নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমার নাম- রাজীব নূর খান। ভাবছি ব্যবসা করবো। ভালো লাগে পড়তে- লিখতে আর বুদ্ধিমান লোকদের সাথে আড্ডা দিতে। কোনো কুসংস্কারে আমার বিশ্বাস নেই। নিজের দেশটাকে অত্যাধিক ভালোবাসি। সৎ ও পরিশ্রমী মানুষদের শ্রদ্ধা করি।

রাজীব নুর

আমি একজন ভাল মানুষ বলেই নিজেকে দাবী করি। কারো দ্বিমত থাকলে সেটা তার সমস্যা।

রাজীব নুর › বিস্তারিত পোস্টঃ

আমার গল্প

২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:০৯



১। এক বুড়ি সকালে আমাদের বাসায় ভিক্ষা করতে এসে আমাকে নিয়ে গেল। তখন আমার বয়স পাঁচ বছর হবে। আমি খুশি মনে বুড়ির সাথে তার বস্তিতে চলে গেলাম। মনে মনে ভাবলাম, যাক বাসার অত্যাচার থেকে বাচলাম। এত এত শাসন থেকে রেহাই পেলাম। বুড়ি বলল- বাবু সেজে বসে থাকলে হবে না। আমার সাথে ভিক্ষা করতে হবে রোজ। আমি বললাম জ্বী অবশ্যই। বুড়ি বলল গুড বয়। বুড়ির এক হাতে লাঠি, এক হাতে আমার হাত। বুড়ি নাকি সুরে বলছে, দেন গো বাবা দু'টা পয়সা ভিক্ষা দেন। নাতিটাকে নিয়ে বড় বিপদে পড়ছি।

লোকজন বেশ ভিক্ষা দিচ্ছে। কয়েক ঘন্টায় আমাদের বেশ ইনকাম হলো। বুড়ি তো আমার উপর মহা খুশি! এক মাসের ইনকাম একবেলায় হয়ে গেল। বুড়ি বলল, বল কি খাবি? আমি বললাম, চিকেন ফ্রাই। বুড়ি ছোট্র করে দমক দিলো, আমার কাছে বাবুয়ানা চলবে না। খুব হিসাব করে চলতে হবে। শেষে বুড়ি এক চা'র দোকানে নিয়ে এক পিস কেক আর চা দিলো। আমি খুব আগ্রহ নিয়ে সবটুকু চা আর কেক খেয়ে নিলাম। আহ কি আন্দময় জীবন!
কপাল মন্দ। সুখ কপালে শইলো না। ফিরে যেতে হলো নিজের আস্থানায়। যদি সেদিন বাসায় না ফেরা হতো, তাহলে আজ আমি ঢাকা শহরের শ্রেষ্ঠ ভিক্ষুক হতাম।

২। অনেক বছর আগের কথা।
রাত ৮ টায় বেইলী রোডে দাঁড়িয়ে আছি। হঠাত দেখি আমার পাশে দাঁড়িয়ে একটি মেয়ে খুব কাঁদছে। চারপাশের লাইটের আলোতে মেয়েটির কান্না ভেজা মুখ ঝকমক করছে। যেন জল রঙ এ আকা ছবি। খুব'ই রুপসী মেয়ে! সাদা শাড়ি পরা। শাড়ির সাথে মিল রেখে কানে দুল। কপালে টিপ, চোখে মোটা করে কাজল, আর দুই হাত ভরতি কাচের চুড়ি। মেয়েটি চোখ ভরতি পানি টপটপ করে পড়ছে। আমার ইচ্ছা করলো মেয়েটির চোখের পানি মুছে দেই। এক আকাশ ভালোবাসা নিয়ে বুকে জড়িয়ে ধরি। আমার সামনে একটি মেয়ে কান্না করবে তা তো হতে পারে না।

শেষমেষ মেয়েটির সাথে আমার ভাব হয়ে গেল। আমরা একসাথে ডিনার করলাম। অনেকক্ষন রিকশা করে ঘুরলাম। বেইলী রোড থেকে নীলক্ষেত গেলাম। মুখস্ত করা সব কবিতা শুনিয়ে দিলাম। কবিতা শুনে কেউ হাসে? কিন্তু মেয়েটি খুব হাসলো!

৩। বিবেক জিনিসটা ঠিক কী? ইংরাজিতে বলে, কনশ্যেন্স, সেটারও স্পষ্ট কোনও সংজ্ঞা নেই। মানুষে-মানুষে কি এই বিবেক বোধ আলাদা হতে পারে? অনেকেই যৌবনবেলায় মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপন্যাসের একটা লাইন আউড়ে বেশ আনন্দ পায়। ‘শরীর, শরীর, তোমার মন নাই কুসুম?’ বয়েস বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে উপলব্ধি হয় যে, শরীরের বাস্তবতা বড্ড বেশি প্রকট, আর মন খানিকটা উড়ু-উড়ু ব্যাপার। সেই মন আর বিবেক বোধ কি এক হতে পারে? কিংবা বিবেক কি শুধু মঙ্গলচিন্তার সঙ্গে সম্পৃক্ত? একেবারে বিবেকবর্জিত কোনও মানুষ টিকে থাকতে পারে?

পারলে বলুনঃ কোন প্রাণী সকালে চার পায়ে, দুপুরে দুই পায়ে আর বিকালে তিন পায়ে হাটে?

মন্তব্য ৩০ টি রেটিং +৩/-০

মন্তব্য (৩০) মন্তব্য লিখুন

১| ২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:২২

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: পারলে বেলুন এর উত্তর : মানুষ।
১. হামাগুড়ি (হাত আর পা )
২. পা
৩. পা আর লাঠি

২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:১১

রাজীব নুর বলেছেন: সিউর?

২| ২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:৫২

এমজেডএফ বলেছেন: আজকে ঘুম থেকে অনেক দেরিতে উঠলাম। আপনার এই পোস্ট পড়েই আমার আজকের দিনের পথচলা শুরু। আজকের দিনটি আপনার, আমার এবং সবার জন্য শুভ হউক।


১।সুযোগ মানুষের জীবনে বারবার আসে না। তাই কোনো সুযোগ কখনো হাতছাড়া করা উচিত নয়। মাত্র পাঁচ বছর বয়সে ঢাকা শহরের শ্রেষ্ঠ ভিক্ষুক হওয়ার যে সুযোগ পেয়েছিলেন তা আপনার জীবনে আর কোনোদিন আসবে না :) । আফসোস!

২। সাদা শাড়ি পরা কান্নারত একটি মেয়েকে মুখস্ত করা সব কবিতা শুনিয়ে দিলেন। কিন্তু মেয়েটি খুব হাসলো! –এটা পড়ে এখন আমারও খুব হাসি পাচ্ছে।

৩। "একেবারে বিবেকবর্জিত কোনও মানুষ টিকে থাকতে পারে?"
আমাদের দেশের বর্তমান পরিবেশ ও আর্থ-সামাজিক পরিস্থিতি বিবেকবর্জিত মানুষের টিকে থাকার অনুকূলে। তাই এদের সংখ্যা দিনদিন বাড়ছে।

২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:১৫

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকে সুন্দর মন্তব্য করার জন্য। ভালো থাকুন।

৩| ২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:৫৬

ইসিয়াক বলেছেন: প্রথমটা অসাধারণ ।
আমি ভিক্ষুক হতে চাই।

স্কুলে যেমন খুশি তেমন সাজো অনুষ্ঠান । আমি ভিক্ষুক সাজলাম । ছেড়া কাপড়চোপড়ে সেই রকম অবস্থা।
সবার কাছে ভিক্ষা চাইছি , বেশ নগদ আমদানি হচ্ছে । আমি মহা আনন্দে ভিক্ষা করে বেড়াচ্ছি। অভিভাবকগণ
বেশ আন্তরিকতার সাথে আমাকে ভিক্ষা দিচ্ছে। হঠাৎ দেখি অভিভাবকের আসনে আমার প্রাণপ্রিয় বাবা ।
ভয়ে আমার আত্মা শুকিয়ে গেল নিমেষে ।খুব দ্রুত দারুণ এক চড়ে আমার কান গরম হয়ে গেল।
বাবা বললেন , বেয়াদব এসব কি হচ্ছে ?
আমি বললাম ভিক্ষা করছি বাবা ।................

২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:১৮

রাজীব নুর বলেছেন: হা হা হা----

৪| ২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:০৪

শাহিন বিন রফিক বলেছেন:



খুবই সুন্দর লিখেছেন, আপনার কল্পনা শক্তি বেশ ভাল।
@কবি ইসিয়াক আপনার মন্তব্য পড়ে অনেকক্ষণ হাসলাম।

২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:২০

রাজীব নুর বলেছেন: কল্পনা শক্তি ভালো। কিন্তু অতীত খুব দ্রুত ভুলে যাই। যা ভুলে যাওয়া অন্যায় তাও ভুলে যাই।

৫| ২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:৪২

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন: আপনার লেখা বেশ শক্তিশালী

২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:২২

রাজীব নুর বলেছেন: শুকরিয়া।
আপনার মন্তব্যে মনটা ভরে গেল।
ভালো থাকুন। দোয়া করবেন।

৬| ২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:৪৩

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: আপনার লেখা আমার অনেক ভালো লাগে :)

২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:২২

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ বোন।

৭| ২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:৫৬

ইসিয়াক বলেছেন: বন্ধু
হাতে আংটি নেই কেন ? হাতে কয়েকটা আংটি থাকলে বেশ মানাতো !

২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:২৩

রাজীব নুর বলেছেন: আমার কোনো সোনা দানা নেই।

৮| ২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:০৭

নীল আকাশ বলেছেন: রাজীব ছবি সেইরকম হয়েছে।

২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:২৭

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ ভাই।

৯| ২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৫১

চাঁদগাজী বলেছেন:


বিবেক হলো, লজিক্যালী সত্যের পক্ষে মনের স্বাভাবিক অবস্হান

২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:২৮

রাজীব নুর বলেছেন: যারা মন্দ কাজ করে তাদের বিবেক??

১০| ২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:২৫

ইসিয়াক বলেছেন: আমি কি বলেছি পরতে হবে তোমায় রুপা অথবা সোনা ?
ঠিক আছে বানিয়ে দেব একদিন ঠিক হিরের গহনা।
হা হা হা.....

২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:২৯

রাজীব নুর বলেছেন: সোনা রুপার আমার দরকার নেই।

শুধু আমার পাশে থাকুন বন্ধু।

১১| ২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:৩১

ইসিয়াক বলেছেন: আছিতো পাশে রইবো ও সাথে .......
দেখলে আমায় ঠিক পারবে ? চিনে নিতে ?

২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:৪০

রাজীব নুর বলেছেন: হে হে

১২| ২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:৫৩

ইসিয়াক বলেছেন: সেই কারণে তো মুছে দিলাম যেখানে ছিলো যত সব ছবি ।
দেখি কেমন চিনতে পারো । শুধু মুখে বললেই হবে প্রিয় কবি ?
চিনে নাও আমায় ভিড়ের মাঝে , আমি অতি সাধারন ।
কাচের মতো ঠুনকো আমি , আভিমানে ভরা মন !!

২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:০০

রাজীব নুর বলেছেন: অভিমান করা ভালো নয় গো
শেষে কষ্ট পেতে হয় যে!

১৩| ২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:০৮

জাতির বোঝা বলেছেন: দেশের সব কঠিন কঠিন সমস্যা ও তার সমাধানের উপায় নিয়ে লিখুন। আপনার লেখার হাত খুব ভালো।

২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:০১

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ। ভালো কথা বলেছেন। অবশ্যই লিখব।

১৪| ২৫ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৩৯

জাতির বোঝা বলেছেন: ভিক্ষা করা, চুরি-চামারি করা দুটোই খারাপ । সব চেয়ে ভালো হলো কাজ করে খেটে খাওয়া।

২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:০২

রাজীব নুর বলেছেন: কাজ পায় না বলেই তো মানুষ চুরী ছিনতাই করে।

১৫| ২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:৩৫

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: বুড়ি মার সাথে ভিক্ষা করাটা বেশ মজা লাগলো।
২-বেইলি রোডের ঘটনাটাতে গৃহযুদ্ধের আশঙ্কা প্রবল। হাহা হা....
৩-বিবেকবর্জিত মানুষ টিকে থাকতে পারে না ঠিকই কিন্তু অনুভূতিটি দিনকে দিন ভোতা হয়ে গেছে।
এই পোস্টে এটা আমার দ্বিতীয় কমেন্টঃ। প্রথমটা ভ্যানিশ হয়ে গেছে। হাহাহা

২৬ শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:০৩

রাজীব নুর বলেছেন: আমি মনে মনে আপনার মন্তব্যের অপেক্ষায় ছিলাম।
কমেন্ট কেন ভ্যানিস হলো!!!!

দাদা আপনার মন্তব্য আমার জন্য গুরুত্বপূর্ন।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.