নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

ঢাবিয়ান

ঢাবিয়ান › বিস্তারিত পোস্টঃ

ফিলিস্তিনের পাশে দাড়ানোটা ধর্মের ভিত্তিতে নয়, মানবিকতার ভিত্তিতে হওয়া প্রয়োজন

১৬ ই মে, ২০২১ রাত ৯:০৫



হামাসের রকেট নিক্ষেপের জবাবে ফিলিস্তিনে ভয়াবহ হামলায় মোট নিহতের সংখ্যা ১৮০ ছাড়িয়ে গেছে। ইসরাইল নাকি এই বিশ্বের অন্যতম ক্ষমতাধর দেশ। শিক্ষা দীক্ষা, জ্ঞান, বিজ্ঞানে তাদের নাকি জুড়ি মেলার ভার। এমন প্রতিভাবান জ্ঞানী রাস্ট্র হামাস নামক এক নির্বোধ সংগঠনকে শায়েস্তা করতে ফিলিস্তিনের নীরিহ নিরস্ত্র শিশু, বৃদ্ধ, নর নারীদের প্রান নিচ্ছে প্রতিনিয়ত!!! এমন জ্ঞান, প্রতিভার কি মূল্য যদি তা মানুষকে একজন মানুষই না বানাতে পারে?

হামাস নামক নির্বোধ সংগঠনকে শায়েস্তা করা বা তাদের নিশ্চিহ্ন করা ইসরাইল বা আমেরিকার জন্য কঠিন কোন টাস্ক হবার কথা নয়।আদতে হামাসকে ইচ্ছাকৃতভাবেই টিকিয়ে রাখা হয়েছে। খেলনা মার্কা কিছু রকেট তারা ছুড়বে সময়ে সময়ে আর সেই অজুহাতে নির্বিচারে মুসলিম নিধন করা যাবে। ক্রুসেড নামক নিশৃংষ ধর্মযুদ্ধ আজকের যুগেও টিকিয়ে রাখতে চায় ইহুদিরা। মুসলিম নিধনের মাধ্যমে পৈশাচিক আনন্দ পেতে চায়।

ইসরাইলের মত একটি টেরোরিস্ট দেশের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়ার জন্য মুসলিম হবার প্রয়োজন নাই, প্রয়োজন একজন মানুষ হবার। দুর্জন বিদ্বান হলেও পরিত্যাজ্য। দুর্জন ব্যক্তি স্বীয় স্বার্থোদ্ধারে অপরের মারাত্মক ক্ষতি করতেও দ্বিধাবােধ করে না। বিদ্যাকে তারা মুখােশ হিসেবে ব্যবহার করে।এদের পরিত্যাগ করাটাই মানবতা। সম্প্রতি ইতালির বন্দরকর্মীরা সেটাই দেখিয়ে দিয়েছে। ইসরাইলের অস্ত্র ও বিস্ফোরক জানার পর তা জাহাজে তুলতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে ইতালির লিভোর্নো বন্দরের কর্মীরা। কর্মীরা আবিষ্কার করেন যে, অস্ত্রবোঝাই এই জাহাজটি ইসরাইলের আশদদ বন্দরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাচ্ছে। এরপরই তারা আর এতে অস্ত্র তুলবেন না বলে জানিয়ে দেন। এ নিয়ে বন্দরটিতে শ্রমিকদের সংগঠন ইউএসবি বলেছে, লিভোর্নো বন্দর ফিলিস্তিনিদের হত্যাযজ্ঞের সহযোগি হবে না।

ফিলিস্তিন ইস্যূতে বিশ্ব মানবতা জাগ্রত হোক, এটাই কামনা।







মন্তব্য ৩৩ টি রেটিং +৩/-০

মন্তব্য (৩৩) মন্তব্য লিখুন

১| ১৬ ই মে, ২০২১ রাত ৯:২২

নতুন বলেছেন: হামাস নামক নির্বোধ সংগঠনকে শায়েস্তা করা বা তাদের নিশ্চিহ্ন করা ইসরাইল বা আমেরিকার জন্য কঠিন কোন টাস্ক হবার কথা নয়।আদতে হামাসকে ইচ্ছাকৃতভাবেই টিকিয়ে রাখা হয়েছে।

আরব বিশ্ব চাপ দিলে অবশ্যই এই সমস্যার সমাধান সম্ভব। এরাও কিছু করছে না। :(

১৬ ই মে, ২০২১ রাত ৯:৪১

ঢাবিয়ান বলেছেন: বিলাস ব্যসন, উশৃংখলতায় ডুবে থাকা ''আরব বিশ্ব'' বহু আগেই মনুষত্য হারিয়েছে।

২| ১৬ ই মে, ২০২১ রাত ৯:৩০

চাঁদগাজী বলেছেন:


গাজা কত বড় (দৈঘ্য, প্রস্হ ), লোকসংখ্যা কত? হামাসের "রকেট লান্চিং প্যাড"এর ( ভ্রাম্রমান ) উপর বোমা ফেলতে কিভাবে ফেলা সম্ভব, যাতে কারো গায়ে না লাগে? আপনি কড় সময় মিলিটারীতে চাকুরী করছেন, বা কত সময়ের অভিজ্ঞতা আছে?

ইসরায়েল যদি হামাস'এর রকেট ছোঁড়া বন্ধ না করে, গাজার কেহ মারা যাবে না, কোন ক্ষতি হবে না; এটা করলে আপনি খুশী হবেন?

১৬ ই মে, ২০২১ রাত ৯:৪৫

ঢাবিয়ান বলেছেন: আমি নিতান্তই তুচ্ছ একজন মানুষ। ফিলিস্তিনের নিরীহ মানুষকে না মেরে হামাসকে শায়েস্তা করার বুদ্ধি আপনার থাকার কথা নয়।কিন্ত ইসরাইল বা আমেরিকার সেই বুদ্ধি নাই এইটা যদি বলেন যে তাইলে সেটা একটা রসিকতা হয়ে যায়।

৩| ১৬ ই মে, ২০২১ রাত ৯:৩২

চাঁদগাজী বলেছেন:


ফিলিস্তিনের পাশে ইরান, লেবানন ও ২০/২৫টা আরব দেশ আছে, আপনার অভাব ওরা অনুভব করছে বলে মনে হয় না।

১৬ ই মে, ২০২১ রাত ৯:৫০

ঢাবিয়ান বলেছেন: মানবিকতা জগতের সবচেয়ে বড় গুন। ফিলিস্তিনের বড় দরকার সেটা। কে দেখাচ্ছে সেটা বিবেচ্য নয়।

৪| ১৬ ই মে, ২০২১ রাত ৯:৩৪

চাঁদগাজী বলেছেন:



আপনি হামাসকে কোন টেকনোলিজী দিতে পারবেন, তারা যেন গাজার বাহির থেকে ইসরায়েলের উপর রকেট হামলা করতে পারে?

৫| ১৬ ই মে, ২০২১ রাত ৯:৪২

চাঁদগাজী বলেছেন:



বিশ্ব বলছে হামাস, হিবুল্লাহ ও ইরান টেরোরিষ্ট; বিশ্ব তো ইসরায়েলকে টেরোরিষ্ট বলে না, আপনি কেন ইসরায়েলকে টেরিরিষ্ট বলছেন, আপনার ডেফিনেশন কি ইউরোপিয়ান, জাপানীদের চেয়ে উন্নত?

৬| ১৬ ই মে, ২০২১ রাত ৯:৪৪

চাঁদগাজী বলেছেন:


গাজায় বেকারের হার কত, ওদের বেশী সংখ্যক কোথায় কাজ করে?

৭| ১৬ ই মে, ২০২১ রাত ৯:৪৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


প্যালেষ্টানকে স্বাধীন দেশ হিসেবে যদি ইসরায়েল মানে, প্যালেষ্টাইন বিশ্বের সবার স্বীকৃতি পাবে; স্বাধীনতা নিয়ে ইসরায়েল-প্যালেষ্টাইন সর্বশেষ চুক্তি কোনটি? উহাকে কেন কার্যকরী ক্সকরা সম্ভব হচ্ছে না?

গাজায় হামাস'এর সংখ্যা ( যারা বেতন পয় ) কি পরিমাণ? তাদের বেতন কোথা থেকে আসে?

৮| ১৬ ই মে, ২০২১ রাত ৯:৫২

চাঁদগাজী বলেছেন:


লেখক বলেছেন, " আমি নিতান্তই তুচ্ছ একজন মানুষ। ফিলিস্তিনের নিরীহ মানুষকে না মেরে হামাসকে শায়েস্তা করার বুদ্ধি আপনার থাকার কথা নয়।কিন্ত ইসরাইল বা আমেরিকার সেই বুদ্ধি নাই এইটা যদি বলেন যে তাইলে সেটা একটা রসিকতা হয়ে যায়। "

-আপনার মতো নিতান্ত তুচ্ছ কোটী মানুষ ও ইরান, কাতার, ও ইউরোপ আমেরিকায় অবস্হাননরত মুসলমানেরা ও আরবের শেখেরা হামাসকে সাহায্য করে যাচ্ছে, হামাস একা নয়। হামাসের সৈনিকদের বেতন আপনার বেতনের চেয়ে গড়ে বেশী হওয়ার কথা।

৯| ১৬ ই মে, ২০২১ রাত ১১:২৯

রানার ব্লগ বলেছেন: আগে ফিলিস্তিনিদের ঠিক করতে দিন তারা স্বাধীনতার জন্য লড়বে না জিহাদ করবে।

১৭ ই মে, ২০২১ রাত ৮:০৪

ঢাবিয়ান বলেছেন: ফিলিস্তিনিদের হাতে কোন অপশন নাই। তাদের ওপর সব নির্যাতন চাপিয়ে দেয় টেরোরিস্ট ইসরাইল এবং নির্বোধ হামাস।

১০| ১৬ ই মে, ২০২১ রাত ১১:৩৯

ইফতেখার ভূইয়া বলেছেন: আমার মনে হয় বিশ্বের বেশীরভাগ মানুষই প্যালেস্টাইনের পক্ষে। সমস্যা হলো দুর্বল একশো জন আর সবল দশজন হলেই বিশ্ব রাজনীতিতে চিত্র পাল্টে যাওয়া অসম্ভব নয়। স্বয়ং জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের অবস্থাও তেমনটাই। দুঃখজনক কিন্তু সত্য।

হামাস'কে তাদের খেলনা ছোঁড়া বন্ধ করতে হবে। ওসব রকেটে আজকাল আর কাজ হয় না। ইসরায়েল সামরিকভাবে অনেক বেশী শক্তিশালী। আকাশ থেকে যুদ্ধ বিমান দিয়ে ওরা প্রিসিশন বোম্বিং করতে পারে এই সক্ষমতা প্যালেস্টাইনের নেই। আর গাজা অনেক ছোট একটা জায়গা, ওখানে এরিয়্যাল বোম্বিং করলে সিভিলিয়ান মারা যাবেই। বিষয়টা খুব বেশী এক তরফা। প্যালেস্টাইনের জন্য খারাপ লাগছে বৈ কি! বিশেষ করে ছোট ছোট বাচ্চাদের বিভৎস মৃতদেহ আমাকে ভীষণ পীড়া দেয়। তবে সব অন্যায়েরই মূল্য সবাইকে দিতে হবে, বিষয়টা শুধু সময়ের।

১৭ ই মে, ২০২১ রাত ৮:১২

ঢাবিয়ান বলেছেন: একেতো করোনায় বিপর্যস্ত পুরো পৃৃথীবি , তার ওপড় ইসরাইল এভাবে নির্বিচারে মানুষ মারছে। তারপরেও আরব বিশ্ব নিশ্চুপ, শক্তিশালী দেশগুলোও নিশ্চুপ। অমানুষদের দখলে চলে গেছে এই পৃথীবি।

১১| ১৭ ই মে, ২০২১ রাত ১২:১২

রাজীব নুর বলেছেন: ফিলিস্তিন চিপায় পড়েছে। এদের কেউ সাহায্য করছে- সমস্যা এখানেই। আবার ওদের কেউ ধমকও দিচ্ছে না।

১৭ ই মে, ২০২১ রাত ৮:১৩

ঢাবিয়ান বলেছেন: খালি মন্তব্য করলেই কি হয়! একটু মানসম্পন্ন কমেন্ট করার দিকেও নজর দিন। :)

১২| ১৭ ই মে, ২০২১ রাত ১২:৫৩

নীল আকাশ বলেছেন: ইসরায়েলকে টেরোরিষ্ট ঘোষনা করা বাস্তবিক এবং নিতান্তই চরম সত্যকথা। সারা বিশ্বের যে কোন সুস্থ বিবেকবান মানুষ এটা মাথা পেতে মেনে নেবে। অথচ দেখুন এইলাইনেও একজনের সারা গায়ে আগুন যেন লেগে গেছে। এর আসল চরিত্র এখানেই বুঝা যাচ্ছে।

এইসব স্বার্থপর মুসলিম নামধারী দালালদের জন্যই মিডিয়া বলেন আর ফ্রন্ট বলেন সব জায়গায় মুসলিমরা হেরে যায় বিশ্বাসঘাতকার কারণে।
হামাস ভুল করছে কিন্তু হত্যার নূন্যতম প্রতিবাদ তো করছে। মধ্যপ্রাচ্যের বাকি দেশগুলির মুসলিমরা কী করছে?

১৭ ই মে, ২০২১ রাত ৮:১৯

ঢাবিয়ান বলেছেন: ব্লগার চন্দ্রগাজী আম্রিকা ও ইসরাইলের বিরুদ্ধে কোন কিছু শুনতে চায় না। জ্ঞান/ বিজ্ঞান , প্রযুক্তিতে তারা সেরা এটাই তিনি দিনরাত বোঝাতে সচেষ্ট। কিন্ত তাদের মাঝে যে মানবতা নাই এবং মানবতাই যে মানুষের সবচেয়ে বড় গুন সেটা বোঝার সাধ্য উনার নাই।

১৩| ১৭ ই মে, ২০২১ রাত ১:০৫

মরুভূমির জলদস্যু বলেছেন: মানবতা সব সময়ই মার খায়।

১৭ ই মে, ২০২১ রাত ৮:২০

ঢাবিয়ান বলেছেন: একমত

১৪| ১৭ ই মে, ২০২১ রাত ১:২৫

স্বামী বিশুদ্ধানন্দ বলেছেন: ফিলিস্তিন ইস্যুতে বিশ্ব মানবতা জাগ্রত হোক |
সহমত |

বিশ্বমানবতা জাগ্রত হলেই কিছুটা হলেও এর কোনো পজিটিভ রেজাল্ট আসবে | একাত্তরে আমাদের স্বাধীনতা সংগ্রামের সময় মার্কিন সরকার পাকিদের পক্ষে থাকলেও সেখানকার সচেতন নাগরিকরা মানবতার পক্ষেই বাংলাদেশকে সমর্থন দিয়েছেন |

হামাসের গুলতি ছোড়ার মতো কর্মকান্ডে ফলস্বরূপ প্রাণ হারাচ্ছে শতশত নিরীহ মহিলা ও শিশুরা |ইসরালীকে মতো দুর্ভেদ্য প্রতিরক্ষা বুহ্য ভেদ করার মতো প্রযুক্তি হামাসকে কেউ দিবে বলে মনে হয় না |

যারা হামাসের বাল্যখিল্য কর্মকান্ডের সমর্থন করেন তাদের কল্পনার জগৎ থেকে মাটিতে নেমে আসা প্রয়োজন |

১৭ ই মে, ২০২১ রাত ৮:৩৮

ঢাবিয়ান বলেছেন: আসলে ইয়াসির আরাফাতের পিএলও ছিল শক্তিশালী সংগঠন যেটা ফিলিস্তিনিদের স্বার্থ রক্ষায় কাজ করে যাচ্ছিল। গুগল করে দেখা যায় যে ২০০৪ সালে দিনের পর দিন অবরুদ্ধ করে রেখে ইয়াসির আরাফাতকে সায়ানাইডের চেয়েও ১০ লাখ গুণ বেশি ভয়ঙ্কর বিষ পলোনিয়াম ২১০ প্রয়োগ করে মোসাদ। অবশেষে প্যারিসে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২০০৪ সালের ১১ নভেম্বর তিনি শাহাদাত বরণ করেন। ২০০৪ সালে তার মৃত্যূর পর ধীরে ধীরে তার সংগঠন পিএলও বিলুপ্ত হয়ে পড়ে। এরপরই উত্থান ঘটে উগ্রবাদী সংগঠন হামাসের। আত্মঘাতি বোমা, হামলা, গুলতি ছোরা, খেলনা রকেট মারা জাতীয় কর্মকান্ডে তারা কেবল ফিলিস্তিনিদের মৃত্যূ ডেকে আনা ছাড়া আর কোন উপকার করেনি। এদের ইচ্চছাকৃতভাবেই টিকিয়ে রাখা হয়েছে ফিলিস্তিনে মুসলিম নিধনের উদ্দেশ্যে।

১৫| ১৭ ই মে, ২০২১ দুপুর ১২:১২

বিজন রয় বলেছেন: ফিলিস্তিনের পাশে দাড়ানোটা ধর্মের ভিত্তিতে নয়, মানবিকতার ভিত্তিতে হওয়া প্রয়োজন............ সহমত।

মনে করি, শুধু ফিলিস্তিন নয় পৃথিবীর সকল নির্যাতিতদের বেলায় এই কথাটাই প্রযোজ্য হওয়া উচিৎ।

১৭ ই মে, ২০২১ রাত ৮:৪০

ঢাবিয়ান বলেছেন: ধন্যবাদ সুন্দর কমেন্টের জন্য।

১৬| ১৭ ই মে, ২০২১ দুপুর ২:১০

রাজীব নুর বলেছেন: বেচারা ফিলিস্তিনিদের জমি দখল হতে হতে এমন অবস্থায় পৌঁছেছে যে গুগল ম্যাপে এখন ফিলিস্তিন নামে কোনো অঞ্চল আর খুঁজে পাওয়া যায় না। শুধু মাত্র গাজা উপত্যকা আর পশ্চিম তীর এর সামান্য কিছু অংশ এখনো ফিলিস্তিনের অস্তিত্ব জানান দিচ্ছে। এই অবস্থা চলতে থাকলে আর ৫ থেকে ৭ বছরের মধ্যে ফিলিস্তিন একদম বিলীন হয়ে যাবে।
তবে, সব অন্যায়েরই মূল্য সবাইকে দিতে হবে, বিষয়টা শুধু সময়ের।

১৭ ই মে, ২০২১ রাত ৮:৪৪

ঢাবিয়ান বলেছেন: ধন্যবাদ সুন্দর কমেন্টের জন্য। জেরুজালেম, পশ্চিম তীর, গাজা পুরো এলাকায় মুসলিম নিধন/ বিতারন করে একছত্র দখল চায় ইহুদিরা। হামাস মুলত ইসরাইলকে সহযোগিতা করছে এই প্ল্যনিং সফল করতে।

১৭| ১৭ ই মে, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:৪০

মনিরা সুলতানা বলেছেন: ফিলিস্তিন ইস্যূতে বিশ্ব মানবতা জাগ্রত হোক, এটাই কামনা।

১৭ ই মে, ২০২১ রাত ৮:৪৪

ঢাবিয়ান বলেছেন: ধন্যবাদ সুন্দর কমেন্টের জন্য।

১৮| ১৭ ই মে, ২০২১ রাত ১০:৩৮

রাকু হাসান বলেছেন:

ফিলিস্তিন ইস্যুতে ফিলিস্তিনীদের অধিকারে সমর্থন করতে শুধু মানুষ হতে হয়।

১৮ ই মে, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:২২

ঢাবিয়ান বলেছেন: মনুষত্ব, মানবতা এখন কেবল দরিদ্র মানূষদের মাঝেই এখনও কিছুটা আছে। ধনবান , ক্ষমতাবান মানুষদের কাছে মানবতা শব্দটা একটা রসিকতার বিষয়। মুল সমস্যটা সেখানেই।

১৯| ১৮ ই মে, ২০২১ দুপুর ১২:২২

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: ধর্মের কারণে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের শাসকরা প্যালেস্টাইনের ব্যাপারে নিরপেক্ষ অবস্থান নিতে পারছে না। আসলে এখানে ধর্ম কোন বিষয় হওয়ার কথা না। অন্যায়ভাবে প্যালেস্টাইনে নিরীহ মানুষ হত্যা করা হচ্ছে। এটার প্রতিকার করা উচিত এটাই বড় কথা।

১৮ ই মে, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:৩৫

ঢাবিয়ান বলেছেন: ধর্ম আসলে ফ্যক্টর নয়। ক্ষমতাবান, ধনবান রাস্ট্রের সাথে কেউ সম্পর্ক নষ্ট করতে চায় না। প্যলেস্টাইনিদের পাশে যেহেতু আরব বিশ্ব নাই, তাই তাদেরকে বাস্তববাদী হতে হবে।অসমশক্তিশালী টেরোরিস্ট ইসরাইলের বিরুদ্ধে কৌশলী হতে হবে। যেহেতু হামাসের কান্ডজ্ঞানহীন কর্মকান্ডের কারনে প্রতিিয়ত সেখানে রক্ত ঝড়ছে তাই হামাসকে নিশিদ্ধ জঙ্গীগোষ্ঠী হিসেবে বহির্বিশ্বে তুলে ধরা উচিত প্যলেস্টাইনিদের। অস্তিত্ব রক্ষা করতে হলে আবেগী নয় কৌশলী হতে হয়। আমাদের ধর্মেই তার বিভিন্ন নিদর্শন রয়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.