নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সম্পাদক, শিল্প ও সাহিত্য বিষয়ক ত্রৈমাসিক \'মেঘফুল\'। প্রতিষ্ঠাতা স্বেচ্ছাসেবী মানবিক সংগঠন \'এক রঙ্গা এক ঘুড়ি\'।

নীলসাধু

আমি খুব সহজ এবং তার চেয়েও বেশী সাধারন একজন মানুষ । আইটি প্রফেশনাল হিসেবে কাজ করছি। টুকটাক ছাইপাশ কিছু লেখালেখির অভ্যাস আছে। মানুষকে ভালবাসি। বই সঙ্গে থাকলে আমার আর কিছু না হলেও হয়। ভালো লাগে ঘুরে বেড়াতে। ভালবাসি প্রকৃতি; অবারিত সবুজ প্রান্তর। বর্ষায় থৈ থৈ পানিতে দুকুল উপচেপরা নদী আমাকে টানে খুব। ব্যাক্তিগতভাবে বাউল, সাধক, সাধুদের প্রতি আমার দুর্বলতা আছে। তাই নামের শেষে সাধু। এই নামেই আমি লেখালেখি করি। আমার ব্লগে আসার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। শুভকামনা রইলো। ভালো থাকুন সবসময়। শুভ ব্লগিং। ই-মেইলঃ [email protected]

নীলসাধু › বিস্তারিত পোস্টঃ

এক রাতে সত্যি খেয়াটি নদীতে খুব সুখে ভেসেছিল!

৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ সকাল ১১:৩৩

সিঁথির রঙ্গে নাক ডুবাতে পারেনি বালক!

আজন্মের অপূর্ণ সাধ মনে পুষে আসমান জুড়ে যে কাল মেঘ নেমেছিল সেদিন, একলা উড়ে যাওয়া চিলটির সাথে সেও ভিজেছিল বিকেল অবধি! রাত তার খুব কালো অন্ধকার সাথে নিয়ে বালকের আশ্রয় হয়েছিল।

এখন বালক কৃষ্ণচূড়া শিমুল দেখে খুব অবাক চোখে তাকিয়ে থাকে!



মনের মেঘগুলো জারুলের পাতায় বৃষ্টির বড় ফোটা হয়ে ছবি আঁকে যার

তাকে কোনদিন দেখেনি বালক। তবু চাতকের মতন অভিমানী দৃষ্টি মেখে দেয় সবুজ বন জুড়ে। আলোর প্রতি স্ফুরণে তার চোখে ভাসে সেই অবয়ব!

অলস দুপুরগুলো চৈত্রের নদীতে স্নান-শেষে ধানী জমিতে গা এলিয়ে দিলে বালক খুব উদাস হয়ে উঠে! গা ভেজানোর ইচ্ছে পাখীটা ডানা ঝাপটায় খুব!



ফড়িং এর দল শালিকটাকে পিঁপড়ের বাসা দেখাবে বলে সেই কবে থেকে বলছেই শুধু!

নীল পিঁপড়ের বাসায় কি সাপ আসে! শালিকটা প্রতিদিন হতাশ হয়ে ফিরে আসে, ফড়িং শুধু হাসে।

বালকের খুব ইচ্ছে করে পিঁপড়ের বাসাটাকে দূরে কোথাও রেখে আসতে!



কামিনী গন্ধে বালকের ঘুম ভাঙ্গে রাত্রির মধ্যভাগে!

গালে মুখে ছড়িয়ে পড়ে বৃন্ত-ডগা! রাতের শরীর বেয়ে নেমে আসে বন বকুলের পাপড়ি দল! অচেনা অনুরণন ঘরে, বালকের একসময় খুব ইচ্ছে করে জাপটে ধরে সকল চূর্ণ করে দিতে! ডুবে যেতে, ভাসাতে একলা খেয়াটি!



এক রাতে সত্যি খেয়াটি নদীতে খুব সুখে ভেসেছিল!

পরদিন বালকের চোখে মুখে রোদের আলপনা দেখতে ভীড় করেছি বনের সকল পাখিরা!

মন্তব্য ২৬ টি রেটিং +৬/-০

মন্তব্য (২৬) মন্তব্য লিখুন

১| ৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ দুপুর ১২:১৭

মামুন রশিদ বলেছেন: চমৎকার মুক্তগদ্য! মুগ্ধ :)

৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ বিকাল ৪:০৪

নীলসাধু বলেছেন: ধন্যবাদ ভাই

২| ৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ দুপুর ১:২৪

স্বপ্নবাজ অভি বলেছেন: দৃশ্যপটে ডুবে গিয়েছিলাম নীল দা , চমৎকার !

৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ বিকাল ৩:৫৪

নীলসাধু বলেছেন:
ধন্যবাদ সুপ্রিয় স্বপ্নবাজ অভি
শুভেচ্ছা রইলো

৩| ৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ দুপুর ১:৪৩

বোধহীন স্বপ্ন বলেছেন: ভালো।

৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ বিকাল ৩:৫৩

নীলসাধু বলেছেন: আমি ধন্য!

৪| ৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ বিকাল ৩:২০

মোঃ আনারুল ইসলাম বলেছেন: চমৎকার হইসে।

৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ বিকাল ৩:৫৩

নীলসাধু বলেছেন: ধন্যবাদ ভাই।

৫| ৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ বিকাল ৩:৫০

কাল্পনিক_ভালোবাসা বলেছেন: অসাধারন নীল দা!! সুখপাঠ্য!

৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ বিকাল ৩:৫৩

নীলসাধু বলেছেন: শুভেচ্ছা সুপ্রিয় কাল্পনিক ভালোবাসা।
শুভকামনা নিরন্তর।

৬| ৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ বিকাল ৪:৫৪

এম মশিউর বলেছেন: শৈল্পিক গদ্যে আচ্ছন্ন হয়ে পড়েছিলাম।


পাঠমুগ্ধ!

৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ বিকাল ৪:৩৫

নীলসাধু বলেছেন: ধন্যবাদ জানবেন। শুভেচ্ছা নিরন্তর।

৭| ৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ সন্ধ্যা ৬:২৬

নাছির84 বলেছেন: লেখার ভাষা শৈল্পিক এবং মনোমুগ্ধকর। তবে বাক্যগুলো আরেকটু ছোট হলে পড়তে সুবিধে হতো। কিন্তু নদীতে খেয়া ভাসিয়ে বালকের সুখআস্বাদনে তা খুব একটা বাধাসৃষ্টি করেনি। মুক্তগদ্য তো বটেই আমার মনে হয় শেষের এ কয়লাইনটায় আপনি কিছু একটা ধারন করেছেন, যা এককথায় দারুন-'কামিনী গন্ধে বালকের ঘুম ভাঙ্গে রাত্রির মধ্যভাগে!
গালে মুখে ছড়িয়ে পড়ে বৃন্ত-ডগা! রাতের শরীর বেয়ে নেমে আসে বন বকুলের পাপড়ি দল! অচেনা অনুরণন ঘরে, বালকের একসময় খুব ইচ্ছে করে জাপটে ধরে সকল চূর্ণ করে দিতে! ডুবে যেতে, ভাসাতে একলা খেয়াটি!

এক রাতে সত্যি খেয়াটি নদীতে খুব সুখে ভেসেছিল!
পরদিন বালকের চোখে মুখে রোদের আলপনা দেখতে ভীড় করেছি বনের সকল পাখিরা!'
শুভ কামনা রইল।

৮| ৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ সন্ধ্যা ৬:২৬

নাছির84 বলেছেন: লেখার ভাষা শৈল্পিক এবং মনোমুগ্ধকর। তবে বাক্যগুলো আরেকটু ছোট হলে পড়তে সুবিধে হতো। কিন্তু নদীতে খেয়া ভাসিয়ে বালকের সুখআস্বাদনে তা খুব একটা বাধাসৃষ্টি করেনি। মুক্তগদ্য তো বটেই আমার মনে হয় শেষের এ কয়লাইনটায় আপনি কিছু একটা ধারন করেছেন, যা এককথায় দারুন-'কামিনী গন্ধে বালকের ঘুম ভাঙ্গে রাত্রির মধ্যভাগে!
গালে মুখে ছড়িয়ে পড়ে বৃন্ত-ডগা! রাতের শরীর বেয়ে নেমে আসে বন বকুলের পাপড়ি দল! অচেনা অনুরণন ঘরে, বালকের একসময় খুব ইচ্ছে করে জাপটে ধরে সকল চূর্ণ করে দিতে! ডুবে যেতে, ভাসাতে একলা খেয়াটি!

এক রাতে সত্যি খেয়াটি নদীতে খুব সুখে ভেসেছিল!
পরদিন বালকের চোখে মুখে রোদের আলপনা দেখতে ভীড় করেছি বনের সকল পাখিরা!'
শুভ কামনা রইল।

৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ বিকাল ৪:৪৭

নীলসাধু বলেছেন: আন্তরিক মন্ত্যব্যের জন্য ভালোবাসা জানবেন।
শুভকামনা রইলো

৯| ৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ সন্ধ্যা ৬:২৬

নাছির84 বলেছেন: লেখার ভাষা শৈল্পিক এবং মনোমুগ্ধকর। তবে বাক্যগুলো আরেকটু ছোট হলে পড়তে সুবিধে হতো। কিন্তু নদীতে খেয়া ভাসিয়ে বালকের সুখআস্বাদনে তা খুব একটা বাধাসৃষ্টি করেনি। মুক্তগদ্য তো বটেই আমার মনে হয় শেষের এ কয়লাইনটায় আপনি কিছু একটা ধারন করেছেন, যা এককথায় দারুন-'কামিনী গন্ধে বালকের ঘুম ভাঙ্গে রাত্রির মধ্যভাগে!
গালে মুখে ছড়িয়ে পড়ে বৃন্ত-ডগা! রাতের শরীর বেয়ে নেমে আসে বন বকুলের পাপড়ি দল! অচেনা অনুরণন ঘরে, বালকের একসময় খুব ইচ্ছে করে জাপটে ধরে সকল চূর্ণ করে দিতে! ডুবে যেতে, ভাসাতে একলা খেয়াটি!

এক রাতে সত্যি খেয়াটি নদীতে খুব সুখে ভেসেছিল!
পরদিন বালকের চোখে মুখে রোদের আলপনা দেখতে ভীড় করেছি বনের সকল পাখিরা!'
শুভ কামনা রইল।

১০| ৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ রাত ৮:৫৬

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: চমৎকার খুব । ভাল লেগেছে ।

৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ বিকাল ৪:৪২

নীলসাধু বলেছেন: ধন্যবাদ জানবেন।
শুভকামনা নিরন্তর।

১১| ৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ রাত ১০:২১

মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় বলেছেন: ছোট গল্প হলেও ভাল্লাগছে । মুগ্ধ করেছে আমায় ।

৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ বিকাল ৪:৪২

নীলসাধু বলেছেন: ধন্যবাদ ভাইসাহেব।

১২| ৩০ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ রাত ১০:২৪

খেয়া ঘাট বলেছেন: এক রাতে সত্যি খেয়াটি নদীতে খুব সুখে ভেসেছিল!- এই লাইনটি ভালো লেগেছে। খুউব ভালো লেগেছে।
আর সত্যি কথা বলতে কি, শুধু এ লাইনটিই বুঝতে পেরেছি।

৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ বিকাল ৪:৪৬

নীলসাধু বলেছেন: হা হা হা

কবি হিসেবে আমি তবে ব্যার্থ B:-) B-) :P

১৩| ৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ রাত ১২:২৬

এহসান সাবির বলেছেন: মুগ্ধ, নীল দা.............

৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ বিকাল ৪:৪৩

নীলসাধু বলেছেন: ধন্যবাদ জানবেন।

১৪| ৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ ভোর ৬:৫৯

মাঈনউদ্দিন মইনুল বলেছেন: কবিতা পড়তে এমন মজা অনেক দিন পর পেলুম B-)

মুগ্ধতা জানাই, কবি :)

৩১ শে ডিসেম্বর, ২০১৩ বিকাল ৪:৩৩

নীলসাধু বলেছেন: ভালুবাসা রইলো উস্তাদ

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.