নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

And miles to go before I sleep...।

আমি সাজিদ

প্রিয় মানুষদের সাথে চা ছাড়া ঘন্টার পর ঘন্টা কাটিয়ে দিতে পারি। জীবন নামের গায়কের নতুন শ্রোতা! মেডিক্যাল গ্রাজুয়েট। স্বপ্নবাজ।

আমি সাজিদ › বিস্তারিত পোস্টঃ

দশ বছর পর কেমন বাংলাদেশ দেখতে পান ? নির্দ্বিধায় আপনার মতামত দিতে পারেন।

১৪ ই জানুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫:৫৭

দশ বছর পর কেমন বাংলাদেশ দেখতে পান ?


১) ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ড বা কর্মক্ষম জনসংখ্যাতাত্ত্বিক যে সুবিধা বাংলাদেশ এখন ভোগ করছে তা কতটা কাজে লাগাতে পারবে বাংলাদেশ ? যদি বাংলাদেশ এ থেকে লাভ করে জাপানের মতো রাষ্ট্রে পরিনত হতে চায়, তাহলে কি কি পরিকল্পনা নেওয়া উচিত বলে আপনি মনে করেন ?
২) চলমান দুই ধারার রাজনীতি চলতে থাকলে অদূর ভবিষ্যতে একটি উন্নত বাংলাদেশ পাবো কি আমরা ? বাংলাদেশের সংঙ্গায়ন কেমন হওয়া উচিত বলে আপনার মনে হয় ? ১) জাতীয়তাবাদী ২) উদারতান্ত্রিক ৩) ইসলামিক জাতীয়তাবাদী ৪) উদারতান্ত্রিক জাতীয়তাবাদী
৩) আমাদের শিক্ষাব্যবস্থা কতোটা আধুনিক উন্নয়ন রাষ্ট্রের উপযোগী বলে আপনি মনে করেন ? শিক্ষা ব্যবস্থার কোন দিকটা আপনার মতে পরিবর্তন করা উচিত ?
৪) তথ্য প্রযুক্তির অতি সহজলভ্যতা কি তৃতীয় বিশ্বের রাষ্ট্রগুলো যেমন বাংলাদেশ, এরজন্য আশীর্বাদ নাকি অভিশাপ ?


ব্লগামত - ব্লগ মতামত সিরিজ ১

মন্তব্য ৮ টি রেটিং +০/-০

মন্তব্য (৮) মন্তব্য লিখুন

১| ১৪ ই জানুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:২৭

জাহিদ হাসান বলেছেন: আমি যেমন দেখতে পাই-

১। অধিক জনসংখ্যার কারণে দেশে টিকতে না পেরে মানুষ যে যেদিকে পারছে সরে যাচ্ছে।
২। এই কান্ড দেখে পৃথিবীর সব দেশ বাংলাদেশীরা অনএরাইভাল ও ভিসামুক্ত ভ্রমণ বন্ধ করে দিয়েছে।
৩। ভারত তার সীমান্তে ভালো করে কাটাঁতার ও দেওয়াল দিয়ে রেখেছে যাতে বাংলাদেশীরা কোনভাবেই পালিয়ে ঢুকতে না পারে।
৪। এক সন্তান নীতি আইনের জন্য শাহবাগের রাস্তা বন্ধ করে রেখেছে প্রগতিশীলরা। আর এদের নাস্তিক আখ্যা দিয়ে মতিঝিল শাপলা চত্বর অবরোধ করে রেখেছে লাখো লাখো কওমি মাদ্রাসার হুজুর ও ছাত্ররা।
৫। দূষণের কারণে সারা দেশে প্রতিদিন মানুষ মারা যাচ্ছে।

আর কিছু মাথায় আসছে না। আপনাদের আসছে?

১৪ ই জানুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:০৫

আমি সাজিদ বলেছেন: ১) দক্ষ জনসংখ্যা রপ্তানী করলে এই ঢিলে দুই পাখি মারা যেতো, ভারত মিডেল ইস্ট আর ইউরোপে যেমন করেছে। সেটা সম্ভব না কারন নতুন শিল্প বিপ্লবে টিকে থেকে দক্ষ জনসংখ্যা গড়ে তোলার মতো নৈতিক অবস্থান আমাদের নীতি নির্ধারকদের নেই। আর আগের মতো বোধহয় গোটা বিশ্ব উদার নেই। দেশগুলোতে ন্যাশনালিজম বা উগ্র জাতীয়তাবাদের হাওয়া লেগেছে। কাজেই মানুষ যেদিকে ইচ্ছা সরতেও পারবে না।
২) ভারত তার সীমান্ত বন্ধ করে ওদিক থেকে পুশব্যাকও করতে পারে একসময় !
৩) প্রগতিশীলরা ভয়ে থাকবে, জানের ভয় সবাই আছে। শাহবাগে কিছু হবে বলে মনে হয় না।
৪) দূষন খুব মারাত্নক সমস্যা। ঢাকার কথাই চিন্তা করুন। এজম্যাটিক প্রবলেম বেড়ে গেছে। রেডিয়েশনের কথা নাই বললাম। জ্যামের কারনে ইমারজেন্সী ওয়েল ইকুইপড হাসপাতালে নেওয়ার মতো সময় রোগীর স্বজনরা পাবে কিনা সন্দেহ।


এই যুক্তিগুলো কেমন মনে হয় আপনার কাছে ?

মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।

২| ১৪ ই জানুয়ারি, ২০২০ রাত ৯:০২

অখ্যাত নবাব বলেছেন: বাংলাদেশের ভার এদেশের রাজনীতিবীদরা ভারতের উপর তুলে দিয়েছে। তাই এদেশের জনগণের ভাগ্য গড়ার ক্ষমতা নাই!
আমাদের বাংলাদেশের জন্য সামনের দিনগুলো খুবই ভয়াবহ হবে। নির্ভর করছে ভারতের উপর।
এনআরসি দিয়ে শুরু।

১৪ ই জানুয়ারি, ২০২০ রাত ১০:১৫

আমি সাজিদ বলেছেন: আমারও একই ধারনা। কোথায় যেন পড়েছিলাম, অন্তত হাজার দশেক মানুষ পুশ ব্যাক শুরু হলেই নাকি বাংলাদেশী অর্থনীতি কলাপ্স করবে !

৩| ১৪ ই জানুয়ারি, ২০২০ রাত ৯:৪১

রাজীব নুর বলেছেন: ১। দেশে দূর্নীতি হচ্ছে অথচ দেশ বিএনপির আমলের মতোন দূর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন হচ্ছে না।
২। সমস্ত দেশের মানুষ অমানবিক ও হৃদয়হীন হয়ে পড়েছে।
৩। শিক্ষার মান নেমে গেছে।
৪। জিনিসপত্রের দাম অত্যাধিক বেড়েছে।
৫। নতুন প্রজন্ম যেন কেমন- তাদের বুঝি না।

১৪ ই জানুয়ারি, ২০২০ রাত ১০:১৭

আমি সাজিদ বলেছেন: সমস্ত দেশের মানুষ অমানবিক ও হৃদয়হীন হয়ে পড়েছে।
নতুন প্রজন্ম যেন কেমন- তাদের বুঝি না।

আসলে সময়টা কেমন যেন অস্থির !

৪| ১৫ ই জানুয়ারি, ২০২০ সকাল ১০:২৫

খাঁজা বাবা বলেছেন: যেমন চলছে এমন চললে,
আগামী দশ বছর পরে দেশে একনায়ক তন্ত্র আরো শক্তিশালী হবে
দুর্নীতি এমন পর্যায়ে পৌছে যাবে যে তার থেকে বেড়িয়ে আসার আশা করা ঘুমিয়ে স্বপ্ন দেখার মত ব্যপার হবে।
শিক্ষার মান আরো খারাপ হবে। দেশের চাকরির মধ্যম,উচ্চ ও টেকনিকাল পদ গুলি বিদেশিরা দখক করে নেবে।
প্রশাসনে সরকারের কোন নিয়ন্ত্রন থাকবে না। সবার যার যার মত দুর্নীতেতে নিয়োজিত হবে।। তবে এদের শক্ত সিন্ডিকেট থাকবে।
অর্থনৈতিক ভাবে সাধারন মানুষ খুবই খারাপ থাকবে। এর মধ্যে আমরা একটি গভীর অর্থনৈতিক মন্দা দেখব। যা হবে ভয়াবহ।

১৫ ই জানুয়ারি, ২০২০ দুপুর ২:৩২

আমি সাজিদ বলেছেন: দেশের বেসরকারী চাকরির পদগুলো বাইরের লোকরা দখল করে নিবে সত্য। কারন আমি বারবারই বলি বেসরকারী চাকরীর জন্য যে যোগ্যতা থাকা লাগে তা পিএসসির বিসিএসের সিলেবাস থেকেও অনেক বেশী। আমরা তাই ইউনিভার্সিটিতে উঠে নাইন টেনের বাংলা ব্যাকরন / সুদকষার অংক করা বিসিএস ক্যাডার পাচ্ছি, কিন্তু দক্ষ গ্র্যাজুয়েট খুব কম পাচ্ছি।

প্রশাসনে সরকারের নিয়ন্ত্রন এখনই কমে যাচ্ছে, ভবিষ্যতে থাকবে না। আমিও একমত। প্রশাসনই হয়তো একসময় ছায়া সরকার হয়ে যাবে। আমাদের দেশে প্রশাসনের শক্ত সিন্ডিকেট আগে থেকেই আছে, এদের অনেক কিছুই আমাদের অজানা। আমি সামনের দশকে একটি অর্থনৈতিক মন্দা দেখতে পাচ্ছি। ভয়াবহ।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.