নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমি বিদ্রোহী ভৃগু, ভগবান বুকে এঁকে দিই পদ-চিহ্ন, আমি স্রষ্টা-সূদন, শোক-তাপ হানা খেয়ালী বিধির বক্ষ করিব ভিন্ন

সাসুম

আমার মুখ অত্যন্ত খারাপ। দূরত্ব বজায় রাখুন যদি আপনি আওয়ামী লীগ, বি এন পি, জামাত, ফাইক্কা, ভারত মাতার সন্তান, মুক্তিযুদ্ধের বিরোধী, মুক্তচিন্তার বিরোধী, ইব্রাহিমস্টাইনের ছাত্র, তারেক মনোয়ারের গুণগ্রাহী , আল্লামা সাঈদীর ঘেটুপুত্র অথবা হাসান মাহমুদ এর ভক্ত হয়ে থাকেন।

সাসুম › বিস্তারিত পোস্টঃ

শিক্ষা, জ্ঞান বিজ্ঞান , গবেষণা ও প্রেক্ষাপট বাংলাদেশ।

১১ ই জুন, ২০২১ সকাল ৯:১৬

একটি দেশের উন্নয়ন ও উন্নতির একমাত্র উপায়- সু শিক্ষা।

শিক্ষা ছাড়া দুনিয়ার কোন জাতি উন্নত হতে পারেনা, সম্ভব না।

বিজ্ঞান ও গবেষণা ব্যতিরেকে উন্নতির কোন ধরণের ফর্মুলা নাই। কে কি বল্লো আর কে কি করলো কিছুই যায় আসেনা , একমাত্র আসে যায় শিক্ষায়। আপনি মদীনা সনদে দেশ চালাবেন নাকি গুজ্রাটি সনদে চালাবেন তাতেও কিছু আসে যায়না।
দুনিয়ার সকল দেশ শিক্ষা কে রেখেছে সবার উপরে। জিডিপিতে শিক্ষাকে দেয়া হয় সবচেয়ে বড় গুরুত্ব।
এর সাথে আরেকটা খুবই গুরুতবপূর্ণ জিনিষ হচ্ছে আর এন্ড ডি। রিসার্স এন্ড ডেভেলপমেন্ট সেক্টর।

ইনোভেশান এবং গবেষণা ছাড়া বর্তমান দুনিয়ায় টিকে থাকা অসম্ভব। আম্রিকা গত বছর গবেষণা সেক্টরে খরচ করেছে ৫৭২ বিলিয়ন ডলার বা জিডিপির ৬%। ইউনেস্কোর ডাটা অনুসারে গবেষণা ও উন্নয়ন খাতে নেপাল দেয় তার জিডিপির ০.৩০%, পাকিস্তান দেয় তার জিডিপির ০.২৪%, ভারত দেয় তার জিডিপির ০.৬৫%, চীন দেয় তার জিডিপির ২.১৯%, জাপান দেয় তার জিডিপির ৩.২৬% কোরিয়া দেয় তার জিডিপির ৪.৮১%, ইসরাইল দেয় তার জিডিপির ৪.৯৫% বরাদ্দ দেয়।

বাংলাদেশ? এই তালিকায় নেই। কারন ১ মিলিয়ন ডলার এর নীচে খরচ করা কোন রাস্ট্রকে এই তালিকায় রাখা হয় নি। আর বাকি একটা দেশ যারা এই তালিকায় নেই সেটা হল আফগানিস্তান।

এবার বাজেট প্রণয়ন হয়েছে। শিক্ষা, গবেষণা আর ইনোভেশানে কত % বাজেট এ রাখা হয়েছে খবর নিবেন প্লীজ।
দুনিয়ার কোন রাস্ট্র শিক্ষা আর গবেষণায় এর চেয়ে কম খরচ করেনা।
দুনিয়ার সব দেশে ইউনিভার্সিটি হল জ্ঞানের আধার, আমাদের দেশে সিংগারা চা সমুচার আধার। আমাদের দেশে ইউনিভার্সিটি তে হয় খুনাখুনি, মারামারি আর হল দখল আর চাঁদাবাজি।
যাই হোক, এই মুহুর্তে জ্ঞান বিজ্ঞান আর মেধা সূচকে আমরা দুনিয়ার সকল দেশের একদম তলানিতে অবস্থান করছি। আমাদের নীচে আছে নাইজার, চাঁদ , কংগো, সোমালিয়া , এঙ্গোলা ও মৌরিতানিয়া।
উন্নয়ন মানে ফ্লাইওভার, ব্রিজ আর বিল্ডিং বানানো নয় এটা যতদিন বুঝবেনা সরকার ও জনগণ ততদিন এরকম হতেই থাকবে। এটাই নিয়তি।
শিক্ষা ও গবেষণায় বাজেট বাড়ানো হোক, একমুখী বিজ্ঞান ভিত্তিক শিক্ষা প্রচলন করা হোক।

না হলে একদিকে পাবেন চোর, ডাকাত, ফ্রড , বাটপার আর সহমত ভাই আরেকদিকে পাবেন সেরা বিজ্ঞানী আরিফ আজাদ। না হলে বিজনেস বলতে বুঝবেন ইভেলি আর বিজ্ঞান ও দর্শন বলতে বুঝবেন প্যারাটক্সিকাল মজিদ।
দেশ, সমাজ তথা রাস্ট্র বাঁচাতে আওয়াজ তুলুন। নিজ নিজ যায়গা থেকে।

মন্তব্য ২৮ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (২৮) মন্তব্য লিখুন

১| ১১ ই জুন, ২০২১ সকাল ৯:৩০

চাঁদগাজী বলেছেন:




মাদ্রাসায় যা পড়ানো হয়, তা এই যুগে কি কাজে লাগে?

১১ ই জুন, ২০২১ সকাল ১০:০২

সাসুম বলেছেন: কাজে লাগুক না লাগুক, পরকালে জান্নাত আর আনলিমিটেডঃ হুর এর কনফার্মেশান পাওয়া যাবে এই শিক্ষায় :)

২| ১১ ই জুন, ২০২১ সকাল ৯:৩১

চাঁদগাজী বলেছেন:



স্বাধীনতা পাবার ৫০ বছর পরও ১০০ ভাগ শিক্সইত না হওয়ার পেছনে আপনি কি কারণ দেখছেন?

১১ ই জুন, ২০২১ সকাল ৯:৪১

সাসুম বলেছেন: একমুখী বিজ্ঞান ভিত্তিক শিক্ষার অভাব একটা বড় কারন। মাদ্রাসার শিক্ষা পরকালের শিক্ষা, ইহকালের কাজে লাগা শুরু করেছে এই সেদিন থেকে তাও শেখ হাসিনা শুধুমাত্র ভোট ব্যাংক রক্ষার জন্য তেতুল হুজুরের দাবি মেনে নিয়ে। যদি এই বিশাল নাম্বার গুলোকে নার্চার করে সমাজের জ্ঞান বিজ্ঞান ভিত্তিক ধারায় নিয়ে আসা যেত তাহলে শিক্ষার মান এবং সংখ্যা দুইটাই বাড়ত।

এর সাথে আছে - সরকার মানে আমাদের শাসক গোষ্ঠীর তীব্র অনীহা।

শিক্ষার সকল রকমের গোয়ামারা সারা করে দিয়েছে প্রতিটা সরকার। স্বাধীনতার পর থেকে ই শিক্ষার মান খালি নীচের দিকে নামছেই ত নামছে। উপরে উঠার জো নাই।

আর আমাদের বর্তমান সরকার বুঝে গেছে- দেশ কে শিক্ষিত করলে বা মানুষ কে সচেতন করে তুলতে পারলে চুরি ডাকাতি ভোট চুরি করে ক্ষমতায় আসা, মাফিয়া গিরি করা, করাপ্শান করে টিকে থাকা, হাজার হাজার কুটি টাকা মেরে পালিয়ে যাওয়া, দেশের মেরুদণ্ড ভেংগে দেয়া সহ সকল অন্যায় এর বিরুদ্ধে সেই জনগন মাথা তুলে দাঁড়াবে।

সো , এই মাথা তুলে না দাড়াতে দেয়ার এক্টাই উপায়- জনগঙ্কে ভেড়া বানিয়ে রাখা।

একমাত্র অশিক্ষিত উন্মাদ বানায় রাখলেই সকল কিছুর সমাধান

৩| ১১ ই জুন, ২০২১ সকাল ৯:৪৮

চাঁদগাজী বলেছেন:



ব্যুরোক্রেটরা ও মিলিটারী সরকার মানুষকে প্ল্যান করে শিক্ষা থেকে দুরে রেখেছিলো; এখন শেখ হাসিনার সরকারই জেনারেল জিয়াকে অনুসরণ করছে।

১১ ই জুন, ২০২১ সকাল ৯:৫১

সাসুম বলেছেন: বাংলায় একটা সুন্দর কথা প্রচলিত আছে- নক্ষত্রের ও পতন হতে হয় একদিন।

আর এ পতনের পথে সবচেয়ে বড় ভুমিকা রাখে যারা চুপ করে থাকে আর সহমুত ভাই বলে চিল্লায় সেই সব বঙ্গ বরাহ শাবক রা।

৪| ১১ ই জুন, ২০২১ সকাল ১০:২২

কামাল১৮ বলেছেন: মসজিদ উদ্বোধন করতে যেয়ে শেখ হাসিনার ভাষনকে মনে হয় জামাতের কোন নেতা ভাষন দিচ্ছে।আর কতো নিচে নামবে শেখ হাসিনা।

১১ ই জুন, ২০২১ সকাল ১১:২৯

সাসুম বলেছেন: পিনাকি যেমন জামাআত শিবির বি এন পির কাফের শাখার মহাসচীব আমাদের পি এম হলেন আওয়ামী লীগের হেফাজত শাখার কওমি জননী । সবার কাছেই ধর্ম হল- ন্যাপকিন এর মত। জাস্ট ইউজ করেই ফেলে দিবে ডাস্টবিনে

৫| ১১ ই জুন, ২০২১ সকাল ১০:৪৮

খায়রুল আহসান বলেছেন: পোস্টের একেবারে শেষের অনুচ্ছেদে যা বলেছেন- "একদিকে পাবেন........ এবং আরেকদিকে পাবেন......." - সেগুলো ইতোমধ্যে পাওয়া শুরু হয়ে গেছে।

সবকিছু সচল ও সক্রিয়, শুধুমাত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো ছাড়া। তা কার স্বার্থে?

বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন উপাচার্যের কাহিনী পড়ে, যা পত্রিকায় এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় এসেছে, রীতিমত অবাক হতে হয়- এরা কি সত্যই শিক্ষিত?

১১ ই জুন, ২০২১ সকাল ১১:৩৩

সাসুম বলেছেন: জনগন কে শিক্ষিত করে তুল্লে, জ্ঞান বিজ্ঞান ভিত্তিক সমাজ প্রণয়ন করলে এবং মানুষ কে অন্ধকার থেকে আলোর দিকে নিয়ে আসলে মানুষ বুঝে যাবে এতদিন সেতু ফ্লাইওভার আর বড় বড় বিল্ডিং নামে যে উন্নয়ন এর ধুয়া দেখানো হয়েছে সেসব আসলে উন্নয়ন না জাস্ট দূর্নীতি করার হাতিয়ার বরং আসল উন্নয়ন হল জ্ঞান বিজ্ঞান আর শিক্ষায় উন্নয়ন। আসল উন্নয়ন হল হিউমান ডেভেলপমেন্ট নট ইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভেলপমেন্ট।

তখন ভোট চুরি ডাকাতি রাতের ভোটে ক্ষমতায় আসা লোকজনের গদি ধরে টানাটানি শুরু করে দিবে।

এর চেয়ে আন্ধা ফকির বানায়া ভিক্ষা করানো সেফ গেম

৬| ১১ ই জুন, ২০২১ সকাল ১০:৪৯

আমি নই বলেছেন: ৮-৯ হাজার কোটি টাকা মসজিদ তৈরিতে বরাদ্দ দেয়াতে আপনাদের এত কথা মনে হল? লাস্ট ১২ বছরেতো মসজিদ তৈরিতে কোনো বরাদ্দ ছিলোনা, তখন কই ছিলেন?

এটা বলছিনা যে তখন প্রতিবাদ না করে থাকলে এখন করা যাবেনা কিন্তু আপনার যেইভাবে বলতেছেন তাতে মনে হচ্ছে ৮-৯ হাজার কোটি টাকা দিয়ে মসজিদ বানানোর কারনে শিক্ষা, জ্ঞান-বিজ্ঞান, গবেষণা বন্ধ হয়ে যাচ্ছে বা এই ৮-৯ হাজার কোটি টাকা হলেই দেশের শিক্ষা ব্যবস্থা উন্নত দেশের মত হয়ে যাবে।

১১ ই জুন, ২০২১ সকাল ১১:২৭

সাসুম বলেছেন: ঠাকুর ঘরে কে রে?? না না না! আমি কলা খাইনা!!

এই পোস্টে আমি ধর্ম, মসজিদ, ইসলাম কোন কিছুই টেনে আনি নি।

একজন সচেতন নাগরিক এর পয়েন্ট অভ ভিউ থেকে তুলে ধরেছি দুনিয়ার সব চেয়ে কম বরাদ্ধ আমাদের এডুকেশান, জ্ঞান বিজ্ঞান, ইনোভেশান আর গবেষণায়। এবং দুনিয়ার অন্য দেশ এর সাথে তুলনা করে দেখিয়েছি আমরা কতটা পেছনে।

সব চেয়ে বড় কথা, লিখাটা লিখেছি বাজেট দেয়ার পরদিন, ফেবুতে পোস্ট করেছি জুনের ৪ তারিখ। সামুতে পোস্ট করেছি আজ ১১ জুন। বাংলাদেশ ইস্লামী আওয়ামী সরকারের দানের টাকায় তৈরি হওয়া মসজিদ এর খবর বাজারে আসছে ১০ ই জুন। তার মানে আমার এই লিখা কোন ভাবেই ধর্ম, মসজিদ, ইসলাম এর সাথে কোন রিলেশান নাই।

বাট, ঠাকুর ঘরের কলা চোরের মত-

আপনি ঠিকই বুঝে গেছেন দেশের শিক্ষা জ্ঞান বিজ্ঞান রিসার্স ইনোভেশান এইসবের জন্য বরাদ্ধ না করে টাকা মসজিদ বানানোর মত অকাজে খরচ করাটা একটা অপরাধ। কারন মসজিদ বানানো সরকারের কাজ না এবং দেশে প্রতি কোনায় কোনায় মসজিদ আছে। মসজিদ মন্দির বেসরকারি জিনিষ, এইসব রাস্ট্রের কাজ না। অলরেডি লক্ষ লক্ষ মসজিদ আছে এবং মানুষ নিজেদের টাকায় হাজার হাজার মসজিদ বানাচ্ছে।

এখন আপনি সরকারের এই অকাজ কে সাফাই গাইতে আমার এই লিখার বিপরীতে দাড় করিয়ে দিলেন।

মানে আপনি যে করেই হোক, আপনার ন্যারেটিভ আরেকজনের মুখ দিয়ে বের করেই আনবেন।

৭| ১১ ই জুন, ২০২১ সকাল ১১:৩৪

বিষন্ন পথিক বলেছেন: শিক্ষায় বরাদ্দ দিক আর আমি আপনি টিকটক, নৌকা, ধানের শিষ, দারিপাল্লার মারামারি ছেড়ে মানুষ হই! আসছেন এই ফালতু বাকোয়াজ নিয়ে!

১১ ই জুন, ২০২১ সকাল ১১:৪৬

সাসুম বলেছেন: দেশ থেকে শিক্ষা উঠিয়ে দেয়া হোক- এটাই আমাদের দাবি। কারন এখন শিক্ষার নামে যা হচ্ছে তা তামাশা ছাড়া আর কিছু ই না।

৮| ১১ ই জুন, ২০২১ দুপুর ১২:২৬

আমি নই বলেছেন: রাজিব নুরের আপনি কি চান? মসজিদ না টিকা? পোষ্টে আপনার করা মন্তব্য পড়ার পর এই পোষ্টটা আমি দেখেছি এবং আমার কাছে মনে হয়েছে আপনার এই পোষ্টটি ঐ রিলেটেড (যদিও পোষ্টে লেখা নেই)। যদি এই পোষ্টিটি মসজিদের বরাদ্দের সাথে রিলেটেড না হয়ে থাকে তাহলে স্যরি। আমি ক্লিয়ার?

আপনি কখন কোথায় লেখাটা লিখেছেন বা পাব্লিশ করেছেন তা আমার জানার কথা নয়।

একজন মুসলিম হিসেবে মসজিদ বানানো অকাজও মনে করিনা অপরাধো না তবে অপচয়ের বিরোদ্ধে। যে ধরনের প্লানিং এবং উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে মসজিদগুলো বানানো হবে তা সাধারন মানুষের দানের টাকায় কখনই সম্ভব নয়। আমাদের দেশের লক্ষ লক্ষ মসজিদের কতটিতে লাইব্রেরি আছে, প্রশিক্ষন কেন্দ্র আছে, উপকুল অন্চলে আশ্রয় কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহারের উপযোগিতা আছে তা আমার জানা নেই আপনার জানা থাকলে জানান। তবে আমার উপজেলায় এমন কোনো মসজিদ নেই সো এখানে দরকার আছে।
এই মসজিদগুলোকে শুধুমাত্র ইবাদতখানা হিসেবে না ব্যবহার করে সামাজিক বিভিন্ন কাজেও ব্যবহারের পরিকল্পনাটাও ভাল লেগেছে।

শিক্ষা, জ্ঞান-বিজ্ঞান, গবেষণায় সর্বোচ্চ বাজেট বরাদ্দ দেয়া উচিৎ এব্যপারে সন্দেহাতিত ভাবেই একমত।

১১ ই জুন, ২০২১ দুপুর ১২:৩২

সাসুম বলেছেন: আমি কার পোস্টে কি কমেন্ট করেছি সেটা ভেবে আমার এই নির্দোষ পোস্ট কে মসজিদ বিরোধী পোস্ট ভেবে নেয়া অন্যায়- এটা স্বীকার করেছেন এই জণ্য ধন্যবাদ।

আর হ্যা, আমাদের মসজিদ কখনোই সাধারন এর জন্য ছিল না, ছিল শুধু ইমাম, মোয়াজ্জেম আর মসজিদ কমিটির সভাপতিদের। ৫ ওয়াক্ট ৩০ মিনিট নামাজ ছাড়া সারা জীবন মসজিদ বন্ধ থাকে। এখন এই মডেল মসজিদ গুলা হয়ত মানুষের কাজে আসবে ( আপনার ধারনা ) বাট এটা যেহেতু বাংলাদেশ এবং এই মসজিদ গুলা ও চালাবে আমাদের দেশের মোমিন মোসলমান রা সো কতটা কাজে আসবে সেটা আমরা খুব ভাল করেই জানি।

তবে, এসব কথার চেয়ে বড় কথা, আমার পোস্ট টা তে মসজিদ টেনে এনে পুরা পোষ্টের ভাবগম্ভীর্যতা নস্ট অইলো :/ এটাই কস্টের ।

এখন মর্দে মোসলমান রা আইসা আপনার মত আমার উপর ঝাপিয়ে পড়বে আমি মসজিদ বিরোধী লিখা লিখেছি এটা নিয়ে যদিও আমার লিখা ছিল পুরাটা ভিন্ন।

যাই হোক, জ্ঞান বিজ্ঞান গবেষণার বাজেট বাড়ানোর ব্যাপারে একমত হতে দেখে ভাল্লাগ্লো।

৯| ১১ ই জুন, ২০২১ দুপুর ১২:৩১

আমি নই বলেছেন: রাজিব নুরের আপনি কি চান? মসজিদ না টিকা? আপনার মন্তব্য ছিল

সাসুম বলেছেন: দেশে লাখ লাখ মসজিদ থাকার পরেও ৮ হাজার কোটি টাকা খরচ করে মডেল মসজিদ বানানো দরকার নাকি শিক্ষা জ্ঞান বিজ্ঞান আর গবেষণায় বরাদ্দ দেয়া দরকার এটা যাদের মাথায় ঢুকেনা তাদের লগে বাহাস করা আর ছাগলের লাদিকে ইব্রাহিম লোদির সাথে তুলনা করা একই কথা।

আপনার ঐই মন্তব্য পড়ার পর এই পোষ্ট দেখে ধরে নিয়েছিলাম এই পোষ্টটির বক্তব্য আর ঐ মন্তব্যটির বক্তব্য এক।

১১ ই জুন, ২০২১ দুপুর ১২:৩৬

সাসুম বলেছেন: সেই পোস্টে আমি ক্লিয়ারলি বিরোধীতা করেছি রাস্ট্রের টাকা তেলা মাথায় তেল দেয়ার বরং যেখানে দরকার সেখানে ঢালার জন্য বলেছি ।

সেই পোস্টে কি মন্তব্য করেছি এটা আমার সম্পূর্ন ভিন্ন পোস্টে টেনে আনার মানে নেই।

১০| ১১ ই জুন, ২০২১ দুপুর ১২:৫৩

অপু তানভীর বলেছেন: জয় বাংলা
জিতবে এবার নৌকা !
দেশে উন্নয়নের জোয়ার বয়ে যাচ্ছে যাবে ..... :D :D

১১ ই জুন, ২০২১ দুপুর ১:০২

সাসুম বলেছেন: তুই তো আম্লীগ ছিলি সারাজীবন , পাকিস্তানী হলি কবে থেকে ?

এখনো সময় আছে অপু, ভাল হয়ে যাও।

১১| ১১ ই জুন, ২০২১ দুপুর ১:২৬

আমি নই বলেছেন: তবে, এসব কথার চেয়ে বড় কথা, আমার পোস্ট টা তে মসজিদ টেনে এনে পুরা পোষ্টের ভাবগম্ভীর্যতা নস্ট অইলো :/ এটাই কস্টের ।
আমার আগেই ৪ নম্বর মন্তব্যে কামাল১৮ মসজিদ টেনে আনল তখন আপনার পোস্টের ভাবগম্ভীর্যতা নস্ট হলোনা? সেখানেতো খুব পুতুপুতু করে কথা বললেন।

৫ ওয়াক্ট ৩০ মিনিট নামাজ ছাড়া সারা জীবন মসজিদ বন্ধ থাকে।
মসজিদ-নামাজ সম্পর্কে খুব একটা আইডিয়া আছে বলে মনে হয় না। আগে জানেন তার পর না হয় হিসাব দিয়েন।

এখন এই মডেল মসজিদ গুলা হয়ত মানুষের কাজে আসবে ( আপনার ধারনা ) বাট এটা যেহেতু বাংলাদেশ এবং এই মসজিদ গুলা ও চালাবে আমাদের দেশের মোমিন মোসলমান রা সো কতটা কাজে আসবে সেটা আমরা খুব ভাল করেই জানি।
আপনিতো সবই জানেন, আপনি নিশ্চই এটাও জানেন যে মোমিন মোসলমানের দেশে আপনার পোষ্ট পড়ে সরকারের কেউ শোধরাবেনা, তো শুধু শুধু পোষ্ট দ্যান ক্যা? কাথা মুরি দিয়ে ঘুমান। আর মসজিদ? কাজে আসলে ভালো, না আসলে নাই। এমনতো না বাংলাদেশের সব প্রজেক্টই শতভাগ জনসাধারনের কাজে এসেছে, অন্য হাজারটা প্রজেক্টের মত নাহয় আরও একটা প্রজেক্ট ফেইল হবে, এ্যানি প্রবলেম?

এখন মর্দে মোসলমান রা আইসা আপনার মত আমার উপর ঝাপিয়ে পড়বে আমি মসজিদ বিরোধী লিখা লিখেছি এটা নিয়ে যদিও আমার লিখা ছিল পুরাটা ভিন্ন।
আমি পুরো ক্লারিফিকেশন দিলাম, স্যরি বললাম তার পরেও আপনার মনে হল আমি আপনার উপর ঝাপিয়ে পরেছি? এটার মানে হল আপনি ক্যচাল করার জন্যই পোষ্টটা দিয়েছেন।

১১ ই জুন, ২০২১ দুপুর ১:৩২

সাসুম বলেছেন: পোস্ট লিখেছি দেশের শিক্ষা জ্ঞান বিজ্ঞান রিসার্স এর বাজেট আর সরকারের কাছে লো প্রায়োরিটি নিয়ে, ঝাপিয়ে পড়েছেন ইসলাম নিয়ে।

আসুন, এবার কল্লা ফেলার হুমকি টা দিয়ে সহীহ হয়ে যান। এ ছাড়া খুব বেশি কিছু করার নাই। বিঃদ্রঃ আমি দেশের বাইরে থাকি, সো দেশে আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

১২| ১১ ই জুন, ২০২১ দুপুর ১:৪৯

আমি নই বলেছেন: লেখক বলেছেন: পোস্ট লিখেছি দেশের শিক্ষা জ্ঞান বিজ্ঞান রিসার্স এর বাজেট আর সরকারের কাছে লো প্রায়োরিটি নিয়ে, ঝাপিয়ে পড়েছেন ইসলাম নিয়ে।

আসুন, এবার কল্লা ফেলার হুমকি টা দিয়ে সহীহ হয়ে যান। এ ছাড়া খুব বেশি কিছু করার নাই। বিঃদ্রঃ আমি দেশের বাইরে থাকি, সো দেশে আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।


গাজার নেশা বেশি হয়েছে নাকি? কোথাকার কথা কোথায় নিয়ে যাচ্ছেন, আপনি পারেনো বটে।
এরপরের উত্তরে কি লিখবেন? আমি হুমকি দিয়েছি এই মর্মে থানায় অভিযোগ দিয়েছেন?

১১ ই জুন, ২০২১ দুপুর ১:৫৩

সাসুম বলেছেন: জ্ঞান বিজ্ঞান আর শিক্ষায় বাজেট কেন বাড়ানো দরকার আপনার নিজের কাজ কর্মে সেটা অক্ষরে অক্ষরে প্রকাশ পাইতাছে।

এই বেশি বেশি বাজেট দিয়ে সার্টিফিকেট ধারী বেকুব তৈরি না করে মানুষ তৈরি করা হবে। জ্ঞানী গুণী শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে যাতে করে তারা ক্লাসরুমে ছাগল কে মানুষ বানাতে পারে জ্ঞান শিক্ষা দিয়ে খালি জিপিএ ফাইব এর পিছে না ছুটাইয়া।

১৩| ১১ ই জুন, ২০২১ দুপুর ২:১৭

আমি নই বলেছেন: কেউ নিজের ভুল স্বীকার করার পরে তার সাথে কিভাবে কথা বলতে হয় সেটা আগে শিখুন, এই সাধারন জ্ঞানটাও আপনার নেই। সার্টিফিকেট ধারী বেকুব কাকে বলে সেটা নিজের আয়নায় দেখুন।

এই পোষ্টে আমার ২য় মন্তব্যে আমি স্যরি বলার পর বিষয়টা ওখানেই শেষ হতে পারত, সেখানে আপনি কল্লা কাটা পর্যন্ত নিয়ে গেলেন। এটা একমাত্র অতিমাত্রায় মাদকসেবন অথবা মেন্টাল সমস্যায় থাকাদের পক্ষেই সম্ভব।

ডাক্তার দ্যাখান। ভাল হয়ে উঠুন।

১১ ই জুন, ২০২১ দুপুর ২:২৪

সাসুম বলেছেন: এই যে গায়ে পড়ে ঝগ্রা করতে আসছেন , নিজের কান্ধে টেনে নিচ্ছেন এটাই শিক্ষার অভাব। আর নিজে বাদে বাকি সবাইকে মেন্টাল সমস্যায় ভোগে এটা চিন্তা করাটাও কুশিক্ষার ফল।

আর আমি বেকুবের সাথে কিভাবে কথা বলতে হয়, এটা শিখার জন্য বেকুবের কাছ থেকে ট্রেনিং নিতে বেকুব এর বাসায় যাব। আশা করি বাংগু ল্যান্ড এর বাংগুর দল এর কাছ থেকে ভাল কিছু শিখতে পারব।

১৪| ১২ ই জুন, ২০২১ ভোর ৬:১৩

অনল চৌধুরী বলেছেন: সুইডেনে না গেলে ভালো শিক্ষা হবে না !!!!!
নাম পাল্টালেও ভাষা পাল্টানো যায় না।

১২ ই জুন, ২০২১ ভোর ৬:১৫

সাসুম বলেছেন: এই পোস্টের সাথে সুইডেন বা নাম পালটানো বা ভাষা পাল্টানোর রিলেশান কি স্যার?

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.