নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

বেঁচে থাকাটা দারুণ ব্যাপার ....

সুলতানা শিরীন সাজি

shazi১৯এট জিমেইল ডট কম আমার এই পথ-চাওয়াতেই আনন্দ।খেলে যায় রৌদ্র ছায়া,বর্ষা আসে বসন্ত।কারা এই সমুখ দিয়ে আসে যায় খবর নিয়ে,খুশী রই আপন মনে-বাতাস বহে সুমন্দ।সারাদিন আঁখি মেলে দুয়ারে রব একা,শুভক্ষণ হঠাৎ এলে তখনি পাব দেখা।ততক্ষন ক্ষণে ক্ষণে হাসি গাই আপন-মনে,ততক্ষন রহি রহি ভেসে আসে সুগন্ধ

সুলতানা শিরীন সাজি › বিস্তারিত পোস্টঃ

"খোলা জানালা"

০৪ ঠা নভেম্বর, ২০১৯ সকাল ১১:৪২

এমন বৃষ্টিদিন এলে খুব ইচ্ছা করে স্বপ্নবোনা সেই শহরে যাই।যেখানে ভীড় করে আছে অজস্র ঝর্ণাধারা। হাঁটতে হাঁটতে যে কোন রাস্তার শেষেই শোনা যায় কুলকুল করে পানি পড়ার শব্দ। বৃষ্টির পানিতে চোখ ভিজে গেলে কাজল ধুয়ে যায় তবু বৃষ্টি ছুঁলে মনে হয় সুখপাখি ছুঁয়ে গেলো। কি আনন্দ,কি পূর্ণতা !
একবার মাকে জিজ্ঞেস করেছিলাম ,স্বর্গ কোথায় মা? মা বুকের কাছে হাত দিয়ে বলেছিলেন ,এখানে।
তখন আমার বুকের ভিতর বেশি কিছু ছিল কই?
প্রিয় মানুষদের আদর। কিছু প্রিয় বইপত্র।কিছু বাহারী কলম,পেনসিল। দু'চোখ ভরে ছিল আকাশের নীল ছুঁয়ে দেখার স্বপ্ন। এক একটা বই এর পাতায় দেখা বিশ্বজগৎ! মায়ের বলা বুকের ভেতরের সেই স্বর্গ মানে তখন আমার কাছে এইসব।

'পরিনীতা' বইটা পড়ে আমি তখন লুকিয়ে বেড়াই ঘরের এখান থেকে ওখানে। আমাদের বাসার অনেক উঁচু ছাদে রেললাইনের পীলারের কোনায় জন্ম নেয়া যে পাখির ছানাটা পড়ে যায় খড় কুটো সাথে নিয়ে,আমি ওকে লুকিয়ে বড় করি আমার পুতুলের বাক্সে। আমার লুকানো জগতের খবর পেয়ে যায় যখন সবাই,তখন সেটা আর আমার একার থাকেনা। যেমন করে বই এর শেখরদা সবার খুব প্রিয়,ঠিক তেমন করেই আমার অনেক ভালোলাগা হাত ছাড়া হতে থাকে সেই তখন থেকেই।
আমি কাউকে ভালোবেসেছি আর সে শুধু আমারই থেকেছে,তেমন কই হয়নিতো!
আমার বলিয়া আসলেই কি কিছু থাকে?মানুষ কি শুধুমাত্র একজনের ভালোবাসা ঘিরে থাকতে পারে?

তবু মন চেয়েছে আমাকে কেউ একজন হুলুস্থুল ভালোবাসুক। কেউ আমার জন্য বৃষ্টিতে ভিজে নিয়ে আসুল কদম ফুল।
কেউ আমার চোখে চোখ রেখে স্পষ্ট বলুক ,তুমি সুন্দর। এইরকম প্রার্থনা,প্রাপ্তি এমনকি অপ্রাপ্তির মধ্যে দিয়েই জীবন এগোয়!
বুকের মধ্যেকার সেই স্বর্গটা অপার্থিব আলোয় ভরে যেতে থাকে। কত মানুষের ভালোবাসা যে সেখানে জমা হতে থাকে!

কেউ পাশে থাকলেই যে পাশে থাকা হয়না,কেউ পাশে না থাকলেও যে পাশে থাকা হয়, এই সত্যিটা বুঝতে পারি যেদিন,সেদিন থেকে বিশাল একটা জানালা আমার একার হয়ে যায়। আমি সেই জানালায় চোখ রেখে অনায়াসে হেঁটে আসি বোলপুরের ধূলোমাখা পথ।
ফ্রান্সের সেই রাস্তাটায় যেখানে আবছা আলোতে ক্যাফেতে বসে গল্প করে কত মানুষ!
আমি সেখানে যেয়ে বসি। ফরাসী কফির গন্ধে ভুসভুস করে ভিতর থেকে উঠে আসে কবিতা।
আমি ইটবিছানো রাস্তার দিকে তাকিয়ে আমি তাকে হেঁটে আসতে দেখি।
সাদা শার্ট আর নীল জিন্স । গলার মাফলারে আকাশের সব নীল। কাঁধে ফেলে রাখা জ্যাকেটটা ধরে,মাথানীচু করে সে হেঁটে আসছে।
মাত্র কয়েক সেকেন্ডের পথ।মনেহয় অনন্তকাল পার হয়ে যায়!

জানালা বন্ধ করে সরে আসি। নিমেষে উধাও হয়ে যায় বৃষ্টিভেজা সেই পথঘাট। হারিয়ে যায় সেই পেইভমন্ত ক্যাফে।
আমার চোখের পাতায় বৃষ্টি । আমি ঘর ছেড়ে বাগানের ঘাস এ পা ফেলি। আমি গলা ছেড়ে গান গাই," কী আনন্দ, কী আনন্দ, কী আনন্দ
দিবারাত্রি নাচে মুক্তি নাচে বন্ধ"।
জানালা দিয়ে আমাকে দেখছে যে। জেনেছি সে আমাকে ভালোবাসে। তার লুটোপুটি ভালোবাসায় আমার চোখ বেয়ে আনন্দাশ্রু নামে।
আকাশ নাকি মানুষ ,কে কার কান্নাকে ছুঁয়ে যায়!

নভেম্বর ৪’ ২০১৯
অটোয়া

মন্তব্য ১২ টি রেটিং +৪/-০

মন্তব্য (১২) মন্তব্য লিখুন

১| ০৪ ঠা নভেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১২:০৫

বিজন রয় বলেছেন: সাজি আপা, আপনার লেখা মানে মনকে জড়িয়ে ফেলা।
আগেও বলেছি।

মায়া আর মিষ্টি।

ভাল আছেন নিশ্চয়ই।
শুভকামনা রইল।

০৪ ঠা নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৪৯

সুলতানা শিরীন সাজি বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ।
পাঠে ভালোলাগা ।শুভেচ্ছা নিরন্তর।

২| ০৪ ঠা নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:৩৪

রাজীব নুর বলেছেন: দত্তা বইটা কি পড়েছেন??
না পড়লে অবশ্যই পড়বেন। আমার ভীষন প্রিয় একটা বই।

০৪ ঠা নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৫১

সুলতানা শিরীন সাজি বলেছেন: শরৎ রচনাবলীর সব পড়েছি সেই স্কুল জীবনেই।
আমারো খুব প্রিয়।
শুভেচ্ছা রাজীব।

৩| ০৪ ঠা নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৫২

এ.টি.এম.মোস্তফা কামাল বলেছেন: খুব ভালো লাগলো আপু। পরিণীতা আমারো খুব প্রিয় বই। অন্য রকমের প্রেমের উপন্যাস।

০৪ ঠা নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৫৩

সুলতানা শিরীন সাজি বলেছেন: অনেকদিন পর কামাল ভাই।কেমন চলছে শের শায়েরী?
সবাই ভালো থাকবেন। আসলেই পরিণীতা আমাদের ছোটবেলার ভালোলাগা বই এর একটা
শুভেচ্ছা।

৪| ০৪ ঠা নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:২৬

ফয়সাল রকি বলেছেন: চমৎকার লেখা। আবেগ আর ভালোবাসায় মাখামাখি।

০৪ ঠা নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৫৫

সুলতানা শিরীন সাজি বলেছেন: :)
থ্যাঙ্কস ফয়সাল।
শুভেচ্ছা

৫| ০৪ ঠা নভেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:১২

মোস্তফা সোহেল বলেছেন: খুব সুন্দর লিখেছেন।পড়তে পড়তে কোথায় যেন হারিয়ে গেছিলাম।

৬| ০৪ ঠা নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৫৬

ওমেরা বলেছেন: এক অদ্ভুদ রকমের ভালোলাগার আবেশে মুগ্ধ হয়ে লিখাটা পড়লাম । খুব ধন্যবাদ আপনাকে।

৭| ০৫ ই নভেম্বর, ২০১৯ রাত ২:০১

স্বপ্নের শঙ্খচিল বলেছেন: আমি কাউকে ভালোবেসেছি আর সে শুধু আমারই থেকেছে,তেমন কই হয়নিতো!
আমার বলিয়া আসলেই কি কিছু থাকে?
মানুষ কি শুধুমাত্র একজনের ভালোবাসা ঘিরে থাকতে পারে?

'''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''''
ভালবাসার জীবন যারা অতিক্রম করেছে, তাদের এই নষ্টালজিয়া অবগাহন করতেই হবে,
ভালবাসা কেন এক পাত্রে ধরে রাখা যায় না? জীবন চক্রে এখনো নারী কেন বলে,
আমি ভালবাসি, আমাকে বিয়ে করে তোমার কাছে নিয়ে যাও !!!
...............................................................................................................
কেউবা নেমনত্ন করে আকাশের ঠিকানায়..........হা হা হা

৮| ০৬ ই নভেম্বর, ২০১৯ সকাল ১১:০৫

মেহরাব হাসান খান বলেছেন: আকাশ মানুষ! মানুষের মত রহস্যময়। একটু তাকিয়ে থাকুন, দেখবেন আগের আকাশটা নেই। বদলে যাবে। সবচেয়ে ভয়াবহ শ্রাবণের আকাশ, মন খারাপ করে দেয়।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.