নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

তোমার আর আমার দূরত্ব রাস্তার এপার ওপার।তুমি দাড়িয়ে আছো আমার আশায়আমি অপেক্ষায় আছি যাবো কখন!waiting for a loyal heart!

মেঘ প্রিয় বালক

একটা কৃষ্ণচূড়া গাছ। শুষ্ক অঞ্চলে গ্রীষ্মকালে কৃষ্ণচূড়ার পাতা ঝরে গেলেও, নাতিষীতোষ্ণ অঞ্চলে এটি চিরসবুজ।

মেঘ প্রিয় বালক › বিস্তারিত পোস্টঃ

রহস্যঘেরা ভালবাসা

০৯ ই জুন, ২০১৯ রাত ১০:৩৪


চিরকুট:১৬
তারিখ:২৬ জেষ্ঠ্য ১৪২৬ বাংলা
প্রিয় অপরিচিতা দোলা
পত্রের পাককালে জানাই জৈষ্ঠ্যের সমাপ্তিতে, আষাঢ় মাসের আর্বিভাবে,মেঘলা আকাশে ঝিরি ঝিরি বৃষ্টির বহমান ঠাণ্ডা বাতাসের রহস্যঘেরা নিশির শুভেচ্ছা।
কেমন আছো বেদনাদায়ক ভালবাসা?
আজকাল রোজ তোমায় মনে পড়ছে। যখন তোমায় মনে পড়ে তখন আমি আমার নিকেতনের অয়ন গমনাগমন মেলে দেই। প্রেমময় দক্ষিণা বাতাস কপাট ভেদ করে আমার বাহু স্পর্শ করো তুমি হয়ে। তখন আমার হার্টবিট খুব দ্রুত হয়ে যায়। আবার যখন তোমায় নিয়ে গভীর মগ্ন হয়ে ভাবি,তখন মনে হয় হার্টবিট থাকেনা আমার সাথে। বিকেলের চায়ের কাপে তোমার অপেক্ষায় হার্টবিট আবার ধীরগতির হয়ে যায়।
তোমার কারণে হার্টবিট নিয়ে মারাত্মক ভয়াবহ রোগে আক্রান্ত আমি। তোমাকে নিয়ে ভাবনার জালে
হয়তো কোন কালে আমার হার্টবিট নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে থেমে যাবে। তখন কোন ডাক্তার বা কবিরাজে কাজ হবেনা তুমি ছাড়া। এ রোগের ঔষুধ আছে শুধুই তোমার কাছে।
হয়তো প্রথম মিলনেই তুমি আমার মন হরন করবে।
আমি হারাবো তোমার রূপের সুরের মোর্ছনায়।
তুমি ঠিক কখন আসবে বুঝতে বেশ সময় লেগে যাচ্ছে আমার। তর সইছেনা কখন এসে আমার লাইফটা হেল করবে তুমি?
সেই সময়ের সাথে গতি বাড়িয়ে চলেছি প্রায় আমিও।
ক্লান্তির নীলাভ মেঘ আমার আকাশে উঁকি দিতে চায়,আমি ওদেরকে দূরে থাকার ৯ নং বিপদ সংকেত জানাই। সংকেত জানানোর পরেও মাঝে মাঝে অনুভবে ওদেরকে কাছে পেয়ে যাই। সময়বর্তনী টেনে দেখি কাটারাও পালাবদলে মত্ত। বেলাভূমির সর্বত্রে পালাবদলের জয়জয়কার। শুধু আমিই আছি তোমার মন পালাবদলের অপেক্ষায়।
কল্পনার আলপনায় তোমার লাল টকটকে আঁখির আদ্রতা আমাকে কি যেন বলে যাচ্ছে কানে কানে। অনেক জ্বালাতন করবো এমন বাক্য বলে যাচ্ছো হরহামেশাই। প্রতিটি মিছিলে মিছিলে স্লোগানে স্লোগানে ধ্বনি-প্রতিধ্বনি হয়ে কখন আসবে আমায় ভালবাসার কথা শোনাতে?
আমার দেহ গঠনের প্রতিটি ইট খসে পড়বে তোমার ভালাবাসায়।
চূর্ণ-বিচূর্ণ ভুষিভূত ইটের প্রতিটি কোণা সাক্ষী হয়ে থাকবে সে ভালবাসার, অনাদি অনন্তকাল।
ভালবাসার পারাবদলে
এত ভালবাসা ছড়িয়ে দিবো
আমার মৃতুকালে তোমার বুকে রক্তক্ষরণ হবে।
তোমার আমার সে প্রেমের উপন্যাসের পান্ডুলিপি ছেপে যাবে ,কালজয়ী ঔপন্যাসিক আর কবি সাহিত্যকরা।
কোন সন তারিখে আমরা থাকবোনা,থেকে যাবে আমাদের ভালবাসার কথা সবার মুখে মুখে।
ভালবাসার খাঁটি উদাহরণ হবো আমরা।
তোমাকে নিয়ে আমার হাজারো ভাবনারা অনুভবে এসে জমা হয়েছে মগজের রক্তনালীতে।
ভিতরকার আকুতিগুলো বলে দিলুম আজ নির্দিধায়।
শব্দহীন নিশ্চলতার মাঝেও অনুভূত হও তুমি।
দিগন্তের শেষ বিন্দুর মাঝেও অনুভূব করি তোমার অস্তিত্বের আভাস।
আমি শুনতে পাই তোমার মেরোডি হৃদস্পন্দন।
নিশার অন্ধকারেও এক দীপ্তিময় বেশে অভিভূত হও তুমি।
দূর আকাশে নীলাভ মেঘে তোমায় হাতড়ে বেড়াই দিশাহীন হয়ে। মায়া নিশির আকাশে তাকিয়ে থাকি নিষ্পলক তোমায় দেখার অপেক্ষায়। রাতের নিস্তব্ধতা মনে করিয়ে দেয় তোমার কথা। ইচ্ছেরা খুন হতে চায় কোন শান্ত বিকেলে তোমাকে নিয়ে। পাশাপাশি হেঁটে পাড়ি দিতে চায় গাঁয়ের আ'ল পথ,নির্বাক হৃদয় স্বপ্ন বুনতে চায় কথাহীন। কোন এক অভিশপ্ত দুপুরে অপলক নেত্রে তোমার প্রাণে দাঁড় করাবো আমায়।
মুগ্ধতার প্রতিচ্ছবি খুজে নিতে চাই তোমাতেই।
জানতো!
দু'জন মানুষের এক হওয়ার আনন্দের চেয়ে দুটি আত্মা এক হওয়ার আনন্দই বেশি।
ভালবাসা কি?
বর্তমান নব যুগোলদের কাছে এ প্রশ্নের উত্তর হয়তো ধোঁয়াশায় পূর্ণ,আমি তো ভালবাসার মানে খুজি অন্য চিন্তায়।ভালোবাসার কোন সমাপ্তি নেই,এটি একটি চলমান প্রক্রিয়া, যে প্রক্রিয়ায় একটি হৃদপিন্ড আরেকটি হৃদপিন্ডকে বোঝার চেষ্টা করবে।
এ আশায় হয়তো আমার কলম থেমে নেই,পবিত্র জিনিসের তুলনা শুধুই পবিত্র জিনিস।
আমার ভালবাসা পবিত্র বলেই হয়তো এখনো তোমার অপেক্ষা প্রিয় অপরিচিত দোলা।
সময় হয়ে গেছে আজ এখানেই ইতি টানার। ইচ্ছে না থাকা সত্বেও অনেক কথাই লিখেছি,হয়তো মেঘেরা ঘটা করেই তোমাকে আমার কাছে নিয়ে আসবে শত বৃষ্টির শুভেচ্ছা দিয়ে। চোখের কোণায় ঘুম নামক ক্লান্তি ভীড় করেছে। শেষ লাইনে তোমার জন্য একটি প্রশ্ন রেখে গেলাম,
ভালবাসা হৃদয়য়জাত নাকি মস্তিস্কজাত?
উত্তরের অপেক্ষায় রইলাম।
ইতি:- তোমার নগরের একমাত্র চিরকুট লেখক
ছবি: নেট থেকে সংগ্রহ

মন্তব্য ১৬ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (১৬) মন্তব্য লিখুন

১| ১০ ই জুন, ২০১৯ রাত ১২:৪৬

শায়মা বলেছেন: মেঘ প্রিয় ভাইয়া

এই চিঠি কি মেঘের দেশের কন্যার জন্য????

চিঠি পড়তে গিয়ে তার দাঁত খুলে খুলে আকাশ থেকে আমাদের মাথায় পড়লে তো আমাদের খবর আছে! হা হা হা হা


তবে হ্যাঁ মন দিয়ে তোমার বঙ্কীম চন্দ্রীয় পত্রখানা পড়িলাম। অয়নে নয়ন রাখিলাম। রক্তচক্ষু অগ্নিকন্যাকে দোলনায় দুলিয়ে দিলাম!

এমন আরও আরও পত্র আমাদিগকে পড়াইও ভাইয়ামনি! :)

১০ ই জুন, ২০১৯ রাত ২:৪১

মেঘ প্রিয় বালক বলেছেন: প্রিয় বোন শায়মা,আমার পোস্টে এই প্রথম আপনার মন্তব্যে পড়ে মনটা আলোয় আর আনন্দে ফুটে উঠলো। ১৬ নং চিরকুটে আপনার মন্তব্যে পেলাম,তার পূর্বে আরো ১৫ টি চিরকুট রয়েছে,সময় হলে পড়বেন। মেঘের দেশের কন্যা এখনো নিঁখোজ। মন দিয়ে চিরকুট পড়েছেন জেনে কৃতজ্ঞ হলাম আপনার তরে। ভালবাসা ও শুভেচ্ছা নিরন্তর। আপনার জীবনের প্রতিটি মুহুর্ত যেন সাগরের তীরে উপচে পড়া ঢেউয়ের মত মধুর হোক। ভাইয়ের জন্য দোয়ার দরখাস্ত রেখে গেলাম। দেখা হবে আমাদের আবার আমার চিরকুটে অথবা আপনার কোন মধুমাখা লেখনিতে। ভালো থাকবেন।

২| ১০ ই জুন, ২০১৯ রাত ২:০৯

মুক্তা নীল বলেছেন:

অভিশপ্ত দুপুরে অপলক নেত্রে তোমার প্রাণে দাঁড় করাবো আমায়
----- অসাধারণ মুগ্ধতায় চিঠিতে।

১০ ই জুন, ২০১৯ রাত ২:৪৭

মেঘ প্রিয় বালক বলেছেন: প্রিয় মুক্তা নীল,চিঠিতে মগ্ধ হয়েছেন জেনে চিরকুট লিখার আগ্রহ আরো বেড়ে গেল। ধন্যবাদ জানিবেন।

৩| ১০ ই জুন, ২০১৯ রাত ২:১০

স্বপ্নের শঙ্খচিল বলেছেন: ভালবাসার পালাবদলে
এত ভালবাসা ছড়িয়ে দিবো
আমার মৃতুকালে তোমার বুকে রক্তক্ষরণ হবে।

...........................................................................
ভেজালের যুগে এতটা ভালোবাসা কোথাও নাই
অতএব, দিব্যি বেঁচে থাকুন

১০ ই জুন, ২০১৯ রাত ২:৫১

মেঘ প্রিয় বালক বলেছেন: ধন্যবাদ প্রিয় স্বপ্নের শঙ্খচিল,বেঁচে থাকার জন্য বলেছেন,দিন দিন ভালবাসা আমায় অসাড় গতিতে টানছে,আমি জানি ভালবাসা পবিত্র,তাই হয়তো কোন পবিত্র জিনিসের অপেক্ষায় আমি। পবিত্র ভালবাসা জানিবেন।

৪| ১০ ই জুন, ২০১৯ সকাল ৮:৩৪

বলেছেন: অপরিচিত নাকি অপরিচিতা!!!


বরাবরের মতো সুন্দর ++

১০ ই জুন, ২০১৯ সকাল ১১:১১

মেঘ প্রিয় বালক বলেছেন: অপরিচিতা হবে,ভুল ধরিয়ে দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ। আমি সংশোধন করে নিয়েছি। ভালবাসা জানিবেন।

৫| ১০ ই জুন, ২০১৯ সকাল ৯:০৯

নীলপরি বলেছেন:
সাবলীল উপস্থাপনা । কাব্যিক মূর্চ্ছনা ।ভালো লাগলো ।

শুভকামনা

১০ ই জুন, ২০১৯ সকাল ১১:১৩

মেঘ প্রিয় বালক বলেছেন: প্রিয় নীলপরি,কবিতার মত সুন্দর একটি মন্তব্যে করেছেন, ভালবাসা নিরন্তর।

৬| ১০ ই জুন, ২০১৯ সকাল ১০:৩৫

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: সুন্দর হয়েছে চিঠিখানা। উত্তর পাইছেন নি?

১০ ই জুন, ২০১৯ সকাল ১১:১৫

মেঘ প্রিয় বালক বলেছেন: উত্তর পাওয়া এতো সহজ নয়,কারন পাথরে ফুল ফোটাতে অনেক সাধনা করতে হয়। সেই সাধনায় দিন রাত লিখেই চলছি। জানিনা কবে আমার নোবেল লিখা শেষ হবে।

৭| ১০ ই জুন, ২০১৯ সকাল ১১:২৬

জুন বলেছেন: আপনার পত্রখানি পড়িতে পড়িতে আমি যাহা লিখিতে চাহিয়া স্ক্রল করিতেছিলাম, দেখিলাম ভগিনী শায়মা তাহা পুর্বানহেই বলিয়া দিয়া গিয়াছে X((
যাই হোক কপালের উপর কাহারো হাত নাই।
আগামীতে আরো পত্র পড়িবার অপেক্ষায় দিন যাপন করিতে শুরু করিলাম মেঘ প্রিয় বালক :)

১০ ই জুন, ২০১৯ বিকাল ৩:১১

মেঘ প্রিয় বালক বলেছেন: ধন্যবাদ প্রিয় জুন,আগামীতে আরো ভালো লিখার চেষ্ঠায় আছি। দোয়ার দরখাস্ত রইলো। আসলে আমি এমন কিছু লিখার চেস্টায় আছি,যা পড়ার যোগ্যতা রাখে সবার কাছে। এমন একটি ঘটনার তালাশে আছি,যাহা বন্দি করবো মনের কারাগারে,লিখবো আমি লিখবোই,ভালবাসার কলম দিয়ে তাকে অামি রূপ দিবো।

৮| ১০ ই জুন, ২০১৯ সকাল ১১:৫৬

রাজীব নুর বলেছেন: অত্যন্ত মনোমুগ্ধকর।

১০ ই জুন, ২০১৯ বিকাল ৩:১২

মেঘ প্রিয় বালক বলেছেন: ধন্যবাদ রাজীব নূর। শুভেচ্ছা জানিবেন।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.