নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমার নাম- রাজীব নূর খান। ভাবছি ব্যবসা করবো। ভালো লাগে পড়তে- লিখতে আর বুদ্ধিমান লোকদের সাথে আড্ডা দিতে। কোনো কুসংস্কারে আমার বিশ্বাস নেই। নিজের দেশটাকে অত্যাধিক ভালোবাসি। সৎ ও পরিশ্রমী মানুষদের শ্রদ্ধা করি।

রাজীব নুর

আমি একজন ভাল মানুষ বলেই নিজেকে দাবী করি। কারো দ্বিমত থাকলে সেটা তার সমস্যা।

রাজীব নুর › বিস্তারিত পোস্টঃ

টুকরো টুকর সাদা মিথ্যা- ১০৭

০২ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:৩৬



১। দারিদ্যের সবচেয়ে বড় দোষ হলো- দারিদ্যে মানুষের নৈতিক চরিত্রটা বদলে যায়, নষ্ট হয়ে যায়, পচে যায়। কিন্তু নজরুল লিখেছেন, 'হে দারিদ্র, তুমি মোরে করেছো মহান'। এটা একেবারে ফালতু কথা।

২। আমি খুব ভীতু মানুষ। কিন্তু কারো সাহস দেখলে আমার ভীষন ভাল লাগে।
ভীতু আর দুর্বলদের একটা অসুবিধে আছে, তারা কোনো ঘটনাকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না। তাদের দিয়ে যে যা খুশি করিয়ে নিতে পারে। অবশ্য রবীন্দ্রনাথ বলেছেন- 'ওরে ভীরু, তোর ওপরে নেই ভুবনের ভার।'

৩। সত্য ও জ্ঞান অনুসন্ধানে ইবনে আল-হাতেমের উক্তিঃ আমি নিরন্তর জ্ঞান ও সত্য খুঁজে বেড়িয়েছি, এবং আমার উপলব্ধি হলো, স্রষ্টার দ্যুতি ও নৈকট্যলাভের জন্য জ্ঞান ও সত্যানুসন্ধানের চেয়ে উত্তম কোনো পথ নেই।

৪। বই হচ্ছে অভিজ্ঞতা।
এতকাল ধরে মানুষের জ্ঞানের যে অভিজ্ঞতা হয়েছে, তা বইয়ের পাতায় লিখে রাখা হয়েছে আমাদের জন্য। ভবিষ্যতে যারা আসবে, তাদেরে জন্য আমাদেরও কিছু রেখে যেতে হবে।

সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের 'পূর্ব-পশ্চিম' পড়া শুরু করেছি। যদিও আগে একবার পড়েছি। আমি যখন যে বইটা পড়ি, তখন মনে হয়, সেই লেখক আমার সামনে বসে আছেন। লেখকের নিঃশ্বাসের শব্দও যেন শুনতে পাই!

৫। হাসপাতালে ঢুকে দেখি হাসপাতালটা বেশ জোরেসোরে ঝাড়ামোছা করার চেষ্টা করা হচ্ছে। দেয়াল থেকে মুছে ফেলা হচ্ছে- হাতের দাগ, পানের পিক, নাকের পোঁটা। আজেবাজে পোষ্টার, ওষুধের বিজ্ঞাপন সব ছিঁড়ে ফেলা হচ্ছে। লোকজনের মহা উৎসাহ। একজন ক্লিনার শুনি আরেকজনকে বলছে, হাত চালাইয়া কাম করন লাগব মিয়াভাই, বঙ্গবন্ধু দ্যাশে ফিরত্যাছেন, যদি মেডিক্যালে আইয়া দ্যাহেন দেয়ালে নাকের পোঁটা, তাইলে খবর আছে! তার কথা শুনে আরেকজন ক্লিনার অবিশ্বাসের সঙ্গে বলে উঠল, তোমারে কে কইছে যে, বঙ্গবন্ধু মেডিক্যালে আইবেন, বঙ্গবন্ধু বাইচ্যা আছে কি না জানো তুমি ?
বাইচ্যা নাই, বঙ্গবন্ধু বাইচ্যা নাই? এই হারামির পুত, তরে কে কইল বঙ্গবন্ধু বাইচ্যা নাই ?
লোকটা মারমুখী চেহারা দেখে অন্য আরেকটা বয়স্ক ক্লিনার মধ্যস্থতা করার জন্য এগিয়ে এসে বলল, বঙ্গবন্ধু বাইচ্যা আছেন, এরকম মানুষরে পাকিস্তান মারবার সাহস পাইবে না, তাগো কোমর ভাইঙ্গা গ্যাছে গা। তার উপর বিরানব্বই হাজার সৈন্য এখনও আমাগো এহানে বন্দী। তাই চিন্তা কইরো না। তারপর একটু থেমে লোকটা বলল, তোমরা তো বঙ্গবন্ধুর নেচার জানো না, জানি আমি। হঠাত কইরা একদিন স্যান্ডেল পায়ে দিয়া মুজিবকোট গায়ে চাপাইয়া মেডিল্যাল হাসপাতাল পরিদর্শনে আইয়া পড়বেন, তখুন এত অপরিস্কার দেখলে তারে আমরা জবাব দিমু কী ?

আনোয়ারা সৈয়দ হোক # উপন্যাস সমগ্র-২

৬।
১০ জানুয়ারি, ১৯৭২। তেজগাঁও বিমান বন্দরে সিলভার রঙ এর একটা কমেট বিমান অবতরণ করল। হাজার হাজার মানুষ ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টের গার্ড দলকে তোয়াক্কা না করে ছুটে গেল বিমানের দিকে। বিমানের ভেতর তাঁদের প্রিয় নেতা। পাকিস্তানের কারাগার থেকে মুক্ত হয়ে ফিরে এলেন তাঁর বাংলায়। স্বাধীন বাংলায়। রোগা হয়ে গেছেন অনেকটাই, সব সময় ব্যাকব্রাশ করা চুলগুলোও অবিন্যস্ত। স্বপ্নের স্বাধীন বাংলায় ফিরে এসেই মিশে গেলেন জনতার সাথে।

মন্তব্য ২২ টি রেটিং +৩/-০

মন্তব্য (২২) মন্তব্য লিখুন

১| ০২ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:৪৪

ইসিয়াক বলেছেন: পেটে ক্ষিধে থাকলে ভালোবাসা জানালা দিয়ে পালায় ।

০২ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:০৮

রাজীব নুর বলেছেন: যদি হয় সুজন তেতুল পাতায় নয়জন।

২| ০২ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:৪৯

ইসিয়াক বলেছেন: পূর্ব পশ্চিম আমি পড়েছি যখন আনন্দবাজারের দেশ পত্রিকায় বেরুতো । ধারাবাহিক ভাবে । কত ই বা বয়স হবে ।দেশ, আনন্দলোক ,আনন্দমেলা নিয়মিত কেনা হতো । মা টাকা দিতো আর আমি মোহাম্মদপুরের টাউন হল মার্কেট থেকে কিনে আনতাম।যদি কপি ফুরিয়ে যেত তো হেটে হেটে ফার্মগেট বা নীলক্ষেত থেকে সংগ্রহ করতাম।

০২ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:১১

রাজীব নুর বলেছেন: গ্রেট।

৩| ০২ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:৫৯

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: ভালো লাগলো

০২ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:১২

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ।

৪| ০২ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:৪৭

আহমেদ চঞ্চল বলেছেন: খুব ভালো লাগলো।।

০২ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:১৫

রাজীব নুর বলেছেন: শুকরিয়া।

৫| ০২ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৫৬

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু।

০২ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:১৬

রাজীব নুর বলেছেন: জয় বাংলা।

৬| ০২ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৪৫

চাঁদগাজী বলেছেন:


আমি এই ব্লগে নাম লিখায়েছিলাম আনুমানিক ৬ বছর আগে; নিক ছিল "ফারমার"; আমার ব্লগিং'এর শুরুর সময়, একজন ব্লগারের মৃত্যুর বর্ষপুর্তি ছিল, তিনি অনেক অনেক বড় মাপের ব্লগার ছিলেন; অনেক পোষ্ট এসেছিলো উনাকে নিয়ে; আপনি নিকটা বলতে পারবেন? যথাসম্ভব, উনিই ছিলেন সামুর ১ম প্রয়াত ব্লগার।

০২ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:১৮

রাজীব নুর বলেছেন: ৭ নং মন্তব্যকারী বলে দিয়েছেন।

৭| ০২ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:২৬

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: আমি এই ব্লগে নাম লিখায়েছিলাম আনুমানিক ৬ বছর আগে; নিক ছিল "ফারমার"; আমার ব্লগিং'এর শুরুর সময়, একজন ব্লগারের মৃত্যুর বর্ষপুর্তি ছিল, তিনি অনেক অনেক বড় মাপের ব্লগার ছিলেন; অনেক পোষ্ট এসেছিলো উনাকে নিয়ে; আপনি নিকটা বলতে পারবেন? যথাসম্ভব, উনিই ছিলেন সামুর ১ম প্রয়াত ব্লগার।

উনার নাম ইমন জুবায়ের। ব্লগার ইমন জুবায়ের ।তিনি খুবই ভালো লিখতেন।

০২ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:১৮

রাজীব নুর বলেছেন: রাইট।

৮| ০২ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:২৮

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: মুজিব আমার স্বাধীনতার অমর কাব্যের কবি।

০২ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:১৯

রাজীব নুর বলেছেন: একজন গ্রেট ম্যান।

৯| ০২ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৩৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


@মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন ,

-ধন্যবাদ আপনাকে

০২ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:১৯

রাজীব নুর বলেছেন: আপনাকেও ধন্যবাদ একজন প্র্যাত ব্লগারকে স্মরন করেছেন।

১০| ০২ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:০৯

সোনালী ডানার চিল বলেছেন: ইমন জুবাইর ছিল ব্লগের ঋষি।
কত কি জানতেন আর কত বিষয়ে যে লিখতেন!
আমাদের ব্লগের প্রধান আগ্রহের অন্যতম ছিল ইমন জুবাইর।
তিনি খুব ভালো সং রাইটারও ছিলেন- আমি মাঝে মাঝে এখনও ওনার ব্লগ পড়ি।
সামুর ফ্রন্টপেজে কিন্তু তার লিংক ছিল, এখন দেখি না-
সেই সময়টা বাংলা ব্লগের স্বর্ণযুগ ছিল!!

০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ১১:৫৮

রাজীব নুর বলেছেন: আপনি সঠিক কথা বলেছেন।

১১| ০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ১:২৬

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: সবগুলি পয়েন্টই ভাল । এর মধ্যে শেষের পয়েন্টটি আরো বেশি ভাল ।
১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি স্বদেশ প্রত্যাবর্তনে বঙ্গবন্ধুর কাছ থেকে আমরা শুনেছি, মৃত্যু যখন একেবারে দ্বারপ্রান্তে, তখনও বঙ্গবন্ধু বলেছেন, ‘আমি বাঙালি, আমি মানুষ, আমি মুসলমান, একবার মরে, দুইবার মরে না।’ তিনি আরও বলেছিলেন, ‘আমার মৃত্যু আসে যদি, আমি হাসতে হাসতে যাবো, আমার বাঙালি জাতিকে অপমান করে যাবো না, তোমাদের কাছে ক্ষমা চাইবো না এবং যাবার সময় বলে যাবো- জয় বাংলা, স্বাধীন বাংলা, বাঙালি আমার জাতি, বাংলা আমার ভাষা, বাংলার মাটি আমার স্থান।’ বঙ্গন্ধুর ভরাট গলায় সেই দিনের এই কথাগুলো গর্বে বুক ফুলিয়েছিলো অসহায় সর্বহারা যুদ্ধবিধ্বস্থ সাত কোটি বাঙালির। । ঐদিন আমি নীজেও ছিলাম রাজপথে । নেতা ও লাখো জনতার সে আবেগঘন মহুর্ত ভুলিব কেমনে , যে না দেখেছে চোখে বুঝিবে সে কি সে ।

০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১২:০০

রাজীব নুর বলেছেন: আপনি সে সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন !!!! গ্রেট।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.