নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সত্যের অন্বেষণে আছি, কিন্তু পথ খুঁজে পাচ্ছি না! আমি সেই অজ্ঞ মানব!

রাফিন জয়

সত্যের অন্বেষণে আছি, কিন্তু পথ খুঁজে পাচ্ছি না! আমি সেই অজ্ঞ মানব!

রাফিন জয় › বিস্তারিত পোস্টঃ

**অত্যধিক ত্যালবাজি**

২৫ শে নভেম্বর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৪১


৭ই মার্চের ভাষণ ইউনেস্কো কর্তৃক ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ স্বীকৃতি পাওয়ায় ২৫শে নভেম্বর নাগরিক সমাবেশ হবে এটা জানা ছিল। জানতাম সেটা হবে সার্বজনীন একটা সমাবেশ। কিন্তু দেখলাম তা শুধু আওয়ামীলীগ ইস্যুতে সমাবেশ। তাই তো আমাদের ইন্টারমিডিয়েট কলেজের শিক্ষার্থীদের সাথে যাচ্ছে নৌকা প্রতিকি। আওয়ামীলীগ ইস্যুতে যা হয় আরকি! কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছে আমি নিজে গিয়েছিলাম বন্যার্তদের জন্য ত্রাণ সংগ্রহের অনুমতি নিতে ছাত্র ইউনিয়নের হয়ে কয়েক মাস পূর্বে। কিন্তু তখন কলেজ কর্তৃপক্ষ সরাসরি বলে দিয়েছিলো যে রাজনৈতিক কোন কিছু কলেজে এলাও করা হবে না। তাই মাত্র ৪-৫ জন বন্ধু মিলেই প্রত্যেক ক্লাসে গিয়ে বন্ধুদের থেকে স্ব-উদ্যোগে ত্রাণ উত্তোলন করেছিলাম। কলেজ কোন ঘোষণাও করেনি। তবে আমার কয়েকজন স্যার এবং মিস আমাকে অনেক সাহায্য করেছিলো বাধা থাকা সত্ত্বেও। যাই হোক, আজকে কলেজের সামনে দেখলাম নৌকা প্রতিকি দেখে ১ম বর্ষের একটা ছোট ভাইকে জিজ্ঞাসা করলাম যে কলেজ কি এলাও করেছে এইসব। ও উত্তর দিলো যে হ্যা করেছে।

বুঝতে আর কিছু বাকি রইলো না। কয়েকটা বন্ধুকে জিজ্ঞাসা করলাম, সার্বজনীন ভাবে এবং কোন দল কেন্দ্রিক না হয়ে যাওয়াটা কি উচিৎ ছিল না? উত্তরে একটা বন্ধু বলল, অত্যধিক ত্যালবাজি এটা। বলে কোন কাজ নেই। যেতে ইচ্ছে হচ্ছে না এখন।

মুক্তিযুদ্ধ ছিল একটা জন যুদ্ধ। বঙ্গবন্ধু কারোর একার সম্পত্তি নয় এটা একেবারেই বাস্তব। তবে জোটের রাজনীতিতে একদল বঙ্গবন্ধুকে একেবারেই ব্যক্তিগত সম্পত্তি মনে করে, আরেকদল দেশদ্রোহী বলে আখ্যায়িত করে।

সব শেষে মন্তব্য একটাই, আমার সমাজটা পূঁজির দালাল আর ক্ষমতার পূজারী। তাই তো আমার দেশের বন্যার্তদের পাশে কেউ থাকেনা, ক্ষমতার পূজায় আবার ঠিকই লিপ্ত হয়!

মন্তব্য ১৩ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (১৩) মন্তব্য লিখুন

১| ২৫ শে নভেম্বর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৫৪

চাঁদগাজী বলেছেন:


যেটা সঠিক সেটা করেন, এসব সমস্যা ক্রমেই বিলীন হবে।

২| ২৫ শে নভেম্বর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৬:৫৯

শাহিন-৯৯ বলেছেন: অস্বাভাবিকতা মানুষ ভুলেই যাচ্ছে।

৩| ২৫ শে নভেম্বর, ২০১৭ সন্ধ্যা ৭:৪৩

তারেক ফাহিম বলেছেন: ত্রানের সাহয্য পেতে অাপনাকেতো কলেজের মেম ও শিক্ষক সহায়তা করছেন।

বেশিরভাগেই বিরক্ত হয়।
বর্নাথ্য- রহিঙ্গা, রহিঙ্গা বর্নাথ্য যেভাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে যাচ্ছে টিচাররা বিরক্ত না হওয়ার কারণও নাই।

২৬ শে নভেম্বর, ২০১৭ সকাল ৯:৪৭

রাফিন জয় বলেছেন: রোহিঙ্গা ইস্যুতে তখন তেমন একটা সারা ছিল না। ২৪ আগস্ট পুলিশ পোষ্টে আক্রমণের পর থেকে সংকট বেশি দেখা দেয়। এর আগে তেমনটা ছিল না। আমরা বন্যার ইস্যুতে আরও আগে গিয়েছিলাম!

৪| ২৫ শে নভেম্বর, ২০১৭ রাত ৮:০৫

রাজীব নুর বলেছেন: তারা আনন্দ উৎসব করেছে- আর আমাদের কি কষ্ট সারাটা দিন।

২৬ শে নভেম্বর, ২০১৭ সকাল ১০:০০

রাফিন জয় বলেছেন: আহারে!

৫| ২৫ শে নভেম্বর, ২০১৭ রাত ৯:২৪

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: যেখানে স্কুল লীগ খোলার মতো অদূরদর্শীতা বাস্তবায়িত হয়... সেখানে এ আর কি??

৬| ২৫ শে নভেম্বর, ২০১৭ রাত ১০:০১

আবু তালেব শেখ বলেছেন: তেল মারতে মারতে একদিন তেল শুন্য হয়ে পড়বে

২৬ শে নভেম্বর, ২০১৭ সকাল ১০:০২

রাফিন জয় বলেছেন: তাতে কি? সৌদি আরব থেকে তেল আমদানি করবে!

৭| ২৬ শে নভেম্বর, ২০১৭ রাত ২:৪৩

হাসান কালবৈশাখী বলেছেন:
বংগবন্ধু কারো একার সম্পত্তি নয়, বললেন।
কিন্তু দেশের একটি বড় দলের সদস্য ও সমর্থকরা 'বংগবন্ধু' সুধু নামটি উচ্চারন করতেও ব্যাপক হ্যাসিটেশনে ভুগে।
বক্তৃতা বা টকশোতে কখনো শুনিনি শেখ মুজিবর কে 'বংগবন্ধু' বলেছে।
মুক্তিযুদ্ধের স্লোগান 'বংগবন্ধু' 'জয়বাংলা' এসব উচ্চারন করলে মনে হয় ওদের অজু নষ্ট হয়ে যাবে।

২৬ শে নভেম্বর, ২০১৭ সকাল ১০:০২

রাফিন জয় বলেছেন: কথা মিথ্যা নয়, তবে একটু বানানে সচেতন হবেন।

৮| ২৮ শে নভেম্বর, ২০১৭ বিকাল ৩:৩৮

হাসান কালবৈশাখী বলেছেন:
বানানে ও শব্দ গঠনে আপনিও একটু সচেতন হোন।
আমার 'উচ্চারন' বানানটি ভুল ছিল। হবে - উচ্চারণ

কিন্তু অন্যের বনান ভুল ধরার আগে নিজের দিকটাও লক্ষ রাখা উচিত।

ত্যালবাজি - তেলবাজি
প্রতিকি - প্রতীক

ধন্যবাদ।

২৯ শে নভেম্বর, ২০১৭ দুপুর ১:৩৯

রাফিন জয় বলেছেন: ধন্যবাদ। তবে ত্যালবাজি কথাটা বিকৃত করেই বলাছিল। প্রতীকী বানান আমার ভুল ছিল সেটা আমি ঠিক করে নিচ্ছি। তবে আমি বঙ্গবন্ধু বানানটার জন্য আপনাকে বলেছিলাম

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.