নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

স্টিগমা

রাফিন জয়

স্টিগমা

রাফিন জয় › বিস্তারিত পোস্টঃ

হেজিমনি আর আমরা।

১০ ই আগস্ট, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৪৭

ভাইভা আর প্রেজেন্টেশনের আমি যে খুব একটা বিরোধী বিষয়টা এমন নয়। তবে সিস্টেমটার মারাত্মক বিরোধী। ছোট থেকে শেখ সাদির গল্প "Dress Doesn't Make a Man Great" পড়ে পড়ে বড়ো হলেও ভাইভা আর প্রেজেন্টেশনের সময় ছোটবেলার শিক্ষাকে কাচ-কলা দেখিয়ে ডেস্কে দাড়িয়ে টপিকটার প্রেজেন্টেশন করি। কিংবা ভাইভা বোর্ডে শুটেড-বুটেড ভদ্রলোক হয়ে মার্ক ভিক্ষা করি। অনেকেই প্রশ্ন ছুড়তেই পারেন যে স্মার্টনেস বলে কি তবে কিছুই থাকবে না? কোন জায়গায় কেমন হওয়া উচিৎ সেই বোধ কি মানুষের থাকবে না? অবশ্যই সে বোধ দরকার। তবে আমার পয়েন্ট অফ ভিউ ব্যাখ্যা করলে কয়েকটা প্রশ্ন আগে চলে আসে। আমাদের স্মার্টনেসের মেজারিং স্ক্যাল কী? শুধু ওয়েস্টার্ন হওয়াকেই স্মার্টনেস ভাবছেন কী? ফর্মাল ড্রেস-কোড মানেই শুট-টাই-শুজ কেনো? ফর্মাল মানেই কি তবে তা? স্মার্টনেস মানেই কি তবে ওয়েস্টার্ন হওয়া?

বিষয়টা আসলে আমাদের কাছে তাই এখন। শুধু পোশাক নয়, ভাষার ক্ষেত্রেও তাই। যেমন কোন এক ভদ্রলোক ঠিকঠাক প্রমিত বাংলা না জানলেও আমাদের সমস্যা নেই। তবে ইংলিশে ঠিক থাকলেই হলো। আর যদি ব্রিটিশ বা আমেরিকান এক্সেন্ট ধরতে পারে, তাহলেই সে সো কল্ড স্মার্ট মানুষ।

এবার টু দ্য পয়েন্টে আসা যাক। আমার মনে হয় যোগ্যতা বিচারের জন্য বিশেষ কোনো এক্সেন্ট বা ড্রেস-কোড দরকার হয়না। দরকার পরিমিতিবোধ ও দক্ষতা।

তবে আমি কোট-টাইয়ের বিরোধী না। আপনার ভালো লাগলে আপনি তা পরেন বা ধুতি-ফতুয়া, পাঞ্জাবি-পাজামা, বেগিজিন্স আর কাতুয়া যা খুশি পরেন, তবে পরিমিতিবোধ বুঝে নিবেন আগে। নইলে নিজের অজান্তেই আপনি হিপোক্রিট হবেন। যদিও সেটা আমাদের মজ্জাগত।

অবাক হচ্ছেন? হওয়ারই কথা। তবে সত্য যে তিতাই হবে। ব্রিটিশ হেজিমনি টার্মে আমরা যতোই ব্রিটিশদের গালাগাল দেই, সাংস্কৃতিক আগ্রাসন বলে ব্রিটিশদের নিকুচি গুষ্ঠি উদ্ধার করলেও আমরা পরশ্রীকাতরতায় ভুগছি। সঙ্গে হীনমন্যতায়ও ভুগছি। আমরা নিজেরাও মনে করি আমাদের সংস্কৃতি-ঐতিহ্য সবটাই ভোকাস এবং ব্রিটিশরাই সেরা। নইলে তারা চলে যাওয়ার সাত দশক অতিক্রম করার পরেও আমরা একদিকে ব্রিটিশদের গালি দিয়ে, ব্রিটিশ হেজিমনিকে নাস্তানাবুদ করে, অন্যদিকে স্মার্টনেসের স্ক্যাল এমন দাড় করাতাম না।

মন্তব্য ৪ টি রেটিং +০/-০

মন্তব্য (৪) মন্তব্য লিখুন

১| ১০ ই আগস্ট, ২০২০ রাত ৮:১৯

রাজীব নুর বলেছেন: আপনি আধুনিক মানুষ।

২| ১০ ই আগস্ট, ২০২০ রাত ৮:৫৮

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: পহেলা বৈশাখে বাঙালি পোশাক পরা গেলে সারা বছর কেন সম্ভব না। আরবদের হাজার দোষ আছে। তবে একটা গুন স্বীকার করতে হয়। সেটা ওদের নিজেদের পোশাকের প্রতি ভালোবাসা। নিজের দেশে ওরা অন্য পোশাক সাধারণত পরে না। আগে রাজনীতিবিদরা সাদাসিধে পোশাক পড়তো। এখন তারাও জাঁকজমক পূর্ণ পোশাক পরে। ব্রিটিশ শাসনকালের হীনমন্যতা আমরা আজও বয়ে বেড়াচ্ছি। নিজেদের সংস্কৃতি শুধু আমরা পহেলা বৈশাখে মানি। সারা বছর মানি না।

৩| ১০ ই আগস্ট, ২০২০ রাত ৯:২১

রাফিন জয় বলেছেন: পাঞ্জাবি, ফতুয়, ধুতি এইগুলা আমাদের ঐতিহ্, এখন আর এইগুলা সংস্কৃতি না। তাই বিষয়টা খুব একটা ঝামেলার না। তবে বাইন্ডিংস চলে আসলেই সমস্যা।

৪| ১০ ই আগস্ট, ২০২০ রাত ৯:২২

রাফিন জয় বলেছেন: রাজীব নুর, সম্ভবত আধুনিক। তবে বন্ধুরা ক্ষেত বলে।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.