্তব্য গ্রহন করতে পারেন। আমাদের দেশে সিনিয়র সিটিজেন ও মাল্টিপল ডিজিজে আক্রান্ত লোক বড় জোর ৩ কোটি- ৪ কোটি। ৫ কোটিই ধরলাম। আগে এই কনসেপ্টটা ক্লিয়ার করেন। পরে বাকিসব আলোচনা হবে যেমন - শুরুতেই বেক্সিমকোর ১০ লাখ ব্যবসার ঘোষনায় কেউ কিছু বলছে না কেন? ফোকাস থাকেন।

১৪ ই জানুয়ারি, ২০২১ বিকাল ৪:৩৯

ঢাবিয়ান বলেছেন: সিনিয়র সিটিজেন ও রিস্ক জোনে যারা আছে তাদের ভ্যাক্সিন দিলেই আপাতত ক্রাইসিস সমাধান করা যাব।

এটা সম্পুর্ন ভুল ধারনা। করোনায় শুধু বৃদ্ধ বা রিস্ক জোনের মানুষ মারা যাচ্ছে না। নানান বয়সী প্রচুর মানুষেরও মৃত্যূ হচ্ছে। তাই বারো বছরের নীচের শিশুদের বাদ দিয়ে সবাইকেই টিকা নিতে হবে। বিদেশেও তাই করা হচ্ছে। একারনেই সবার জন্য ফ্রি টিকার বন্দোবস্ত করা আসলে সম্ভব নয় আমাদের মত দেশে। ইন্ডিয়াতেও টিকা বিক্রি হচ্ছে। সামর্থবানেরা টিকা কিনে নেবে। তবে সবচেয়ে জরুরী হচ্ছে মানুষের মন থেকে টিকা সংক্রান্ত ভয় দূর করা। যে কারনে উন্নত দেশগুলোতে প্রেসিডেন্ট ও তার কেবিনেটের মন্ত্রীরা আগে টিকা নিচ্ছে মানুষকে টিকা নিতে উদ্বুদ্ধ করতে।

বেক্সিমকোর ভাবসাব দেইখাতো মনে হচ্ছে তারাই এই দেশের স্বাস্থ মন্ত্রনালয়!!! এদের বিরুদ্ধে কোন পত্রিকা লিখতে যাবে?

২| ১৪ ই জানুয়ারি, ২০২১ বিকাল ৩:২৯

আমি সাজিদ বলেছেন: *ফোকাসড

৩| ১৪ ই জানুয়ারি, ২০২১ বিকাল ৪:১৩

শাহ আজিজ বলেছেন: স্বাস্থ্য মন্ত্রী একটু আগে লাইভে টিকা নিয়ে তার প্রস্তুতি কেমন তা বললেন । পুরো শুনতে পারলাম না ।

১৪ ই জানুয়ারি, ২০২১ বিকাল ৪:৪১

ঢাবিয়ান বলেছেন: সবচেয়ে আগে শুনতে চাই তেনারা কখন টিকা নেবেন। নাকি দেশের মানুষরে টিকা নিতে কইয়া নিজেরা বিদেশে উড়াল দেবে টিকা নিতে!!!

৪| ১৪ ই জানুয়ারি, ২০২১ বিকাল ৫:৩৫

রাজীব নুর বলেছেন: নেতারা যতই বলুক, আমাদের দেশ সিঙ্গাপুর, কানাডা বা মালোশিয়ার মতোন- আসল সত্যটা তো আমরা জানি।
লকডাউন এর সময় তেল চাল চুরী হয়েছে। কাজেই টিকা নিয়েও ঝামেলা হবে।

১৫ ই জানুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১:৩২

ঢাবিয়ান বলেছেন: ঝামেলার শুরু মনে হচ্ছে বেক্সিমকো দিয়ে ---

৫| ১৪ ই জানুয়ারি, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:২৭

আমি সাজিদ বলেছেন: কোন বয়সী মানুষের মৃত্যুর হার বেশী? ঢাবিয়ান ভাই, আধুনিক দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা বলে একটা ধারনা আছে। যেটা হসপিটালেও এপ্লাই হয়। ধরেন ম্যাস ক্যাজুয়ালিটি নিয়ে পঞ্চাশ জন মানুষ ইমারজেন্সিতে আসলো, প্রটোকল অনুযায়ী সবচেয়ে রিস্কে যিনি আছেন তাকে আগে চিকিৎসা দিতে হবে। দুনিয়ার যে কোন বিষয়েই এমন কনসেপ্ট এপ্লাই করা যায়। আপনি যদি ডেটা দেখেন তাহলে মৃত্যুর হার বেশী কম্প্রোমাইজড মানুষের, ক্রোনিক ডিজিজে ভোগা মানুষের। প্রটোকল অনুযায়ী তাদের আগে ভ্যাক্সিন দিতে হবে। যাই হোক, আমি বলছিলাম, আপাতত রিস্কে আক্রান্ত মানুষদের ভ্যাক্সিন দিলে আমরা কিছুটা নিশ্চিন্তে থাকতে পারবো, বাকিরা পরে পেলেও সমস্যা নেই। বাইরের দেশে একই নিয়ম ফলো করা হচ্ছে। আমার প্রশ্ন কিন্তু এটা নিয়েও যেখানে সবার জন্য ভ্যাক্সিন নেই সেখানে বেক্সিমকো কোন আক্কেলে ঘোষণা দিয়ে দশ লাখ ভ্যাক্সিন বিক্রি করছে?

১৫ ই জানুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১:৩৭

ঢাবিয়ান বলেছেন: আপনার বক্তব্য তাহলে বুঝতে পারি নাই প্রথমে। আমার পোস্টেও সেটাই বলেছি।

বেক্সিমকো এই সুযোগে একটা দাও মারতে চাচ্ছে , এটাতো আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

৬| ১৪ ই জানুয়ারি, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:৩০

আমি সাজিদ বলেছেন: আমাদের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার আইডল ভারত হতে পারে না কখনই। যেমন ওরা ভ্যাক্সিন বিক্রি করছে বলে আমরাও করবো? ওরা লকডাউনে লিকার শপ থেকে অনেক ইনকাম করেছে। এখন আমি যদি বাংলাদেশে মদের দোকান খুলি, কেমন হয় বিষয়টা?

১৫ ই জানুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১:৪৩

ঢাবিয়ান বলেছেন: বাস্তবতাকে মেনে না নিলে উপায় নাই। এমাত্র উন্নত দেশগুলোই ফ্রি টীকা দিচ্ছে জনগনকে। আমাদের দেশে সেটা আশা করাটা একপ্রকার বোকামি। বরং সামর্থবানেরা টীকা কিনে নিলে গরীবদের বিনামূল্যে পাওয়াটা সহজ হবে।

৭| ১৪ ই জানুয়ারি, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:৪৬

চাঁদগাজী বলেছেন:



সরকার যদি নাগরিককে কিছু দেয়, উহাকে কি "ফ্রি" বলা উচিত? কোন সরকার কি কোন কিছু ফ্রি দিতে পারে? সরকারের তহবিলে কার সম্পদ জমা হয়?

১৫ ই জানুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১:৪৫

ঢাবিয়ান বলেছেন: আমার মনে হয় বলা যায়। উন্নত দেশেও ফ্রি ভ্যাক্সিন শব্দটা ব্যবহ্রত হচ্ছে। যার অর্থ ভ্যাক্সিন টাকা দিয়ে কিনতে হবে না।

৮| ১৪ ই জানুয়ারি, ২০২১ রাত ৮:৪৭

নেওয়াজ আলি বলেছেন: টিকা নিয়ে দেশে হাড়ুড়ু খেলা শুরু হয়েছে। মিথ্যার ভিতর মিথ্যার ভর

১৫ ই জানুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১:৪৬

ঢাবিয়ান বলেছেন: ্প্রতিদিন নতুন নতুন নাটক রচিত হচ্ছে টীকা নিয়ে

৯| ১৪ ই জানুয়ারি, ২০২১ রাত ১০:৩৩

মরুভূমির জলদস্যু বলেছেন: ‌এই টিকার প্রতি আমি ভরসা পাচ্ছি না। মন্ত্রী, এমপি, আর ডাক্তাররা নিলে পরে হয়তো কিছুটা ভরসা আসবে।

১৫ ই জানুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১:৪৭

ঢাবিয়ান বলেছেন: সেইটাই।উন্নত দেশগুলোতে সেটাই করা হচ্ছে।

১০| ১৫ ই জানুয়ারি, ২০২১ ভোর ৪:৪৯

কবিতা ক্থ্য বলেছেন: প্রিয় দেশবাশী,
আমাদের প্রস্তুত হতে হবে...
আরেকটি লজ্জাজনক নাটক দেখবার জন্য, যে নাটকের নাট্যকার, অভিনেতা, নায়ক, ভিলেন- সবই সরকার।
লাভের মধ্যে- আরো কয়েক শত (নাকি হাজার) কোটিপতি তৈরী হবে।
সরকার আসলে কোটিপতি বানানোর মেশিন। প্রতি দিন নতুন নতুন কোটিপতি জন্ম দিচ্ছে।
আশাকরছি করোনার আশীর্বাদে এই উতপাদন প্রক্রিয়া আরো তরান্বিত হবে।

১৫ ই জানুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১:৫১

ঢাবিয়ান বলেছেন: মহামারীও এখন ব্যবসা

১১| ১৫ ই জানুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১২:২৬

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: এই লিঙ্কটা দেখতে পারেন;
বেসরকারি প্রতিষ্ঠানও ভ্যাকসিন দিতে পারবে, তৈরি হচ্ছে নীতিমালা

তবে ভয় হোল এমনভাবে নীতিমালা হয়তো হবে যে বেক্সিমকো বা ঐ ধরণের ধড়িবাজরাই শুধু নীতিমালার শর্ত পূরণ করতে পারবে। বেক্সিমকো পারলে সরকার কেন অন্য আরও টিকা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তি করতে পারছে না। মাঝখানে কেন বেক্সিমকো রাখতে হচ্ছে। সরকারের যোগাযোগ ক্ষমতা কি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের চেয়ে কম।

১৫ ই জানুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১:৫৪

ঢাবিয়ান বলেছেন: বেক্সিমকোর চাইতে হাজাগুনে বেশি গ্রহনযোগ্য দেশের অন্যান্য ফার্মাসিউটিকালগুলো। তারা আনালে বরং জনগন স্বস্তির সঙ্গে টীকা কিনতে পারে। কিন্ত কেন বেক্সিমকো শুধু এই সুযোগ পাচ্ছে তাতো সবারই জানা।

১২| ১৫ ই জানুয়ারি, ২০২১ বিকাল ৪:৪৭

জুন বলেছেন: ছোট বেলায় আমাদের বাসায় টিকা দিতে এসেছে। আমাকে দেয়ার জন্য যেই হাত ধরেছে আমি এক ঝটকায় হাত ছাড়িয়ে দরজা পেরিয়ে বাইরে দৌড়। লোকটা পিছে পিছে দৌড়ে এসে আমাকে ধরে ফেল্লো আর নিয়ে আসলো। এখন কি এই বয়সে এই অবস্থা হবে নাকি বুঝতে পারছি না ঢাবিয়ান B-)

২১ শে জানুয়ারি, ২০২১ বিকাল ৫:৪২

ঢাবিয়ান বলেছেন: ওহেতুক ভয় পাবেন না জুন আপু। তবে দেশের মন্ত্রীরা ভারতের ভ্যক্সিন আগে না নিলে , মানুষ আগ্রহী হবে না। অনেকেই অপেক্ষায় আছে , বেসরকারী উদ্যোগে অন্যান্য ভ্যক্সিনের আসার জন্য।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.