নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমার পুরো নাম শাইয়্যান মোহাম্মদ ফাছিহ-উল ইসলাম। অন্যদের সেভাবেই দেখি, নিজেকে যেভাবে দেখতে চাই। যারা জীবনকে উপভোগ করতে চান, আমি তাঁদের একজন। সহজ-সরল চিন্তা-ভাবনা করার চেষ্টা করি। আর, খুব ভালো আইডিয়া দিতে পারি।

সত্যপথিক শাইয়্যান

আমি লেখালিখি করি, মনের মাধুরী মিশিয়ে

সত্যপথিক শাইয়্যান › বিস্তারিত পোস্টঃ

জগাই-মগাই\'র রাজ্যে নিশ্চুপ রাজপুত্র

২৭ শে মার্চ, ২০২১ রাত ৯:২৭



যে যত নিশ্চুপ থাকে, কম কথা বলে সে তত বিপদ থেকে নিরাপদ। ভালো কথা বলা নিশ্চুপ থাকার থেকে শ্রেয়, আর নিশ্চুপ থাকা খারাপ কোন কিছু বলার থেকে ভালো। একটা ঘটনা বলি।

জগাই দেখো দিন-দুপুরে
করছে 'আহা-উহু',
মগাই তখন শেষ প্রহরে
ডাক দিচ্ছে 'কুহু'।

যুগের সাথে তাল মিলিয়ে
জগাই যদি চলে,
'আদ্দিকালেই ভালো ছিলাম'
মগাই তখন বলে।

কুসুম কুসুম ভালোবাসা
জগাই'র যদি হয়,
হাত দুটো কোমরে বেঁধে
মগাই দেখায় ভয়।

সকালবেলা জগাই যদি
তাইরে নাইরে বলে,
সন্ধ্যাবেলা মগাই তখন
তবলায় ধিতাং তুলে।

একবার কোন এক রাজপুত্রের সাথে এক দরবেশের দেখা হলো। রাজপুত্র দরবেশের কাছে উপদেশ চাইলে, তিনি বললেন- 'সর্বদা চুপ করে থাকবে।' প্রাসাদে ফিরে রাজপুত্র সবার সাথে কথা বন্ধ করে দিলেন। সবাই ভাবলো রাজপুত্র বুঝি পাগল হয়ে গেছে। তাঁর এই অবস্থা দেখে বাবা, সেই রাজ্যের রাজা খুব চিন্তিত হয়ে পড়লেন। একমাত্র পুত্রের এমন অবস্থা হলে তো বড় চিন্তার কথা।

রাজার উজির-নাজিররা পরামর্শ দিলেন যে রাজপুত্রকে যদি পাখী শিকারে নিয়ে যাওয়া হয়, তাহলে তিনি হয়তো কথা বলতে বাধ্য হবেন। রাজা শিকারের আয়োজন করতে বললেন। যথা দিনে সবাই শিকারে রওনা হলেন।

গাছের নিচে ঘাপটি মেরে পাখী খুঁজতে খুঁজতে চলছে রাজার বাহিনী। তাঁদের পায়ের আওয়াজে পাতার আড়ালে লুকিয়ে থাকা পাখীগুলো হঠাৎ কিচির-মিচির শব্দ করে উড়ে যেতেই রাজার সৈন্যরা ধনুকে তীর লাগিয়ে ছুড়তে থাকে। তীর খেয়ে অনেক পাখী ধরাশায়ী হয়।

তা দেখে এতক্ষণ সবকিছু পর্যবেক্ষণ করতে থাকা রাজপুত্র বলে উঠলেন- 'যতক্ষণ পাখীগুলো চুপটি করে ছিলো, তারা নিরাপদে ছিলো। মুখ খুলতেই দেখো তারা কেমন নিজের বিপদ ডেকে এনেছে।'

এবারে সবাই বুঝলো যে আসলে রাজপুত্র পাগল হয়ে যায়নি, তাঁকে কেউ বুঝিয়েছে চুপ করে থাকাই শ্রেয়। কথাটা রাজার কানে যেতেই তিনি বললেন যে করেই হোক পুত্রকে কথা বলাতে হবে।

আস্তে-ধীরে, হেলতে-দুলতে
জগাই বাজারে যায়,
গাঁ কাঁপিয়ে,পাড়া দাপিয়ে
মগাই পিছু ধায়।

জগাই তখন ঘোড়ায় উঠে
মগাই চড়ে উট,
জগাই'র মাথায় ভূত্নী ধরলে
মগাই'র মাথায় ভূত।

একজনেতে পুকুরে নামলে
আরেকজনে যায় পাহাড়,
জগাই যদি গাভী কিনে
মগাই কিনে ষাঁড়।

বাঘের মাসী, কথাটা বাসি
ধরলে বিড়ালের গোঁফ,
জগাই এসে 'হা' হা' করে
মগাই বলে 'উফ'।

সবাই মিলে এবারে রাজপুত্রকে পিটাতে লাগলো। অনেকক্ষণ ধরে মার খেয়ে রাজপুত্র নিজেকে নিজেই বললেন- 'হে মন, বনে মাত্র একবার কথা বলেছিলে বলে আজ তোমার এই অবস্থা। তুমি যদি বেশি কথা বলতে না জানি তোমার অবস্থা কি হতো!'

যে যত নিশ্চুপ থাকে, কম কথা বলে সে তত বিপদ থেকে নিরাপদ। ভালো কথা বলা নিশ্চুপ থাকার থেকে শ্রেয়, আর নিশ্চুপ থাকা খারাপ কোন কিছু বলার থেকে ভালো।

আধুনিক কালে ব্লগ আমাদের কথা বলা, চিন্তা-ভাবনা প্রকাশ করার মাধ্যম। অনেককেই বলতে শুনেছি, ব্লগ এবং ফেসবুকের মধ্যে পার্থক্য অনেক ব্লগাররাই বুঝেন না। যাচ্ছে-তাই লিখে পোস্ট করে বসেন। আবার, খুব কম সংখ্যক ব্লগারই যথোপযুক্ত কমেন্ট করতে পারেন। তাই, অনেকেই হয় মন্তব্যের উত্তর দেন না, নাহয় স্কিপ করে যান। এমন হতে পারে যে, তাঁরা উপরের বর্ণিত নীতি অবলম্বন করেন।

মেয়ে স্বামী'র ধরলে কান
জগাই বলে 'বাহ',
বউয়ের ঘাড় ধরলে ছেলে
মগাই কয় 'নাহ'।

গরমকালে ফুলহাতা শার্ট
জগাই পড়ে যখন,
শীতের রাতে, গেঞ্জি গায়ে
মগাই হাটে তখন।

চ্যটাং চ্যাটাং কথা বলা
সবার কি আর সাজে,
জগাই হাতে মুখ লুকালে
মগাই লুঙ্গির ভাঁজে।

এভাবেই চলছে শেষে
আজব দেশের গ্রাম,
জগাই-মগাই'র লড়াই দেখে
হাততালি দেয় আম।

সেজন্যেই, জ্ঞানীরা বলেছেন, চিন্তা করে কথা বলুন, লিখু্ন, মন্তব্য করুন। যদি এমন না করতে পারেন, নিশ্চুপ থাকুন। তা আপনাকে সাফল্য লাভে সহায়তা করবে, এটা নিশ্চিৎ করে বলা যায়।

মন্তব্য ৬ টি রেটিং +০/-০

মন্তব্য (৬) মন্তব্য লিখুন

১| ২৭ শে মার্চ, ২০২১ রাত ৯:৪১

নেয়ামুল নাহিদ বলেছেন: চমৎকার লেখার স্টাইল! আমার খুব ভালো লেগেছে।
সম্পূর্ণ লেখাটাই কি আপনার মস্তিষ্ক প্রসূত?

২৭ শে মার্চ, ২০২১ রাত ৯:৪৪

সত্যপথিক শাইয়্যান বলেছেন:


ভালো লেগেছে জেনে খুব ভালো লাগলো।

জগাই-মগাই চরিত্রটি সামুতে প্রথম নিয়ে আসেন বিখ্যাত ছড়াকার এবং ব্লগার প্রামানিক ভাই।

আমি তাঁর ভাবশিষ্য।

ধন্যবাদ নিরন্তর।

২| ২৮ শে মার্চ, ২০২১ রাত ১২:৪৭

রাজীব নুর বলেছেন: পোষ্ট টা তৈরি করতে ভালৈ পরিশ্রম করেছেন।

২৮ শে মার্চ, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:০২

সত্যপথিক শাইয়্যান বলেছেন:


জী, হয়েছে। আশা করি, ভালো লেগেছে।

ধন্যবাদ নিরন্তর।

৩| ২৮ শে মার্চ, ২০২১ দুপুর ১:১০

খায়রুল আহসান বলেছেন: জগাই-মগাই'র মজার গল্প দিয়ে যা বলে গেলেন, সেটা অনেকেই বোঝেন, তাই মেনেও চলেছেন।
কবরস্থান সবচেয়ে নিশ্চুপ জায়গা।

২৮ শে মার্চ, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:০৩

সত্যপথিক শাইয়্যান বলেছেন:



কবরস্থান ছাড়া অন্য সব জায়গায় চুপ করে থাকাটা আসলেই খুবই কষ্টকর।

ভালো থাকুন নিরন্তর।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.