নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

লেমুয়া,ফেনী ।

নেওয়াজ আলি

হে পরমেশ্বর,এই নশ্বর নিখিল সৃষ্টিতে রেখো না ওই মানুষ যার ভিতর নরত্বের অভিনিবেশ নাই ।

নেওয়াজ আলি › বিস্তারিত পোস্টঃ

ঝাড়ফুঁকের নামে নারীদের ধর্ষণ করতেন মাদ্রাসার ভাইস প্রিন্সিপাল ।

১৪ ই জুলাই, ২০২০ দুপুর ২:৪৪


  উনি এক মাদ্রাসার ভাইস প্রিন্সিপাল। এই কাঠমৌল্লার বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ করেছেন এক গৃহবধু। এর আগেও এই মৌল্লা ঝাড়ফুঁকের নামে একাধিক নারীকে ধর্ষণ করেছেন। কিন্তু লোক লজ্জার ভয়ে তারা ছিলেন নিরব। তবে এবারের ঘটনা প্রকাশ পেলে একে একে মুখ খুলতে শুরু করেন অনেকেই।


মাদ্রাসার দোতালার একটি কক্ষ ব্যবহার করে ভাইস প্রিন্সিপাল মাওলানা ইউসুফ সিদ্দিকী দীর্ঘদিন ধরে তাবিজ-কবজ আর ঝাড়ফুঁকের নামে নারীদের তার লালসার শিকার বানিয়ে আসছেন। গত ৪ জুলাই এক নারী ইউসুফ সিদ্দিকীর কাছে তাবিজের জন্য গেলে কৌশলে তার শ্বশুর-শাশুড়িকে আরেক কক্ষে পাঠিয়ে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা চালান তিনি। সেখান থেকে বের হয়ে ভুক্তভোগী নারী তার স্বজনদের জানান। ।ঘটনা সবাই জানার পর বিভিন্ন সময় যে সব নারী এমন আচরণের শিকার হয়ে লোকলজ্জায় বলেননি তারা এখন মুখ খুলতে শুরু করেন। এতে ক্ষোভে ফুঁসে উঠে এলাকাবাসী। অবস্থা বেগতিক দেখে দোষ স্বীকার এবং ক্ষমা চেয়ে এই মাওলানা স্থানীয় কিছু প্রভাবশালীকে মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে এ ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করেন।


কোনো ব্যক্তির অপকর্মের দায়ভার প্রতিষ্ঠান নেবে না বলে জানান মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা নুরুল আমিন। এই ঘটনায় বুঝা যায় আমাদের সমাজ এখনো কত পিছিয়ে আছে। বর্তমান সময়ও গ্রামের নারী ঝাড়ফুঁকের উপর বিশ্বাস করে এইসব হায়েনাদের কাছে গিয়ে নিজের ইজ্জত হারাচ্ছে। এমন হাজারো ঘটনা মান সম্মানের ভয়ে প্রকাশ হচ্ছে না। একদিকে সাহেদ , আরিফ , ডাঃ সাবরিনার নগ্ন থাবা আরেক দিকে এইসব জানোয়ারের হিংস্র আচরণ কোথায় যাবে সাধারণ জনগণ ।

প্রকাশ হলেই কেউ সম্রাট,কেউ শাহেদ, কেউ পাপিয়া, আর ডাঃ সাবরীনা । কেউ মাওলানা সিরাজ ও কেউ মাওলানা ইউছুপ সিদ্দিক প্রকাশ না হলে সবাই জননেতা জনদরদী , পীর কিংবা আউলিয়া । এই মুখোশধারী তাবিজ বিক্রেতা মাদ্রাসা শিক্ষকের মরণই কাম্য।

(যখন দেখবে শিক্ষক আর চিকিৎসক অপকর্মে জড়িয়ে পড়েছে,তখন ধরে নিও সমাজ অধঃপতনের চূড়ান্ত সীমায় পৌঁছে গেছে।)
ইমাম গাজ্জালি ।

বিঃদ্রঃ ইউছুপ সিদ্দিক ফেনীর দাগনভূঁইয়ার ।

মন্তব্য ৫৩ টি রেটিং +৪/-০

মন্তব্য (৫৩) মন্তব্য লিখুন

১| ১৪ ই জুলাই, ২০২০ দুপুর ২:৫৮

আলমগীর সরকার লিটন বলেছেন: খুব দুঃখজনক এভাবেই যদি হতে থাকে তাহলে ভবিষ্যৎ কি হবে

১৪ ই জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:৪২

নেওয়াজ আলি বলেছেন: পরিবার নিয়ে বাস করা কঠিন হয়ে পড়ছে । দাদা।

২| ১৪ ই জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:০৪

নীল প্রজাপ্রতি বলেছেন: আমরা এখন অসুস্থ সমাজে বসবাস করছি।

১৪ ই জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:৪৪

নেওয়াজ আলি বলেছেন: সব অন্ধকার হয়ে আসছে

৩| ১৪ ই জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:১৫

আকন বিডি বলেছেন: বিচারে দীর্ঘসূত্রতা অপকর্মে সহায়ক। যারা এই অপকর্ম করে তারা ক্ষমতার কাছে থাকে। বিচারকে প্রলম্বিত করা ডাল ভাত। আবার অপকর্ম। একটা দুষ্টচক্র। যা প্রতিনিয়ত ঘটছে। আর আমরা নিরবে তা অবলকন করে নির্লিপ্ত থাকি।

১৪ ই জুলাই, ২০২০ বিকাল ৪:১৭

নেওয়াজ আলি বলেছেন: মনে হচ্ছে দিন দিন তলিয়ে যাচ্ছি আমরা ।

৪| ১৪ ই জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:৩৩

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: এদের জন্য রজমের শাস্তিই উপযুক্ত!

দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়া হোক প্রকাশ্যে

১৪ ই জুলাই, ২০২০ বিকাল ৪:১৯

নেওয়াজ আলি বলেছেন: মনে হচ্ছে দিন দিন তলিয়ে যাচ্ছি আমরা ।

৫| ১৪ ই জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:৩৮

করুণাধারা বলেছেন: বিচারহীনতার সংস্কৃতির কারণেই বারবার এই ধরণের ঘটনা ঘটছে। নুসরাতের ধর্ষক ও খুনীর কী হলো?

আপনি লেখার সাথে খবরের লিঙ্ক দিলে ভালো হতো।

১৪ ই জুলাই, ২০২০ বিকাল ৪:২১

নেওয়াজ আলি বলেছেন: এই জানোয়ারদের জন্য পরিবার-পরিজন নিয়ে বসবাস মুশকিল হয়ে যাচ্ছে। আমার এলাকার ঘটনা।

৬| ১৪ ই জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:৪৫

রাজীব নুর বলেছেন: অত্যন্ত দুঃখজনক।
এসব ঘটনায় আমার বমি পায়।

১৪ ই জুলাই, ২০২০ রাত ১০:৩২

নেওয়াজ আলি বলেছেন: জানোয়ারদের কাজই নোংরা।

৭| ১৪ ই জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:৫৬

টুরিস্ট আশরাফুল বলেছেন: অসুস্থ সমাজে আছি

১৫ ই জুলাই, ২০২০ রাত ১২:০৭

নেওয়াজ আলি বলেছেন: দিন দিন অসুস্থ লোকের সংখ্যা বাড়ছে

৮| ১৪ ই জুলাই, ২০২০ বিকাল ৪:২৮

নূর মোহাম্মদ নূরু বলেছেন:
ফেনীর দাগনভূঞা উপজেলার ইয়াকুবপুরে ইছাহাকিয়া মাদ্রাসার ভাইস প্রিন্সিপাল
মাওলানা ইউসুফ সিদ্দিকীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত রবিবার (১২ জুলাই) রাতে
ইয়াকুবপুর ইউপির দুধমুখা এলাকার নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
পরে তাকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়। গ্রেফতারের আগে এ হুজুর স্থানীয় কিছু
প্রভাবশালীকে মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করেন।
দাগনভূঞা থানার ওসি আসলাম সিকদার জানান, ইছাহাকীয়া মাদ্রাসার ভাইস প্রিন্সিপাল
ইউসুফ সিদ্দিকীকে ঝাড়ফুঁকের নামে নারীদের শ্লীতাহানির অভিযোগে তাকে আদালতের
মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

১৫ ই জুলাই, ২০২০ রাত ১২:১৩

নেওয়াজ আলি বলেছেন: আমার বাড়ির পাশে এই ঘটনা। পুলিশ গ্রেফতার প্রথম করতে চায়নি । কিছু লোক সমাধান করতে চেয়েছে। পরে জনমতের চাপে পড়ে সবাই তার কাছ দুরে সরে যায় এবং পুলিশও ধরে নিয়ে যায়। ফেনীর সব নিউজে এই খবর আছে ।

৯| ১৪ ই জুলাই, ২০২০ বিকাল ৪:৩৩

পগলা জগাই বলেছেন: এখনো মানুষ বোকা আছে বলেই এরা টিকে আছে।

১৫ ই জুলাই, ২০২০ রাত ১২:১৪

নেওয়াজ আলি বলেছেন: এখনো মানুষ পানি পড়া খায় । তাবিজ চায়।

১০| ১৪ ই জুলাই, ২০২০ বিকাল ৪:৪১

ঢুকিচেপা বলেছেন: কি সুন্দর চেহারার মানুষ।

১৫ ই জুলাই, ২০২০ রাত ১২:১৫

নেওয়াজ আলি বলেছেন: তাবিজ বেঁচে

১১| ১৪ ই জুলাই, ২০২০ বিকাল ৪:৪৭

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: হুজুররা তো এমনি হয়।

১২| ১৪ ই জুলাই, ২০২০ বিকাল ৫:২৪

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: বাংলাদেশে হুজুর হচ্ছে সব চেয়ে সম্মানিত ব্যক্তি । অথচ তারা এই সম্মানিত পদবী ব্যবহার করে ব্যবহার করে আজে বাজে কাজ করে বেড়াচ্ছে।

১৫ ই জুলাই, ২০২০ রাত ১২:২৭

নেওয়াজ আলি বলেছেন: কিছু হুজুর আছে মারত্মক লুচ্ছা । এদের কাছে তাদের পরিবারও অসহায় ।

১৩| ১৪ ই জুলাই, ২০২০ বিকাল ৫:৪৫

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: ইসলাম ধর্মের সবচেয়ে ক্ষতি করছে এরা। নিজেদের আলেম পরিচয় দেয় আর এইসব খারাপ কাজ করে।

১৫ ই জুলাই, ২০২০ রাত ১২:২৮

নেওয়াজ আলি বলেছেন: এইসব ভন্ড ও লুচ্ছার কারণে নাস্তিক ও বিধর্মী সুযোগ পায়

১৪| ১৪ ই জুলাই, ২০২০ বিকাল ৫:৫৭

সাইন বোর্ড বলেছেন: অনেক দিন থেকেই দেশে ধর্ষণের মহা উৎসব চলছে, সমস্যা হইল এই সমস্ত দাড়ি-টুপিওয়ালা লোকগুলো করলে সেইটা বেশি হাইলাইট হয়, কারণ এদের কাছ থেকে মানুষ এইটা একদমই আশা করে না ।

১৫ ই জুলাই, ২০২০ রাত ১২:৩০

নেওয়াজ আলি বলেছেন: এইসব ভন্ড ও লুচ্ছার কারণে নাস্তিক ও বিধর্মী সুযোগ পায় । একদম মনের কথা । এদের সবাই সম্মানও করে বেশী ।

১৫| ১৪ ই জুলাই, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:১০

মোহাম্মাদ আব্দুলহাক বলেছেন: সকল সচতেন হতে হবে। শিশুদেরকে পড়তে দিলে ধারে পাশে থাকা উচিৎ। নিরাপত্তা নিজে নিশ্চিত করতে হয়।

১৫ ই জুলাই, ২০২০ রাত ১২:৪৩

নেওয়াজ আলি বলেছেন: আমার মেয়েরা বাসায় মায়ের কাছে আরবী পড়ে

১৬| ১৪ ই জুলাই, ২০২০ রাত ৮:৩৭

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: এ যে দেখি আরেক সিরাজ মোল্লা।

১৫ ই জুলাই, ২০২০ রাত ১২:৪৪

নেওয়াজ আলি বলেছেন: ঠিক বলেছেন ।

১৭| ১৪ ই জুলাই, ২০২০ রাত ৯:৫৯

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:




এই নারী তাবিজ দিয়ে কি করবেন?

১৫ ই জুলাই, ২০২০ রাত ১২:৪৬

নেওয়াজ আলি বলেছেন: গা বন্ধের তাবিজ আছে বলে। কারণ মহিলাটার সন্তান নষ্ট হয়ে যায় তাই।

১৮| ১৪ ই জুলাই, ২০২০ রাত ১০:০৭

নুরুলইসলা০৬০৪ বলেছেন: আমি বলছি ৫২/৫৩ সালের কথা।তখন আমি ছোট,মসজিদে হুজুরের কাছে আরবি পড়তে যেতাম।প্রায়ই আমাদের সকলকে ছুটি দিয়ে দিত কিন্ত আমাদের থেকে বড় একটি মেয়েকে রেখে দিত কিসব কাজ করানোর জন্য।কিছু দিন পর শুনি হুজুরকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে কি সব খারাপ কাজের জন্য।হয়ত তারও অনেক আগে থেকেই এই সব চলে আসছে।
তবে কিছুটা কমিয়ে আনাযায় যদি মসজিদ,মাদ্রাসা বা মক্তবের পাশে হুজুরদের পরিবার সহ থাকার ব্যবস্থা করা যায়।

১৬ ই জুলাই, ২০২০ রাত ১২:৩৮

নেওয়াজ আলি বলেছেন: এখন আগের চেয়ে আরো বেশী অমানবিক হয়ে পড়েছে মানুষ। তারা ধর্ম জ্ঞান সম্পূর্ণ মানুষ আমরা তাদের গভীর সম্মান করি আর তারা আমাদের আঘাত করে মেনে নেয়া কষ্টকর

১৯| ১৫ ই জুলাই, ২০২০ রাত ১২:৩৫

নতুন বলেছেন: সমাজে এখনো মানুষ ঝাড়ফুকের জন্য হুজুর দের কাছে যায় কেন?

সমাজে কুসংস্কার কমানোর জন্য ধমের জ্ঞানী ব্যক্তিরা সবাইকে সচেতন করে না কেন?

ডিমপড়া, পানি পড়া, তেল পড়া নিতে গিয়ে এমন নির্যাতনের কাহিনি অনেক পুরানো। এর বিরুদ্ধে মসজিদে আলোচনা কেন হয় না?

কেন মাদ্রাসার ছেলেদের বলতকারের কাহিনি এতো বেশি শোনা যায় কিন্তু এর প্রতিকারের জন্য ওয়াজ, বয়ান শোনা যায় না।

এমন কোন কিছুই ইসলাম সমর্থন করেনা। কিন্তু ধম`গুরুদের নিরব কেন থাকে সেটাই বুঝি না।

১৬ ই জুলাই, ২০২০ রাত ১২:৪০

নেওয়াজ আলি বলেছেন: যে যাই বলুক আমরা এখনো বিশ্ব হতে পিছিয়ে আছি। সবাই স্বার্থপর নিজের রুজিরুটিতে আঘাত করতে চায় না

২০| ১৫ ই জুলাই, ২০২০ রাত ১:৩০

নূর আলম হিরণ বলেছেন: রাষ্ট্রপতির এলাকায় পানি পড়া নেওয়ার জন্য মানুষ সিরিয়াল ধরে, তাহলে বাকি এলাকায় এমন অবস্থা হওয়াই স্বাভাবিক ঘটনা। মানুষ সঠিক ভাবে শিক্ষা পাচ্ছে না এগুলো তারই বহিঃপ্রকাশ।

১৬ ই জুলাই, ২০২০ রাত ১২:৪১

নেওয়াজ আলি বলেছেন: যে যাই বলুক আমরা এখনো বিশ্ব হতে পিছিয়ে আছি।

২১| ১৫ ই জুলাই, ২০২০ সকাল ১১:১৪

ফয়সাল রকি বলেছেন: আমরা খুবই দুর্ভাগ্যবান জাতি।

১৬ ই জুলাই, ২০২০ রাত ১২:৪২

নেওয়াজ আলি বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকে

২২| ১৫ ই জুলাই, ২০২০ সকাল ১১:২২

বিএম বরকতউল্লাহ বলেছেন: তথ্যবহুল লেখাটি পড়ে ভাল লাগল। আমার শুভেচ্ছা নিন।

১৬ ই জুলাই, ২০২০ রাত ১২:৪৩

নেওয়াজ আলি বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকে

২৩| ১৫ ই জুলাই, ২০২০ সকাল ১১:৩৭

কাছের-মানুষ বলেছেন: দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়া হোক। কোন লোকাল অনলাইন সংবাদের নিংক থাকলে দিতে পারতেন তাহলে এই লেখার গ্রহনযোগ্যতা আরো বৃদ্ধি পেত।

১৬ ই জুলাই, ২০২০ রাত ৯:১৩

নেওয়াজ আলি বলেছেন: শুভেচ্ছা ও শুভ কামনা । ভালো থাকুন।

২৪| ১৫ ই জুলাই, ২০২০ দুপুর ১২:২২

ভুয়া মফিজ বলেছেন: ওরে উল্টা কইরা বাইন্ধা চিকন জালি বেত দিয়া বিশেষ জায়গায় বেতানো দরকার প্রথমে!! পরেরটা পরে হবে!!! X(

১৮ ই জুলাই, ২০২০ রাত ১২:১৩

নেওয়াজ আলি বলেছেন: ঠিক বলেছেন। সমাজের কলুষিত করছে এরা

২৫| ১৫ ই জুলাই, ২০২০ দুপুর ১:২৮

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন: ইমাম গাজ্জাল িঠিক বলেছেন। সমাজে অধপতন শুরু হেয়ছে।

১৮ ই জুলাই, ২০২০ রাত ১২:১৩

নেওয়াজ আলি বলেছেন: সমাজের কলুষিত করছে এরা

২৬| ১৫ ই জুলাই, ২০২০ দুপুর ১:৩৯

রাজীব নুর বলেছেন: লেখক বলেছেন: জানোয়ারদের কাজই নোংরা।

যুগ যুগ ধরে কিন্তু এরমনটাই হচ্ছে। স্থায়ী কোনো সমাধান নেই।

২৭| ১৫ ই জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:৪৪

তারেক ফাহিম বলেছেন: এদের জন্য প্রকৃত আলেমদের বদনাম হচ্ছে, দাঁড়ি-টুপির অপমান হচ্ছে।


পোস্টের সাথে খবরের লিংক থাকলে ভালো হত।

২৮| ১৫ ই জুলাই, ২০২০ বিকাল ৩:৫৯

নতুন নকিব বলেছেন:



এরকম দু'চারটাকে প্রকাশ্য দিবালোকে রাষ্ট্রীয় আয়োজনে খোলা মাঠে নিয়ে গিয়ে দৃষ্টান্তমূলক বিচার করা হলে বাকিগুলো এমনিতেই সোজা হয়ে যেত। কিছু কিছু গুরুতর অপরাধ দমনে ইসলামের শাস্তি বিধানের কঠোরতা এই কারণেই। এসব বললে তো আবার এক শ্রেণি আছেন যারা নাকি কান্নায় বুক ভাসিয়ে দেন। নাকের পানি চোখের পানি একাকার করেন। বিষোদগারের ধূম্র উড়িয়ে আকাশ-বাতাস অন্ধকারে ঢেকে দেন। ইসলাম ধর্মের নামে রব তোলেন যে, ধর্ষন ইত্যাদি অপরাধের শাস্তি প্রদানের ক্ষেত্রে ইসলাম বর্বর আইন করেছে! আদিম আইন করেছে! মানবতার জন্য তখন তাদের আহাজারি দর্শন উপভোগ্য হয়ে ওঠে! আসলেই, তাদের উদ্দেশ্য নিয়েও তখন প্রশ্ন জাগে।

তারা হয়তো এটা বুঝতে চান না যে, মুখোশের আড়ালে লুকিয়ে থাকা দুর্বৃত্তদের সোজা করার জন্য কোন ধরণের আইন আর কোন স্টাইলের শাস্তি প্রয়োজন সৃষ্টিকর্তা আল্লাহ পাকের চেয়ে বেশি ভালো আর কেউ জানেন না। অথবা, তারা মুখে যত সুন্দর সুন্দর বুলিই আওড়ান না কেন, অন্তরে তাদের ভিন্ন বাসনা, আদৌ তারা কামনাই করেন না যে, সমাজের রন্ধ্রে রন্ধ্রে ছড়িয়ে পড়া এইজাতীয় অপরাধগুলো বন্ধ হোক।

পোস্টের জন্য ধন্যবাদ।

২৯| ১৬ ই জুলাই, ২০২০ রাত ৯:৩১

মুজিব রহমান বলেছেন: কেউ এমন ঘটনা ঘটিয়ে ফেললে বাকিদের দায়িত্ব পরে ‘গোপন করো’ ‘গোপন করো’ জিকির উঠাতে। সবাই ব্যস্ত হয়ে পড়ে গোপন করতে। ওদের অপকর্মের বিচার সচরাচর হয় না বলেই বন্ধও হয় না।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.