নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমার নাম- রাজীব নূর খান। ভাবছি ব্যবসা করবো। ভালো লাগে পড়তে- লিখতে আর বুদ্ধিমান লোকদের সাথে আড্ডা দিতে। কোনো কুসংস্কারে আমার বিশ্বাস নেই। নিজের দেশটাকে অত্যাধিক ভালোবাসি। সৎ ও পরিশ্রমী মানুষদের শ্রদ্ধা করি।

রাজীব নুর

আমি একজন ভাল মানুষ বলেই নিজেকে দাবী করি। কারো দ্বিমত থাকলে সেটা তার সমস্যা।

রাজীব নুর › বিস্তারিত পোস্টঃ

আকাশের ওপারে আকাশ

০১ লা মে, ২০১৯ সকাল ১০:৪৪



কিছুক্ষন আগে নিশ্চিত হলাম আজ আমার ফাঁসি।
এক সময় ফযরের নামাজের আগে ফাঁসি দিত। এখন দেয় রাত বারোটার আগে। আমাকে ফাঁসি দেয়ার পর হয়তো জল্লাদ ওযু করে দুই রাকাত নামাজ পড়ে নিবে। একটু আগে জেলার সাহেব নিজে এসে আমার কাছে জানতে চাইলেন- কিছু খেতে ইচ্ছা করে কিনা? তার হাতে জলন্ত সিগারেট। তিনি হাসি মুখে সিগারেটের পেকেট আমার দিকে বাড়িয়ে দিলেন। কি মনে করে পুরো পেকেটটাই দিয়ে দিলেন। আবারও জিজ্ঞেস করলেন- রাতে কি খেতে ইচ্ছা করছে। আমি বললাম, ইলিশ মাছের ডিম দিয়ে করলা ভাজি। আর ঘন ডাল। জেলার সাহেব বললেন আর কিছু না? জেলার সাহেব চলে যাবার আগে বললেন কাউকে কিছু বলতে হবে বা জানাতে? আমি ছোট করে বললাম- না। রাত আট টার মধ্যে খাবার চলে আসবে বলে, জেলার সাহেব চলে গেলেন। তাকে বেশ চিন্তিত মনে হলো। ফাঁসির আসামীকে কারাগারের প্রতিটা লোক খুব মমতা দেখায়। দিন যত ঘনিয়ে আসে, মমতার পরিমান তত বাড়তে থাকে।

ফালগুন মাস চলছে।
খবরের কাগজে পড়লাম শেষ রাতের দিকে নাকি শীত পড়ে। জেলখানাতে শীতের কোনো কারবার নেই। এখানে একটাই ঋতু, তা হলো গরম কাল। কারাগারে কষ্টের শেষ নেই। সীমাহীণ কষ্ট। কর্তৃপক্ষ চাইলে কয়েদিদের কষ্ট বেশ কমিয়ে ফেলা যায়। আমার সেল এর সামনে যে গার্ড এখন ডিউটি দিচ্ছেন তার বাড়ি ময়মনসিংহ। নাম সোলায়মান। সে বেচারা একটু পরপর পান খায়। যতবার পান মুখে দেয় তত বার আমাকে পান খাওয়ার জন্য বলে। দীর্ঘ এক বছরের বেশি সময় ধরে লোকটার সাথে নানান বিষয় নিয়ে কথা হয়েছে। বেচারা কে খুশি করার জন্য তার কাছ থেকে পান নিয়ে মুখে দিলাম। কাঁচা সুপারি আর জর্দা দেয়া পান। মাথা ঘুরাচ্ছে আমার। সিগারেট খেলেও পানটা আমি খাই না।

পান মুখে দিয়েই আমার নীলা'র কথা মনে পড়ল।
নীলা প্রায়'ই পান খেত। নীলার সাথে আমার বিয়ে হয় অগ্রহায়ণ মাসের সাত তারিখে। কিছুক্ষন পরেই আমার ফাঁসি হবে নীলাকে গলা কেটে হত্যার কারণে। অথচ খুনটা আমি করি নাই। বরং নীলার প্রতি আমার প্রচন্ড ভালোবাসা। সেদিন আমার শরীরটা খুব খারাপ লাগছিল। নীলা কপালে হাত রেখে বলল, তোমার তো অনেক জ্বর। আজ অফিসে যেও না। আমি বললাম, পাগল হয়েছো আজ বড় স্যারের সাথে জরুরী মিটিং আছে। আমাকে যেতেই হবে। দু'টা নাপা খেয়ে নিলেই জ্বর দৌড়ে পালাবে। আমি অফিসে গেলাম, দুপুরের পর নীলা ফোন দিয়ে কাঁপা এবং ভীত গলায় বলল, তুমি এখনই বাসায় চলে আসো। আমি বললাম কেন? কি হয়েছে? নীলা আর কিছু না বলেই ফোন রেখে দিল।

আমি অফিস থেকে শর্ট লিভ নিয়ে দ্রুত বাসায় ফিরলাম।
আমার বাসা ঝিগাতলা। ছয় তলায় আমার ফ্ল্যাট। লিফট নেই। দৌড়ে সিড়ি দিয়ে উঠলাম। অনেকক্ষন কলিংবেল টিপলাম কিন্তু নীলা দরজা খুলছে না। অজানা এক ভয়ে আমার সারা শরীর কাঁপছে। কপাল বেয়ে টপ টপ করে ঘাম পড়ছে। দরজা ধাক্কা দিতে গিয়ে দেখি- দরজা খোলা। আমি ঘরে ঢুকলাম। সারা ঘরময় রক্তের ছোপ ছোপ দাগ। বিছানার উপর নীলার মাথা বিহীন ডেড বডি পড়ে আছে। ফ্রীজের ঢাকনা খোলা সেখানে নীলার গলা কাটা মাথাটা রাখা। আমি হতভম্বের মতো নীলার দিকে তাকিয়ে রইলাম। তারপর দৌড়ে সিড়ি দিয়ে নেমে পড়লাম। দাড়োয়ান দরজা খুলে দিল- আমি রাস্তায় নেমে পড়লাম।

কোর্টে উকিল সাহেব আমাকে নোংরা প্রশ্ন করে-করে আমাকে মানসিকভাবে বিধ্বস্ত করে দিল।
আমার সাথে অন্য মেয়ের শারীরিক সম্পর্ক আছে। বাসায় আমার জন্য নীলা কাজের লোক রাখতে পারে না। অনেক মেয়ের সাথে আমার যৌন সম্পর্ক আছে। এবং নীলা তা জানতে পারে। প্রতিদিন রাতে আমি মদ খেয়ে বাসায় ফিরি, নীলাকে শারীরিক অত্যাচার করি। ইত্যাদি ইত্যাদি। এইসব নোংরা প্রশ্নের জবাব আমি ইচ্ছে করেই দেইনি। আমার রুচি'তে বাঁধছিল। সবচেয়ে বড় কথা উকিল সাহেব চিবিয়ে চিবিয়ে বললেন, যদি আপনি খুন না করতেন তাহলে আপনি পালিয়ে না গিয়ে প্রতিবেশিকে ঘটনা জানাতে পারতেন, পুলিশে খবর দিতে পারতেন। তা না করে আপনি সদরঘাট গিয়ে টিকেট কেটে এমভি মাছরাঙ্গা লঞ্চে উঠে পড়লেন। পুলিশ যখন আপনাকে সেখান থেকে গ্রেফতার করলো- তখনও আপনার হাতে রক্তের দাগ লেগেছিল।

রাত ন'টা।
জেলার সাহেব কথা রেখেছেন। ইলিশ মাছের ডিম দিয়ে করলা ভাজি আর ঘন ডাল পাঠিয়েছেন। আমি খুব আরাম করে খেলাম। নীলা'র প্রিয় খাবার ছিল ইলিশ মাছের ডিম দিয়ে করলা ভাজি। আর ঘন ডাল। বাজারে যাওয়ার সময় আমি যখন নীলাকে জিজ্ঞেস করতাম কি আনব? নীলা বলত- ডিমওয়ালা ইলিশ মাছ। আর করলা। আচ্ছা, মৃত্যুর পর কি আমি এই খাবার পাবো? ছুটির দিন গুলোতে আমি নীলাকে ঘরের কাজে সহযোগিতা করতাম। বিকেলে হাঁটতে বের হতাম আমরা দু'জনে। মাঝে মাঝে সিনেমা দেখতে যেতাম। নীলাকে এক আকাশ অবাক করে দিয়ে হুট করে নিউমার্কেট থেকে শাড়ি কিনে দিতাম। নীলা খুব সহজ সরল মেয়ে। রাতে ঘুমানোর সময় সে একটা হাত আমার গায়ে দিয়ে রাখত।

রাত নয়টা মনে হয় বেজে গেছে।
একজন এসে আমাকে আমাকে গোছল করিয়ে দিল। সেভ করিয়ে দিল। পরিস্কার জামা পড়িয়ে দিল। কারাগারের ইমাম সাহেব এসে আমাকে তওবা পড়িয়ে দিলেন। গার্ড সোলায়মান এসে বলল, মনে সাহস রাখেন। আল্লাহর নাম স্মরণ করেন, ডর কম লাগবে। আমি গার্ডকে বললাম, মৃত্যুর আগে আপনাকে একটা সত্য কথা বলে যাই- আমি আমার স্ত্রীকে খুন করিনি। আমি নির্দোষ। সোলায়মান বলল, ফাঁসির সব আসামী'ই এই কথা বলে রে ভাই।
আমার দুই হাত বাঁধা হলো। আমি দৌড়ে পালিয়ে যেতে পারব না, তারপরও আমাকে দুইজন টেনে ফাঁসির মঞ্চের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। আমি চিৎকার চেচামেচি কিছুই করছি না। যা ফাঁসির অনেক আসামী'ই করে। হঠাত আমার খুব ঘুম পাচ্ছে। চোখে মেলে তাকাতে পারছি না। আমাকে ধরে মঞ্চে তোলা হলো। জল্লাদ আমাকে জম টুপি পরিয়ে দিল। আর কি আশ্চর্য ঠিক তখন আমি নীলা'র হত্যাকারীকে চিনতে পারলাম।


(আজ তিনদিন পর সামুতে প্রবেশ করতে সক্ষম হলাম। সামু ওপেন হয় না। নানান রকম ভাবে চেষ্টা করলাম। পক্সি দিয়ে চেষ্টা করার পর দেখলাম- পেজ ওপেন হয় কিন্তু মন্তব্য দেখা যায়, মন্তব্য করা যায় না এমনকি পোষ্ট করাও যায় না। বিরাট বিপদ। আজ ছোট ভাই আইটি এক্সপার্ট সে ব্যবস্থা করে দিল। কিন্তু এইভাবে আর কতদিন। স্বাভাবিক নয়মে কি ব্লগিং করতে পারবো না?)

মন্তব্য ৪৬ টি রেটিং +৬/-০

মন্তব্য (৪৬) মন্তব্য লিখুন

১| ০১ লা মে, ২০১৯ সকাল ১০:৫২

নূর আলম হিরণ বলেছেন: মূল গল্পে নীলাকে গলাটিপে মারা হয়েছিল, জল্লাদের হাতে সিগারেটের গন্ধ পেয়ে মূল খুনীকে চিনতে পেরেছিল।

০২ রা মে, ২০১৯ রাত ১০:১৮

রাজীব নুর বলেছেন: ইয়েস।
ভেরি গুড।

২| ০১ লা মে, ২০১৯ সকাল ১১:৩৪

আর্কিওপটেরিক্স বলেছেন: ভালো লেগেছে :)

০২ রা মে, ২০১৯ রাত ১০:২১

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ।

৩| ০১ লা মে, ২০১৯ সকাল ১১:৫৩

চাঁদগাজী বলেছেন:


জাতির তরুণরা লিখতে পারে না, লজিক্যালী ভাবতে পারে না; ব্লগিং এই ২টি সমস্যার সমাধান করছিলো; সরকার ও প্রশাসনের উচ্চ পদের লোকেরা সেটা টের পেয়েছে, ঝামেলা সেখানে।

০২ রা মে, ২০১৯ রাত ১০:২২

রাজীব নুর বলেছেন: তবে একটা ব্যাপার পরিস্কার হলো সরকার সামুকে ভয় পায়।

৪| ০১ লা মে, ২০১৯ সকাল ১১:৫৪

চাঁদগাজী বলেছেন:


ছবির মেয়েটার দাঁতগুলো অপরিস্কার।

০২ রা মে, ২০১৯ রাত ১০:২৩

রাজীব নুর বলেছেন: হা হা হা

৫| ০১ লা মে, ২০১৯ সকাল ১১:৫৭

পবিত্র হোসাইন বলেছেন: নীলার কি নীল শাড়ি আছে?

০২ রা মে, ২০১৯ রাত ১০:২৫

রাজীব নুর বলেছেন: আছে।

৬| ০১ লা মে, ২০১৯ দুপুর ১২:২৭

রোকসানা লেইস বলেছেন: একটা আস্ত গল্প লিখে ফেলেছো! তবে আরো নিজের মতন লিখ অন্যের ছায়া খুব বেশি।

০৪ ঠা মে, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:১৩

রাজীব নুর বলেছেন: অন্যের ছায়া ইচ্ছায় করেই রেখেছি।

৭| ০১ লা মে, ২০১৯ দুপুর ১২:৩৮

জাহিদ অনিক বলেছেন:
নীলার খুনি কে তাহলে! মরার আগে আগে চিনে ফেললেন!
আমি তো চিনতে পারলাম না। আমার নিজেকে মাঝে মধ্যে খুনী খুনী লাগে।

সামুতে ঢুকতে আজকাল সত্যিই অনেক কসরত করতে হয়।

০৪ ঠা মে, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:১৪

রাজীব নুর বলেছেন: সামুতে ঢুকতে পারছি না। এমন কি ভিপিএন দিয়ে কাজ করতে পারছি না।

৮| ০১ লা মে, ২০১৯ দুপুর ১:১১

হাবিব স্যার বলেছেন: এমন হবার কারন কি? আমি তো ভিপিএন ব্যবহার করে সহজেই চালাতে পারছি।

০৯ ই মে, ২০১৯ রাত ৯:১৩

রাজীব নুর বলেছেন: ভাই আমি পারছি না।

৯| ০১ লা মে, ২০১৯ দুপুর ১:৩৬

হাসান কালবৈশাখী বলেছেন:
আপনার কাছে মাইয়াদের ছবির বিশাল কালেক্সান!

০৯ ই মে, ২০১৯ রাত ৯:১৫

রাজীব নুর বলেছেন: না আমার কাছে আমার নিজের তোলা ছবিই নেই। আমি কোনো কিছুই যত্ন করে রাখি না।

১০| ০১ লা মে, ২০১৯ দুপুর ২:০৮

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: বেশ ভালো লাগলো ভাইয়ের নীলার কাহিনী। ইলিশ মাছের ডিম আমারও ভীষণ প্রিয়।

শুভকামনা ও ভালোবাসা প্রিয় ছোট ভাইকে।

০৯ ই মে, ২০১৯ রাত ৯:১৬

রাজীব নুর বলেছেন: ভালোবাসা নিরন্তর।

১১| ০১ লা মে, ২০১৯ দুপুর ২:৩৬

করুণাধারা বলেছেন: ভয়ংকর গল্পটা শেষ পর্যন্ত পড়লাম, কিন্তু খুনী কে বুঝতে পারলাম না!

০৯ ই মে, ২০১৯ রাত ৯:১৭

রাজীব নুর বলেছেন: ফাসির আসামী ঠিক বুঝতে পেরেছে।

১২| ০১ লা মে, ২০১৯ বিকাল ৩:২৪

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: এরকম একটা লেখা হুমায়ূন আহমেদ এর বই‌য়েও প‌ড়ে‌ছি। এটার নাটকও আ‌ছে। তৌ‌কির ম‌নে হয় নায়ক।

০৯ ই মে, ২০১৯ রাত ৯:১৮

রাজীব নুর বলেছেন: না তৌ‌কির নয়।

১৩| ০১ লা মে, ২০১৯ বিকাল ৪:১৯

ভুয়া মফিজ বলেছেন: গত কয়েকদিন আপনাকে দেখি নাই মনে হয়? কোন সমস্যা? আশাকরি ভালোই ছিলেন।

০৯ ই মে, ২০১৯ রাত ৯:১৮

রাজীব নুর বলেছেন: সামুতে ডুকতে পারছি না।

১৪| ০১ লা মে, ২০১৯ রাত ৯:১৫

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: হুমায়ূন আহমেদের লেখা নাটকটির নাম ছিল গন্ধ।

০৯ ই মে, ২০১৯ রাত ৯:১৯

রাজীব নুর বলেছেন: হতে পারে।

১৫| ০১ লা মে, ২০১৯ রাত ১০:০৩

বলেছেন: মাইয়াটার দাঁতগুলো যেন জোনাকির আলো ---

০৯ ই মে, ২০১৯ রাত ৯:২১

রাজীব নুর বলেছেন: হা হা হা

১৬| ০১ লা মে, ২০১৯ রাত ১০:৩৩

লিযেন বলেছেন: just try yourself! X(

০৯ ই মে, ২০১৯ রাত ৯:২৩

রাজীব নুর বলেছেন: হুম।

১৭| ০১ লা মে, ২০১৯ রাত ১১:২৩

মাহমুদুর রহমান বলেছেন: মৃত্যু যখন খুব কাছাকাছি এসে যায় তখন মানুষ কোন কূল কিনারা খুঁজে পায় না।

০৯ ই মে, ২০১৯ রাত ৯:২৪

রাজীব নুর বলেছেন: আমার কাছে কি মৃত্যু এসে পরেছে?

১৮| ০২ রা মে, ২০১৯ রাত ১২:০৯

ঠ্যঠা মফিজ বলেছেন: ভালো লাগল।

০৯ ই মে, ২০১৯ রাত ৯:২৪

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ।

১৯| ০৮ ই মে, ২০১৯ সকাল ১০:৩২

নীলপরি বলেছেন: ভালো লিখেছেন । ১ম মন্তব্যটা বুঝতে ঠিক বুঝতে পারলাম না । এটা কি অনুবাদ ?

শুভকামনা

০৯ ই মে, ২০১৯ রাত ৯:২১

রাজীব নুর বলেছেন: আমিও বুঝতে পারিনি।

২০| ০৮ ই মে, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:০২

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: চমৎকার লিখেছেন রাজীব ভাই।
মাঝে ২ দিন আমিও সামুতে ঢুকতে পারিনি। প্রায়ই এই সমস্যা হয়। বড়ই দিগদারির মধ্যে আছি।

০৯ ই মে, ২০১৯ রাত ৯:২০

রাজীব নুর বলেছেন: এই যন্ত্রনার অবশান চাই চাই চাই।

২১| ০৯ ই মে, ২০১৯ রাত ১০:০৫

মাহমুদুর রহমান বলেছেন: লেখক বলেছেন: আমার কাছে কি মৃত্যু এসে পরেছে?

হা হা হা।এ বিষয়ে আমি কি করে বলবো।যিনি সৃষ্টি কর্তা তিনিই ভালো জানেন।

আপনাকে আমি একটা ভিপিএন সাজেস্ট করতে চাই যদি আপনি ব্যাবহার করার ইচ্ছা পোষন করেন।

০৯ ই মে, ২০১৯ রাত ১০:৩৫

রাজীব নুর বলেছেন: অবশ্যই।
লিংক দেন।

২২| ০৯ ই মে, ২০১৯ রাত ১০:৪৩

মাহমুদুর রহমান বলেছেন: click this link

৯ মিনিটের এই ভিডিওটা ৩ মিনিট সময় থেকে দেখা স্টার্ট করবেন।যেভাবে নির্দেশনা দিচ্ছে তা অনুসরন করুন।পরবর্তীতে কোন সমস্যা হলে আমাকে বলবেন।

০৯ ই মে, ২০১৯ রাত ১০:৪৬

রাজীব নুর বলেছেন: ওকে।

২৩| ১০ ই মে, ২০১৯ ভোর ৫:৩৯

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
ভাই সাহেব,
হুমায়ূন আহমেদ এর সেই ঐতিহাসিক নাটকটি আসুন এক নজর দেখি। খুব মজা পাবেন। আপনার গল্পের মতোই।



১০ ই মে, ২০১৯ দুপুর ১২:০৫

রাজীব নুর বলেছেন: ্নাটকটি দেখেছি।
এখন আবার দেখব।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.