নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমার নাম- রাজীব নূর খান। ভাবছি ব্যবসা করবো। ভালো লাগে পড়তে- লিখতে আর বুদ্ধিমান লোকদের সাথে আড্ডা দিতে। কোনো কুসংস্কারে আমার বিশ্বাস নেই। নিজের দেশটাকে অত্যাধিক ভালোবাসি। সৎ ও পরিশ্রমী মানুষদের শ্রদ্ধা করি।

রাজীব নুর

আমি একজন ভাল মানুষ বলেই নিজেকে দাবী করি। কারো দ্বিমত থাকলে সেটা তার সমস্যা।

রাজীব নুর › বিস্তারিত পোস্টঃ

এই সময়

১৩ ই মে, ২০১৯ রাত ৮:৪১



সবাই মানুষ না কেউ কেউ মানুষ।
যে লোকটি ফুটপাত দিয়ে বাইক চালিয়ে যায় অথবা বিনা কারনে হর্ন দেয়, তাকে আপনি কি বলবেন? যে লোকটি উল্টো পথ দিয়ে বাইক বা গাড়ি চালায় অথবা চিপা রাস্তার মধ্যে গাড়ি পার্কিং করে রাখে তাকে কি বলবেন? বহু মানুষ ফুটপাতে বাইক উঠিয়ে দেয়, এমন কি গাড়ি পর্যন্ত পার্কিং করে রাখে তাকে আপনি কি বলবেন? যে লোক তার বাসা বাড়ির রান্না ঘরের ময়লা নিদির্ষ্ট স্থানে না ফেলে গলির মোড়ে ফেলে দেয় তাকে কি বলবেন? সরকারী হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা অসংখ্য মানুষ লম্বা সময় ধরে, লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকে, কেউ কেউ লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে না থেকে অমুক অমুকের পরিচয় দিয়ে সিরিয়াল ভেঙ্গে সবার আগে চলে যায়- তাকে কি বলবেন?

বেশির ভাগ মানুষই অমানবিক।
দোকানের জিনিসপত্র ফুটপাতে সাজিয়ে রেখে ফুটপাত ছোট করে রাখে- মানুষ চলাচলের সমস্যা করে এবং ফুটপাত দখল করে রাজার হালে ব্যবসা করে দিনের পর দিন, বছরের পর বছর। ঢাকা শহরের সমস্ত ফুটপাতের দোকান থেকে পুলিশ টাকা নেয়। রমজান মাসেও ছাড় নেই। বরং রমজান মাসে আরো বেশি চায়। তাদের কি বলবেন? স্কুল-কলেজ আর শপিং মল গুলোতে বখাটেরা দাঁড়িয়ে মেয়েদের টিজ করে- তাদের কি বলবেন? বাজারে নকল পন্যের অভাব নেই- যারা এই জেনে শুনে নকল পন্য বিক্রি করছে তাদের কি বলবেন? বাজারের সমিতির লোকজন তাদের থামায় না কেন? প্রতিটা বাজারেই তো সমিতি আছে। প্রতিটা অলিগলিতে নেশা দ্রব্য অতি সহজেই পাওয়া যায়- যারা নেশা দ্রব্য বিক্রি করে তাদের কি বলবেন?

মানুষ হয়ে পড়েছে হিংস্র। কারো মধ্যে দয়া মায়া নেই।
সরকারী অফিস মানেই ঘুষ। ঘুষ ছাড়া কাজ অসম্ভব। যারা ঘুষ নেয় তাদের কি বলবেন? আজকাল চাকরী পাওয়া যেমন কষ্টের, তেমনি চাকরী পাওয়ার পর চাকরী টিকিয়ে রাখা আরও কষ্টের। সেই কষ্ট তিন গুন বেশি বেড়ে যাবে- যদি আপনার সহকর্মী ভালো না হয়। তারা আপনাকে কিছুতেই ভালো করে কাজ করতে দিবে না। ভালো কাজ করে উপরের দিকে উঠতে দিবে না। নো নেভার। যে কোনো সিটি কর্পোরেশনে ট্রেড লাইসেন্স করাতে গেলে বাড়তি টাকা (ঘুষ) লাগবেই। আপনার কাগজ পত্র ১০০% ঠিক থাকলেও টাকা দিতে হবেই। পাসপোর্ট ভেরিফিকেশনের জন্য টাকা দিতে হবেই। যুগের পর যুগ ধরে এরকমই চলছে। কোনো সরকার তাদের থামাতে পারেনি। নাকি তাদের থামাতে চায় না!

স্বচ্ছ পবিত্র মানুষ দেখি না বহুকাল।
সমাজের রন্ধে রন্ধে ছড়িয়ে আছে দুষ্টলোক। আপনি চাইলেও ভালো থাকতে পারবেন না। সমাজের অনিয়মটাই আজ নিয়ম হয়ে দাঁড়িয়েছে। চারিদিকে আজ অনিময়। চারিদিকে দুষ্টলোক। দূর্নীতিবাজদের লোকজন উঠতে বসতে সালাম দেয়। স্যার স্যার বলতে মুখে ফেনা তুলে ফেলে। অসৎ উপায়ে টাকা উপার্জন করে তারা আজ সমাজের মাথা। যে কোনো অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি, প্রধান অতিথি। অসৎ লোক গুলোই আজ দেশ চালাচ্ছে। সেদিন একটা চায়ের দোকানে শুনলাম একজন বলছেন- দূর্নীতি দমন কমিশন একটা হাস্যকর প্রতিষ্ঠান। তারা নিজেরাই দূর্নীতিবাজদের নিরাপত্তা দেয়। কোথাও ভালো লোক নেই। একটা মেয়ে রাস্তা দিয়ে হেঁটে গেলে দশ জনের মধ্যে নয় জন'ই অতি কুৎসিতভাবে তাকাবেই। তারা কি জানে তাদের মা বোনদের দিকে ওরা এমনি করেই তাকায়। ফুটপাতের চায়ের দোকানে চার-পাচ জন মিলে রাস্তা আটকে চা খাচ্ছে। যারা চা খাচ্ছে দেখে মনে হয় ভদ্রলোক। আশে পাশের কোনো অফিসের বড় অফিসার। অথচ তারা ভাবে না এটা ফুটপাত মানুষজনের চলাচলের জন্য। রাস্তা আটকে চা খাবারের জন্য না।

সব কিছু বদলানো সম্ভব নয়?
সাহিত্যেও বিরাট ঝামেলা। দলাদলি আর দালালি। সাহিত্যও আজ দুষ্টলোকদের দখলে চলে গেছে। এই যে যারা ধর্ষন করছে, তারা কেমন মানসিকতার লোক? এই সমাজে যারা অসৎ এবং সমাজ নষ্ট করার জন্য যারা দায়ী তাদের কি বিবেক নেই? মা-বাপ নেই? সন্তান নেই? মমতাময়ী স্ত্রী নেই? খারাপ কাজ করার আগে তাদের কি একবারও বুক কাঁপে না? তাদের কি মনুষ্যত্ববোধ নেই? এই সমস্ত খারাপ কাজ করার জন্য অনুপ্রেরনা কে দিয়েছে? পরিবার থেকেই শিখেছে? তার জন্মদাতা মা বাবা শিখিয়েছে? মামা-চাচা? এই নষ্ট সমাজে আর জন্মাবে না- রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, কাজী নজরুল ইসলাম, মুনীর চৌধুরী, শেখ মুজিব, মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী। ব্রিজ, রাস্তা, শপিংমল, মেট্রোরেল বা সেতু'র চেয়ে বেশি দরকার চাকরী। দেশে চাকরী নেই বলেই চুরী, ছিনতাই, ডাকাতি আর প্রতারনা বেড়েই চলেছে। দেশ উন্নয়নের মহাসড়কে অথচ আজও মানুষ রাস্তায় ঘুমায়। না খেয়ে থাকে।

এই সমাজকে কি আদৌ ঠিক করা সম্ভব?
সমাজ ঠিক করার দায়িত্ব কে নিবে? আর যারা সমাজকে নষ্ট করেছে তাদের কি শাস্তি হবে? এইভাবে চলতে থাকলে সব কিছু শেষ হয়ে যাবে। তছনছ হয়ে যাবে। নাকি সমাজ ঠিকই আছে আমি বুঝতে পারছি না। আমার কাছে অসামাঞ্জস্য লাগছে। আমি প্রচন্ড আশাবাদী একজন মানুষ। সীমাহীন ত্যাগের বিনিময়ে এই দেশ আমরা পেয়েছি। তা কি এত সহজে নষ্ট হয়ে যেতে পারে? সব সমস্যা দূর হয়ে যাবে। মেঘ কেটে আলো আসবেই। দেরী হোক যায়নি সময়।

মন্তব্য ২৬ টি রেটিং +০/-০

মন্তব্য (২৬) মন্তব্য লিখুন

১| ১৩ ই মে, ২০১৯ রাত ৯:৪৪

ANIKAT KAMAL বলেছেন: সবাই মানুষ না কেউ কেউ মানুষ যেমন সবাই ক‌বি না কেউ কেউ ক‌বি সুন্দর লেখার যাদুকরী অাকর্ষন অাপনার লেখায় সব সময় খু‌জে পায়। খুঁ‌জে পায় অ‌নিন্দ্য সুন্দর কিছু বাস্তবতা । থে‌কে যায় ম‌নের গভী‌রে প‌রিবর্ত‌নের বি‌শেষ হাহাকার। কেন পা‌রিনা প‌রিবর্ত‌নের পারদ রষদ সংগ্রহ কর‌তে,,,

১৩ ই মে, ২০১৯ রাত ১০:০৬

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ।

২| ১৩ ই মে, ২০১৯ রাত ১১:০১

নীলপরি বলেছেন: ভালো লিখেছেন ।

১৪ ই মে, ২০১৯ দুপুর ২:০৮

রাজীব নুর বলেছেন: শুকরিয়া।

৩| ১৩ ই মে, ২০১৯ রাত ১১:২১

অজানা তীর্থ বলেছেন: আপাদমস্তক পড়েছি, অক্ষরে অক্ষরে মিলে গেছে। সরকার বেতন বাড়িয়েছে, কিন্তু এদের আরো চাই, শুধু চাই। আল্লাহ তাদের হেদায়েত দান করুক।

১৪ ই মে, ২০১৯ দুপুর ২:০৯

রাজীব নুর বলেছেন: কথায় আছে- আল্লাহর মাইর, দুনিয়ার বাইর।

৪| ১৩ ই মে, ২০১৯ রাত ১১:২৯

সাহিনুর বলেছেন: স্বচ্ছ প্রবিত্র মানুষ আমিও দেখিনি অনেক অনেক সময় ধরে কিন্তু মনে হচ্ছে তার দিন এবার শেষ, আপনাকে স্বচ্ছ প্রবিত্র মানুষ হিসাবে কি দেখতে পারি ?

১৪ ই মে, ২০১৯ দুপুর ২:১৫

রাজীব নুর বলেছেন: হায় হায়---
খাইছে আমারে।
আমার মধ্যে অনেক ক্ষুদ্রতা আছে। কাজেই সম্ভব না।

৫| ১৩ ই মে, ২০১৯ রাত ১১:৩৬

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রিয় ছোট ভাই,

কিচ্ছু করার নেই। ঠক বাছতে গাঁ উজাড়। তার মধ্য দিয়েই আমাদের যেতে হবে।অন্যকে দেখে আমি প্রভাবিত হবো না। বরং আমাকে দেখে যদি পারিপার্শ্বিক দু একজন প্রভাবিত হয়, সেটাই একমাত্র কাম্য।

শুভকামনা সতত।

১৪ ই মে, ২০১৯ দুপুর ২:১৬

রাজীব নুর বলেছেন: সুন্দর মন্তব্য করেছেন।

৬| ১৪ ই মে, ২০১৯ রাত ১২:৪৮

সুদীপ কুমার বলেছেন: আশাবাদী হওয়া ভাল।

১৪ ই মে, ২০১৯ দুপুর ২:১৭

রাজীব নুর বলেছেন: ইয়েস।

৭| ১৪ ই মে, ২০১৯ রাত ১:৫৫

ওমেরা বলেছেন: স্বচ্ছ মানুষ কোথায় পাব নিজের ভিতরের কুৎসিত আচরনগুলো যখন দেখি নিজেরই লজ্জা লাগে।

১৪ ই মে, ২০১৯ দুপুর ২:১৭

রাজীব নুর বলেছেন: বদলে ফেলুন নিজেকে। খুব কঠিন কিছু না।

৮| ১৪ ই মে, ২০১৯ রাত ২:৪৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


সমাজের অর্ধেক মানুষ শিক্ষিত, বাকীরা অশিক্ষিত; সমাজের ২০% মানুষ জাতির সম্পদ দখল করে নিয়ে গেছে, বাকীরা চালের পয়সা আনতে গিয়ে ভুমধ্য-সাগরে ডুবছে, ব্উকে একা ফেলে মরুভুমিতে কাজ করছে, বেদুইন মেয়ের সাথে ঘুমাচ্ছে, মালয়েশিয়ায় পুলিশের মার খাচ্ছে; কারো বাচ্চা লন্ডনে পড়ছে, কারো বাচ্চা টোকাই; এটা কি একটা জাতি?

১৪ ই মে, ২০১৯ দুপুর ২:২০

রাজীব নুর বলেছেন: যারা শিক্ষিত তারা তাদের দায়িত্ব পুরো পালন করছে না।
অভাবের কারনে নদী পথে বিদেশ যেতে গিয়ে মরছে- এটা সরকারের জন্য অনেক লজ্জার।
সৌদিতে প্রবাসীরা মরুর বুকে বেদুইনদের কাছে জীবনের রিস্ক নিয়েই যাচ্ছে। ধরা পড়লে খবর আছে। সৌদি বড় কঠিন দেশ।
মালোশিয়ার পুলিশরা বেশ নিষ্ঠুর।

৯| ১৪ ই মে, ২০১৯ ভোর ৬:০৮

বলেছেন: দলাদলি আর দালালি সেব জায়গায় চাটার দল তাদের চাটুকারিতা চালিয়ে বাগিয়ে নেয় নিজের স্বার্থ।

এক্সিলেন্ট একটি লেখা। +++

১৪ ই মে, ২০১৯ দুপুর ২:২১

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ।
ভালো থাকুন।

১০| ১৪ ই মে, ২০১৯ সকাল ৮:৩২

ভুয়া মফিজ বলেছেন: প্রতিটা মানুষের মধ্যে দুইটা সত্বা থাকে, ভালো আর মন্দ। সামাজিক সিস্টেমের উপর নির্ভর করে একজন মানুষ মানব নাকি দানব হবে। এই সিস্টেমকে সার্বিকভাবে নিয়ন্ত্রণ করে সরকার।

সুতরাং, মানুষকে দোষারোপ না করে সিস্টেমকে দোষারোপ করুন। তাহলে সবকিছু আপনার কাছে সহজ হয়ে যাবে।

১৪ ই মে, ২০১৯ দুপুর ২:২২

রাজীব নুর বলেছেন: সিস্টেম করে মানুষ, সিস্টেম চালায় মানুষ। কাজেই আসল অপরাধী মানুষ।

১১| ১৪ ই মে, ২০১৯ সকাল ১১:৩৯

Confucius বলেছেন: আমি একটু শান্তিমত কান্না করতে চাই এদেশের জন্য, এই মাটির জন্য, এই দেশের মানুষের জন্য।

১৪ ই মে, ২০১৯ দুপুর ২:২২

রাজীব নুর বলেছেন: কান্না করে যদি সমস্যার সমাধান হতো তাহলে আপনাকে বলতাম কাঁদুন।

১২| ১৪ ই মে, ২০১৯ বিকাল ৫:৪৮

ভুয়া মফিজ বলেছেন: সিস্টেম করে মানুষ, সিস্টেম চালায় মানুষ। কাজেই আসল অপরাধী মানুষ।
আপনেরে নিয়া আর পারি না। সত্যিই বুঝেন না, নাকি না বোঝার ভান ধরেন.......তাও বুঝি না। :(

আমার মন্তব্যের 'মানুষ' হচ্ছে সাধারন জনগন, যাদেরকে আপনি দোষ দিচ্ছেন।
আর সিস্টেম যারা করে আর চালায়, তারা হলো রাজনীতিবিদ আর আমলা। এরা দেখতে মানুষের মতো হলেও আসলে মানুষ না। কিলিয়ার????

১৪ ই মে, ২০১৯ রাত ৮:৫১

রাজীব নুর বলেছেন: আরে ভাই রাগ করেন ক্যান??

কেউ কেউ একটু দেরীতে বুঝে আমার মতোন। একটু সহনশীন হোন ভাই।

১৩| ১৪ ই মে, ২০১৯ রাত ৮:১৫

মাহমুদুর রহমান বলেছেন: এই সমাজের দায়িত্ব যে নিতে যাবে তার কপালে দুর্ভোগ ছাড়া কিছুই জুটবে না।

১৪ ই মে, ২০১৯ রাত ৮:৫৪

রাজীব নুর বলেছেন: চিরকাল এইসব
রহস্য আছে নীরব।
রুদ্ধ ওষ্ঠাধর।
জন্মান্তের নবপ্রাতে
সে হয়তো আপনাতে
পেয়েছে উত্তর ...

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.