নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমি শিহাব আহমেদ। লেখাপড়া করেছি, কম্পিউটার সাইন্স এ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং এ। টেকনিক্যাল বিষবিষয়গুলো নিয়ে পড়াশোনা করতে ভাল লাগে। সে ভাল লাগার আলোকে যা জানি তা অন্যকে জানিয়ে দিয়ে অভিভূত করতে ভালবাসি। ভাল লাগা আর ভালবাসার সংমিশ্রণ ঘটাতে সামুতে আগমন।

শিহাবআহমেদ

টেকনিক্যাল ব্লগ লেখক

শিহাবআহমেদ › বিস্তারিত পোস্টঃ

নেটওয়ার্কিং প্রফেশন এর গোড়ার কথা | নেটওয়ার্কিং প্রফেশন হিসেবে পছন্দ করলে যা যা জানতে হবে | শেষ পর্ব

১২ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ২:৫৩



নেটওয়ার্কিং কে প্রফেশন হিসেবে পছন্দ করার পর আমরা অনেকেই মনে করে থাকি, সিসিএনএ কোর্স করা মানেই নেটওয়ার্কিং এর সবকিছু শিখে নেওয়া এবং এই কোর্স এর সিলেবাসেই নেটওয়ার্কিং এর যাবতিয় টপিক্সগুলো ইনক্লুডেড। অথেচ এটা একটা ভুল ধারণা। এটা সিসকো ভেন্ডোর কোর্স গুলোর প্রথম স্তর। এই স্তরে নেটওয়ার্কিং এর বেসিক কনসেপ্ট, নেটওয়ার্কিং ডিভাইসগুলোর বেসিক কনফিগারেশন সেট আপ এবং একেবারেই বেসিক কিছু ট্রাবলশুটিং সম্পর্কে ধারণা সংগ্রহ করা যায়।

নেটওয়ার্কিং কে প্রফেশন হিসেবে পছন্দ করতে গেলে এই প্রফেশন এর প্রাথমিক কি কি তথ্য জানা একান্তই অপরিহার্য তা আমরা একই শিরোনামের প্রথম পর্বে ইতিমধ্যে জেনে ফেলেছি। এবং সেই সাথে প্রথম পর্বের শেষের দিকে আমরা সিসকো ভেন্ডোর এর প্রাথমিক কথাবার্তা শুরু করেছিলাম। এ পর্বে আমরা ধারণা নেবো সিসকো ভেন্ডোর এর প্রতিটি স্তর সম্পর্কে। আমরা জানার চেষ্টা করবো কোন স্তর কাদের জন্য, কখন এবং কিভাবে সে স্তর গুলোতে ক্রমন্বয়ে উঠতে হয়। এছাড়া আমরা আরো জানবো সিসকোর ভেন্ডোর এক্সাম সম্পর্কে। প্রথমে আমরা জানবো সিসিএনএ সম্পর্কে।

CCNA (Cisco Certified Network Associate): সিসকোর এই কোর্সটা নিয়ে প্রথম পর্বে আমরা অল্প পরিসরে জেনেছি। এই কোর্সটা মূলত এ্যাসোসিয়েট লেভেল এর একটা কোর্স। এই কোর্স এ কি কি শেখা যায় তা আমরা এই পোস্ট এর প্রথমেই জেনে ফেলেছি। এই কোর্সটা ৮০ ঘন্টার কোর্স। কোর্স কোডঃ ২০০-১২৫। এখন আমরা পরবর্তী স্তরগুলো সম্পর্কে জানার চেষ্টা করব।

CCNP (Cisco Certified Network Professional): এ্যাসোসিয়েট লেভেল এর নোলেজ এ্যাচিব করার পর প্রফেশনাল লেভেলে উত্তীর্ণ হবার জন্য সিসিএনপি কোর্স এর সিলেবাস কমপ্লিট করা আবশ্যক। এই সিসিএনপি কোর্স আবার মোট তিনটা অংশে বিভক্ত। সেগুলো যথাক্রমেঃ সুইচিং অংশ, রাউটিং অংশ এবং ট্যাবলশুটিং অংশ। প্রত্যেকটা অংশের জন্য আলাদা আলাদা করে ফি পরিশোধ করে আলাদা আলাদা পরীক্ষায় অংশ নিতে হয়। যখন কোনো পরীক্ষারর্থি সিসিএনপির সবগুলো অংশের সিলেবাস এ অন্তুর্ভুক্ত বিষয়গুলোতে নোলেজ গ্যাদার করে তিনটি অংশেই উত্তীর্ণ হয়ে যায়, তখন তাকে বলা যাবে সিসকো ভেন্ডোর এর প্রফেশনাল লেভেলের ইঞ্জিনিয়ার।

CCIE (Cisco Certified Internetwork Expert): একইভাবে প্রফেশনাল লেভেল এর নোলেজ এ্যাচিব করার পর Expert Level এ উত্তীর্ণ হবার জন্য এই CCIE কোর্স এর সিলেবাস কমপ্লিট করা আবশ্যক। CCIE এর সিলেবাস এ অন্তুর্ভুক্ত বিষয়গুলোতে নোলেজ গ্যাদার করার পর তাকে বলা যাবে সিসকো ভেন্ডোর এর Expert Level এর ইঞ্জিনিয়ার।

আমরা জানি, কোনো শিক্ষাই ততোক্ষণ অবদি স্বীকৃত হয় না, যতোক্ষণ তা পরীক্ষিত হয়ে যায়। তেমনিভাবে সিসকোও তাদের ইঞ্জিনিয়ারদের লেভেল এর ধারাবাহিকতা অনুযায়ি পরীক্ষার মাধ্যমে সনদ দিয়ে থাকে। এর জন্য পরীক্ষায় অংশ গ্রহণকারীদের পরিশোধ করতে হয় সিসকো নির্ধারিত ফি। সিসকোর এই আন্তর্জাতিক মানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হবার পর সিসকো পরীক্ষার্থির জন্য সয়ংক্রিয়ভাবে একটা প্রোফাইল তৈরি করে দিবে এবং প্রদান করবে ১৬ ডিজিটের একটা আইডি। যে আইডি জানা থাকলে যেকেউ, যেকোনো সময় সিসকোর ওয়েব সাইট থেকে ঐ পরীক্ষার্থির প্রফাইল দেখে নিতে পারবে, জেনে নিতে পারবে সে আসলেই সিসকো সার্টিফাইড কি না। এছাড়া সিসকো পরীক্ষার্থিকে প্রোভাইড করবে সনদের হার্ডকপিও।

প্রত্যেকটা লেভেল এর কোর্স সিলেবাস শেষ করার পর সিসকোর নির্ধারিত ফি পরিশোধ করে যেকোন সময় সিসকো অনুমোদিত Pearson VUE authorized testing center এ পরীক্ষায় অংশগ্রহন করা সম্ভব।

এক্ষেত্রে Cisco এর নির্ধারিত CCNA কোর্স এর ক্ষেত্রে, এর সিলেবাস শেষ করার পর যে পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে তাতে পরীক্ষার্থীকে ৬০-৭০ মিনিটের একটা পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে। যার মোট নম্বর ১০০০। এই ১০০০ এর মধ্যে আগে পাশ নম্বর ছিল ৮২৪ নম্বর, বর্তমানে সেটা কমিয়ে ৮১০ করা হয়েছে। পরীক্ষাটি যেহুতু অনলাইনে হয় তাই পরীক্ষা শেষ হবার সাথে সাথেই পরীক্ষার্থি যে কম্পিউটার ব্যবহার করে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল, সেই কম্পিউটার এর মনিটরে তৎক্ষণাৎ ভেসে উঠবে পরীক্ষার ফলাফল। বর্তমানে রাউটিং-সুইচিং এর সিসিএনএ ভেন্ডোর এক্সাম দিতে ফি লাগছে ৩২৫ ডলার। এই পরীক্ষায় পাশ করার পর যে সনদ সিসকো প্রোভাইড করবে তার মেয়াদকাল থাকবে দু বছর। দু বছর এর মধ্যে যদি সিসকোর অন্য কোনো আপডেটেড কোর্সের ভেন্ডোর এক্সাম দিয়ে উক্ত পরীক্ষার্থী যদি পূনরায় উত্তীর্ণ হতে পারে তবে তার অর্জিত আগের সবগুলো সনদের মেয়াদ দু বছর করে বেড়ে যাবে। উদাহারণ হিসেবে বলা যায়, ধরে নেন আপনি সিসিএনএ এর ভেন্ডোর এক্সাম এ পাশ করে দেড় বছর বসে আছেন, এর মধ্যে সিসকোর আর কোনো কোর্স করেননি, এখন যদি আপনি সিসিএনপির তিনটা পার্ট এর কোনো একটায় পাশ করে যান তাহলে পেছনের অর্থাৎ সিসিএনএ এর সার্টিফিকেট এর মেয়াদ আরো দু বছর বেড়ে যাবে। এভাবে CCIE এর সার্টিফিকেশন না নেওয়া পর্যন্ত সার্টিফিকেশন পরীক্ষায় পাশ করে করে ধরে রাখতে হবে।

কেউ যদি আপডেটেড লেভেল এর কোনো এক্সাম দিতে চায় তাকে অবশ্যই তার নিচের স্তরের পরীক্ষাগুলোতে উত্তীর্ণ হয়ে নিতে হবে। যেমন; কেউ যদি চায় সে সিসিএনপির জন্য ভেন্ডোর এক্সাম এ অংশগ্রহণ করবে অথেচ সে সিসিএনএ পাশ করেনি, তাহলে এটা সম্ভব না। আগে সিসিএনএ পাশ করতে হবে তারপর সিসিএনপি আর যখন সিসিএনএ এবং সিসিএনপি দুটোতেই কেউ উত্তীর্ণ হয়ে যাবে তখন গা তার সিসিআইই পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করার যোগ্যতা অর্জিত হবে।

সিসকো সার্টিফাইড হবার সুবিধাঃ
*** সিসকোর সার্টিফিকেট আন্তর্জাতীকভাবে অনুমোদিত এবং স্বীকৃত। যেকোন দেশে এই সার্টিফিকেট একই মর্যাদায় মূল্যায়িত হবে।
*** সিসকো সার্টিফাইড হলে, যেকোন নেটওয়ার্কিং রিলেটেড চাকরিতে অগ্রাধিকার পাওয়া যায়।

এরপরের পোস্ট গুলো থেকে আমরা সিসকো ভেন্ডোর এর সিসিএনএ এর সিলেবাসে অন্তুর্ভূক্ত বিভিন্ন টপিক্সগুলো নিয়ে বিস্তারিতভাবে জানা শুরু করবো এবং ইউটিউবের সহায়তায় প্রয়োজনে বিভিন্ন প্রাকটিক্যাল করে বাস্তব জ্ঞান অর্জন এর চেষ্টা করে যাব ইনশাআল্লাহ।

মন্তব্য ৮ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (৮) মন্তব্য লিখুন

১| ১২ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ৩:০২

স্বপ্নের শঙ্খচিল বলেছেন: সিসকো সার্টিফাইড হলে, যেকোন চাকরিতে অগ্রাধিকার পাওয়া যায়।
...................................................................................................
এখনও কি এটাই ভালো ষ্ট্যান্ডার্ড ?

১২ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ৩:০৭

শিহাবআহমেদ বলেছেন: দুঃখিত জনাব, কথাটা হতো ”সিসকো সার্টিফাইড হলে যেকোন নেটওয়ার্কিং রিলেটেড চাকরিতে অগ্রাধীকার পাওয়া যায়" :)

২| ১২ ই অক্টোবর, ২০১৮ দুপুর ১২:৫৯

রাকু হাসান বলেছেন:



এ সেক্টরটা বিপুল সম্ভবনাময় বাংলাদেশ সহ সারা বিশ্বে । ধন্যবাদ লেখার জন্য ।

১২ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৩:২৮

শিহাবআহমেদ বলেছেন: মতামত লিখে অনুপ্রেরণা যোগানোর জন্য কৃতজ্ঞতা :)

৩| ১২ ই অক্টোবর, ২০১৮ দুপুর ২:৩১

রাজীব নুর বলেছেন: এই সেক্টরে চাকরির অভাব হবে না।

১২ ই অক্টোবর, ২০১৮ বিকাল ৩:৩১

শিহাবআহমেদ বলেছেন: কোর্স সিলেবাস সম্পূর্ণ রুপে আয়ত্তে আনতে পারলে, এ কথা সত্য বলে অনুমেয় হতে পার

মতামত লেখার জন্য ধন্যবাদ :)

৪| ১৪ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ১২:৪৫

ফারিহা হোসেন প্রভা বলেছেন: বাহ! আপনার ধারণাগুলো মারাত্তক!

১৪ ই অক্টোবর, ২০১৮ রাত ২:১৩

শিহাবআহমেদ বলেছেন: মতামত লেখার জন্য ধন্যবাদ :)

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.