নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সত্যের অন্বেষণে আছি, কিন্তু পথ খুঁজে পাচ্ছি না! আমি সেই অজ্ঞ মানব!

রাফিন জয়

সত্যের অন্বেষণে আছি, কিন্তু পথ খুঁজে পাচ্ছি না! আমি সেই অজ্ঞ মানব!

রাফিন জয় › বিস্তারিত পোস্টঃ

আদর্শ খুনি ও ধর্ষক ছাত্রলীগ

০৩ রা মে, ২০১৮ সকাল ৯:৫৪





ফেরদৌস আফসানা নামটির সকলের পরিচিতি আছে। যাকে ধর্ষন করে হত্যা করা হয় ২০১৬ সালে।
যার প্রধান আসামী ছিলো তেঁজগাও কলেজের ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুর রহমান রবীন।
কিন্তু আফসানার পরিবার কোন বিচার পেলো না।
আজ দেখলাম ছাত্রলীগ তাকে পুরস্কৃত করেছে তেঁজগাও কলেজের সভাপতি করে। বাহ্ জয়েতু ছাত্রলীগ।
--দীপক শীল
সভাপতি, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন ঢাকা মহানগর সংসদ

২০১৬ সাল ২/৩ আগস্ট বা কৃ বি তে ছাত্র ইউনিয়নের কর্মশালা।সেখানে আফসানার সাথে প্রথম কথা হলো।তারপর আমাদের সখ্যতা গড়ে উঠলো।এক সপ্তাহ যেতে না যেতেই আফসানাকে তেজগাঁও কলেজের ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রবিন খুন করলো।২০১৮ সাল,২ মে রবিনকে তেজগাঁও কলেজের ছাত্রলীগের সভাপতি পদ দেয়া হলো।সহযোদ্ধা বন্ধু এই বোনটি খুব ভালো গান গাইতো।এদেশে যারা গান করে তাদেরকে খুন করা হচ্ছে!!!!!
--রনিয়া সুলতানা ঝুমুর
(সাধারণ সম্পাদক, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সংসদ; সমাজকল্যাণ ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন কেন্দ্রিয় সংসদ)

মন্তব্য ১৮ টি রেটিং +৬/-০

মন্তব্য (১৮) মন্তব্য লিখুন

১| ০৩ রা মে, ২০১৮ সকাল ১০:০০

কামরুননাহার কলি বলেছেন: বিচার তো ওদের একদিন হবেই ভাইয়া। সেই দিন ওরা কোন কুল কিনারা পাবেনা।

০৩ রা মে, ২০১৮ সকাল ১০:১০

রাফিন জয় বলেছেন: কি জানি, আদৌ হবে কি না। তবে প্রত্যাশা করি। আফসানা আপু যেন বিচার পায়।

২| ০৩ রা মে, ২০১৮ সকাল ১০:০৭

চোরাবালি- বলেছেন: অন্যায়, মারামারি, ক্ষমতার দাপট, খুন একধরনের নেশা। কখন যে অন্যের সাথে করতে করতে নিজেদের মধ্যে ছড়িয়ে পরে কেও বুঝতেই পারে না।

৩| ০৩ রা মে, ২০১৮ সকাল ১০:৩২

রাজীব নুর বলেছেন: দুই পাগল সব না জেনে শুনে - দুই বদকে পদ দিলো। এখন তারা দেখাবে ক্ষমতা কাকে বলে।

৪| ০৩ রা মে, ২০১৮ সকাল ১০:৫০

নতুন নকিব বলেছেন:



সত্য কথা বলতে সাহস লাগে। বুকের পাঠা থাকতে হয়। এই পোস্টে আমার বিশ্বাস, নামী দামি ব্লগারদের অনেকেই হয়তো পিঠ বাঁচাতে আসবেন না। গল্প কবিতা দিন, দেখবেন বসন্তের কোকিলের অভাব নেই। রম্য কৌতুক দিয়ে দেখুন, লাইক কমেন্টসে হাপিয়ে উঠবেন আপনি। পোস্টে আন্তরিক ধন্যবাদ।

আমাদের অনুভূতি ভোঁতা হয়ে গেছে। অপরাধকে আমরা অপরাধ জ্ঞান করি না। বিচারের বানী এখানে নিভৃতে কেঁদে যায়। অত্যাচারীর খড়গ আফসানাদের ছোট্ট জীবনগুলো কুড়ে কুড়ে খেয়ে যাচ্ছে। আমরা ভাল মানুষের মুখোশের আড়ালে নিকৃষ্ট মানসিকতা লালন করেই যাই।

ছাত্রলীগ, ছাত্রদল আর শিবির বুঝি না। একজন খুনি ধর্ষক কিভাবে পদ পেয়ে সম্মানিত হতে পারে?

০৩ রা মে, ২০১৮ রাত ১১:৩৭

রাফিন জয় বলেছেন: আসল সমস্যা হচ্ছে আমাদের মেরুদণ্ড সোজা নয়। এর আগেও শুধু ফেসবুকে লেখালেখির জন্য ছয় ছয়বার হুমকি খেয়েছি। মাদকের ছড়াছড়ির সরাসরি একটা ভিডিও ফুটেজ ধারণ করে আমার একটা বন্ধু সোশ্যাল মিডিয়ায় নিয়ে এসেছিলো। স্থানীয় পাণ্ডাদের কাছে খুন হওয়া থেকে ওতো শুধু ভাগ্যের জোরে বেঁচে গেছে। পুলিশ কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। বাধ্য হয়ে ও এখন রাশিয়াতে। ম্যাডিকাল সাইন্সের স্টুডেন্ট।

৫| ০৩ রা মে, ২০১৮ সকাল ১১:০৪

মঈনুদ্দিন অারিফ মিরসরায়ী বলেছেন: ধন্যবাদ নকিব আপনার সাহসী মন্তব্যের জন্য। এডমিন প্যেনেলওযে সেই নন্দিত(!) ব্লগারদের মত। তাদের আবার রোষানলে পড়লে আমার মত ঝুলিয়ে দিবে

৬| ০৩ রা মে, ২০১৮ সকাল ১১:৩৭

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: @নতুন নকিব এতো স্বৈরাচারিতরাই প্রমাণ!

বাঘা বাঘা রাজনৈতিক স্যটায়ার করা ব্লগারগণও এখন কবিতায় বুদ!
আটপৌড়ে জীবনে গুম খুনের ত্রাসে কে যেতে চায়
বিপ্লবের ডাক দেয়ার কেউ নেই!
বেঘোরে প্রাণ হারাতে চায়না কেউই!

টুটুি ধরা মিডিয়ার জমানায় আপনার কি মনে হয় সামু ব্লগেও সেই লোমস কালো হাত চেপে নেই????
তারপরও সাধুবাদ এখনো সার্ভাইব করে আছে! মাথা নত না করেই।

যখন প্লাবন আসে তখন ভেসে যাওয়াতে সাফল্য নেই। বরং তা রুখতে এবং পরবর্তী কার্যাবলী চালাতেও বলিষ্ঠ মানুষ প্রয়োজন।
মাওলা আলীকে তাইতো দেখী নিরবে হাত বাঁধা হয়ে কথিত খলিফার দুয়ারে নিরব রইতে!

আশা করি বুঝতে পেরেছেন- রাজনৈতিক পোষ্টে কম সক্রিয়াতার রহস্য ;)

৭| ০৩ রা মে, ২০১৮ সকাল ১১:৪৫

শামচুল হক বলেছেন: বলার কিছু নাই

৮| ০৩ রা মে, ২০১৮ দুপুর ১২:২১

আল-শাহ্‌রিয়ার বলেছেন: মাঝে মাঝে অবাক হই ছাত্রলীগ কিভাবে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে গড়া সংগঠন হতে পারে! ছাত্রলীগ হল বর্তমানে ছাত্রদের জন্য কলঙ্ক। ভালো এবং মেধাবী কোন ছাত্র এই সংগঠনের ভালো পদ পায় না। শুধুমাত্র সন্ত্রাসী আর অছাত্রদের জন্যই ছাত্রলীগের পদগুলো বরাদ্দ করা হয়।

৯| ০৩ রা মে, ২০১৮ দুপুর ১:০৩

নির্লিপ্ত হিমু বলেছেন: খুনি, দর্শক, লুটেরারা রাজনীতিতে পুনর্বাসিত হয়, কারণ তাদের সন্ত্রাস ও পেশীতে ভর দিয়ে আমাদের রাজনৈতিক দলগুলো টিকে থাকে। বিএনপি এখন সন্ত্রাস করতে পারছে না, তাই তারা দুর্বল ও ক্ষমতায় আসার অযোগ্য হয়ে পড়েছে, তাদের যতই পপুলারিটি থাকুক না কেন। অন্য দিকে আ'লীগ রাষ্ট্রীয় ও অরাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস করে যেতে পারছে, তাই তারা সব দখল করে রাখতে পেরেছে। এমন দেশে খুনি-সন্ত্রাসী-ধর্ষক-দুর্নীতিবাজেরা পুরস্কৃত হওয়াটা স্বাভাবিক।

যাহোক। 'ছাত্রলীগ'-এর ল-এর উপর ঈ-কার হিসেবে দেশীয় অস্ত্র ব্যবহার করা যে ছবি আপনি দিয়েছেন, সেটা দারুণ হয়েছে।

১০| ০৩ রা মে, ২০১৮ দুপুর ১:০৩

নির্লিপ্ত হিমু বলেছেন: খুনি, দর্শক, লুটেরারা রাজনীতিতে পুনর্বাসিত হয়, কারণ তাদের সন্ত্রাস ও পেশীতে ভর দিয়ে আমাদের রাজনৈতিক দলগুলো টিকে থাকে। বিএনপি এখন সন্ত্রাস করতে পারছে না, তাই তারা দুর্বল ও ক্ষমতায় আসার অযোগ্য হয়ে পড়েছে, তাদের যতই পপুলারিটি থাকুক না কেন। অন্য দিকে আ'লীগ রাষ্ট্রীয় ও অরাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস করে যেতে পারছে, তাই তারা সব দখল করে রাখতে পেরেছে। এমন দেশে খুনি-সন্ত্রাসী-ধর্ষক-দুর্নীতিবাজেরা পুরস্কৃত হওয়াটা স্বাভাবিক।

যাহোক। 'ছাত্রলীগ'-এর ল-এর উপর ঈ-কার হিসেবে দেশীয় অস্ত্র ব্যবহার করা যে ছবি আপনি দিয়েছেন, সেটা দারুণ হয়েছে।

১১| ০৩ রা মে, ২০১৮ দুপুর ১:৩৪

ব্লগার_প্রান্ত বলেছেন: বিপ্লবের অপেক্ষায়...

১২| ০৩ রা মে, ২০১৮ দুপুর ১:৪১

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: ছাত্রলীগের পদপদবির ক্ষেত্রে হত্যা ধর্ষণকে প্রধান যোগ্যতা হিসাবে বিবেচনা করা হয়

১৩| ০৩ রা মে, ২০১৮ দুপুর ২:০৩

আল ইফরান বলেছেন: সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে *না ধারানোর জন্য এই-রকম দুই একটা কোল্যাটেরাল ড্যামেজ কোন ব্যাপার হইলো ! ! !
আপনে আসছেন মানবতা-ন্যায়বিচারের গান গাইতে X(( :-& /:)
৭৩-৭৫ এর ইতিহাস আগে পড়েন, আর গাজিউল হকের পোলাপাইনের হাতে মেজর ডালিমের বউরে লাঞ্ছিত করার ঘটনা খুব খিয়াল কইরা।
জয় বাংলা বলে আগে বেড়ে ধর্ষন করো :-&

১৪| ০৩ রা মে, ২০১৮ বিকাল ৩:০৪

আখেনাটেন বলেছেন: জঘন্য এদেশের রাজনীতি! জঘন্য এদের মানসিকতা! কীভাবে এমন কুলাঙ্গারদের পৃষ্ঠপোষকতা করে তারা? বিবেক কি একবারও বাধা হয়ে দাঁড়ায় না?

১৫| ০৩ রা মে, ২০১৮ বিকাল ৩:২৪

মো: মাসুদ রানা (এম আর) বলেছেন: সত্য কথা বলার সাহস কয় জনের আছে। কত শয়তানের দলকে দেখলাম তারা অন্যকে দোষারোপ করতে ব্যস্ত।

১৬| ০৩ রা মে, ২০১৮ রাত ১১:৩৮

রাফিন জয় বলেছেন: আসল সমস্যা হচ্ছে আমাদের মেরুদণ্ড সোজা নয়। এর আগেও শুধু ফেসবুকে লেখালেখির জন্য ছয় ছয়বার হুমকি খেয়েছি। মাদকের ছড়াছড়ির সরাসরি একটা ভিডিও ফুটেজ ধারণ করে আমার একটা বন্ধু সোশ্যাল মিডিয়ায় নিয়ে এসেছিলো। স্থানীয় পাণ্ডাদের কাছে খুন হওয়া থেকে ওতো শুধু ভাগ্যের জোরে বেঁচে গেছে। পুলিশ কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। বাধ্য হয়ে ও এখন রাশিয়াতে। ম্যাডিকাল সাইন্সের স্টুডেন্ট।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.