নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমার নাম- রাজীব নূর খান। ভাবছি ব্যবসা করবো। ভালো লাগে পড়তে- লিখতে আর বুদ্ধিমান লোকদের সাথে আড্ডা দিতে। কোনো কুসংস্কারে আমার বিশ্বাস নেই। নিজের দেশটাকে অত্যাধিক ভালোবাসি। সৎ ও পরিশ্রমী মানুষদের শ্রদ্ধা করি।

রাজীব নুর

আমি একজন ভাল মানুষ বলেই নিজেকে দাবী করি। কারো দ্বিমত থাকলে সেটা তার সমস্যা।

রাজীব নুর › বিস্তারিত পোস্টঃ

নামাজ পড়ুন, আল্লাহকে খুশি রাখুন

১০ ই এপ্রিল, ২০১৯ রাত ৯:১৪



খুব ভোরে আমার ঘুম ভেঙে যায়, ফজরের নামাজ পড়ে হাঁটতে বের হই। টানা তিন মাইল হাঁটি। এই কারণে আমার কোনো অসুখ বিসুখ হয় না।

নবী করিম (সাঃ) নামাজকে আরোগ্য দানকারী হিসেবে অভিহিত করেছেন।
যদি আমরা শুদ্ধ নিয়মে নামাজ আদায় করি তাহলে আমাদের শরীরের প্রতিটি অঙ্গেরই মুভমেন্ট হয়। ফলে রক্তসঞ্চালনও সুন্দরভাবে চলতে থাকে। নবীজী মেহেদিকে মাথা ব্যথার প্রতিষেধক বলেছেন।

সূরা নাহলে মধুকে শেফা দানকারী ঘোষণা করা হয়েছে। আর নবীজীরও নির্দেশ, ‘যে ব্যক্তি প্রতি মাসে তিন দিন সকাল বেলায় মধু সেবন করবে তার কোনো কঠিন ব্যাধি হবে না।
হাদিসে কালো জিরা সর্বরোগের ওষুধ বলা হয়েছে। অপর দিকে কালো জিরা বিভিন্ন ঠাণ্ডা জাতীয় ব্যাধির ওষুধ ছাড়াও যকৃৎ, পাকস্থলী, মূত্রাশয়ের শক্তিবর্ধক।

মহানবী সাঃ বলেছেন, ‘যখন রোগ যন্ত্রণা খুব কষ্টদায়ক হয় তখন এক চিমটি কালোজিরা, অতঃপর পানি ও মধু সেবন করবে।
হাদিস ও ইতিহাস বিশ্লেষকদের মতে নবীজীর প্রিয় খাবারের তালিকায় ছিল তরমুজ, মধু, লাউ, দুধ, যাইতুন, খেজুর, ভুনা গোশত, পাখির গোশত, মাছ আর তিনি অত্যধিক গরম ও বাসি খাবার এড়িয়ে চলতেন। তিন দুধ ও মাছ যেমন কখনো একসঙ্গে খেতেন না, তেমনি দু’টি গরম, দু’টি ঠাণ্ডা, নরম বা আঠালো জিনিসও একসাথে খেতেন না।
নবীজী আমাদের ক্ষুধার সাথে সামঞ্জস্যশীল এবং পরিমিত আহারেরও পরামর্শ দিয়েছেন।

অনুরোধঃ শুধু কোরান পাঠ করলেই হবে না তা বুঝতে হবে।

মন্তব্য ৩২ টি রেটিং +৪/-০

মন্তব্য (৩২) মন্তব্য লিখুন

১| ১০ ই এপ্রিল, ২০১৯ রাত ৯:৫২

নতুন নকিব বলেছেন:



আপনি ধর্মীয় বিষয়ে পোস্ট দিলে ভালো লাগে। আগেও দিয়েছিলেন। বেশ উপভোগ্য হয় এগুলো। কিন্তু কেউ কেউ কেন যেন অনর্থক দ্বিধা-দ্বন্দে পড়েন।

শুভকামনা সবসময়।

১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ৯:০২

রাজীব নুর বলেছেন: শুভ সকাল।
আপনি আমার পোষ্টে মন্তব্য করলে আমার ভালো লাগে। খূশি লাগে।

২| ১০ ই এপ্রিল, ২০১৯ রাত ১০:১৬

বলেছেন: আপনার অসুখ নেই কিন্ত কিছুদিন আগেই তো বললেন দাঁতে ব্যথা!!

সবাই সুস্থ থাকুন।

১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ৯:০২

রাজীব নুর বলেছেন: আমি কঠিন অসুখের কথা বলেছি।

৩| ১০ ই এপ্রিল, ২০১৯ রাত ১০:৩৩

কলাবাগান১ বলেছেন: মিথ্যা কথা কেন বলেন.,.

১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ৯:০৩

রাজীব নুর বলেছেন: সাদা মিথ্যা বলি।
সাদা মিথ্যা বললে পাপ হয় না।

৪| ১০ ই এপ্রিল, ২০১৯ রাত ১০:৪৬

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: আমার এক সহকর্মীর সা‌থে আমার কথা হ‌চ্ছিল কেন নামাজ প‌ড়ি তাই নি‌য়ে। আ‌মি বললাম: আমি নামাজ প‌ড়ি কারণ আ‌মি জান্না‌তে যে‌তে চাই। উ‌নি বল‌লেন, আ‌মি নামাজ প‌ড়ি আল্লাহ‌কে রা‌জি খুশী করার জন্য। আ‌মি বল্লাম, ঘটনা তো একই। আল্লাহ রা‌জিখু‌শি হ‌লে তো আপনা‌কে জান্নাত দান কর‌বেনই। উ‌নি বল‌লেন, সেটা আ‌মি জা‌নি না। সেটা আল্লাহর ব্যাপার। আ‌মি তা‌কে খুশী করার জন্য নামাজ প‌ড়ি। খুশি হ‌য়ে জান্নাত দান কর‌লে আ‌মি নেব।

১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ৯:০৩

রাজীব নুর বলেছেন: একই কথা।

৫| ১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ রাত ১২:০৮

হাসান কালবৈশাখী বলেছেন:
নামাজ পড়ছেন, এটা প্রচারও করছেন!
লোক দেখানো এবাদত, দান খয়রাত, লোক দেখানো লেবাস ধারন, এসবে কোন ফজিলত নেই।
ইসলামে এইসব শোঅফ নিষিদ্ধ।

১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ৯:০৪

রাজীব নুর বলেছেন: আমি এসব প্রচার করছি মানুষকে উদ্বুদ্ধ করার জন্য।

৬| ১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ রাত ১২:৩০

গায়েন রইসউদ্দিন বলেছেন: লেখককে ধন্যবাদ, নামাজ ও উপযোগী খাদ্যবস্তুর কথা এবং রোগ নিরাময়ের কথা সহজ-সুন্দরভাবে বলেছেন।

১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ৯:০৫

রাজীব নুর বলেছেন: শুকরিয়া।

৭| ১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ ভোর ৪:২৪

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: পোষ্টে বেশ মুল্যবান কথা বলা হয়েছে ।
ইসলাম ধর্মাবলম্বি সকলেই জানেন যে আল্লা মানুষের জন্য কিছু দৈহিক, আত্মিক ও আর্থিক এবাদতের প্রচলন করেছেন। দৈহিক এবাদতের মাঝে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ ও মহান এবাদত হল সালাত তথা নামাজ । সালাত এমন একটি এবাদত যাকে আল্লাহ তাঁর মাঝে এবং তাঁর বান্দার মাঝে সম্পর্ক স্থাপনের মাধ্যম সাব্যস্ত করেছেন। সালাতের মাধ্যমে একজন মানুষ আল্লাহর সাথে দেয়া প্রতিশ্রুতির বার বার প্রতিফলন ঘটায়। সে তার প্রভু বা স্রষ্টাকে বুঝাতে সক্ষম হয় যে, সে তার প্রতিশ্রুতি পালন করে যাচ্ছে। এ সালাতের মাধ্যমেই মানুষ আল্লাহর নৈকট্য লাভ করে। আল্লাহর সাথে মানুষের সম্পর্কের বন্ধন সুদৃঢ় ও মজবুত হয়। ইহকাল ও পরকালের মুক্তির পথ কংটকমুক্ত হয়। সালাত ব্যক্তি, পরিবার, সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় জীবনে শান্তি, শৃঙ্খলা, ভ্রাতৃত্ব ও মমতাবোধ ফিরিয়ে আনে। গড়ে উঠে সামাজিক ঐক্য । সালাতের মাধ্যমে ছগীরা তথা ছোট ছোট গুনাহগুলো হতে পরিত্রাণ লাভ করে এবং দুনিয়া ও আখেরাতের কল্যাণ লাভ হয় ।

আল্লাহ মানুষের দুর্বলতা, অক্ষমতা, দরিদ্রতা ও অভাব-সবই জানেন। তিনি এও জানেন যে, তাদের এমন এক মহা শক্তি বিদ্যমান থাকা প্রয়োজন, যার নিকট তারা বিপদে আশ্রয় নিবে, তার কাছে সাহায্য প্রার্থনা করবে, অতপর আল্লাহ নিজেই তার বান্দাদের জন্য এর পথ ও প্রবেশদ্বার খুলে দেন-দৈনিক পাঁচ বার নির্দিষ্ট সময়ে বান্দা সে পথ ও প্রবেশদ্বারের ফটক খুলবে এবং এ ছাড়াও যখন ইচ্ছা প্রবেশ করতে পারবে।

সালাতের যে অসীম উপকারিতা রয়েছে তা বলে শেষ করা যাবেনা তবে এখানে এই পোষ্টে আপনার মুল্যবান কথামালার সাথে প্রসঙ্গক্রমে মন্তব্যের ঘরে আরো দুএকটি কথা বলা হল ।

সালাত হলো আল্লাহর জিকির প্রতিষ্ঠা করার একটি অন্যতম মাধ্যম । সালাত মানুষকে তার স্রষ্টার কথা স্মরণ করিয়ে দেয়।
সালাত একজন মুসলমানের মনোবল চাঙ্গা করে এবং শক্তি বৃদ্ধি করে। ফলে সে তার জন্য ইহকালীন জীবনের কষ্ট ক্লেশ এবং জাগতিক সকল প্রকার বিপদ আপদ সহজে মোকাবিলা করতে সক্ষমতা লাভ করে।

সালাত মোমিনের অন্তর ও মনুষত্বকে শক্তিশালী করতে সহযোগিতা করে এবং তাকে কল্যাণকর কাজে উৎসাহ জোগায় ও খারাপ কাজ হতে বিরত থাকার জন্য শক্তি জোগায়। এছাড়া সালাত অন্তরে আল্লাহর ধ্যানকে বদ্ধমূল করে এবং ওয়াক্ত সংরক্ষণের প্রতিশ্রুতি পূরণে সমর্থন দেয় এবং প্রবৃত্তির চাহিদা ও আলস্যকে পরাজিত করে।

ধন্যাবাদ মুল্যবান পোষ্টটির জন্য ।

শুভেচ্ছা রইল

১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ৯:০৫

রাজীব নুর বলেছেন: চমৎকার মন্তব্য করেছেন।

৮| ১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ ভোর ৫:৩১

চাঁদগাজী বলেছেন:



মধু, কালোজিরা, খেজুর, ইত্যাদি ভালো জিনিষ; এগুলো মানুষকে মহামারী থেকে রক্ষা করেনি কোনদিন।

১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ৯:০৬

রাজীব নুর বলেছেন: মহামারী কথা বাদ দিয়ে- একক ভাবে মানূষের উপকার করে নিরবে।

৯| ১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ৭:১০

ঢাবিয়ান বলেছেন: পোস্টটা মুলত বিশ্বাষিদের জন্য , অবিশ্বাষিদের জন্য নয়।
পোস্ট খুব সুন্দর হয়েছে রাজীব নুর।
আরবীতে কোরআন মুখস্থর চাইতে অনেক বেশী জরুরী , এর অর্থ বুঝতে চেষ্টা করা এবং তা জীবন যাপনে মেনে চলার চেষ্টা করা। বাস্তবে আমাদের দেশে হয় ঠিক তার উলটো। সবাই আরবীতে কোরআন পড়ে, কিন্ত কোন অর্থ না বোঝায় বাস্তব জীবনে তার প্রয়োগ নাই। প্রচলিত একটা ধারনা যে কেবল নামাজ পড়া, রোজা রাখা, হজ্বে যাওয়া, মহিলাদের হিজাব পড়ার মাঝেই ইসলাম সীমাবদ্ধ। মাদ্রাসা ও মসজিদগুলোতেও এইসব লোক দেখানো নিয়ম পালনের ওপড়ই জোর দেয়। অথচ নবীজি প্রতিটি কর্মের ওপড়ে যত নির্দেশ দিয়েছেন সেগুলোর ওপড় জোর দেয়ার প্রয়োজন অনেক বেশি।

১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ৯:০৭

রাজীব নুর বলেছেন: সুন্দর মন্তব্য করেছেন।ভালো থাকুন।

১০| ১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ৯:৪১

হাবিব স্যার বলেছেন: শেষ কথাটা বেশি জরুরী।

নামাজ পড়লে আল্লাহ ব্যস্ততা কমিয়ে দেন।

১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ২:৪১

রাজীব নুর বলেছেন: আল্লাহ মহান।

১১| ১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ সকাল ১০:৪৫

তারেক_মাহমুদ বলেছেন: শুধু কোরাআন পড়লেই হবে না বুঝতে হবে।

সহমত।

১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ২:৪২

রাজীব নুর বলেছেন: মানুষ কোরআন পড়ুক। হৃদয়ে ধারন করুক। তবেই বিশ্বে শান্তি ফিরে আসবে।

১২| ১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ১:০৮

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: কাল পরশুই আবার আরেকটা ধর্ম বিরোধী মন্তব্য প্রসব করবেন হয়তো বা...

১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ২:৪৩

রাজীব নুর বলেছেন: আমি কখনই ধর্মীবিরোধি নই। আমি কুসংস্কারের বিরুদ্ধে।

১৩| ১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ১:৩৩

গড়ল বলেছেন: ভাতের মধ্যে ক্যান্সার প্রতিষেধক আছে যা মধু, কালোজিরা বা খেজুরের মধ্যে নেই।

Times of India news - Scientists find anti-cancer properties in three rice varieties

১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ২:৪৪

রাজীব নুর বলেছেন: ভাতও আল্লাহর নিয়ামত।

১৪| ১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ২:৪১

নজসু বলেছেন:




সুন্দর পোষ্ট।

১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ২:৪৪

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ।

১৫| ১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ রাত ৯:১৩

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
সুরা লাহাব পড়ে আপনি কি জ্ঞান অর্জন করেছেন আমাকে একটু বুঝিয়ে বলুন।
আমি বুঝতে পারিনি।

১১ ই এপ্রিল, ২০১৯ রাত ১০:০৮

রাজীব নুর বলেছেন: সুরা লাহাব নিয়ে পড়ে পোষ্ট দিব।

১৬| ১২ ই এপ্রিল, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৪৪

মাহমুদুর রহমান বলেছেন: শেষ কথাটাই গুরুত্বপূরন।আমিও এটা আপনাকেও অনুরোধ করবো।

১২ ই এপ্রিল, ২০১৯ রাত ১১:৩০

রাজীব নুর বলেছেন: জ্বী। ধন্যবাদ।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.