নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সত্যের অন্বেষণে আছি, কিন্তু পথ খুঁজে পাচ্ছি না! আমি সেই অজ্ঞ মানব!

রাফিন জয়

সত্যের অন্বেষণে আছি, কিন্তু পথ খুঁজে পাচ্ছি না! আমি সেই অজ্ঞ মানব!

রাফিন জয় › বিস্তারিত পোস্টঃ

****

০৫ ই মার্চ, ২০১৮ সকাল ১১:৫২

গতবছর কলেজে একটা বাংলা ক্লাসের সময় শারমিন আজাদ ম্যাম 'রেইনকোট' গল্পটার শেষে একটা চমৎকার লেকচার দিয়েছিলো। ম্যাম বলেছিল দেশটাকে পঙ্গু করে দিতেই মূলত সব বুদ্ধিজীবী, বরেণ্য লেখক, জহির রায়হানের মত চলচিত্র নির্মাতা, মুনিরুজ্জামান স্যারের মত শিক্ষকদের খুন করা হয়েছিলো। কারণ যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশে ইন্সট্রাকশন দেয়ার মত তখন কেউই থাকবে না। যারা কারণে বাংলাদেশ প্রায় ৪৫ বছর পিছিয়ে এখনো। আর শত্রুপক্ষ সব সময় এই কাজটাই করে নিজেদের স্বার্থ বাঁচানোর জন্য। তারা জাতিকে পঙ্গু করে রাখতে চায়। পাকিস্তানীরাও করেছিলো।
সত্যিই তো, এটা তো একটা প্রাচীন ঐতিহ্য। বিজ্ঞান এবং মুক্তচিন্তার মধ্য দিয়ে যারা মানব কল্যাণের কথা ভাবতো, যাদের কাছে কেবল মানুষই সব এবং সভ্যতার বিকাশ যারাই করতে চেয়েছিল, স্বার্থান্বেষীরা তাদের নাস্তিক ও নিহিলিস্ট ট্যাগ দিয়ে খুন করার প্রচেষ্টা চালিয়েছে।
ইতিহাসের পাতায় এমন আক্রমণের শিকার হওয়া মানুষের অভাব নেই। সক্রেটিস (হোক সে ভাববাদী), ব্রুনো, কোপার্নিকাস, গ্যালিলিও, মার্টিন লুথার কিং, আব্রাহাম লিংকন, নেলসন মেন্ডেলা, মুনিরুজ্জামান স্যার, জহির রায়হান, শহিদুল্লাহ কায়সার, হুমায়ূন আজাদ, অভিজিৎ রায়, তসলিমা নাসরিন, জাফর ইকবাল স্যারসহ অসংখ্য নাম রয়েছে।
কিন্তু প্রত্যেকবারই রাষ্ট্র যন্ত্র বরাবরের মতই মুখে তালা ঝুলিয়ে বসে থাকে। চোখে তাদের তখন টিনের চশমা থাকে। তারা তখন কিছু দেখতে পায় না। তখন বিষয়টাতে দৃষ্টিপাত করাই যেন তাদের জন্য একটা ট্যাবু!

মন্তব্য ১ টি রেটিং +০/-০

মন্তব্য (১) মন্তব্য লিখুন

১| ০৫ ই মার্চ, ২০১৮ দুপুর ১২:২৪

বারিধারা ২ বলেছেন: আপনি বলছেম বুদ্ধিজীবী নিধনের কাজ পাকিস্তানীরা করেছিল। এখানে একটা আপত্তি আছে। ৭১ সালের ১৪ই ডিসেম্বর পাকিস্তানিরা সব দিক থেকে ঘেরাও হয়ে আছে - আত্মসমর্পণের জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত, নিজেদের জান নিয়েই টানাটানি। এ অবস্থায় তারা দেশের বুদ্ধিজীবীদেরকে অপহরণ করে হত্যা করবে - এই দাবি করা কতটুকু বাস্তব? তার চেয়ে কি এই যুক্তি অধিক গ্রহণযোগ্য যে সদ্য স্বাধীন দেশটি শোষণের পথে যেন কেউ বাধা হয়ে না দাঁড়ায় - এজন্যে এ কাজটি ভারত করেছিল! বেঁচে যাওয়া বুদ্ধিজীবী জহির রায়হান এবং তার পরিবারের সদস্যদের কথাবার্তা এবং আচার আচরণ অনেকটাই সেরকম ইঙ্গিত দেয়।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.